Slideshows

http://bostonbanglanews.com/index.php/components/components/com_gk3_photoslide/thumbs_big/605744Finding_Immigrant____SaKiL___0.jpg

কুইন্স ফ্যামিলি কোর্টে অভিবাসী

হাকিকুল ইসলাম খোকন/বাপ্‌স নিউজ/প্রবাসী নিউজ ঃ বষ্টনবাংলা নিউজ ঃ দ্যা ইন্টারফেইস সেন্টার অব নিউইয়র্ক ও আইনী সহায়তা সংগঠন নিউইয়র্ক এর উদ্যোগে গত ২৪ অক্টোবর বৃহস্পতিবার সকাল ৯ See details

ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার

পরিচালনা পরিষদ 

সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি

ওসমান গনি
 

প্রধান সম্পাদক

হাকিকুল ইসলাম খোকন
 

সম্পাদক

সুহাস বড়ুয়া হাসু
 

সহযোগী সম্পাদক

আয়েশা আকতার রুবী

যুক্তরাষ্ট্রের খবর

আন্তর্জাতিক নারী দিবস ১১ মার্চ ২০১৮ রবিবার সন্ধ্যা ৬ টায়

শনিবার, ১০ মার্চ ২০১৮

Picture

স্থানঃ বাংলাদেশ প্লাজা ৩৭-১৫, ৭৩ ষ্ট্রিট,জেকসন হাইটস,নিউ ইয়র্ক।
২০১৮ সালের আন্তর্জাতিক নারী দিবসের প্রতিপাদ্য 'প্রেস ফর প্রোগ্রেস'বা
'প্রগতিকে দাও গতি’

প্রধান অতিথিঃ মালেকা বানু,সাধারন সম্পাদক,বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ,কেন্দ্রীয় কমিটি
বিশেষ অতিথিঃ ডঃ সৈয়দা তনিমা হাদী,প্রফেসর,কিউনি,জাতিসংঘের জেনেভাস্থ
প্রাক্তন শরণার্থী বিষয়ক কর্মকর্তা
বিশেষ অতিথি ঃ সাইকিয়াট্রিষ্ট ডাঃ তানভীরা ইসলাম,বাংলাদেশী কমিউনিটির
শিশুদের মনোরোগ চিকিৎসা ও
ব্যবস্থাপনা বিশেষজ্ঞ।নবীনদের উদ্যোগেঃ নতুন প্রজন্মের ভাবনা বিষয়ক আলোচনা।
সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিচালনায়ঃ উদীচী। আবৃত্তি।
নিবেদক

খোরশেদুল ইসলাম = সভাপতি

আলীম উদ্দিন = সাধারন সম্পাদক
প্রোগ্রেসিভ ফোরাম ইউ এস এ


যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের ঐতিহাসিক ৭ মার্চ পালন

শনিবার, ১০ মার্চ ২০১৮

বাপ্ নিউজ : ঐতিহাসিক সাতই মার্চ উপলক্ষ্যে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ আলোচনাসভা ও দোয়া মাহফিল করেছে। দিনটির প্রথম প্রহরে মঙ্গলবার রাত ১২টায় জ্যাকসন হাইটসের মেজবান রেষ্টুরেন্টে ব্যতিক্রমী এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। উল্লেখ্য,বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ জাতিসংঘের ইউনেস্কো স্বীকৃত বিশ্ব ঐতিহ্যের অমূল্য দলিলে পরিণত হয়েছে।যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সভাপতি ড. সিদ্দিকুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল পরিচালনা করেন সংগঠনের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সামাদ আজাদ।

alt

সভায় বিশেষ দোয়া পরিচালনা করেন আবুল কাশেম চৌধুরী। এসময় বঙ্গবন্ধু ও তার পরিবারের সদস্য সহ বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধের সকল শহীদদের বিদেহীআতœার শান্তি, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দীর্ঘায়ু এবং দেশ ও জাতির সমৃদ্ধি কামনা করা হয়। এছাড়াও অনুষ্ঠানে শহীদদের স্মরণে নিরবতা পালন এবং বিভিন্ন সংগঠনের পক্ষ থেকে বঙ্গবন্ধু’র প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পন এবং বঙ্গবন্ধুর ভাষণ প্রচার করা হয়।

alt

সভায় যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি মাহবুবুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক ফারুক আহমদ ও মহিউদ্দিন দেওয়ান, প্রচার সম্পাদক হাজী এনাম, প্রবাসী কল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক সোলায়মান আলী, শিল্প ও বাণিজ্য বিষয়ক সম্পাদক ফরিদ আলম,যুক্তরাষ্ট্র মহিলা লীগের সভাপতি মমতাজ শাহনাজ সহ উল্লেখযোগ্য নেতৃবৃন্দের মধ্যে শাহানারা রহমান, আবুল মনসুর খান, কৃষিবীদ আশরাফুজ্জামান, মাহবুবুর রহমান টুকু, আব্দুল মালেক, শেখ আতিক, এডভোকেট মোর্শেদা জামান, সাদেক শিবলী, আনিসুর রহমান, সুমন সহ আওয়ামী লীগ, নিউইয়র্ক ষ্টেট আওয়ামী লীগ, নিউইয়র্ক মহানগর আওয়ামী লীগ, মহিলা লীগ ও যুবলীগ সহ অন্যান্য অঙ্গ সংগঠনের নেতা-কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

alt

সভায় ড. সিদ্দিকুর রহমান বলেন, ‘জাতির জনক’ বঙ্গবন্ধুর ভাষণ ইউনেস্কো স্বীকৃত হওয়ায় প্রমাণিত হয়েছে ঐ ভাষণটি কত গুরুত্বপূর্ণ। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে। দেশের উন্নয়নের এই ধারা অব্যহত রাখতে প্রবাসের সর্বস্তরের নেতা-কর্মীদের ঐক্যবদ্ধ থেকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতকে আরো শক্তিশালী এবং আগামী নির্বাচনে আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় রাখতে হবে। এর কোন বিকল্প নেই।

Picture

ড. সিদ্দিকুর রহমান আরও বলেন, ৭০-এর নির্বাচনে নিরঙ্কুশ বিজয়ের কারণে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী হওয়ার ন্যায্য দাবি এবং আরও আগে থেকে পূর্ব পাকিস্তানের স্বায়ত্বশাসনের দাবি থেকে সরে এসে এ ভাষণে সরাসরি বাংলাদেশকে স্বাধীন করার স্পষ্ট ঘোষণা দেন বঙ্গবন্ধু। পাকিস্তান সরকার ও সেনাবাহিনীর নির্যাতন প্রতিরোধের ডাক দিয়ে বঙ্গবন্ধু সেদিন স্পষ্টভাবে ঘোষণা দেন ‘এবারের সংগ্রাম মুক্তির সংগ্রাম, এবারের সংগ্রাম স্বাধীনতার সংগ্রাম।’ সভায় বঙ্গবন্ধুর আত্মার মাগফিরাত কামনা করে দোয়া ও মোনাজাত করা হয়। এছাড়া বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান দলের নেতা-কর্মীরা।


উৎসব মুখর পরিবেশে ড. নীনার জন্য পিটিশন স্বাক্ষর সংগ্রহ এবং জমা

বৃহস্পতিবার, ০৮ মার্চ ২০১৮

হাকিকুল ইসলাম খোকন: বাপ্ নিউজ : যুক্তরাস্টের পেনসিলভেনিয়া রাজ্যের লেফটেন্যান্ট গর্ভনর পদের নির্বাচনে লড়তে যাওয়া প্রথম বাংলাদেশি বংশোভূত ড. নীনা আহমেদের জন্য ইতিমধ্য পেনসিলভেনিয়া প্রবাসী বাংলাদেশিদের মধ্য আনন্দের বন্যা বয়ে যাচ্ছে। বিশেষ করে ফিলাডেলফিয়া নর্থইস্ট আপারডারবি, মেলবোর্ন, ডেলাওয়ার, লেন্সডাউন, ওয়েস্টচেস্টার, লেন্সডেল, হ্যাটফিল্ড , লিহাইভ্যালি সহ আরো অনান্য জায়গার প্রবাসী বাংলাদেশিরা নিনাকে প্রাইমারীতে নির্বাচিত করতে প্রচারণায় মাঠে উঠে পরে লেগে গেছে ।

Picture

ডঃ নিনাকে এই পদে লড়তে হলে পেন্সিলভেনিয়া বসবাসরত বিভিন্ন সিটিতে ডেমোক্রেট নিবন্ধিত ভোটারদের কাছ থেকে নুন্যতম একহাজার পিটিশন সই করে হ্যারিসবার্গ জমা দেয়ার শেষদিন ছিল ৬ মার্চ মঙ্গলবার। গত কয়েকদিন  ক্মুনিটির সবাই দলমতের উর্ধে উঠে ছয় শতাধিক এর অধিক পিটিশন স্বাক্ষর করে নিনার ফিলাডেলফিয়ার নির্বাচনি অফিসে জমা দিয়েছে।

alt

এই সময়ে সেখেনে উপস্থিত ছিলেন নিনার নির্বাচনি সমন্বয়কারী ড. ইবরুল চৌধুরী, লেন্সডেল থেকে মফিজুল ইসলাম,আপার গুইনিড টাওনশিপ থেকে হেলাল উদ্দীন ভুঁইয়া, লান্সডাউন থেকে শাহাদত হোসেন দীপক, আপারতডারবি কাউন্সিম্যান শেখ সিদ্দীক, ফিলাডেলফিয়া থেকে শাহফরিদ, মোহাম্মেদ  শহিদ। পিটিশন স্বাক্ষর সংগ্রহ করার সময় ড. ইবরুল চৌধুরী সবাইকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন। তিনি বলেন, ড. নীনার নির্বচানকে কেন্দ্র করে বাংলাদেশী ক্মুনিটির মাঝে একটা উৎসবের ভাভ লক্ষ্য করা যাচ্ছে। আজ আমরা সকল বাংলাদেশীরা লাল সবুজের পতাকা তলে এক হয়েছি। আমাদের একটাই উদ্দেশ্য নিনাকে প্রবাসীদের এই ঐক্যবোধ্য প্রচেষ্টার মাধ্যমে আগামী মে মাসে প্রাইমারিতে নির্বাচিত করা ।

সর্বশেষ জানা যায় আজ চারহাজার সই সংবলিত ফর্ম পেন্সিল্ভেনিয়ার রাজধানী হ্যারীসবার্গে জমা দেওয়া হয়েছে। ড. নীনার নির্বাচন সংক্রান্ত বিস্তারিত তথ্যের জন্য ডঃ ইবরুল চৌধুরী ২৬৭২৫৫৫৬০৫, মফিজুল ইসলাম ২১৫৬৯২২২৮৫ ও শেখ সিদ্দীক-২১৫৬৫১১৯২৩ এর সাথে যোগাযোগ করার জন্য অনুরোধ জানানো হয়েছে।


অগ্নিঝরা মার্চ মাসের দিনগুলির মুল্যায়নে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবকলীগের আলোচনা সভা

বৃহস্পতিবার, ০৮ মার্চ ২০১৮

হাকিকুল ইসলাম খোকন: বাপ্ নিউজ : নিউইয়র্ক (যুক্তরাষ্ট্র) থেকে : ১৯৭১ সালে বাংলাদেশের মহান স্বাধীনতা অর্জনে অগ্নিঝরা মার্চ মাসের দিনগুলির মুল্যায়নে মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৮:৩০মি: জ্যাকসন হাইটসের খাবারবাডী চাইনিজ পার্টি হলে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের উদ্যোগে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয় ।

Picture

সংগঠনের সভাপতি নুরুজ্জামান সরদারের সভাপতিত্বে এবং সাধারন সম্পাদক সুবল দেবনাথের পরিচালনায় আলোচনা পর্বে অংশগ্রহন করেন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবকলীগের সহ সভাপতি দুরুদ মিয়া রণেল, কবির আলী, গিয়াস উদ্দিন, মাহবুব রহমান, হাসান জিলানী, মোঃএবাদুল হক, যুগ্ন সাধারন সম্পাদক এইচ এম ইকবাল, সৈয়দ গোলাম কিবরিয়া, আনিসুজ্জামান সবুজ, সাংগঠনিক সম্পাদক কামাল হোসেন রাকিব, মনিরুল আলম দিপু, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক আল আমিন হোসেন, সহ প্রচার সম্পাদক পাভেল সাদেক রহমান , নিউইয়র্ক ষ্টেট আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি ওয়াহিদুজ্জামান লিটন, প্রচার সম্পাদক মনিরুল হক আপন, চট্টগ্রাম দক্ষিনের যুগ্ন আহবায়ক নাজিম উদ্দিন সহ প্রমুখ ।

alt

নেতৃবৃন্দ তাদের বক্তব্যে বলেন ১৯৭১ সালের মার্চ মাস বাঙ্গালী জাতির জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ । ঐ মাসেরই  ৭ই মার্চ  জাতির জনক বঙ্গবন্ধু ঐতিহাসিক তৎকালীন রেসকর্স ময়দানে বাঙ্গালীদের যার যা কিছু আছে তাই নিয়ে যুদ্ধের প্রস্তুতি নিতে বলেছিলেন । সেই  সময়ের জাতিকে দিগনির্দেশনামুলক  ৭ই মার্চের মহান ভাষনটি আজ বিশ্ব সম্পদে পরিণত হয়েছে । আর ২৬ শে মার্চ  স্বাধীনতা ঘোষনা দিয়ে বীর বাঙ্গালী কে যুদ্ধে অংশ গ্রহন করার নির্দেশ দিয়েছিলেন ।  তারই ধারাবাহিকতায় এক সাগর রক্তের বিনিময়ে ১৬ই ডিসেম্বর পাকিস্তানের হানাদার বাহিনীকে পরাস্ত করে  স্বাধীনতার   লাল সবুজের পতাকাটি ছিনিয়ে আনে ।


পরিবারকে নেতিকথা ও গীবত মুক্ত রাখতে নিউইয়র্কে কোয়ান্টাম সেমিনার

বৃহস্পতিবার, ০৮ মার্চ ২০১৮

পরিবারে দিনের পর দিন নেতিকথা ও গীবত চর্চা থেকে সৃষ্ট অশান্তি কিভাবে দুর করা যায় সেটাই ছিলো এ সেমিনারের মূল বক্তব্য। আলোচনা করেন কোয়ান্টাম মেডিটেশন সোসাইটি, জ্যাকসন হাইটসের আহ্বায়ক অধ্যাপক ইমাম উদ্দিন চৌধুরী। আলোচনা ছাড়াও সুখী পরিবার গঠন নিয়ে বিশেষ মেডিটেশন, রোগগ্রস্থ, সমস্যা পীড়িতদের জন্য হিলিং, সেলফিসিজম বা আত্মপ্রেম রোগের ওপর নির্মিত সচেতনামূল ডকুমেন্টারি 'সেলফি সিনড্রোম' প্রদর্শন করা হয়। পরে শারিরিক, মানসিক, পেশাগত, আর্থিক ও আত্মিকসহ সব ধরনের সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে আয়োজন করা হয় ফ্রি কাউন্সিসেলিং এর।

Picture
উল্লেখ্য, প্রতি শুক্রবার সন্ধ্যা ৬টায় জ্যাকসন হাইটসের মামুন টিউটোরিয়ালে জীবনের বিভিন্ন সমস্যা, সাফল্য ও সম্ভাবনা নিয়ে সেমিনার ও মেডিটেশনের আয়োজন করে কোয়ান্টাম। রোগকে সুস্থতায়, অশান্তিকে প্রশান্তিতে, অভাবকে প্রাচুর্যে এবং ব্যার্থতাকে কিভাবে সাফল্যে রুপান্তর করা যায় এ অনুষ্ঠানে পাওয়া যায় তার সঠিক ধারনা। সুখী পরিবার গড়তে সবাইকে কোয়ান্টাম মেডিটেশন চর্চায় এগিয়ে আসতে হবে। কোয়ান্টামের এ ফ্রি সেমিনারে অংশ নিতে নিচের দুটি নম্বরে যোগাযোগ করা যাবে।৬৪৬-৭২৭-৮৯৭৮ (ইমাম উদ্দিন) ৬৪৬-২৪৯-৫১২৯ (শামীম আহমেদ)
'পরিবারকে নেতিকথা ও গীবতের অন্ধকার গহ্বর মুক্ত রাখুন' শীর্ষক  এ সপ্তাহের নির্ধারিত আলোচনায় অংশ নিয়ে অধ্যাপক ইমাম উদ্দিন চৌধুরী বলেন, আমরা বাইরে সবার সঙ্গে হাসিমুখে কথা বলি। সাধ্যের সবটুকু দিয়ে ভালো ব্যবহার করার চেষ্টা করি। কিন্তু বাইরে আমরা যে আচরন করি, পরিবারে তা করতে পারিনা। অধিকাংশ সময়ে পরিবারে ইতিবাচক কথার চেয়ে নেতিবাচক কথা বেশি বলি। পরিবারের এক সদস্যের বিরুদ্ধে অন্য সদস্যের কাছে গীবত করি। এতে পরিবারে ভুল বোঝাবুঝি বাড়ে। অশান্তি সৃষ্টি হয়। আমরা তো জানি-শব্দ এক প্রচণ্ড শক্তি। বিজ্ঞানীরা বলছেন-মহাবিশ্বের শুরুতে ছিল ‘বিগ ব্যাং’ বা প্রচণ্ড শব্দ, আবার মহাবিশ্ব ধ্বংসও হবে প্রচণ্ড শব্দের মধ্য দিয়ে। আর আমরা বলতে চাই একটি পরিবার সুখী হতে পারে এই শব্দের কারণে আবার একটি পরিবার ধ্বংসও হয়ে যেতে পারে শব্দের কারণে। কথার শক্তি এত বিশাল যে কথা দিয়ে যেমন কারো হৃদয় জয় করা যায় আবার সে কথা দিয়েই মানুষের হৃদয় ভেঙে দেয়া যায়, বহুদিনের সম্পর্ক নষ্ট করে দেয়া যায়।  পরিবারে আমরা যে নেতিকথা বলি তা যাকে বলছি তার ভেতরের স্পৃহাকে মেরে ফেলে। আমরা জীবিত থাকি, রক্ত-মাংসের মানুষ থাকি কিন্তু মনটা হয়ে পড়ে আশাশূন্য।


বিশ্বসেরা সেই ভাষণকে গভীর শ্রদ্ধা আর পরম মমতায় স্মরণ করলো যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ

বৃহস্পতিবার, ০৮ মার্চ ২০১৮

Picture

বাপ্ নিউজ : ৭ মার্চের বঙ্গবন্ধুর বিশ্বসেরা সেই ভাষণকে গভীর শ্রদ্ধা আর পরম মমতায় স্মরণ করলো যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ। নিউইয়র্কে মঙ্গলবার দিবাগত রাত ১২টা ০১ মিনিট তথা ৭ মার্চের প্রথম প্রহরে জাতিরজনক বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধাঞ্জলি প্রদর্শনের মাধ্যমে শুরু হয় এ কর্মসূচি। এ সময় মুক্তিপাগল বাঙালিকে স্বাধীনতা যুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়ার মন্ত্রবাণীর সামিল সেই ভাষণ বাজানো হয় মাইকে।

alt

এসময় প্রদত্ত সংক্ষিপ্ত এক বক্তব্যে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সভাপতি ড. সিদ্দিকুর রহমান বলেন, ‘ বিশ্ব স্বীকৃতির মহিমা নিয়ে ভিন্ন এক আমেজে সমাগত এই ৭ মার্চ। এ ভাষণে শোষণমুক্তির মন্ত্রে উজ্জীবিত বাঙালির স্বাধীনতার ডাক শুধু আসেনি, এসেছিল গোটাবিশ্বের নির্যাতিত-নিপীড়িত মানুষের মুক্তির পথ সুগম করার দিক-নির্দেশাবলীও। আর এজন্যেই ৭ মার্চের ভাষণ বিশ্ব ঐতিহ্যের স্মারক হিসেবে ইউনেস্কোর স্বীকৃতি পেয়েছে। স্বীকৃতি পাওয়ার পর এই প্রথম দিবসটি উদযাপিত হচ্ছে দেশ ও প্রবাসে।’ ‘আর এভাবেই বাঙালি জাতিকে বিশ্ব অঙ্গনে অনন্য এক আসনে অধিষ্ঠিত করে গেছেন বাঙালি জাতির মহানায়ক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব’ বলেও উল্লেখ করেন সিদ্দিকুর রহমান।  

alt

নিউইয়র্ক সিটির জ্যাকসন হাইটসে একটি পার্টি হলে জড়ো হওয়া আওয়ামী লীগের সর্বস্তরের নেতা-কর্মীরা ‘জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধ’-স্লোগানে মধ্যরাতের নিস্তব্ধত ভঙ্গ করেন। এ সময় সংগঠনের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সামাদ আজাদ বলেন, ‘গোটা বিশ্ব অবাক বিস্ময়ে অবলোকন করছে বঙ্গবন্ধুর কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার বিচক্ষণতাপূর্ণ নেতৃত্বে বাংলাদেশের এগিয়ে চলার ঘটনাবলি। পিতা দিয়ে গেছেন স্বাধীন একটি ভূখন্ড, আর তার সুযোগ্য কণ্যার মাধ্যমে বাঙালির সমৃদ্ধি ঘটছে’। এজন্যে সামনের নির্বাচনে দেশপ্রেমে উজ্জীবিত প্রতিটি প্রবাসীকে নৌকা মার্কার প্রার্থীদের জয়ী করতে দুর্বার ঐক্য রচনা করতে হবে বলে আহবান ড. সিদ্দিকুর রহমানের। এ সময় তিনি আরও উল্লেখ করেন, ‘চোখ-কান খোলা রাখতে হবে দেশ বিরোধী যে কোন অপতৎপরতা রুখে দিতে।’ ঐতিহাসিক ৭ মার্চ স্মরণ এবং বঙ্গবন্ধুর প্রতি শ্রদ্ধাঞ্জলি প্রদর্শনের এই কর্মসূচিতে নেতৃবৃন্দের মধ্যে ছিলেন সোলায়মান আলী, শাহানারা রহমান, শেখ আতিক প্রমুখ।


যুক্তরাষ্ট্রে ডে লাইট সেইভিং টাইম : রোববার ঘড়ির কাটা এগুবে এক ঘণ্টা

বুধবার, ০৭ মার্চ ২০১৮

Picture

প্রতি বছর যুক্তরাষ্ট্রে দু’দফা ঘড়ির কাটা এক ঘণ্টা এগোনো-পিছানো হয়। দিনের আলোকে কাজে লাগানোর জন্য এই উদ্যোগকে বলা হয় ডে লাইট সেইভিং টাইম। একে স্প্রিং ফরোয়ার্ড, সামার টাইমও অভিহিত করা হয়। আইফোন বা অন্য কোনো ধরনের স্মার্ট ফোন, কম্পিউটারে সময় বদলে যাবে সয়ংক্রিয়ভাবে। তবে অন্য কোনো ঘড়ির ক্ষেত্রে পরবর্তিত সময় মিলিয়ে নিতে হবে।


যুক্তরাষ্ট্রের সমাজে ঘনঘন সন্ত্রাসী হামলার কারণ কি ?

বুধবার, ০৭ মার্চ ২০১৮

প্রদীপ মালাকার-:বাপ্ নিউজ : নিউইয়র্ক,ইউ,এস,এ : আবারওযুক্তরাষ্ট্রের মাটিসন্ত্রাসীহামলায় রক্তাত হল। এবারযুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডা রাজ্যে ভালোবাসার (ভ্যালেন্টিন ডে ) দিবসের দিনেও ফ্লোরিডার একটিহাইস্কুলে বহিষ্কৃত এক ছাত্র
হত্যা যজ্ঞচালিয়েছে এবং তাতে অন্তত ১৭ জন নিহত হয়েছে ও আহত হয়েছে বহুজন।যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন রাজ্যে বিভিন্ন সময়ে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে , চার্চে , পরিবারে কিংবাউন্মওস্থানে সন্ত্রাসী হামলা হচ্ছে এবং সন্ত্রাসীরা নির্বিচারে নিরীহ লোকজনদেরমারছে ও অনেক ক্ষেত্রে নিজেরা ও আত্নহত্যা করেছে। এই লেখা যখন শেষকরি , তখনো যুক্তরাষ্ট্রের সেন্ট্রাল মিশিগান ইউনিভার্সিটির এক ছাত্রাবাসে ১৯ বছরের এক বন্দুকধারীর গুলিতে  দুই জন নিহত হয় ।কিন্তুএইসন্ত্রাসীহামলাকারাকরছে ? কেনইবাকরছে ? এই আলোচনায় যাওয়ার আগে পৃথিবীর  সব দেশে সব সমাজে  চুরি ,ডাকাতি, রাহাজানি, সন্ত্রাসী ঘটনা কমবেশী আছে । ইউরোপ সহ পৃথিবীর বিভিন্ন দেশ থেকে আসা লোকজনের মিশ্র  সংস্কৃতির এইমার্কিন সমাজেও চুরি, ডাকাতি , রাহাজানি আছে,, আছে সাদাকালোর বর্ণবাদী দাঙ্গা বা সন্ত্রাস  কিন্তু তার উপরও আছে নয়-এগারর মত জঙ্গিবাদীদের হামলা বা সন্ত্রাস ।   কিন্তু যে সন্ত্রাস  অন্য সকল সন্ত্রাসকে ছাপিয়ে হাতে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিচ্ছে কিভাবে মার্কিন সমাজকে কোঁকরে খাচ্ছেকিংবা অন্তসার শূন্য সমাজের অবয়বটা ।
গত ২০ বৎসর ধরে যুক্তরাষ্ট্রের  স্কুল গুলোয় বড় ধরণের গুলিবর্ষণের  ঘটনাগুলো  নিয়ে বার্তা সংস্থা রয়টার্স  একটি প্রতিবেদন করেছে । ওই প্রতিবেদন থেকে গত পাঁচ বছরের ঘটনাগুলো তুলে ধরা হলও । ২৩  জানুয়ারি ,২০১৮; বেনটনের  মার্শাল কাউনটি হাইস্কুলে ১৫ বছর বয়সী এক ছাত্র পিস্তল দিয়ে গুলি করে তার দুই সহপাঠীকে  হত্যা করে । ৭ ডিসেম্বর ,২০১৭ ;নিউ মেক্সিকোর  অ্যাজটেকে এক যুবক স্কুল ছাত্রের ছদ্মবেশে ডুকে দুই শিক্ষার্থীকে হত্যা করে । পরে নিজেও  আত্মহত্যা করে । ১ অক্টোবর ২০১৫; অরেগনের  আম্পকুয়া কমিউনিটি কলেজের ক্যাম্পাসে পুলিশের গুলিতে নিহত হওয়ার আগে এক ব্যাক্তি গুলি  করে নয় জনকে হত্যা  করে । ২৪ অক্টোবর, ২০১৪ ; ওয়াশিংটনের  ম্যারিসভিল –পিলচাক হাইস্কুলের ক্যাফেটেরিয়ায় এক নবীন শিক্ষার্থী আত্মহত্যা করার আগে গুলি চালিয়ে চারজনকে গুরুতর আহত করে । ৭ জুন, ২০১৩; ক্যালিফোর্নিয়ার  সান্তামনিকায় এক শিক্ষার্থী বাবা ও ভাইকে গুলি করে আহত করার পর বাড়ীতে আগুন ধরিয়ে দেয় । এরপর সান্তা  মণিকা কলেজে গিয়ে  তিনজনকে হত্যা করে । পরে নিজেও আত্মহত্যা করে ।১৪ ডিসেম্বর ,২০১২; কানেকটিকাটায় এক ব্যাক্তি মায়ের ওপর গুলি চালানোর  পর আত্মহত্যার আগে  সান্দ্রিহুক  এলিমেনটা রি স্কুলে ঢুকে ২০ টি শিশু সহ ২৬ জনকে গুলি করে হত্যা করে । ২ এপ্রিল ২০১২; ক্যালিফোর্নিয়ায় সাবেক এক নার্সিং শিক্ষার্থী  ওইকস বিশ্ববিদ্যালয়ের কোরিয়ান খ্রিস্টান কলেজে  ৭ জনকে হত্যা ও তিন জনকে জখম   করে
সন্ত্রাসকি ? সন্ত্রাসেরশুরুটাহয়অসহিস্নুতা ,হীনমন্যতা , ভারসাম্যহীনপ্রেরনা, অসুস্থবাবিকৃতমানসিকচিন্তাএবংনষ্টইলুশনেরমধ্যদিয়ে।এইনষ্টবাবিকৃতমাইন্ডসেটউদ্ভূতচিন্তাচেতনাসন্ত্রাসীরমনোজগতেএমনক্রোধওঔদবত্যপূর্ণইচ্ছাসৃষ্টিকরেযাতাকেটেনেনেয়হত্যাওধ্বংসযজ্ঞেরমধ্যে। পৃথিবীতে  কোন মানব সন্তানই সন্ত্রাসী হয়ে জন্মায়নি।   সমাজ ও মনো বিজ্ঞানীরা মনে করেন ,সন্ত্রাসের  কারন সমাজের অভ্যন্তরে গভীর ভারসাম্যহীনতা ও বিওের বউসম্য, আপন সত্ত্বার সংগে নিজের এবং নিজের সংগে পরিবারের ও সমাজের অমোচনীয় দবন্ধ , প্রত্যক্ষ সামাজিক যোগাযোগের অভাব , পারিবারিক তথা সামাজিক integration এব্যর্থতা , আত্মপরিচয়েরসংকটএবংপরিবারওসামাজিকবউসম্য ইত্যাদি। পাঠক,  উপরিউল্লেখিত হত্যাকাণ্ডগুলির বেশীরভাগ পুলিশ ও কাউনটি শেরিফ প্রদও রিপোর্টে থেকে জানা যায়,হত্যাকারী অবহেলা ,অনাদরে বেড়ে উঠা , পারিবারিক অশান্তি এবং সেই সাথে দীর্ঘদিন যাবত মানসিক বিকারগ্রস্থ ছিল।পুলিশ সন্ত্রাসীর চাওয়া-পাওয়ার সাথে সুলভে   আগ্নেয় অস্র ব্যবহারের কথাও উল্লেখ করে ।
গত ১৪ ই ফেব্রুয়ারি  ফ্লোরিডা  হাই স্কুলের হত্যাকাণ্ড নিয়ে সারা দেশ শোকে মুরয্যমান । চলছে গান কন্ট্রোল নিয়ে আলোচনা- সমালোচনা ।এরই মধ্যে প্রেসিডেন্ট  ডোনালড ট্রাম্প ঘোষণা করেন  প্রত্যেক শিক্ষকের  সাথে  অস্র রাখতে হবে। বাহবা, কি অদ্ভুত সমাধান ? সাবেক প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা তার শাসনামলে কংগ্রেসে    অস্র নিয়ন্ত্রন বিল এনেও  রিপাবলিকানদের  বাধার মুখে তা ব্যর্থ হয় ।এবারওপ্রেসিডেন্টট্রাম্পডেমোক্রেটওরিপাবলিকানসিনেটরদেরঅবাককরেঅশ্রআইনেরাসটেনেধরারকথাবলেন।কিন্তুরিপাবলিকানরাতামানতেনারাজ। তাদের যুক্তি নাগরিকদের নিরাপরতা নাগরিকরাই করিবে । অর্থাৎ বত্রিশ কোটি নাগরিকের মধ্যেএকত্রিশকোট নাগরিকের বউধ্য অস্র আছে , তারাই নাগরিকের নিরাপরতার  গ্যারান্টি ।  অদ্ভুতযুক্তি।
গতসপ্তাহেস্থানীয়সাপ্তাহিক “ দ্যব্রঙ্কস”পত্রিকায়স্ট্যানফোর্ডবিশ্ববিদ্যালয়েরসাবেকঅধ্যাপকডঃকেলীপ্রেসিডেন্টট্রাম্পেরশিক্ষকদেরহাতেকলমেরপরিবর্তেবন্দুকতূলেদেওয়ারসমালোচনাকরেন।তিনিবলেন, শিক্ষকদেরহাতেরকলমকেকিভাবেআরওসন্ত্রাসেরবীরুধেবাসমস্যারমুলেকাজেলাগানোযায়সেইদিকেমনোযোগনাদিয়েসাথেঅস্ররাখাকোনগ্রহণযোগ্যসমাধাননয়।
তিনিআরওবলেন , এদেশেপ্রাথমিক ,জুনিয়রবামাধ্যমিকস্তরেসাধারণশিক্ষারসাথেপ্রতিবন্ধীবামানসিকবিকৃতছাত্র/ছাত্রদেরজন্যপৃথকবিশেষশিক্ষা( Special Education )এরব্যবস্থাআছে।এইব্যবস্থারআরওউন্নতিরপাশাপাশিশিশু-কিশোরদেরপারিবারিকশিক্ষাওপারিবারিকবন্ধনেরউপর জোর দেন । এদেশেরপরিবারগুলিদৃঢ়বন্ধনেবাঁধানেই।অনেকপরিবারেরসদস্যইজানেনাকেপিতাবাকেমাতা।হয়তোদেখাগেছেমাকেছেড়েপিতাচলেগেছেবাপিতাকেছেড়েমাবয়ফ্রেন্ডধরেচলেগেছেনিজেরসুখেরআশায়।সন্তানদেরদিকেফিরেওতাকায়নি।অনেকক্ষেত্রেখোজখবরওনেননি।এসকলছেলেমেয়েরাপিতারকাছেঅথবামায়েরকাছেকিংবাস্টেপমাদারবাফাদারঅথবাডে- কেয়ারের  তত্বাবধানে  বড় হয় ।
বড় হয়ে হয়তো একদিন জানতে  পারে কে বাবা , কে মা, তারা কোথায় থাকে ?তার পর নিদিষ্ট  ফাদার ডে  কিংবা মাদার ডেতে  ফুলের  তুঁরা দিয়ে সম্মান জানিয়েই শেষ । আবার অনেক ছেলে মেয়ে  তাদের পিতৃ- মাতৃ পরিচয়  কোণ দিনই জানতে পারেনি ।   অবহেলা- অনাদরে বেড়ে উঠা এ সকল শিশুকিশোরের  মাজে  অন্যের প্রতি স্নেহ, প্রেম প্রীতি , ভালবাসার  পরিবর্তে  স্বার্থপড়তা  , উগ্রতা, হিংস্রতা স্থান পাবে এটাই স্বাভাবিক । তাহাছারা, বর্তমান শিশুকিশোর সমাজের এক বিরাট অংশ কাল্পনিক ভিডিও গেমস , মোবাইল ,ইন্টারনেট , পূর্ণগ্রাফি, ফেসবুক তাদের মনোজগৎ দখল করে নিচ্ছে । তাদের প্রভাবিত করছে । ভিডিও গেমসে গ্রুপ বানিয়ে মারামারি করছে । হার জিত নিয়ে উতেজিত হচ্ছে । কম্পিউটার নেট নিয়ে সারা দিন ঘাঁটাঘাঁটি  করছে । ফলে তাদের মধ্যে সহন শিলতা একেবারেই  কমে  যাচ্ছে । অল্প বয়সেই তারা হিংস হয়ে উঠছে । পিতামাতার অগোচরে  বা তাদের দুর্বলতার সুযোগে  অনেক সন্তান মাদক, হিরুইন,সেবনে অবস্থ্য  হয়ে অপরাধ কর্মে জড়িয়ে পড়ছে ।
পাসাপাশিও, টিভি চ্যানেলের সিরিয়াল্গুলি তে  হিংসতা, সন্ত্রাসবাদ ও আধিপত্যবাদ দেখানো হচ্ছে । সেখানে মানুষকে তুচ্ছ কারণে হত্যা করা দেখানো হচ্ছে  সেই সব সিরিয়াল্গুলিতে ।যেহেতু শিশুরা অনুকরণ প্রিয় হয় , সেহেতু এই সব সিরিয়াল দেখে শিশুকিশোররা  এডভেঞ্চার অনুভব  করে । তারা আবেগ প্রবণ হয়ে উঠে । হয়ে উঠে আত্নকেন্দ্রিক , উচ্চভিলাষ , বাস্থবতার সাথে সঙ্গতিহীন । তারা  নীতি নেউতিকতাকে পুরনো বলে মনে করে । বড়রা বিত্ত বাড়াতে বেপরোয়া জীবনযাপনে অভ্যস্থ হয়ে পড়ছে ।  ব্যাক্তিগত সম্পর্ক গুলিতে আসক্ত ও প্রীতি উঠে যাচ্ছে।  কোথাও  স্বস্থি নাই,  জীবনে ,পরিবারে ,  ঔতিহ্যে , উত্তরাধিকার , মূল্যবোধ ইত্যাদির।  এই সকল বিষয়ে  অনেক ক্ষেত্রে পিতা-মাতা বা অভিবাবকদের  পক্ষে পরিস্থিতি সামাল দেওয়া কষ্টকর  হয়ে পড়ছে । তাই , শিশুকিশোর , যুবকরা জড়িয়ে পড়ছে  বিভিন্ন অপরাধ কাণ্ডে । সুতরাং, প্রেসিডেন্টেরঅস্রনিয়ন্ত্রণেরাশটানাবাশিক্ষকদেরহাতেঅস্র তুলেদেওয়ামানবঅঙ্গেক্ষতবাফোঁড়ারস্থানেমলমলাগানোরমতইসামিল।মলমেউপরথেকেঘাসারলেওভিতরেরঘাথেকেইযায়।প্রেসিডেন্টেরপদক্ষেপেহয়তোসন্ত্রাসপ্রতিরোধেবাহিরথেকেকিছুকটাসাফল্যপাওয়াগেলেওমার্কিনসমাজেরভিতরেরঘাতিনিকীভাবেসারাবেন ?


ভার্জিনিয়াতে অনুষ্ঠিত হলো ডঃ নিনা আহমেদ এর সম্মানে ফান্ড রাইসিং ডিনার

মঙ্গলবার, ০৬ মার্চ ২০১৮

হাকিকুল ইসলাম খাকন,বাপসনিঊজ:ভার্জিনিয়ার স্প্রিংফিল্ড এ অনুষ্ঠিত হলো ডঃ নিনা আহমেদ এর সম্মানে ফান্ড রাইসিং এন্ড এপ্রিসিয়েশন ডিনার অনুষ্ঠান। গ্রেটার ওয়াশিংটন ডিসি বাংলাদেশী কমিউনিটির পক্ষ থেকে অনুষ্ঠানটির আয়োজক ছিলেন প্রকৌশলী আবুবকর হানিপ এবং রেদওয়ান চৌধুরী ।

Picture

উক্ত অনুষ্ঠানে ভার্জিনিয়া, মেরিল্যান্ড , ডিসি সর্বস্তরের বাঙালিরা স্বতঃফূর্ত ভাবে অংশ গ্রহণ করেন।যুক্তরাষ্ট্রের পেনসেলভেনিয়া রাজ্যের লেফটেন্যান্ট গর্ভনর পদে নির্বাচন করবেন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ড. নিনা আহমেদ। আগে তিনি মার্কিন প্রতিনিধি পরিষদে নির্বাচন করার ঘোষণা দিয়েছিলেন। কংগ্রেসানাল জেলায় নির্বাচনী মানচিত্রে পরিবর্তন আসায় তিনি সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করে লেফটেন্যান্ট গর্ভনর পদে নির্বাচনের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।
  alt
ফিলাডেলফিয়া নগরীর ডেপুটি মেয়র হিসেবে দায়িত্ব পালন করার আগে থেকেই নাগরিক আন্দোলনের মূলধারার নেতা হিসেবে নিনা আহমেদ সবার নজরে আসেন। সাবেক প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার সময়ে প্রেসিডেন্টের উপদেষ্টা হিসেবেও তিনি দায়িত্ব পালন করেছেন। লেফটেন্যান্ট গভর্নর পদে নির্বাচনের ঘোষণা দেওয়ার সময় তিনি বলেছেন, প্রতিনিধি পরিষদে নির্বাচনের লক্ষ্যই ছিল বিদ্বেষ আর বৈষম্যের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানানো। নিনা আহমেদ এক বিবৃতিতে বলেন, গত ২৫ বছর থেকে আমি পেনসেলভেনিয়াতে অন্যায়, অবিচার আর বিদ্বেষের বিরুদ্ধে লড়াই করছি। আমি মনে করেছি, এসবের অবসানের জন্য আরও প্রগতিশীল নেতৃত্ব সরকারে যাওয়া উচিত।
  alt
পেশায় চিকিৎসাবিজ্ঞানী ড. নিনা আহমেদ লেফটেন্যান্ট গভর্নর পদে নির্বাচন করবেন , অন্যায় ও অসাম্যের বিরুদ্ধে তিনি সোচ্চার থাকবেন। তিনি তাঁর অভিজ্ঞতার আলোকে করা অস্ত্র আইন প্রণয়নের জন্য উদ্যোগী হবেন। স্কুলের শিক্ষার্থীরা যাতে নিরাপদে থাকে, সে বিষয়টি নিশ্চিত করবেন বলে তার প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেন।উক্ত অনুষ্ঠানটির উপস্থাপনা করেন  , এন্থনি পিযুষ গোমেজ ও আনিকা রহমান।অনুষ্টানে বক্তব্য রাখেন পিপলএনটেক এর প্রতিষ্ঠাতা ও সি ই ও আবুবকর হানিপ , সমাজ কর্মী রেদওয়ান চৌধুরী , ওয়াহেদ হোসাইনী , মোহাম্মায়দ আলমগীর।  অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন মোহাম্মদ হোসাইন , মাজহারুল হক , প্রিয় লাল কর্মকার এবং মোমেন্টস মাল্টিমিডিয়া গ্রূপ এর সদস্যবৃন্দ ছাড়াও ভির্জিনিয়ার ওয়াশিংটন ডিসি ও মেরিল্যান্ড সকল স্তরের বাঙালিরা।


বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণ বিষয়ে নিউইয়র্কে সমাবেশ

মঙ্গলবার, ০৬ মার্চ ২০১৮

Picture

হাকিকুল ইসলাম খোকন: বাপ্ নিউজ : নিউইয়র্কের বাংলাদেশ কনস্যুলেটে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ উৎক্ষেপণ বিষয়ে সুধী সমাবেশ ও সাংবাদিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার (৩ মার্চ) অনুষ্ঠিত সম্মেলনে বিটিআরসি চেয়ারম্যান ড. শাহজাহান মাহমুদ প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে প্রজেক্টটির বিস্তারিত তুলে ধরেন এবং সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাব দেন।

alt

কন্সাল জেনারেল শামীম আহসান সুধী সমাবেশ এবং সাংবাদিক সম্মেলনের সূচনা করেন। এ সময় সমাবেশে মঞ্চে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সভাপতি ড. সিদ্দিকুর রহমান, ওয়াশিংটন ডিসিতে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ জিয়াউদ্দিন, জাতিসংঘে বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি ড. মাসুদ মোমেন উপস্থিত ছিলেন।

alt

আওয়ামী নেতৃবৃন্দ স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণের দিন ফ্লোরিডায় উপস্থিত থাকার আগ্রহ প্রকাশ করেন এবং বিটিআরসি চেয়ারম্যানের সহযোগিতা কামনা করেন। সমাবেশে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ সভাপতি ড. সিদ্দিকুর রহমান স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণকে কেন্দ্র করে প্রবাসে যেকোনো ধরনের কর্মকাণ্ডে সহযোগিতার আশ্বাস দেন।

alt

সাংবাদিক সম্মেলনের সময় বিটিআরসি সেক্রেটারি সারোয়ার আলম, ডিসি দূতাবাসের প্রেস সেক্রেটারি শামীম আহমেদ, যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সামাদ আজাদ, সহ-সভাপতি সামসুদ্দিন আজাদ, সহ-সভাপতি মাহবুবুর রহমান, সহ-সভাপতি লুৎফর রহমান, সহ-সভাপতি জয়নাল আবেদিন, সাংগঠনিক সম্পাদক ফারুক আহমেদ, সাংগঠনিক সম্পাদক মহিউদ্দিন দেওয়ান, সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুর রহিম বাদশা, ট্রেজারার আবুল মনসুর, প্রচার সম্পাদক হাজী এনাম, আইন বিষয়ক সম্পাদক বখতিয়ার হোসেন, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক মুজাহিদুল ইসলাম, মেট্রো ওয়াশিংটন স্বেচ্ছাসেবক লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক জাহিদুল ইসলামসহ আনেই উপস্থিত ছিলেন।

alt

 

ঐতিহাসিক সাতই মার্চ উপলক্ষ্যে যুক্তরাষ্ট্র আ. লীগের আলোচনা সভা বুধবার

মঙ্গলবার, ০৬ মার্চ ২০১৮

হাকিকুল ইসলাম খোকন: বাপ্ নিউজ : ঐতিহাসিক সাতই মার্চ উপলক্ষ্যে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের উদ্যোগে আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়েছে। আগামী ৭ মার্চ বুধবার সন্ধ্যা ৭টায় জ্যাকসন হাইটসের মেজবান রেস্টুরেন্টে এই আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হবে। উল্লেখ্য, জাতিসংঘের ইউনেস্কো কর্তৃক সাতই মার্চের বঙ্গবন্ধুর ভাষণকে ঐতিহাসিক সনদ হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়ায় দিনটির গুরুত্ব আরো অধিক মাত্রায় বৃদ্ধি পেয়েছে।

Picture

১৯৭১ সালে তৎকালীন পশ্চিমা শাসক গোষ্ঠীর অব্যাহত বৈষম্য, নিপীড়ন আর অসহযোগীতার বিরুদ্ধে বাঙালী জাতি যখন সঠিক দিক নির্দেশনার প্রতিক্ষায় ছিলো তখনই সাতই মার্চ ঢাকার তৎকালীন রেসকোর্স ময়দান (বর্তমানে সোহরাওয়ার্দী উদ্যান) থেকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বজ্রকন্ঠে এলো স্বাধীনতার ঘোষনা। মুক্তি পাগল সংগ্রামী জনতা বঙ্গবন্ধু’র উদাত্ত আহবানে সাড়া দিয়ে সশ¯্র যুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়েছিলেন এবং ছিনিয়ে এনেছিলেন মহান বিজয়।

alt

ঐতিহাসিক ৭ই মার্চ উপলক্ষে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামীলীগের সংগ্রামী সভাপতি ড. সিদ্দিকুর রহমানের নেতৃত্বে পোস্টারিং চলছে।

বাংলাদেশের বর্তমানে রাজনৈতিক প্রেক্ষাপট এবং আসন্ন জাতীয় নির্বাচনকে সামনে রেখে সাতই মার্চের আলোচনা সভাটি হবে অত্যন্ত সারগর্ভ ও প্রানবন্ত। যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ, নিউইয়র্ক ষ্টেট, নিউইয়র্ক সিটি সহ দলের সকল অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মীদের প্রাণচ্ছোল উপস্থিতির পাশাপাশি মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষ শক্তির সকলের সবান্ধব উপস্থিতি কামনা করেছেন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের ড. সিদ্দিকুর রহমান ও ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সামাদ আজাদ।