Slideshows

http://bostonbanglanews.com/index.php/components/com_jcomments/components/com_gk3_photoslide/thumbs_big/605744Finding_Immigrant____SaKiL___0.jpg

কুইন্স ফ্যামিলি কোর্টে অভিবাসী

হাকিকুল ইসলাম খোকন/বাপ্‌স নিউজ/প্রবাসী নিউজ ঃ বষ্টনবাংলা নিউজ ঃ দ্যা ইন্টারফেইস সেন্টার অব নিউইয়র্ক ও আইনী সহায়তা সংগঠন নিউইয়র্ক এর উদ্যোগে গত ২৪ অক্টোবর বৃহস্পতিবার সকাল ৯ See details

ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার

পরিচালনা পরিষদ 

সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি

ওসমান গনি
 

প্রধান সম্পাদক

হাকিকুল ইসলাম খোকন
 

সম্পাদক

সুহাস বড়ুয়া হাসু
 

সহযোগী সম্পাদক

আয়েশা আকতার রুবী

প্রবাসীদের খবর

ব্রিটেনে বাংলাদেশি কিশোরীর চমক!

বুধবার, ২৯ নভেম্বর ২০১৭

বাপ্ নিউজ : ১৯৯০ এর দশকে বাবা-মা বাংলাদেশ থেকে আসেন যুক্তরাজ্যে। বাড়িতে সবসময় বলা হয় বাংলা। সবার সামনে দাঁড়িয়ে কথা বলাতেও স্কুল পড়ুয়া মেয়েটির ভয়। অথচ এই মেয়েটিই কিনা ব্রিটেনের নামীদামী সব স্কুলের শিক্ষার্থীদের পিছনে ফেলে জিতে নিয়েছে বিতর্ক প্রতিযোগিতার সেরার পুরস্কার! সেলিনা বেগম নামের ১৬ বছর বয়সী এই মেয়েটির সাফল্যের খবর জানিয়েছে ডেইলি মেইল। এ লেভেল পড়ুয়া মেয়েটি ইটন কলেজের জাফর হলে অনুষ্ঠিত বিতর্ক প্রতিযোগিতায় ফাইনালে উঠে পুরস্কার ছিনিয়ে নেয়।

Picture

দুই শতাধিক শিক্ষার্থীকে পিছনে ফেলে ইটন কলেজের শরতকালীন আমন্ত্রিত উন্মুক্ত বিতর্ক প্রতিযোগিতার ফাইনালে উঠে যায় সেলিনা। নভেম্বরের শুরুতে অনুষি্ঠত এই প্রতিযোগিতার ছয় ফাইনালিস্টের একজন সে। সেলিনা ডেইলি মেইলকে বলেন, ‘সবার দৃষ্টি আমার ওপর ছিলো। কথা বলতে গিয়ে মনে হলো আমার গলা কাঁপছে। ভয় পাচ্ছিলাম খুব, কিন্তু বড় করে শ্বাস নিয়ে আমার মতো করে শুরু করলাম। মানুষের চোখ খুঁজে নিয়ে তাদেরকে সম্পৃক্ত করেই আমার যুক্তি তুলে ধরছিলাম।’

বিতর্কের ডায়াসে সেলিনা বেগম। সংগৃহীত ছবি
বিতর্কের ডায়াসে সেলিনা বেগম। সংগৃহীত ছবি

সেলিনা ওই প্রতিযোগিতায় যুক্তরাষ্ট্রের মৃত্যুদণ্ড বন্ধ করার পক্ষে যুক্তি তুলে ধরেছিলেন।

‘যখন শেষ করলাম ভাবিনি আবার আমাকে দাঁড়াতে হবে। কেননা এখানে যারা ছিলেন তারা প্রত্যেকেই ছিলেন মেধাবী। যার বক্তৃতা শুনছিলাম মনে হচ্ছিল সেই জিতে যাবে। তারা প্রায় সবাই একরকম ভাবেই বলছিলো,’ বলছিলেন সেলিনা।  

সেলিনা বলেন, ‘বিজয়ীদের নাম ঘোষণার সময় আমি হাত তালি দিচ্ছিলাম নিজের নাম বলা হয়েছে খেয়ালিই করিনি। পাশে বসে থাকা এক শিক্ষক ধাক্কা দিয়ে বললেন, তুমিই জিতেছো। আর আমি বললাম ওয়াও।’
আর আজ পূর্ব লন্ডনের নিউহ্যামে যেখানেই সেলিনার কথা উচ্চারিত হচ্ছে সেখানেই বলা হচ্ছে ওয়াও। যুক্তরাজ্যে বাবা-মা ছাড়াও তাদের সঙ্গে বাস করেন, ১৪ বছর বয়সী ছোট ভাই আর দাদী।
লন্ডনের দরিদ্র এলাকায় বাস করা অভিবাসী পরিবারের সেলিনা স্বপ্ন দেখেন অক্সফোর্ড বি্বিবিদ্যালয়ে ইতিহাস নিয়ে পড়ার। কাজ করতে চান আইনপেশায়।

িআরও ছোট বয়সে ভাইয়ের সঙ্গে সেলিনা। সংগৃহীত ছবি

আরও ছোট বয়সে ভাইয়ের সঙ্গে সেলিনা। সংগৃহীত ছবি

ওয়েস্টমিনিস্টার ও উইনচেস্টারের নামীদামী স্কুলের শিক্ষার্থীদের পেছনে ফেলে জিতে আসা সেলিনা এই বিজয়ের কৃতিত্ব দিতে চান স্কুলের ডিবেটিং সোসাইটির শিক্ষকদের।

বাংলাদেশের পূর্বাঞ্চলীয় সিলেট থেকে আসা বাবা-মায়ের সন্তান সেলিনা। সন্তানদের ভবিষ্যতের স্বপ্ন দেখা ছাড়া তাদের আর কিছুই অবশিষ্ট নেই। সেলিনার মায়ের সময় কাটে তার অসুস্থ বাবার দেখাশোনা করে। লাঠি ছাড়া হাঁটেতে পারেন না তার বাবা।


মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশ প্রদর্শনী

বুধবার, ২৯ নভেম্বর ২০১৭

বাপ্ নিউজ : মালয়েশিয়ার মুতিয়ারা ইন্টারন্যাশনাল গ্রামার স্কুলে বাংলাদেশ এবং বাংলাদেশি পণ্যের প্রদর্শনী শুরু হয়েছে। মঙ্গলবার দিনব্যাপী চলবে এ প্রদর্শনী।প্রদর্শনীতে বাংলাদেশের মানুষ, নগর, রাজধানী, পরিবেশ, আবহাওয়া ও জলবায়ু, প্রকৃতি, পোশাক, খাবার, সংস্কৃতি, পণ্য সম্পর্কে স্কুলের শিক্ষার্থীদের ধারণা দেয়া হয়। প্রদর্শনীতে বাংলাদেশ, ভারত, শ্রীলংকা, নেপাল, ভুটান ও মালদ্বীপসহ বিভিন্ন দেশের ক্ষুদে শিক্ষার্থীরা অংশ নেয়।

Picture

মেলায় আগত অভিভাবক, দর্শনার্থী ও শিক্ষার্থীদের মাঝে বাংলাদেশ সম্পর্কে বিভিন্ন তথ্য তুলে ধরা হয়। এ সময় বাংলাদেশের কৃষ্টি-কালচার নিয়ে অভিভাবক, দর্শনার্থী ও শিক্ষার্থীদের নির্ধারিত প্রশ্নের উত্তর দেন মিসেস দিলরুবা আক্তার, দিল আফরোজ নাহার ডলি এবং মিসেস লাকি আক্তার।এ ছাড়া প্রদর্শনীতে দেশীয় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও ফ্যাশন শো আয়োজন করা হয়। দিনব্যাপী এ প্রদর্শনী পরিদর্শন করেন বাংলাদেশ হাইকমিশনের মিনিস্টার রইস হাসান সারোয়ার এবং প্রথম সচিব (শ্রম) মো. হেদায়েতুল ইসলাম মন্ডল।উল্লেখ্য, মালয়েশিয়ার মুতিয়ারা ইন্টারন্যাশনাল গ্রামার স্কুল কর্তৃপক্ষ প্রতিবছরই এ প্রদর্শনীর আয়োজন করে।


১৮ বছর বয়সে ব্রিটেনের কাউন্সিলর হলেন বাংলাদেশি শরিফাহ

সোমবার, ২৭ নভেম্বর ২০১৭

Picture

তার এ বিজয়ে উৎফুল্ল সেখানকার বাঙালি কমিউনিটির লোকজন।শরিফাহ’র পৈত্রিক বাড়ি সুনামগঞ্জের বরমরা গ্রামে। জীবিকার তাগিদে বাবা লোকমান খান ব্রিটেনে পাড়ি জমিয়ে ছিলেন অনেক  আগেই। শরিফাহ’র জন্মও ব্রিটেনের ডালিংটন শহরে। বেড়ে ওঠাও সেখানে। সাত ভাইবোনের মধ্যে শরিফাহ সবার ছোট।

alt

৪৪ দশমিক ৮ শতাংশ ভোট পেয়ে রেড হল এবং লিংফিলড ওয়ার্ড নির্বাচিত হন তিনি। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী টোরি পার্টির জোনাথন ডালস্টন। অন্য প্রতিদ্বন্দ্বীরা হলেন- লিবারেল ডেমোক্রেটস দলের হ্যারি লংমুর (১১ ভোট), গ্রিন পার্টির মাইকেল ম্যাকটিমনি (২০ ভোট) এবং সাবেক ইউকিপ কর্মী স্বতন্ত্র প্রার্থী কেভিন ব্রা পেয়েছেন (৪৬ ভোট)।

alt

নির্বাচনে বিজয়ী হওয়ার পর সবচেয়ে কমবয়সী এই কাউন্সিলরকে অভিনন্দন জানিয়েছেন স্থানীয় এমপি জেনি চাপম্যান ও এন্ড্রু গাইন। ব্রিটেনে বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত প্রথম এমপি রোশনারা আলীর অভিনন্দন ও  প্রশংসায়ও ভেসেছেন শরিফাহ।মাত্র কয়েক মাস আগে শরিফাহ রহমান ‘এ’ লেভেল পরীক্ষায় ঈর্ষণীয় সাফল্য দেখিয়ে উর্ত্তীণ হন। এই সাফল্যের কয়েক মাসের মধ্যেই তিনি নির্বাচনে বিজয়ী হয়ে আরেক চমক দেখালেন।


রিয়াদে ৭ই মার্চের ঐতিহাসিক ভাষণ ঐতিহ্যের স্বীকৃতি পাওয়ায় আনন্দ শোভাযাত্রা ও আলোচনা সভা

সোমবার, ২৭ নভেম্বর ২০১৭

বাপ্ নিউজ : সৌদি আরব : জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সাতই মার্চের ঐতিহাসিক ভাষণ জাতিসংঘের ইউনেস্কোর বিশ্ব প্রামাণ্য ঐতিহ্যের স্বীকৃতি পাওয়ায় সৌদি আরবের রিয়াদে বাংলাদেশ দূতাবাসের উদ্যোগে আজ আনন্দ শোভাযাত্রা ও আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়।এ উপলক্ষে আয়োজিত সভায় স্থানীয় বাংলাদেশী কমিউনিটি নেতৃবৃন্দ, পেশাজীবী, শিক্ষক, চিকিৎসক, সাংবাদিক সহ বিপুল সংখ্যক প্রবাসী বাংলাদেশী অনুষ্ঠানে যোগদান করেন। অনুষ্ঠানের শুরুতে চার্জ দ্যা অ্যাফেয়ার্স ডঃ মোহাম্মদ নজরুল ইসলাম দূতাবাস প্রাঙ্গণে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করেন।

Picture

এ সময় দূতাবাসের কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।আলোচনা সভায় ডঃ নজরুল ইসলাম বলেন, বঙ্গবন্ধুর সাতই মার্চের ভাষণ বাঙ্গালী জাতিকে স্বাধীনতা ও মুক্তির সংগ্রামে ঝাঁপিয়ে পড়ার জন্য ঐক্যবদ্ধ করেছিল। এই ভাষণ যুগ যুগ ধরে বাঙ্গালী জাতিকে সমানভাবে উজ্জীবিত করে যাবে। তিনি নতুন প্রজন্মের কাছে এই ভাষণ ব্যাপকভাবে তুলে ধরার আহবান জানান। তিনি এসময় সাতই মার্চের ভাষণ কিভাবে বিশ্ব ঐতিহ্যের Memory of the World International Register এ অন্তর্ভুক্ত হল তার বিস্তারিত তুলে ধরেন।চার্জ দ্যা অ্যাফেয়ার্স ডঃ নজরুল ইসলাম বলেন, বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়ার লক্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ দূর্বার গতিতে এগিয়ে যাচ্ছে। তাই আজ পদ্মা সেতুর মত বিশাল বাজেটের কাজ আমাদের নিজস্ব অর্থায়নে করা সম্ভব হচ্ছে। তিনি প্রবাসীদের যার যার জায়গা থেকে দেশের জন্য কাজ করে যাওয়ার আহবান জানান।

alt

আলোচনা সভায় প্রবাসী বাংলাদেশীরা সাতই মার্চের ভাষণকে বাঙালি জাতির মুক্তির সনদ বলে উল্লেখ করেন। এ ভাষণ ইউনেস্কোর স্বীকৃত লাভ করায় তা জাতির জন্য অত্যন্ত আনন্দের বিষয় বলে জানান। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর সাতই মার্চের ভাষণ আরবি ভাষায় অনুবাদ করে মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোতে প্রচারের উদ্যোগ নেয়ার দাবী জানান প্রবাসীরা।আলোচনা সভার শুরুতে বঙ্গবন্ধুর সাতই মার্চের ভাষণ প্রদর্শন করা হয়। এছাড়া দূতাবাস প্রাঙ্গনে প্রবাসী বাংলাদেশী ও দূতাবাসের সকল কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে আনন্দ শোভাযাত্রার আয়োজন করা হয়। আলোচনা সভা শেষে জাতির পিতা ও তাঁর পরিবারবর্গের জন্য মোনাজাত ও দোয়া করা হয়।


উত্তরবঙ্গের নারীদের পাশে দাঁড়ালো জাপান প্রবাসী বাংলাদেশী নারীরা

শুক্রবার, ২৪ নভেম্বর ২০১৭

বাপ্ নিউজ : জাপান প্রবাসী বাংলাদেশি নারীরা টোকিওতে গত সপ্তাহে প্রথমবারের মতো চ্যারিটি বাজার আয়োজন করে তা থেকে বিক্রিজাত অর্থের পুরোটাই কুড়িগ্রামের বিপন্ন নারীদের হাতে তুলে দিয়েছে।বাংলাদেশ উইমেনস অ্যাসোসিয়েশন জাপান (বিডবিøউএজে, বোয়াজ) এর ব্যানারে টোকিওর কিতা সিটির উকিম ফুরেআইকানে গত শনিবার সাপ্তাহিক ছুটির দিনের এ আয়োজনে বিপুল দর্শনার্থীর সমাগত ঘটে।

Picture

বিভিন্ন স্টল সাজিয়ে সেখানে নিজেদের হাতে তৈরি বাংলাদেশি পিঠা, মিষ্টান্ন ও হরেক রকম মুখরোচক খাবারদাবারসহ এবং গহনা, বুটিক এবং বইসহ অন্যান্য পণ্যসামগ্রী তুলে ধরেন সমিতির সদস্যরা। দাতব্য বাজার আয়োজনের মহতী উদ্দেশ্য একটাই, বন্যাসহ নানাবিধ দুর্যোগে বিপন্ন বাংলাদেশের বিপন্ন নারীর পাশে দাঁড়ানো, তার দিকে আশ্বাসের হাত বাড়িয়ে দেয়া।শুধু নারীদের উদ্যোগে প্রথমবারের মতো এ চ্যারিটি বাজারের সাফল্য অভ‚তপূর্ব সাড়া তৈরি করেছে ইতোমধ্যে। জাপানের গণমাধ্যমেও ফলাও প্রচার হয়েছে তার। অনলাইন ভিত্তিক শপিং উদ্যোক্তার পাশাপাশি ১৭টি স্টল এতে অংশগ্রহণ করে। বাজারটি সন্ধ্যা ৮টায় শেষ হওয়ার কথা থাকলেও উৎসাহী ক্রেতার আগ্রহে বহু আগেই শেষ হয়ে যায় স্টলের সাজানো সামগ্রী। বিক্রি থেকে আয়ের পুরো অর্থের চেক তুলে দেয়া হয় সভানেত্রীর হাতে। বাংলাদেশের কুড়িগ্রামে বন্যাকবলিত দুঃস্থ নারীদের পুনর্বাসনে ব্যয় হচ্ছে এ টাকা।
alt
নারী সমিতির প্রধান উপদেষ্টা জাপানে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত রাবাব ফাতিমার প্রতিনিধি দূতাবাসের অর্থনৈতিক মন্ত্রী ড. সাহিদা আকতার ছিলেন এর প্রধান অতিথি। আয়োজনের সাফল্যে প্রবাসী নারীদের অভিনন্দন জানিয়ে তিনি বলেন, নারীর ক্ষমতায়ন হচ্ছে। তাদের অবদানে উন্নয়নের মহাসড়কে এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ। নারী পারে না এমন কোনো কাজ নেই। বিদেশের মাটিতে বাংলাদেশি নারীদের এ আয়োজন তারই অনন্য নিদর্শন।আয়োজনের শুরুতে অনুষ্ঠানে বোয়াজের কার্যকরী পর্ষদের নাম ঘোষণা হয়। এতে সমিতির সভানেত্রী হিসেবে জেসমিন সুলতানা কাকলি, সাধারণ সম্পাদক হিসেবে সুবর্ণ নন্দী রিমা, কোষাধ্যক্ষ হিসেবে সালমা আক্তার লাকি এবং দপ্তর সম্পাদক হিসেবে রোকেয়া পারভিন তানিয়ার নাম ঘোষণা করা হয়। এছাড়া সমিতির প্রধান উপদেষ্টা হিসেবে রাষ্ট্রদূত রাবাব ফাতিমা এবং উপদেষ্টা হিসেবে সাহিদা আকতারের নাম ঘোষণা হয়। সদস্যরা অঙ্গীকার করেন, জাপানে বাংলাদেশের সুনাম বাড়াতে সচেষ্ট থাকবেন। দেশের দুঃস্থ নারীদের ভাগ্য উন্নয়নের কাজ করে যাবেন। সবশেষে আনন্দঘন পরিবেশে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে অংশ নেয় স্বরলিপি কালচারাল একাডেমির সদস্যরা।
 alt
প্রাণের দেশ ছেড়ে যাওয়া এসব নারীর কেউ দুবছর আবার কেউ দশ বছরের বেশি পেশাগত কিংবা নানা কারণে জাপানে বসবাস করছেন। কিন্তু তাদের বুকের মধ্যে সারাক্ষণ গান গাইতে থাকে ফেলে আসা সবুজ দেশ, মমতামাখানো নাড়ির টান। অনেক ভালোবাসার সেই দেশ, দেশটার সরল মনের মানুষগুলোর পাশে দাঁড়ানোর প্রত্যয় থেকেই এবার একজোট হয়েছে জাপান প্রবাসী বাংলাদেশের নারীরাও।এছাড়া দেশের শীতার্ত মানুষের হাতে গরম কাপড় তুলে দেয়ার লক্ষ্যে সমিতির পরবর্তী কর্মসূচি শুরু হচ্ছে শিগগিরই।


আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসকে স্বীকৃতি দিল সিটি অব অটোয়া

শনিবার, ১৮ নভেম্বর ২০১৭

Picture

সকল মাতৃভাষার মর্যাদা রক্ষা ও সংরক্ষণ এর দাবিতে কানাডার রাজধানী শহর অটোয়ায় এডভোকেসি কার্যক্রম শুরু করেছিল স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন বাংলা কারাভান এবং প্রোএকটিভ এডুকেশান ফর অল চিলড্রেন এনরিচমেন্ট । এই মুভমেন্ট এর অংশ হিসেবে মেয়রের কাছে বেশ কয়েকটি দাবি জানায় সংগঠনটি। তারই প্রেক্ষিতে সিটি অব অটোয়া এই সিদ্ধান্ত নেয় ।

alt

আনুষ্ঠানে অটোয়ার সিটি মেয়র জিম ওয়াটসন, বাংলাদেশ হাই কমিশনার মিজানুর রহমান, উনেস্কো ডি জি সেবাসটিন প্রমুখ সহ বিভিন্ন কমুনিটির শতাধিক লোক উপস্তিত ছিলেন ! উত্থাপিত দাবিগুলোর মধ্যে ছিল সিটির বাৎসরিক কার্য তালিকায় দিবস টি সংযুক্ত করা, আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উদযাপনের র লক্ষ্যে শহরে স্মৃতিসৌধ স্থাপন, স্বীকৃতি প্রদান এবং সকল মাতৃভাষা সংরক্ষণের লক্ষ্যে সকল গ্রন্থাগারে IMLD কর্নার প্রতিষ্ঠা করা।


পর্তুগালে গ্লোবাল ভিলেজ ইভেন্টে সেরা বাংলাদেশ

শুক্রবার, ১৭ নভেম্বর ২০১৭

নাঈম হাসান পাভেল, বাপ্ নিউজ : পর্তুগাল প্রতিনিধি : পর্তুগালে আইএসসিটিই ইউনিভার্সিটি ইনস্টিটিউট অব লিসবন কর্তৃক আয়োজিত গ্লোবাল ভিলেজ ইভেন্টে প্রথম হয়েছে বাংলাদেশ। আইএসসিটিই বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়নরত বিভিন্ন দেশের শিক্ষার্থীরা নিজ নিজ দেশের স্টল নিয়ে এতে অংশ নেন।

Picture

আইএসসিটিই বিশ্ববিদ্যালয় প্রাঙ্গণে গত সোমবার স্থানীয় সময় বেলা ১১টা হতে শুরু হয়ে দুপুর আড়াইটা পর্যন্ত চলে এ মেলা। এতে নিজ নিজ দেশের সংস্কৃতি ও ঐতিহ্য তুলে ধরেন শিক্ষার্থীরা।বাংলাদেশ ছাড়াও মেলায় পর্তুগাল, আর্জেন্টিনা, জাপান, মেক্সিকো, স্পেন, সুইডেন, গ্রিস, দক্ষিণ কোরিয়া, ইতালি, ফ্রান্স, জার্মানি, চীন, নরওয়েসহ মোট ৩০টি দেশের শিক্ষার্থীদের স্টল ছিল।

alt

মেলায় বাংলাদেশের স্টল ঘুরে দেখেন রাষ্ট্রদূত মো. রুহুল আলম সিদ্দিকী। স্টলে বাংলাদেশি রিকশা, নকশী-কাঁথা, শাড়ি, নিত্য ব্যবহার্য সামগ্রীসহ দেশীয় খাবার ছিল। বাদ যায়নি মেহেদি অঙ্কন উৎসবও। এ সময় বাংলাদেশি পিএইচ.ডি শিক্ষার্থী রিমি আহমেদ বিদেশিদের হাতে মেহেদি দিয়ে আলপনা এঁকে সবাইকে মুগ্ধ করেন।মেলায় অংশ নেয়া বাংলাদেশি শিক্ষার্থীরা বলেন, এ ধরণের ইভেন্ট বিশ্ব দরবারে আমাদের নিজস্ব সংস্কৃতি ও ঐতিহ্য উপস্থাপন করার একটি অনন্য সুযোগ। আমরা বাংলাদেশের বিভিন্ন ঐতিহ্য, কৃষ্টি-কালচার বিদেশিদের সামনে উপস্থাপন করতে পারছি, এটা আমাদের কাছে খুবই আনন্দের।

alt

এ সময় বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন মো. রাসেল আহমেদ, রিমি আহমেদ, সামিউল হক, সিলভান অরন্য, গাজি আতিক শামীম, কামাল হোসেন, সজিব আহমেদ প্রমুখ।


ভালোবাসা, শ্রদ্ধা আর রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় আ ফ ম মাহবুবুল হক এর অন্তিম যাত্রা

সোমবার, ১৩ নভেম্বর ২০১৭

বাপ্ নিউজ : অগুনিত মানুষের পরম শ্রদ্ধা আর ভালোবাসায় সিক্ত হয়ে চিরনিদ্রায় শায়িত হলেন শুদ্ধ রাজনীতিক ও  বীর মুক্তিযোদ্ধা আ ফ ম মাহবুবুল হক। লাল সবুজ পতাকায় জড়িয়ে দিয়ে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের পক্ষ থেকে সম্মান জানিয়ে  রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় চির বিদায় জানানোর পর তাঁকে অটোয়া মুসলিম গোরস্থানে সমাহিত করা হয়।

 শনিবার (১১ নভেম্বর)  স্থানীয়  সময়  দুপুর ১২-৪০ মিনিটে ( বাংলাদেশ সময় রাত ১১.৪০মি.)  অটোয়া জামে মসজিদে জোহর নামাজের পরপরই তাঁর ‘নামাজে জানাজা’ অনুষ্ঠিত হয়। এরপর  বিকাল ২-৩০ মিনিটে (বাংলাদেশ সময় রাত ১.৩০মি.) ‘অটোয়া মুসলিম গোরস্থান’-এ রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় বাসদ আহ্বায়ক কমরেড আ ফ ম মাহবুবুল হককে সমাহিত করা হয়।

Picture

বাংলাদেশের স্বাধীনতাযুদ্ধের এই বীরসৈনিককে শেষ বিদায় জানাতে অটোয়ায় নিযুক্ত বাংলাদেশ সরকারের রাষ্ট্রদূত মিজানুর রহমানসহ হাইকমিশনের কর্মকর্তাবৃন্দ, ইংল্যান্ড, আমেরিকা এবং কানাডার বিভিন্ন শহর থেকে আসা  মুক্তিযোদ্ধা, সাধারণ মানুষ ও রাজনৈতিক সহকর্মীবৃন্দ এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

অটোয়া জামে মসজিদ এর প্রাঙ্গনে ‘লাল সবুজ পতাকা’-য় আচ্ছাদিত কফিনে চিরনিদ্রায় শায়িত  মুক্তিযোদ্ধা কমরেড আ ফ ম  মাহবুবুল হক এর প্রতি বাংলাদেশ সরকার এবং জনগণের পক্ষ থেকে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন- রাষ্ট্রদূত মিজানুর রহমান এবং বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, কানাডা শাখা।

বাসদ ছাত্রলীগের কেন্দ্রিয় কমিটিতে বিভিন্ন সময়ে দায়িত্বে থাকা সভাপতি মোঃ শাহাবউদ্দিন , সহ সভাপতি তাজুল ইসলাম , সাংগঠনিক সম্পাদক  আনোয়ার হোসেন মুকুল ভারপ্রাপ্ত সাধারন সম্পাদক গাজী সামসুদ্দিন কমরেড আফম মাহবুবুল হকের অন্তিম যাত্রায় শ্রদ্ধা জানান।

উল্লেখ্য যে, বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল-বাসদ আহ্বায়ক এবং মুক্তিযোদ্ধা কমরেড আ ফ ম মাহবুবুল হক গত ৯ নভেম্বর, ২০১৭ বৃহস্পতিবার রাত ১১-১৫ মিনিটে (বাংলাদেশ সময় ১০ নভেম্বর ২০১৭ সকাল ১০.১৫ মি) অটোয়া সিভিক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন। বামপন্থি রাজনীতির এই পুরোধা ব্যক্তিত্ব মৃত্যুকালে, স্ত্রী, এক মেয়ে ও অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন


প্রধান বিচারপতি সিনহা এখন কানাডাঃ আশ্রয় প্রার্থনার সম্ভাবনা

সোমবার, ১৩ নভেম্বর ২০১৭

বাপ্ নিউজ : প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা আজ শুক্রবার স্থানীয় সময় বেলা চারটায় চায়না-সাউথার্ন এয়ারলাইন্সের একটি ফ্লাইটে সিঙ্গাপুর থেকে কানাডার টরন্টোতে পৌঁছান।১০ নভেম্বর ছুটি শেষে সিনহার দেশে ফেরার কথা থাকলেও শেষ পর্যন্ত অস্ট্রেলিয়ায় বড় মেয়ে সূচনা সিনহার কাছে থেকে কানাডার ছোট মেয়ে আশা সিনহার কাছে চলে আসেন। আসার পথে তিনি সিঙ্গাপুরে বাংলাদেশ দূতাবাসের মাধ্যমে পদত্যাগপত্র পাঠিয়ে দিয়েছেন। রাষ্ট্রপতির প্রেস সচিব জয়নাল আবেদীন বাংলাদেশের গণমাধ্যমগুলোর কাছে এ তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

Picture
বিশ্বস্ত সূত্রে জানা যায়, সরকারের সাথে তাঁর সম্পর্কের অবনতি ঘটায় ফখরুদ্দিন-মঈনুদ্দিনের মতো তিনি আর দেশে ফিরতে চাচ্ছেন না। সিনহা স্থায়ীভাবে বিদেশে থাকার জন্য অস্ট্রেলিয়া, কানাডা এমনকি যুক্তরাজ্য এবং যুক্তরাষ্ট্রে সুবিধাজনক জায়গা খুঁজছেন। যেহেতু তাঁর মেয়ে কানাডার ম্যানিটোবায় থাকেন, সেই দিক বিবেচনা করে এখানেই থাকবেন এবং রাজনৈতিক আশ্রয় নেবেন বলেও তাঁর ঘনিষ্ঠজনরা ধারণা করছেন! তবে তিনি এখনো ম্যানিটোবায় যাননি। টরন্টোতে অবস্থান করলেও তাঁর স্ত্রী সুষমা সিনহা ঢাকায় রয়েছেন।

উল্লেখ্য, গত সেপ্টেম্বরে সিনহা ব্যক্তিগত সফরে তাঁর মেয়ের কাছে কানাডায় এসেছিলেন। এসময় তিনি টরন্টোয় কানাডীয় প্রবাসী বাংলাদেশি সংখ্যালঘু জনগোষ্ঠীর সঙ্গে দেখা করেন।


মালয়েশিয়ায় যুবলীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন

সোমবার, ১৩ নভেম্বর ২০১৭

Picture

যুবলীগের আহ্বায়ক কমিটির অন্যতম সদস্য জহিরুল ইসলাম জহির ও মাহবুবুল আলম রুবেলের যৌথ পরিচালনায় প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন মালয়েশিয়া আওয়ামী লীগের উপদেষ্ঠা বীর মুক্তিযোদ্ধা শওকত হোসেন পান্না, বীর মুক্তিযোদ্ধা হাজী মতিউর রহমান, মালয়েশিয়া আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শাহীন সরদার, সাংগঠনিক সম্পাদক মনিরুজ্জামান মনির, শাখাওয়াত হক জুসেফ।

alt

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন মালয়েশিয়া আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি দাতু আক্তার। বক্তারা বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সরকারের অর্থনৈতিক সুশাসন ও রাজনৈতিক দূরদর্শিতার ফলে বাংলাদেশ বিশ্বের বুকে উন্নয়নের রোল মডেলে পরিণত হয়েছে।

alt

অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন মালয়েশিয়া যুবলীগের আহ্বায়ক কমিটির অন্যতম সদস্য রেজাউল হক লায়ন, আল আমিন আকাশ, আব্দুল হাকিম ভুইয়া, স্বেচ্ছাসেবক লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মো. সাইদ সরকার, সাধারণ সম্পাদক মো. মোনায়েম খান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক তরিকুল ইসলাম মিতুল, মহিলা নেত্রী আয়শা খানম, শ্রমিক লীগের সহ-সভাপতি শাহ আলম হাওলাদার, সাংগঠনিক সম্পাদক মো. জাকির হোসেন, মহানগর শ্রমিক লীগের সভাপতি ইলিয়াছ আলী বুলু, সেলাঙ্গুর প্রাদেশিক যুবলীগের সভাপতি মো. নয়ন শরিফ, বুকিত বিনতাং যুব লীগের সভাপতি মাননান মাতবর প্রমুখ।


পোল্যান্ডে বাংলাদেশিদের পিঠা উৎসব

শুক্রবার, ১০ নভেম্বর ২০১৭

মো. মাহবুবুর রহমান: বাপ্ নিউজ : ওয়ারশ, পোল্যান্ড থেকে :পোল্যান্ড মধ্য ইউরোপের এমন এক দেশ যেখানে বাংলাদেশিদের পরিচয় উদ্যোক্তা ও চাকরিদাতা হিসেবে। এখানে সহজেই এবং অল্প পুঁজিতে ব্যবসা শুরু করার সুবিধা থাকায় বাংলাদেশিদের জন্য একটি আদর্শ দেশ হয়ে উঠছে পোল্যান্ড।

Picture

যদিও এখানের অধিকাংশ বাংলাদেশিদেরই পোলিশ স্ত্রী আছে কিন্তু ধীরে ধীরে বাংলাদেশি পরিবারের সংখ্যাও বাড়ছে। এই বাঙালি ভাবিদেরই একাংশের প্রচেষ্টা ছিল নতুন প্রজন্মের কাছে আমাদের কৃষ্টির অন্যতম প্রধান উৎসব তথা পিঠা উৎসবের মাধ্যমে আমাদের সংস্কৃতিকে তুলে ধরা।

উৎসবে পিঠাএরই ধারাবাহিকতায় গত শনিবার (৪ নভেম্বর) রাজধানী ওয়ারশের বাঙালি মালিকানাধীন গ্রিল ইন রেস্টুরেন্টে সন্ধ্যা ৬টায় বিপুল উৎসাহ ও উদ্দীপনায় পিঠা উৎসবের আয়োজন করা হয়। এতে ওয়ারশ ও এর আশপাশের অনেক শহর থেকেই ভাবিরা হরেক রকমের পিঠা নিয়ে আসেন। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য ছিল ভাপা, পাটিসাপটা, চিতই পিঠা, লবঙ্গলতিকা, তেলের পিঠা, রস মঞ্জুরি, রসমালাই ছাড়াও হরেক রকম মিষ্টি এবং পোলিশ ভাবিদের তৈরি হরেক রকম কেক। মূল আয়োজনে ছিলেন বাঙালি ভাবিরা। তবে তাদের মধ্যে তানিয়া, রোমানা, তাসনুভা, সীমা, শিউলি, মিম, মারিয়া ও রেনেটা ভাবির নাম উল্লেখ্যযোগ্য।
তানিয়া আফরিনউৎসবে পোল্যান্ডে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মো. মাহফুজুর রহমান উপস্থিত থেকে অনুষ্ঠানকে করেছেন আরও প্রাণবন্ত। এ ছাড়া পোল্যান্ডে বাংলাদেশে অনারারি কনস্যুলার ওমর ফারুক উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠান পরিচালনায় ছিলেন তানিয়া আফরিন। পোলিশ ভাষায় অনুষ্ঠানের মূল বক্তব্য তুলে ধরেন রোজ। অনুষ্ঠানের অন্যতম আকর্ষণ ছিল কাচ্চি বিরিয়ানি। উৎসবে শিশুকিশোরদের অংশগ্রহণ এবং তাদের বিভিন্ন সাংস্কৃতিক পরিবেশনা অনুষ্ঠানের শোভা বৃদ্ধি করেছে অনেকাংশেই।
আয়োজকেরাএ উৎসবের লক্ষ্য ছিল মূলত পোল্যান্ডে বেড়ে ওঠা বাংলাদেশি নতুন প্রজন্ম ও বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত পোলিশ পরিবারের কাছে আমাদের সংস্কৃতিকে তুলে ধরা এবং বাঙালি কমিউনিটিকে একাত্ম করা। অনুষ্ঠানে উপস্থিত সকলেই একবাক্য স্বীকার করলেন এই অনুষ্ঠান তার লক্ষ্য পূরণে সফল হয়েছে। এ ছাড়া তারা ভবিষ্যতে এ ধরনের অনুষ্ঠানে সকলে মিলিত হওয়ার অঙ্গীকার ব্যক্ত করেছেন।