Slideshows

ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার

পরিচালনা পরিষদ 

সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি

ওসমান গনি
 

প্রধান সম্পাদক

হাকিকুল ইসলাম খোকন
 

সম্পাদক

সুহাস বড়ুয়া হাসু
 

সহযোগী সম্পাদক

আয়েশা আকতার রুবী

ট্রাম্পের ওভাল অফিসে চার্চিলের মুর্তিটি ভুয়া ছিল!

বুধবার, ০৮ ফেব্রুয়ারী ২০১৭

বাপ্ নিউজ : মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়ার পর ডোনাল্ড ট্রাম্প সাংবাদিকদের তার অফিসে প্রথম দিনেই আমন্ত্রণ জানান। তিনি ওইদিন গুরুত্বপূর্ণ কয়েকটি সিদ্ধান্ত নেন। এসময় সাংবাদিকরা তার কক্ষে ব্রিটিশ সমরনায়ক উইস্টন চার্চিলের একটি আবক্ষমূর্তি দেখতে পান। এ নিয়ে সচিত্র প্রতিবেদন প্রকাশ করে মিডিয়া। প্রশংসিত হন ট্রাম্প। এসব প্রতিবেদনে এও বলা হয়, সাবেক প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা চার্চিলের মূর্তিটি সরিয়ে রেখেছিলেন। কিন্তু এখন বলা হচ্ছে চার্চিলের যে মূর্তিটি ট্রাম্পের অফিস কক্ষে দেখা গেছে সেটি আসল মূর্তি ছিল না। ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে যুক্তরাষ্ট্র সফরে এলে চার্চিলের আসল মূর্তিটি সেখানে আনা হয়। নকল মূর্তিটি সরিয়ে ট্রাম্পের প্রথমদিন অফিসের ৯দিন পর আসলটি সেখানে প্রতিস্থাপন করা হয়। ব্রিটিশ ট্যাবলয়েড দি সান এমন দাবি করছে।

Picture

সময়মত খুঁজে না পাওয়ার কারণেই চার্চিলের নকল মুর্তিটি ওভাল অফিসে ট্রাম্পের কক্ষে রাখা হয়। জর্জ ডব্লিউ বুশ যখন প্রেসিডেন্ট ছিলেন তখন ব্রিটিশ দূতাবাস চার্চিলের ওই আবক্ষ মূর্তিটি প্রেসিডেন্ট বুশকে উপহার দেন। কিন্তু প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা ক্ষমতায় আসার পর তিনি তা সরিয়ে মার্টিন লুথার কিং’এর মূর্তিটি রাখেন। প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প নির্বাচিত হওয়ার পর চার্চিলের মূর্তিটি পুনরায় নিয়ে আসতে বলেন। কিন্তু চার্চিলের আসল মূর্তিটি ছিল ওয়াশিংটনের ব্রিটিশ দূতাবাসের স্টোরে। সময়মত খুঁজে না পাওয়ার কারণে তা অভিষেকের দিন আনা সম্ভব হয়নি। চার্চিলের দুটি মূর্তির মধ্যে এ পার্থক্য ঠিকই ধরা পড়ে যুক্তরাষ্ট্র বংশদ্ভুত ব্রিটিশ ভাস্কর জ্যাকব এপস্টেইনের চোখে। আসল মূর্তিটির চেয়ে চার্চিলের নকলটি কিছুটা চকচকে।