Slideshows

http://bostonbanglanews.com/index.php/images/stories/2015/April/00/01/images/banners/components/com_gk3_photoslide/thumbs_big/605744Finding_Immigrant____SaKiL___0.jpg

কুইন্স ফ্যামিলি কোর্টে অভিবাসী

হাকিকুল ইসলাম খোকন/বাপ্‌স নিউজ/প্রবাসী নিউজ ঃ বষ্টনবাংলা নিউজ ঃ দ্যা ইন্টারফেইস সেন্টার অব নিউইয়র্ক ও আইনী সহায়তা সংগঠন নিউইয়র্ক এর উদ্যোগে গত ২৪ অক্টোবর বৃহস্পতিবার সকাল ৯ See details

ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার

পরিচালনা পরিষদ 

সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি

ওসমান গনি
 

প্রধান সম্পাদক

হাকিকুল ইসলাম খোকন
 

সম্পাদক

সুহাস বড়ুয়া হাসু
 

সহযোগী সম্পাদক

আয়েশা আকতার রুবী

যুক্তরাষ্ট্রের খবর

বাংলাদেশের শিশুদের কল্যাণে -আমেরিকা একযোগে কাজ করবে

শুক্রবার, ২০ অক্টোবর ২০১৭

Picture

হাকিকুল ইসলাম খোকন,বাপসনিঊজ:বাংলাদেশের সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের ভাগ্য বদলে দিতে আমেরিকা ও প্রবাসী বাংলাদেশীরা একযোগে কাজ করবে, এই অঙ্গীকারের মধ্য দিয়ে ১৪ অক্টোবর শনিবার কানেকটিকাটের নিউ হ্যাভেনে শেষ হয়েছে “শিশু অধিকার ও তাদের দৃষ্ঠিশক্তি” শীর্ষক ৬ষ্ঠ আন্তর্জাতিক সম্মেলন।

alt

বিখ্যাত ইয়েল বিশ্ববিদ্যালয়ের অ্যানলিয়ান সেন্টার মিলনায়তনে ডিসট্রেস্ড চিলড্রেন এন্ড ইনফ্যান্টস ইন্টারন্যাশনাল (ডিসিআই) আয়োজিত দিনব্যাপী এই সম্মেলনে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ঢাকায় দায়িত্ব পালনকারী সাবেক মার্কিন রাষ্ট্রদূত ড্যান ডাব্লিউ মজিনা।

alt

ঢাকা থেকে প্রকাশিত পাক্ষিক প্রবাস মেলা পত্রিকার সম্পাদক ও এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক শরীফ মুহম্মদ রাশেদ।প্রবাসী বাংলাদেশিদের মধ্য থেকে আমেরিকান প্রেসক্লাব অব বাংলাদেশ অরিজিন-এর সভাপতি হাকিকুল ইসলাম খোকন সম্মেলনে যোগ দেয়।

alt

প্যারিস ভিত্তিক ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ অর্গানাইজেশন (ডাব্লিউবিও)’র প্রেসিডেন্ট এবং অল ইউরোপিয়ান বাংলাদেশ এসোসিয়েশন (আয়েবা)’র সেক্রেটারি জেনারেল কাজী এনায়েত উল্লাহর নেতৃত্বে চার সদস্যের প্রতিনিধিদল কানেকটিকাট সম্মেলনে যোগ দেয়।

alt

প্রতিনিধিদলে ছিলেন আয়েবার দুই ভাইস প্রেসিডেন্ট পর্তুগাল-বাংলাদেশ ফ্রেন্ডশিপ এসোসিয়েশনের প্রেসিডেন্ট ও লিসবন সিটি কাউন্সিলর রানা তাসলিম উদ্দিন, দক্ষিণ ফ্রান্সের তুলুজ সিটির বাংলাদেশ কমিউনিটি এসোসিয়েশনের প্রেসিডেন্ট ফকরুল আকম সেলিম এবং স্পেনের বার্সেলোনা বাংলাদেশ এসোসিয়েশনের প্রেসিডেন্ট মাহারুল ইসলাম মিন্টু।

alt

বাংলাদেশের শিশুদের কল্যাণে ডিসিআই-এর বিভিন্ন চ্যারিটি কর্মসূচী অচিরেই ইউরোপে ঢেলে সাজাবার ঘোষণা দেন কমিউনিটি নেতারা।

alt

মর্যাদাপূর্ণ এই সম্মেলনে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন কানেকটিকাটের সিনেটর ক্রিস মারফি, ইয়েল স্কুল অব পাবলিক হেল্থের ডীন ড. স্টেন এইচ ভেরমুন্ড, হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রফেসর ড. রিচার্ড ক্যাশ, জাতিসংঘে শ্রীলংকার স্থায়ী প্রতিনিধি রাষ্ট্রদূত ড. রোহান পেরেরা, বাংলাদেশের শীর্ষস্থানীয় ব্যবসায়িক গ্রুপ ট্রান্সকম গ্রুপের চেয়ারম্যান লতিফুর রহমান,

alt

বাংলাদেশ জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের সাবেক চেয়ারম্যান ও ডায়াবেটিক এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের চিফ কোঅর্ডিনেটর ড. মুহাম্মদ আবদুল মজিদ, ডালাস ভিত্তিক বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স ইউএসএ’র প্রেসিডেন্ট মাসুদ চৌধুরী,

alt

বগুড়ার ক্ষুদ্রঋণ ভিত্তিক এনজিও ঠেঙ্গামারা মহিলা সবুজ সংঘের প্রতিষ্ঠাতা ড. হোসনে আরা বেগম এবং সম্মেলনের আয়োজক ডিসিআই’র এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর ড. এহসান হক।

alt


অনুর মৃত্যুতে নিউইয়র্কে আওয়ামীলীগের শোক সমাবেশ

শুক্রবার, ২০ অক্টোবর ২০১৭

হাকিকুল ইসলাম খোকন: বাপ্ নিউজ : জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের একান্ত সচিব ও যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি এ এম নূরুল ইসলাম অনুকে শ্রদ্ধা জানাতে না পারা আমাদের ব্যর্থতা। তিনি ছিলেন একজন প্রাজ্ঞ রাজনীতিক। মেধাবী ছাত্র হিসেবে রাজনৈতিক জীবনে তাঁর পদচারণা শুরু। হাতে গোণা যে ক’জন রাজনীতিবিদ লেখাপড়া করে রাজনীতি করেছেন, তিনি ছিলেন তাদের শীর্ষ স্থানে।

alt

অকুতোভয়, নীতিবান, আপোষহীন আদর্শিক রাজনীতির এক উজ্জল নক্ষত্র তিনি। ক্ষমতার মোহ থেকে তিনি ছিলেন সম্পূর্ণ মুক্ত। সুদীর্ঘসময় রাজনৈতিক পথপরিক্রমায় যুক্তরাষ্ট্রে যে ক’জন রাজনীতিবিদ সব সময় শ্রদ্ধার পাত্র ছিলেন, তার মধ্যে শীর্ষে আছেন তিনি। আদর্শবান ও অনুকরণীয় ব্যক্তিত্ব হিসেবে সবসময় ছিলেন দেদীপ্যমান।যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সভাপতি ড. সিদ্দিকুর রহমানের সভাপতিত্বে এবং ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সামাদ আজাদের পরিচালনায় এ অনুষ্ঠানে দোয়া মাহফিল পরিচালনা করেন ইমাম কাজী কায়্যূম।alt

সদ্য প্রয়াত এ এম নূরুল ইসলাম অনুর আত্মার মাগফেরাত কামনায় যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামীলীগের দোয়া মাহফিল ও শোক সভায় বক্তারা এসব কথা বলেন। গত ১৮ অক্টোবর বুধবার সন্ধ্যায় নিউইয়র্কে জ্যাকসন হাইটসের মেজবান পার্টি হলে এ দোয়া মাহফিল ও শোক সভা অনুষ্ঠিত হয়।
alt

অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি আকতার হোসেন, সৈয়দ বসারত আলী, শামসুদ্দিন আজাদ, আবুল কাশেম ও লুৎফুল করিম, প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক এম এ সালাম, সাংগঠনিক সম্পাদক ফারুক আহমেদ, মহিউদ্দিন দেওয়ান ও আব্দুল হাসিব মামুন, কোষাধ্যক্ষ আবুল মনসুর খান, শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক এম এ করিম জাহাঙ্গির, শিল্প ও বাণিজ্য বিষয়ক সম্পাদক ফরিদ আলম, প্রবাসী কল্যাণ সম্পাদক সোলায়মান আলী, যুব বিষয়ক সম্পাদক মাহাবুবুর রহমান টুকু, উপ দপ্তর সম্পাদক আবদুল মালেক, জহিরুল ইসলাম, উপ প্রচার সম্পাদক তৈয়বুর রহমান টনি, কার্যকরী সদস্য মুজিবুল মাওলা, করিম চৌধুরী, নিউইয়র্ক মহানগর আওয়ামী লীগের alt

ভারপ্রাপ্ত সভাপতি জাকারিয়া চৌধুরী ও সাংগঠনিক সম্পাদক সাদেক শিবলী, নিউইয়র্ক স্টেট আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি রফিকুল ইসলাম ও শেখ আতিকুল ইসলাম, আওয়ামী লীগ নেতা কফিল চৌধুরী, রফিকুল ইসলাম পাটোয়ারি, এন আমিন, খসরুজ্জামান খসরু, সাহাদাত হোসেন, আজহারুল ইসলাম, হুমায়ুন কবীর, হারুনুর রশিদ, মো. মাঈনুদ্দিন, সেচ্ছাসেবক লীগের সহ আন্তর্জাতিক সম্পাদক শাখাওয়াত বিশ্বাস, যুক্তরাষ্ট্র স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি নুরুজ্জামান সর্দার, যুক্তরাষ্ট্র মহিলা লীগের নুরুন্নাহার, যুক্তরাষ্ট্র যুবলীগের সিনিয়র যুগ্ম আহবায়ক শেখ alt

জামাল হোসাইন, যুগ্ম আহবায়ক হুমায়ুন চৌধুরী, নুরুল ইসলাম, সাদিকুর রহমান প্রমুখ। এ শোক সমাবেশে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ, মহিলা লীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, যুবলীগ, শ্রমিক লীগ ও ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীসহ বিপুল সংখ্যক প্রবাসী উপস্থিত ছিলেন।

alt

সাংবাদিকদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সাপ্তাহিক পরিচয় সম্পাদক নাজমুল আহসান, আমেরিকা-বাংলাদেশ প্রেসক্লাবের সভাপতি ও মুক্তিযোদ্ধা লাবলু আনসার, সাপ্তাহিক বর্ণমালা সম্পাদক মাহফুজুর রহমান প্রমুখ।alt

সমাবেশে বক্তারা প্রয়াত এ নেতার রাজনৈতিক, সাংগঠনিক, সামাজিক ও কর্মময় জীবনের ওপর স্মৃতিচারণ করে বক্তব্য দেন। বক্তারা বলেন, ‘জাতির জনক’ বঙ্গবন্ধুর একান্ত সচিব হিসেবে দীর্ঘদিন দায়িত্ব পালনের ফলে তিনি নিজেকে যোগ্য ও ব্যক্তিত্ব সম্পন্ন আদর্শ মানূষ হিসেবে নিজকে প্রতিষ্ঠিত করেন।alt

উল্লেখ্য, এ এম নূরুল ইসলাম অনু বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবের একান্ত সচিব ও পরবর্তীতে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সভাপতি হিসেবে দেড় দশকের অধিক সময় দায়িত্ব পালন করেন। তিনি ১৯৮৭ সালে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার উপস্থিতিতে নিউইয়র্কে অনুষ্ঠিত কাউন্সিলের মাধ্যমে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সভাপতি নির্বাচিত হন। তিনি ২০০২ সাল পর্যন্ত সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন। গত ১৮ অক্টোবর বুধবার সকালে ঢাকার ইউনাইটেড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি ইন্তেকাল করেন (ইন্নালিল্লাহে ওয়া ইন্না ইলাইহে রাজিউন)।


স্পীকারের নিউইয়র্কস্থ বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেনারেল পরিদর্শন

শুক্রবার, ২০ অক্টোবর ২০১৭

হাকিকুল ইসলাম খোকন: বাপ্ নিউজ : নিউইয়র্ক (যুক্তরাষ্ট্র) থেকে : বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের স্পীকার ডঃ শিরীন শারমিন চৌধুরী,এমপি, ১৬ অক্টোবর নিউইয়র্কস্থ বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেনারেল পরিদর্শন করেন। কনসাল জেনারেল শামীম আহসান, এনডিসি সহ অন্যান্য কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ তাঁকে স্বাগত জানান।

Picture

মিশনের কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের সাথে মতবিনিময়কালে স্পীকার প্রবাসীদের কনস্যুলার সেবা ও সার্বিক কল্যাণ নিশ্চিতকরণে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বর্তমান সরকারের দৃঢ় প্রতিজ্ঞার কথা উল্লেখ করেন। কনস্যুলেট এর আওতাধীন বিপূল সংখ্যক প্রবাসীদের কনস্যুলেট কর্তৃক আন্তরিকতার সাথে সেবা প্রদান এর কথা উল্লেখ কওে স্পীকার তাদের প্রশংসা করেন। কনসাল জেনারেল সংক্ষেপে কনস্যুলেট এর কার্যক্রম তুলে ধরেন।

alt

ডঃ শিরীন শারমিন চৌধুরী পরে কনস্যুলেট এর বিভিন্ন কক্ষ ঘুরে দেখেন এবং কনস্যুলার সেবাপ্রার্থী অপেক্ষমান প্রবাসীদের সাথে কথা বলেন এবং তাদের খোঁজ-খবর নেন। এসময় জাতিসংঘে বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি ও রাষ্ট্রদূত মাসুদ বিন মোমেন এবং উচ্চ পদস্থ অন্যান্য কর্মকর্তারাও উপস্থিত ছিলেন। উল্লেখ্য, স্পীকার গুরুত্বপূর্ণ কার্যক্রমে অংশগ্রহণের জন্য বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থান করছেন।


আমেরিকায় যাওয়ার সাড়ে ৩ মাসের মধ্যেই নিউইয়র্কে বাংলাদেশী রিফাতের অকাল মুত্যু

শুক্রবার, ২০ অক্টোবর ২০১৭

হাকিকুল ইসলাম খোকন: বাপ্ নিউজ : স্বপ্নের দেশ আমেরিকায় যাওয়ার সাড়ে ৩ মাসের মধ্যেই মর্মান্তিক দুর্ঘটনায় অকালেই ঝড়ে গেলেন বাংলাদেশী রিফাত (২৩) নামের এক বাংলাদেশি যুবক। নিউইয়র্কের একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গত ১৮ অক্টোবর বুধবার ভোর ৪টায় তিনি শেষ নি:শ্বাস ত্যাগ করেন বলে জানা গেছে। তার গ্রামের বাড়ী মুন্সীগঞ্জ-বিক্রমপুরের টঙ্গীবাড়ী। রিফাত টঙ্গীবাড়ী উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান আবু বকর মল্লিকের পুত্র। তার অকাল মৃত্যুতে প্রবাসী মুন্সীগঞ্জ-বিক্রমপুরবাসীদের মাঝে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

মুন্সীগঞ্জ-বিক্রমপুর এসোসিয়েশন ইউএসএ ইনক’র সভাপতি শাহাদৎ হোসেন বুধবার ইউএনএ প্রতিনিধিকে জানান, দুই সপ্তাহ আগে ম্যানহাটানে কাজ করার সময় রিফাত মারাত্বক আহত হন। ঘটনার সময় সে সাইকেল চালিয়ে ডেলিভারীর কাজ করছিলেন। পরবর্তীতে তাকে ম্যানহাটানের আর্মস্টারডাম এভিনিউ ও ১১৩ স্ট্রীটস্থ মাউন্ট সিনাই হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় বুধবার ভোর ৪টার দিকে তার মৃত্যু ঘটে।

Picture

রিফাত ইমিগ্র্যান্ট হয়ে চলতি বছরের ১২ জুলাই যুক্তরাষ্ট্র আসেন। তারা দুই ভাই ও দুই বোন ছিলেন। তার এক বোন কানাডায় বসবাস করেন। আর বাবা-মা ও অন্য এক ভাই ও বোন নিউইয়র্কে বসবাস করছেন। রিফাতের বাবা-মা নিউইয়র্কের লং আইল্যান্ড সিটিতে বসবাস করলেও রিফাত জ্যামাইকা এলাকায় বসবাস করতেন বলে কমিউনিটি নেতা শাহাদৎ হোসেন জানান।

রিফাত-এর মরদেহ বাংলাদেশে তার গ্রামের বাড়ীতে দাফন করা হবে বলে জানা গেছে। এজন্য প্রস্তুতি চলছে। এদিকে রিফাত-এর অকাল মৃত্যুতে মুন্সীগঞ্জ-বিক্রমপুর এসোসিয়েশন ইউএসএ ইনক’র পক্ষ থেকে গভীর শোক ও শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা প্রকাশ করা হয়েছে।

শোক সভা: একই দিন ঢাকায় মৃত্যুবরণকারী মুন্সীগঞ্জ-বিক্রমপুরের কৃতি সন্তান, ‘জাতির জনক’ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সাবেক একান্ত সচিব ও যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি নূরুল ইসলাম অনু ও অকাল প্রয়াত রিফাত স্মরণে সভাপতি মুন্সীগঞ্জ-বিক্রমপুর এসোসিয়েশন ইউএসএ ইনক’র পক্ষ থেকে ২০ অক্টোবর শুক্রবার নিউইয়র্কের জ্যাকসন হাইটসস্থ নিউ মেজবান রেষ্টুরেন্টে এক শোক সভার আয়োজন করা হয়েছে বলে সংগঠনের সভাপতি শাহাদৎ হোসেন জানান।


আসাদুজ্জামান চৌধুরী’র রচিত গ্রন্থ ‘আমরা করবো জয়’ প্রকাশিত

শুক্রবার, ২০ অক্টোবর ২০১৭

হাকিকুল ইসলাম খাকন,বাপসনিঊজ:মানুষের জীবন কখনই শুধু মশৃণ রাস্তায় চলে না। এমন কোন মানুষ নেই যিনি জীবনে বড় কোন ধাক্কা না খেয়ে উপরে উঠেছেন। উইলিয়াম শেক্স পিয়ার বলেছেন জীবন এক অজানা ভ্রমন। এই অজানা ভ্রমনে আপনি যে নৌকাই চড়–ন না কেন, যে রাস্তাই বেছে নেন না কেন, আপনি কোন সময় এমন অবস্থার সম্মুখীন হতে পারেন যখন আপনার মনে হবে আপনি ধ্বংস হয়ে যাচ্ছেন। আপনি কি তখন জীবন-যুদ্ধে ইস্তফা দিবেন নাকি অগ্রসর হওয়ার চেষ্টা করবেন।

চলতি বিশ্বের বিখ্যাত ব্যক্তিত্ব নেপোলিয়ন হিল্স বলেছেন A quitter never wins and an winner never quits.’
এই বইটিতে সত্য ঘটনার আলোকে জীবনের ঘাত-প্রতিঘাত আলোচনা করা হয়েছে। গ্রন্থকার একজন প্রকৌশলী, সাবেক প্রধান প্রকৌশলী, বাংলাদেশ বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ। পরবর্তী জীবনে তিনি একটি বেসরকারী মেডিকেল কলেজ প্রতিষ্ঠা করেছেন। তাঁর জীবনের ঘটনা ও সমাজে ঘটে যাওয়া বিষয় তিনি বইটিতে এমন ভাবে উপস্থাপন করেছেন যেন পাঠক জীবনে চলার পথে সঠিক রাস্তাটি খুঁজে পান। গ্রন্থটি নিউইয়র্কের জ্যাকসন হাইটস্থ মুক্তধারায় পাওয়া যাচ্ছে।আসাদুজ্জামান চৌধুরী,৯২৯-৪১৩-১৯২৬।


সাংগঠনিক সফরে টেক্সাস যাচ্ছেন ফোবানা চেয়ারম্যান

শুক্রবার, ২০ অক্টোবর ২০১৭

হাকিকুল ইসলাম খোকন, বাপসনিঊজ:ফ্লোরিডা: সাংগঠনিক সফরে ট্রেক্সাস যাচ্ছেন ফোবানা এক্সিকিউটিভ কমিটির নব নির্বাচিত চেয়ারম্যান আতিকুর রহমান। আজ এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বাপসনিঊজকেএ তথ্য নিশ্চিত করেছেন ফোবানার নবনির্বাচিত এক্সিকিউটিভ সেক্রেটারি শাহ হালিম। ফোবানা চেয়ারম্যান আতিকুর রহমান আগামীকাল ২০ অক্টোবর শুক্রবার থেকে ২৪ অক্টোবর পর্যন্ত টেক্সাসের বিভিন্ন শহরে ফোবানার মিশন এবং ভিশন নিয়ে মত বিনিময় করবেন।
সফরের সময় ফোবানা চেয়ারম্যান আতিক ফ্লোরিডার মায়ামীতে অনুষ্ঠিত ৩১তম ফোবানা সম্মেলন এবং আগামী বছর আটলন্টায় অনুষ্ঠিত ৩২তম ফোবানা সম্মেলনের বিভিন্ন দিক নিয়েও ফোবানা লিডার এবং বিভিন্ন সংগঠন ও কমিউনিটি নেতৃবৃন্দের সাথে মত বিনিময় করবেন।

এদিকে এক ফোন বার্তায় ফোবানা এক্সিকিউটিভ কমিটির নব নির্বাচিত চেয়ারম্যান আতিকুর রহমান বাপসনিঊজকে জানান, নির্বাচিত হবার পর এই প্রথমবারের মত টেক্সাস সফরে যাচ্ছি এবং সেখানে বিভিন্ন কমিউনিটি নেতৃবৃন্দের সাথে ফোবানার ভাবমুর্তী ফোবানার মিশন ভিশন নিয়ে কমিউনিটি নেতৃবৃন্দের সাথে মত বিনিময় করব। তিনি বলেন, টেক্সাস সফরের মধ্য দিয়ে ফোবানার বিভিন্ন কার্যক্রম শুরু করছি। পর্য্যায়ক্রমে অন্যান্য গুরুত্বপুর্ণ শহরেও সফরে যাব।

আতিকুর রহমান বলেন, দ্বিতীয়বারের মত ফোবানার চেয়ারম্যান নির্বাচিত হওয়ায় বেশ গর্ববোধ করছি। পাশাপাশি ফোবানার ভাবমুর্তী উজ্ঝল ও রক্ষার জন্য খুব শিঘ্রই বিভিন্ন কার্যক্রম হাতে নিব। তিনি বলেন, আগামী প্রজন্মের জন্য ফোবানাকে আরো শক্তিশালী ও গতিশীল করার প্রয়োজনীয়তা অনুভব করছি এবং এই ব্যাপারে সকলের সহযোগীতা কামনা করছি।


নিউইয়র্কের বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেনারেল পরিদর্শনে স্পিকার

শুক্রবার, ২০ অক্টোবর ২০১৭

হাকিকুল ইসলাম খোকন: বাপ্ নিউজ : জাতিসংঘে রোহিঙ্গা শরণার্থী বিষয়ক ব্রিফিং এ রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে স্থায়ী ও কার্যকর ভূমিকা রাখার আহবান জানিয়েছেন বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের স্পীকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী। স্পীকার জাতিসংঘের সাবেক মহাসচিব কফি আনানের সাথে অনুষ্ঠিত এক বৈঠকে একটি সুদূরপ্রসারী ও গঠনমূলক প্রতিবেদন উপস্থাপনের তাকে ধন্যবাদ জানান।জাতিসংঘ সদরদপ্তরের ইকোসক চেম্বারে ‘রোহিঙ্গা সঙ্কট ও বাংলাদেশের মানবিক সহযোগিতা বিষয়ে’ জাতিসংঘের মানবিক সহায়তা ও জরুরী ত্রাণ বিষয়ক সমন্বয়কারী এবং জাতিসংঘের আন্ডার সেক্রেটারি জেনারেল মার্ক লোকক্ (Under-Secretary-General for Humanitarian Affairs and Emergency Relief Coordinator, Mr. Mark Lowcock) সদস্য রাষ্ট্রসমূহের জন্য ১৬ অক্টোবর এক ব্রিফিং অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। অনুষ্ঠানটিতে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের স্পীকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী।

স্বাগত বক্তব্যে মার্ক লোকক্ কক্সবাজারস্থ রোহিঙ্গা ক্যাম্প সরেজমিনে পরিদর্শনকালে তাঁর সাম্প্রতিক বাংলাদেশ সফরের অভিজ্ঞতা তুলে ধরেন।
লোকক জোরপূর্বক বাস্তÍুচ্যত এসকল রোহিঙ্গা উদ্বাস্তুদেরকে উদারভাবে আশ্রয় ও মানবিক সহায়তা প্রদানের জন্য বাংলাদেশ সরকার ও জনগণকে ধন্যবাদ জানান। উদ্বাস্তু ক্যাম্পসমূহে জাতিসংঘ ও এর সহযোগী সংস্থাগুলো গৃহীত বিভিন্ন স্বাস্থ্যগত ও অন্যন্য সহায়তা প্রদানের সংক্ষিপ্তসারও তুলে ধরেন লোকক্্।
তিনি এক্ষেত্রে জাতিসংঘের মানবিক সহায়তা পরিকল্পনার কথা, রোহিঙ্গাদের জন্য জাতিসংঘ প্রদত্ত মানবিক সহায়তা, এ পর্যন্ত আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় হতে প্রাপ্ত সহায়তার কথা সদস্যরাষ্ট্রসমূহকে অবহিত করেন এবং তিনি এ প্রসঙ্গে ২৩ অক্টোবর জেনেভাতে অনুষ্ঠিতব্য প্লেজিং কনফারেন্স (Pledging Conference) এর কথা উল্লেখ করে পরিকল্পনা বাস্তবায়নে বাদবাকী সহায়তার জন্য আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের নিকট আহ্বান জানান।

alt

স্পীকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী তার বক্তৃতায় রোহিঙ্গা শরণার্থীদের আশ্রয়দানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভূমিকার কথা উল্লেখ করে বলেন,“আমাদের প্রধানমন্ত্রী এই মানবিক আশ্রয়দানে অনন্য সাহসিকতা ও দৃঢ়তা প্রদর্শন করেছেন। অসহায় রোহিঙ্গাদের জন্য দ্বার উন্মুক্ত করে দিয়েছেন”।
স্পীকার তাঁর বক্তব্যে নিজের রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শনের ভিত্তিতে মিয়ানমার থেকে পালিয়ে বাংলাদেশে আসা নির্যাতনের শিকার রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর অমানবিক অবস্থার বর্ণনা তুলে ধরেন। তিনি জাতিসংঘসহ আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে স্থায়ী ও কার্যকর ভূমিকা রাখার আহ্বান জানান। স্পীকার বলেন, “আমরা এই সমস্যার জরুরী সমাধান চাই যাতে রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠী নিরাপদভাবে এবং সম্মানের সাথে তাদের ঘরে ফিরতে পারে এবং প্রতিবেশিদের সাথে শান্তিপূর্ণ সহাবস্থান ও অর্থপূর্ণ জীবন কাটাতে পাওেষ্ট। এই সংকটের শিকড় মিয়ানমারে এবং এর সমাধানও মিয়ানমারেই নিহিত উল্লেখ করে তিনি বলেন “রাজনৈতিক সদিচ্ছা থাকলে এ সমস্যা সমাধান সম্ভব”।
গত মাসে জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদে প্রদত্ত ভাষণে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মিয়ানমার পরিস্থিতির সমাধানে যে ৫টি পদক্ষেপের কথা বলেছেন স্পীকার তাঁর বক্তৃতায় সেগুলো উল্লেখ করে বলেন, “সহিংসতা ও একটি জাতিকে নির্মূলের প্রক্রিয়া বন্ধ, মিয়ানমারে জাতিসংঘের ফ্যাক্ট ফান্ডিং মিশন প্রেরণ, মিয়ানমারের অভ্যন্তরে সেফ জোন তৈরি, জোরপূর্বক উচ্ছেদকৃত মানুষদের নিজ ভূমিতে স্থায়ী প্রত্যাবর্তন এবং কফি আনান কমিশনের সুপারিশের পূর্ণ বাস্তবায়ন করতে হবে”।

Picture
এই ব্রিফিং অনুষ্ঠানে ইউএনএইচসিআর, আইওএম, ইউনিসেফ, ডব্লিউএইচও, রেডক্রস এন্ড রেডক্রিসেন্ট এর প্রতিনিধিগণ ছাড়াও কুয়েত, তুরস্ক, সৌদিআরব, সুইডেন, যুক্তরাষ্ট্র, দক্ষিণ কোরিয়া, সুইজারল্যান্ড, মিয়ানমার, বাংলাদেশ ও ইইউ’র রাষ্ট্রদূত ও প্রতিনিধিগণ বক্তব্য রাখেন।
কফি আনানের সাথে বৈঠক:
এদিকে ১৬ অক্টোবর সন্ধ্যায় স্পীকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী জাতিসংঘের সাবেক মহাসচিব ও এ্যাডভাইজরি কমিটি অন রাখাইন স্টেট এর চেয়ারম্যান কফি আনানের সাথে বৈঠক করেন। বৈঠককালে তিনি একটি সুদূরপ্রসারী ও গঠনমূলক প্রতিবেদন উপস্থাপনের জন্য কফি আনানকে ধন্যবাদ জানান। কফি আনান চলমান পরিস্থিতিতে মানবিক ভূমিকা রাখার জন্য বাংলাদেশের সরকার ও জনগণের ভূয়সী প্রশংসা করেন। তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে তাঁর ব্যক্তিগত শুভেচ্ছা জ্ঞাপনের জন্য স্পীকারকে অনুরোধ করেন। তিনি মিয়ানমারের অব্যাহত অনুপ্রবেশের বিষয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেন এবং এখন পর্যন্ত সঙ্কট চলমান থাকার প্রকৃত কারণ অনুসন্ধানের ক্ষেত্রে গুরুত্বারোপ করেন। ড. আনান অবিলম্বে সহিংসতা বন্ধ এবং রাখাইন প্রদেশের উপদ্রুত এলাকাগুলোতে জাতিসংঘ ও মানবিক সহায়তা সংস্থাসমূহ এবং গণমাধ্যমের অবাধ প্রবেশাধিকার নিশ্চিত করার উপর জোর দেন। তিনি মনে করেন এসব পদেক্ষেপের আশু বাস্তবায়নের মাধ্যমে রাখাইন প্রদেশে এখন পর্যন্ত অবস্থানরত দুর্গত মানুষের মধ্যে আস্থার মনোভাব তৈরি করা সম্ভব।
স্পীকার ড. আনানকে এ বিষয়ে আন্তর্জাতিক পর্যায়ে তাঁর ধারনা ও সুপারিশসমূহ তুলে ধরার জন্য অনুরোধ জানান। তিনি ড. আনানকে বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর আমন্ত্রণের আলোকে দ্রুত সুবিধাজনক সময়ে বাংলাদেশ সফরের অনুরোধ জানান। ড. আনান চলমান মানবিক বিপর্যয় কালে তার পক্ষ থেকে সর্বাত্তক সহযোগিতার আশ্বাস দেন।
উল্লেখ্য আজ স্পীকারের জাতিসংঘ মহাসচিব ও ইউএন উইমেন এর নির্বাহী পরিচালকের সাথে সাক্ষাতের কর্মসূচি রয়েছে।


খান আতাউর প্রসঙ্গে ব্যাখ্যা দিলেন নাসির উদ্দিন ইউসুফ

শুক্রবার, ২০ অক্টোবর ২০১৭

বাপ্ নিউজ : নিউইয়র্ক (যুক্তরাষ্ট্র) থেকে : সম্প্রতি নিউইয়র্কে সংস্কৃতি কর্মীদের এক সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে আমার বক্তব্য শেষে এক প্রশ্ন উত্তরে কৃতি চলচ্চিত্র নির্মাতা, সংগীত পরিচালক ও অভিনেতা খান আতাউর রহমান সম্পর্কে আমার একটি উক্তিকে কেন্দ্র করে ফেস বুক ও অনলাইনে সংবাদ মাধ্যমে তর্ক-বিতর্ক চলছে। অহেতুক বিতর্ক নিরসনে আমার কথা পুনর্ব্যাক্ত করছি।

* বিশিষ্ট চলচ্চিত্র নির্মাতা ও সংগীত পরিচালক খান আতাউর রহমান ১৯৭১ সালের মহান মুক্তিযুদ্ধে অংশ গ্রহনে অপারগ হয়েছিলেন। যে ৫৫ জন বুদ্ধিজিবী ও শিল্পী ১৯৭১ -এর ১৭মে মুক্তিযুদ্ধকে “আওয়ামী লীগের চরমপন্থীদের কাজ”বলে নিন্দাসূচক বিবৃতি দিয়েছিলেন দু:খ জনক ভাবে খান আতাউর রহমান তার ৯ নম্বর সাক্ষরদাতা ছিলেন।@ ১৭মে ১৯৭১ দৈনিক পাকিস্তান পত্রিকা দ্রষ্টব্য ।

Picture

* ১৯৭২ সালে বাংলাদেশ সরকার ড.নীলিমা ইব্রাহীম কে প্রধান করে ৬ সদস্যের কমিটি গঠন করেছিলেন রেডিও টেলিভিশনে পাকিস্তানীদেপ্রচার কার্যে সহযোগীতা কারীদের সনাক্ত করার জন্য। ১৯৭২ -এর ১৩মে নীলিমা ইব্রাহীম কমিটি যে তালিকা সরকারকে পেশ করেন সে তালিকায় ৩৫ নম্বর নামটি খান আতাউর রহমানের। তালিকাভুক্তদের সম্পর্কে কমিটির সুনির্দিষ্ট বক্তব্য রয়েছে। তালিকাভুক্ত শিল্পীদের ৬মাস পর অনুস্ঠানে অংশ গ্রহণ পুনর্বিবচনার সুপারিশ করা হয়।দ্রষ্টব্য – বাংলাদেশ বেতার তথ্য মন্ত্রনালয়ের নং জি১১।সি-১।৭২।১৬/৬/৭২ ***************

alt

* একথা অনস্বীকার্য যে খান আতাউর রহমান একজন গুণী শিল্পী। তার সৃষ্টিশীলতা নিয়ে কোন প্রশ্ন নাই। মুক্তিযুদ্ধপূর্ব কালে তাঁর চলচ্চিত্র সমূহ আমাদের ঋদ্দ্ব ও উজ্জিবীত করেছে । যেমন “সোয়ে নাদীয়া জাগো পানি” “নবাব সিরাজদৌলা” সহ অনেক চলচ্চিত্র। কিন্তু মুক্তিযুদ্ধের সময় তাঁর ভূমিকা প্রশ্নবিদ্ধ। তিনি পাকিস্তানের সমর্থক ছিলেন এবং তা তাঁর রাজনৈতিক সিদ্ধান্তে। আবার আলতাফ মাহমুদ, জহির রায়হান , শহীদউল্লাহ কায়সারের মত শিল্পী সাহিত্যিকরা মুক্তিযুদ্ধে অংশ নিয়েছিল্ন তাঁদের স্বীয় রাজনৈতিক সিদ্ধান্তে এবং শাহাদাত বরণ করেছেন। অনেকের মনে প্রশ্ন উদ্রেক হয়েছে যে ৭১ সালে ১৬ ডিসেম্বর অব্যহতিতে কেন আমি বা আমরা তাঁকে রক্ষা করেছিলাম। কারণ খান আতাউর রহমান কোন প্রকার মানবতা বিরোধী কর্মে লিপ্ত ছিলেন না যদিও পাকিস্তানীদের সমর্থনে রেডিও টেলিভিশনে অনুষ্ঠান করেছেন।আর খান আতাউর রহমান একজন শিল্পী এবং ৯মাসে তাঁর কর্ম সম্পর্কে আমরা অবহিত ছিলাম না। তাছাড়া আমরা এও ভেবেছি ইচ্ছায় হোক অনিচ্ছায় হোক অনেকে পাকিস্তানীদের পক্ষাবলম্বন করেছে। আমরা তা বিচারের এখতিয়ার রাখিনা।তাছাড়া মুক্তিযোদ্ধাদের এ কথা বাধ্যতামূলক মানতে বলা হয়েছিল যে কোন অবস্থাতেই যুদ্ধোত্তর সময়ে কাউকে ক্ষতি বা আঘাত করা যাবেনা । বিচারিক প্রক্রিয়ায় দোষী সাব্যস্তদের বিচার করাহবে রাষ্ট্রীয়ভাবে। মুক্তিযোদ্ধারা সেই আদেশ পুরোপুরি ভাবে মেনেছিলো বিধায় যুদ্ধোত্তর কালে প্রাণহানির ঘটনা উল্লেখযোগ্য ভাবে কম হয়েছিল। জেনেভা কনভেনশন মুক্তিযোদ্ধারা পুরোপুরি মেনেছিলো কিন্তু পাকিস্তানীরা জেনেভা কনভেনশনের তোয়াক্কা করেনি।

alt

* আমার মূল বক্তব্যে নয় এক প্রশ্নের উত্তরে ইতিহাসের দায় থেকে আমি খান আতাউর রহমান সম্পর্কে উক্তিটি করেছিলাম। সবশেষে আবারো বলছি খান আতাউর রহমান একজন সৃষ্টিশীল মানুষ কিন্তু ১৯৭১ সালে তিনি দেশ ও মানুষের পাশে দাঁড়াতে ব্যর্থ হয়েছিলেন। ব্যক্তিগত ভাবে আমার তার বিরুদ্ধে কোন অভিযোগ নাই শিল্পী হিসাবে তাঁর প্রশংসা করি কিন্তু মুক্তিযুদ্ধকালে তার ভূমিকার সমালোচনা তো করতেই পারি।

* আশা করি আমার উপরোল্লিখিত বক্তব্য অনুধাবনে সকল তর্ক- বিতর্কের অবসান ঘটবে।

https://www.youtube.com/watch?v=nIMvTn284Ak


বাংলাদেশের শিশুদের কল্যাণে ইউরোপ-আমেরিকা একযোগে কাজ করবে

মঙ্গলবার, ১৭ অক্টোবর ২০১৭

Picture

হাকিকুল ইসলাম খোকন: বাপ্ নিউজ : বাংলাদেশের সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের ভাগ্য বদলে দিতে ইউরোপ ও আমেরিকা দুই মহাদেশের প্রবাসী বাংলাদেশীরা একযোগে কাজ করবে, এই অঙ্গীকারের মধ্য দিয়ে ১৪ অক্টোবর শনিবার কানেকটিকাটের নিউ হ্যাভেনে শেষ হয়েছে “শিশু অধিকার ও তাদের দৃষ্ঠিশক্তি” শীর্ষক ৬ষ্ঠ আন্তর্জাতিক সম্মেলন। বিখ্যাত ইয়েল বিশ্ববিদ্যালয়ের অ্যানলিয়ান সেন্টার মিলনায়তনে ডিসট্রেস্ড চিলড্রেন এন্ড ইনফ্যান্টস ইন্টারন্যাশনাল (ডিসিআই) আয়োজিত দিনব্যাপী এই সম্মেলনে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ঢাকায় দায়িত্ব পালনকারী সাবেক মার্কিন রাষ্ট্রদূত ড্যান ডাব্লিউ মজিনা।


 
প্যারিস ভিত্তিক ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ অর্গানাইজেশন (ডাব্লিউবিও)’র প্রেসিডেন্ট এবং অল ইউরোপিয়ান বাংলাদেশ এসোসিয়েশন (আয়েবা)’র সেক্রেটারি জেনারেল কাজী এনায়েত উল্লাহর নেতৃত্বে চার সদস্যের প্রতিনিধিদল কানেকটিকাট সম্মেলনে যোগ দেয়। প্রতিনিধিদলে ছিলেন আয়েবার দুই ভাইস প্রেসিডেন্ট পর্তুগাল-বাংলাদেশ ফ্রেন্ডশিপ এসোসিয়েশনের প্রেসিডেন্ট ও লিসবন সিটি কাউন্সিলর রানা তাসলিম উদ্দিন, দক্ষিণ ফ্রান্সের তুলুজ সিটির বাংলাদেশ কমিউনিটি এসোসিয়েশনের প্রেসিডেন্ট ফকরুল আকম সেলিম এবং স্পেনের বার্সেলোনা বাংলাদেশ এসোসিয়েশনের প্রেসিডেন্ট মাহারুল ইসলাম মিন্টু। বাংলাদেশের শিশুদের কল্যাণে ডিসিআই-এর বিভিন্ন চ্যারিটি কর্মসূচী অচিরেই ইউরোপে ঢেলে সাজাবার ঘোষণা দেন কমিউনিটি নেতারা।

alt
 
মর্যাদাপূর্ণ এই সম্মেলনে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন কানেকটিকাটের সিনেটর ক্রিস মারফি, ইয়েল স্কুল অব পাবলিক হেল্থের ডীন ড. স্টেন এইচ ভেরমুন্ড, হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রফেসর ড. রিচার্ড ক্যাশ, জাতিসংঘে শ্রীলংকার স্থায়ী প্রতিনিধি রাষ্ট্রদূত ড. রোহান পেরেরা, বাংলাদেশের শীর্ষস্থানীয় ব্যবসায়িক গ্রুপ ট্রান্সকম গ্রুপের চেয়ারম্যান লতিফুর রহমান, বাংলাদেশ জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের সাবেক চেয়ারম্যান ও ডায়াবেটিক এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের চিফ কোঅর্ডিনেটর ড. মুহাম্মদ আবদুল মজিদ, ডালাস ভিত্তিক বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স ইউএসএ’র প্রেসিডেন্ট মাসুদ চৌধুরী, বগুড়ার ক্ষুদ্রঋণ ভিত্তিক এনজিও ঠেঙ্গামারা মহিলা সবুজ সংঘের প্রতিষ্ঠাতা ড. হোসনে আরা বেগম এবং সম্মেলনের আয়োজক ডিসিআই’র এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর ড. এহসান হক।


যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ ও হিউম্যান সাপোর্টের উদ্যোগে বিনামূল্যে টিকাদান কর্মসূচী

মঙ্গলবার, ১৭ অক্টোবর ২০১৭

Picture

ফ্লু-শর্টের প্রয়োজনীয়তা ও গুরুত্ব অনুধাবন করে কমিউনিটিতে এর ব্যাপক সাড়া বা সচেতনতার লক্ষ্যে প্রবাসের সর্ববৃহৎ শক্তিশালী রাজনৈতিক সংগঠন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামীলীগও এই সেবামূলক কর্মকা-ে এগিয়ে আসেন। হিউম্যান সার্পোর্টের সাথে একাত্বতা প্রকাশ করেন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামীলীগের সভাপতি ডঃ সিদ্দিকুর রহমান। তাই যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামীলীগের বৃহত্তম ব্যানারে হিউম্যান সার্পোটের সার্বিক তত্ত্বাবধানে নিউইয়র্কের জ্যাকসন হাইটসের প্রান কেন্দ্র ৩৭-২২ ৭৩ স্ট্রীট স্কলাসটিকা টিউটোরিয়ালে ১৫ই অক্টোবর রবিবার সন্ধ্যা ৬টা হতে ৯:০০ টা পর্যন্ত ১ম পর্বের টিকাদান সম্পন্ন হয়। নারী-পুরুষ ও দলমত নির্বিশেষে অনেকেই স্বতঃস্ফূর্তভাবে টিকা গ্রহণ করেন।

alt

ডুয়েনরিড ফার্মাসী ম্যানেজার মিসেস কার্তিজা সাহা ও টেকনিশিয়ান হাসিনা আক্তার ওয়ালগ্রীন তথা ডুয়েনরিড এর পক্ষে টিকাদান কার্য্য সম্পাদন করেন। বিশিষ্ট ফার্মাসিষ্ট ও যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আক্তার হোসেনের সভাপতিত্বে ও হিউম্যান সাপোর্ট কর্পোরেশনের সভাপতি এবং যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামীলীগের প্রবাসী কল্যাণ সম্পাদক মোঃ সোলায়মান আলীর পরিচালনায় টিকাদান কর্মসূচীর উদ্বোধন হলেও কমিউনিটির অনেক খ্যাতনামা নেতৃবৃন্দ, ইলেকট্রোনিক ও প্রিন্ট মিডিয়ার সাংবাদিকবৃন্দ এই মহতী কর্মে স্বত:স্ফূর্ত অংশগ্রহণ এবং ভূয়সী প্রশংসা করেন। আবাল-বৃদ্ধ-বণিতা সকলেরই এই টিকা তথা ফ্লু-শর্ট নেওয়া উচিত বলে চিকিৎসকদের অভিমত। দ্বিতীয় পর্বের ফ্লু-শর্ট ব্রংসের বাংলাবাজার নামক স্ট্যারলিং এভিনিউস্থ মামুন টিউটোরিয়ালে একই সময়ে ২১ শে অক্টোবর অনুষ্ঠিত হবে। গতবারের ন্যায় এবারও ওয়ালগ্রীন তথা ডুয়েনরিড ফার্মাসীর প্রশিক্ষিত ও দক্ষ টেকনিশিয়ান দ্বারা টিকাদান সম্পন্ন হয়।

alt
প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সামাদ আজাদ। বিশেষ অতিথি ছিলেন বিশিষ্ট মুক্তিযোদ্ধা সেক্টরস্ কমান্ডারর্স ফোরাম-মুক্তিযুদ্ধ ’৭১-এর সাধারণ সম্পাদক রেজাউল বারী, যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামীলীগের কৃষি বিষয়ক সম্পাদক আশরাফুজ্জামান, যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক মাহাবুবু রহমান টুকু, যুক্তরাষ্ট্র মহিলা আওয়ামীলীগের সভাপতি অধ্যাপিকা মমতাজ শাহানাজ, স্কলাসটিকা টিউটোরিয়ালের প্রিন্সিপ্যাল রেজা রশিদ, গোপালগঞ্জ জেলা সমিতির সভাপতি ও জ্যাকসন হাইটস্ বিজনেজ এসোসিয়েমনের সহ-সভাপতি মোল্লা এম এ মাসুদ, ফরিদপুর জেলা কল্যাণ সমিতির সহ-সভাপতি বুলবুল ইসলাম, হিউম্যান সাপোর্ট কর্পোরেশনের কার্য্যকরী কমিটির সদস্য রিন্টু মোল্লা, জুনান নাসিদ সানি, বিলকিস আক্তার ও এনামুল এহসান তোহা প্রমুখ। বক্তারা মানুষ মানুষের জন্য কথাটির মর্ম উপলব্ধি করে দলমত নির্বিশেষে দেশ ও দশের উন্নয়নে মানবসেবার গুরুত্ব আরোপ করে সকলকে এই ধরনের সেবামূলক কাজে অংশগ্রহণের সনির্বন্ধ অনুরোধ জানান।
হিউম্যান সাপোর্ট করপোরেশনের সভাপতি মোঃ সোলায়মান আলীকে টিকাদানের মাধ্যমে কর্মসূচীর শুভ উদ্ভোধন করা হয়।


নিরাপদ সড়ক চাই-এর যুক্তরাষ্ট্রের নিউজার্সি ষ্টেইট শাখার আহ্বায়ক কমিটি গঠন।।

মঙ্গলবার, ১৭ অক্টোবর ২০১৭

বাপ্‌স নিউজ : নিউজার্সি প্রতিনিধি ।। পথ যেন হয় শান্তির, মৃত্যুর নয়’ এই শ্লোগানকে ধারণ করে "নিরাপদ সড়ক চাই" যুক্তরাষ্ট্রের নিউজার্সি ষ্টেইট শাখা গঠন কা হয়েছে।।নিউজার্সির তরুন সংগঠক আবুল কালামকে আহ্বায়ক, সাংবাদিক বিশ্বজিৎ দে বাবলু ও তরুণ ব্যবসায়ী আলমগীর খাঁনকে যুগ্ন আহবায়ক এবং জালালাবাদ ট্রাভেলসের স্বত্বাধিকারী মাশুক আহমদকে সদস্য সচিব করে ৩১ সদস্য বিশিষ্ট নিরাপদ সড়ক চাই এর যুক্তরাষ্ট্রের নিউজার্সি ষ্টেইট শাখার আহ্বায়ক কমিটি গঠন করা হয়েছে।


এ উপলক্ষে গত গত রবিবার রাতে প্যাটারসনের নিউজার্সি হেলফ সেন্টারে কমিউনিটি এক্টিবিষ্ট সৈয়দ জুবায়ের আলীর সভাপতিত্বে ও সফল সংগঠক নুরুজ্জামান সোহেল এর সার্বিক তত্বাবধানে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় নিরাপদ সড়ক চাই (নিসচা)’র চেয়ারম্যান জনপ্রিয় চিত্রনায়ক ইলিয়াস কাঞ্চন ঢাকার কেন্দ্রীয় কার্যালয় থেকে মোবাইল ফোনে কথা বলে এ কমিটি ঘোষণা করেন। এ সময় সেখানে নিরাপদ সড়ক চাই যুক্তরাষ্ট্র শাখার আহ্বায়ক ইসমাইল হোসেন স্বপন ও সদস্য সচীব স্বীকৃতি বড়ুয়াসহ অনেক প্রবাসী বাংলাদেশী উপস্থিত ছিলেন।


ওই অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন নিরাপদ সড়ক চাই যুক্তরাষ্ট্র শাখার প্রধান উপদেষ্টা এ,বি,এম ওসমান গনি, বিশেষ অতিথি ছিলেন নিরাপদ সড়ক চাই যুক্তরাষ্ট্র শাখার উপদেষ্টা মো: মনির হোসেন ও বিশেষ বক্তা ছিলেন নিরাপদ সড়ক চাই যুক্তরাষ্ট্র শাখার সদস্য মো: আনোয়ার হোসেন.এসময় অন্যানদের মধ্যে আরও বক্তব্য রাখেন শামীম আহমদ, আনহার মিয়া, মোশাররফ আলম, মিনহাজ আহমদ, বিশ্বজিৎ দে বাবলু, আবুল কালাম, তরুন বক্তা ফরিদ উদ্দিন, প্যাটারসন বোর্ড অব এডুকেশনের কমিশনার প্রার্থী জয়েদ রহিম ও জোয়েল ডি রমিরেজসহ আরও অনেক।।