Slideshows

ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার

পরিচালনা পরিষদ 

সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি

ওসমান গনি
 

প্রধান সম্পাদক

হাকিকুল ইসলাম খোকন
 

সম্পাদক

সুহাস বড়ুয়া হাসু
 

সহযোগী সম্পাদক

আয়েশা আকতার রুবী

কুরআন ছুঁয়ে শপথ নিলেন আমেরিকার ডেমোক্রেটিক পার্টির কিথ

সোমবার, ০৬ মার্চ ২০১৭

বাপ্ নিউজ : আমেরিকার ডেমোক্রেটিক পার্টির দ্বিতীয় সর্বোচ্চ নেতা হিসেবে পবিত্র কুরআন শরীফ ছুঁয়ে শপথের মাধ্যমে নেতৃত্ব গ্রহণ করলেন সুন্নি মুসলিম কিথ এলিসন। আমেরিকার ডেমোক্রেট জনগণ তাকে নির্বাচিত করেছেন। আমেরিকার বৃহত্তম রাজনৈতিক দল ডেমোক্রেটিক পার্টির শীর্ষ পদে আসীন হওয়া মুসলিম কিথ এলিসনই প্রথম মুসলিম ব্যক্তি।

আমেরিকার রাজনীতিতে এক নাটকীয় ঘটনার জন্ম হয়েছে বলে মন্তব্য রাজনৈতিক বিবিশ্লেষকদের। কারণ, প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প যেখানে মুসলিম নাগরিকদের বিশেষ করে মুসলিম সাত দেশের নাগরিকদের আমেরিকায় প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে। সেখানে তারাই আবার ডোমেক্রেটরা দলের উপ-চেয়ারম্যান হিসেবে নির্বাচিত করেছেন সুন্নি মুসলিম কিথ এলিসনকে।

১৯৬৩ সালের ৪ আগস্ট মিশিগানের ডেট্রয়েটে এক ক্যাথলিক খ্রিস্টান পরিবারে জন্মগ্রহণ করা কিথের পূর্ণ নাম হলো- কিথ মাউরিস এলিসন।  তিনি ১৯ বছর বয়সে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেন। তিনি ২০০৬ সালে কংগ্রেসম্যান নির্বাচিত হয়ে প্রথম কুরআন শপথ নিয়েছিলেন। এই এলিসন-ই একজন সুন্নি মুসলিম এবং মার্কিন রাজনীতিতে উদারপন্থি হিসেবে সমাধিক পরিচিত।

Picture

ডোনাল্ড ট্রাম্পের নির্বাচনের আগে ডেমোক্রেটিকদের মধ্যে তিনি প্রকাশ্যেই ঘোষণা করেছিলেন যে, ডোনাল্ড ট্রাম্প আমেরিকার নতুন প্রেসিডেন্ট হিসেবে নির্বাচিত হতে যাচ্ছেন। এ কারণেই ডেমোক্রেটিক পার্টির রাজনীতিতে তাকে দূরদর্শীতাসম্পন্ন তারকা হিসেবে বিবেচনা করা হয়।

তিনি দলীয় এ পদ লাভের আগে কংগ্রেশনাল প্রগ্রেসিভ ককাসের কো-চেয়ারম্যান, চিফ ডেপুটি হুইপ ও হাউস কমিটি অন ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিসের সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছিলেন।

তাছাড়া ইন্ডিয়ানা অঙ্গরাজ্য থেকে আন্দ্রে কারসন ও এলিসনই এখন মার্কিন কংগ্রেসের মুসলিম সদস্য। মিনেসোটা থেকে আমেরিকার কংগ্রেসে নির্বাচিত প্রথম আফ্রিকান-মুসলিমও তিনি।

পরিশেষে..
এলিসন ২০০৬ সালে কংগ্রেসম্যান নির্বাচিত হয়ে যেমন ইতিহাস সৃষ্টি করেছিলেন, ঠিক তেমনি এবার দলের উপ-প্রধান নির্বাচিত হয়ে সৃষ্টি করলেন নতুন ইতিহাস। যা আমেরিকার রাজনীতিকে বিশ্বব্যাপী আরো উদার এবং জনপ্রিয় করে তুলবে।