Slideshows

http://bostonbanglanews.com/index.php/modules/mod_news_pro_gk1/components/modules/mod_news_pro_gk1/style/templates/gk_twn/media/system/components/com_gk3_photoslide/thumbs_big/605744Finding_Immigrant____SaKiL___0.jpg

কুইন্স ফ্যামিলি কোর্টে অভিবাসী

হাকিকুল ইসলাম খোকন/বাপ্‌স নিউজ/প্রবাসী নিউজ ঃ বষ্টনবাংলা নিউজ ঃ দ্যা ইন্টারফেইস সেন্টার অব নিউইয়র্ক ও আইনী সহায়তা সংগঠন নিউইয়র্ক এর উদ্যোগে গত ২৪ অক্টোবর বৃহস্পতিবার সকাল ৯ See details

ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার

পরিচালনা পরিষদ 

সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি

ওসমান গনি
 

প্রধান সম্পাদক

হাকিকুল ইসলাম খোকন
 

সম্পাদক

সুহাস বড়ুয়া হাসু
 

সহযোগী সম্পাদক

আয়েশা আকতার রুবী

যুক্তরাষ্ট্রের খবর

অ্যাস্যালের কুইন্স চ্যাপ্টারের নতুন কমিটির সভাপতি মনির সেত্রেুটারী আদনান

বৃহস্পতিবার, ২৫ মে ২০১৭

হাকিকুল ইসলাম খোকন: বাপ্ নিউজ : নিউইয়র্ক (যুক্তরাষ্ট্র) থেকে : অ্যালায়েন্স অব সাউথ এশিয়ান-আমেরিকান লেবার (অ্যাসাল) কুইন্স চ্যাপ্টারের পরপর তিনটি মিটিং গত ২২ জানুয়ারী, ২৬ ফেব্রুয়ারি এবং ২৬ মার্চ, ২০১৭ তারিখে অনুষ্ঠিত হয় জ্যামাইকা ১৬৫/২৩ হিলসাইড এভিনিউতে। সভাগুলোতে কুইন্স চ্যাপ্টার এক্টিং প্রেসিডেন্ট খান শওকতের সভাপতিত্বে এবং কুইন্স চ্যাপ্টারের নির্বাহী পরিচালক মো: সাবুল উদ্দিনের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত হয়। সভায় উপস্থিত সদস্যদের মতামতের ভিত্তিতে অনেকগুলো সিদ্ধান্ত গ্রহন করা হয়। এতে অ্যাসাল কেন্দ্রীয় কমিটির জেনারেল সেত্রেুটারী মো: করিম চৌধুরীকে সংবিধানের আলোকে সদস্য তালিকা হালনাগাদ, বাৎসরিক ২০ ডলার হারে চাঁদা আদায় করে কুইন্স চ্যাপ্টারের নির্বাহী কমিটি গঠণ প্রত্রিুয়া সম্পন্ন করার দায়িত্ব দেওয়া হয়।

Picture

গত ১৪ মে, ২০১৭ তারিখে চ্যাপ্টারের মিটিং এ যারা গত পরপর তিনটি মিটিং-এ উপস্থিত ছিলেন, তাদের সাথে পরামর্শ করে কুইন্স চ্যাপ্টারের জন্য একটি নির্বাহী কমিটি গঠণের প্রস্তাব আনা হয়। এতে এক্টিং প্রেসিডেন্ট খান শওকত প্রস্তাবিত কমিটির প্রেসিডেন্ট হিসেবে তার নাম না দেখায় সাথে সাথে মিটিংএ উচ্চবাক্য শুরু করে এবং প্রস্তাবিত কমিটির প্রেসিডেন্ট হওয়ার জন্য নিজেই ঘোষণা দেন। ঐ দিন মিটিং-এ ৩৯ জন সদস্য উপস্থিত ছিলেন। উপস্থিত সদস্যদের অনেকে খান শওকতের উচ্চবাক্য হতবাগ হয়ে যান এবং তার অশুভ আচরণ বন্ধ করে শান্ত হওয়ার পরামর্শ দেন।

alt

উদ্বুদ্ব পরিস্থিতিতে অ্যাসালের ন্যাশনাল প্রেসিডেন্ট মাফ মিসবাহ উদ্দিন বলেন, কুইন্স চ্যাপ্টারের মিটিং- এ এটা কেবল একটি প্রস্তাব ছিল। নিদিষ্ট কোন পদে এক বা একাধিক প্রার্থী থাকলে এর জন্য নির্বাচন হতে পারে। এর মধ্যে সংখ্যাগরিষ্ঠতা বিজয়ী হবেন। এখানে ঝগড়া-ফ্যাসাদের কোন সুযোগ নেই। খান শওকত মিটিং এ অনেকক্ষণ উচ্চবাক্যের পর কয়েকটা ছবি তুলে সভার কার্যত্রুম শেষ না করে সভার স্থান ত্যাগ করেন।এরপর থেকে তিনি (খান শওকত) সোস্যাল মিডিয়ায় (ফেইসবুক), স্থানীয় নিউজ পেপারে অ্যাসালের ন্যাশনাল প্রেসিডেন্ট এবং জেনারেল সেত্রেুটারীসহ কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্যদের বিরুদ্ধে অহেতুক লেখা শুরু করে। সোস্যাল মিডিয়ায় দেওয়া তার পোস্ট মুছে ফেলাসহ আসলে তার কি বক্তব্য, কেনই বা নেতৃবৃন্দর বিরুদ্ধে বিষাদাগার করছেন এর প্রকৃত সমাধানের জন্য বসতে চাইতে সে প্রস্তাব তিনি প্রত্যাখ্যান করেন এবং তিনি ফেডারেল, ষ্ট্রেট এবং সিটি লোগো ব্যবহার করে ফেসবুকের মাধ্যমে অ্যাসাল নেতৃবৃন্দের বিভিন্ন হুমকি দিয়েই চলছেন। রোববারে প্রকাশিত স্থানীয় নিউজপেপার ‘জনতার কন্ঠ’ পত্রিকায় মিথ্যা ও অহেতুক কল্পকাহিনী লিখে ছাপিয়েছেন তিনি। অ্যাসাল সাউথ এশিয়ানদের প্রতিনিধিত্বকারী মূলধারার অন্যতম সংগঠন। প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে অদ্যবধি কমিউনিটির কল্যাণে কাজ করে যাচ্ছে। অ্যাসালের বিরুদ্ধে মিথ্যা অপবাদ নেওয়া প্রমাণ করে, মূলধারায় এশিয়ানদের খ্যাতি নষ্ট করা।

এদিকে গত ২২ মে কুইন্স চ্যাপ্টার কমিটির জরুরী এক সভা অনুষ্ঠিত হয় জ্যামাইকা ১৬৫-২৩ এভিনিউতে। এতে সভাপতিত্ব করেন কুইন্স চ্যাপ্টারের এক নম্বর ভাইস প্রেসিডেন্ট মনিরুল ইসলাম। সভায় খান শওকতরে সংগঠনের গঠণতন্ত্র বিরোধী আচরণ নিয়ে ব্যাপক আলোচনা হয় এবং উপস্থিত সদস্যদের সর্বসম্মতিত্রুমে কুইন্স চ্যাপ্টারের ২০১৭-২০১৮ সালের কমিটি গঠণ করা হয়।

alt

নতুন কমিটির সদস্যরা হলেন: প্রেসিডেন্ট মো: মনিরুল ইসলাম, এক্সিকিউটিভ ভাইস প্রেসিডেন্ট নুরুল হক, সেক্রেটারি সৈয়দ আদনান বুখারী, সহকারী সেক্রেটারি অজয় চক্রবর্তী, কোষাধ্যক্ষ মোহাম্মদ খালেদ, নির্বাহী পরিচালক মোহাম্মদ সাবুল উদ্দিন, মহিলা কমিটির চেয়ার ফেরদৌসী আকতার, অর্গেনাইজিং ডিরেক্টর ওমর ফারুক খসরু, কো- অর্গেনাইজিং ডিরেক্টর শাহ ই. আহমেদ , ইমিগ্রেশন ডিরেক্টর রুবাইয়া রহমান, পলিটেকেল অ্যাকশন ডিরেক্টর জামিলা এ. উদ্দিন। ভাইস প্রেসিডেন্ট: সদনচন্দ্র পাল, মোহাম্মদ জহিরুল হক, এ কে এম আমরান, জসিম খন্দকার, তানভীর খানের, এসক।, মোহাম্মদ ইমাম উদ্দিন, আরিফ আহমেদ, মো: রুহুল আমিন, মোহাম্মদ মাসুদ কেরিন, জাহাঙ্গীর কবির, মোহাম্মদ সোলেমান, মোহাম্মদ হান্নান, মোহাম্মদ এস ইসলাম, গোলাম আহমেদ ও আবুল হোসেন। ট্রাস্টিবোর্ড চেয়ারম্যান ড: নবীন কুমার সিংহ- কো-চেয়ারম্যান স্বপন কুমার দেবনাথ, আল-হাজ আজিজুর রহমান, শফিক এইচ বেগ, এহসান টংমো, শিটাল বিশ্বাস, এবং মো: রহমান। মহিলা কমিটির চেয়ারম্যান ফেরদৌসি আক্তার,কো-চেয়ারম্যান রূপসী চক্রবর্তী, শাহানা বেগম, অর্পনা পাল, বাকুল দেবনাথ, তামান্না ইয়াসমিন, নিবেদিত কুমার, লীলা মরত, কামরুন নাহার, রুমাজা খালেক, জোয়ান ফ্রাঙ্কো, হর্ষজানি, কানিজ ফারজানা, আঞ্জুমানারার প্লাসে ও নুসরাত জাহান। যুব কমিটির চেয়ারম্যান জামি কাজী কো-চেয়ারম্যান আশেক এ উদ্দিন, মবিন হোসেন, ইমরান চৌধুরী, হিজবুল্লাহ হোসেন, আদেল সাঈদ ও হাসেমুল খান।

আমরা আমাদের সদস্য এবং কমিউনিটির সকলকে আশ্বস্ত করতে চাই যে অ্যাসাল শতভাগ সততা, বিশ্বস্ততা ও আন্তরিকতা নিয়ে কাজ করে যাচ্ছে। আমরা চাই সকলের মধ্যে ঐক্য ও সমমির্মতা। কমিউনিটির কল্যাণে অ্যাসালের প্রত্যেকটা সদস্য এক ও অভিন্ন। অ্যাসালের কার্যত্রুম পুর্বের মতো আগামিতে অব্যাহত থাকবে। মূলধারায় সাউথ এশিয়ানদের অধিকার নিয়ে আরো সচ্চার ভূমিকার রাখার লক্ষে অ্যালায়েন্স অব সাউথ এশিয়ান-আমেরিকান লেবার (অ্যাসাল) যোগদানের জন্য সকলের প্রতি আহবান জানানো হয়।


‘গো ব্যাক টু ইউর কান্ট্রি’: বঙ্কসে আবার হেইট ক্রাইমের শিকার উবার চালক বাংলাদেশী সুপন

বৃহস্পতিবার, ২৫ মে ২০১৭

বাপ্ নিউজ : নিউইয়র্ক (যুক্তরাষ্ট্র) থেকে : নিউইয়র্কের ব্রঙ্কসে সুপন চৌধুরী নামে আরেকজন বাংলাদেশী সন্ত্রাসী হামলার শিকার হয়েছেন। ঘটনার সময় হামলকারীরা ক্যাবি সুপনকে ‘গো ব্যাক টু ইউর কান্ট্রি’ বলে বেধড়ক মারধোর করে। এ ঘটনায় ব্রঙ্কসে বাংলাদেশী কমিউনিটিতে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। ঘটনাটিকে কমিউনিটি নেতৃবৃন্দ হেইট ক্রাইম বলে মন্তব্য করেন। বিষয়টি কোন ভাবেই মেনে নিতে পারছেন না তারা। এর আগেও দুর্বৃত্তের হামলার শিকার হয়েছিলেন বেশ ক’জন বাংলাদেশী। আসন্ন রমজান ঘিরে প্রকাশ্য একজন বাংলাদেশীর ওপর হামলা’সহ তার গাড়ি ভাঙচুরের ঘটনায় ক্ষোভ ও নিন্দা জানিয়েছেন কমিউনিটি নেতৃবৃন্দ।ভিকটিম উবার চালক সুপন চৌধুরী জানান, ব্রঙ্কসের জেরম এভিনিউ সংলগ্ন ১২১৫ এন্ডারসন এভিনিউতে গত ১৯ মে শুক্রবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে গাড়ি চালানো অবস্থায় তার ওপর অতর্কিত হামলা চালায় বেশ ক’জন বখাটে। এসময় গাড়িতে একজন নারী যাত্রী ছিলেন।

Picture

ঘটনার সময় রেড লাইটের স্টপ সাইনে অপেক্ষমান থাকা অবস্থায় ওই তরুণরা এসে তাকে নিউইয়র্ক ছেড়ে চলে যেতে বলে। গো ব্যাক টু ইউর কান্ট্রি বলে তার গাড়িতে ভাঙচুর চালায়। একপর্যায়ে তাকে গাড়ি থেকে নামিয়ে উপর্যপূরি আঘাত করতে থাকে বলে জানান আহত সুপন। বেধড়ক লাঠি পেটা ও কিল ঘুষি দিয়ে আহত করে তার গাড়িতেও ভাঙচুর চালায়। পরে ৯১১ এ কল দিলে পুলিশ এসে তাকে উদ্ধার করলেও ততক্ষণে হামলাকারিরা পালিয়ে যায়। আহত বাংলাদেশী ক্যাবি সুপন চৌধুরীকে ব্রঙ্কসের আলবার্ট আইনস্টাইন হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। খবর পেয়ে সেখানে ছুটে যান এডভোকেট এন মজুমদার, মনজুর চৌধুরী জগলুল, এ ইসলাম মামুনসহ কমিউনিটির নেতারা ।alt

হাসপাতাল থেকে ফিরে গত ২০ মে শনিবার মূলধারার গণমাধ্যম’সহ কমিউনিটি নেতাদের সাথে ঘটনার বিবরণ দেন বাংলাদেশী ক্যাবী। এধরণের অতর্কিত হামলায় উদ্বেগ-উৎকণ্ঠার পাশাপাশি সামাজিক নিরাপত্তা নিয়েও শঙ্কা প্রকাশ করেছে ব্রঙ্কস কমিউনিটি। গাড়ির অভ্যন্তরে থাকার পরও, গ্রুপ বেঁধে নিজের ওপর অতর্কিত হামলায় ভয়-উৎকণ্ঠা কথা জানান সুপন চৌধুরী। এ ঘটনায় ভেঙ্গে পড়েছেন তিনি।কমিউনিটি নেতৃবৃন্দ জানান, এর আগেও নিউইয়র্কে একাধিক হামলার শিকার হয়েছেন বাংলাদেশীরা। দুর্বৃত্তের আঘাতে গেল বছর জ্যামাইকাতে দু’জন ইমাম ও একজন নারী প্রাণ হারিয়েছেন। এছাড়াও, গেল বছর ব্রঙ্কসের পার্কচেস্টার ম্যাগ্রো এভিনিউর মসজিদে তারাবীর নামাজে যাওয়ার সময় বাংলাদেশি আতিক আশরাফকে দুই কৃষ্ণাঙ্গ যুবক হামলা চালিয়ে মারাত্মক জখম করে। ওই বছর ব্রঙ্কসের স্টারলিংয়ে প্রকাশ্য ঘটনার শিকার হন বাংলাদেশি সোহেল চৌধুরী ও ব্রঙ্কসে বাংলাদেশী কমিউনিটি অব নর্থ ব্রঙ্কসের সভাপতি সিরাজুল ইসলাম খান

alt

ব্রঙ্কসে পায়জামা-পাঞ্জাবি পরিহিত মুয়াজ্জিন মজিবুর রহমানও হেইট ক্রাইমের শিকার হয়েছিলেন। গত ১ জুন রাতে মোহাম্মদ রশীদ খান (৫৯) নামের এক মুসল্লী আক্রান্ত হন জ্যামাইকা এভিনিউর ‘ইসলামিক স্টাডিজ সেন্টার’ মসজিদ থেকে বের হবার পর। মসজিদের সামনেই তাকে পেটানো হয়।
মাইনরটি অভিবাসীদের উপর হামলা বন্ধ’সহ আসন্ন রমজান উপলক্ষে বাংলাদেশী এলাকা ঘিরে পুলিশের নিরাপত্তা আরো বৃদ্ধির দাবি ওঠেছে কমিউনিটির পক্ষ থেকে।
এদিকে, নিউইয়র্ক পুলিশ ডিপার্টমেন্টের পক্ষ থেকে রমজান উপলক্ষে মসজিদ সংলগ্ন এলাকায় বিশেষ টহল ব্যবস্থা থাকবে বলে জানান হয়েছে। কোন ঘটনা ঘটলে সঙ্গে সঙ্গে পুলিশকে জানাতেও পরামর্শ দেয়া হয়েছে।


নিউইয়র্কের প্রবাসী বাংলাদেশিদের নৌ-ভ্রমণ, কনসার্ট

বৃহস্পতিবার, ২৫ মে ২০১৭

বাপ্ নিউজ : নিউইয়র্ক (যুক্তরাষ্ট্র) থেকে : নিউইয়র্কের প্রবাসী বাংলাদেশিদের জন্য নৌ ভ্রমণের আয়োজন করেছিল শো-টাইম মিউজিক অ্যান্ড প্লে (এসএমপি)। স্থানীয় সময় শনিবার দুপুর থেকে বিকাল পর্যন্ত বিনোদন নির্ভর এই নৌ ভ্রমণে অংশ নিয়ে বিপুলসংখ্যক প্রবাসী বাংলাদেশি উপভোগ করেন উত্তর আমেরিকার শিল্পীদের কনসার্ট। দুপুর ১টায় যাত্রা শুরুর পর বিলাসবহুল জাহাজটি বিকাল ৫টা পর্যন্ত নিউইয়র্কের হাডসন ও ইস্ট রিভার প্রদক্ষিণ করে। এসময় জাহাজের বিশাল ডেকে শুরু হয় মনমাতানো কনসার্ট।

Picture

এতে সঙ্গীত পরিবেশন করেন নিউইয়র্কের জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী শাহ মাহবুব, রোখসানা মির্জা, কামরুজ্জামান বকুল, শামীম সিদ্দিকী, রানো নেওয়াজ, সোনিয়া সুইটি, লাল্টু, লীনা ও মৌ। এছাড়া ফ্যাশন শো ও কোরিওগ্রাফিতে অংশ নেয় মাজেদ ডিজায়ার। সাংস্কৃতিক পর্ব ছাড়াও আলোচনায় অংশ নেন মো. শাহ নেওয়াজ, জাকির এইচ চৌধুরী, মিয়া মোহাম্মদ দুলাল, গিয়াস মজুমদার, মনিরুজ্জামান ভুইয়া বিল্লাল, আহসান হাবিব, মফিজুল ভূঁইয়া রুমী, মঈন চৌধুরী, এনাম আহমেদ, এসমএমপির কর্ণধার আলমগীর খান আলম প্রমুখ। অনুষ্ঠানের শেষ পর্বে অনুষ্ঠিত হয় র‌্যাফেল ড্র। এতে ছিল আকর্ষণীয় পুরস্কার।


শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের র‌্যালি

সোমবার, ২২ মে ২০১৭

Picture

হাকিকুল ইসলাম খোকন:আয়েশা আকতার রুবী,বাপসনিঊজ:নিউইয়র্ক (যুক্তরাষ্ট্র) থেকে : শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উদযাপন উপলক্ষে একই দিন সন্ধ্যায় নিউইয়র্কের প্রবাসী বাংলাদেশি অধ্যুষিত জ্যাকসন হাইটসের ডাইভার্সিটি প্লাজায় যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সভাপতি ড. সিদ্দিকুর রহমানের নেতৃত্বে এক র‌্যালির আয়োজন করা হয়।

alt

শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উদযাপন উপলক্ষে দলটির বিবাদমান দু’গ্রুপের পৃথক অনুষ্ঠান আয়োজনের মধ্য দিয়ে সম্ভাব্য অপ্রীতিকর ঘটনা এড়ানো সম্ভয় হয়েছে বলে দলীয় সূত্র জানায়।

alt

উভয় অনুষ্ঠানেই যুক্তরাষ্ট্র সফররত বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি মো. লিয়াকত শিকদার যোগদান করে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সকল নেতা-কর্মীকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করার আহ্বান জানান।


প্রিয় লেখককে স্মরণ হুমায়ুন মেলায় হুমায়ুন আহমেদের ‘বাকের ভাই’র ফাঁসি ঠেকানোর আন্দোলনের ছোঁয়া লাগে নিউইয়র্কেও

সোমবার, ২২ মে ২০১৭

Picture

এরআগে বেলুন উড়িয়ে মেলার উদ্বোধন করেন হুমায়ূন আহমেদের স্ত্রী মেহের আফরোজ শাওন। উদ্বোধন করতে গিয়ে তিনি বলেন, হুমায়ূন আহমেদ জীবনের অনেক কঠিন এবং আনন্দময় দিন কাটিয়েছেন নিউইয়র্কে। আমি আজ থেকে ৫ বছর আগে নিউইয়র্কে এসেছিলাম আপনাদের প্রিয় লেখক হুমায়ূন আহমেদকে নিয়ে। এই নিউইয়র্কে তার অনেক স্মৃতি। এখানে তিনি তার জীবনের অনেক কঠিন সময় এবং আনন্দময় দিন কাটিয়েছেন। আজকে আমার ভাল লাগছে হুমায়ূন আহমেদের প্রতি আপনাদের ভালবাসা দেখে। তাঁকে আপনারা হৃদয়ে ধারণ করেছেন বলে।

alt

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগে অধ্যাপক সৈয়দ মঞ্জুরুল ইসলাম। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশের জনপ্রিয় শিল্পী সেলিম চৌধুরী, দিলরুবা খান, চন্দনা মজুমদার, রিজিয়া পারভীন, অন্য প্রকাশনীর তানজীনা রহমান, সৈয়দ মোহাম্মদ উল্যাহ, শো টাইম মিউজিকের প্রেসিডেন্ট আলমগীর খান আলম প্রমুখ। উপস্থাপনায় ছিলেন শামসুন নাহার নিম্মি।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে অধ্যাপক সৈয়দ মঞ্জুরুল ইসলাম বলেন, হুমায়ুন আহমেদ এমন একজন উঁচু মাপের লেখক ছিলেন তাকে ভুলা যায় না। দেশেও প্রমানিত হয়েছে, আজকে নিউইয়র্কেও প্রমানিত হলো। তিনি মানুষের মনের মনি কোঠায় স্থান করে নিয়েছেন। তিনি বলেন, হুমায়ূন আহমেদ আমার সহকর্মী ছিলেন। আজকের এই মেলায় আমরা হুমায়ূন আহমেদকে পাবো, হিমুকে পাব এবং মিশির আলীকেও পাবো।
মেহের আফরোজ শাওন বলেন, আমি আমার দুই সন্তানকে নিয়ে এখানে এসেছি তাদের বাবার প্রতি মানুষের ভালবাসা দেখানোর জন্য। এখানে এসে আমি আমার হৃদয়ের অংশ খুঁজে পেয়েছি, স্মৃতি খুঁজে পেয়েছি। আশা করি আগামীতেও নিউইয়র্কে এই মেলা অব্যাহত থাকবে। তাঁর সন্তান নিশাদ হুমায়ূন উপস্থিত দর্শকদের ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, আপনারা আমার বাবার জন্য দোয়া করবেন।

alt

মেলায় হুমায়ূন আহমেদের শেষ চলচ্চিত্র ঘেটুপুত্র প্রদর্শন করা হয়।সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে হুমায়ূন আহমেদের গান পরিবেশন করেন বাংলাদেশ থেকে আগত শিল্পী সেলিম চৌধুরী, দিলরুবা খান, চন্দনা মজুমদার, রিজিয়া পারভীন, প্রবাসের জনপ্রিয় শিল্পী শাহ মাহবুব, কৃষ্ণা তিথি, রোকসানা মির্জা, জাকারিয়া মহিউদ্দিন প্রমুখ। হুমায়ূন মেলায় মানুষের স্বত:স্ফূর্ত অংশগ্রহণ দেখে মেলায় আয়োজক আলমগীর খান আলম আগামী বছর থেকে তিন দিনব্যাপী হুমায়ূন মেলার ঘোষণা দেন। মেলার টাইটেল স্পন্সর ছিলো উৎসব কুরিয়ার। মিডিয়া পার্টনার ছিলো ঠিকানা, চ্যানেল আই।
মেলায় ‘হুমায়ুন আহমেদের সাহিত্যে মধ্যবিত্তের জীবন, নিয়ে সেমিনারে বক্তব্য রাখেন অধ্যাপক সৈয়দ মঞ্জুরুল ইসলাম, ঠিকানার প্রধান সম্পাদক মুহম্মদ ফজলুর রহমান, বাঙালির সম্পাদক কৌশিক আহমেদ, সৈয়দ মোহাম্মদ উল্যাহ, হুমায়ূন আহমেদের বন্ধু ফানশু মন্ডল প্রমুখ।
সৈয়দ মঞ্জুরুল ইসলাম বলেন, মধ্যবিত্তের মানুষের মধ্যে একদিকে যেমন সংকট থাকে, অন্যদিকে উত্তোরণের পথও থাকে। হুমায়ুন আহমেদ মধ্যবিত্তকে উত্তোরণের পথ দেখিয়েছেন তাঁর সাহিত্যের মাধ্যমে। আর যারা সাহিত্য নিয়ে কাজ করেন তারা মধ্যবিত্তদের বিষয়টিকেই প্রাধান্য দিয়ে থাকেন। তিনি বলেন, শেষ দিকে এসে হুমায়ুন আহমেদ উচ্চবিত্তে চলে গিয়েছিলেন, তবে তাঁর আচরণে তা মোটেও বোঝা যায়নি। আমার সবসময় মনে হয়েছে তিনি মধ্যবিত্তের সন্তান। এরফলে সহজে তিনি মধ্যবিত্তের বিষয়গুলো তুলে ধরতে পারতেন। হুমায়ুন আহমেদ আমাদের সাহিত্য ও জীবনে আছেন। যে লেখক একজনকে স্বপ্ন দেখায় , সেই লেখককে আমরা মনে রাখতে চাই। বক্তাদের অনেকেই হুমায়ুন আহমেদের স্মতিচারণ করেন। এসময় সামনে বসা শাওন আবেগ আপ্লুত হয়ে পড়েন। মাঝেমধ্যে তাঁকে চোখের পানি মুছতে দেখা যায়।

 


যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আক্তার হোসেন

সোমবার, ২২ মে ২০১৭

বাপ্‌স নিউজ : ১৯ শে মে ২০১৭ যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সভাপতি ড. সিদ্দিকুর রহমান বাংলাদেশে গমন করেন।

alt

বাংলাদেশে যাওয়ার প্রক্কালে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের ভাইস প্রেসিডেন্ট আক্তার হোসেনকে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতির দায়িত্ব অর্পন করেন। সভাপতি ড. সিদ্দিকুর রহমান বাংলাদেশে অবস্থানকালীন সময়ে তার দায়িত পালন করিবেন বর্তমানে ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আক্তার হোসেন


আটলান্টা সঙ্গীত বিদ্যালয়ের রবীন্দ্র জয়ন্তী উদযাপন

সোমবার, ২২ মে ২০১৭

বাপ্ নিউজ : জর্জিয়া থেকে : জর্জিয়া  অঙ্গরাজ্যের আটলান্টা শহরে গত ১৪ মে,রবিবার সন্ধ্যায়   আটলান্টা সংগীত বিদ্যালয় ১৫৬তম  রবীন্দ্র জয়ন্তী উদযাপন করে।

Picture

আটলান্টা শহরের   মন্টে কার্লো বলরুমে  ‘ঋতু’ শিরোনামের এই অনুষ্ঠানে আটলান্টা সংগীত বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থিরাসহ শিল্পী ও আবৃত্তিকাররা রবীন্দ্রনাথের গান, আবৃত্তি, নৃত্য ও  ঋতু বৈচিত্র্যের আলেখ্যতে অংশগ্রহন করেন।

alt

আটলান্টা সংগীত বিদ্যালয়ের পরিচালক  রবীন্দ্র সঙ্গীত শিল্পী চন্দ্রশেখর দত্তের স্বাগত বক্তব্যের মাধ্যমে অনুষ্ঠানের শুভ সূচনা হয়।এরপর  অনুষ্ঠানে  শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন  সাংবাদিক, লেখক  রুমী কবির ও উচ্চাঙ্গ সংগীত শিল্পী দীপাংক দত্ত। 

alt

 রবীন্দ্র জয়ন্তী   অনুষ্ঠানে সঙ্গীত পরিবেশন করেন অশোক সরকার, রোকসানা হক, তাহমিদ রহমান, কাজরী মিত্র, সুভদ্র গুপ্ত, দেবারতি দত্ত, অনিন্দ আহসান, দেবাদৃতা গোস্বামী, মাধুরিয়া রুদ্র, ফারাহ মোয়াজ্জেম চৌধুরী ও চন্দ্রশেখর দত্ত।

alt

এছাড়া সমগ্র  অনুষ্ঠানে যন্ত্র সংগীতে যারা সহযোগীতা করেন তারা হলেন বেহালায় অমিতাভ সেন, গিটারে সুরঞ্জিত বন্দ্যোপাধ্যায়, সেতারে এ, এইচ আকমল এবং তবলায় অরূপ ধর ও সুমন রুদ্র অনুষ্ঠানে শিশু- কিশোরদের অংশগ্রহণে সঙ্গীত পরিবেশন করে সুস্মিতা ধর, গোপিকা দাশ, অনন্যা দাশ, মাধুরিয়া রুদ্র প্রমুখ।

alt

অনুষ্ঠানের গ্রন্থনা ও ধারা বর্ণনায় ছিলেন চৈতালি দে ও অশোক কর্মকার।অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন ফারাহ মোয়াজ্জেম চৌধুরী।অনুষ্ঠানের মঞ্চসজ্জায় ছিলেন সত্যব্রত কর, শব্দ নিয়ন্ত্রণে আজিজুল হক ও ভিডিও রেকর্ডিংয়ের দায়িত্বে ছিলেন লাবনী হক লাবন্য।

alt

এছাড়া অনুষ্ঠানে নৃত্য পরিবেশন করেন দমরন্তী রুদ্র, ডোনা পাল ও অনন্যা দাশ এবং কবিতা আবৃত্তি করেন স্বপন মণ্ডল।রবীন্দ্র প্রেমী  আজিজুল হক, মাহবুবুর রহমান ভূঁইয়া ও মারুফ ভূঁইয়া অনুষ্ঠানের সার্বিক দেখভাল করেন।বিপুল সংখ্যক রবীন্দ্র প্রেমী মনোজ্ঞ  এই অনুষ্ঠান উপভোগ করেন।


ভারতীয় লেখকের সরল স্বীকারোক্তি = কলকাতা থেকে বাংলা ভাষা ও সংস্কৃতি বিলুপ্ত হচ্ছে

সোমবার, ২২ মে ২০১৭

বাপ্ নিউজ : নিউইয়র্ক : পশ্চিমবঙ্গের লেখক ও মানবাধিকার কর্মী ড. পার্থ ব্যানার্জির অকপট স্বীকারোক্তি, বাংলাদেশ যতদিন বিশ্বে সরব থাকবে ততদিনই বাংলা ভাষা ও সংস্কৃতি বহাল থাকবে। কলকাতা কিংবা সমগ্র পশ্চিমবঙ্গে বাংলা রক্ষায় আন্তরিকতা তেমন একটি নেই। প্রকৃত সত্য হচ্ছে, বাংলাদেশ নামক ভূখণ্ডটি হারিয়ে গেলে বাংলা ভাষা ও সংস্কৃতির অস্তিত্ব আর থাকবে না। পশ্চিমবঙ্গে আমরা যারা রয়েছি, তারা ক্রমান্বয়ে কর্পোরেট কালচারে ধাবিত হচ্ছি। শেকড়ের সাথে সম্পর্ক ছিন্ন হচ্ছে দ্রুতগতিতে।

১৮ মে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় নিউইয়র্কে জড়ো হওয়া বেশ ক'জন বাংলাদেশি কবি, সাহিত্যিক, লেখক, প্রকাশক এবং সাংবাদিকের সাথে আড্ডায় মাতেন প্রবাসের লেখক-লেখিকারা। সেখানেই কলকাতার সন্তান ড. পার্থ ব্যানার্জি এসব কথা বলেন।  

একাত্তরে মুক্তিযুদ্ধের পক্ষে কাজ করেছেন ড. পার্থ ব্যানার্জি। 'ঘটিকাহিনী'সহ বেশ ক'টি গ্রন্থ রয়েছে তার। নিউইয়র্ক টাইমসসহ বিখ্যাত পত্রিকায় তার সমসাময়িক লেখাও প্রকাশিত হয়েছে। বর্তমান নিউইয়র্কে  শ্রমিকদের অধিকার সম্পর্কে সজাগ করতে একটি শ্রমিক ইউনিয়ন পরিচালিত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিক্ষকতা করেন।  

আড্ডায় ঢাকার ক্ষুব্ধ কবি-সাহিত্যিকরাও অভিযোগ করেন, পশ্চিমবঙ্গ থেকে বাংলা হারিয়ে যাচ্ছে এবং বাংলাদেশের খ্যাতনামা কবি-সাহিত্যিক-লেখকদের নাম আনন্দবাজার, দেশসহ বিভিন্ন পত্রিকায় বিকৃতি করে প্রকাশ করা হচ্ছে। কবি শামসুর রাহমানের নাম কখনই শুদ্ধ করে লিখেনি এসব মিডিয়া।

Picture

ছড়াকার লুৎফর রহমান রিটন বলেন, কলকাতায় বাংলা সাহিত্য চর্চা বিশুদ্ধভাবে করার মতো সাহিত্যিক তৈরি হচ্ছে না। ক্রমান্বয়ে হারিয়ে যাচ্ছে কলকাতায় সাহিত্য ও বাংলা সংস্কৃতি চর্চা। অথচ এক সময় অনেকেই কলকাতাকে বাংলা ভাষা ও সংস্কৃতির রাজধানী হিসেবেও দাবি করতেন। যদিও কখনই তা সঠিক ছিল না।

নিউইয়র্কে তিন দিনব্যাপী আন্তর্জাতিক বাংলা উৎসব ও বইমেলা উপলক্ষে আগত লেখক-লেখিকারা জ্যাকসন হাইটসের পালকি পার্টি সেন্টারে এ আড্ডায় মেতেছিলেন।  

বাংলা উৎসবের আহবায়ক ফেরদৌস সাজেদীন এবং একুশে পদকপ্রাপ্ত অভিনেতা ও নাট্যকার জামাল উদ্দিন হোসেনও ছিলেন এ আড্ডায়। ঢাকার কবি-সাহিত্যিকদের মধ্যে ছিলেন আমিরুল ইসলাম, আহমাদ মাযহার, সাইমন জাকারিয়া, হুমায়ূন কবীর ঢালী, জার্মানীর লেখিকা নাজমুন্নেসা পিয়ারি, জসীম মল্লিক। এছাড়াও ছিলেন অঙ্কুর প্রকাশনীর মেজবাউদ্দিন আহমেদ, প্রথমা প্রকাশনের জাফর আহমেদ রাশেদ, ইত্যাদির জহিরুল আবেদীন জুয়েল, কথাপ্রকাশের মোহাম্মদগ জসীমউদ্দিন, আকাশ প্রকাশনের আলমগীর শিকদার লোটন, স্টুডেন্ট ওয়েজের মোহাম্মদ মাশফিকুল্লাহ তন্ময় প্রমুখ। আমেরিকা-বাংলাদেশ প্রেসক্লাবের সভাপতি লাবলু আনসার, নির্বাহী সদস্য কানু দত্ত এবং নির্বাচন কমিশনার ও সেক্টর কমান্ডার্স ফোরামের আহবায়ক রাশেদ আহমেদও আড্ডায় সরব ছিলেন।  

১৯-২১ মে ব্যাপী বাংলা উৎসব চলবে। বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক শামসুজ্জামান খান এবং কলকাতার সাহিত্যিক পবিত্র সরকার মেলার উদ্বোধন করবেন বাংলাদেশ সময় শনিবার সকালে। এবারও বাংলা উৎসব উপলক্ষে মঙ্গল শোভাযাত্রা অনুষ্ঠিত হবে।


ট্রাম্পের অভিশংসন নিয়ে গুঞ্জন কপাল খুলছে মাইক পেন্সের?

সোমবার, ২২ মে ২০১৭

বাপ্ নিউজ : রাশিয়া ইস্যু ও সদ্য বরখাস্ত এফবিআই পরিচালক জেমস কমি বিতর্কে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের অভিশংসন এখন অনেকটা অনিবার্য হয়ে উঠেছে বলেই মনে হচ্ছে। ট্রাম্প যদি অভিশংসিত হন, এ ক্ষেত্রে পরবর্তী প্রেসিডেন্টের দায়িত্বে আসবেন বর্তমান ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স। তবে পেন্স প্রেসিডেন্ট হলে বিষয়টা মন্দ হবে না। ইন্ডিপেনডেন্টের সাংবাদিক শন অ’ গ্রাদি এক নিবন্ধে বলেছেন, ট্রাম্পের তুলনায় পেন্স অনেক সতর্ক, আচরণে রক্ষণশীল এবং শিষ্টাচারসম্পন্ন। স্পষ্টত রিপাবলিকান দলের এলিট রাজনীতিকদের একজন তিনি।প্রত্যেক ভাইস প্রেসিডেন্টই জানেন, দেশের সর্বোচ্চ পদে আসীন প্রেসিডেন্টের ক্ষেত্রে যদি কোনো ট্র্যাজেডি ঘটে, তাহলে তিনিই সর্বোচ্চ পদটিতে বসবেন। তবে পেন্স নিজের ক্ষেত্রে ভাবতে পারেন, তিনি এখন প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব গ্রহণ থেকে আর মাত্র একটা টুইট দূরে রয়েছেন। রাজনীতির ক্ষেত্রে ট্রাম্পের ভুল পদক্ষেপে পরিস্থিতি এখন এতটাই শোচনীয় যে, সেই ধরনের একটা ট্র্যাজেডি যে কোনো সময় ঘটে যেতে পারে। আর পেন্স হয়তো এই বলে শপথপাঠ করবেন, ‘আমি, মাইকেল রিচার্ড পেন্স, শপথ করছি যে, আমি বিশ্বস্ততার সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব পালন করব এবং যুক্তরাষ্ট্রের সংবিধানের সুরক্ষায় সর্বোচ্চ চেষ্টা করব।’ সর্বশেষ ১৯৭৪ সালে এমনটা ঘটেছিল। ওয়াটারগেট কেলেঙ্কারির কারণে মার্কিন রাজনীতি এতটাই ঘোলাটে হয়ে উঠল যে, শেষ পর্যন্ত প্রেসিডেন্ট রিচার্ড নিক্সনকে যেতে হল। কারণ হিসেবে ১৯৭৪ সালের ৮ আগস্ট নিজের পদত্যাগের বক্তব্যে সতর্কতার সঙ্গে বলেন, ‘পরিশেষে আমার বক্তব্য হচ্ছে, ওয়াটারগেট ঘটনার কারণে আমি হয়তো কংগ্রেসের সমর্থন পাব না এবং যেভাবে জাতীয় স্বার্থে প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব পালন করা দরকার সেভাবে হয়তো পালন করতে পারব না।’ তার এ পদত্যাগের তিনি যে অভিশংসন বা কোনো জোরপূর্বক ক্ষমতাচ্যুতির সম্মুখীন হতে চান না সে ব্যাপারে একটা সরাসরি স্বীকারোক্তি ছিল।

ট্রাম্পের ক্ষেত্রে একই ঘটনা ঘটতে পারে। কারণ ইতিমধ্যে নিজের রিপাবলিকান দলের মধ্যে অস্থিরতা দৃষ্টিগোচর হয়েছে। এছাড়া কংগ্রেসে তার খুব বেশি রাজনৈতিক ভিত্তি নেই। তবে এখনও উল্লেখযোগ্য জনসমর্থন রয়েছে। আর এ কারণেই প্রায়ই ওয়াশিংটন থেকে বের হয়ে এখানে ওখানে বিভিন্ন সমাবেশে বক্তব্য দিচ্ছেন। ট্রাম্পের এ সমর্থকরা ব্যক্তিগতভাবে ট্রাম্পের প্রতি এতটাই আত্মপ্রাণ যে, তারা সময় মতো তাদের মতামত জানান দেবেই। তবে নিক্সনের মতো ট্রাম্পের প্রতি জনগণের ভালোবাসা সত্ত্বেও অভিশংসনের মতো কঠিন প্রক্রিয়া এখন অনিবার্য হয়ে উঠছে। এ ক্ষেত্রে কংগ্রেস সদস্য ও সিনেটররা ট্রাম্পের জায়গায় আরেকজনকে বসানোর ক্ষেত্রে হিসাব-নিকাশ করে দেখছেন।

ওয়াটারগেট কেলেঙ্কারির জেরে নিক্সনের পদত্যাগের পর ১৯৯০-এর দশকে হোয়াইট হাইস ইন্টার্নি মনিকা লিউনোস্কির সঙ্গে অবৈধ প্রেমের সম্পর্কের কারণে কঠিন পরিস্থিতির সম্মুখীন হন সাবেক প্রেসিডেন্ট বিল ক্লিনটন। তবে অভিশংসনের মতো পরিস্থিতির মুখে পড়তে হয়নি তাকে। তবে নিক্সন ও ট্রাম্পের তুলনায় ক্লিনটনের অপরাধ মূলত তুচ্ছই। নিক্সনের মতো ট্রাম্পও ন্যায়বিচারের পথে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টির মতো অপরাধ করছেন। অদূর ভভিষ্যতে পেন্সের প্রেসিডেন্ট হওয়ার সম্ভাবনা যথেষ্ট। তবে এখন প্রশ্ন হচ্ছে, নিক্সনের উত্তরসূরি ভাইস প্রেসিডেন্ট জেরাল্ড ফোর্ডের মতো প্রেসিডেন্ট পেন্স কি তার পূর্বসূরির কোনো অপরাধ বা সংবিধান লংঘনের কারণে নিঃশর্ত ক্ষমতা মঞ্জুর করবেন কিনা।


নিউইয়র্কে ছাত্র ইউনিয়নের ৬৫তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত

শনিবার, ২০ মে ২০১৭

হাকিকুল ইসলাম খোকন,বাপসনিঊজ:বাংলাদেশকে সামনের দিকে এগিয়ে যেতে হলে প্রত্যেককেই নিজ নিজ অবস্থান থেকে দেশের জন্য কিছু করতে হবে। বিশ্বব্যাপী মৌলবাদের ও সংকীর্ণ জনপ্রিয়তাবাদের উত্থান সত্ত্বেও সমাজ প্রগতির সংগ্রাম শেষ হয়ে যায়নি। একই চিন্তা-চেতনার মানুষেরা একই সংগঠনে  অবস্থান না করেও ছাত্র ইউনিয়নের অসাম্প্রদায়িক গনতান্ত্রিক প্রগতিশীল চেতনার পক্ষে লড়াই চালিয়ে যেতে পারে।গত ৩০ এপ্রিল সন্ধ্যায় ছাত্র ইউনিয়নের ৬৫তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে  জাকসন হাইটসের বাংলাদেশ প্লাজায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে ছাত্র ইউনিয়নের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ও কেন্দ্রীয় কমিটির প্রাক্তন নেতা, সোনালী ব্যাঙ্কের পরিচালক,বিশিষ্ট লেখক, কলামিষ্ট শেখর দত্ত একথা বলেন।

Picture

সভায় সভাপতিত্ব করেন বীর মুক্তিযোদ্ধা ও ছাত্র ইউনিয়নের রংপুর জেলার নেতা সৈয়দ রেজাউল করিম। সভা পরিচালনা করেন ছাত্র ইউনিয়নের কেন্দ্রীয় কমিটির প্রাক্তন সহ-সভাপতি ও বরিশাল জেলার প্রাক্তন নেতা জাকির হোসেন বাচ্চু।

alt
সভায়  বক্তব্য রাখেন ছাত্র ইউনিয়নের প্রাক্তন নেতৃবৃন্দ-এর মধ্যে  বীর মুক্তিযোদ্ধা কাশেম আল্,ীশরাফ সরকার,নিনি ওয়াহিদ,আলীম উদ্দিন,গোলাম মর্তুজা,ওবায়দুল্লাহ মামুন, সাংবাদিক ফজলুর রহমান,সামসাদ হুসাম, আভা মন্ডল, মো: হারুন,মোখলেছ মুন্তাসির,লিয়াকত আলী,হিরু চৌধুরী,রহমান,ইঞ্জিনিয়ার  জুলফিকার হোসেন বকুল,মতিন তালুকদার,রবিউল ইসলাম,সবুক্তগীন সাকী, পাইলট আবদুল লতিফ,খোরশেদুল ইসলাম।

alt
প্রধান অতিথির বক্তব্যে শেখর দত্ত আরো বলেন, ২০০১ সালে আমেরিকার টুইন টাওয়ারে হামলার পর বিশ্বব্যাপী ক্রমশঃ মৌলবাদের বিস্তার শুরু হয়।এখন সব ধর্মাবলম্বীদের মধ্যেই মৌলবাদীদের ও ধর্মীয় উগ্র পন্থার ব্যাপক বিস্তার ঘটেছে। ভারত উপমহাদেশে শুধু পাকিস্তান নয়,ভারত,শ্রীলঙ্কা,মিয়ানমার,বাংলাদেশ সহ সর্বত্রই এটা হয়েছে। ভারতে মোদির নেতৃত্বে দিল্লীতে হিন্দুপন্থীদের যেমন উত্থান হয়েছে তেমনি মায়ানমারে উগ্র বৌদ্ধরা রোহিঙ্গাদের উপর নির্যাতন চালাচ্ছে।শ্রীলঙ্কায়ও এই সমস্যা চলছে। এই চরম পন্থায় দেশের মধ্যে ধর্মীয় মৌলবাদের রাষ্ট্র সমাজে ব্যাপক প্রভাবের ফলে মানুষের স্বাভাবিক জীবন যাত্রা বিঘিœত হওয়ার পর এখন সরকার ও সমাজে এসব মৌলবাদীদের বিরুদ্ধে ব্যাপক জনমত সৃষ্টি হয়েছে এবং সরকার, সিভিল সোসাইটি, মিডিয়া,বিচার বিভাগ, নির্বাচন কমিশন দেশে গনতন্ত্র,মৌলিক অধিকার,সংবাদপত্রের স্বাধীনতা রক্ষা সবাই মানবাধিকার রক্ষা ও দেশের মানুষের পক্ষে কাজ করার চেষ্টা করছে। বাংলাদেশেও সকল মৌলবাদী ও সাম্প্রদায়িক শক্তির বিরুদ্ধে আমাদের নিজ নিজ সংগঠনের ও ব্যক্তিগত অবস্থান থেকে কাজ করে যেতে হবে।


যুক্তরাষ্ট্রে নিপা মোনালিসার যৌন হয়রানি এবং অপহরণের অভিযোগে বাংলাদেশী খালেক গ্রেফতার

শনিবার, ২০ মে ২০১৭

হাকিকুল ইসলাম খোকন,বাপসনিঊজ:নিউইয়র্ক (যুক্তরাষ্ট্র) থেকে : যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী বাংলাদেশী  নিপা মোনালিসা যৌন হয়রানির ও অপহরণের চেষ্টা করা হয়েছে বলে তিনি অভিযোগ করেছেন। এই অভিযোগে প্রবাসে বাংলাদেশী কম্যুনিটির সামাজিক এবং প্রবাসী নেতা ৪৭ বছর বয়সী ট্যাক্সি চালক মোহাম্মদ খালেককে পুলিশ গ্রেফতার করেছে। কম্যুনিটিতে সে ইঞ্জিনিয়ার খালেক নামেই পরিচিত। তিনি নিজে বিএনপির রাজনীতির সঙ্গে জড়িত বলেও বিভিন্ন গণমাধ্যমে পরিচয় প্রকাশ পেয়েছে। নিপা মোনালিসার বয়স ২৭ বছর।
নিউইয়র্ক থেকে বাপসনিঊজ  জানায়, নিউইয়র্কের মূলধারার বিভিন্ন টিভি ও প্রিন্ট মিডিয়াকে নিপা মোনালিসা বলেন, আমি গত ৭ এপ্রিল ব্রঙ্কসে একটি দোকানে কাজ করছিলাম। আগে থেকেই মোহাম্মদ খালেক আমার পরিচিত। কারণ সে আমাদের বাসার উপরের তলায় থাকে। আমার কাজ শেষে ব্রঙ্কসের বাসায় যাওয়ার জন্য স্টোর বের হতেই মোহাম্মদ খালেক আমাকে বলেন, আমার ট্যাক্সিতে আসুন আমি আপনাকে আপনার বাসায় পৌঁছে দেব।
তিনি বলেন, পরিচিত জেনেই আমি তার ট্যাক্সিতে উঠি। ট্যাক্সিতে উঠার পরই সে আমাকে বাসায় না নিয়ে ব্রঙ্কস থেকে প্রায় ৪০ কিলোমিটার দূরে কানেকটিকাটের নরওয়াকে নিয়ে যায় এবং গাড়ি থামিয়ে বলে, এই ১ হাজার ডলার তোমার, যদি তুমি আমার সাথে সেক্স কর। আর যদি সেক্স করতে না দাও তাহলে তোমাকে যেতে দেব না। এক পর্যায়ে সে আমাকে ধর্ষণ করার চেষ্টা করে। আমি ৯১১ কল করি কিন্ত পুলিশকে বলতে পারছিলাম না আমি কোথায়। কারণ আমি স্থানটি চিনি না, আমি ইমিগ্র্যান্ট হয়ে মাত্র কিছু দিন আগে আমেরিকায় আসি।

Picture
নিপা বলেন, আমি বার বার ট্যাক্সি থেকে বের হবার চেষ্টা করছিলাম। কিন্ত সে আমাকে গাড়ি থেকে বের হতে দিছলো না। এক পর্যায়ে সুযোগ বুঝে আমি গাড়ি থেকে বের হয়ে পালিয়ে যাই এবং আবারো পুলিশ কল করি। এ দিকে নিপা মোনালিসার অভিযোগে নিউইয়র্ক পুলিশ মোহাম্মদ খালেককে গত ১১ মে বৃহস্পতিবার গ্রেফতার করে। ১২ মে মোহাম্মদ খালেককে কোর্টে তোলা হলে সে জামিনে বেরিয়ে আসে। নিপা জানান, সে বের হওয়ায় আমি আতঙ্কিত। নিপার স্বামী শহীদুল ইসলাম বলেন, সে আমার স্ত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টা করে, এটাই তার অপরাধ। অন্য দিকে মোহাম্মদ খালেকের পরিবার এই বিষয়ে কোন মন্তব্য করতে চাননি। নো কমেন্টস বলেই মিডিয়া কর্মীদের মুখের সামনেই ঘরের দরজা বন্ধ করে দেন। তবে মোহাম্মদ খালেক বলেছেন, তার বিরুদ্ধে এ অভিযোগ মিথ্যা।
উল্লেখ্য, মোহাম্মদ খালেক এর আগেও পাঁচ বার গ্রেফতার হয়েছিলেন। লাস্ট সামারেও সে একজন মহিলাকে তার ট্যাক্সি তুলে তাকে পর্ণগ্রাফি দেখাচ্ছিলো এবং সেক্সের প্রস্তাব দেয়। সেই অভিযোগে কোর্ট মোহাম্মদ খালেকের ১ হাজার ডলার জরিমানা করে। তারপরেও তার শিক্ষা হয়নি। বর্তমানে মোহাম্মদ খালেকের লাইসেন্স সাসপেন্ড করা হয়েছে। http://abc7ny.com/1986957/