Slideshows

http://bostonbanglanews.com/index.php/images/stories/2015/April/00/modules/mod_gk_news_highlighter/images/media/system/js/modules/mod_gk_image_show/js/components/com_gk3_photoslide/thumbs_big/605744Finding_Immigrant____SaKiL___0.jpg

কুইন্স ফ্যামিলি কোর্টে অভিবাসী

হাকিকুল ইসলাম খোকন/বাপ্‌স নিউজ/প্রবাসী নিউজ ঃ বষ্টনবাংলা নিউজ ঃ দ্যা ইন্টারফেইস সেন্টার অব নিউইয়র্ক ও আইনী সহায়তা সংগঠন নিউইয়র্ক এর উদ্যোগে গত ২৪ অক্টোবর বৃহস্পতিবার সকাল ৯ See details

ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার

পরিচালনা পরিষদ 

সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি

ওসমান গনি
 

প্রধান সম্পাদক

হাকিকুল ইসলাম খোকন
 

সম্পাদক

সুহাস বড়ুয়া হাসু
 

সহযোগী সম্পাদক

আয়েশা আকতার রুবী

বিনোদন

শামীম ওসমানের নাচে মুগ্ধ হবে দর্শক (ভিডিও সহ)

শুক্রবার, ২৪ নভেম্বর ২০১৭

বাপ্ নিউজ : ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য শামীম ওসমান ঝানু রাজনীতিবিদ হিসেবে সারাদেশে পরিচিত। তবে তিনি শুধু রাজনীতিবিদও নন তার রসিকতার গল্প বিভিন্ন মহলে বেশ পরিচিত। এবার রম্য ম্যাগাজিন অনুষ্ঠান ‘সেন্স অব হিউমার’ এ অতিথি হয়ে এসে মঞ্চে গানের সুরে ঠোট মিলিয়ে নেচেছেন বহুল আলোচিত এই সংসদ সদস্য।

Picture

বিভিন্ন অঙ্গনের তারকাদের জীবনের নানা গোপন তথ্য ফাঁস করে ইতিমধ্যেই আলোচিত হয়ে উঠেছে রম্য ম্যাগাজিন ‘সেন্স অব হিউমার’। অনুষ্ঠানটি উপস্থাপনা করছেন অভিনেতা শাহরিয়ার নাজিম জয়।অনুষ্ঠানের একটি ভিডিওতে দেখা যায় আলোচনার এক পর্যায়ে উপস্থাপনাক শাহরিয়ার নাজিম জয়ের কথা মত সুবীর নন্দির গাওয়া ‌‘বন্ধু তোর বরাত নিয়ে আমি যাবো’ গানের সঙ্গে ঠোঁট মেলান ও নাচেন শামীম ওসমান।
  alt
গানে ঠোঁট মেলানো এবং নাচার পর উপস্থাপক জয় অতিথি শামীম ওসমানকে উদ্দেশ্য করে বলেন, ‘শামীম ভাই আপনি যে নাচলেন সেটা অসাধারণ হলেও আপনার নাচ অনেক দুর্বল। মিনিমাম ২ বছর লাগবে আপনার নাচ শিখতে।’এরপর শামীম ওসমান জয়কে উদ্দেশ্য করে বলেন, ‘আপনি আমাকে নাচের ট্রেনিং দেন।’শামীম ওসমান আরো বলেন, ‘আমার ভাগ্নি রয়েছে নাম সাদিয়া ইসলাম মৌ। তাকে বলবো সে আমাকে শিখিয়ে দেব।

alt

এরপর যদি এই অনুষ্ঠানে আসি তখন আপনার (জয়) চেয়ে ভালো নাচব।’এসব ছাড়াও শামীম ওসমানের রাজনৈতিক জীবনের নানা অজানা কথা তুলে ধরা হয়েছে এই পর্বে। সেখানে তিনি জবাব দিয়েছেন কেন তিনি এত আলোচিত এবং সমালোচিত। তার জীবনের নানা উত্থান পতনের গল্পও রসিকতার ছলে বলেছেন।সেন্স অব হিউমার অনুষ্ঠানের এই পর্বটি আগামী ২ ডিসেম্বর এটিএন বাংলায় প্রচার হবে।

https://www.youtube.com/watch?v=FB6bdCacwi4


রোহিঙ্গাদের যৌন নির্যাতনের ঘটনায় তীব্র নিন্দা অ্যাঞ্জেলিনা জোলির

শুক্রবার, ১৭ নভেম্বর ২০১৭

হাকিকুল ইসলাম খোকন,বাপসনিঊজ ॥অ্যাঞ্জেলিনা জোলি জাতিসংঘের শরণার্থী বিষয়ক শুভেচ্ছা দূত হিসেবে কাজ করছেন। মিয়ানমারে রোহিঙ্গা নারী ও শিশুদের ওপর যে যৌন নির্যাতনের ঘটনা ঘটেছে তার বিরুদ্ধে তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন হলিউড তারকা অ্যাঞ্জেলিনা জোলি। রোহিঙ্গাদের দেখতে তিনি বাংলাদেশে আসার পরিকল্পনা করছেন বলেও জানিয়েছেন।কানাডার ভ্যাঙ্কুভারে জাতিসংঘের শান্তিরক্ষী মিশনের এক সম্মেলনে রোহিঙ্গা ইস্যুতে নিজের দৃষ্টিভঙ্গি তুলে ধরেন জাতিসংঘের শরণার্থী বিষয়ক এই শুভেচ্ছাদূত।মিস জোলি তাঁর বক্তব্যে মিয়ানমারে সেনাবাহিনীর অভিযান ও সেখানকার সহিংস ঘটনায় প্রাণভয়ে বাংলাদেশে রোহিঙ্গারা আশ্রয় নিয়েছে, বিশেষ করে নারী ও শিশুদের ওপর যৌন নির্যাতনের ঘটনার চরম নিন্দা জানান।

বাপ্‌স নিউজকে তিনি জানান নির্যাতিত রোহিঙ্গাদের দেখতে আসার পরিকল্পনা তাঁর রয়েছে এবং জাতিসংঘের শান্তিরক্ষী মিশনের সম্মেলনের বক্তব্যেও তিনি সেটি উল্লেখ করবেন।


ইতালিয়ান সিনেমায় বাংলাদেশি শিমুল

শুক্রবার, ১০ নভেম্বর ২০১৭

বাপ্ নিউজ : ইতালিয়ান একটি স্বল্প দৈর্ঘ্য সিনেমায় অভিনয় করছেন বাংলাদেশি শিমুল রহমান। আন্তর্জাতিক একটি ফেস্টিভালের জন্য সিনেমাটি নির্মিত হচ্ছে। ইল ফানতাসমা দি ফোরানো (Il fantasma di Forano) নামক এ ছবিটির পরিচালক জোবাননি পিপেরনো, চিত্রনাট্যকার পিয়ের পাওলো পিসারেল্লি, জোবান্নি পিপেরনো, চিত্রগাহক লরেনছো আদোরিসিও, প্রযোজক কসতানছা কলদোজেল্লি, পাওলো পেতরুচ্ছি, সহকারী পরিচালক লুকা বনাভেনতুরা, সম্পাদনায় পাওলো পেতরুচ্ছি এবং শিল্প নির্দেশনায় সাবিনা আনজেলনি।

ছবির কাহিনী পারিবারিক গল্পনির্ভর। ছবিটিতে বাংলাদেশি-ইতালিয়ান সংস্কৃতিকে তুলে ধরা হয়েছে। একটি বাঙালি মেয়ে ছোট থেকে বড় হয় তার বাবা-মায়ের কাছে। মেয়েটি যখন বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার সময় মেয়েটির সঙ্গে ইতালিয়ান একটি ছেলের ভালোবাসার সম্পর্ক গড়ে ওঠে। এ সম্পর্কের কথা যখন বাবা-মা জেনে যায়। তা মেনে নিতে পারবে না বলে ওই সময় তার বাবা-মা তাকে দেশে নিয়ে অন্য এক দেশীয় ছেলের সঙ্গে বিয়ে দেয়। এভাবেই ছবির কাহিনী সামনের দিকে এগোতে থাকে।

Picture

ইউরোপীয় ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে কাজ করার স্বপ্ন নিয়ে ইতালিতে পাড়ি জমান শিমুল। তার সেই স্বপ্ন এখন পূরণ হতে যাচ্ছে। শিমুল বলেন, ‘আন্তর্জাতিক মানের এরকম একটি সিনেমায় কাজ করতে পেরে নিজেকে ধন্য মনে করছি। একজন বাংলাদেশি হয়ে ইতালিয়ান সিনেমায় কাজ করতে পেরে নিজের দেশকে উপস্থাপন করার বড় একটি সুযোগ পেয়েছি। তাছাড়া তাদের সঙ্গে কাজ করে জানতে পারলাম তারা কত উন্নত প্রযুক্তি ব্যবহার করে একটি সিনেমা তৈরিতে। এটা আমার জন্য শিক্ষণীয় বিষয়।’তিনি বলেন, ‘ভবিষ্যতে বাংলাদেশে কাজ করতে লাগবে। আমার মতো আরও বাংলাদেশি যেন এই দেশের মূলধারার ছবিতে কাজ করে নিজের দেশকে উপস্থাপন করতে এগিয়ে আসে, সেই আহ্বান জানাচ্ছি।’

ছবির শুটিং এখনও বাকি রয়েছে। এ ছবিতে বাংলাদেশি ও ভারতের সিনেমার মতো কিছু দৃশ্যে নাচগান থাকছে। ছবিতে কেন্দ্রীয় চরিত্রে শিমুল ছাড়াও অভিনয় করছেন বাংলাদেশি লামিয়া রশিদ, ইতালিয়ান সুপরিচিত অভিনেত্রী জিসেল্লা বুরিনাতো। একটি বিশেষ দৃশ্যে বাংলাদেশ সমিতির সাবেক সভাপতি নুরে আলম সিদ্দিকী বাচ্চুকে দেখা যাবে।

উল্লেখ্য, শিমুল বাংলাদেশে থাকা অবস্থায় নাট্য ও বিজ্ঞাপন নির্মাতা হিসেবে দীর্ঘদিন কাজ করেছেন।


সুন্দরী প্রতিযোগিতায় এগিয়ে শ্রীলংকা ও বাংলাদেশ

শুক্রবার, ১০ নভেম্বর ২০১৭

বাপ্ নিউজ : জোহরা বাতুল রিচিহাজার-হাজার দশকের উপস্থিতিতে জমকালো অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের ক্যানসাস রাজ্যের উচিটায় এশিয়ান ফেস্টিভ্যাল অ্যান্ড বিউটি কনটেস্টে-২০১৭ শ্রীলংকার আনুশিয়া গোমেজ মিস উচিটা নির্বাচিত হয়েছেন। বাংলাদেশের সুন্দরী তরুণী জোহরা বাতুল রিচি ফটোজেনিকে এশিয়ায় সেরা হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন।

প্রতিবারের মতো এবারও আমেরিকার ক্যানসাস রাজ্যের উচিটা শহরের ডাউন-টাউনের সেঞ্চুরি কনভেনশন হলে ২৮ অক্টোবর হয়ে গেল ৩৭-তম সুন্দরী প্রতিযোগিতা ও এশিয়ান ফেস্টিভ্যাল। এতে বাংলাদেশ সহ এশিয়ার ৯টি দেশ এতে অংশগ্রহণ করে। এশিয়ার নানা দেশের সাংস্কৃতিক ইতিহাস-ঐতিহ্য তুলে ধরায় লক্ষ্যে এ নান্দনিক আয়োজন। চীন, ভারত, বাংলাদেশ, মালয়েশিয়া, ফিলিপাইন, ভিয়েতনাম, লাওস, কম্বোডিয়া, শ্রীলংকার সুন্দরী প্রতিযোগীরা দীর্ঘ তিন মাস নানা ধরনের ইনডোর-আউটডোর প্রতিযোগিতায় অংশ নেন। সবশেষ হাজারো মানুষের উপস্থিতিতে পাঁচজন বিচারকের চুলচেরা বিশ্লেষণে শ্রীলংকা মিস উচিটা এবং বাংলাদেশ (ফটোজেনিক) এ নির্বাচিত হয়েছেন। মঞ্চে ২০১৬ সালের মিস ইন্ডিয়া প্রতিযোগীদের প্রশ্ন করেন-বাংলাদেশি সুন্দরী রিচির কাছে প্রশ্ন ছিল-‘তোমার দেশের একজন নামকরা ব্যক্তির কথা বলো যিনি তোমার আদর্শ হতে পারে?’ তিনি লাল-সবুজের দেশ বাংলাদেশে নোবেল লরিয়েট ড. মো. ইউনুসের কথা দুহাত উঁচিয়ে বলে গেলেন।

এ সময় গ্যালারি থেকে মূহুর্মুহু করতালি ভেসে আসতে থাকে।
উচিটা ডাউন-টাউন সেঞ্চুরি কনভেনশন হলের আলোআধাঁরী মঞ্চের পাশে করিডরে সাজানো ছিল এশিয়ার নানা দেশের মুখরোচক খাবার ও পণ্যসামগ্রীর স্টল। এবারে বাঙালিয়ানা বাংলাদেশি খাবারের স্টল চোখে পড়ার মতো ছিল।
ঘড়ির কাঁটায় ছিল ঠিক বিকেল সাড়ে পাঁচটা। হলের গেট খুলে দেওয়া হলো। লাইনে সারিবদ্ধভাবে দাঁড়িয়ে থাকা পৃথিবীর নানা দেশের সৌন্দর্য পিপাসু মানুষ হলে ঢোকেন। বিশাল হলের প্রবেশ মুখে প্রতিযোগিতায় অংশ নেওয়া এশিয়ার এগারোটি দেশের সংক্ষিপ্ত পরিচিতিসহ ছোট-ছোট বুথের সামনে সুন্দরী রমণী প্রতিযোগীরা হাসিমুখে সবাইকে আমন্ত্রণ জানান। হলে ঢুকতে সবাই যেন নিজের দেশকে খুঁজে পেল। আবেগ-আপ্লুত হয়ে আপন দেশের গন্ধে নিজ দেশের সুন্দরী রমণীদের সঙ্গে সেলফি তুলতে হুমড়ি খেয়ে পড়েন। প্রতিবছরের মতো এবারও উচিটা এশিয়ান অ্যাসোসিয়েশন এশিয়ান ফেস্টিভ্যাল অ্যান্ড বিউটি কনটেস্ট ২০১৭ করেন।
পাগলা হাওয়ার বাদল দিনে, পাগল আমার মন জেগে ওঠে-বাংলাদেশর সুন্দরী রমণী শরমী-রোমানা নেচে-গেয়ে মঞ্চ মাতিয়ে তোলেন। এ ছাড়া চাইনিজ ড্রাগন নৃত্য, জাপানের টেকো সম্প্রদায়ের ড্রাম নৃত্য ভিয়েতনামি ফ্যান নৃত্যসহ এগারোটি দেশের ঐতিহ্যিক সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের ফাঁকে-ফাঁকে সুন্দরী প্রতিযোগীদের প্রশ্নোত্তর পর্ব শেষ হয়। এতে সার্বিক বিবেচনায় শ্রীলংকার সুন্দরীকে বিজয়ী ঘোষণার মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি টানা হয়েছে।


ববিতা এখন কানাডায়

বৃহস্পতিবার, ০৯ নভেম্বর ২০১৭

Picture
 নায়ক রাজ-রাজ্জাকের মেজো ছেলে বাপ্পীর সাথে ববিতা

ববিতা বলেন, রাজ্জাক ভাইয়ের সাথে দীর্ঘকাল একসাথে কাজ করেছি, কত স্মৃতি তার সাথে। আমরা তো এক পরিবারের মতোই। তাই আমি তাদের সান্ত্বনা দিয়ে এবং সমবেদনা জানাতে এসেছি। আমরা দুইদিন খুব স্মৃতিকাতর হয়ে সময় কাটালাম। বাপ্পীও আমাকে পেয়ে খুব আবেগপ্রবণ হয়ে উঠে। ববিতা আরো বলেন, এবার টরন্টো ফোবানা থেকে নায়করাজ রাজ্জাককে মরণোত্তর সন্মাননা দেয়া হয়েছে। তাতে আমি খুব খুশি হয়েছি।


আমেরিকায় তিন্নি, দেশে ফিরবেন কি আর?

রবিবার, ২২ অক্টোবর ২০১৭

হাকিকুল ইসলাম খোকন:আয়েশা আকতার রুবী,বাপসনিঊজ:জীবনের মানে কী, অথবা মানুষের জীবন এতো বৈচিত্র্যপূর্ণ কেন কিংবা ক্ষণে ক্ষণে এতো পালাবদলের নামই কী জীবন-এসব প্রশ্নের উত্তরই বুঝি এখন খুঁজে বেড়ান শোবিজের এক সময়ের আলোচিত-সমালোচিত মডেল অভিনেত্রী শ্রাবস্তী দত্ত তিন্নি। তাকে নিয়ে এখন নেই কোন আলোচনা! সেটি হোক কাজ কিংবা ব্যক্তিজীবন। যার জীবন একটা সময় ছিল রঙিন আলোয় পরিপূর্ণ। হঠাৎ করে সাদাকাল জীবনের পথে হাঁটা কতটা যে কঠিন সেটি শুধু এখন তিন্নিই অনুভব করতে পারেন।

কারণ শোবিজের ঝলমলে রঙিন দুনিয়া ও পরিচিতজনদের ছেড়ে হঠাৎ আড়াল গ্রহণ করে পথ চলছেন তিনি। শুধু ঘনিষ্টজন ছাড়া নেই কারও সঙ্গে যোগাযোগ। এদিকে তার দেখা মিলে না শোবিজের শিল্পীদের ঘরোয়া আড্ডা কিংবা সাংগঠনিক কাজেও। আর বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থান করছেন এ অভিনেত্রী। তার ফেসবুকের ওয়াল ঘুরলে তেমনই টের পাওয়া যায়। এরইমধ্যে গত ১৭ অক্টোবর সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম ফেসবুকে একটি স্ট্যটাস দেন। এরপর থেকেই মেলেছে গুঞ্জনের ডালপালা!

alt

যেখানে তিনি লিখেছেন, ‘মিস ইউ, প্লিজ ডোন্ট ফরগেট মি’। আর তার ফেসবুকের ওয়াল ঘুরে জানা গেছে, তিনি গত ১৫ অক্টোবর মার্কিন মুলুকে পাড়ি জমিয়েছেন। আর সেখানে ঘোরাঘুরির কিছু ছবিও পোস্ট করেছেন। এরপর থেকে অনেকেই প্রশ্ন তুলে বলছেন, ব্যক্তিগত জীবনের টানাপোড়েনে থাকা তিন্নি কী একেবারেই দেশ ছেড়ে যুক্তরাষ্ট্রে পাড়ি জমিয়েছেন নাকি শুধু ঘোরাঘুরির জন্যই গিয়েছেন! আর এ প্রশ্নের উত্তর খুঁজতে তিন্নির সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও ব্যর্থ হন এ প্রতিবেদক। কোনভাবেই তাকে পাওয়া যাচ্ছে না। সেটি ফোন কিংবা ফেসবুক। দুটি মাধ্যমেই। তাই তার কোন বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

alt

ক্যারিয়ারের একটা পর্যায়ে শোবিজের কাজ নিয়ে তুমুল ব্যস্ত ছিলেন এ অভিনেত্রী। এরপর একটা সময় গিয়ে ব্যক্তিজীবনে হতাশার কারণে শোবিজ থেকে এক প্রকার নিজেকে দূরে সরিয়ে নেন। তারপর মাঝেমধ্যে আবার টুকটাক নাটকে অভিনয়ও করেছেন। এরমধ্যে আবার রিহ্যাবে গিয়েও বেশ কিছুদিন কাটাতে হয়েছে তাকে। তিন্নি ২০০৬ সালের ২৮শে ডিসেম্বর অভিনেতা আদনান ফারুক হিল্লোলকে বিয়ে করেন।

altদাম্পত্য কলহের জের ধরেই ২০০৯ সালের শেষের দিকে তিন্নি-হিল্লোল আলাদা থাকতে শুরু করেন। তার বেশ ক’বছর পর তাদের বিচ্ছেদের খবর প্রকাশ হয়। এরপর ২০১৪ সালের ১৮ ফেব্রুয়ারি আদনান হুদা সাদকে বিয়ে করেন তিন্নি। ২০১৫ সালের অক্টোবর মাসে এ খবরে প্রকাশ হয় তিন্নির দ্বিতীয় বিয়ের কথা। তিন্নি ও সাদের এক কন্যাসন্তানও রয়েছে, তার নাম আরিশা। এ সংসারও তার সুখের হয় নি। বিচ্ছেদে জড়ান তিনি।

২০০৪ সালে তিন্নি মিস বাংলাদেশ নির্বাচিত হয়েছিলেন। এরপর অসংখ্যা জনপ্রিয় টিভি নাটকে অভিনয় করেছেন। মোস্তফা সরয়ার ফারুকীর নির্দেশনায় একটি বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে ব্যাপক আলোচিত হন তিনি। এছাড়া নূরুল আলম আতিকের ‘ডুবসাঁতার’, মোস্তফা সরয়ার ফারুকীর ‘মেড ইন বাংলাদেশ’ চলচ্চিত্রগুলোতে অভিনয় করেও বেশ প্রশংসা কুড়ান।


বলিউডের সিনেমায় বাংলাদেশের এডলফ খান

শনিবার, ১৪ অক্টোবর ২০১৭

Picture

এডলফ খান একজন সফল কোরিওগ্রাফার। বাংলাদেশের প্রথম সারির তরুণ কোরিওগ্রাফারদের নাম উঠলে প্রথমেই চলে আসে তার নাম। ইতোমধ্যে কোরিওগ্রাফির মাধ্যমে ব্যাপক প্রশংসা কুড়িয়েছেন। এর পাশাপাশি করেছেন অভিনয়। এবার কোরিওগ্রাফিকে পেছনে ফেলে বলিউডের সিনেমায় নিজের নাম লেখালেন।

alt

নতুন চলচ্চিত্রে অভিনয় করা প্রসঙ্গে এডলফ খান বলেন, সম্পূর্ণ ভিন্ন আঙ্গিকে বলিউডের নতুন একটি ছবিতে নোমান খান দ্য লিজেন্ড চরিত্রে অভিনয় করতে যাচ্ছি। চরিত্রটি অনেকটা কমিক হলেও একটা নেগেটিভ ছায়া আছে এর মধ্যে। অনেক গুরুত্বপূর্ণ ও দুঃসাহসিক একটা চরিত্র। আশা করি দর্শকদের ভাল লাগবে। তারা এই ছবিতে নতুন কিছু পাবে। এই চলচ্চিত্রে বাংলাদেশের অভিনেত্রী মমেরও অভিনয় করার কথা রয়েছে।

চলচ্চিত্রটি সম্পর্কে নির্মাতা ফয়সাল সাইফ জানান, এখনই ছবিটি সম্পর্কে কিছু বলতে চাচ্ছি না। শ্যুটিং শুরু হওয়ার পূর্বে এ বিষয়ে বিস্তারিত জানানো হবে। তবে এই ছবিতে আমি বাংলাদেশ থকে দুজন শিল্পীকে নিচ্ছি। এর মধ্যে একজন এডলফ। তার চরিত্রটি অবশ্যই গুরুত্ব বহন করবে এই ছবিতে। সবকিছু ঠিক থাকলে আগামী ডিসেম্বরেই চলচ্চিত্রটির শ্যুটিং শুরু করব।


শুধু এভ্রিল নয় আরো আট দেশের সুন্দরীরা মুকুট হারিয়েছেন এবার

শনিবার, ১৪ অক্টোবর ২০১৭

বাপ্ নিউজ : বিশ্ব সুন্দরী প্রতিযোগিতা ‘মিস ওয়ার্ল্ড’ এর ৬৭তম আসর শুরু হতে যাচ্ছে আগামী ১৮ নভেম্বর। ১৩০টি দেশের বাছাইকৃত সুন্দরীদের নিয়ে চীনে বসবে এই আসর। তবে ‘মিস ওয়ার্ল্ড ২০১৭’ এর তথ্য অনুয়ায়ী ১৩০টি দেশের মধ্যে ১১৬টি দেশ ইতোমধ্যেই নিশ্চিত করেছে মিস ওয়ার্ল্ড কর্তৃপক্ষকে। কিন্তু ১৯৫১ সাল থেকে শুরু হওয়া এ প্রতিযোগিতায় ১৫ বছর পর বাংলাদেশ সুযোগ পেয়েছে। 

Picture

এখন আসি মূল কথায়। বাংলাদেশে মিস ওয়ার্ল্ড এর বিজয়ী এভ্রিলকে নিয়ে তুমুল সমালোচনা আর বিতর্ক অনুষ্ঠিত হয়ে গেল সম্প্রতি। তথ্য গোপন করার অপরাধে এভ্রিলকে তার মুকুট হারাতেও হয়েছে। কিন্তু মজার বিষয় হচ্ছে যে, শুধু বাংলাদেশ নয় ২০১৭ এই আসরে আরো এভ্রিল ছিলেন। মানে বাংলাদেশ ছাড়া অারো ৮টি দেশের প্রতিযোগীকেও মুকুট হারাতে হয়েছে এবার। বিতর্কিত হয়ে বাদ পড়েছেন তারা। আছে আরও নানা কারণ। 

বাংলাদেশ: ইতোমধ্যেই আপনারা জানেন যে এভ্রিলের বিয়ের তথ্য গোপন করায় অনুষ্ঠান আয়োজকরা তাকে বিজয়ী হওয়া থেকে বাদ দিয়ে দেন। পরবর্তীতে প্রথম রানার আপ জেসিয়া ইসলামকে মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ ঘোষণা করা হয়। তিনি কিছু দিনের মধ্যে চলে যাচ্ছেন ‘মিস ওয়ার্ল্ড ২০১৭’ এর মূল আসরে।
alt

বাঁ থেকে বর্তমান বিজয়ী জেসিয়া। ডানে বাদ পরা এভ্রিল। ছবি: সংগৃহীত।

ব্রিটিশ ভার্জিন আইসল্যান্ড: আন্তর্জাতিক সময় নিয়ে দ্বন্দের কারণে ‘মিস ওয়ার্ল্ড ২০১৭’ ব্রিটিশ ভার্জিন দ্বীপপুঞ্জ এর মুকুট হারান সুন্দরী, হেলিনা হিউলেট। পরবর্তীতে হেলিনা হিউলেটের পরিবর্তে মুকুট পরানো হয় খফারা সিলভেস্টারকে। খফারা সিলভেস্টারকে ‘মিস ওয়ার্ল্ড ২০১৭’ নির্বাচিত করা হয়। যিনি ব্রিটিশ ভার্জিন দ্বীপপুঞ্জ এর প্রথম রানার আপ হয়েছিলেন।

alt
বাঁ থেকে বর্তমান বিজয়ী খফারা সিলভেস্টার। ডানে বাদ পরা হেলিনা হিউলেট। ছবি: সংগৃহীত।

ক্যামেরন: মিস ক্যামেরন ২০১৬ জুলি জুইমাফাককে শৃঙ্খলাজনিত কারণে মুকুটচ্যুত করা হয়। দেশটি থেকে মিশেল অাঙ্গে মিনকাটাকে মিস ওয়ার্ল্ড ২০১৭ তে অংশ নেওয়ার জন্য মনোনীত করেন মিস ক্যামেরনের জায়গায়। মিস ওয়ার্ল্ড কর্তৃপক্ষ ক্যামেরনের মার্কিন দূতাবাসকে জুলির বিষয়ে এই বলে সতর্ক করে যে, মিস ওয়ার্ল্ড শেষে জুলি আর দেশে না ফেরার পরিকল্পনা করছে। এমন সতর্কতা জারির পর ক্যামেরনের যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাস জুলিকে ভিসা দেয়নি। জুলি মিস ক্যামেরন ২০১৬ নির্বাচিত হয়েছিল এবং মিনকাটা একই প্রতিযোগিতায় চতুর্থ স্থান অর্জন করেছিল।

alt
বাঁ থেকে বর্তমান বিজয়ী মিশেল অাঙ্গে মিনকাটা। ডানে বাদ পরা জুলি জুইমাফাক। ছবি: সংগৃহীত।

কায়মান দ্বীপপুঞ্জ: ক্রিস্টিন আমায়াকে নির্বাচিত করা হয়েছে তার দেশকে প্রতিনিধিত্ব করার জন্য ‌‌মিস ওয়ার্ল্ড ২০১৭ তে ডেরি ড্যাকরিস লির মাধ্যমে। ডেরি ড্যাকরিস লি হচ্ছে কায়মান দ্বীপের ন্যাশনাল ডিরেক্টর মিস কায়মান প্রতিযোগিতা নির্বাচিত করার টিম। ক্রিস্টিন আমায়া যে কিনা আনিকা কনলি মিস কায়মান দ্বীপ ২০১৭ এর স্থলাভিষিক্ত হয়েছেন। আনিকা কনলিকে বাদ দেওয়া হয়েছে মিস ওয়ার্ল্ড ২০১৭ প্রতিযোগিতা থেকে কারণ তার বয়স কম ছিল। ক্রিস্টিন আমায়া প্রথম রানার আপ ছিল মিস কায়মান দ্বীপ ২০১৭ প্রতিযোগিতায়।
alt
বাঁ থেকে বর্তমান বিজয়ী ক্রিস্টিন আমায়া। ডানে বাদ পরা আনিকা কনলি। ছবি: সংগৃহীত।

ফ্রান্স: মিস ফ্রান্স ২০১৭ অ্যালিসিয়া অ্যায়লিজের পরিবর্তে অরোরি কিচেনিনকে মিস ওয়ার্ল্ড ফ্রান্স হিসেবে মনোনীত করা হয়েছে। মিস ফ্রান্স পেজেন্টের জাতীয় পরিচালক সিলভি তেলিয়ের এ পরিবর্তেনের কথা জানান। অ্যালিসিয়া অ্যায়লিজ পরবর্তীতে মিস ইউনিভার্স প্রতিযোগিতায় অংশ নেবেন। আর মিস ফ্রান্স ২০১৭ প্রতিযোগিতায় কিচেনিন প্রথম রানার আপ হয়েছিলেন। তবে কেন এ পরিবর্তন আনা হয়েছে, তা জানা যায়নি।
alt

বাঁ থেকে বর্তমান বিজয়ী অরোরি কিচেনিন। ডানে বাদ পরা অ্যালিসিয়া অ্যায়লিজ। ছবি: সংগৃহীত।

গ্রীস: গ্রীসের সুন্দরী প্রতিযোগিতার নাম ‘স্টার হ্যালিাস পেজেন্ট’। এ বছর থিওডোরা সোকিয়া স্টার হ্যালাস ২০১৭ নির্বাচিত হলেও পরবর্তীতে মারিয়া সিলোউকে স্টার হ্যালাস ২০১৭ ঘোষণা করা হয়। তবে কী কারণে এ পরিবর্তন আনা হলো, তা আয়োজকরা জানাননি। স্টার হ্যালাস ২০১৭ প্রতিযোগিতায় সিলোউ অংশই নেয়নি। আয়োজকরা পরে প্রাইভেট কাস্টিংয়ের মাধ্যমে তাকে স্টার হ্যালাস ২০১৭ মনোনীত করে।
alt

বাঁ থেকে বর্তমান বিজয়ী মারিয়া সিলোউ। ডানে বাদ পরা থিওডোরা সোকিয়া। ছবি: সংগৃহীত।

ইরাক: বিবাহিত প্রমাণিত হওয়ায় ২০১৭ সালে মিস ওয়ার্ল্ড ইরাক নির্বাচিত হয়েও বাদ পড়েন ভিয়ান আমির সুলাইমান। পরবর্তীতে মিস ইরাক প্রতিযোগিতার পরিচালক আহমেদ লাইথ সালমান, মাস্তি হামা আদিলকে মিস ওয়ার্ল্ড ইরাক নির্বাচিত করেন। মিস ইরাক ২০১৭ পর্বে হালাবজা প্রদেশ থেকে আদিল প্রতিনিধিত্ব করেন। পরবর্তীতে তাকে এ প্রতিযোগিতার প্রথম রানার আপ নির্বাচিত করা হয়েছিল।
alt

বাঁ থেকে বর্তমান বিজয়ী  মাস্তি হামা আদিল। ডানে বাদ পরা ভিয়ান আমির সুলাইমান। ছবি: সংগৃহীত।

দক্ষিণ আফ্রিকা: ডেমি-লেইগ নিল-পিটারসকে ২০১৭ সালের মিস দক্ষিণ আফ্রিকা নির্বাচিত করা হয়। কিন্তু নিল পিটারস একই সময়ে চলতে থাকা মিস ইউনিভার্সেও প্রতিযোগিতা করতে চেয়েছিলেন। মিস ওয়ার্ল্ড এবং মিস ইউনিভার্স প্রতিযোগিতার শিডিউল জটিলতার কারণে মিস দক্ষিণ আফ্রিকা প্রতিযোগিতার পরিচালক মেলিন্ডা বাম এ্যাডি, ভ্যান হারদিনকে নতুন মিস ওয়ার্ল্ড দক্ষিণ আফ্রিকা নির্বাচিত করেন। ভ্যান হারদিন প্রথমে প্রতিযোগিতাটির প্রথম রানার আপ ছিলেন।
alt

বাঁ থেকে বর্তমান বিজয়ী ভ্যান হারদিন। ডানে বাদ পরা ডেমি-লেইগ নিল-পিটারস। ছবি: সংগৃহীত।

তুরস্ক: মিস ওয়ার্ল্ড তুরস্ক ঘোষণার ১ ঘণ্টার মধ্যে তুরস্ক সরকার নিয়ে টুইটারে বিরূপ মন্তব্য করায় মুকুট হারান ইতির ইসেন। মিস তুরস্ক ২০১৭ প্রতিযোগিতার পরিচালক ক্যান স্যানডিকসিওগলু মিস তুরস্ক ইউনিভার্স, আসলি সুমেনকে মিস ওয়ার্ল্ড তুরস্ক নির্বাচিত করেন। তবে ঠিক কি কারণে তাকে বদল করা হয় তা আয়োজক কমিটি প্রকাশ করেনি কোথাও।
alt

বাঁ থেকে বর্তমান বিজয়ী আসলি সুমেন। ডানে বাদ পরা ইতির ইসেন। ছবি: সংগৃহীত।

উল্লেখ্য, মিস ওয়ার্ল্ড ফাস্ট ট্র্যাকে প্রদর্শিত হবে টপ মডেল, ট্যালেন্ট, মাল্টিমিডিয়া, স্পোর্ট, বিউটি উইথ অ্যা পারপোজ, এবং নতুন 'হেড টু হেড' চ্যালেঞ্জসহ আরো ৩০০০ মিডিয়া পার্টনারের সৌজন্যে। মিস ওয়ার্ল্ড ফাইনাল শো সেট ডিজাইন করেছেন বেইজিং রাইজ, যারা কিনা বেইজিং অলিম্পিক গেমস এবং ইউরোভিশন সং কন্টেস্টেরও আয়োজন করেছিলেন। বর্তমানে সেটটি গভীর তত্ত্বাবধানে রাখা হয়েছে, সানায়া সিটি এরেনা- একদম নতুন ভেন্যু এ বছরের ফাইনাল অনুষ্ঠানের জন্য। তাহলে আপনি রেডি তো দেখতে কে হতে যাচ্ছেন মিস ওয়ার্ল্ড ২০১৭?


‘নিউ ইয়র্ক থেকে বলছি’

বৃহস্পতিবার, ১২ অক্টোবর ২০১৭

Picture

হাকিকুল ইসলাম খোকন:আয়েশা আকতার রুবী,বাপসনিঊজ:সারা বিশ্বের নানান রাষ্ট্রেই বাংলাদেশি অভিনয়শিল্পীরা বসবাস করছেন। কেউ থাকছেন স্থায়ীভাবে আবার কেউবা যাচ্ছেন বেড়াতে। তবে সবচেয়ে মজার ব্যাপার হলো অন্যান্য দেশের তুলনায় আমেরিকায় সবচেয়ে বেশিরভাগ অভিনয়শিল্পীরা স্থায়ীভাবে বসবাস করছেন এবং অনেকের আত্মীয়স্বজন বেশি থাকাতে সেখানেই বেশির ভাগ অভিনয় শিল্পীরা দীর্ঘ সময়ের জন্য বেড়াতে যান।
alt
আর গত এক মাস ধরে দেখা যাচ্ছে অভিনয়শিল্পীদের অনেকেই বর্তমানে আমেরিকাতে আছেন। সেই তালিকায় আছেন হিল্লোল, নওশীন, কল্যাণ কোরাইয়া, নির্মাতা রহমতুল্লাহ তুহিন, তারিন জাহান সহ আরো অনেকেই। এখন মূল ঘটনা হচ্ছে, কিছুদিন আগে অভিনেত্রী নাফিজা প্রিয়.কমকে জানিয়েছিলেন সম্ভবত আমেরিকাতে থেকেই অভিনয় করবেন তিনি নতুন একটি নাটকে। তবে বিস্তারিত আর কিছুই বলেননি। এখন আসলে বোঝা যাচ্ছে না নাটক হচ্ছে নাকি ঘোরাঘুরিতে ব্যস্ত তারা।
alt
তবে ইতোমধ্যেই দীর্ঘ এই আমেরিকা সফরে তারা সবাই হাসি, আনন্দ, আর ঘোরাঘুরিতেই ব্যস্ত ছিলেন। এমনকি একে অন্যের বাসায় গিয়েও করেছেন ঘরোয়া পার্টি। উল্লেখ্য, আমেরিকাতে এখন স্থায়ীভাবে বসবাস করছেন টনি ডায়েস, প্রিয়া ডায়েস, নাফিজা জাহান, রিচি সোলায়মান, রোমানা, বিন্দুসহ আরও অনেকে।


হলিউডে যৌন কেলেঙ্কারি মুখ খুললেন নায়িকারা

বৃহস্পতিবার, ১২ অক্টোবর ২০১৭

বাপ্ নিউজ : স্বামী ও হলিউড প্রযোজক হারভে ওয়েইনস্টেইনের বিরুদ্ধে একের পর এক অভিনেত্রীকে ধর্ষণ ও যৌন হয়রানির অভিযোগের কাছে তাকে ছেড়ে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন স্ত্রী, ফ্যাশন ডিজাইনার জর্জিনা চ্যাপম্যান (৪১)। হারভে ওয়েইনস্টেইনের বিরুদ্ধে ধর্ষণ ও যৌন হয়রানির অভিযোগ এনেছেন হলিউডের নামকরা অভিনেত্রী অ্যানজেলিনা জোলি, রোজ ম্যাকগোয়েন, অ্যাশলে জুড সহ অনেক শীর্ষ অভিনেত্রী। এ ঘটনায় অনুতপ্ত জর্জিনা চ্যাপম্যান। তিনি বলেছেন, যারা হারভে ওয়েইনস্টেইনের এমন আচরণের শিকার হয়েছেন সেইসব নারীদের জন্য আমার হৃদয় ভেঙে যাচ্ছে। এ অভিযোগ ওঠার পর হারভে ওয়েইনস্টেইন তা অস্বীকার করে জানিয়েছিলেন, তাকে শতভাগ সমর্থন করছেন তার স্ত্রী। কিন্তু জর্জিনা সরাসরি তাকে ছেড়ে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন নিজ মুখে। অন্যদিকে হারভে ওয়েইনস্টেইন পাড়ি জমিয়েছেন ইউরোপে। অনেকে অভিযোগ করছেন, তার এই সফরও যৌন সুবিধা পাওয়ার জন্য। হারভে ওয়েইনস্টেইনের সঙ্গে ১০ বছরের বিবাহিত সম্পর্ক জর্জিনার। তাদের রয়েছে দুটি সন্তান। তাদের বয়স ৭ ও ৪ বছর। বড়টির নাম ইন্ডিয়া পার্ল। ছোটটি ড্যাশিয়েল ম্যাক্স রবার্ট। এ কাহিনী পশ্চিমা মিডিয়া গুরুত্ব দিয়ে প্রচার করছে। এতে বলা হয়েছে, যৌন নির্যাতিত অভিনেত্রীদের একজন হারভে ওয়েইনস্টেইনের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ আনার পর জর্জিনা তার স্বামীকে ত্যাগ করার ঘোষণা দিয়েছেন।

তিনি বলেছেন, তার স্বামী যেটা করেছে তাতে তিনি ভীষণভাবে বেদনাহত। এমন অপকর্মের কোনো ক্ষমা হতে পারে না। তাই আমি আমার স্বামীকে ছেড়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। এক্ষেত্রে আমার প্রথম অগ্রাধিকার হবে সন্তানদের যত্ন নেয়া। এ সময়ে আমার ব্যক্তিগত বিষয় নিয়ে ঘাঁটাঘাঁটি না করতে অনুরোধ করছি। ওদিকে এমন কাহিনী নিয়ে যখন উত্তেজনা সৃষ্টি হয়েছে তখন ব্যক্তিগত জেটে চেপে ইউরোপে পাড়ি দিয়েছেন হারভে ওয়েইনস্টেইন। এ বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্রের একটি নামকরা ওয়েবসাইট রিপোর্ট করেছে, সেখানে তিনি সেক্স আসক্তির থেরাপি নেবেন। সেখানে তিনি সব আইনগত বিষয়ে ব্যবস্থা নিশ্চিত করার পর যুক্তরাষ্ট্রে ফিরবেন। রিপোর্টে বলা হয়েছে, হারভে ওয়েইনস্টেইন সব সময়ই হটহেডেড বা মাথা গরম মানুষ। তবে এই সপ্তাহে যৌন কেলেঙ্কারির কাহিনী ফাঁস হওয়ায় তিনি বিস্ময়করভাবে শান্ত হয়ে গেছেন।

অন্যদিকে তার স্ত্রী জর্জিনা বৃটিশ বংশোদ্ভূত মার্কিন নাগরিক। তিনি নারীদের জন্য প্রতিষ্ঠা করেছেন মারচিসা নামের ফ্যাশন হাউজ। এর সহপ্রতিষ্ঠাতা তিনি। এতে তার স্বামী হারভে ওয়েইনস্টেইনের যথেষ্ট অবদান আছে। এখন তিনি স্বামীকে ছেড়ে যাওয়ার ঘোষণা দিলেও তাতে তার জন্য অনেকটা সমস্যা সৃষ্টি করবে। যুক্তরাষ্ট্রের একটি ম্যাগাজিনকে একটি সূত্র বলেছেন, জর্জিনার মধ্যে তার ওই ফ্যাশন হাউজ নিয়ে আতঙ্কও দেখা দিয়েছে। ওই ফ্যাশন হাউজের বেশির ভাগ কাস্টমার হলেন তার স্বামীর ছবির অভিনেত্রীরা। এখন হারভে ওয়েইনস্টেইনকে ছেড়ে গেলে তার প্রভাব পড়তে পারে ওই বাণিজ্যে। দ্য হলিউডের একজন সাংবাদিককে একজন তো এরই মধ্যে বলে দিয়েছেন আর কোনো অভিনেত্রী ওই ফ্যাশন হাউজে যাবেন না বা তারা সেখানকার পোশাক পরবেন না।

ওদিকে হারভে ওয়েইনস্টেইনের বিরুদ্ধে যেসব হলিউড অভিনেত্রী অভিযোগ এনেছেন তার মধ্যে অন্যতম গাইনেথ পালট্রো। তিনি দ্য নিউ ইয়র্ক টাইমসকে বলেছেন, তাকে স্পর্শ করেছেন হারভে ওয়েইনস্টেইন। ১৯৯৬ সালে শুটিং হয় ‘এমা’ ছবি। তার শুরুতেই তিনি গাইনেথকে বেডরুমে গিয়ে যৌথভাবে ম্যাসাজ করান। এ সময় গাইনেথের বয়ফ্রেন্ড ছিলেন অভিনেতা ব্রাড পিট। গাইনেথ পরে বিষয়টি তাকে জানান। এরপর হারভে ওয়েইনস্টেইনের মুখোমুখি হন ব্রাড পিট। অন্যদিকে অ্যানজেলিনা জোলি বলেছেন, ১৯৯৮ সালে তার কাছে যৌন সুবিধা চেয়েছিলেন হারভে ওয়েইনস্টেইন। তারপর তিনি আর কখনো হারভে ওয়েইনস্টেইনের সঙ্গে কাজ করেন নি। জোলি আরো বলেছেন, তিনি অন্য নারীদেরকেও হারভে ওয়েইনস্টেইন সম্পর্কে সতর্ক করেছেন। অভিনেত্রী লুইসেতি গেস বলেন, ২০০৮ সালে হারভে ওয়েইনস্টেইনের সঙ্গে এক রাতের শেষের দিকে মিটিং হয় তার। এ সময় বাথরুম থেকে বেরিয়ে আসেন হারভে ওয়েইনস্টেইন। তাকে বলেন, যদি তিনি তার নিজস্ব যৌন উদ্দীপনা দেখেন তাহলে তাকে তার স্ক্রিপ্টে সবুজ সংকেত দেবেন। এ কথা শুনে তিনি ওই মিটিং থেকে বেরিয়ে আসেন। জুডিথ গোডরেচ। ফরাসি এই অভিনেত্রী বলেছেন, তাকে ম্যাসাজ করার চেষ্টা করেছিলেন হারভে ওয়েইনস্টেইন। তিনি তার কাপড় খোলার চেষ্টা করেছিলেন। ১৯৯৬ সালে কান চলচ্চিত্র উৎসবে তার স্যুটে যাওয়ার অনুরোধ করেছিলেন। আরেক অভিনেত্রী ডন ডানিং।

Picture

তিনি বলেছেন, ২০০৩ সালে ভবিষ্যৎ ছবির প্রকল্প নিয়ে হারভে ওয়েইনস্টেইনের সঙ্গে সাক্ষাতে তাকে ডাকা হয়েছিল। তার কাছে পৌঁছালে ডন ডানিংকে নিজের পরবর্তী তিনটি ছবির স্ক্রিপ্ট তুলে দেন হারভে ওয়েইনস্টেইন। এসব ছবিতে তাকে নায়িকা হিসেবে নেয়ার কথা ছিল তার। তবে প্রস্তাবে তিনি বলেছিলেন তার জন্য তার সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক স্থাপন করতে হবে। এ কথা শুনে তার হোটেল থেকে পালান ডন ডার্নি। হারভে ওয়েইনস্টেইনের যৌন হয়রানির শিকার হয়েছেন টমি অ্যান রবার্ট। তিনি ১৯৮৪ সালে কলেজ জুনিয়রদের টেবিলে খাবার পরিবেশন করার সময় সাক্ষাৎ পান হারভে ওয়েইনস্টেইনের। এ সময় তাকে হারভে ওয়েইনস্টেইনের বাড়িতে দেখা করতে বলেন তিনি। তার বাড়িতে পৌঁছলে তিনি দেখতে পান বাথরুমে নগ্ন হারভে ওয়েইনস্টেইন। তাকেও একই রূপ ধারণ করতে বলেন। বিনিময়ে তাকে ছবিতে নেয়ার জন্য অডিশন দেয়ার প্রস্তাব দেন। তার এ প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেন টনি এবং সেখান থেকে চলে যান। ইতালিয়ান অভিনেত্রী এশিয়া আরজেনতো। তিনি অভিযোগ করেছেন, তার বয়স যখন ২১ বছর তখন জোর করে তার সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক স্থাপন করেছেন হারভে ওয়েইনস্টেইন।

তিনি বলেন, আমাকে ভীষণ ভয় দেখিয়েছিলেন তিনি। তিনি ছিলেন বিরাট মাপের মানুষ। আমি তাকে থামাতে পারি নি। এটা ছিল আমার কাছে এক দুঃস্বপ্ন। এরপরে তার সঙ্গে তাকে পরের বছরগুলোতে শারীরিক সম্পর্ক গড়তে হয়। ২০০০ সালের চবি ‘স্কারলেট ডিভা’র সময়ে তার প্রতি এমন আক্রমণ ডকুমেন্ট হিসেবে ধারণ করেছেন তিনি। অভিনেত্রী ক্যাথেরিন কেনদাল বলেছেন, ১৯৯৩ সালে একটি ছবির স্ক্রিনিংয়ের পর তাকে বলা হয় হারভে ওয়েইনস্টেইনকে তার এপার্টমেন্টে পৌঁছে দিতে। সেখানে তাকে পৌঁছে দিতেই তিনি বাথরোমে প্রবেশ করেন এবং ক্যাথেরিনকে বলেন নিজের দেহকে দলিত মথিত করতে। এতে অসম্মতি জানান ক্যাথেরিন। এর ফলে হারভে ওয়েইনস্টেইন নিজে নগ্ন হয়ে যান এবং তাকে জড়িয়ে ধরেন।

লুসিয়া ইভানস: এই অভিনেত্রী এর আগে লুসিয়া স্টোলার নামে পরিচিত ছিলেন। তিনি বলেছেন তার সঙ্গে ‘ওরাল সেক্স’ করেন হারভে ওয়েইনস্টেইন ২০০৪ সালে। নিউ ইয়র্কারকে তিনি বলেছেন, ওই দুর্ঘটনার পর তিনি অনেক বছর মানসিক যন্ত্রণায় ভুগেছেন। ওই ঘটনার পর তাকে শেষ রাতে কল করেন হারভে ওয়েইনস্টেইন।

মিরা সোরভিনো: ‘মাইটি অ্যাপ্রোডিট’ ছবির এই অভিনেত্রী নিউ ইয়র্কারকে বলেছেন, ১৯৯৫ সালে টরন্টো ইন্টারন্যাশনাল চলচ্চিত্র উৎসবে যোগ দিয়েছিলেন তিনি। সেখানে হোটেল রুমে তাকে ম্যাসাজ করার চেষ্টা করেন হারভে ওয়েইনস্টেইন। এরপর মধ্যরাতে তিনি তার বাসায় গিয়েছিলেন। এ সময় নিজেকে রক্ষা করতে নিজের বয়ফ্রেন্ডকে কল করেন মিরা। তিনি বলেন, হারভে ওয়েইনস্টেইনের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় তার ক্যারিয়ারে মারাত্মক প্রভাব পড়েছে।

রোসানা আরকুয়েটি: এই অভিনেত্রী বলেন, ১৯৯০ এর দশকে তার কাছ থেকে যৌন সুবিধা নেয়ার চেষ্টা করেছিলেন হারভে ওয়েইনস্টেইন। একটি হোটেলের মিটিংয়ে রোসানার হাত নিজের স্পর্শকাতর স্থানে নেয়ার চেষ্টা করেছিলেন হারভে।
রোজ ম্যাকগোয়েন: ১৯৯৬ সালে হারভে ওয়েইনস্টেইন প্রযোজিত ছবি ‘স্ক্রিম’-এ অভিনয় করেন তিনি। ১৯৯৭ সালে সানড্যান্স চলচ্চিত্র উৎসবে হয়রানি করার পরে মামলা করেছিলেন তিনি হারভের বিরুদ্ধে।

অ্যাশলে জুড: এই অভিনেত্রীর অন্যতম ছবি ১৯৯৭ সালের থ্রিলার ‘কিস দ্য গার্লস’। ওই ছবির শুটিংয়ের সময় বার বার অ্যাশলেকে তার গোসল দেখার আহ্বান জানিয়েছিলেন হারভে ওয়েইনস্টেইন। এ সপ্তাহে এ নিয়ে যেসব নারী হারভে ওয়েইনস্টেইনের বিরুদ্ধে কথা বলেছেন, তার মধ্যে অ্যাশলে অন্যতম। তিনি বলেন, হারভে সম্পর্কে দীর্ঘদিন ধরে আমাদের মধ্যে মেয়েরা কথা বলাবলি করছে। এখন সময় এসেছে তা সবাইকে জানিয়ে দেয়ার।

এমা ডি কানস: তিনি ফরাসি অভিনেত্রী। তিনি বলেছেন, ২০১০ সালে হারভে ওয়েইনস্টেইনের সঙ্গে সাক্ষাৎ হয় তার। এর পর পরই তাকে হারভে বলেন, একটি বইয়ের কাহিনীনির্ভর একটি স্ক্রিপ্ট আছে তার হাতে। তাতে একজন শক্তিধর নারী চরিত্র আছে। ওই স্ক্রিপ্টটি এমা’কে দেখাতে চান হারভে। এ জন্য তাকে তার হোটেল রুমে যেতে বলেন। এমা সেখানে যেতেই তিনি গোসল করা শুরু করেন। একপর্যারে তিনি নগ্ন অবস্থায় বেরিয়ে আসেন। এ সময় তার শারীরিক ও মানসিক উত্তেজনা ছিল। তিনি এমা’কে তার সঙ্গে শয্যাসঙ্গিনী হতে আহ্বান জানান। বলেন, তার সঙ্গে এ কাজ এর আগে আরো অনেকে করেছেন। এমা বলেন, তার এমন কথা শুনে আমি থতমত খেয়ে গিয়েছিলাম। তবে আমি যে ভয় পেয়ে গিয়েছি তা তাকে বুঝতে দিই নি।
লরেন ও’কনর: ওয়েইনস্টেইন কোম্পানির সাবেক একজন কর্মী তিনি। তিনি বলেছেন, ২০১৫ সালের শেষের দিকে এ কোম্পানিতে তার কারণে ‘বিষাক্ত’ পরিবেশে নারী নির্বাহীদের কাজ করা কঠিন হয়ে পড়েছিল। হারভের ওই সময়কার একজন সহকর্মী বলেছেন, তিনি যখন নগ্ন হয়ে থাকতেন তখন তার শরীর ম্যাসাজ করাতেন তাকে দিয়ে।

আমব্রা বাত্তিলানা: তিনি ইতালিয়ান অভিনেত্রী ও মডেল। ২০১৫ সালের মার্চে নিউ ইয়র্কে নিজের অফিসে তাকে আমন্ত্রণ জানান হারভে ওয়েইনস্টেইন। সেখানে অশালীনভাবে তাকে জড়িয়ে ধরেন। শরীরের স্পর্শকাতর স্থানগুলোতে হাত দেন। এ বিষয়ে তিনি পুলিশে অভিযোগ দিয়েছিলেন। কিন্তু তারা অভিযোগ নেয় নি। এর জন্য পরে অর্থ দিয়ে পুশিয়ে দেয়া হয়েছে আমব্রা’কে।

জেসিকা বার্থ: ২০১১ সালে পেনিনসুলা হোটেলে নগ্ন অবস্থায় হারভে ওয়েইনস্টেইনের শরীর ম্যাসাজ করতে বাধ্য করা হয়েছিল এই অভিনেত্রীকে।

লরা ম্যাডেন: তিনি একজন কর্মী। বলেছেন, ১৯৯১ সালে লন্ডন ও ডাবলিনে থাকা অবস্থায় হারভে ওয়েইনস্টেইনের শরীর ম্যাসাজ করাতেন তাকে দিয়ে।

এমিলি নেস্টর: ওয়েইনস্টেইন কোম্পানির মাত্র একদিনের অস্থায়ী একজন কর্মী ছিলেন তিনি। সেটা ২০১৪ সালের ঘটনা। সেদিন তার কাছে এগিয়ে গিয়েছিলেন হারভে ওয়েইনস্টেইন। তাকে প্রস্তাব দিয়েছিলেন শারীরিক সম্পর্কের বিনিময়ে ভালো ক্যারিয়ার গড়ে দিতে।

জেলদা পারকিনস: ১৯৯৮ সালে লন্ডনে ওয়েইনস্টেইনের কোম্পানিতে একজন সহকারী ছিলেন। তখন তার বয়স ২৫ বছর। একপর্যায়ে সেখানে তিনি ও অন্যদের যৌন হয়রানি করেন তিনি। এর ফলে তারা এর বিরোধিতা করেন। পরে তা আদালতে মীমাংসা হয়।

এলিজাবেথ কার্লসেন: ‘ক্যারল অ্যান্ড দ্য ক্রাইং গেম’ ছবির অস্কার নমিনেশন পাওয়া প্রযোজক তিনি। অন্যদের সঙ্গে তিনিও বলেছেন, প্রায় ৩০ বছর আগের কাহিনী। তিনি বলেছেন, চলচ্চিত্র প্রতিষ্ঠান মিরাম্যাক্সে ওয়েইনস্টেইনের সঙ্গে কাজ করতেন একজন যুবতী নির্বাহী। একদিন রাতে তার বেডরুমে দেখা যায় হারভে ওয়েইনস্টেইনকে নগ্ন অবস্থায়।

লিজা ক্যাম্পবেল: তিনি ফ্রিল্যান্স স্ক্রিপ্ট রিডার। বলেছেন, লন্ডনে হোটেল রুমে তাকে তলব করেছিলেন হারভে। সেখানে তাকে হারভের সঙ্গে বাথরুমে আমন্ত্রণ জানিয়েছিলেন হারভে।

লরেন সিভান: তিনি ফক্স নিউজের সাবেক উপস্থাপিকা। তাকে ২০০৭ সালে একটি রেস্তরাঁয় ফাঁদে ফেলেছিলেন হারভে ওয়েইনস্টেইন। তার সামনে অসামাজিক কাজ করেছিলেন। একপর্যায়ে তাকে চুমু দেয়ার চেষ্টা করেন। প্রত্যাখ্যান করলে তাকে এক কোণে নিয়ে যান। সেখানেই তাকে ওই দৃশ্য দেখতে বাধ্য করেন।

জেসিকা হাইনেস: তিনি বৃটিশ অভিনেত্রী। তিনি বলেছেন, যখন তার বয়স ১৯ বছর তখন তাকে বিকিনি পরে ওয়েইনস্টেইন অডিশনে ডেকেছিলেন। তাতে অস্বীকৃতি জানানোর পর ওই কাজটি হাতছাড়া হয়ে যায় জেসিকার।

পিছনের কথা:
হলিউড মোগল বলে পরিচিত চলচ্চিত্র প্রযোজক হারভে ওয়েইনস্টেইনের (৬৫) বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ এনেছেন তিন অভিনেত্রী। এছাড়া তার বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ এনেছেন এ সময়ের জনপ্রিয়, অভিনেত্রী অ্যানজেলিনা জোলি, গাইনেথ পালট্রো সহ কমপক্ষে আরো আটজন নারী। এমন অভিযোগ অস্বীকার করেছেন হারভে ওয়েইনস্টেইন। এ খবর দিয়েছে লন্ডনের অনলাইন দ্য ইন্ডিপেন্ডেন্ট। এতে বলা হয়, এতগুলো শীর্ষ ও প্রথম শ্রেণির অভিনেত্রীর অভিযোগের ফলে তোলপাড় চলছে হলিউডে। আলোচনা চলছে গত ২০ বছরেরও বেশি সময় তার এই যৌন হয়রানির শিকার হয়েছেন। ‘দ্য ইংলিশ প্যাসেন’ ‘পালপ ফিকশন’-এর মতো নামকরা আরো অনেক ছবির প্রযোজক হারভে ওয়েইনস্টেইন। যে তিনজন অভিনেত্রী তার বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ এনেছেন তাদের মধ্যে দু’জন পরিচয় প্রকাশ করেছেন। একজন নাম প্রকাশ করতে চান নি।

তারা বলেছেন, তাদের সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক স্থাপন করেছেন হারভে ওয়েইনস্টেইন। একজনের সঙ্গে জোরপূর্বক এমন সম্পর্ক স্থাপন করেছেন। উল্লেখ্য, চলচ্চিত্র প্রযোজক সংস্থা মিরামার ফিল্মসের সহ প্রতিষ্ঠাতা হারভে ওয়েইনস্টেইন। তিনি এসব অভিযোগ অস্বীকার করলেও আটজন অভিনেত্রী যৌন হয়রানির অভিযোগ এনেছেন। এরই প্রেক্ষিতে মঙ্গলবার নিউ ইয়র্কার পত্রিকা বলেছে, এটাই সম্ভবত এ যাবৎকালের সবচেয়ে ভয়াবহ অভিযোগ। ১০ মাস এ নিয়ে অনুসন্ধান করেছে ওই পত্রিকাটি। এ সময়ে তারা ওই তিনজন ধর্ষিত নারীর সঙ্গে কথা বলেছে। তবে লন্ডন ইন্ডিপেন্ডেন্ট তাদের নাম প্রকাশ করে নি। নিউ ইয়র্কার বলেছে, ২০ বছরেরও বেশি সময় ধরে গুজব চলছিল যে, যৌন হয়রানি ও অবমাননা চালিয়ে যাচ্ছিলেন হারভে ওয়েইনস্টেইন। হলিউডে এটা হলো ওপেন সিক্রেট। এসব কাহিনী যাতে প্রকাশ না হয় সে জন্য গোপন চুক্তি করেছেন হারভে ওয়েইনস্টেইন। অর্থ ব্যবহার করেছেন। আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার হুমকি দিয়েছেন। এসব করে ধর্ষিতা বা যৌন নির্যাতনের শিকার নারীরা মুখ বন্ধ করে ছিলেন। তবে এমন অভিযোগ অস্বীকার করে গত সপ্তাহে তিনি বলেছেন, অতীতে আমি সহকর্মীদের সঙ্গে হয়তো খারাপ আচরণ করেছি। তার জন্য আমি আন্তরিকভাবে ক্ষমা চাই। আমি ভালো করার চেষ্টা করছি। তাই আমাকে অনেকটা পথ যেতে হবে। তিনি দাবি করেন বৃটিশ বংশোদ্ভূত তার স্ত্রী জর্জিনা চ্যাপম্যান তাকে এক্ষেত্রে শতভাগ সমর্থন করছেন। কিন্তু তার স্ত্রী তা অস্বীকার করেছেন। তিনি তাকে ছেড়ে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন।


হলিউডে বাংলাদেশির কৃতিত্ব

রবিবার, ০৮ অক্টোবর ২০১৭

Picture

হাকিকুল ইসলাম খোকন:আয়েশা আকতার রুবী,বাপসনিঊজ:হলিউডের প্রযোজনা সংস্থা সনি পিকচার্স স্টুডিওর অঙ্গ প্রতিষ্ঠান সনি পিকচার্স ইমেজওয়ার্কসে নিযুক্ত হলেন বাংলাদেশি তরুণ অ্যানিমেটর ওয়াহিদ ইবনে রেজা। গত মঙ্গলবার তিনি ফেসবুকে এ বিষয়ে তথ্য জানান।

alt
২ অক্টোবর থেকে তিনি সনি পিকচার্স ইমেজওয়ার্কসে অ্যাসোসিয়েট প্রোডাকশন ম্যানেজার পদে কাজ করছেন কানাডার ভ্যানকুভারের কার্যালয়ে।

alt

প্রথমে হলিউডের ফ্যান্টাসি-কমেডি ধাঁচের অ্যানিমেটেড ফ্রাঞ্চাইজি ‘হোটেল ট্রানসিলভানিয়া’র তৃতীয় পর্বে চূড়ান্ত পর্যায়ের কারিগরি টিমে কাজ করবেন তিনি। তার দায়িত্ব লাইটিং ও কম্পিউটার গ্রাফিক্স বিভাগে। ‘সিক্রেট অব দ্য টম্ব’ ছবির ভিজ্যুয়াল ইফেক্টস টিমেও কাজ করেছেন এই বাংলাদেশি অ্যানিমেটর।