Editors

Slideshows

http://bostonbanglanews.com/components/com_gk3_photoslide/thumbs_big/605744Finding_Immigrant____SaKiL___0.jpg

কুইন্স ফ্যামিলি কোর্টে অভিবাসী

হাকিকুল ইসলাম খোকন/বাপ্‌স নিউজ/প্রবাসী নিউজ ঃ বষ্টনবাংলা নিউজ ঃ দ্যা ইন্টারফেইস সেন্টার অব নিউইয়র্ক ও আইনী সহায়তা সংগঠন নিউইয়র্ক এর উদ্যোগে গত ২৪ অক্টোবর বৃহস্পতিবার সকাল ৯ See details

http://bostonbanglanews.com/components/com_gk3_photoslide/thumbs_big/455188Hasina__Bangla_BimaN___SaKiL.jpg

দাবি পূরণের আশ্বাস প্রধানমন্ত্

বষ্টনবাংলা নিউজ ঃ দাবি-দাওয়া বাস্তবায়নে আলোচনা না করে আন্দোলন করার জন্য পাইলটরা প্রধানমন্ত্রীর কাছে দুঃখ প্রকাশ করে নিঃশর্ত ক্ষমা চেয়েছেন। পাইলটদের আন্দোলনের কারণে ফ্লাইটসূচিতে জটিলতা দেখা দেয়ায় যাত্রীদের কাছে দুঃখ See details

http://bostonbanglanews.com/components/com_gk3_photoslide/thumbs_big/701424image_Luseana___sakil___0.jpg

লুইজিয়ানায় আকাশলীনা‘র বাৎসরিক

হাকিকুল ইসলাম খোকন/বাপ্‌স নিউজ/প্রবাসী নিউজ ঃ বষ্টনবাংলা নিউজ ঃ লুইজিয়ানা থেকে ঃ গত ৩০শে অক্টোবর শনিবার সনধ্যায় লুইজিয়ানা স্টেট ইউনিভার্সিটির ইণ্টারন্যাশনাল কালচারাল সেণ্টারে উদযাপিত হলো আকাশলীনা-র বাৎসরিক বাংলা সাহিত্য ও See details

http://bostonbanglanews.com/components/com_gk3_photoslide/thumbs_big/156699hansen_Clac__.jpg

ইতিহাসের নায়ক মিশিগান থেকে বিজ

হাকিকুল ইসলাম খোকন/বাপ্‌স নিউজ/প্রবাসী নিউজ ঃ বষ্টনবাংলা নিউজ ঃ ইতিহাস সৃষ্টিকারী নির্বাচনে ডেমক্র্যাটরা হাউজের আধিপত্য ধরে রাখতে সক্ষম হলো না। সিনেটে নিজেদের নিয়ন্ত্রণ অক্ষুন্ন রাখতে সক্ষম হলেও আসন হারিয়েছে কয়েকটি। See details

http://bostonbanglanews.com/components/com_gk3_photoslide/thumbs_big/266829B_N_P___NY___SaKil.jpg

বিএনপি চেয়ারপারসনের অফিসে পুলি

হাকিকুল ইসলাম খোকন/বাপ্‌স নিউজ/প্রবাসী নিউজ ঃ বষ্টনবাংলা নিউজ ঃ নভেম্বর মঙ্গলবার সন্ধ্যায় নিউইয়র্ক সিটির জ্যাকসন হাইটস্থ আলাউদ্দিন রেষ্টুরেন্টের সামনে যুক্তরাষ্ট্র বিএনপি তাৎক্ষণিক এক বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে। এই See details

ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার

পরিচালনা পরিষদ 

সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি

ওসমান গনি
 

প্রধান সম্পাদক

হাকিকুল ইসলাম খোকন
 

সম্পাদক

সুহাস বড়ুয়া হাসু
 

সহযোগী সম্পাদক

আয়েশা আকতার রুবী

সাভার পৌরসভার ১২৩ কোটি টাকার বাজেট ঘোষণা

সোমবার, ১৩ জুন ২০১৬

আক্তার হোসন,বাপসনিঊজ: নিজস্ব প্রতিনিধি,সাভার থেকে: ঢাকা-১৯ আসন, সাভারের সংসদ সদস্য ডা. এনামুর রহমান দলমত নির্বিশেষে সাভার পৌরসভাকে জনগণের কল্যাণের জন্য কাজ করার আহবান জানান। এসময় তিনি সাভার পৌরসভার মেয়রকে উদ্দেশ্য করে বলেন, সাভার পৌরবাসী আপনাকে মেয়র নির্বাচিত করে পৌর পিতার আসনে বসিয়েছে। আপনি তাদের অভিভাবক হয়ে পৌরবাসীর কল্যাণে কাজ করে যাবেন। এতো কোন বাধাবিঘœ ঘটলে এই পৌরবাসীকে নিয়ে আমরা সকলে মিলে তা প্রতিহত করবো। সাভার পৌরসভা যেন দলীয়ভাবে পরিচালনা না হয় সেদিকে মেয়রকে লক্ষ্য রাখতে হবে এমপি এনামুর রহমান বলেন। সাভার পৌর মেয়র আলহাজ্ব আব্দুল গণি বলেন, সাভার পৌরবাসীর মৌলিক নাগরিক সুযোগ সুবিধাগুলো নিশ্চিত করাই আমার দায়িত্ব বলে মনে করি। তিনি আরো বলেন, আর্থিক সঙ্গতির সাথে সামঞ্জস্য রেখে সে দায়িত্ব কতটুকু ন্যায় বিচার, স্বচ্ছতা এবং সততার সাথে পালন করতে পারছি তা মূল্যায়নের ভার পৌবাসীর উপর তুলে দিলাম। তিনি আরও বলেন, সাভার পৌরবাসী আমাকে মেয়র নির্বাচিত করে পৌর আসনে বসিয়েছেন এ জন্য আমি তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। আমি যতদিন এই চেয়ারে বসে থাকবো, ততদিনই পৌরবাসীর জন্য কাজ করে যাব। গতকাল সোমবার সকালে সাভার পৌরসভায় ২৬তম বাজেট অধিবেশনে ডা: এনামুর রহমান এমপি প্রধান অতিথি হিসেবে ও সাভার পৌর মেয়র  হাজী আব্দুল গণি বাজেট বক্তেব্যে একথা বলেছেন। সাভঅর পৌরসভার মেয়র হিসেবে এটাই তাঁর প্রথম বাজেট পেশ।সাভার পৌরসভা ২০১৬-১৭ অর্থ বছরের বাজেট ঘোষণা করা হয়েছে। গতকাল সোমবার পৌর ভবন প্রাঙ্গণে পৌর সভার মেয়র হাজী আবদুল গণি জনাকীর্ণ সাংবাদিক সম্মেলনে এ বাজেট ঘোষণা করেন। তিনি ১২৩ কোটি ৩২ লক্ষ ৫১ হাজার ১ শত ৪৮ টাকা বাজেট ঘোষণা করেন তিনি। এ বাজেটে মোট ব্যয় দেখান হয়েছে ১২২ কোটি ৫৬ লক্ষ ৬ হাজার ৭ শত ১৩ টাকা। উদ্বৃত্ত দেখান হয়েছে ৭৬ লক্ষ ৪৪ হাজার ৪ শত ৩৫ টাকা।বাজেট ঘোষণা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় সাংসদ সদস্য ডা: এনামুর রহমান এনাম এমপি। এসময় অনেকের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সাভার পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক পৌর কাউন্সিলর নজরুল ইসলাম মানিক মোল্লা, ১নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর মিনহাজ্ব উদ্দিন মোল্লা, ৩ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর সানজিদা সারমিন মুক্তা, ৪ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর নূরে আলম নিউটন, ৬ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিল আব্দুস সাত্তার মিয়া, ৭ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর আব্বাস আলী, ৯ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর আয়নাল হক, সাভার পৌরসভার প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা শরফউদ্দিন আহামদ চৌধুরী, নির্বাহী প্রকৌশলী শরিফুল ইমাম, প্রধান হিসাব রক্ষক কর্মকর্তা ছামছুদ্দিন আহমেদ, সচিব সিকাদার মো: আব্দুর রবসহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ও সাংবাদিকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।সাভার পৌর মেয়র হাজী আব্দুল গণি এ বাজেটে উন্নয়ন কাজের বরাদ্দ করেছেন। তারমধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো, সাভার পৌর এলাকায় বিভিন্ন রাস্তা নির্মাণের জন্য প্রস্তাবিত বাজেট ৪৫ কোটি টাকা। ড্রেন/কালভার্ট নির্মাণের জন্য ৩৮ কোটি টাকা। রাস্তা/ড্রোণ মেরামত/ সংস্কারের জন্য ১ কোটি ২৫ লক্ষ টাকা। পৌর সুপার মার্কেট নির্মাণ করার জন্য ৩ কোটি টাকা। বাস টার্মিনাল নির্মাণের জন্য ৫০ লক্ষ টাকা। পার্ক নির্মাণের জন্য ৮০ লক্ষ টাকা। সড়কবাতি কাজের জন্য ২ কোটি ৫০ লক্ষ টাকা। নর্দমা/নালা পরিষ্কাররে জন্য ১ কোটি টাকা। ময়লা আর্বজনা পরিষ্কারের জন্য ১ কোটি ৫ লক্ষ টাকা। যাত্রী ছাউনি নির্মাণের জন্য ৫০ লক্ষ টাকা। ডাম্পিং প্লেস-এর জমি ক্রয়ের জন্য ৩ কোটি টাকা প্রস্তাবিত বাজেটে উন্নয়ন কাজে বরাদ্দ করবেন।এসময় সাভার পৌর মেয়র হাজী আব্দুল গণি তার বাজেট পেশে ২০১৬-১৭ প্রস্তাবিত বাজেটে আয়-ব্যয়ে হিসাব নিকাশ তুলে ধরেন। এতে দেখা যায়, রাজস্ব আয় ধরা হয়েছে ১৯ কোটি ১৬ লক্ষ ৬ হাজার ৭শ’ ১৩ টাকা। উন্নয়ন আয় ধরা হয়েছে ১০৩ কোটি ৮২ লক্ষ ৮০ হাজার ৮ শ’ ৮০ টাকা। মোট আয় ধরা হয়েছে ১২৩ কোটি ৩২ লক্ষ ৫১ হাজার ১শত ৪৮ টাকা। এক্ষেত্রে এ টাকা ব্যয় হবে রাজস্ব খাতে ১৪ কোটি ৩৮ লক্ষ ৩০ হাজার টাকা। উন্নয়ন কাজে ব্যয় ধরা হয়েছে ১০৮ কোটি ১৭ লক্ষ ৭৬ হাজার ৭শ’ ১৩ টাকা। মোট ব্যয় ধরা হয়েছে ১২২ কোটি ৫৬ লক্ষ ৬ হাজার ৭ শ’ ১৩ টাকা। আর সমাপনী ব্যয় হিসেবে ৭৬ লক্ষ ৪৪ হাজার ৪শ’ ৩৫ টাকা খরচ ধরা হয়েছে।বাজেট বক্তৃতায় পৌর মেয়র হাজী আবদুল গণি বলেন, পৌর নির্বাচনের পূর্বে আমি ঘোষণা করেছিলাম আমি পৌর মেয়র নির্বাচিত হতে পারলে সাভার পৌরবাসীকে একটি আধুনিক, পরিচ্ছন্ন ও বাস উপযোগী মডেল পৌরসভায রূপান্তর করবো। কিন্তু অবহেলিত রাস্তা, ড্রেন, সোয়ারেজ লাইন ও জলাবদ্ধতা নিরসন আমার একার পক্ষে কোন ক্রমেই সম্ভব নয়। এ জন্য পৌরসভার সর্বস্তরের জনসাধারণের সার্বিক  সহযোগিতা কামনা করছি। তিনি বলেন, পৌরবাসীর সহযোগিতা পেলে আগামীদিনে সাভার পৌরসভাকে সারা দেশের মধ্যে দৃষ্টান্ত দেয়ার মত মডেল পৌরসভা হিসেবে গড়ে তুলবো।পৌর মেয়র ও পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি হাজী আব্দুল গণি বাজেট বক্তৃতায় বলেন, দায়িত্ব পেয়ে আপনাদের সেবা করার সুযোগ দানের জন্য সর্ব প্রথমে মহান আল্লাহর নিকট কোটি কোটি শুকরিয়া আদায় করছি। আমি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি মাননীয় প্রধাণমন্ত্রী শেখ হাসিনার নিকট যিনি আমাকে মনোনয়ন দিয়ে নৌকা প্রতিকে নির্বাচন করার সুযোগ করে দিয়েছেন। আমাকে মেয়র হিসেবে মনোনয়ন পাওয়ার জন্য সমর্থন দেয়ায় ঢাকা-১৯ আসনের মাননীয় সংসদ ডাঃ মোঃ এনামুর রহমানসহ আওয়ামীলীগ এর অন্যান্য নেতৃবৃন্দের নিকট কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। আমাকে ভোট দিয়ে সাভার পৌরসভার মেয়র নির্বাচিত করায় সাভার পৌরবাসাীর প্রতি আমি কৃতজ্ঞ।সাভার পৌরসভার ২৬তম বাজেট অনুষ্ঠানে আপনাদের সহৃদয় উপস্থিতির জন্য আমার তথা পৌর-পরিষদের পক্ষ থেকে আপনাদের জানাই আন্তরিক কৃতজ্ঞতা।তিনি আরও বলেন, বিগত অর্থ বছরের আর্থিক বিষয়াদি পর্যালোচনা এবং আগামী অর্থ বছরে আপনাদের এই প্রতিষ্ঠান কি কি উন্নয়ন পরিকল্পনা গ্রহণ করতে যাচ্ছে তার খাত ওয়ারী সম্ভাব্য আয়-ব্যয়ের একটি খতিয়ান আপনাদের সামনে উপস্থাপন করবো।সাভার পৌর মেয়র হাজী আব্দুল গণি বলেন, বিস্তারিত বাজেট উপস্থাপনের পূর্বে বিগত পঁচিশ বছরে আপনাদের এই প্রতিষ্ঠানের অগ্রগতি এবং এই বছরের প্রস্তাবিত বাজেটের দুই একটা বিষয়ে কিছু কথা বলতে চাই।তিনি বলেন, এই প্রতিষ্ঠান আপনাদের। গত ৩০-১২-২০১৫ খ্রিঃ তারিখ  আপনাদের ভোটে নির্বাচিত হয়ে ৩ ফেব্রুয়ারী-২০১৬ খ্রিঃ তারিখ আমি এবং আমার পরিষদ বিপুল দেনা নিয়ে দায়িত্ব পালন শুরু করি । এ বিপুল দেনা থাকা সত্বেও আমরা পৌরসভার কল্যাণে ব্যাপক কাজ শুরু করেছি। আমরা দায়িত্ব গ্রহণ করার পর পাঁচ মাসে পৌরসভার বিভিন্ন রাস্তা, ড্রেন, কালভার্ট ইত্যাদিসহ বেশ কিছু পূর্ত কাজ ইতোমধ্যে সম্পন্ন করেছি। আগামী অর্থ বছরে এর চেয়েও অধিক উন্নয়ন কাজ করতে পারবো বলে দৃঢ়ভাবে আশা করছি। এছাড়াও সরকারের বার্ষিক উন্নয়ন তহবিল হতে সত্তর লক্ষ টাকা এবং পৌরসভার নিজস্ব তহবিল হতে প্রায় ৩ কোটি টাকা ব্যয়ে রাস্তা, ড্রেন ইত্যাদি নির্মাণ ও মেরামতের কাজ করা হয়েছে। আগামী অর্থ বছরে নিজস্ব তহবিল হতে প্রায় ছয় কোটি টাকার উন্নয়ন কাজ করার পরিকল্পনা গ্রহণ করেছি। আমরা আমাদের সর্বশক্তি দিয়ে পৌরসভার উন্নয়ন করতে দৃঢ় প্রতিজ্ঞ। শুধু তাই নয় সাভার পৌরসভাকে বিশেষ শ্রেণীতে উন্নীতকরণের জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করছি। আশা করছি স্বল্পতম সময়ে আমরা এই পৌরসভাকে বিশেষ শ্রেণীর পৌরসভার মর্যাদায় অধিষ্ঠিত করতে পারবো, ইনশাল্লাহ্।সাভার পৌর মেয়র হাজী আব্দুল গণি বলেন, আপনাদের মৌলিক নাগরিক সুযোগ সুবিধাগুলো নিশ্চিত করাই আমাদের প্রধান দায়িত্ব। আর্থিক সঙ্গতির সাথে সামঞ্জস্য রেখে সেই দায়িত্ব কতটুকু ন্যায় বিচার, স্বচ্ছতা এবং সততার সাথে পালন করতে পারছি তা মূল্যায়নের ভার আপনাদের উপর। আপনারা দেখেছেন সাভার পৌর এলাকার সমস্ত বড় বড় রাস্তাগুলো চলাচলের অনুপোযোগী ছিল। অধিকাংশ রাস্তা বছরের বেশীরভাগ সময় পানির নিচে থাকতো। রাস্তার অবস্থা এতই করুণ ছিল যে,যানবাহন চলাতো দূরের কথা পৌরবাসী পায়ে হেটে চলাচল করতে পারতোনা। জনগণের চলাচলের দুরবস্থা দূর করে সাভার পৌর এলাকার বড় বড় রাস্তা এবং ড্রেণগুলো চলার উপযোগী করেছি। আপনাদের অবগতির জন্য অবকাঠামোগত যে সমস্ত রাস্তা ও ড্রেনের কাজ শেষ করে চলাচলের উপযোগী করেছি তার কয়েকটি তথ্য উপস্থাপন করছি।১। সাভার থানা বাসস্ট্যান্ড হতে সাভার মডেল থানা হয়ে নামা বাজার পর্যন্ত রাস্তা ও ড্রেণ উন্নয়ন কাজ ২। সাভার বাসষ্ট্যান্ড হতে নামা বাজার পর্যন্ত রাস্তা উন্নয়ন কাজ ৩। সাভার বাজার রোড আব্দুল কাদের সাহেবের বাড়ী হতে নামা বাজার বংশী নদী পর্যন্ত ড্রেন উন্নয়ন কাজ ৪। আড়াপাড়া বেনিয়ান ট্রি হতে সাভার উত্তর বাজার কেয়ার ব্রিজ ড্রেন উন্নয়ন কাজ ৫। রেডিও কলোনী বাসস্ট্যান্ড হতে সাভার নামা বাজার কেয়ার ব্রিজ পর্যন্ত রাস্তা উন্নয়ন কাজ ৬। সাভার বাসস্ট্যান্ড হতে রাজাসন  ভিশন গার্মেন্টস পর্যন্ত রাস্তা ও ড্রেন উন্নয়ন কাজ ৭। পাকিজা টেক্সটাইল মিল হতে শাহীবাগ চৌরাস্তা হয়ে ইসহাক সাহেবের বাড়ী হয়ে ইমান্দিপুর চৌরাস্তা পর্যন্ত রাস্তা ও ড্রেন উন্নয়ন কাজ ৮। নামা গেন্ডা আব্দুস সাত্তার মোল্ল্যা মার্কেট হতে বাহাদুরের বাড়ী হয়ে চান মিয়া ব্রিক ফিল্ড পর্যন্ত ড্রেণ উন্নয়ন কাজ । এ সমস্ত রাস্তা এবং ড্রেনের কাজগুলো সমাপ্ত হওয়ার ফলে পৌর এলাকায় জনদূর্ভোগ অনেকটা লাগব হয়েছে বলে আমরা বিশ্বাস করে।

alt

উক্ত কাজগুলো নগর অঞ্চল উন্নয়ন প্রকল্পের (ঈজউচ) আর্থিক সহায়তায় প্রায় ৩৫ কোটি টাকা ব্যয়ে বাস্তবায়ন করা হয়েছে। এ প্রকল্পের আওতায় ২য় ও ৩য় পর্যায়ে আরোও প্রায় ৭০-৮০ কোটি টাকার কাজ বাস্তবায়ন হবে ।তিনি আরও বলেন, গুরুত্বপূর্ণ নগর অঞ্চল প্রকল্প এর আর্থিক সহায়তায় ক্ষতিগ্রস্থ রাস্তার জন্য প্রায় ৩কোটি টাকার উন্নয়ন কাজ চলমান রয়েছে। উক্ত প্রকল্পের আওতায় ১। জালেশর তিন রাস্তার মোড় হতে জামসিং ব্রিজ পর্যন্ত রাস্তা উন্নয়ন কাজ  ২। কর্ণপাড়া বাসস্ট্যান্ড হতে পৌরসভার শেষ সীমানা সাদাপুর কালভার্ট পর্যন্ত রাস্তা উন্নয়ন কাজ ৩। রাবেয়া ক্লিনিক হতে রেডিও কলোনী আমতলা মোড় পর্যন্ত রাস্তা ও ড্রেণ উন্নয়ন কাজগুলো বাস্তবায়ন করা হবে। এ প্রকল্প হতে আগামী অর্থ বছরে আরো পাঁচ কোটি টাকা বরাদ্ধ প্রদান চুড়ান্ত পর্যায়ে রয়েছে। এ টাকা পাওয়া গেলে আরোও অনেক রাস্তা,ড্রেণের কাজ বাস্তবায়ন করা সম্ভব হবে।হাজী আব্দুল গণি, আপনাদের জ্ঞাতার্থে জানাচ্ছি যে, নগর পরিচালন ও অবকাঠামো উন্নতিকরণ প্রকল্প (টএওওচ-৩) নামে আরেকটি প্রকল্পের কাজ সাভার পৌরসভায় শুরু হওয়ার প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। বিভিন্ন তথ্যের ভিত্তিতে বাংলাদেশের বিভিন্ন পৌরসভা হতে ১২টি পৌরসভাকে এ প্রকল্পে অন্তভর্’ক্ত করা হবে। গত জুলাই-২০১৫ হতে প্রকল্পের চাহিদানুযায়ী বিভিন্ন তথ্য প্রেরন করা হচ্ছে। প্রেরিত তথ্য অনুয়ায়ী অন্যান্য পৌরসভার চেয়ে সাভার পৌরসভা ভাল অবস্থানে রয়েছে। আশা করছি আগামী জুলাই-২০১৬ খ্রিঃ মাসের দিকে সাভার পৌরসভা উক্ত প্রকল্পে অন্তর্ভূক্ত হবে। এ প্রকল্পের আওতায় ৩০-৪০ কোটি টাকার ব্যয়ে রাস্তা এবং ড্রেনের কাজ সম্পাদিত হবে।বাংলাদেশ মিউনিসিপ্যাল ডেভোলপমেন্ট ফান্ড তথা ইগউঋ এর আর্থিক সহায়তায় আগামী অর্থ বছরে আরো প্রায় ২০(বিশ) কোটি টাকা বিভিন্ন উন্নয়ন কাজে বরাদ্দ চুড়ান্ত পর্যায়ে রয়েছে। উক্ত কাজের অনুমোদন পাওয়া গেলে পৌর এলাকার অধিক গুরুত্বপূর্ন রাস্তা এবং ড্রেণগুলোর কাজ বাস্তবায়ন করতে পারবো বলে আশা করছি।তিনি বলেন, সকল সরকারী অনুদান এবং প্রকল্প সহায়তা পাওয়ার জন্য কঠিন শর্ত হচ্ছে হোল্ডিং ট্যাক্স অত্যন্ত পক্ষে ৮০% আদায় করতে হবে এবং কাজের গুনগতমান ও অগ্রগতি দাতা সংস্থার কাছে গ্রহণযোগ্য হতে হবে। আর তা সম্ভব হলেই অন্যান্য বিশেষ কাজ যেমন সুপার মার্কেট, বাস টার্মিনাল নির্মাণ, ময়লা আবর্জনা ফেলার জন্য জমি কেনাসহ ইত্যাদি বড় বড় কাজ এ সব প্রকল্প হতে করা সম্ভব হবে। সুতরাং বুঝতেই পারছেন আগামী দিনে আপনাদের প্রতিষ্ঠানের স্বার্থেই আপনাদের আন্তরিক সহযোগিতা কতটা প্রয়োজন। এই সমস্ত উন্নয়মূলক কাজে আপনাদের সম্পৃক্ততার জন্য ইতোমধ্যে শহর সমন্বয় কমিটি(ঞখঈঈ) এবং ওয়ার্ড কমিটি(ডখঈঈ) গঠন করা হয়েছে। এই বিষয়ে আর কি কি কার্যক্রম গ্রহণ করা যায় সে সম্পর্কে আপনাদের তথা পৌরবাসীর মূল্যবান পরামর্শ আশা করছি। কেননা আমাদের লক্ষ্য পৌরসভার সকল কাজে আপনাদের মূল্যবান পরামর্শ এবং সার্বিক অংশগ্রহণ, সেবা প্রদান ও পৌরসভার উন্নয়ন।সাভার পৌর মেয়র হাজী আব্দুল গণি বলেন, আপনারা অবগত আছেন রানা প্লাজা ট্রাজেডীর কারনে সাভার পৌরসভার প্লান অনুমোদন কার্যক্রম বন্ধ ছিল। এতে পৌরবাসীকে স্থাপনার প্লান অনুমোদন করানোর জন্য নানাবিধ হয়রানীর স্বীকার হতে হয়েছে। পৌরবাসীর ভোগান্তি হতে পরিত্রান পাওয়ার লক্ষ্যে মাননীয় এমপি মহোদয় একাধিকবার মন্ত্রণালয়ে সংল্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করেন। যার ফলশ্রুতিতে সাভার পৌরসভা প্লান অনুমোদনের ক্ষমতা ফিরে পায়। প্লান অনুমোদনের ক্ষমতা ফিরে পেয়ে প্লান অনুমোদনের কার্যক্রম শুরু করেছি। তাই আপনাদের মাধ্যমে পৌরবাসীকে অনুরোধ করবো, তারা যেন পৌরসভার ভিতরে যে কোন ধরণের ইমারত অর্থাৎ বাড়ি, মার্কেট, দোকানঘর মিল-কারখানা, সীমানা প্রাচীর দেওয়াল ইত্যাদি নির্মাণের পূর্বে পৌরসভা থেকে নক্সা অনুমোদন এর বিষয়ে পৌরসভায় যোগাযোগ করে। আগামী প্রজন্মের কাছে এই পৌরসভাকে সমৃদ্ধ করার লক্ষ্যে এখন থেকেই সুষ্ঠু পরিকল্পনা গ্রহণ করতে হবে। অপরিকল্পিত ও নিয়ম বহির্ভূতভাবে বাড়ি-ঘর, মিল-কারখানা করার ফলে রাস্তা, ড্রেন, নির্মাণসহ নাগরিকদের চলাচলে দারুন অসুবিধার সৃষ্টি হচ্ছে। বাড়ি-ঘর নির্মাণের পূর্বে রাস্তা থেকে জায়গা ছাড়ার বিষয়টি আপনাদের স্বার্থেই অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এমন অনেক বাড়ি-ঘর নির্মিত হচ্ছে, যেখানে পানি এবং পয়ঃনিস্কাশনের ড্রেন নির্মাণ দূরের কথা বিপদের মূহূর্তে একটি এ্যাম্বুলেন্স বা ফায়ার সার্ভিসের গাড়ী যাওয়ার ব্যবস্থাও নেই। ইমারত নির্মাণের পূর্বে রাস্তা এবং ড্রেন নির্মাণের জন্য জায়গা ছাড়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে পৌরবাসীর স্বার্থ রক্ষা করা একান্ত প্রয়োজন। তাই ইমারত নির্মাণ করার পূর্বে পৌরসভা হতে ইমারত নির্মাণের  নক্সা অনুমোদন নেয়ার জন্য আপনাদের মাধ্যমে সকল পৌরবাসীকে অনুরোধ করছি।পৌর মেয়র আরও বলেন, পৌরসভায় একটি স্বাস্থ্য,পরিবার পরিকল্পনা ও পরিচ্ছন্নতা বিভাগ আছে। এ বিভাগ হতে পৌরবাসীকে বিভিন্ন স্বাস্থ্য সেবা বিশেষ করে ছেলে-মেয়েদেরকে বিভিন্ন ধরণের টিকা এবং জন্ম-মৃত্যু নিবন্ধন করা হয়ে থাকে। শিশুর জন্মের পরপরই পৌরসভায় শিশুর জন্ম এবং মৃত্যু ব্যক্তির নিবন্ধন করার জন্য আমি আপনাদের মাধ্যমে পৌরবাসীকে অনুরোধ জানাচ্ছি। এতে পৌরসভা শিশুর জন্ম সনদসহ অন্যান্য সনদ সহজেই দিতে পারবে, যা ভবিষ্যতে নাগরিকদের গুরুত্বপূর্ণ কাজে প্রয়োজন হবে।পৌর মেয়র হাজী আব্দুল গণি বলেন, পৌরসভায় প্রতি পাঁচ বছর পর পর পৌরসভার বিভিন্ন হোল্ডিং এর পৌরকর পুনঃ ধার্য করা হয়ে থাকে। গত ১৮-০৪-২০১৬ খ্রিঃ তারিখ হতে সাভার পৌরসভা ৬ষ্ঠ পঞ্চবার্ষিকী কর নির্ধারনের কাজ শুরু করেছে। প্রতিটি ওয়ার্ডে পৌরকর নির্ধারনের জন্য একটি করে টিম করা হয়েছে। উক্ত টিম পর্যায়ক্রমে প্রতিটি হোল্ডিং এ যাবে। আপনাদের মাধ্যমে পৌরবাসীকে অনুরোধ করছি, হোল্ডিং এর মালিক যেন পৌরকর নির্ধারনের জন্য গঠিত টিমকে সহযোগিতা করেন। আপনাদের সহযোগিতা পেলে আমরা সঠিকভাবে পৌরকর র্নিধারন করতে পারবো বলে আশা করছি।তিনি বলেন, সারাদেশে আইন-শৃঙ্খলা উন্নয়নের জন্য বর্তমান সরকার বিভিন্ন কার্যক্রম পরিচালনা করছে। তারই আলোকে সাভার পৌরসভাও বিভিন্ন কর্মসূচী গ্রহণ করেছে। ইতোমধ্যে সাভার এর আইন-শৃঙ্খলা উন্নয়নের লক্ষ্যে পৌরসভার উদ্যেগ গ্রহণ করেছি। আমরা ওয়ার্ড কাউন্সিলরগণ ও স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিদের নিয়ে ওয়ার্ড আইন-শৃঙ্খলা বিষয়ক কমিটি গঠনের কার্যক্রম শুরু করেছি। আইনশৃঙ্খলা উন্নতির লক্ষ্যে আমি এবং আমার পৌরপরিষদ অত্যন্ত আন্তরিক। এ বিষয়ে আপনাদের সকলের অন্তরিক সহযোগিতা কামনা করছি।সাভার পৌর মেয়র হাজী আব্দুল গণি বলেন, চলতি ২০১৫-২০১৬ অর্থ বছরের সংশোধিত বাজেট এবং আগামী ২০১৬-২০১৭ অর্থ বছরের প্রস্তাবিত বাজেট চূড়ান্তভাবে প্রণয়নের পূর্বে সাভার পৌর এলাকার বিভিন্ন ওয়ার্ডের গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গকে নিয়ে খসড়া বাজেটের বিভিন্ন বিষয়ে টিএলসিসি এর মিটিং এ আলোচনা করা হয়েছে। তাদের আলোচনা এবং মতামতকে গুরুত্বের সাথে বিবেচনা করে তাদের সুপারিশ এ বাজেটে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। ইতোমধ্যে পৌরপরিষদ এ বাজেট অনুমোদন করেছে।তিনি বলেন, আপনাদের সদয় অবগতির জন্য জানাচ্ছি যে, আগামী ২০১৬-২০১৭ অর্থ বছরে জন্য রাজস্ব এবং উন্নয়ন খাত মিলে প্রায় ১২৩ কোটি ৩২ লক্ষ ৫১ হাজার ১৪৮ টাকা বাজেট পৌর-পরিষদ অনুমোদন করেছেন। যা সাভার পৌরসভার ইতিহাসে সর্বোচ্চ বাজেট।তিনি আরও বলেন, এ পৌরসভা আপনাদেরই। আমি এবং আমাদের পরিষদ আপনাদের দায়িত্ব পালন করছি মাত্র। বিগত দিনে যতটুকু সফলতা আনতে পেরেছি তার মূল্যায়নের ভার আপনাদের উপর রইল। পৌরপরিষদের সকল সদস্য এবং পৌরসভার সকল কর্মকর্তা-কর্মচারী মিলে আমরা যাতে সততা ও নিষ্ঠার সাথে সাভার পৌরবাসীর অধিকতর সেবা দিতে পারি এবং পৌরসভার সকল নাগরিককে সাথে নিয়ে পৌরসভাকে একটি আদর্শ সেবা প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান হিসেবে গড়ে তুলতে পারি সে জন্য আপনাদের সকলের আন্তরিক সহযোগিতা এবং মূল্যবান পরামর্শ একান্তভাবে কামনা করছি। ক্ষেত্র বিশেষে অনিচ্ছাকৃত ভুল হলেও হতে পারে, এক্ষেত্রে আপনাদের সুপরামর্শ সহায়ক শক্তি হিসেবে কাজ করবে বলে আশা করি।সাভার পৌর মেয়র হাজী আব্দুল গণি বলেন, সাভার পৌরসভার নির্বাচনের পূর্বে অঙ্গীকার করেছিলাম আমাকে পৌর মেয়র নির্বাচিত করা হলে সাভার পৌরসভাকে একটি আধূনিক,পরিচ্ছন্ন ও বাস উপযোগী মডেল পৌরসভায় রূপান্তর করবো। অবহেলিত রাস্তা,ড্রেণ,সোয়ারেজ লাইন ও জলাবদ্ধতা নিরসন আমার একার পক্ষে কোন ক্রমেই করা সম্ভব নয়। আমাকে আপনারা ভোট দিয়ে আপনাদের সেবা করার জন্য পৌর মেয়র নির্বাচিত করেছেন। আমি সাভার পৌরসভার সর্বস্তরের জনগণের সার্বিক সহযোগিতা কামনা করছি। আপনাদের সহযোগিতা পেলে আগামী দিনে সাভার পৌরসভাকে সারা বাংলাদেশের মধ্যে একটি দৃষ্টান্ত  দেবার মত মডেল পৌরসভা হিসেবে গড়ে তুলতে পারবো।পৌর মেয়র আরও বলেন, সাভারের বিভিন্ন এলাকা হতে কষ্ট করে এ বাজেট অনুষ্ঠানে  আসার জন্য আমি তথা আমার পৌরপরিষদের পক্ষ হতে আপনাদের সকলকে কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করছি।


Add comment


Security code
Refresh