Slideshows

http://bostonbanglanews.com/index.php/images/images/components/com_gk3_photoslide/thumbs_small/components/com_gk3_photoslide/thumbs_big/components/com_gk3_photoslide/thumbs_big/605744Finding_Immigrant____SaKiL___0.jpg

কুইন্স ফ্যামিলি কোর্টে অভিবাসী

হাকিকুল ইসলাম খোকন/বাপ্‌স নিউজ/প্রবাসী নিউজ ঃ বষ্টনবাংলা নিউজ ঃ দ্যা ইন্টারফেইস সেন্টার অব নিউইয়র্ক ও আইনী সহায়তা সংগঠন নিউইয়র্ক এর উদ্যোগে গত ২৪ অক্টোবর বৃহস্পতিবার সকাল ৯ See details

ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার

পরিচালনা পরিষদ 

সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি

ওসমান গনি
 

প্রধান সম্পাদক

হাকিকুল ইসলাম খোকন
 

সম্পাদক

সুহাস বড়ুয়া হাসু
 

সহযোগী সম্পাদক

আয়েশা আকতার রুবী

যুক্তরাষ্ট্রের খবর

দোহার সমিতি ইঊএসএর কার্যকরী পরিষদ গঠিত

মঙ্গলবার, ০৯ জানুয়ারী ২০১৮

হাকিকুল ইসলাম খোকন,বাপসনিঊজ:দোহার উপজেলা ইউএসএ-এর ২০১৮-২০১৯ মেয়াদের কার্যকরী পরিষদ গঠন কল্পে গত ২ ডিসেম্বর জ্যাকসন হাইটস্থ রুমালী বাজার পার্টি হলে এক জরুরী সাধারণ সভার আয়োজন করা হয়। প্রধান নির্বাচন কমিশনার  গিয়াস আহমদের সভাপতিত্বে এবং নির্বাচন কমিশনার হাফিজুর রহমান হাফিজের পরিচালনায় সভাটি অনুষ্ঠিত হয়।খবর বাপসনিঊজ।
অন্যান্যদের মধ্যে কমিশনার রফিকুল ইসলাম মুরাদ, আজাদ রহমান এবং মীর মোজাফফর আলী উপস্থিত ছিলেন। চলতি কমিটির সভাপতি আলম হোসেন  এবং সাধারণ সম্পাদক দুলাল বেহেদু সহ অন্যান্য কর্মকর্তা ও সাধারন সদস্য উপস্থিত ছিলেন। ইতিপূর্বে নির্বাচনী তফসিল অনুযায়ী গৃহীত মনোনয়ন পত্র এবং জরুরী সাধারন সভায় সর্ব সাধারন কর্তৃক অনুমোদিত সমিতির কার্যকরী কমিটির ২৫ সদস্য বিশিষ্ট পরিষদের শুধু মাত্র সভাপতি ব্যাতিরেক ২৪টি পদই বিনা প্রতিদ্বন্দিতায় গৃহত হয়। সভাপতির পদে  আব্দুর রাজ্জাক  এম আনোয়ার এবং  দুলাল বেহেদু নির্বাচনে প্রতিদন্দিতার জন্য অভিপ্রায় ব্যক্ত করনে। এখানে উল্লেখ্য যে, সভাপতির পদে আরো দুই জন প্রার্থী  শেখ সালাউদ্দিন আহমেদ খোকন এবং মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ  সমিতির স্বার্থে  নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দিতার প্রার্থীতা প্রত্যাহার করে নেন।
এই জরুরী সাধারন সভায় আরো সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় যে ২৭শে ডিসেম্বর পর্যন্ত সভাপতির পদে মনোনয়ন পত্র দাখিলের সর্বশেষ সময়সীমা বৃদ্ধি করা হয় এবং ২৯ ডিসেম্বর মনোনয়ন পত্র বাছাই বা প্রত্যাহারের শেষ দিন নির্ধারণ করা হয়।


যেহেতু ২৭শে ডিসেম্বর পর্যন্ত নির্বাচন কমিশনের হাতে শুধুমাত্র  আব্দুর রাজ্জাক (এম আনোয়ার) ব্যতিরেকে অন্য কোন প্রার্থীতা বা মনোনয়ন পত্র দাখিল হয় নাই, সেহেতু জরুরী সভায় গৃহীত সিদ্ধান্ত অনুযায়ী  আব্দুর রাজ্জাক (এম আনোয়ার) বিনা প্রতিদ্বন্দীতায় নির্বাচিত হন। দোহার উপজেলা সমিতি ইউএসএ-এর কার্যকরী পরিষদের (২০১৮-২০১৯) পূর্ণাঙ্গ কর্মকর্তাগন  হলেন সভাপতি-আব্দুর রাজ্জাক (এম আনোয়ার), সহ সভাপতি- আব্দুর রউফ, সহ সভাপতি-আব্দুর রাজ্জাক নান্নু, সহ সভাপতি- রীনা মাসুদ, সহ সভাপতি মোস্তফা কামাল মুকুল, সহ সভাপতি- হুমায়ূন কবির, সাধারন সম্পাদক- আব্দুল আজিজ, সহ সাধারন সম্পাদক- মাহবুবুর রহমান মাহবুব, সাংগঠনিক সম্পাদক- রবিউল আলম, কোষাধ্যক্ষ- বিমল চন্দ্র বর্মণ, প্রচার সম্পাদক- আকতার হোসেন বিপ্লব, সাংস্কৃতিক সম্পাদক- নূরুন্নাহার আক্তার হ্যাপী, ক্রীড়া সম্পাদক  - সোয়েব, আপ্যায়ন সম্পাদক- সফি উদ্দিন সফা, সমাজকল্যাণ সম্পাদক-মজিবুর রহমান  মজিবুর, দপ্তর সম্পাদক- নাসরীন জাহান লিপি, মহিলা বি: সম্পাদক- তাহমিানা আক্তার মায়া, কার্যনির্বাহী সদস্য- আলম হোসেন আলমগীর, শাহীনুর রহমান বিপ্লব,  আজাদুর রহমান লিপন,  মহিউদ্দিন সিকদার,  এস সফিকুর রহমান তপন,  দেওয়ান এ ময়েজ  সোহেল, সোহেল রানা, মুরাদ হোসেন ।


আমেরিকায় বাংলাদেশের মেধাবী মানুষ: মোহাম্মদ কায়কোবাদ

মঙ্গলবার, ০৯ জানুয়ারী ২০১৮

Picture

মোবাইলের মাধ্যমে স্বাস্থ্যসেবার প্রকল্প বাংলাদেশ পর্যন্ত সম্প্রসারিত করেছে, উপাত্ত সংগ্রহের স্থান হিসেবে বেছে নিয়েছে বাংলাদেশকে। এর ফলে আমাদের ছাত্রদেরও সুবিধা হচ্ছে। অধ্যাপক ইকবালের সুবাধে মার্কেটে বাংলাদেশের একটি দ্বীপ তৈরি হয়েছে, যেমনটি করেছে অস্ট্রেলিয়ার অধ্যাপক মঞ্জুর মুর্শেদ এবং আমেরিকার নানা শহরে লব্ধপ্রতিষ্ঠ বাংলাদেশি বিজ্ঞানীরা।  

বে এরিয়াতে কর্মরত আমাদের স্নাতকেরা

বে এরিয়াতে কর্মরত আমাদের স্নাতকেরা 

এবার ৪ ডিসেম্বরের ফ্লাইট ধরার আগের সময় এত ব্যস্ততায় কেটেছে যে ফ্লাইট নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশের কোনো সময় ছিল না। অত্যন্ত ব্যস্ততার মধ্যে বিমানবন্দরে পৌঁছলাম এবং চেক-ইনের সম্ভাব্য ঝামেলা থেকেও রেহাই পেলাম। দোহা হামাদ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে নামার পর তাত্বিকভাবে দুই ঘণ্টা সময় হাতে পাওয়ার কথা কিন্তু ২০ মিনিটের ব্যবধানে উপর্যুপরি দুই বার আরবি প্রহরীরা দৈবচয়নের ভিত্তিতে আমার ৬৩ বছরি দেহের ওপর যখন তল্লাশি চালাল, তখন তাদের মনে করিয়ে দিলাম যে, ফিরতি ভ্রমণেও দৈবচয়নে আমাকেই তল্লাশি করা হবে। শিকাগোর ও হারে বিমানবন্দরে অবশ্য কোনো অসুবিধা হলো না। শিকাগো শহরে আসলে মন গর্বে ভরে যায়- বিশ্বখ্যাত স্থাপত্যবিদ ড. এফ আর খানের জন্য এবং তার নানারকম স্বীকৃতির জন্য। মন বিষন্নতায় ভরে যায় স্থাপত্যের আইনস্টাইনখ্যাত এই মেধাবী মানুষের জন্য বাংলাদেশে প্রায় কিছুই নেই বলে। 

ইউনিভার্সিটি অব ক্যালিফোর্নিয়া আরভাইনে অধ্যয়নরত বাংলাদেশি ছাত্ররা

ইউনিভার্সিটি অব ক্যালিফোর্নিয়া আরভাইনে অধ্যয়নরত বাংলাদেশি ছাত্ররা 

ছাত্রদের জন্য আমি সময় ও শ্রম যতটুকু দিয়েছি তা যে কতগুণে ফেরত আসছে, তা বলে বোঝানো যাবে না। বিদেশ বিভূঁইয়ে যেখানেই যাই ব্যস্ত সময়ের মধ্যেও আমার সঙ্গে দেখা করা, দর্শনীয় স্থানে নিয়ে যাওয়া, এমআইটি’র মতো দামী বিশ্ববিদ্যালয়ে সেমিনার আয়োজন করা নিত্যনৈমিত্তিক ব্যাপার। এবার আমার ভ্রমণ শুরু হলো প্রশান্ত মহাসাগরের পূর্ব উপকূল দিয়ে আমেরিকার পশ্চিম পাশে। পৌঁছলাম ক্যালিফোর্নিয়ার সবচেয়ে ধনী অরেঞ্জ কাউন্টির সবচেয়ে বড় শহর সান্টা আনার জন ওয়েন বিমানবন্দরে, অবাক হলাম মাত্র এক ডলার পার্কিং ফি’র কথা শুনে। আমাদের স্নাতক জার্মানীতে ডিগ্রি করা ড. আব্দুল্লাহ আল ফারুক অপেক্ষা করছিল। এই মেধাবী মানুষটিকে চিনতেই পারতাম না, যদি কিছুদিন আগে আমাদের বিভাগে সে এসে সেমিনার না দিত। কী তার বাচনভঙ্গী, আস্থা এবং তার গবেষণার বিষয়! ত্রিমাত্রিক প্রিন্টারের শব্দ থেকে প্রোগ্রাম পুনর্নির্মাণ করা তার গবেষণার বিষয়। আবার ডিজিটাল টুইন অভিধারণাকে এগিয়ে দিচ্ছে। ডিজিটাল টুইন হলো একটি বাস্তব সিস্টেমের বৈশিষ্ট্যমণ্ডিত ডিজিটাল সিস্টেম। ডিজিটাল সিস্টেমের সিমুলেশন থেকে বাস্তব সিস্টেমের সম্ভাব্য ভবিষ্যৎ সমস্যা অনুমান করে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করা যাবে। আমাদের মেধাবী স্নাতক ও ফুলব্রাইট স্কলার ড. সারওয়ার পরিবারের বাসা হয়ে অত্যন্ত কেয়ারিং অদিতি এবং ড. ফারুকের বাসায় রাত্রিযাপন করলাম।

ইঞ্জিনিয়ারিং ভবনের পথে ড. ফারুকের টানানো ছবি

ইঞ্জিনিয়ারিং ভবনের পথে ড. ফারুকের টানানো ছবি 

সকালে ইউনিভার্সিটি অব ক্যালিফোর্নিয়া আরভাইনের ইঞ্জিনিয়ারিং ভবনে প্রবেশের পথেই ড. ফারুকের বিশাল ছবি- গবেষণার জন্য সে উপর্যুপরি সম্মাননা পাচ্ছে। আমি ছবির সঙ্গে একটি ছবি তুলে গর্বিত হলাম। রাস্তায় ডঃ ফারুকের একাধিক পরিচিত অধ্যাপকের সঙ্গে সাক্ষাৎ, সবাই তাকে স্টার প্রফেসর বলে সম্বোধন করল। সকল ক্ষেত্রেই স্টার পাওয়া যায়, যেমন সাহিত্যে, কলায়, নৃত্যে, সঙ্গীতে, খেলাধূলায়, মুস্টিযুদ্ধে। কিন্তু পড়ালেখা, গবেষণায়ও যে স্টার স্বীকৃতি জোটে এই প্রথম দেখলাম। এরপর একটি সেমিনারে বক্তব্য দিলাম। আগের থেকেই ঠিক ছিল চার জন প্রবীণ অধ্যাপকের সঙ্গে আমার কথা হবে আধ ঘণ্টা করে। প্রত্যেকেই বাংলাদেশের ছাত্রদের ভূয়সী প্রশংসা করল, বিশেষ করে ড. ফারুক যে এই বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি গুরুত্বপূর্ণ সংযোজন এবং ভাবমূর্তি তৈরিতে প্রশংসনীয় অবদান রাখছে তা প্রত্যেকেই বললেন। এবার পাঁচ জন ছাত্রকে ভর্তি করা হয়েছে ভবিষ্যতে আরও বেশি বাংলাদেশি ছাত্রকে তারা ভর্তি করতে চান। সন্ধ্যায় সান হোজের উদ্দেশে রওনা। প্রতিবারের মতোই চৌকষ ড.  ফারিবা বিমানবন্দর থেকে উদ্ধার করে মুহূর্তের মধ্যে ড. মোস্তফা পাটোয়ারীর বাসায় নিয়ে গেল।

ড. ফারুকের বাসায় ড. সাবের ও ড. সারওয়ারসহ আমরা।

ড. ফারুকের বাসায় ড. সাবের ও ড. সারওয়ারসহ আমরা। 

সেখানে আমাদের মেধাবী স্নাতকদের সঙ্গে দেখা হলো দু’যুগ আগের সহকর্মী কাজী হাসানের সঙ্গে। স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের পাশে তার বাসায় রাত্রিযাপন শেষে সকালে গেলাম ডিবিএল গ্রুপের কর্ণধার জব্বার সাহেবের উদ্যোগে আয়োজিত প্রবাসীদের কনফারেন্সে; যেখানে বাংলাদেশে সেমিকন্ডাক্টর শিল্প স্থাপনের সম্ভাব্যতা নিয়ে আলোচনা হবে। দেশ থেকে বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক সাইফুল ইসলাম এবং অধ্যাপক হারুন-উর রশীদ এবং ইউনাইটেড ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির উপাচার্য অধ্যাপক রেজোয়ান খান এসেছেন। আমাদের স্নাতকেরা অনেকে স্বনামধন্য হয়েছেন আই ইইই’র ফেলো হয়েছেন, উদ্যোক্তা হিসেবে খ্যাতি অর্জন করেছেন, গবেষক হিসেবে লব্ধপ্রতিষ্ঠ হয়েছেন। প্রবাসী বাংলাদেশিরা বাংলাদেশের উন্নয়নে নানামুখী উদ্যোগ গ্রহণ করছেন। ভারতের মতো এখনও আমরা তার উল্ল্যেখযোগ্য সুফল না পেলেও কমপক্ষে পরিসংখ্যান তত্ত্বের সুবাধে শিগগিরই একটি ব্রেকথ্রো হবে বলে আশা করছি। তারপর ফারিবার সুবাধে আবার সিএসই বিভাগের এলামনাইদের ডিনারে যোগদান করলাম। আমাদের বদরুল মুনির সারওয়ার লিঙ্কডইনের মেশিন লার্নিং বিজ্ঞানী। যার রিকমেন্ডেশন এলগরিদমের একটি পেপারের উদ্ধৃতি হয়েছে প্রায় ৬ হাজার ৭৩৬ বার। সম্ভবত কেবলমাত্র  প্রিন্সটন অধ্যাপক জাহিদ হাসানের একই পেপারে উদ্ধৃতির সংখ্যা বেশি ৮ হাজার ৮৯৭ বার। প্রচারবিমুখ মুনির টেস্ট অব টাইম পুরস্কারও জিতেছে, যা অনেক স্বনামধন্য বিজ্ঞানীরা পেয়েছেন। 

এম আইটিতে সেমিনারের পরে শামা ইয়াজদির বাসায়

এম আইটিতে সেমিনারের পরে শামা ইয়াজদির বাসায় 

৯ তারিখ রাতে সিয়াটলের উদ্দেশে যাত্রা। আমার বুদ্ধিমত্তা এতই কম যে আমাকে স্বাগত জানাতে যারা আসে, তারা ত্যক্ত বিরক্ত হয়ে যায় আমাকে খুঁজে পেতে। তাই সিয়াটলে মহাবুদ্ধিমান পাপ্পানাকে বলতেই সে আমাকে জানালো সে খুঁজে বের করবে। পাপ্পানার সঙ্গে নানা বিষয়ে কথা হলো, যা সত্যই আমার বন্ধ জ্ঞানচক্ষু কিছুটা হলেও খুলে দিলো। পরেরদিন ফারাহ পরিবারের বাসায় সারাদিন কাটালাম। ব্রাঞ্চ দিয়ে শুরু তারপর লাঞ্চ, তারপর ডিনার এবং ফাঁকে ফাঁকে বিস্তর খাবার। একহাতে এত কাজ কীভাবে করা যায়, তা আবার শ্রেয়তরের বিপরীত-অর্ধেক ফেরদৌস জানাল যে এত বুদ্ধির মানুষের পক্ষে মাত্র একটি কাজ করা মেধার প্রতি রীতিমতো অবিচার। তাই একহাতে চৌদ্দ কাজ করে ফারাহ এবং তার মান হয় সকলকে পেছনে ফেলে এইচএসসি পরীক্ষার মেধা তালিকায় প্রথম হওয়ার মতোই। মাইক্রোসফটের কাজের ফাঁকে দুপুরে লাঞ্চের উদ্দেশ্যে সবাই জমায়েত। মাইক্রোসফট রিসার্চের স্বনামখ্যাত বিজ্ঞানী ড. সুমন কুমার নাথ, ড. শামসী তামারা ইকবাল, মাইক্রোসফটের ড. সুকান্ত প্রামাণিক, দিলশাদ, সাইফুরসহ অনেকেই এই আড্ডাগুলোতে উপস্থতি থেকেছে। পাপ্পানা প্রথমে দ্রুত অগ্রসরমান আমাজনে নিয়ে গেল যেখানে আমাদের স্নাতক কামরুল ইসলাম টিপু কাজ করে। তারপর বোয়িংয়ের কারখানা দেখাল, সাথে রানওয়ে। যেসকল দেশে বোয়িংয়ের উড়োজাহাজ রয়েছে, তাদের পতাকা শোভা পাচ্ছে লবির উপরেই। বাংলাদেশের পতাকা দেখে গর্বে বুক ভরে উঠল। ঈশ, আমাদের দেশে যদি এরকম একটি কারখানা থাকত এবং তাতে অনেক দেশের পতাকা উড়ত, বুক নিশ্চয়ই গর্বে দ্বিগুণ হতো। 

alt

খুবই খুশি হলাম জেনে যে, সিয়াটলের বাংলাদেশিরা সকলেই কোনো না কোনোভাবে বাংলাদেশের নানা উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত।  

এরপর ১১ তারিখ রাতে ৬-ঘণ্টার আকাশ ভ্রমণে রওনা হলাম বোস্টনের উদ্দেশে। যা চার্লস নদীর তীরে গড়ে উঠা বিশ্বের সবচেয়ে বিখ্যাত বিশ্ববিদ্যালয় এমআইটি এবং হার্ভার্ডের আবাসভূমি। ইফতিয়ার জাহিদ শীতবস্ত্রসহ বিমানবন্দর থেকে আমাকে উদ্ধার করে নিয়ে এলো। পরেরদিন সকালে দেখলাম কীভাবে একই এলাকার শিশুরা কাছের বিদ্যালয়ে পড়তে যাচ্ছে। ধনী দরিদ্র নির্বিশেষে একই বিদ্যালয়ে, কোনো গাড়ি লাগে না, যানজট সমস্যা তৈরি করে না। আমাদের দেশে আমরা যদি এমন একটি ব্যবস্থা তৈরি করতে পারতাম! ভিকারুন্নিসা কিংবা ঢাকা কলেজে আমার সন্তান ভর্তি না হোক, আরেক বাংলাদেশির সন্তান পড়তো, ভিনদেশি নাগরিকদের সন্তানতো আর পড়তো না। কেনেডির নামে করা লাইব্রেরি দেখলাম।

alt

পরিশেষে এমআইটিতে এসে আমাদের অত্যন্ত মেধাবী স্নাতক এমআইটিতে কমপক্ষে তিন তিন বার পাঁচে পাঁচ পাওয়া ছাত্রী সুমাইয়া নাজীনের সুবাধে একটি সেমিনার দেওয়ার সুযোগ ঘটল। আমাদের আরেক মেধাবী ছাত্র শামা ইয়াজদি কাজী, যে আমার প্রতি ভ্রমণেই ঠিকই আমাকে খুঁজে বের করে তার বাসায় দাওয়াত করে। শামার মেয়ে মুশীরা এবং ছেলে সামিদকে কঠিন সমস্যা সমাধান করতে দিলাম। তারা আমাকে রীতিমতো তাক লাগিয়ে দিলো। তাদের বিশ্লেষণী ক্ষমতা দেখে অভিভূত হয়ে গেলাম। মার্কিন মুল্লুকে বাংলাদেশের অন্যতম শিক্ষা প্রশাসক ইউনিভার্সিটি অব ম্যাসাচুসেটস ডার্টমাউথ-এর প্রভোস্ট এবং এক্সিকিউটিভ ভাইসচ্যান্সেলর অধ্যাপক আতাউল করিম সস্ত্রীক এসেছেন। এই গুণী মানুষটির ব্যস্ততার কমতি নেই কিন্তু এর মধ্যে সকল দায়িত্ব সুচারুরূপে সম্পন্ন করেন, এমনকি এই জমায়েতেও এসেছেন। আমাদের দেশে আইসিসিআইটি নামের কম্পিউটারের যে কনফারেন্স হয়, দীর্ঘদিন নিরলসভাবে তার নেতৃত্ব দিয়ে যাচ্ছেন নিভৃতে। এ ছাড়া বাংলাদেশে নানা উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ডে তার নিবিড় সম্পৃক্ততা রয়েছে। তানভীরের বাসায় রাত্রিযাপন করে এর পরদিন নিউইয়র্ক হয়ে মিলওয়াকিতে ফিরে আসা। সাতদিন সময়ের মধ্যে পশ্চিম, পূর্ব মহাসাগরীয় সীমানা এবং মধ্য আমেরিকা ভ্রমণ। বোর্ডিং গেটসমূহে সর্বদাই ঘোষণা প্রথম উঠবে সেনা, বিমান, নৌবাহিনীর সদস্যরা। যার যে গুরুত্ব যে দেশে!  

alt

ভারতে প্রবাসী ভারতীয়দের সহায়তায় অনেক উন্নয়নমূলক কাজ হচ্ছে। আইআইটি কানপুরে স্ট্যানফোর্ড অধ্যাপক রাজীব মতোয়ানির নামে সিএসই ভবন, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নামকরা বিশ্ববিদ্যালয়ের নামকরা অধ্যাপকদের নিয়মিতভাবে সম্মানজনক চেয়ারে অধিষ্ঠিত করা হয়, যেসকল এলামনাই আর্থিক সহায়তা দান করে থাকে- তাদের নামে ভবনগুলোর নামকরণ করা হয়। গোটা আমেরিকায়ও এভাবে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর ল্যাব, ভবনসমূহের নামকরণ করা হচ্ছে। আমাদের দেশে দুর্ভাগ্যজনকভাবে এরকমটি দেখা যায় না। সীমিত সম্পদের দেশে সকল সম্ভাবনাই কাজে লাগানো প্রয়োজন। আশা করি, একদিন আমরা সঠিক পথে চলব এবং শুধুমাত্র সুবিধাবঞ্চিত অদক্ষ অশিক্ষিত মানুষের শ্রমে নয়। সুবিধালব্ধ, শিক্ষিত ও মেধাবী মানুষের সুবাধেও দেশের অগ্রগতি ত্বরান্বিত হবে।


জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের ৩৯তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে নিউইয়র্কে সমাবেশ : প্রবাস থেকেও দেশের গণতন্ত্র রক্ষার শপথ নিতে হবে

মঙ্গলবার, ০৯ জানুয়ারী ২০১৮
alt

হাকিকুল ইসলাম খোকন: বাপ্ নিউজ : বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের ৩৯তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে নিউইয়র্কে সমাবেশ করেছে ‘যুক্তরাষ্ট্র সিলেট বিভাগীয় ছাত্রদল’। সমাবেশে বক্তারা বলেছেন, দেশে জনগণের নির্বাচিত সরকার নেই। আইনের শাসন ও কথা বলার অধিকার নেই। প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর এ দিনে দেশের গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের শপথ নিতে হবে প্রবাস থেকেও। স্থানীয় সময় ১ জানুয়ারী সোমবার রাতে নিউইয়র্ক সিটির ব্রঙ্কসের বাংলাবাজার এশিয়ান ড্রাভিইং স্কুল পার্টি সেন্টারে আয়োজিত এ সমাবেশে যুক্তরাষ্ট্র ছাত্রদল ছাড়াও যুক্তরাষ্ট্র বিএনপি, যুবদল, জাসাসের নেতাকর্মীরাও উপস্থিত ছিলেন। কেক কেটে ছাত্রদলের পক্ষ থেকে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন করা হয়।
altসিলেট মহানগর ছাত্রদলের সাবেক যুগ্ম আহ্বায়ক মোস্তফা কামাল পাশা মওদুদের সভাপতিত্বে এবং নিউইয়র্ক ইস্ট ছাত্রদলের সভাপতি আশফাক চৌধুরী জামির পরিচালনায় সমাবেশে টেলিকনফারেন্সে বক্তব্য রাখেন বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা খন্দকার আব্দুল মুক্তাদির।
অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন যুক্তরাষ্ট্র যুব দলের সাধারণ সম্পাদক আবু সাইদ আহমদ, ছাত্রদলের প্রতিষ্ঠাকালীন সদস্য রেজাউল করিম মুরাদ, যুক্তরাষ্ট্র ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক মাজহারুল ইসলাম জনি, বিএনপি নেতা ইমরান রন শাহ, যুক্তরাষ্ট্র যুব দলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আমানত হোসেন আমান, নিউইয়র্ক স্টেট যুব দলের সাধারণ সম্পাদক রেজাউল আজাদ ভুইয়া, যুক্তরাষ্ট্র যুব দলের ওয়েছ আহমেদ, স্টেট বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক খলকুর রহমান, ব্রঙ্কস বিএনপির সাধারণ সম্পাদক কাওসার হোসেন, মৌলভীবাজার জেলা ছাত্রদলের যুগ্ম আহ্বায়ক তপদীর রায় ভূবণ, সাবেক ছাত্রদল নেতা আব্দুস সামাদ টিটু, রুহুল রকি, সিলেট জেলা ছাত্রদলের আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক জাহিদ খান, শরিফ আহমেদ, মনির ইলাহী চৌধুরী, আকিকুর চৌধুরী জাবের, মমিনুল ইসলাম মিয়া, কানু দেব, শংকর গোস্বামী, আবু সাহেদ, খালিক মিয়া প্রমুখ।

altবক্তারা বলেন, দেশের গণতন্ত্র রক্ষা সহ জাতির র্দুদিনে পাশে দাড়ানোর জন্য শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমান ছাত্রদল প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। তার সেই আশা পুরণে ছাত্রদলকে সকল ক্ষেত্রে অগ্রণী ভুমিকা পালন করতে হবে। মানুষের ভোটাধিকার ফিরিয়ে এনে দেশে সুষ্ঠু গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনতে হবে। শুরু করতে হবে সরকার পতনের দুর্বার আন্দোলন। তারা বলেন, জাতির এই দুর্দিনে শহীদ জিয়ার সৈনিকদের ঐক্যের বিকল্প নেই।
altবাংলাদেশ থেকে টেলিকনফারেন্সে বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা খন্দকার আব্দুল মুক্তাদির বলেন, দেশে জনগণের নির্বাচিত সরকার নেই। আইনের শাসন নেই। কথা বলার অধিকার নেই। এ স্বৈরাচারী সরকারের পতন ঘটাতে গোটা জাতি আজ বেগম জিয়ার নেতৃত্বে ঐক্যবদ্ধ। গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার করতে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর এ দিনে সকলকে শপথ নিতে হবে।
altযুক্তরাষ্ট্র যুব দলের সাধারণ সম্পাদক আবু সাইদ আহমদ বর্তমান সরকারের জুলুম-নির্যাতন, হামলা-মামলার শিকার বিএনপি নেতা-কর্মীদের আর্থিক-মানসিক সহযোগিতা প্রদানের জন্য সকলের প্রতি আহ্বান জানান। তিনি বলেন, দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া ও তারুণ্যের অহঙ্কার তারেক রহমানের নেতৃত্বে ঐক্যবদ্ধ আন্দোলনের মাধ্যমে এ স্বৈরাচারী সরকারের পতন ঘটাতে হবে। তিনি ছাত্র দলের সাবেক নির্বাচিত সাধারণ সম্পাদ ও বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক সিলেটের অহঙ্কার ইলয়াস আলীকে অবিলম্বে ফিরিয়ে দেয়ার জন্য সরকারের প্রতি জোর দাবি জানান।
আলোচনা সভা শেষে ছাত্রদলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর কেক কাটেন নেতৃবৃন্দ।


নিউইয়র্কে বৃহত্তর নোয়াখালী সোসাইটির কর্মকর্তারা অভিষিক্ত

মঙ্গলবার, ০৯ জানুয়ারী ২০১৮

Picture
নব্বইয়ের দশকে আঞ্চলিক-সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠন হিসেবে প্রতিষ্ঠিত ‘বৃহত্তর নোয়াখালী সোসাইটি’র ২০১৮-২০২০ মেয়াদের এ কমিটির শপথ পরিচালনা করেন নির্বাচন কমিশনের প্রধান অধ্যাপক করিমুল হক। কমিশনের দুই সদস্য সুভাষ মজুমদার এবং মো. হেলাল এ সময় সেখানে ছিলেন।কমিটির কর্মকর্তারা হলেন : সভাপতি-মো. রব মিয়া, সিনিয়র সহ-সভাপতি-নাজমুল হাসান মানিক, সহ-সভাপতি-আবুল বাশার, সাধারণ সম্পাদক-জাহিদ মিন্টু, সহ-সাধারণ সম্পাদক-মোহাম্মদ ইউসুফ জসীম, অর্থ সম্পাদক-মহিউদ্দিন, সহ-অর্থ সম্পাদক-জামালউদ্দিন, সাংগঠনিক সম্পাদক-আরিফ হোসেন, প্রচার সম্পাদক-আইনুল ইসলাম সোহেল, ধর্ম ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক-মো. ইব্রাহিম, ক্রীড়া, শিক্ষা ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক-জাহাঙ্গির আলম। নির্বাহী সদস্যরা হলেন লিয়াকত আলী, মোশারফ হোসেন, নাজির ভান্ডারি, সালেহ আহমেদ চৌধুরী, মোহাম্মদ ইউসুফ এবং গোলাম কিবরিয়া মিরন।

alt

নিউইয়র্ক, নিউজার্সি, পেনসিলভেনিয়া, দেলওয়ারে, ম্যারিল্যান্ড, ভার্জিনিয়া, কানেকটিকাট, ম্যাসেচুসেট্্স প্রভৃতি অঙ্গরাজ্যে নোয়াখালী অঞ্চলের প্রবাসীরা এই সমিতির ভোটার। সদস্যরা অসুস্থ হলে কিংবা মারা গেলে তার চিকিৎসা, দাফন-কাফনের তাৎক্ষণিক দায়িত্ব বহন করে এই সমিতি। এজন্যে অনেকেই এর সদস্য হতে কোন কার্পণ্য করেন না। ইমিগ্রেশনের কারণে কেউ বিপদে পড়লেও সমিতি আইনগত সহায়তা দেয়।নতুন কমিটি আসছে ২১ ফেব্রুয়ারি আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উদযাপনের আগাম কর্মসূচি ঘোষণা করেছে। ব্রুকলীনে বাংলাদেশী অধ্যুষিত চার্চ-মাকডোনাল্ডের কর্ণারে রয়েছে সমিতির নিজস্ব ভবন ও মিলনায়তন। সেখানেই শপথ অনুষ্ঠান হয়। এবং একুশের প্রথম প্রহরে সমিতির ভবনের সামনেই স্থাপন করা হবে শহীদ মিনার।

শপথ গ্রহণের পর শুভেচ্ছা বক্তব্যে সাধারণ সম্পাদক জাহিদ মিন্টু এবং সভাপতি রব মিয়া সকলের আন্তরিক সহায়তা চেয়েছেন কল্যাণমূলক কর্মকান্ড সুষ্ঠুভাবে সম্পাদনে। নতুন কমিটিকে শুভেচ্ছা জানিয়ে আরো বক্তব্য রাখেন কম্যুনিটি লিডার ফখরুল আলম, মফিজউদ্দিন, আবুল খালেক খায়ের, আবুল কাশেম, সুফিয়ান আহমেদ প্রমুখ। প্রধান নির্বাচন কমিশনার অধ্যাপক করিমুল হক নোয়াখালীবাসীর প্রতি গভীর কৃতজ্ঞতা জানান সুন্দর একটি নির্বাচন অনুষ্ঠানে সর্বাত্মক সহায়তার জন্যে।


নিউইয়র্ক ষ্টেট আওয়ামী লীগের উদ্যোগে “বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস” পালন আগামী ১০ই জানুয়ারী, বুধবার

মঙ্গলবার, ০৯ জানুয়ারী ২০১৮

Picture

এই মহান দিনটি যতাযত মর্যাদায় পালন উপলক্ষে নিউইয়র্ক ষ্টেট আওয়ামী লীগের উদ্যোগে আগামী ১০ই জানুয়ারী বুধবার রাত ৮টায় জ্যাকসন হাইটসে খাবার বাড়ী চাইনিজ রেস্টুরেন্টে এক আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়েছে। সংগঠনের সভাপতি মুজিবুর রহমান মিঞা ও সাধারণ সম্পাদক শাহীন আজমলের পক্ষে উক্ত আলোচনা সভায় মুক্তিযুদ্ধের সপক্ষের সবাইকে অংশগ্রহনের অনুরোধ জানানো হচ্ছে।


প্রবাসীদের তিন ব্যাংকে সর্বোচ্চ মুনাফা এনআরবি কমার্শিয়াল ব্যাংকের নানা ষড়যন্ত্রের কারণে আশানুরূপ সাফল্য আসেনি : ফরাসত আলী

মঙ্গলবার, ০৯ জানুয়ারী ২০১৮

হাকিকুল ইসলাম খোকন,বাপসনিউজ : প্রবাসী বাংলাদেশীদের উদ্যোগে স্থাপিত ব্যাংকগুলোর মধ্যে ২০১৭ সালে সর্বোচ্চ পরিচালন মুনাফা করেছে এনআরবি কমার্শিয়াল ব্যাংক। যা চতুর্থ প্রজন্মের নতুন স্থাপিত ৯টি ব্যাংকের মধ্যে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ।খবর বাপসনিঊজ।
ব্যাংকগুলো থেকে পাওয়া সর্বশেষ তথ্যে দেখা গেছে, নতুন স্থাপিত ব্যাংকগুলোর মধ্যে ২০১৭ সালে সর্বোচ্চ মুনাফা করেছে ইউনিয়ন ব্যাংক। তাদের মুনাফার পরিমান ২৩০ কোটি টাকা। এনআরবি কমার্সিয়াল ব্যাংক মুনাফা করেছে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ। তাদের মুনাফার পরিমান ২০২ কোটি টাকা। এছাড়া নতুন ব্যাংকগুলোর মধ্যে মুনাফার দিক থেকে ৩য় অবস্থানে থাকা সাউথ বাংলা এগ্রিকালচারাল অ্যান্ড কর্মাস ব্যাংক ১৮২ কোটি টাকা, ৪র্থ অবস্থানে থাকা এনআরবি গ্লোবাল ব্যাংক লিমিটেড ১৬১ কোটি টাকা, ৫ম অবস্থানে থাকা মধুমতি ব্যাংক ১৫১ কোটি টাকা, ৬ষ্ঠ অবস্থানে থাকা মিডল্যান্ড ব্যাংক ১২০ কোটি টাকা, ৭ম অবস্থানে থাকা মেঘনা ব্যাংক ১১০ কোটি টাকা এবং ৮ম অবস্থানে থাকা এনআরবি ব্যাংক গত বছরে ৯৭ কোটি টাকা মুনাফা করেছে। আর নতুন ব্যাংক গুলোর মধ্যে সবচেয়ে কম মুনাফা করেছে ফার্মার্স ব্যাংক ২৬ কোটি টাকা।
এনআরবি কমার্শিয়াল ব্যাংকের পরিচালন মুনাফায় ঊর্ধ্বগতি প্রসঙ্গে ব্যাংকটির সদ্য অবসরে যাওয়া প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার ফরাসত আলী ইউএসএনিউজঅনলাইন.কমকে বলেন, এনআরবি কমার্শিয়াল ব্যাংক ২০১৩ সালে যাত্রা শুরুর পর থেকেই চতুর্থ প্রজন্মের নতুন ৯টি ব্যাংকের মধ্যে সর্বোচ্চ মুনাফা করে আসছিলো। কিন্তু ২০১৭ সালে ব্যাংকের বিরুদ্ধে নানা ষড়যন্ত্র এবং অপপ্রচারের ফলে ব্যাংকটি সম্পর্কে জনমনে আস্থা সঙ্কট তৈরী হয়। যার ফলে ২০১৭ সালে ব্যাংকের মুনাফায় আশানুরূপ সাফল্য আসেনি।
ইঞ্জিনিয়ার ফরাসত আলী বলেন, ২০১৭ সালের ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত ব্যাংকের মোট ডিপোজিটের পরিমান ছিল ৪৭১১.৮২ কোটি টাকা, ঋণ প্রদান করা হয় ৪২৯৫.০০ কোটি টাকা। এর মধ্যে খেলাপী ঋনের পরিমান ছিল ১.৮১%।
এনআরবি কমার্শিয়াল ব্যাংকের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার ফরাসত আলী বলেন, বাংলাদেশ ব্যাংকের তদন্তে ৭০১ কোটি টাকা ঋণে গুরুতর অনিয়মের অভিযোগটি আদৌ সত্য নয়। খেলাপী ঋণ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্দেশনা অনুসরণ করেই সকল ঋণ প্রদান করেছে ব্যাংক। ঋণ প্রদানে কোন অনিয়মের ঘটনা ঘটেনি। নির্ধারিত সময়ে কেউ কেউ ঋণের কিস্তি পরিশোধ করতে না পারায় খেলাপি ঋণ বেশী মনে হচ্ছে। এর মধ্যে অনেকেই সহসায়ই ঋণ পরিশোধ করতে সমর্থ হবেন বলে তিনি মন্তব্য করেন। এ প্রসঙ্গে তিনি উল্লেখ করেন, বাংলাদেশ ব্যাংক এবং ওয়াল্ড ব্যাংকের খেলাপী ঋনের পরিমান ছিল ৫%। ইঞ্জিনিয়ার ফরাসত আলী বলেন, আসলে ব্যংকের বিরুদ্ধে সবই ষড়যন্ত্র। একদিন আসল সত্য বেরিয়ে আসবে। এত দিন আমি মুখ খুলিনি। সময় এসেছে সত্য উদঘাটনের।
তিনি বলেন, বাংলাদেশকে আগামী ২০২১ এ মধ্যম আয়ের দেশ ও ২০৪১ এ উন্নত দেশে পরিণত করার লক্ষ্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার যে অঙ্গীকার তা পূরণ করে দেশকে স্বনির্ভর ও সমৃদ্ধ করে গড়ে তোলার সহযোগী শক্তি হিসেবে কাজ করে যাচ্ছে এনআরবি কমার্শিয়াল ব্যাংক।
ইঞ্জিনিয়ার ফরাসত আলী বলেন, দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলাদেশ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়তে জনগণকে অর্থনৈতিক সেবা দিয়ে যাচ্ছে এনআরবি কমার্শিয়াল ব্যাংক। এই লক্ষ্যে ব্যাংক ইতোমধ্যে দেশের বিভিন্ন স্থানে ৬১টি শাখা স্থ’াপন করেছে। দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে যেখানে কোন ব্যাংকের শাখা নেই সেসব অঞ্চলে এজেন্ট ব্যাংকিং চালু করে স্বল্প আয়ের মানুষের আর্থিক সেবা ও তাদের সঞ্চয়ের নিরাপত্তার সুযোগ বিস্তৃত করেছে। তিনি জানান, এনআরবি কমার্শিয়াল ব্যাংক ইতোমধ্যে পাঁচ’শ এজেন্ট ব্যাংকিং পয়েন্ট চালু করেছে। এজেন্ট ব্যাংকিং সেবার মাধ্যমে স্বল্প আয়ের মানুষ সঞ্চয়ী একাউন্ট, পরিবারের সদস্যদের কাছে টাকা পাঠানো, ঋণ প্রদান, ইউটিলিটি বিল পরিশোধসহ নানা আর্থিক সুবিধা ভোগ করছেন। প্রযুক্তি কাজে লাগিয়ে এজেন্টদের সাথে ব্যাংকের নিবিড় যোগাযোগ গড়ে তোলার মাধ্যমে এজেন্ট ব্যাংকিং মডেল অত্যন্ত ফলপ্রসু প্রমাণিত হয়েছে। আগামী তিন/চার বছরের মধ্যে দেশের ৫৭ হাজার গ্রামে ব্যাংকের সেবা পৌাছানোর লক্ষমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। সরকারের সাথে ব্যাংকের এ সংক্রান্ত একটি চুক্তিও স্বাক্ষরিত হয়েছে বলে তিনি উল্লেখ করেন।  
তিনি বলেন, বিশ্ব বিখ্যাত সংবাদপত্র ওয়াল ষ্ট্রিট জার্নালে সম্প্রতি এনআরবি কমার্শিয়াল ব্যাংকের সেবার প্রশংসা করে একটি প্রতিবেদন ছেপেছে। এজেন্ট ব্যাংকিং মডেল বাংলাদেশের স্বল্প আয়ের মানুষের সক্ষমতা বাড়াচ্ছে বলে ওয়াল ষ্ট্রিট জার্নালের ওই প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়।
ব্যাংকের অন্যতম পরিচালক ড. নুরান নবী বাপসনিউজকে বলেন, চতুর্থ প্রজন্মের নতুন ৯টি ব্যাংকের মধ্যে সর্বোচ্চ অবস্থানে থাকা এনআরবি কমার্শিয়াল ব্যাংকের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করার জন্যই একটি কুচক্রীমহল ওঠে পড়ে লাগে। চক্রটি নানা কূটকৌশলে ব্যাংকটি দখলের অপচেষ্টায় লিপ্ত হয়। তাদের সে খায়েশ কখনো পূরণ হবে না। সকল ষড়যন্ত্র নস্যাত করে ব্যাংকটি তার কাঙ্খিত লক্ষে এগিয়ে যাবে ইনশাল্লাহ।


ট্রাম্পের ’ট্যাক্স কাট অ্যান্ড জব এ্যাক্ট’ কার্যকর হবে আগামী ট্যাক্স সিজনে ইনকাম ট্যাক্স রিটার্ন শুরু ২৯ জানুয়ারী

মঙ্গলবার, ০৯ জানুয়ারী ২০১৮

হাকিকুল ইসলাম খোকন,বাপসনিউজ: আগামী ২৯ জানুয়ারী থেকে শুরু হতে যাচ্ছে ২০১৭ ট্যাক্স বছরের ট্যাক্স রিটার্ন। কোনো জরিমানা ছাড়াই Individule ট্যাক্স ফাইল করা যাবে আগামী ১৭ এপ্রিল পর্যন্ত। তবে আবেদনের মাধ্যমে ৬ মাসের অটোমেটিক বর্ধিত সময় পাওয়া যাবে। এই আবেদন ইলেকট্রনিক্যাল বা পেপার মাধ্যমে করা যাবে। তবে সারা বছরই ট্যাক্স ফাইল করার সুযোগ থাকে নির্ধারিত চক্রবৃদ্ধি হারে জরিমানা প্রদান করে। আইআরএস’র বরাত দিয়েইউএসএনিউজঅনলাইন.কমকে এতথ্য জানান নিউইয়র্কের জ্যাকসন হাইটসের কর্ণফুলী ট্যাক্স সার্ভিসেস’র প্রেসিডেন্ট ও আইআরএস লাইসেন্সড প্রেক্টিশনার, এনরোলমেন্ট এজেন্ট মোহাম্মদ হাসেম। তিনি জানান, সাধারণত ট্যাক্স সিজন শেষ হয় ১৫ এপ্রিল। কিন্তু এবছর ১৫ এপ্রিল রোববার এবং পরদিন ১৬ এপ্রিল সোমবার Emancipation day অর্থাৎ District of columbia ছুটির দিন থাকায় ১৭ই এপ্রিল মঙ্গলবার ট্যাক্স সিজনের শেষ দিন ধার্য্য করা হয়েছে।
মোহাম্মদ হাসেম ইউএসএনিউজঅনলাইন.কমকে জানান, প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের ’ট্যাক্স কাট অ্যান্ড জব এ্যাক্ট’ এ ট্যাক্স সিজনে কার্যকর হবে না। ’ট্যাক্স কাট অ্যান্ড জব এ্যাক্ট’ কার্যকর হবে ২০১৮ ট্যাক্স বছরের অর্থাৎ ২০১৯ সালে ইনকাম ট্যাক্স ফাইলিংয়ের সময়।
আইআরএস সূত্র উদ্বৃত করে তিনি জানান, এবার আর্নড ইনকাম ক্রেডিট বাড়ানো হয়েছে। এবছর অর্থাৎ ২০১৭ ট্যাক্স বছরে এক সন্তানের ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ আর্নড ইনকাম ক্রেডিট প্রদান করা হবে ৩৪০০ ডলার। ২০১৬ ট্যাক্স বছরে এক সন্তানের ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ আর্নড ইনকাম ক্রেডিট ছিল ৩৩৭৩ ডলার।
এ বছর দুই সন্তানের ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ আর্নড ইনকাম ক্রেডিট হবে ৫৬১৬ ডলার। ২০১৬ ট্যাক্স বছরে দুই সন্তানের ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ আর্নড ইনকাম ক্রেডিট ছিল ৫৫৭২ ডলার।
এ বছর তিন সন্তানের ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ আর্নড ইনকাম ক্রেডিট প্রদান করা হবে ৬৩১৮ ডলার। আর ২০১৬ ট্যাক্স বছরে তিন বা অধিক সন্তানের ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ আর্নড ইনকাম ক্রেডিট ছিল ৬২৬৯ ডলার।
আইআরএস এনরোলমেন্ট এজেন্ট মোহাম্মদ হাসেম আরো জানান, ২০১৭ ট্যাক্স বছরে চাইল্ড ট্যাক্স ক্রেডিট এক সন্তানের ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ ১০০০ ডলার করা হয়েছে। যা আগামী বছর বৃদ্ধি পেয়ে হবে ২০০০ ডলার। ২০১৭ ট্যাক্স বছরে দুই সন্তানের ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ চাইল্ড ট্যাক্স ক্রেডিট হবে ২০০০ ডলার। তিন বা অধিক সন্তানের ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ চাইল্ড ট্যাক্স ক্রেডিট হবে ৩০০০ ডলার এবং আগামী ট্যাক্স বছরে প্রতি সন্তানের ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ চাইল্ড ট্যাক্স ক্রেডিট প্রদান করা হবে ২০০০ ডলার করে।


তিনি জানান, এবারও গত বছরের মত রিফান্ড দেরীতে পাওয়া যাবে। যারা আর্নড ইনকাম এবং এডিশনাল চাইল্ড ট্যাক্স ক্রেডিট পাবে তাদের রিফান্ড পেতে দেরী হবে। অর্থাৎ মধ্য ফেব্রুয়ারীতে তারা রিফান্ড পাবে। যারা ডাইরেক্ট ডিপোজিট অথবা ডেবিট কার্ডের মাধ্যমে রিফান্ড নিবে তারা ২৭ ফেব্রুয়ারী প্রথম রিফান্ড পাবে।
এ ট্যাক্স বছরেও হেলথ ইন্সুরেন্স না থাকলে পেনাল্টি গুনতে হবে। এফোর্ডেবল কেয়ার এক্ট অনুযায়ী হেলথ ইন্সুরেন্স ছিল কিনা আইআরএসকে সেবিষয়ে রিপোর্ট করতে হবে। যদি কোন ট্যাক্স পেয়ারের ২০১৭ সালের হেলথ ইন্সুরেন্স না থাকে তাহলে তাকে পেনাল্টি পে করতে হবে। অবশ্য যাদের মেডিকেয়ার আছে তাদের ফাইন কিংবা পেনাল্টি দিতে হবে না। ২০১৭ তে যাদের ইন্সুরেন্স ছিল না তাদের ফাইলিং ট্রাশহোলের ওপর ভিত্তি করে ২.৫% করে পেনাল্টি দিতে হবে। সেক্ষেত্রে প্রাপ্ত বয়স্কদের জন প্রতি কমপক্ষে ৬৯৫ ডলার এবং প্রতি শিশুর জন্য ৩৪৭.৫০ ডলার করে পেনাল্টি দিতে হবে। তবে আগামী বছর থেকে হেলথ ইন্সুরেন্সের জন্য পেনাল্টি প্রথা থাকবে না।
তিনি বলেন, ট্যাক্স ফাইলিং করার সময় সঠিকভাবে আয়-ব্যয়ের হিসাবসহ নির্ভুল তথ্য প্রদান করা সবার কর্তব্য। অধিক অর্থ প্রাপ্তির প্রত্যাশায় লোভের বশবর্তী হয়ে ট্যাক্স ফাইলিংয়ের সময় ভুল তথ্য পরিবেশন করা কোন ভাবেই উচিত না। ট্যাক্স সিস্টেমে তথ্য গোপন করার কোনো সুযোগও নেই। সংশ্লিষ্টরা সঠিকভাবে আয়-ব্যয়ের হিসাবসহ নির্ভুল তথ্য প্রদান করছেন কিনা সেটা নিশ্চিত করার জন্য সরকারের পক্ষ থেকে রয়েছে বিশেষ অডিটের ব্যবস্থা। ভুল তথ্য পরিবেশনের বিষয়টি অডিটে উদঘাটিত হলে চরম মূল্য দিতে হতে পারে অভিযুক্তদের। এজন্য সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে অতিরিক্ত অর্থ ফেরত, ইন্টারেস্ট, জরিমানাসহ ইত্যাদি শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নিতে পারে কর্তৃপক্ষ।
তিনি জানান, সহজভাবে ট্যাক্স ফাইলিং করার জন্য ট্যাক্স আইন আপডেট করার সাথে সাথে আইআরএস সিস্টেম, অ্যাপ্লিকেশন এবং ডাটাবেস আপডেট করতে হয় প্রতি বছরই। যা ট্যাক্স প্রস্তুতকারীদের নির্ভুল ট্যাক্স প্রিপেয়ার করতে সহায়তা করে থাকে। অভিজ্ঞ ট্যাক্স প্রস্তুতকারীরাই পারে নির্ভুল ট্যাক্স রিটার্নে সহায়তা করতে।
এবিষয়ে আরো বিস্তারিত জানতে যোগাযোগের অনুরোধ জানিয়েছে মোহাম্মদ হাসেম, আইআরএস লাইসেন্সড প্রেক্টিশনার, আইআরএস এনরোলমেন্ট এজেন্ট, আইআরএস সার্টিফাইয়িং একস্পেটেন্স এজেন্ট, এমবিএ ইন একাউন্টিং, ফোন :৭১৮-২০৫-৬০৪০,৭১৮-২০৫-৬০১০ এবং ৯১৭-৮২১-৪৮৯৭।


যুক্তরাষ্ট্র বঙ্গবন্ধু পরিষদ থেকে শিতাংশু গুহ’র পদত্যাগ - রাফায়েত চৌধুরী ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক

মঙ্গলবার, ০৯ জানুয়ারী ২০১৮

হাকিকুল  ইসলাম খোকন,বাপসনিঊজ:নিউইয়র্ক:যুক্তরাষ্ট্র বঙ্গবন্ধু পরিষদ থেকে শিতাংশু গুহ’র পদত্যাগ করেছেন। তিনি এই সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে ১৯৯৬ সাল থেকে দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন। গত ৩১ ডিসেম্বর তিনি পদত্যাগ করেন বলে জানা গেছে। পরিষদের সভাপতি বরাবর লিখিত এক পত্রে তিনি পদত্যাগ করেন। বাপসনিঊজ খবর ’র।
 সাংবাদিক ও লেখক শিতাংশু গুহ তার পদত্যাগ পত্রে বলেন: ‘দীর্ঘদিন ধরে আমি যুক্তরাষ্ট্র বঙ্গবন্ধু পরিষদের  সাধারণ সম্পাদক হিসাবে কাজ করে যাচ্ছি (১৯৯৬)। বর্তমান সময়ে আমি বাংলাদেশে মানবাধিকার নিয়ে যথেষ্ট সোচ্চার এবং ব্যস্ত। অথচ আমার হাতে আগের মত সময় নেই। তাছাড়া, নূতনদের সুযোগ দেয়াটা প্রয়োজন। তাই আমি সিদ্ধান্ত নিয়েছি যুক্তরাষ্ট্র বঙ্গবন্ধু পরিষদের সাধারণ সম্পাদক পদ থেকে পদত্যাগ করার। আমার পদত্যাগ অবিলম্বে কার্যকর হবে। তবে ‘জাতির জনক’ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবের প্রতি আমার অবিচল আস্থা আগেও ছিলো, ভবিষ্যতেও থাকবে।’
এদিকে বঙ্গবন্ধু পরিষদ যুক্তরাষ্ট্র শাখার সাধারণ সম্পাদক শিতাংশু গুহ তার পদ ত্যাগ করায় সংগঠনের সভাপতি ড. নুরুন নবী তার পদত্যাগ পত্র গ্রহণ করে রাফায়েত চৌধুরীকে পরিষদের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মনোনীত করে বিবিৃতি দিয়েছেন।
বিবৃতিতে ড. নুরুন নবী বলেন, সকলের অবগতির জন্য জানানো যাচ্ছে যে বঙ্গবন্ধু পরিষদ যুক্তরাষ্ট্র শাখার  সাধারণ সম্পাদক শীতাংশু গুহ দীর্ঘদিন সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালনের পর পদ থেকে অব্যাহতি নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়ে পদত্যাগ পত্র পাঠিয়েছেন। আমি বঙ্গবন্ধু পরিষদ যুক্তরাষ্ট্র শাখার সভাপতি হিসেবে এই পদত্যাগ পত্র গ্রহণ করছি এবং শীতাংশু গুহকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি প্রবাসে ‘জাতির জনক’ বঙ্গবন্ধুর আদর্শ প্রচার ও প্রসারে এতদিন কাজ করার জন্য। আশা করছি উনার সহযোগিতা আগামীতেও থাকবে। সংগঠনকে গতিশীল রাখার জন্য পরবর্তী পূর্ণাঙ্গ কমিটি না করা পর্যন্ত আমি জনাব রাফায়েত চৌধুরীকে বঙ্গবন্ধু পরিষদ যুক্তরাষ্ট্র শাখার ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক এবং স্বীকৃতি বড়ুয়াকে যুগ্ম সাধারণ সম্পাদকের পদ ন্যস্ত করছি।


কে এই শামশি আলী? দ্বিধাবিভক্ত জ্যামাইকা মুসলিম সেন্টার

মঙ্গলবার, ০৯ জানুয়ারী ২০১৮

বাপসনিঊজ:নিউইয়র্ক প্রবাসী বাংলাদেশীদের দীর্ঘদিনের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় গড়ে উঠছে জ্যামাইকা মুসলিম সেন্টার। সম্প্রতি আজকালসহ কিছু পত্রিকায় উদ্ধতি দিয়ে ইমাম শামশি আলীর খবর প্রচারিত হয়েছে, যিনি ইন্দেনেশিয়ান কমিউনিটিতে প্রশ্নবৃদ্ধ হওয়ার কারণে মামলার মাধ্যমে অপসারিত হয়ে বিতাড়িত হয়েছেন। যার সাক্ষ্য প্রমাণসহ আদালতের রায়, ইউটিউবে ধারণকৃত সচিত্র প্রতিবেদনে রয়েছে। মসজিদ আল হিকমাতে নামাযরত মুসল্লী ও জুমার খুতবা দানকারী ইমামকে হঠাৎ করে খুতবা চলাকালীন পুলিশসহ প্রবেশ করে ধরিয়ে দেওয়াকে কি কোন ইসলামিক স্কলার এর কাজ হতে পারে?
বাংলাদেশী কমিউনিটিতে এমন কি প্রয়োজন রয়েছে যে ওনারমত বিতর্কিত ব্যক্তিকে মাসে একটি জুমার নামায আদায় করার জন্য ষোলশত ডলার বেতন দিয়ে রাখতে হবে? ইমাম দাউদ রশিদ এস্টোরিয়া মসজিদ আল হিকমায় যখন জুমার খুতবা দিচ্ছিলেন তখন ইমাম শামশী পুলিশসহ মসজিদে প্রবেশ করে ইমামকে দেখিয়ে পুলিশে ধরিয়ে দেন। অথচ দাউদ রশিদ আল আজাহার বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ডিগ্রি প্রাপ্ত একজন আলেম। ইমাম শামশিকে নিয়ে যারা বাংলাদেশ কমিউনিটিতে বিভক্তি আনছেন তারাই এই প্রশ্নের যেন জবাব দেন। সাপ্তাহিক আজকাল পত্রিকার প্রতিবেদনে বলা হয়েছে জ্যামাইকা মুসলিম সেন্টারে কতিপয় ব্যক্তি ঊনার পক্ষে বিপক্ষে কথা বলেছেন। গত ১৭ ডিসেম্বরে সাধারণ সভায় কমপক্ষে ১৫জন আজীবন সদস্য সহ আরো অনেকেই শামশি আলীর অপসারণ চেয়ে বক্তব্য রেখেছেন। এদের মধ্যে ড. নাজিম উদ্দিন, সেলি মুবদি, বদরুজ্জামান চৌধুরী, ফাতেমা গ্রোসারীর নজরুল ইসলাম, বদরুল ইসলাম, সিরাজ উদ্দিন জোবায়ের, হাজী শামসুল ইসলামসহ আরো অনেকে। এই সময় ড. মেছের, কাজী হালিম ও জাহেদসহ আরো অনেকেই বক্তব্য দেন। জেএমসিতে নিজস্ব স্বার্থের জন্য কেন এই বিদেশীর প্রয়োজন আছে। তার কাছ থেকে বাংলাদেশী কমিউনিটি কি পাচ্ছে। এই সব প্রশ্নের জবাব আজীবন সদস্যরা জানতে চান। হল ভর্তি আজীবন সদস্যদের মধ্যে কেউই শামশি আলীর পক্ষে কথা বলেননি। সাধারণ সভায় উপস্থিত আজীবন সদস্যরা কমিটির কাছে জানতে চান ৪৭০জন মুসল্লী যেখানে ইমাম শামশি আলীকে চান না এমন লিখিত স্বাক্ষর আবেদন জমা দেওয়ার পরও কমিটি মুখ খুলছেন না কি কারণে। সাধারণ সভায় কমিটির দায়িত্ব প্রাপ্তরা কোন সৎ উত্তর দিতে পারে নি। আজীবন সদস্যদের দাবী জুমার নামাযে মুসল্লীদের কাছে জিজ্ঞাস করলে জানতে পারবে তার পিছনে মুসল্লীরা নামায পড়তে চান কিনা। একজন ইমামের জন্য শর্ত শুধু ইংরেজীতে বক্তৃতা দেওয়া নয়, এলেম, আমল, পোশাক আশাক, চরিত্রিক বিষয় গুরুত্বপূর্ণ। ইমাম শামশি আলীকে ইতিপূর্বে ৯৬ ষ্ট্রিট মসজিদ থেকে বর্হিস্কার ও নিষিদ্ধ করা হয়েছে। সম্প্রতি মুসলিম ডে প্যারেড এর সভাপতির পদ থেকে পদত্যাগ করেন তিনি। সেখানে মোস্তাফিজুর রহমানের সাথে আর্থিক লেনদেনের সুরাহা হয়নি বলে জানা গেছে।
আমাদের ৪৭০ জন ব্যক্তির স্বাক্ষরিত আবেদনসহ জেএমসির কমিটির কাছে জানতে চায় কেন, কোন স্বার্থে ইমাম শামশে আলী জুমার নামাযে ইমামতি করছেন। নাকি এখানেও সষের ভিতরে ভুত লুকিয়ে আছে। বিতর্কিত একজন ব্যক্তিকে নিয়ে আমাদের বাংলাদেশী কমিউনিটিতে কেন এই দ্বিধা বিভক্তি। মসজিদ আল্লাহর ঘর, ইমামতি করবেন বির্তকমুক্ত একজন ইমাম এটাই আমাদের দাবী। বিতর্কিত ব্যক্তিদের পিছনে নামায হবে কিনা এই বিষয়েও ফতোয়া রয়েছে। যারা ইমাম শামশে আলীর পক্ষে নিচ্ছেন এবং মনে করেন তার প্রতি অবিচার করা হচ্ছে তবে তাদের উচিত শামশি আলীর বিরুদ্ধে অভিযোগগুলো খন্ডন করা। শামশে আলী যে ইসলামের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছেন তার দলিল প্রমাণ ওয়েব সাইড এবং ইউটিউবে রয়েছে। দুই একজন দন্তবিদ এই ইমামকে নিয়ে লাফালাফি করছেন। এই সব বিষয়ে আমাদের কমিউনিটির লোকজন জানতে চাই। আমাদের একটাই দাবী আমরা বিতর্কিত ইমাম চায় না, আমরা চাই জ্যামাইকা মুসলিম সেন্টার তার ঐতিহ্য ধরে রাখুক এবং একজন আমলধারী ইমাম, পরহেজগার ব্যক্তি ইমামতির নেতৃত্ব দিক। জ্যামাইকা মুসলিম সেন্টারের এই অচল অবস্থা দ্রুত সমাধান হোক এটাই কমিউনিটির চাওয়া।,নিবেদক.বদরুল ইসলাম, ৩৪৭-৬৪৪-৫৩৪৭,ডা. জুন্নুন চৌধুরী, ৬৪৬-২৮৮-৮৩২৯,ড. নাজিম উদ্দিন,ফারুক বকত চৌধুরী ও নজরুল ইসলাম।


রূপসী চাঁদপুর ফাউন্ডেশনের নতুন কমিটি গঠিত

বৃহস্পতিবার, ০৪ জানুয়ারী ২০১৮

Picture

সভাপতি মামুন মিয়াজী ও সাধারণ সম্পাদক ফখরুল ইসলাম মাসুম
হাকিকুল ইসলাম খোকন,বাপসনিঊজ:গত ২৬ ডিসেম্বর প্রধান নির্বাচন কমিশিনার জাহাঙ্গীর সরকার রূপসী চাঁদপুর ফাউন্ডেশনের ২০১৮-২০১৯ সনের জন্য ৩৯ সদস্য বিশিষ্ট্য নতুন কার্যকরী কমিটি ঘোষনা করেন।


আনন্দ-উল্লাসে জাতীয় পার্টির ৩২তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন করলো জাতীয় পার্টি যুক্তরাষ্ট্র শাখা

বৃহস্পতিবার, ০৪ জানুয়ারী ২০১৮

বাপ্ নিউজ : নিউইয়র্ক (যুক্তরাষ্ট্র) থেকে : ১লা জানুয়ারী ২০১৮ সাল রোজ সোমবার দুপুর ২ ঘটিকায় এস্টোরিয়ায় ৩৬ এভিনিউস্থ বৈশাখী রেষ্টুরেন্টে এক ঝমকালো অনুষ্ঠানে বিপুল নেতাকর্মীদের সাথে নিয়ে ৩২তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন করে জাতীয় পার্টি যুক্তরাষ্ট্র শাখা। উক্ত প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদ্যাপনে সভাপতিত্ব করেন জাতীয় পার্টি যুক্তরাষ্ট্র শাখার ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ও কেন্দ্রীয় সদস্য হাজী আব্দুর রহমান ও সাধারণ সম্পাদক ও কেন্দ্রীয় নির্বাহী সাবেক ছাত্রনেতা আবু তালেব চৌধুরী চান্দুর পরিচালনায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সাবেক সংসদ সদস্য ও চেয়ারম্যান হুসাইন মুহাম্মদ এরশাদ এর প্রবাসী বিষয়ক উপদেষ্টা বীর মুক্তিযোদ্ধা লিয়াকত আলী।

Picture

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জাতীয় পার্টি যুক্তরাষ্ট্র শাখার উপদেষ্টামন্ডলীর চেয়ারম্যান সৈয়দ শওকত আলী, জাতীয় পার্টি যুক্তরাষ্ট্র শাখার উপদেষ্টা গিয়াস মজুমদার ও চেয়ারম্যান এর রাজনৈতিক উপদেষ্টা সাবেক সভাপতি গোলাম মেরাজ। সভায় আরো বক্তব্য রাখেন জাতীয় শ্রমিক পার্টির সহ সভাপতি শাহজাহান আলী, জাতীয় যুব সংহতির সহ সভাপতি ইব্রাহিম আলী ও আমির হামজা। জাতীয় মহিলা পার্টির সভানেত্রী ফাহিমা রোজী ও সাধারণ সম্পাদিকা শাহনাজ বেগম, জাতীয় পার্টি নিউইয়র্ক সিটির সভাপতি শুভংকর গাঙ্গুলী, জাতীয় পার্টি নিউইয়র্ক স্ট্রেট কমিটির সভাপতি এডভোকেট মোহাম্মদ হানিফ, জাতীয় পার্টির মহিলা বিষয়ক সম্পাদক জেসমিন আকতার চৌধুরী, জাতীয় পার্টি যুক্তরাষ্ট্র শাখার যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ আব্দুল করিম, জাতীয় পার্টি যুক্তরাষ্ট্র শাখার যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও কেন্দ্রীয় সদস্য মোহাম্মদ লুৎফুর রহমান, জাতীয় পার্টি যুক্তরাষ্ট্র শাখার সহ সভাপতি খন্দকার আলী নাছিম, জাতীয় পার্টি যুক্তরাষ্ট্র শাখার সহ সভাপতি ও কেন্দ্রীয় সদস্য এডভোকেট হারিছ উদ্দিন আহমেদ প্রমুখ।

সভার শুরুতে পবিত্র কুরআন থেকে তেলওয়াত করেন এডভোকেট মোহাম্মদ হানিফ, এর পর পর বাংলাদেশের জাতীয় সংগীত পরিবেশন করা হয় এবং দলীয় সকল নেতৃবৃন্দরা দাড়িয়ে একযোগে হাততালি দিয়ে জাতীয় পার্টির দলীয় সংগীত পরিবেশন করেন। বক্তারা বলেন, জাতীয় পার্টি প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল বাংলাদেশের গরীব, মেহনতি দুঃখী মায়ের মুখে হাঁসি ফুটানোর জন্য। জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসাইন মুহাম্মদ এরশাদ সাহেব ৯ বৎসর শাসন আমলে তিনি যে উন্নয়নের জোয়ার বাংলাদেশে বয়ে এনেছিলেন তা কোন সরকার আজও পারেনি। তিনি গরীব মেহনতি মানুষের জন্য তাদের দেয়ারে আইন আদালতের ব্যবস্থা করে উপজেলা প্রশাসনের ব্যবস্থা করে ছিলেন। যাতে তারা শহরে এসে কোন প্রতারণায় না পড়ে। বাংলাদেশের গর্বিত সন্তান সশস্ত্র বাহিনীকে জাতিসংঘে পাঠিয়ে দেশের সুনাম অর্জন করেছিলেন। বাংলাদেশের মানুষ আজও জাতীয় পার্টির শাসনকে ভুলতে পারেনি। তার প্রমাণ চলিত নির্বাচন থেকে শুরু হয়েছে জাতীয় পার্টির জয় জয়যাত্রা। আগামী দিনে জাতীয় পার্টিকে বাংলার মানুষ ক্ষমতায় দেখতে চাই এবং হুসাইন মুহাম্মদ এরশাদ সাহেবের সেই ভালবাসাটুকু তাদের কাছে আবার পেতে চাই। পরিশেষে চেয়ারম্যান হুসাইন মুহাম্মদ এরশাদ সাহেবের সুস্বাস্থ্য ও দীর্ঘায়ু কামনা করে দোয়া ও মোনাজাত করা হয়।