Slideshows

http://bostonbanglanews.com/index.php/images/images/banners/components/com_gk3_photoslide/thumbs_big/605744Finding_Immigrant____SaKiL___0.jpg

কুইন্স ফ্যামিলি কোর্টে অভিবাসী

হাকিকুল ইসলাম খোকন/বাপ্‌স নিউজ/প্রবাসী নিউজ ঃ বষ্টনবাংলা নিউজ ঃ দ্যা ইন্টারফেইস সেন্টার অব নিউইয়র্ক ও আইনী সহায়তা সংগঠন নিউইয়র্ক এর উদ্যোগে গত ২৪ অক্টোবর বৃহস্পতিবার সকাল ৯ See details

ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার

পরিচালনা পরিষদ 

সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি

ওসমান গনি
 

প্রধান সম্পাদক

হাকিকুল ইসলাম খোকন
 

সম্পাদক

সুহাস বড়ুয়া হাসু
 

সহযোগী সম্পাদক

আয়েশা আকতার রুবী

যুক্তরাষ্ট্রের খবর

যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ প্রধানমন্ত্রীকে ‘গণসংবর্ধনা’ দেবে

রবিবার, ২০ আগস্ট ২০১৭

হাকিকুল ইসলাম খোকন:আয়েশা আকতার রুবী,বাপসনিঊজ:প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ‘গণসংবর্ধনা’ দেবে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ। জাতিসংঘের ৭২তম অধিবেশনে বাংলাদেশ প্রতিনিধি দলের নেতা হিসেবে আগামী ১৭ সেপ্টেম্বর নিউইয়র্কে আসবেন শেখ হাসিনা। এ সফর নিয়ে নিউইয়র্কে প্রবাসী আওয়ামী লীগ নেতা-কর্মীদের মধ্যে ব্যাপক প্রস্তুতি চলছে। দলীয় নেতা-কর্মীরা জেএফকে এয়ারপোর্টে তাকে স্বাগত জানানো ও জাতিসংঘে ভাষণের সময় বাইরে ‘শান্তি সমাবেশের জন্য, গণসংবর্ধনার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছে।  প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার গণসংবর্ধনা হবে নিউইয়র্কে ১৯ সেপ্টেম্বর মঙ্গলবার এবং ভার্জিনিয়ায় ২৮ সেপ্টেম্বর বৃহস্পতিবার।

নিউইয়র্কে টাইমস স্কোয়ার সংলগ্ন ম্যারিয়ট মারকুইস হোটেলের হলরুমে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশের উন্নয়নের সমর্থনে একটি তথ্যচিত্র দেখানোর প্রস্তুতি নিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ। সংগঠনটির নির্দেশনায় ১৮ থেকে ২০ মিনিটের এ তথ্যচিত্রটির নাম হচ্ছে ‘বিএনপি-জামায়াতের ধ্বংসযজ্ঞ থেকে রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সমৃদ্ধির পথে বাংলাদেশ’।

Picture

জাতিসংঘ সাধারণ অধিবেশনে বাংলাদেশের ভাষণ প্রদানের পরদিনই শেখ হাসিনা নিউইয়র্ক থেকে ভার্জিনিয়ায় চলে যাবেন। ২১ সেপ্টেম্বর অপরাহ্নে (এখন পর্যন্ত চূড়ান্ত হয়নি) শেখ হাসিনা বাংলায় ভাষণ দিতে পারেন। এটি ঘটার পরই জাতিসংঘ বাংলাদেশ মিশনের বঙ্গবন্ধু মিলনায়তনে মিডিয়ার সাথে কথা বলবেন তিনি। আগেই জানানো হয়েছে যে, ১৭ সেপ্টেম্বর নিউইয়র্কে আসবেন শেখ হাসিনা। চলতি ৭২তম অধিবেশনে বাংলাদেশ প্রতিনিধি দলের নেতা হিসেবে শেখ হাসিনা জাতিসংঘ মহাসচিবসহ গুরুত্বপূর্ণ রাষ্ট্রসমূহের শীর্ষ নেতাদের সাথে বৈঠকে মিলিত হবেন। এসডিজি অর্জনের ক্ষেত্রে বাংলাদেশের অগ্রগতির পাশাপাশি সন্ত্রাসবাদ দমনে বাংলাদেশের প্রশংসনীয় ভ’মিকার তথ্য উপস্থাপন করবেন শেখ হাসিনা।

এদিকে, শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশের উন্নয়নের সমর্থনে একটি তথ্য-চিত্র প্রদর্শিত হবে নিউইয়র্কে টাইমস স্কোয়ার সংলগ্ন ম্যারিয়ট মারকুইস হোটেলের বলরুমে। ১৮ থেকে ২০ মিনিটের এই ডক্যুমেন্টারির নাম হচ্ছে ‘বিএনপি-জামাতের ধ্বংসযজ্ঞ থেকে রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সমৃদ্ধির পথে বাংলাদেশ’ এবং এটি তৈরী হয়েছে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সার্বিক নির্দেশনায়। শেখ হাসিনা তার জন্মদিন (২৮ সেপ্টেম্বর) পালন করবেন ভার্জিনিয়ায় স্বজনের সান্নিধ্যে। ৩০ সেপ্টেম্বর তার ঢাকার উদ্দেশ্যে ওয়াশিংটন ডিসি ত্যাগের কথা।

এদিকে, শেখ হাসিনার এ সফর নিয়ে নিউইয়র্কে ব্যাপক প্রস্তুতি চলছে। দলীয় নেতা-কর্মীরা সংঘবদ্ধ হচ্ছেন জেএফকে এয়ারপোর্টে তাকে স্বাগত জানানোর পর জাতিসংঘে ভাষণের সময় বাইরে শান্তি সমাবেশের জন্যে। এছাড়া, গণসংবর্ধনার জন্যেও চলছে বিস্তারিত প্রস্তুতি। ২০০৯ সাল থেকে প্রতি বছরই জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশনে আসছেন শেখ হাসিনা।


বাংলাদেশে বন্যা সংকটে গণমানুষের সাহায্যে ফোবানা কানাডা সম্মেলন বাতিলের আহবান

রবিবার, ২০ আগস্ট ২০১৭

হাকিকুল ইসলাম খোকন,বাপসনিউজ ঃ ১৯৯৭ সালে নিউইয়র্ক লাগডিয়া ম্যারিয়ট হোটেলে কনফারেন্স রোমে অনুষ্ঠিত ফেডারেশন অব বাংলাদেশী আমেরিকান্স ইন নর্থ আমেরিকা(ফোবানা) স্থায়ী কমিটির বৈঠকে ১০১ সদস্য বিশিষ্ট কমিটির ঐক্যবদ্ধ সভায় সভাপতিত্ব করেন প্রবাসের মিনি পার্লামেন্টখ্যাত বাংলাদেশ সোসাইটি নিউইয়র্কের সাবেক সহ সভাপতি, ফোবানা সম্মেলনের প্রথম দিনের কনভেনার  অধ্যাপক ড. এম মাকসুদ আর চৌধুরী,ই.এস.কিউ,এর্টনী এট ল ও জুরিস।
 এককভাবে ঐক্যবদ্ধ ফোবানা সম্মেলনে চুক্তিপত্রে স্বাক্ষর করেন অধ্যাপক ড. এম মাকসুদ আর চৌধুরী, ই.এস.কিউ,এর্টনী এট ল ও জুরিস ও সদস্য সচিব মোহাম্মদ হোসেন খান। এ ব্যাপারে ১০১ সদস্য বিশিষ্ট কমিটির সর্বসম্মতিক্রমে তাদের স্বাক্ষরের দলিল সংরক্ষিত রয়েছে। পরবর্তী ফোবানা সম্মেলণ পর্যবেক্ষণের জন্য ৪২ সদস্যবিশিষ্ট স্থায়ী (ওভারসি) ষ্টেন্ডিং কমিটি গঠন করা হয়। সে হিসেবে আন্তজার্তিক ফারাক্কা কমিঠির সভাপতি আতিকুর রহমান ইউসুফজাই সালু কানাডায় ঈদুল আজাহার ছুটিতে আগষ্ট ৩১ এবং সেপ্টেম্বর ১ ও ২,২০১৭, আন্তজার্তিক ফারাক্কা কমিটির আন্তজার্তিক সাংগঠনিক সম্পাদক জনাব দারাকে আহবায়ক করে বাংলাদেশের বর্তমান ভয়াবহ বন্যা পরিস্থিতি, বন্যাত্তোর গণমানুষের সংকট বিবেচনা করে কানাডা সম্মেলন বাতিল করার জন্য আহবান জানিয়েছেন ফোবানা সংশ্লিষ্ট নেতৃবর্গ অধ্যাপক ড. এম মাকসুদ আর চৌধুরী, ই.এস.কিউ,এর্টনী এট ল ও জুরিস এবং  বাদল খান, ফোবানা সম্মেলন বাতিল করার ব্যাপারে ঐক্যমত্য পোষণ করেন ঐক্যবদ্ধ ফোবানা ১৯৯৮ এর সদস্য সচিব মোহাম্মদ হোসেন খান। উল্লেখ্য, আইনতঃ আন্তজার্তিক ফারাক্কা কমিটি আয়োজিত ফেবানা কানাডা সম্মেলন বাংলাদেশের মুক্তিযোদ্ধের চেতনারও পরিপন্থী বলে মনে করেন যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী নেতৃবৃন্দ এবং বাংলাদেশে অবস্থানরত নেতৃবৃন্দ। ফোবানার সাথে আন্তজার্তিক ফারাক্কা কমিঠির নেতৃবৃন্দের সাথে আইনত কোন সম্পর্ক নেই বাপসনিঊকে  এক টেলিকনফারেন্সে জানান অধ্যাপক ড. এম মাকসুদ আর চৌধুরী, ই.এস.কিউ,এর্টনী এট ল ও জুরিস ।


শ্রমিক লীগ মিশিগান ষ্টেট শাখার সম্মেলন ও জাতীয় শোক দিবসের টেলি কনফারেন্সে ডা. দীপু মনি

রবিবার, ২০ আগস্ট ২০১৭

বাপ্ নিউজ : মিশিগান : বিএনপি-জামাতের অনুপ্রবেশকারী থেকে প্রবাসীদেরও সাবধান থাকতে হবে। কোন অপশক্তি যাতে দল ও দেশের বিরুদ্ধে ষঢ়যন্ত্র না করতে পারে সেদিকে সকলকে সজাগ দৃষ্টি রাখতে হবে। তিনি বলেন, প্রবাসে আপনারা নিজ নিজ অবস্থান থেকে দেশের উন্নয়নে আরো বেশি সহযোগিতা করুন। জাতীয় শোক দিবস ও শ্রমিক লীগ মিশিগান ষ্টেট শাখা সম্মেলন উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে টেলি কনফারেন্সে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডা. দীপু মনি এসব কথা বলেন। একই অনুষ্ঠানে শ্রমিক লীগের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক মো: সিরাজুল ইসলাম টেলি কনফারেন্সে সম্মেলনের সফলতা কামনা করে বলেন, জাতির পিতার জীবন ও আদর্শকে ধারণ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নের্তৃত্বে সগৌরবে এগিয়ে চলছে বাংলাদেশ। বঙ্গবন্ধুর ৪৩তম শাহাদৎ বার্ষিকীর মাসে শোককে শক্তিতে পরিণত করে আগামী নির্বাচনে যাতে দল আবার ক্ষমতায় আসতেপারে সেই লক্ষে সুসংগঠিত হয়ে সকলকে একযোগে কাজ করতে হবে।

Picture

গত ১৩ আগস্ট সন্ধ্যায় হ্যামটামিক সিটির জমজম রেস্টুরেন্টের ওই অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন জাতীয় শ্রমিক লীগের কেন্দ্রীয় আন্তর্জাতিক বিষয়ক সমন্বয়কারী আব্দুর রহিম বাদশা, সম্মেলনের উদ্বোধন করেন যুক্তরাষ্ট্র শ্রমিক লীগের সভাপতি কাজী আজিজুল হক খোকন, প্রধান বক্তা ছিলেন যুক্তরাষ্ট্র শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ জুয়েল আহমেদ। বিশেষ অতিথি ছিলেন যুক্তরাষ্ট্র শ্রমিক লীগের সহ সভাপতি মো. রকিব উদ্দিন, মিশিগান আওয়ামীলীগের সভাপতি ফারুক আহমেদ চান, মিশিগান স্টেট আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. সাহাব উদ্দিন, হ্যামটামিক সিটির কাউন্সিলম্যান ও মেয়র নির্বাচনে প্রাইমারী বিজয়ী মো. কামরুল হাসান, কাউন্সিলম্যান আবু আহমেদ মুসা ও সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির প্রধান সমন্বয়কারী নজরুল ইসলাম।alt

এদিনের কর্মসূচীর মধ্যে ছিল জাতির জনকের প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ, দোয়া মাহফিল, সম্মেলন উদ্বোধন, আলোচনা সভা ও কাউন্সিল অধিবেশন। দোয়া মাহফিলে ‘৭৫-এর ১৫ আগস্ট নৃশংস হত্যাকান্ডে শাহাদতবরণকারী বঙ্গবন্ধুসহ নিহত সকল শহীদের বিদেহী আত্মার শান্তি কামনায় বিশেষ মোনাজাত করা হয়। দোয়া মোনাজাত পরিচালনা করেন ওয়ালিউর রহমান।
অনুষ্ঠানে শহীদদের স্মরণে দাঁড়িয়ে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়। পরিবেশন করা হয় জাতীয় সঙ্গীত।
জাতীয় শ্রমিক লীগের মিশিগান ষ্টেট শাখার আহ্বায়ক মো. মোর্সারফ হোসেনের সভাপতিত্বে এবং সদস্য সচিব আব্দুল বাসিতের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে আরো বক্তব্য রাখেন আওয়ামীলীগ alt

নেতা মুক্তিযোদ্ধা শফিকুল ইসলাম আহমদ, নরুল আমিন মানিক, সাহেদ আহমদ আনসারী, ইজাজ আহমদ, আবু নাসের খান জামাল, মোস্তাক আহমদ মুক্তা, এম এ সালাম সেলিম, নুরুল ইসলাম বাঙ্গালি, মোস্তাফা আল্লামা ও খালেদ হোসেন, সৈয়দ মতিউর রহমান শিমু। অন্যান্য নের্তৃবৃন্দের মধ্যে আরো বক্তব্য রাখেন মোর্শেদ আহমদ, বাবুল মিয়া সুহেল, হেলিম আহমদ, মিরাজ উদ্দিন আহমদ, আলফু কামালী, মঞ্জুর খান, নিজাম আহমদ, বদরুল ইসলাম, রতন বড়–য়া, মিলাদ চৌধুরী, বাবুল মিয়া সোহেল, সেলিম আহমেদ, আবুল হোসেন সোলেমান, শাবুল হোসেন, মাহবুব রাব্বি খান, আব্দুল মুকিত, আজিজুর রহমান, গৌউস উদ্দিন, খালেক আহমদ রাহিন, মিশরাত হোসেন, বোরহান প্রমুখ।সমাবেশে আওয়ামী লীগ, শ্রমিক লীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীসহ বিপুল সংখ্যক প্রবাসী উপস্থিত ছিলেন।
alt

সম্মেলনে মো. মোর্সারফ হোসেনকে সভাপতি, আব্দুল বাসিতকে সিনিয়ার সহ সভাপতি এবং খালেক আহমদ রাহিনকে সাধারণ সম্পাদক করে জাতীয় শ্রমিক লীগ মিশিগান ষ্টেট শাখা কমিটি ঘোষণা করা হয়। আগামী এক মাসের মধ্যে পূর্ণাঙ্গ কমিটির নাম প্রকাশ করা হবে।টেলি কনফারেন্সে ডা. দীপু মনি আরো বলেন, বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রীর যোগ্য নেতৃত্বে বাংলাদেশ এগিয়ে চলেছে, বিশ্বের দরবারে মাথা উঁচু করে দাঁড়াচ্ছে। ইতিমধ্যেই তাঁর নেতৃত্বে বাংলাদেশ মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হয়েছে। সম্মেলনের সফলতা কামনা করে তিনি দেশ-বিদেশের মুজিব আদর্শের সৈনিকদের ইস্পাত দৃঢ় ঐক্য ও যোগ্য নেতৃত্বের হাতে দলকে তুলে দিয়ে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন ও শেখ হাসিনার ঘোষিত উন্নত দেশে রূপান্তের সহযোগিতার আহ্বান জানান।অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি জাতীয় শ্রমিক লীগের কেন্দ্রীয় আন্তর্জাতিক বিষয়ক সমন্বয়কারী আব্দুর রহিম বাদশা ১৫ আগস্ট নৃশংস হত্যাকান্ডে শাহাদতবরণকারী বঙ্গবন্ধুসহ সকল শহীদের আত্মার শান্তি কামনা করে জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে সংগঠনের মাসব্যাপি নানা কর্মসূচির কথা তুলে ধরেন। তিনি বলেন, জননেত্রী শেখ হাসিনার ভিশন ২০২১ ও ভিশন ২০৪১ বাস্তবায়নের মাধ্যমে উন্নত বাংলাদেশ গড়তে সকলকে একযোগে কাজ করতে হবে। শোককে শক্তিতে পরিণত করে আগামী নির্বাচনে পুনরায় আওয়ামী লীগকে বিজয়ী করতে সকল দ্বিধা-বিভক্তি ভুলে প্রবাস থেকেও ঐক্যবদ্ধভাবে ভূমিকা রাখতে হবে। তিনি সম্মেলন সফল করার জন্য সংশ্লিষ্ট সকলকে আন্তরিক ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানান।সম্মেলনের উদ্বোধক যুক্তরাষ্ট্র শ্রমিক লীগের সভাপতি কাজী আজিজুল হক খোকন বলেন, আসুন ১৫ আগস্ট মহান জাতীয় শোক দিবসকে শক্তিতে পরিণত করে ঐক্যবদ্ধ হয়ে দেশ ও দলের জন্য কাজ করার অঙ্গিকার করি।প্রধান বক্তা যুক্তরাষ্ট্র শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ জুয়েল আহমেদ বাংলাদেশের চলমান উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে সংগঠনকে সুসংহত করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করার আহ্বান জানান।জাতীয় শ্রমিক লীগ যুক্তরাষ্ট্রের অন্যান্য স্টেটেও পর্যায়ক্রমে সম্মেলনের মাধ্যমে নতুন কমিটি গঠন করবে বলে নের্তৃবৃন্দ সমাবেশ থেকে ঘোষণা দেন।


সুপ্রিম কোর্টের রায়ে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু মুজিবুর রহমান সম্পর্কে কটুক্তি করায় সুপ্রিম জুডিশিয়াল গঠনের আহবান---- বিভিন্ন পেশার নেতৃবৃন্দ

রবিবার, ২০ আগস্ট ২০১৭

হাকিকুল ইসলাম খোকন ,বাপসনিউজ ঃ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সম্পর্কে কুঠক্তি করায় গত ১৯ আগষ্ট শনিবার রাত ৮টায় নিউইয়র্কের কুইন্সে এক সভা এবং উক্ত সভায় দেশ-বিদেশে টেলিকনফারেন্সে বিভিন্ন পেশার আইনজীবি, সাংবাদিক, রাজনীতিক সহ নেতৃবৃন্দ ষোড়শ সংশোধনীর রায়ে সুপ্রিম কোর্টের বিষয় বর্হিভূত  টেনে এতে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে কাটো করার প্রতিবাদে এক সভা অনুষ্টিত হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন আমেরিকান প্রেসক্লাব অব বাংলাদেশ অরিজিন সভাপতি ও যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা সাংবাদিক হাকিকুল ইসলাম খোকন ও পরিচালনা করেন সাধারন সম্পাদক হেলাল মাহমুদ। সভায় বিশিষ্ট ব্যাক্তিবর্গ  টেলিকনফারেন্সে অংশগ্রহণ করেন এছাডাও বিভিন্ন শ্রেনীর পেশার আইনজীবি,সাংবাদিকসহ বিশিষ্ট ব্যাক্তিবর্গ। নেতৃবৃন্দ জরুরী ভিত্তিতে সুপ্রিম জুডিশিয়াল গঠন করে যথাযথ আইনগত ব্যাবস্থা গ্রহণ করার জন্য সরকারের কাছে আবেদন জানান। সভায় উপস্থিত টেলিকনফারেন্সে অংশ নেন অধ্যাপক ড. এম মাকসুদ আর চৌধুরী, ই.এস.কিউ,এর্টনী এট ল, জুরিস ,এডভোকেট আতাউর রহমান, ড. জহিরুল হক,জুরিস (অষ্টেলিয়া), ব্যারিষ্টার হাফিজ সাদিয়া খান (ভারত), এডভোকেট স্বরলিপি পাল (ভারত), এডভোকেট অরিনদম রাহা (ভারত), অধ্যাপক ড.শামল কুমার রায়(ভারত), এডভোকেট অরুপ বারঊ, এডভোকেট শিখা রায় , যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি সামছুঊদিদন আজাদ ,সহ সভাপতি আকতার হোসেন ও ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আবদুস সামাদ আজাদ,  আমেরিকা-বাংলাদেশ এলাইন্সের প্রেসিডেন্ট ও যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক এমএ সালাম,এবিসিডিআই সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা ড.প্রদীপ রঞ্জন কর,যুক্তরাষ্ট্র সোহরাওয়ার্দী স¥ৃতি পরিষদের সভাপতি শিশু সাহিত্যিক হাসানুর রহমান,সংগঠক আবদুর রহিম বাদশা, নিউইংল্যান্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি ওসমান গণি ও সাধারণ সম্পাদক সুহাস বড়ুয়া, সেন্ট্রাল ফ্লোরিডা আওয়ামী লীগের সভাপতি মাহবুবুর রহামন মিলন ও সাধারণ সম্পাদক আলো আহমেদ,  মুক্তিযোদ্ধা বিএম জাকির হোসেন হিরু ভূইয়া, মুক্তিযোদ্ধা গোলাম কুদ্দুস,বোস্টনবাংলানিউজ ডটকম সহযোগী সম্পাদক বিশ্বজিৎ সাহা ,নাসিম পারভীন,সামসুল আলম ও আয়েশা আক্তার রুবি, ইউএসএবাংলানিউজ এর সম্পাদক আবু সাঈদ রতন,ফিরোজ মাহমুদ, আশাফ মাসুক,জাহাঙ্গীর কবির,আবুল কাসেম ভুইয়া জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল- জাসদ যুক্তরাষ্ট্র শাখার সিনিয়র সহ সভাপতি দেওয়ান শাহেদ চেীধুরী ও সাধারান সম্পাদক নূরে আলম জিকু এবং শেখ হাসিনা মঞ্চে যুক্তরাষ্ট্রের সভাপতি হাজী জালাল উদ্দিন জলিল ও সাধারণ সম্পাদক কায়কোবাদ খান প্রমুখ সহ বিভিন্ন রাজনৈতিক,সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ-। এছাডাও ষোড়শ সংশোধনী রায় সম্পর্কে আইন কমিশনের চেয়ারম্যান ও সাবেক প্রধান বিচারপতি এবিএম খায়রুল হক বাংলাদেশের  বিভিন্ন টিভি চ্যানেল ইনটাভিঊতে ১৭ ও ১৮ আগষ্ট বলেছেন কোন বিচারপতি কোন রায়ে অনুরাগ বা বিরাগের বসবরতী হয়ে কোন রায় প্রধান করলে  তার  বিচারপতির শপথ গ্যহন বাংলাদেশের সংবিদান অনুয়ায়ী বাতিল য়োগ্য কিনা য়থায়থ করতিপখ ভেবে দেখা ঊচ্যি।


যুক্তরাষ্ট্র হবিগঞ্জ সদর সমিতি অভিষেক ও মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত

শনিবার, ১৯ আগস্ট ২০১৭

হাকিকুল ইসলাম খোকন,বাপসনিঊজ:যুক্তরাষ্ট্রে হবিগঞ্জবাসীর প্রানের সংগঠন হবিগঞ্জ সদর সমিতির অভিষেক ও মতবিনিময় সভা গত ১৩ই আগষ্ট নিউইয়র্কের জ্যাকসন হাইটসের পালকি পার্টি সেন্টারে সমিতির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আজদু মিয়া তালুকদার এর সভাপত্বিতে ও সাধারন সম্পাদক  শিমুল হাসান-এর পরিচালনায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন হবিগঞ্জ সদর আসনের  সাংসদ ¡এড.  আবু জাহির, বিশেষ অথিতি ছিলেন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামীলীগ ভারপ্রাপ্ত সভাপতি সামছুউদ্দিন আজাদ, উপদেষ্টা প্রদিপ রঞ্জন কর, উপদেষ্টা ডা: মাসুদ হাসানসহ প্রবাসের বিশিষ্টজনদের মধ্য উপস্থিত ছিলেন হবিগঞ্জ জেলার মাধবপুর উপজেলার সাবেক চেয়ারম্যান জাকির হোসেন অসিম, প্রদিপ রঞ্জন কর, মুজাহিদ আনসারী, আতাউর রহমান সেলিম, মহিউদ্দিন দেওয়ান, হাজী এনাম, ইমদাদুর রহমান চৌধুরী, এড. নাছির উদ্দিন, জকি উদ্দিন চৌধুরী, মীর দরবেশ আলী,

alt

আমন্ত্রিত অতিথি ছিলেন নাজিম উদ্দিন, তাজুল ইসলাম মানিক, ইঞ্জিনিয়ার শাহিন আহমেদ, গোলাম রব্বানী, রেজাউল আজাদ ভুইয়া রিজু। সমিতির প্রধান নির্বাচন কমিশনার মুজাহিদ আনসারী, হবিগঞ্জ সদর সমিতির নবনির্বাচিত কার্যকরি কমিটির সকলকে পরিচয় করিয়ে দেন কমিটির কর্মকর্তারা হলেন সভাপতি  আজদু মিয়া তালুকদার,সহ-সভাপতি অধ্যাপক আব্দুর রহমান, সৈয়দ আবদাল হোসাইন, শাহিন আহমেদ,  মিয়া মো: আসকির,শিমুল হাসান, সাধারন সম্পাদক – সুকান্ত দাস হরে, সহ-সাধারন সম্পাদক - আকবর হোসেন স্বপন,

Picture

ফয়সল আহমেদ খান, সাংগঠনিক সম্পাদক - মাহমুদুল হাসান মাহমুদ, কোষাধ্যক্ষ - আবুল কাসেম, ক্রীড়া সম্পাদক - এনামুল হাসান রাসেল, আইন সম্পাদক - এড. রহিম শেখ, দপ্তর ও প্রচার সম্পাদক-শামছু জামান শুভ, সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক- মো: আব্দুল আজিজ, সমাজ কল্যান ও আপ্যায়ন সম্পাদক-সৈয়দ এম রশিদ বাবু, মহিলা বিষয়ক সম্পাদক - হাসেনা সুলতানা চৌধুরী, কার্যকরী সদস্যরা হলেন - সেলিম আজাদ, গুলজার হোসেন, জায়েদুল মুহিদ খান, সুবাস দেব রায়, আবু সায়িদ চৌধুরী কুঠি, মোস্তফা কামাল সংগ্রাম, বিষ্ণু পদ সরকার, মো: আব্দুল ওয়াহেদ, মো: আবুল কালাম, জয়নাল আবেদীন খান,

alt

সকলকে ফুলের শুভেচ্ছা জানান সমিতির সাবেক সাধারন সম্পাদক  শিমুল হাসানের কন্যা সাদিয়া হাসান তাছমি, প্রধান অতিথি হবিগঞ্জ সদর-লাখাই আসনের সংসদ মো: আবু জাহির নব নির্বাচিত কার্যকরি কমিটির সকলকে শপথ পাঠ করান এবং উনার বক্তব্যে হবিগঞ্জ সদর সমিতি আগামীতে হবিগঞ্জবাসীর কল্যানে নিজেদেরকে নিয়োজিত রাখবে বলে আশাবাদ ব্যাক্ত করেন এবং উনার সরকারের বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মকান্ড তুলে ধরেন, প্রবাসী সকলকে দেশে বিনিয়োগ করার আহবান জানান।


বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেনারেল, নিউইয়র্ক এ যথাযোগ্য মর্যাদায় জাতীয় শোক দিবস পালন

শনিবার, ১৯ আগস্ট ২০১৭

হাকিকুল ইসলাম খোকন,বাপসনিঊজ:বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেনারেল, নিউইয়র্কে যথাযোগ্য মর্যাদায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪২তম শাহাদত বার্ষিকী উপলক্ষে ১৫ই আগস্ট ২০১৭ জাতীয় শোক দিবস পালন করে । সকালে কনস্যুলেট ভবনে কনসাল জেনারেল  শামীম আহসান,এনডিসি কর্তৃক জাতীয় পতাকা অর্ধনমিতকরনের মাধ্যমে দিনের কর্মসূচী শুরু হয়। বিকেলে আলোচনা সভা এবং দোয়া মাহফিল এর আয়োজন করা হয়। জাতির পিতা, তাঁর পরিবারের শহীদ সদস্যদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বর্ণাঢ্য জীবনের উপর নির্মিত একটি প্রামাণ্য চিত্র প্রদর্শন করা হয়।

alt

শোক দিবস উপলক্ষে মহামান্য রাষ্ট্রপতি, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, মাননীয় পররাষ্ট্র মন্ত্রী ও মাননীয় পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী কর্তৃক প্রেরিত বাণী পাঠ করা হয়। আলোচনা সভায় বক্তারা জাতির পিতার বর্ণাঢ্য জীবন ও অর্জন সম্পর্কে আলোকপাত করেন। তারা বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন ’সোনার বাংলা’ গড়ার লক্ষ্যে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী  শেখ হাসিনার গতিশীল নেতৃত্বে সমবেতভাবে কাজ করে একটি উন্নত ও সমৃদ্ধশালী বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে কাজ করার আহবান জানান।

Picture

আলোচনা পর্বে অন্যান্যদের মধ্যে যুক্তরাষ্ট্র সফররত গাজীপুর-২ আসনের এমপি এবং যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির চেয়ারম্যান  জাহিদ আহসান রাসেল, হবিগঞ্জ-৩ আসনের এমপি এবং গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সদস্য এডভোকেট  আবু জাহির, জাতিসংঘে বাংলাদেশ মিশনের স্থায়ী প্রতিনিধি ও রাষ্ট্রদূত  মাসুদ বিন মোমেন বক্তব্য রাখেন।

alt
কনসাল জেনারেল  শামীম আহসান,এনডিসি, তার স্বাগত বক্তব্যে বঙ্গবন্ধুর প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করেন এবং বাঙালীর প্রতিটি ন্যায়সংগত আন্দোলনে তাঁর নেতৃত্বস্থানীয় ভূমিকার কথা তুলে ধরেন। এ প্রসঙ্গে তিনি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ”ডিজিটাল বাংলাদেশ” গড়ার স্বপ্ন বাস্তবায়নের লক্ষ্যে সবাইকে কাজ করার আহবান জানান। জনপ্রিয় গণসংগীত শিল্পী ফকির আলমগীর, একুশে পদকপ্রাপ্ত নাট্যব্যক্তিত্ব জামালউদ্দিন হোসেন, স্থানীয় বীর মুক্তিযোদ্ধাবৃন্দ, বাংলাদেশ কমিউনিটির সদস্যবৃন্দ, সাংবাদিক, রাজনৈতিক, সাংস্কৃতিক ও সামাজিক সংগঠনগুলোর প্রতিনিধিগণ, কনস্যুলেট জেনারেল ও মিশনের কর্মকর্তা কর্মচারীবৃন্দ অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এবং পরিবারের অন্যান্য শহীদদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করে ও দেশের অব্যাহত সমৃদ্ধির জন্য বিশেষ দোয়া পরিচালনা করা হয়। আমন্ত্রিত অতিথিবৃন্দের মাঝে তবারক বিতরণের মাধ্যমে অনুষ্ঠান সমাপ্ত হয়।

alt
National Mourning Day observed at Bangladesh Consulate General in New York
Hakikul Islam Khokan,Bapsnews:Bangladesh Consulate General in New York observed the National Mourning Day with due solemnity on 15 August, 2017, marking 42nd martyrdom of the Father of the Nation Bangabandhu Sheikh Mujibur Rahman.

alt
The day started in the morning with the hoisting of the national flag at half-mast at the Chancery by Mr. Md. Shameem Ahsan,ndc, Consul General of Bangladesh. In the evening, a discussion-cum-special prayer was held at the Auditorium. The programme began with observance of one minute silence as a mark of respect for the Father of the Nation and other martyrs. A documentary on the glorious life of the Father of the Nation Bangabandhu Sheikh Mujibur Rahman was screened. This followed reading out of the messages of the Honorable President, Honorable Prime Minister, Honorable Foreign Minister and Honorable State Minister for Foreign Affairs on this occasion. In the discussion meeting, the speakers touched on the glorious life and achievements of the Father of the Nation. They urged all to work together to build a prosperous Bangladesh under the dynamic leadership of the Honorable Prime Minister Sheikh Hasina. Mr. Md. Zahid Ahsan Russel,MP, Honorable Chairman, Standing Committee on the Ministry of Youth and Sports and Advocate Md. Abu Zahir, MP, Habiganj-3, Honorable Member, Standing Committee on the Ministry of Housing and Public Works and H.E. Mr. Masud Bin Momen, Ambassador and Permanent Representative of Bangladesh to UN, among others, were present and spoke at the event.

alt
In his remarks, Consul General Mr. Md. Shameem Ahsan,ndc paid glowing tribute to  Bangabandhu and narrated his active involvement throughout his life for just causes of Bangalis. In this regard, he urged the expatriate Bangladeshi nationals to work unitedly for the implementation of a Digital Bangladesh as envisioned by the Honorable Prime Minister Sheikh Hasina.
Ekushey Padak Recipient drama personality Mr. Jamaluddin Hussain, popular Ganasangeet singer Fakir Alamgir, freedom fighters, members of Bangladesh community, leaders and representatives from political, cultural & social organizations, members of media, officials from Consulate General and Permanent Mission of Bangladesh to UN, among others, were present. A special prayer was offered for the salvation of the departed souls of Bangabandhu Sheikh Mujibur Rahman, other martyrs of the family and for the prosperity of the country. The programme ended with distribution of Tabarak among the guests.


কিশোরগঞ্জ ডিস্ট্রিক্ট এসোসিয়েশন নামে অবৈধ কমিটির বিজ্ঞাপনের প্রতিবাদ

শনিবার, ১৯ আগস্ট ২০১৭

হাকিকুল ইসলাম খোকন,বাপসনিউজ ঃ কিশোরগঞ্জ ডিস্ট্রিক্ট এসোসিয়েশন নামে সাবেক সভাপতি মফিজুর রহমান দুলাল ও সাধারণ সম্পাদক সুজন রায় কর্তৃক  সাপ্তাহিক দেশবাংলা ২০ আগষ্ট ২০১৭, ১১ পৃষ্ঠা এবং সাপ্তাহিক আজকাল ১৮ই আগষ্ট ২০১৭, ৩৯ পৃষ্ঠায়  বিজ্ঞাপনে মিথ্যা ও ভুয়া তথ্য প্রকাশের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন কিশোরগঞ্জ ডিস্ট্রিক্ট এসোসিয়েশনের আহবায়ক কমিটি। কিশোরগঞ্জ ডিস্ট্রিক্ট এসোসিয়েশন সাপ্তাহিক পরিচয়ে এক বিজ্ঞাপনে  প্রবাসী কিশোরগঞ্জ জেলাবাসীর প্রতি এক  খোলা চিঠিতে লেখেন
সুধী কিশোরগঞ্জ জেলাবাসী,
গত ৩১ শে জুলাই ২০১৭, কিশোরগঞ্জ ডিস্ট্রিক্ট এসোসিয়েশন সাবেক কমিটির মেয়াদ উত্তীর্ন হওয়ার প্রেক্ষিতে এক গণ সমাবেশের মাধ্যমে গঠনতন্ত্রের Art V Sec 15 ধারা অনুযায়ী একটি আহবায়ক কমিটি গঠন করা হয়। তিন মাস মেয়াদী কমিটি যত দ্রুত সম্ভব একটি নির্বাচিত কমিটি গঠনের লক্ষে কাজ করে যাচ্ছে। কিন্তু বিগত কমিটির অসহযোগিতার কারণে দায়িত্ব পালনে আমরা বাধাগ্রস্থ হচ্ছি। বিগত কমিটি দায়িত্ব হস্তান্তর না করে অবৈধভাবে কর্মকান্ড চালিয়ে যাচ্ছেন। আমরা এজন্য নিন্দা ও প্রতিবাদ জানায়। এমতবস্থায় কিশোরগঞ্জ জেলাবাসীকে সংক্ষিপ্তসারে বিগত কমিটির গঠনতন্ত্র বিরোধী কর্মকান্ডের একটি ফিরিস্থি তুলে ধরছি। গঠনতন্ত্রের Art VI Sub 5 ধারা অনুযায়ী কমিটির মেয়াদ ৩১শে ডিসেম্বর শেষ। প্রথা ও রীতি অনুযায়ী নির্বাচন ও অভিষেক এবং দায়িত্ব হস্তান্তরের জন্য ৩০ শে এপ্রিল রাখা হয়েছে। উল্লেখ বিগত সাতটি কমিটিই এই রীতি ও প্রথা অনুযায়ী দায়িত্ব সম্পন্ন করেছে। কিন্তু বিগত কমিটি ৩০ শে এপ্রিলের মধ্যে কোন কিছুই সম্পন্ন করেননি। উপরন্তু গঠনতন্ত্রের আপদকালীন সুযোগের ব্যবহার করে (স্মর্তব্য ৩০শে এপ্রিলের পরেই নির্বাচন না হলে আহবায়ক কমিটির কাছে ক্ষমতা হস্তান্তর করা)। ৩১ শে জুলাই পর্যন্ত বর্ধিত করা হয়। অবাক কান্ড ৩১ শে জুলাইয়ের মধ্যে অথর্ব সাবেক কমিটি নির্বাচনতো দূরের কথা একটি চুড়ান্ত ভোটার তালিকা পর্যন্ত সম্পন্ন করতে পারেনি। ইতিমধ্যে সমিতির সাতটি মাস অতিবাহিত হয়েছে। এখানেই শেষ নয়। বিগত কমিটির সভাপতি ও তার কতিপয় পরিষদ সম্পূর্ণ মিথ্যার আশ্রয় নিয়ে বলে বেড়াচ্ছেন তাদের কে চার মাসের (আগষ্ট পর্যন্ত) সময় দেয়া হয়েছে। সর্ব সাধারণের জ্ঞাতার্থে আমরা দৃঢ়তার সাথে জানাচ্ছি সাধারণ সভায় উপস্থিত চল্লিশজন কিশোরগঞ্জবাসী স্বকর্ণে সভাপতির মাধ্যমে তিন মাসের ঘোষণা ও প্রতিশ্রতি শুনেছেন, তার বক্তব্য ভিডিও রেকর্ডকৃত উপরন্ত এর পরবর্তী আরো তিনটি সভায় সভাপতি বলেছেন তার মেয়াদ ৩১ শে জুলাই পর্যন্ত। সভাপতি আরো বলেছেন নতুন কমিটি গঠিত হলে আগষ্টে নতুন কমিটি হাওর ভাত সম্পন্ন করবেন। কিন্তু গঠণতন্ত্রের ধারা লংঘণ করে তিনি এবং তার কতিপয় পরিষদ অবৈধভাবে ক্ষমতা দখল করে অন্যায়ভাবে হাওরভাত আয়োজনে ব্যস্ত। আমরা আরো দৃঢ়তার সাথে জানাচ্ছি ৩১ শে জুলাই কমিটির মেয়াদ শেষ, তার দায়িত্ব শেষ। তার বক্তব্য সোসাল মিডিয়া, পত্রিকা, অনলাইনসহ ভিডিওরেকর্ড আমদের কাছে রক্ষিত আছে। অবশ্য নিজে এখনও ৩১ শে জুলাই স্বীকার করেন। কিন্তু পরিষদের চাপে বাকীটা ... বুঝে নেন। যাইহোক, যদি সভাপতি কোন ধরনের চ্যালেঞ্জ করেন তবে আমরা সাংবাদিক সম্মেলন ডেকে সব কিছু প্রকাশে অঙ্গিকারাবদ্ধ। এরপরও কথা আছে। আমরা যারা সমিতি প্রতিষ্ঠা কাল থেকে জড়িত এবং সবাই সাবেক কর্মকর্তাবৃন্দ আমরা তিন/চার দফা চেষ্টা করেছি সভাপতির সাথে আলোচনা করে সংকট উত্তরণের জন্য কিন্তু দুর্ভাগ্য সভাপতি মহোদয় আলোচনায় তো বসেননি, উপরন্তু দুর্ব্যবহার, অসাদাচরণ করেছেন। কমিটির মেয়াদ শেষ নতুন কমিটি গঠন করতে হবে এই লক্ষ্যে কিশোরগঞ্জবাসী গণ সমাবেশ করে আহবায়ক কমিটি গঠিত হয়েছে (Art XIV Sec 2)| আমাদের লক্ষ্য কিশোরগঞ্জ ডিস্ট্রিক্ট এসোসিয়েশনের কার্যক্রম সচল রাখা এবং গঠনতন্ত্র সমুন্নত রাখা। পরিতাপের বিষয় হচ্ছে এখন পর্যন্ত আমাদের কাছে ভোটার তালিকা হিসাবপত্র (নগদ হাতে ৫০০ ডলার রাখার বিধান আছে কিন্তু বিগত কমিটির হাতে প্রায় ৮ হাজার ডলার আছে ব্যাংকে জমা রাখা হয়নি) অন্যান্য উপকরণ হস্তান্তর করেনি। অবিলম্বে হস্তান্তরের দাবি জানাচ্ছি।

alt
 কিশোরগঞ্জ জেলা বাসীর জ্ঞাতার্থে সকলের অবগতির জন্য জানাচ্ছি এই বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের দশ দিনের মধ্যে বিগত কমিটি দায়িত্ব হস্তান্তর না করলে আমরা আইনের আশ্রয়ে যেতে বাধ্য হবো। খোলা চিঠি প্রকাশের পর বিগত কমিটি সমিতির নামে কোন কর্মকান্ড পরিচালনা না করার আহবান জানাচ্ছি। অবৈধ কমিটির কোন কর্মকান্ড গ্রহনযোগ্য নয়।
প্রিয় কিশেরাগঞ্জ জেলাবাসী, কারো ব্যক্তিস্বার্থ হাসিলের জন্য সমিতি গঠিত হয় নাই। কেউ স্বেচ্ছাচারী মনোভাব পোষণ করুক, অগঠনতান্ত্রিক কাজ করুক, আমরা তা চাইনা। তাই আসুন কিশোরগঞ্জ ডিস্ট্রিক্ট এসোসিয়েশনকে রক্ষার জন্য সমিতির গঠনতন্ত্রকে রক্ষার জন্য সম্মিলিতভাবে কাজ করি। আমাদের প্রথম পদক্ষেপ হিসেবে আহবায়ক কমিটি কর্তৃক চড়–ইভাতি ২০শে আগষ্ট অনুুষ্ঠিত হবে। ভোটার তালিকা হস্তগত হওয়ার পর নির্বাচনের তফশিল ঘোষণা করা হবে। ভোটার তালিকা আহবায়ক কমিটির নির্বাচিত নির্বাচন কমিশনের কাছে দ্রুত হস্তান্তরের অনুরোধ জানাচ্ছি। উল্লেখ, ভোটার তালিকা প্রণয়নে আপনারা অগঠনতান্ত্রিক ও স্বেচ্ছাচারী মনোভাব নিয়ে তিনবার ডেডলাইন দিয়ে আরো সময় বাড়িয়েছেন। যা সম্পূর্ণ অবৈধ।
প্রিয় জেলাবাসী,
সভাপতি মহোদয় ও তার কতিপয় পরিষদের পত্রিকায় প্রকাশিত কর্মকান্ড সাপ্তাহিক দেশবাংলা ২০ আগষ্ট ২০১৭, ১১ পৃষ্ঠা এবং সাপ্তাহিক আজকাল ১৮ই আগষ্ট ২০১৭, ৩৯ পৃষ্ঠায় বিজ্ঞাপন দেখে আমরা স্তম্ভিত হয়ে গেছি গঠনতন্ত্র মোতাবেক রীতি রেওয়াজ অনুযায়ী আপনাদের দেয়া সাধারণ সভার ভাষণ, প্রতিশ্রুতি, ওয়াদা অনুযায়ী ৩১ শে জুলাইয়ের পর আপনার এবং আপনার কমিটির কোন বৈধতা নেই। কোন দুঃসাহসে কিছু সাবেক কর্মকর্তার বিরুদ্ধে শোকজ করেছেন? যে সাবেক সভার মাধ্যমে শোকজ করেছেন তাতেতো দুইতৃতীয়াংশের কোরামই হয়নি, উপরন্তু সাধারণ সভার উপস্থিতির স্বাক্ষর নোটিশে জুড়ে দিয়েছেন এবং অনুমোদনহীন, স্বাক্ষর বিহীন তারিখবিহীনরেজুলেশনের অংশ মুদ্রিত করেছেন যা সম্পুর্ণ ভুয়া।  সর্বজন স্বীকৃত বাণীটি কি, আপনারা ভুলে গেছেন। একটি সত্যকে আড়াল করতে দশটি মিথ্যা বলতে হয়। আপনারা পারেনও বটে। বিগত কমিটির দুটি ভালো কাজ গঠনতন্ত্র প্রনয়নও খসড়া ভোটার তালিকা তৈরী সবাই প্রশংসা করেছে। কিন্তু আপনার কতিপয় পরিষদের উচ্চভিলাসী স্বেচ্ছাচারী মনোভাব ক্ষমতা লিপসা, টালবাহানা, দীর্ঘ সুত্রিতা অযথা সময় ক্ষেপন করেছেন। ওয়াদা এবং প্রতিশ্রতি রক্ষা না করে নিজের প্রতিজ্ঞা নিজেই ভঙ্গ করে নিজেদের অবস্থান কোথায় একটু চিন্তা করুন? কথা ছিল প্রতিশ্রুতি ছিল, ওয়াদা ছিল, নতুন কমিটির মাধ্যমে হাওরভাত অনুষ্ঠিত হবে। অবৈধ কমিটির মাধ্যমে অনুষ্ঠিতব্য হাওরভাতে কোন বিবেক সম্পন্ন কিশোরগঞ্জ ডিস্ট্রিক্ট এসোসিয়েশনের প্রতি যাদের ভালবাসা আছে গঠনতন্ত্রের প্রতি যাদের সমর্থন আছে তারা আপনাদের হাওরভাতে কোন যুক্তিতে অংশ নিবে আমরা জানিনা।
প্রিয় প্রবাসী কিশোরগঞ্জ জেলাবাসী, আসুন সকল ভেদাভেদ ভুলে কিশোরগঞ্জ ডিস্ট্রিক্ট এসোসিয়েশনের নবযাত্রায় শরিক হোন। আমরা প্রতিজ্ঞা ও প্রতিশ্রুতিবদ্ধ, প্রবাসে আমরা সমিতিকে আরো সুন্দরভাবে সুপ্রতিষ্ঠিত করবো। সকলের অংশগ্রহনেই আমাদের ঐক্য ও ভ্রাতৃত্ব আরো মজবুত হবে। সবাইকে ধন্যবাদ।


পথশিশুদের পাশে ঢাকা আহছানিয়া মিশন ইউএসএ

শনিবার, ১৯ আগস্ট ২০১৭

হাকিকুল ইসলাম খোকন,বাপসনিঊজ:সমাজ জীবনে পথশিশুদের বৈষম্য ও অবিচার দূর করে তাদের জীবন আলোকিত করতে পাশে দাড়িয়েছে ঢাকা আহছানিয়া মিশন ইউএসএ (ডি এএম ইউ এস এ) । ভাগ্য বিড়ম্বিত এক হাজার পথশিশুদের নিয়ে পঞ্চগড়ে আরেকটি শিশু পল্লী গড়ে তোলার উদ্যোগ নিয়েছে ডিএএমইউএসএ ।আর এ লক্ষে শনিবার, ২৯ জুলাই  আলীবাবা রেস্টুরেন্টে “ঢাকা আহছানিয়া মিশন চিলড্রেন সিটি” শীর্ষক এক ফান্ডরেইজিং ডিনারের আয়োজন করা হয়। উক্ত অনুষ্ঠানের মাধ্যমে সর্বমোট ১১৬১৫.০০ ডলার (এগার হাজার ছয়শত পনের ডলার) আনুদান এবং স্পন্সরশীপের মাধ্যমে সংগৃহীত হয়।
 
ঢাকা আহ্ছানিয়া মিশন ইউএসএ এর সভাপতি নাঈমা খানের সভাপতিত্বে এই অনুষ্ঠানটির আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন, ডিএএমইউএসএ এর যুগ্ম সাধারন সম্পাদক এবং ঢাকা আহছানিয়া মিশন চিলড্রেন ভিলেজ এর প্রধান নওশের রহমান, সহ সভাপতি এবং ফান্ডরেইজিং ডিনার অনুষ্ঠানের আহ্বায়ক ড. ইলোরা রফিক, কোষাদক্ষ্য সেলিনা শারমিন, ডিএএমইউএসএ এর প্রতিষ্ঠাতা সাধারন সম্পাদক আনিসুল কবির জাছির ফান্ডরেইজিং অনুষ্ঠানে সকলকে শুভেচ্ছা রাখেন এবং ঢাকা আহ্ছানিয়া মিশন ইউএসএ এর উন্নতি কামনা করেন।
 
উক্ত অনুষ্ঠানটিতে সম্মানিত বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন প্রেসিডেন্ট এবং প্রতিষ্ঠাতা ঢাকা আহসানিয়া মিসন বাংলাদেশ কাজি রফিকুল আলম। উপস্থিত ছিলেন, ডঃ দেলয়ার হোসেন, মহাম্মেদ নুরুদ্দিন, মহাম্মেদ  মফিজ রাহমান, এবং আফতাব মান্নান।সমাজের সবাইকে পথশিশুদের সাহায্যে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান ডিএএমইউএসএ এর সভাপতি নাঈমা খান।  তিনি বলেন, পথশিশুরা সমাজ জীবনে বিভিন্ন বৈষম্যের মধ্যদিয়ে বেড়ে উঠছে। আর এই দুর্বলতার সুযোগ নিয়ে তাদেরকে বিভিন্ন অপরাধমূলক এবং ঝুঁকিপূর্ণ কাজে ব্যবহার করছে এক শ্রেণির মানুষ। তাই পথশিশুদের জীবন আলোকিত করতে আমাদের সকলকে এগিয়ে আসতে হবে। যার যার জায়গা থেকে আমরা সবাই যদি এগিয়ে আসি তবেই মিলবে সফলতা।আয়োজকরা জানান, বাংলাদেশের পঞ্চগড়ে ঢাকা আহছানিয়া মিশন চিলড্রেন ভিলেজ গড়ে তোলা হবে। আর এই প্রকল্পের সরাসরি তত্বাবধানে থাকবে ডিএএমইউএসএ । ২০১১ সালে জার্মানীর সহায়তায় পঞ্চগড়ে ৩০০ বিঘা জমির উপর প্রতিষ্ঠা করা হয় আহছানিয়া মিশন শিশু নগরী’র প্রথম শিশুগ্রাম। আর এবার আরো এক হাজার পথশিশুদের সুন্দর ভবিষ্যৎ গড়তে দ্বিতীয় প্রকল্পটি হাতে নেওয়া হয়েছে বলে জানান আয়োজকরা।
 
অনুষ্ঠানে পাওয়ার পয়েন্ট প্রেজেন্টেশনের মাধ্যমে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন নওশের রহমান (হ্যাড অব ঢাকা আহছানিয়া মিশন চিলড্রেন ভিলেজ)।  প্রেজেন্টেশনে তিনি বাংলাদেশ উন্নয়ন গবেষণা প্রতিষ্ঠান (বিআইডিএস), সমাজ কল্যাণ মন্ত্রণালয়সহ বিভিন্ন গবেষণা প্রতিষ্ঠানের তথ্য তুলে ধরে বলেন, ২০০৪ সালে বাংলাদেশে সুবিধাবঞ্চিত, ভাগ্য বিড়ম্বিত পথশিশু ছিল ৫ লাখ, যা ২০১৪ সালে দাড়ায় ১০ লাখে এবং আগামী ২০২৪ সালে এ সংখ্যা দাড়াবে ২০ লাখে। আর এসব পথশিশুদের ৮০ শাতাংশের শিক্ষা, স্বাস্থ্যসেবা এবং পয়নিষ্কাশনের ব্যবস্থা নেই। শুধু তাই নয় তাদের অনেককেই যোগাড় করতে হয় সংসারের খরচ। এতে বাধাগ্রস্ত হচ্ছে শিশুর স্বাভাবিক বিকাশ। যা একটি বড় সমস্যা। আর এ সমস্যার সমাধানে আমাদের সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে। নিতে হবে দীর্ঘ মেয়াদী পরিকল্পনা। তিনি বলেন, পথশিশুদের অবৈতনিক শিক্ষাদানের পাশাপাশি কারিগরি শিক্ষাদানের ব্যবস্থা করতে হবে। সাইকোলজিক্যাল কাউন্সিল করতে হবে, এবং খেলাধুলার ব্যবস্থা করতে হবে। ঢাকা আহছানিয়া মিশন চিলড্রেন ভিলেজে শিশুদের থাকা, খাওয়া, স্বাস্থ্যসেবা, সাধারন ও কারিগরি শিক্ষাসহ খেলাধুলার ব্যবস্থা থাকবে বলে জানান নওশের রহমান।
 
“ঢাকা আহছানিয়া মিশন চিলড্রেন ভিলেজ” শীর্ষক এই ফান্ডরেইজিং ডিনার অনুষ্ঠানটি যাদের সহযোগীতায় সফল হয়েছে তারা হলেন, নাঈমা খান, ফরহাদ রেজা, ড. ইলোরা রফিক, নওশের রহমান, সেলিনা শারমিন, আনিসুল কবির জাছির, কিউনি বাংলাদেশী এ্যালমনাই নেটওয়ার্ক (সিবিএএন), এটর্নি এট ল ইশরাত সামি, আফতাব মান্নান,(মালিক আলী বাবা রেস্টুরেন্ট), সৈয়দ মান্নান, (মালিক মান্নান সুপার মার্কেট), মহাম্মেদ  মফিজ রাহমান,  ফটোগ্রাফার নেহার সিদ্দিকি সহ আরও অনেকে উপস্থিত ছিলেন। নিউ ইয়র্কের জনপ্রিয় সঙ্গীত শিল্পী শাহ মাহবুবের চমৎকার সঙ্গীত পরিবেশনা উপস্থিত সবাই উপভোগ করেন।


নরসিংদী জেলার সংসদীয় আসন ৫- এর সম্ভাবনাময় তরুণ প্রার্থী এডভোকেট রিয়াজুল কবীর কাওসার নিউ ইয়র্কে বসবাসরত "আমরা রায়পুরাবাসী" কর্তৃক সংবর্ধিত

শনিবার, ১৯ আগস্ট ২০১৭

হাকিকুল ইসলাম খোকন, বাপসনিঊজ:বাংলাদেশের নরসিংদী জেলার বৃহত্তর থানা রায়পুরা হতে উত্তর আমেরিকায় তথা নিউইয়র্কে পাড়ি দিয়েছেন এমন মানুষের সংখ্যা নেহায়েত কম নয়, তবে এর সঠিক হিসাব কারও জানা নেই l অনুমান করা যায় তিনশতও বেশি রায়পুরাবাসী ও তাদের পরিবার নিউইয়র্কে বসবাস করেন কিন্তু খুব কমই একে অন্যকে চিনেন l  নিউইয়র্কে নরসিংদীবাসীর সামাজিক সংগঠন নরসিংদী জেলা সমিতি ইউএসএ  কর্তৃক প্রতি বৎসরই নানা রকম প্রোগ্রামের আয়োজন করিলেও সেখানে মুষ্টিমেয়  নেতৃত্বস্থানীয় রায়পুরাবাসী ছাড়া সাধারণ রায়পুরাবাসীর অংশগ্রহণ তেমন চোখে পরে না l এই নিয়ে বেশ কয়েক বৎসর ধরেই এখানকার রায়পুরাবাসী ছিল সবসময় আলোচনা মুখর l চেষ্টা চলছিল কিভাবে  সমস্ত রায়পুরাবাসীকে একত্রিত করা যায় l  সবায় মিলে একটা ফ্যামিলি গেট টোগেদার করা যায় কিনা অথবা কোন একটা পিকনিক বা অন্ততঃপক্ষে একটা ইফতার পার্টি হলেও আয়োজন করা যায় কিনা যার মাধ্যমে নিউইয়র্কে বসবাসরত সমস্ত রায়পুরাবাসীর মধ্যে একটা বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক গড়ে উঠবে l


অবশেষে গত ৬ই আগস্ট এক মনোজ্ঞ সন্ধ্যায় নিউইয়র্কে বসবাসরত রায়পুরাবাসী সুদূর বাংলাদেশ থেকে আগত রায়পুরার কৃতীসন্তান, ঢাকা বিশ্ব বিদ্যালয়ের সাবেক ছাত্রনেতা, বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির অন্যতম সদস্য, প্রখ্যাত টিভি আলোচক ও সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী  এবিএম রিয়াজুল কবীর কাওসার কে নিউইয়র্কের জ্যামাইকার গরোয়া রেস্তোরাঁয় আনুষ্ঠানিকভাবে সংবর্ধনা প্রদানের মাধ্যমে মিলনের সূচনা করেন l

উক্ত সংবর্ধনা অনুষ্টানে উপস্থিত ছিলেন নরসিংদী জেলা সমিতি ইউএসএ-এর গত টার্মের সম্মানী সাধারণ সম্পাদক  জসিম উদ্দিন খোন্দকার, সহ সভাপতি  আনোয়ার হোসেন ও উপদেষ্টামন্ডলীর সম্মানী সদস্য  ইঞ্জিনিয়ার নুরুল হক, নরসিংদী জেলা সমিতির বর্তমান কমিটির সহ সাধারণ সম্পাদক  শাহীন সিকদার, সাংগঠনিক সম্পাদক এহসানুল হক বাবুল ও প্রচার সম্পাদক হাসিবুর রহমান, নরসিংদী জেলা সমিতির গত নির্বাচনের  নির্বাচন কমিশনার  সামসুল আলম খোকন ও ওয়াহিদুজ্জামান, আমিনুজ্জামান,  জাহাঙ্গীর আলম,  ইব্রাহিম মিয়া,  আয়েশা বেগম ,পলাশ খান, মাহাফুজ আলম ভূঁইয়া, মাইনুদ্দিন ভূঁইয়া, ওয়াসেল কবীর ভূঁইয়া, শ্যামল ভূঁইয়া, সাইফুল ভূঁইয়া বিপ্লব, জামান আলীসহ আরো অনেকে l  সভায়  সভাপতিত্ব করেন নরসিংদী জেলা সমিতি ইউএসএ-এর উপদেষ্টামন্ডলীর সম্মানী সিনিয়র সদস্য  আবু সাইদ পন্ডিত l

নিউইয়র্কে বসবাসরত রায়পুরাবাসী উক্ত  সংবর্ধনা ও আলোচনা অনুষ্ঠানের  পুরোটা জুড়ে  রিয়াজুল কবীর কাওসার সাহেবের সাথে প্রাণখোলে আড্ডা দেন এবং শুনেন রায়পুরার যোযোযোগ ব্যবস্থার উন্নয়ন ও রায়পুরা কলেজ সরকারিকরণের কথা l  আলোচনার এক ফাঁকে চলে আসে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে  কাওসার সাহেবের প্রার্থী হওয়ার বিষয়টি l  তিনি অনুষ্ঠানে উপস্থিত রায়পুরাবাসীর কাছে আগামী সংসদ নির্বাচনে তার প্রার্থিতার বিষয়ে সবার দোয়া কামনা করেন l তিনি আলোচনার এক পর্যায়ে যে সকল বাংলাদেশী আমেরিকান সিটিজেনশিপ নিয়েছেন তাদের সবাইকে বাংলাদেশের ন্যাশনাল আইডি ও ডুয়েল সিটিজেনশিপ করে রাখার জন্যে উৎসাহিত করেন l এর পক্ষে তিনি বেশকিছু সুন্দর যুক্তিও তুলে ধরেন এবং এ ব্যাপারে তার পক্ষ থেকে পাসপোর্ট অফিসসহ অন্যান্য যেকোনো জায়গায় সব রকম সহযোগিতা প্রদানের আশ্বাস প্রদান করেন l

আলোচনা পর্বে জানা যায় কাওসার সাহেবের দুই ছেলেই বাই-বোর্ন আমেরিকান সিটিজেন এবং তার সাত ভাইদের মধ্যে পাঁচ ভাইই আমেরিকায় বসবাস করেন lকাওসার সাহেবের সাথে আড্ডা দেয়ার সময় উপস্থিত রায়পুরাবাসী উপলব্ধি করেন যে, ভবিষ্যতেও বাংলাদেশ তথা রায়পুরা থেকে আগত যে কোন অতিথিকে  দলমত নির্বিশেষে এরকমভাবে যেন অভ্যর্থনা দিতে পারেন এবং আরো বেশি জমজমাটভাবে আড্ডা দিতে পারেন সেই আশা ও  প্রত্যয় নিয়ে  15 সদস্য বিশিষ্ট একটি ক্রাশ টিম   গঠন করেন  যার কাজ হবে খুব অল্প সময়ের মধ্যেই  "আমরা রায়পুরাবাসী" নামে সকলকে সুসংগঠিত করে একে অন্যের সাথে যোগাযোগ বৃদ্ধি করা ও  সামাজিক বন্ধন আরো  সুদৃড়  করা  এবং বিপদে আপদে সহযোগিতার হাত প্রশস্ত করা l

alt
রিয়াজুল কবীর কাওসার রায়পুরাবাসী কর্তৃক সংবর্ধিত হওয়ার পাশাপাশি 30শে জুলাই নরসিংদী জেলা সমিতি ইউএসএ-এর বাৎসরিক পিকনিকে বেলাবো-মনোহরদী আসনের বর্তমান সংসদ সদস্য   নুরুল মজিদ হুমায়ন সাহেবের সাথে বিশেষ অতিথি হিসেবে আমন্ত্রিত হয়ে বিশেষ সমমনা ও ক্রেস্ট উপহার গ্রহণ করেন l


ওয়াশিংটন ডিসিতে ১৫ই আগস্ট জাতিয় শোক দিবস ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত

শনিবার, ১৯ আগস্ট ২০১৭

বাপ্‌স নিউজ : বিনম্র শ্রদ্ধা ও যথাযত ভাব গাম্ভির্যের সাথে ওয়াশিংটনে পালিত হয় ১৫ ই আগস্ট জাতিয় শোক দিবস ও জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর ৪২ তম মৃত্যুবার্ষিকি । গত ১৫ই আগস্ট ওয়াশিংটন ডি সি তে ভার্জিনিয়া স্টেট আওয়ামীলীগ ম্যারীল্যান্ড স্টেট আওয়ামীলীগ, বৃহত্তর ওয়াশিংটন আওয়ামী যুবলীগ, বৃহত্তর ওয়াশিংটন ছাত্রলীগের যৌথ আয়োজনে আলোচনা সভায় ভার্জিনিয়া স্টেট আওয়ামীলীগ এর সভাপতি জনাব রফিক পারভেজের সভাপত্তিতে এবং ভারপ্রাপ্ত সাধারন সম্পাদক এডভোকেট অমর ইসলামের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানের প্রধান অথিতি ছিলেন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামীলিগের উপদেষ্ঠা ও মেট্রো ওয়াশিংটন আওয়ামীলিগের সাবেক সভাপতি জনাব ড: খন্দকার মনসুর,প্রধান বক্তা ছিলেন ম্যারীল্যান্ড স্টেট আওয়ামীলীগ এর সভাপতি শেখ সেলিম। সভায় বক্তারা বলেন, জাতীয় শোক দিবসের শোক কে শক্তিতে পরিণত করতে হবে। এবং বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়ে তুলতে সকল বাংলাদেশিদের ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার আহ্বান জানান। আলোচনা সভায় বক্তারা আরো বলেন, ১৯৭৫ সালে ১৫ আগস্ট রাতের আঁধারে স্বপরিবারে বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমানকে যারা হত্যা করেছে বাঙালি জাতি কখনো তাদের ক্ষমা করবে না। বিদেশে পালিয়ে থাকা বঙ্গবন্ধু হত্যা মামলার আসামিদের ফেরৎ এনে দ্রুত ফাঁসির রায় কার্যকর করার দাবি জানান তারা।


সভায় আরো বক্তব্য রাখেন ভার্জিনিয়া আওয়ামীগের সহ সভাপতি আনোয়ারুল আজিম ,আবুল কালাম আজাদ মেট্রো ওয়াশিংটন আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি জীবক কুমার বড়ুয়া মেরিল্যান্ড আওয়ামীলীগ এর সহ-সভাপতি দুলাল আহমেদ, বিশ্বজিত রায়। ,ভার্জিনিয়া আওয়ামীগের সহ সভাপতি বীর মুক্তিযাদ্ধা মনসুর আহমেদ, মো: আমিনুজ্জামান ,মো এ তালুকদার, মো: বক্তিয়ার আলী প্রামানিক,মেট্রো ওয়াশিংটন আওয়ামীলিগের আঈন ও আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক দস্তগীর জাহাঙ্গীর ,ভার্জিনিয়া আওয়ামীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ওসমান খাঁন,আলতাফ হোসেন,মো: জাকির হোসেন ,দপ্তর সম্পাদক আনিসুর রহমান,আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক মো: আনোয়ার হোসেন, সাংস্কৃতিক সম্পাদক ইন্জিনিয়ার রফিকুল ইসলাম ,বৃহত্তর ওয়াশিংটন আওয়ামী যুবলীগের সভাপতি দেওয়ান আরশাদ আলী বিজয়, সহ সভপতি সুজিত বড়ুয়া, মো: সামসুজ্জামান মাহমুদ, সাধারণ সম্পাদক জাহিদ হোসেন যুগ্ন সাধারন সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান , সাংগঠনিক সম্পাদক মো: জামাল হোসেন ।দপ্তর সম্পাদক মো: আরিফ হোসেন,বৃহত্তর ওয়াশিংটন ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক মির রফিকুল ইসলাম । যুগ্ন সাধারন সম্পাদক মো: ইয়াসিন চৌধুরী রিফাত প্রমুখ ।আলোচনা শেষে বঙ্গবন্ধু ও তার পরিবারসহ জাতিয় চার নেতা এবং স্বাধীনতা যুদ্ধে এবং প্রতিটি গণতান্ত্রিক আন্দোলনে নিহত সকল শহিদের রুহের মাঘফেরাত কামনা করে দোয়া করা হয় ।দোয়া পরিচালনা করেন ভার্জিনিয়া আওয়ামীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ওসমান খাঁন ।আলোচনা সভা এবং দোয়া মাহফিল শেষে রাতের খাবার পরিবেশন করা হয়।


"বাই"-এর নাটক "পালকি" আসছে ১৯-২০শে আগষ্ট

শনিবার, ১৯ আগস্ট ২০১৭

হাকিকুল ইসলাম খোকন, বাপসনিঊজ:ভার্জিনিয়া: আগামী ১৯শে এবং ২০শে আগষ্ট ভার্জিনিয়ার আনানডেলস্থ নোভা কমিউনিটি ক্লেজের আর্নেস্ট কালচারাল সেন্টারে হোটেলে বাংলাদেশ এসোসিয়েশন অব আমেরিকা ইঙ্ক (বাই) নিবেদিত নাটক- "পালকি"র শুভ প্রদর্শনী অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। দুইদিনে মোট চারটি প্রদর্শনী। ১৯শে আগষ্ট শনিবার বিকেল ৫টায় এবং রাত ৮টায় , ২০শে আগষ্ট রবিবার অপরাহ্ন তিনটায় এবং সন্ধ্যা ৬টায় এই প্রদর্শনী অনুষ্ঠিত হবে। নাটকটির গ্র্যান্ড স্পন্সর- আইটি প্রতিষ্ঠান পিপল এন টেক।

আধুনিক প্রযুক্তি নির্ভর নাটক পাল্কী গ্রেটার ওয়াশিংটনের প্রবাসীদের প্রানে স্পন্দন জাগাতে এখন প্রস্তুত। বাই পরিবেশিত পাল্কীটি নিবেদন করা হয়েছে বাংলাদেশে চলমান বন্যা দূর্গত মানুষের জন্য।নাটকটি থেকে অর্জিত আয়ের একটি অংশ দেশের বন্যা দূর্গত মানুষের কল্যানে ব্যয় করা হবে। "ঘুড়ি" এবং "ঢেউ" এর দারুন সাফল্যের পর তাদের তৃতীয় পরিবেশনা “পালকি”কে কেন্দ্র করে ইতিমধ্যেই যথেষ্ট উৎসাহ উদ্দীপনা সৃষ্টি হয়েছে অন্দরে-বাহিরে। ‘ঘুড়ি” এবং “ঢেউ”র মত পাল্কীও মৌলিক নাটক।  নাটকটির স্ত্রীপ্ট লিখেছেন সফি দেলোয়ার কাজল এবং পরিচালনা করেছেন কামরুল খান লিঙ্কন। কোরিওগ্রাফার রুমা খান।


একটি ষোড়শী’ মেয়ের জীবন রহস্য আর স্বপ্ন ঘিরে গড়ে উঠেছে কাহিনীটি। তবে বলতে যতটা সহজ লাগছে, পাল্কীর কাহিনী তার চেয়েও বেশী চমকপ্রদ এবং রহস্যাবৃত। নাটকটি না দেখা পর্যন্ত এই রহস্য বোঝা যাবে না। মঞ্চের লাইফ পরিবেশনার সাথে প্রি-কম্পোজিতকৃত অংশের ফিউশন নাটকটিকে দিচ্ছে নতুন মাত্রা। মঞ্চে একেবারেই নতুন এই টেকনোলজী ব্যবহারেসহযোগিতা করছেন University of Virginia, and California's Loyola Marymount Universityএর ড্রামা বিভাগের ছাত্র-ছাত্রীরা।

এ ছাড়া George Mason University, James Madison University, Northern Virginia Community College, University of Maryland and George Washington University র ছাত্র/ছাত্রীরা নানা ক্ষেত্রে সহযোগিতা দিচ্ছে। ফলে বলা যেতে পারে পাল্কী মূলধারার সাথে বাংলা সংষ্কৃতির সেতুবন্ধন।  নাটকটির নাম ভুমিকার শিল্পী কিশোরী মেয়ে সামারা এলাহী। শিমুল চরিত্রে রূপদানকারী অদিতি চৌধুরী। সাথে থাকছে সফিকুল ইসলাম, কুলসুম রহমান, প্রনব বড়ুয়া, রমি মাহমুদ, শাহীন জাহাংগীর , তাসিনসহ এক ঝাঁক তরুণ তরুণী।

নাটকটি ছোট-বড় কিশোর-কিশোরী থেকে শুরু করে বয়স্ক পর্যন্ত সব ধরনের মানুষেরই মনের চাহিদা পূরণ করতে সক্ষম হবে বলে আয়োজকরা মনে করছেন। । এছাড়া, ছোট ছেলে-মেয়েরা নাটকটি দেখে কি বুঝতে পেরেছে, তার একটা পরীক্ষা তারা বাবা-মাকে দিতে পারবে নাটক দেখার পর এবং এর মধ্য দিয়ে নবীন প্রজন্মকে বাংলা নাটকে সম্পৃক্ত করার একটি পথও উন্মুক্ত হয়ে যাচ্ছে।

পাল্কী এক ষোড়শী কন্যার জীবন গাঁথা। বাংলাদেশের শহরতলীতে হিজলতলী গ্রামের ইছামতি নদীর পারে মাষ্টার বাড়ীর দুই মেয়ে শিমূল এবং পালকি। দুই বোনের জীবনের হাসি-কান্না, আনন্দ বেদনার এক রূপ কল্প নাটক-পাল্কী। তবে এর কাহিনী বিন্যাসে ষোড়শী পাল্কীর জীবনের নানা বাঁক-ই ফুটে উঠেছে । পাল্কীর জীবনের দুরন্তপনা, ছেলে মানুষী, জীবনের কাছে তার চাওয়া-পাওয়া, তার ভাবনা, তার স্বপ্ন, সব কিছুই ফুটে উঠেছে পাল্কীর কাহিনীতে।আমরা যেমন এই নাটকের মধ্য দিয়ে পাল্কীর স্বপ্নকে জাগিয়ে তুলেছি। তেমনি এই স্বপ্নের ভিতরে আরেক স্বপ্নের বীজ বোপন করেছি। সাথে সাথে পাল্কী নাটকে বিস্তৃত হয়েছে আমাদের সম্পর্কের বিষয়গুলি।

মা-মেয়ের সম্পর্ক, বোন-বোনে , বাবা-মেয়ে, এবং মানুষে-মানুষে, বিশেষ করে ভালবাসা-ভাললাগার মানুষের সম্পর্ক। এই সম্পর্কের মাঝেই প্রকাশিত এবং বিকশিত হয়েছে আবেগ, ভালবাসা, রাগ-অনুরাগ, আনন্দ-বেদনা, আশা-অনুশোচনা এবং কৃতজ্ঞতা প্রকাশের এক নিরন্তন প্রচেষ্টা। আমরা দায়িত্ব নিয়ে বলছি ঘুড়ি এবং ঢেউ এর পর পালকিও আপনাদের ভরিয়ে দেবে মন।  তিনি বলেন অন্যান্য মাধ্যমের সাংষ্কৃতিক অনুষ্ঠানের চেয়ে নাটক একটি সময় সাপেক্ষ ব্যায়বহুল প্রযোজনা। তাই গ্রেটার ওয়াশিংটন বাংলাদেশী কমিউনিটির সকলের সহযোগিতা একান্ত প্রয়োজন। বাই পরিবেশিত নাটক সুষ্ঠ বাংলা সংষ্কৃতির নির্যাস বিনোদনের পাশাপাশি একটি তহবিল উন্নয়ন প্রকল্প।

এই নাটকের আয় দিয়ে বাংলাদেশের দুঃস্থ জনগোষ্ঠী, গ্রেটার ওয়াশিংটনের এন আর বি এবং মূলধারার দুঃস্থ মানুষের কল্যানে পরিচালিত প্রকল্পগুলিতে ব্যয় করা হবে। বাংলাদেশ এসোসিয়েশন অব আমেরিকা ইঙ্ক (বাই) এর এই মহতী উদ্যোগে সামিল হবার জন্যে গ্রেটার ওয়াশিংটন প্রবাসী বাংলাদেশীদের আহ্বান জানিয়েছেন এসোসিয়েশনের কর্মকর্তাবৃন্দ।