Slideshows

http://bostonbanglanews.com/index.php/components/com_gk3_photoslide/components/com_gk3_photoslide/components/com_gk3_photoslide/thumbs_big/605744Finding_Immigrant____SaKiL___0.jpg

কুইন্স ফ্যামিলি কোর্টে অভিবাসী

হাকিকুল ইসলাম খোকন/বাপ্‌স নিউজ/প্রবাসী নিউজ ঃ বষ্টনবাংলা নিউজ ঃ দ্যা ইন্টারফেইস সেন্টার অব নিউইয়র্ক ও আইনী সহায়তা সংগঠন নিউইয়র্ক এর উদ্যোগে গত ২৪ অক্টোবর বৃহস্পতিবার সকাল ৯ See details

ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার

পরিচালনা পরিষদ 

সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি

ওসমান গনি
 

প্রধান সম্পাদক

হাকিকুল ইসলাম খোকন
 

সম্পাদক

সুহাস বড়ুয়া হাসু
 

সহযোগী সম্পাদক

আয়েশা আকতার রুবী

মানবজাতির মঙ্গল কামনায় বড়দিন উদযাপন করেছে বেথেল ব্যাপ্টিষ্ট চার্চ নিউইয়র্ক

বৃহস্পতিবার, ২৮ ডিসেম্বর ২০১৭

হাকিকুল ইসলাম খোকন ,বাপসনিউজ: যথাযথ ধর্মীয় আচার , মানবজাতির মঙ্গল কামনায় আনন্দ -উদ্দীপনা আর বর্নিল আয়োজনে সামবার উদযাপিত হয়েছে খিষ্ট ধর্মাবল্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব বড়দিন। এই দিনে খ্রিস্টধর্মের প্রবর্তক যিশুখ্রিস্ট বেথলেহেমে জন্মগ্রহণ করেছিলেন। খ্রিস্টধর্মাবলম্বীরা বিশ্বাস করেন, সৃষ্টিকর্তার মহিমা প্রচার এবং মানবজাতিকে সত্য ও ন্যায়ের পথে পরিচালিত করতে প্রভু যিশুর এই ধরায় আগমন ঘটেছিল।

alt
বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশেও বড়দিন উপলক্ষে বিভিন্ন অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। গির্জাগুলোতে রাত ১২টা ১ মিনিট থেকে পালন করা হয় এই উৎসব। গির্জাগুলোতে রাতেই প্রার্থনার আয়োজন করা হয়। যিশু খ্রিস্টের আগমনের এ দিনকে ঘিরে চলে রাতের প্রার্থনা। বেথেল ব্যাপ্টিস্ট চার্চ বর্ণিল সাজে সাজানো হয়। চার্চগুলোতেও খ্রিস্টান ধর্মাবলম্বীরা উত্সাহ-উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে দিনটি উদযাপন করছেন। খ্রিস্টজাগ (প্রার্থনা) ছাড়াও ছিল কীর্তন, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

alt

বর্ণিল আলোকসজ্জায় সাজানো হয়েছে বড় দিনের ক্রিসমাস ট্রি, প্রতীকী গোশালা, গির্জার পাশে স্বজনদের সমাধি ফুলে ফুলে ঢেকে দেয়া হয়। গির্জাগুলোর প্রবেশপথে শুভেচ্ছা কার্ডসহ উপহারসামগ্রী বিক্রির দোকান বসেছে।

alt
বড়দিন উপলক্ষ্যে নিউইয়র্কে বাঙ্গালীদের অন্যতম বেথেল ব্যাপ্টিষ্ট চার্চ নিউইয়র্ক বিভিন্ন অনুষ্টানের আয়োজন করে ।৭২-০১, ৪৩ এভিনিউ,উডসাইড নিউইয়র্কের বেথেল ব্যাপ্টিষ্ট চার্চে গত ২৫ ডিসেম্বর সোমবার সকাল সাড়ে ১১টায় বিশেষ বক্তব্য রাখেন। উদোধনী প্রার্থনা করেন শিলা বিশ^াস ।

alt

ক্রিসমাচের উপর বিশেষ আলোকপাত করেন ড. টমাস দুলু রায়,ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন ড. রাসেল বিশ^াস, ওয়ার - সঙ্গীত শুন্য সুরংগ.দুতার রব।

alt
বড়দিনের প্রার্থনা ও অভিবাদন জানান রেভারেন্ড ও পেষ্টোর লিটন অধিকারী । বিশেষ সঙ্গীত ও বড়দিনের সঙ্গীত করেন মুক্তি বরতা নিয়া, মানু, তোরজু,মায়া মন্ডল,লিয়া ,সাবরিনা , জেসম, রতœা, ডিপ জুলি, মাহমুদা রহমান, প্রমুখ । বিশেষ প্রার্থনা করেন রাসেল ও শিল্পী ইসলাম পিটার এস ম্যাক ফিল্ড।

alt
বড়দিনের তাৎপর্যপূর্ন বক্তব্য রাখেন রেভারেল্ড ও পেষ্টর লিটন অধিকারী , দিপিকা দাস। আয়োজকদের পক্ষ্য থেকে বিশেষ আলোকপাত করেন মাইক্যাল মাধু, নিলিমা, মিজান , হালিম , মনসুর রহমান, শাওন প্রমুখ। প্রার্থণা করেন পাষ্টর মার্টিন ব্যারল,বড় দিনের বিশেষ সংগীত পরিবেশন করেন মায়া মন্ডল,শিলা বিশ^াস,আর্ণল্ড বিশ^াস,প্রার্থনা করেন শিল্পী,যমুনা চক্রবর্তী, যুহানা বিশ^াস, নিলীমা বিনতে অন্তরা হালদার, শ্যামল হালদার সহযোগীতায় মাইকেল মধু, নীলিমা, শ্যামল, মঞ্জু, ক্রিষ্টফার, বেবী, শাবানী,মায়া মন্ডল, দরুথী, লিয়া, অন্তরা, শিলা, আর্ণল্ড মুনমুন, মঞ্জু, শ্যামলী, রতœা, জেমস, প্রকৃতি।

alt
অতিথিদের মাঝে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ সোসাইটির সভাপতি কামাল আহমেদ, অতিথিদের মাঝে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ সোসাইটির সাধারণ সম্পাদক একেএম রুহুল আমীন ও আমেরিকান প্রেসক্লাব অব বাংলাদেশ অরিজিন-এর সভাপতি সিনিয়র সাংবাদিক হাকিকুল ইসলাম খোকনসহ প্রবাসের বিভিন্ন সামাজিক সাংস্কৃতিক ও রাজনৈতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ, শিল্পী ,সাহিত্যিক, সাংবাদিক, লেখক, কবি এবং বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ রেভারেল্ড ও পেষ্টর লিটন অধিকারী আমন্ত্রিত অতিথিদের বিশেষভাবে ধন্যবাদ জানান।সান্ডখøজ উপস্থিত সবাইকে উপহার বিতরণ করেন। রকমারী আয়োজনে মধ্যাহ্ন ভোজে আপ্যায়ন করা হয়। ছোট মনি জেমিমার জন্মদিনের কেককাটা হয়।

alt
বড়দিনের তাৎপর্যপূর্ন বক্তব্য রেভারেল্ড ও পেষ্টর লিটন অধিকারী এক শুভেচ্ছা বাণীতে বলেন, “শুভ বড়দিন উপলক্ষে আমরা বাংলাদেশ সহ বিশ্বের সব খৃস্ট ধর্মাবলম্বীকে জানাই আন্তরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন। তাদের সুখ, শান্তি ও সমৃদ্ধি কামনা করি। সত্য-ন্যায়ের পথ প্রদর্শক যীশুখৃস্ট এদিনে জন্মগ্রহণ করেন। খৃস্ট ধর্মাবলম্বীর কাছে তাই এ দিনটি অত্যন্ত মহিমান্বিত ও মর্যাদাপূর্ণ। সব ধর্মের মর্মবাণী শান্তি ও মানবকল্যাণ। যুগে যুগে মহামানবরা মানুষের সৎ পথে চলার দিশারী হয়েছিলেন। মানুষকে অনুপ্রাণিত করেছিলেন ন্যায় ও কল্যাণের পথে। মহান যীশুখৃস্টও একইভাবে তাদের অনুসারীদের সৎকর্ম ও ন্যায় প্রতিষ্ঠায় উদ্বুদ্ধ করে গেছেন।তিনি আরো বলেন, “শুভ বড় দিন একটি সার্বজনীন ধর্মীয় উৎসব। আর প্রতিটি ধর্মীয় উৎসবের অন্তর্লোক হচ্ছে সম্প্রীতি, সহাবস্থান ও শুভেচ্ছ। মানুষ হিসেবে আমাদের কর্তব্য- দেশ, সমাজ ও মানুষের কল্যাণে যার যার অবস্থান থেকে কাজ করে যাওয়া, হিংসা-বিদ্বেষ পরিহার হরে সমাজে শান্তি প্রতিষ্ঠা এবং সব ধরনের অন্যায় অবিচার প্রতিরোধে ব্রতী হওয়া।”

alt
শেষ রকমারী মজাদার আয়োজনে মধ্যাহ্ন ভোজে আপ্যায়ন করা হয় অতিথি ও অভ্যাগতদের ।দিনটি উপলক্ষে অনেক খ্রিস্টান পরিবারে কেক তৈরি ও বিশেষ খাবারের আয়োজন করা হয়। আত্মীয়স্বজনের বাড়িতে বেড়াতে যাওয়ার জন্য অনেকে বড়দিনকে বেছে নেন।বড়দিন উপলক্ষে অনেক জায়গায় আয়োজন করা হয়েছে প্রীতিভোজের। এদিন সরকারি ছুটি ছিল। টেলিভিশন চ্যানেল ও রেডিও স্টেশনগুলো বড়দিন উপলক্ষে নানা অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে। সংবাদপত্র এবং অনলাইনে বিশেষ নিবন্ধে দিনটির তাত্পর্য তুলে ধরা হচ্ছে।

alt
রাতে কেক কাটা ও প্রার্থনার পর সকালে আবারো গির্জায় একত্রিত হন খ্রিস্টান ধর্মাবলম্বীরা। সকালের প্রার্থনার পর বাড়িতে ফিরে ছোটরা বড়দের আশীর্বাদ নেয়। শিশুদের মধ্যে বড়দিনের বাড়তি আমেজ ছড়িয়ে দিতে গির্জায় গির্জায় প্রধান ফটকেই সান্ডাক্লজ শিশু-কিশোরদের জন্য বিশেষ উপহার নিয়ে দাঁড়িয়েছিলেন। শিশু-কিশোররা চকোলেট, ক্যান্ডি পাওয়ার পাশাপাশি শান্ডাক্লজকে পেয়ে বাড়তি আনন্দ পায়। রেভারেন্ড ও পেষ্টোর লিটন অধিকারী পুণ্যার্থীদের মধ্যে মিষ্টি খাবার বিতরণ করেন। তিনি বাণী পাঠ ও বিশ্লেষণ করে শোনান পুণ্যার্থীদের। তিনি বিশ্বে শান্তি প্রতিষ্ঠায় সব মানুষকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান।


Add comment


Security code
Refresh