Slideshows

ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার

পরিচালনা পরিষদ 

সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি

ওসমান গনি
 

প্রধান সম্পাদক

হাকিকুল ইসলাম খোকন
 

সম্পাদক

সুহাস বড়ুয়া হাসু
 

সহযোগী সম্পাদক

আয়েশা আকতার রুবী

আর-না-ফেরার দেশে বাংলা গানের বরপুত্র কালজয়ী শিল্পী লাকী আখান্দ

শনিবার, ২২ এপ্রিল ২০১৭

বাপ্ নিউজ : ‘আবার এলো যে সন্ধ্যা’, ‘এই নীল মণিহার’, ‘আমায় ডেকো না’, ‘আগে যদি জানতাম’এ রকম অসংখ্য জনপ্রিয় গানের শিল্পী লাকী আখান্দ আর নেই। বাংলা গানের দুনিয়াজোড়া লাখো কোটি ভক্ত হৃদয় শূন্য করে দিয়ে তিনি ফিরে গেছেন চির না ফেরার দেশে।
 
আজ শুক্রবার বিকালে রাজধানীর আরমানিটোলায় নিজের বাসায় অসুস্থ বোধ করায় দ্রুত তাকে মিটফোর্ড হাসপাতালে নেয়া হয়। কিছুক্ষণ পর সেখানেই শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন বাংলা গানের ভুবনের কালজয়ী এ শিল্পী। তার বয়স হয়েছিল ৬৪ বছর।
 
শিল্পী লাকী আখান্দের মরদেহ আজ রাতে বারডেম মরচুয়ারিতে রাখা হবে। আগামীকাল সকাল ১০ টায় আরমানিটোলা মাঠে তার প্রথম জানাজা অনুষ্ঠিত হবে। এরপর রাষ্ট্রীয় গার্ড অব অনার প্রদান এবং সর্বস্তরের জনগণের শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য তাকে নেয়া হবে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে। এরপর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় মসজিদে দ্বিতীয় জানাজার পর মিরপুর শহীদ বুদ্ধিজীবী কবরস্থানে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় তাকে দাফন করা হবে।
 
ফুসফুসের ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে লাকী আখান্দ টানা আড়াইমাস চিকিৎসাধীন ছিলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে। গত ৭ এপ্রিল চিকিৎসকদের পরামর্শেই হাসপাতাল ছেড়ে বাসায় ফেরেন তিনি। বাসায় ফিরে যথারীতি সময় দিচ্ছিলেন গানে।

Picture
 
গুরুতর অসুস্থ হয়ে ২০১৫ সালের সেপ্টেম্বরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হলে ফুসফুসে ক্যান্সার ধরা পড়ে লাকী আখান্দের। এরপর থাইল্যান্ডের একটি হাসপাতালে গিয়ে চিকিৎসা নেন কিছুদিন। সেখান থেকে ঢাকায় ফেরার পর তাকে কেমোথেরাপি দেওয়া হয়। স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের মুক্তিযোদ্ধা এই শিল্পীর চিকিৎসায় প্রধানমন্ত্রীর তহবিল, সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়, শিল্পীর পাশে ফাউন্ডেশনসহ দেশবিদেশের অসংখ্য গুণগ্রাহী ও শুভানুধ্যায়ীদের কাছ থেকেও থেকেও সহায়তা করা হয়।
 
আশির দশকের তুমুল জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী লাকী আখান্দ একাধারে সঙ্গীত পরিচালক, সুরকার ও গীতিকার। ১৯৮৪ সালে সারগামের ব্যানারে প্রথমবারের মতো একক অ্যালবাম বের করেন লাকী আখান্দ। ওই অ্যালবামের ‘এই নীল মণিহার’, ‘আমায় ডেকো না’, ‘রীতিনীতি জানি না’, ‘মা মনিয়া’, ‘আগে যদি জানতাম’ গানগুলো শ্রোতাদের মাঝে ব্যাপক সাড়া ফেলে। ১৯৮৭ সালে ছোট ভাই হ্যাপী আখান্দের মৃত্যুর পর সঙ্গীতাঙ্গন থেকে অনেকটাই স্বেচ্ছা নির্বাসন নেন এই গুণী শিল্পী।
 
মাঝখানে প্রায় এক দশক নীরব থেকে ১৯৯৮-এ ‘পরিচয় কবে হবে’ ও ‘বিতৃষ্ণা জীবনে আমার’ অ্যালবাম দুটি নিয়ে আবারও শ্রোতাদের মাঝে ফিরে আসেন লাকী আখান্দ।


Add comment


Security code
Refresh