Slideshows

ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার

পরিচালনা পরিষদ 

সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি

ওসমান গনি
 

প্রধান সম্পাদক

হাকিকুল ইসলাম খোকন
 

সম্পাদক

সুহাস বড়ুয়া হাসু
 

সহযোগী সম্পাদক

আয়েশা আকতার রুবী

কংগ্রেসে প্রথম ভাষণে যা বললেন ডোনাল্ড ট্রাম্প

বুধবার, ০১ মার্চ ২০১৭

হাকিকুল ইসলাম খোকন,মো:নাসির,ওসমান গনি,সুহাস বডুয়া, হেলাল মাহমুদ,আয়েশ আক্তার রুবি,বাপসনিঊজ:প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হয়ে প্রথমবারের মতো কংগ্রেসে ভাষণ দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। শুরুতেই তিনি কংগ্রেসে ওষুধের দাম কমানোর প্রতি গুরুত্বারোপ করেন। কংগ্রেস ও প্রশাসনকে একসঙ্গে কাজ করে কৃত্রিমভাবে ওষুধের দাম রোধ করা উচিৎ বলে মনে করেন ট্রাম্প।নির্বাচনী প্রচারণায় ট্রাম্পের প্রতিশ্রুতি ছিল ওষুধের দাম কমাবেন। সেই প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়নের জন্য ডেমোক্রেট নেতারা চাপ প্রয়োগ করলে ট্রাম্প তার প্রথম কংগ্রেস ভাসনে ওষুধের দাম কমানোর কথা বলেন।

Picture

ট্রাম্প প্রথমবার কংগ্রেস ভাষনে ৬০ মিনিট ৮ সেকেন্ড বক্তৃতা দেন। এটি কংগ্রেসে কয়েক দশকের মধ্যে দীর্ঘ বক্তৃতা। এর আগে তার পূর্বসূরি বিল ক্লিনটন প্রথম কংগ্রেসে প্রেসিডেন্সিয়াল ভাষণে দিয়েছিলেন ৬০ মিনিট ৬ সেকেন্ড। মাত্র কয়েক দুই সেকেন্ডের ব্যবধানে এখন প্রথম দীর্ঘ বক্তৃতার অধিকারী ট্রাম্প।

প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প তার প্রথম কংগ্রেসের বক্তৃতায় ‘অযোক্তিক তর্ক’ ও ‘ ছোট চিন্তা’ বাদ দিয়ে দেশকে এগিয়ে নেওয়ার জন্য বড় বড় চিন্তার কথা বলেন। তিনি কংগ্রেসের সব সদস্য ও দেশের মানুষকে আমেরিকার চেতনাকে ধারণ করে দেশকে গতিশীল করতে স্বপ্নকে বড় করার আহবান জানান।

download

ট্রাম্প তার বক্তৃতায় ইয়েমেনে অভিযান চালানো মার্কিন নৌ বাহিনীর কর্মকর্তা রায়ান ওয়েন্সের বিধবা স্ত্রীকে সম্মান জানান। এ সময় ট্রাম্প বলেন, রায়ান তার বন্ধুর জন্য, তার দেশের জন্য ও আমাদের স্বাধীনতার জন্য জীবন উৎস্বর্গ করেছেন। আমরা তাকে কখনোই ভুলবো না।

ট্রাম্প আরো বলেন, রায়ান খুবই সফল অভিযান পরিচালনা করেছেন বলে প্রতিরক্ষামন্ত্রী জেমস ম্যাটিস আমাকে জানিয়েছেন। এ সময় কংগ্রেসে উপস্থিত সবাই করতালি ও জয়ধ্বনী দিয়ে নিহতের বিধবাকে স্ত্রীকে সম্মান জানান।
কংগ্রেসের যৌথ অধিবেশনে দেওয়া ভাষনে ট্রাম্প ইহুদি কমিউনিটি সেন্টারে ও ইহুদি কবরস্থানে হামলার কথা উল্লেখ করে বলেন আমরা এমন একটি জাতি যারা সব ধরনের বৈষম্যকে ঘৃণা করি। তিনি বলেন তিনি এর মধ্যে দিয়ে সম্প্রীতি ও শক্তির বার্তা দিতে চান।

170228212727-09-trump-joint-address-congress-exlarge-tease

বক্তৃতায় ট্রাম্প ইহুদিদের সমাধিক্ষেত্রে ভাঙচুর ও কানসাস অঙ্গরাজ্যে ভারতীয়কে গুলি করে হত্যার নিন্দা জানান ট্রাম্প। সম্প্রতি ঘটে যাওয়া বিভিন্ন সন্ত্রাসবাদ ‘আমাদের মনে করিয়ে দেয় আমাদের জাতি নীতিগত দিক থেকে আলাদা হতে পারে, তবে ঘৃণা ও অপশক্তির বিরুদ্ধে সব সময়ই একত্রিত থেকেছে।

প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প তার গত এক মাসেরও বেশি সময়ে প্রেসিডেন্ট হিসেবে নেওয়া দায়িত্বকালে সাফল্যের বিবরণ দেন। বলেন, আমাদের মিত্ররা এখন থেকে বুঝতে পারবেন আমেরিকা আবারো নেতৃত্বের অবস্থানে। অবৈধ অভিবাসীদের যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশ ঠেকাতে সীমান্ত দেয়াল তোলা হবে। জঙ্গিবাদী ইসলামিক শক্তি প্রতিরোধের দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করেন ট্রাম্প।

তিনি বলেন, ৯/১১ থেকে শুরু করে যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন স্থানে এবং ফ্রান্স জার্মানি সর্বত্র যারা সন্ত্রাস ঘটিয়েছে তাদেরকে প্রতিহত করতে হবে। যুক্তরাষ্ট্রের স্বাধীনতার ১০০ বছর পূর্তির কথা স্মরণ করলে দেখা যায় টাইপরাইটার, টেলিফোন, টেলিগ্রাফ আবিস্কারের ইতিহাস; সবই আমেরিকার। ২০২৬ সালে ২৫০তম বার্ষিকীতে আরো বহু আশ্চর্য আবিস্কার করবে আমেরিকানরা।

আমেরিকানদের সাধ্যসম্মত স্বাস্থ্যসেবার জন্যে ট্রাম্প  ডোমেক্রেট ও রিপাবলিকান উভয় দলকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করার আহবান জানান। ওবামাকেয়ার বাতিল করে নতুন স্বাস্থ্যসেবা আইন করার কথা বলেন ট্রাম্প। তিনি নতুন বাবা মায়েদের জন্য ফ্যামিলি লিভ করা, পরিচ্ছন্ন বাতাস ও পরিচ্ছন্ন পানি নিশ্চিত করা এবং সেনাবাহিনী ও অবকাঠামোগত পূনর্গঠনের প্রতিশ্র“তি দেন তাঁর ভাষণে।

article-4269814-3DD32C4600000578-805_636x382

প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের এক ঘন্টার বক্তব্যের সময় ডেমোক্রেট আইন প্রণেতারা নীরব ছিলেন। তাঁদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, নতুন প্রজন্মের আমেরিকানদের জন্য আমাদেরকে কমন গ্রাউন্ড বিবেবচনা করে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করতে হবে। সুবিধা বঞ্চিত শিশুদের শিক্ষার সহায়তা করার লক্ষ্যে তহবিল বরাদ্দের জন্য কংগ্রেসের প্রতি আহবান জানান ট্রাম্প।

আমেরিকানদের নিরাপত্তাকে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার দেয়ার অঙ্গীকার করে ট্রাম্প বলেন, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রনালয়কে নির্দেশ দিয়েছি যারা কোনো ধরনের সন্ত্রাসের শিকার হয়েছেন তাদের সহায়তার লক্ষ্যে যেনো পৃথক একটি বিভাগ খোলা হয়। অবৈধ অভিবাসিদের দ্বারা হামলার শিকার হয়েছেন যেসকল আমেরিকান তাদের জন্যেও বিশেষ সহায়তা বিভাগ খোলা হবে।

সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহবান জানিয়ে বলেন, ‘আমরা এক জাতি একই গন্তব্য যাচ্ছি, একই রক্ত আমাদের শরীরে বয়ে চলেছে, আমরা একই পতাকায় স্যালুট করি এবং আমরা সবাই একই সৃষ্টিকর্তার তৈরি।

আমেরিকার চেতনাকে পুনরুজ্জীবিত করতে আশাবাদের একটি নতুন জোয়ার এসেছে, যা অসম্ভব স্বপ্নকে আমাদের মুঠির মধ্যে নিয়ে আসছে। এর মধ্য দিয়ে আমেরিকার বিশালত্বের একটি নতুন অধ্যায় দেখতে পাচ্ছি বলেন ট্রাম্প।

ট্রাম্প আন্তঃপ্রশান্ত মহাসাগরীয় অংশীদারি ব্যবসা চুক্তি থেকে যুক্তরাষ্ট্রের প্রত্যাহারের বিষয়ে তাঁর সিদ্ধান্ত ও মেক্সিকো সীমান্তে দেয়াল তোলার বিষয়েও কথা বলেন।

ট্রাম্প বলেন, অভিবাসী আইন প্রয়োগের মাধ্যমে আমাদের বেতন বাড়বে, বেকারদের চাকরি হবে, কোটি কোটি ডলারের ব্যয় কমে যাবে এবং আমাদের সমাজ সবার জন্য নিরাপদ হবে। আমি চাই সব আমেরিকান সফল হোক। কিন্তু অনাচার ও গোলযোগের মধ্যে তা হতে পারে না।

নিজের ওপর বিশ্বাস, ভবিষ্যতের ওপর আস্থা ও আরেকবার আমেরিকার প্রতি বিশ্বাস রেখে বক্তব্য শেষ করেন ট্রাম্প। দ্য হিল, সিএনএন, বিবিসি, ওয়াশিংটন টাইমস অবলম্বনে