Slideshows

ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার

পরিচালনা পরিষদ 

সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি

ওসমান গনি
 

প্রধান সম্পাদক

হাকিকুল ইসলাম খোকন
 

সম্পাদক

সুহাস বড়ুয়া হাসু
 

সহযোগী সম্পাদক

আয়েশা আকতার রুবী

বসন্তের সৌন্দর্য-বনজুঁই ফুল

শনিবার, ১১ মার্চ ২০১৭

মোহাম্মদ নূর আলম গন্ধী : বাপ্‌স নিউজ : অযতেœ অবহেলায় বেড়ে উঠা ফুল বন জুঁই। তাছাড়া এ ফুলটি একটি বনু ফুলও বটে।তবে এ ফুলের গুরুত্ব কম থাকলেও প্রকৃতি পরিবেশের সৌন্দর্য বিকাশে রয়েছে এর ভূমিকা অপার।ক্ষুদ্রাকৃতির ঝোপালো ফুল গাছ এবং গাছ ঝোপালো ভাবে জন্মে। গ্রামীন পর্যায়ে এ ফুল গাছটি আবার ভাঁট গাছ হিসেবে পরিচিত। পরিবারঃ Verbenaceae,উদ্ভিদ তাত্বিক নামঃ  Cleroden druminerme। গাছের গড় উচ্চতা ৩ থেকে ৫ ফুট হয়ে থাকে। গাছ অত্যন্ত কষ্ট সহিষ্ণু,পরিবেশ প্রতিকূলতার মাঝেও নিজেদের বংশ টিকিয়ে রাখতে সক্ষম।গাছের পাতা গাঢ় সবুজ,কিনারায় হাল্কা খাঁজকাটা থাকে। শিরা উপশিরা স্পষ্ট,আকারে ত্রিকোণাকৃতির। পাতা কচলালে তা থেকে উগ্র গন্ধ বের হয়।

ফুল ফোটার মৌসুম বসন্ত কাল এবং বসন্তের শুরুতে এর ফুল ফোটে। যার ব্যপ্তিকাল পুরু  বসন্তকাল অবধি। ফুলে সুমিষ্ট ঘ্রাণ রয়েছে। এ ফুলের ঘ্রাণ গাঁয়ের মেঠো পথে হেটে যাওয়া পথিকের মনকে আকুল করে। গাছের শাখা-প্রশাখার অগ্রভাগে থোকা-থোকা ফুল ফোটে। ফুলের রং সাদা-বেগুনী মিশ্র রঙের,ফুলের মাঝখানে পরাগ অবস্থিত এবং লম্বা আকৃতির পুংদন্ড অবস্থিত।পাপড়ি ৫ টি। বীজ ও শিকড়ের মাধ্যমে এ ফুল গাছের বংশ বিস্তার ঘটে। আমাদের দেশে বনাঞ্চল,পুকুড় পাড়,রাস্তার ধার,বাঁধের ধার,পতিত জমিতে বন জুঁই ফুল গাছ উৎপাদন চোখে পড়ে এবং এর ফলে এসব স্থানের মাটির ক্ষয় রোধ কল্পেও বিশেষ কার্যকরী উদ্ভিদ বন জুঁই। ভেষজ গুণে গুণান্বিত এ ফুল গাছ ম্যালেরিয়া ,চর্মরোগ ও পোকামাকড়ের কামড়ে অত্যন্ত উপকারী।