Slideshows

ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার

পরিচালনা পরিষদ 

সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি

ওসমান গনি
 

প্রধান সম্পাদক

হাকিকুল ইসলাম খোকন
 

সম্পাদক

সুহাস বড়ুয়া হাসু
 

সহযোগী সম্পাদক

আয়েশা আকতার রুবী

গোলাম কিবরিয়া দাড়িয়া চেয়ারম্যান নির্বাচিত গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়ার হিরন ইউনিয়নে শান্তিপুর্ন ভাবে নির্বাচন সম্পন্ন

বুধবার, ১৯ এপ্রিল ২০১৭

এম শিমুল খান,বাপ্‌স নিউজ : ,গোপালগঞ্জ  প্রতিনিধি : গোপালগঞ্জ জেলার কোটালীপাড়া উপজেলার হিরন ইউনিয়নের নির্বাচন শান্তিপুর্ন ভাবে সম্পন্ন হয়েছে। ইউনিয়নের ৯টি ভোট কেন্দ্রে সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত বিরতিহীন ভাবে এ ভোট গ্রহন অনুষ্ঠিত হয়। জেলা ও উপজেলা নির্বাচন কমিশন ও জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তাদের যৌথ সমন্বয়ে নজির বিহীন নিরাপত্তার মধ্যে দিয়ে অবাধ, নিরপেক্ষ, সুষ্ঠ ও শান্তিপুর্ন, উৎসব মুখর পরিবেশে ভোটাররা তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন। আইন শৃংখলা রক্ষাকারি বাহিনী আনসার, পুলিশ, র‌্যাব, বিজিবি সদস্যেদের সমন্বয়ে তিন স্তরের নিরাপত্তা বলয়ের মধ্যে দিয়ে এ ভোট গ্রহন অনুষ্ঠিত হয়। এছাড়াও বিভিন্ন ইলেক্ট্রিক মিডিয়া ও প্রিন্ট মিডিয়ার কর্মীরা ছিল নির্বাচনী মাঠে।
সকল কেন্দ্রেই ভোটারদের উপস্থিতি ছিল চোখে পড়ার মত। তারাশী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ওয়েষ্ট কোটালীপাড়া ইউনিয়ন ইনষ্টিটিউশন, লোহারঅংক সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, হিরন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, দক্ষিন হিরন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, বর্ষাপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, পুর্ব আশুতিয়া এবতেদায়ী মাদ্রাসা, আশুতিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও পোলসাইর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্র গুলি ঘুরে দেখা গেছে প্রায় সকল ভোট কেন্দ্র গুলোতে পুরুষ ভোটারের থেকে মহিলা ভোটারদের উপস্থিতি ছিল বেশী। সকাল ৮টায় ভোট গ্রহন শুরু হলেও বেলা বাড়ার সাথে সাথে কেন্দ্র গুলিতে ভোটারদের উপস্থিতি বাড়তে থাকে। দুপুরে ভোটার উপস্থিতি কম থাকলেও দুপুর পর থেকে আস্তে আস্তে ভোটার উপস্থিতি বাড়তে থাকে। তবে নির্বাচন চলাকালিন সময়ে কোন কেন্দ্রে কোন অপ্রিতিকর ঘটনার খবর পাওয়া যায়নি।
বে-সরকারী ফলাফলের ভিত্তিত্বে জানা যায়, চেয়ারম্যান পদে চশমা প্রতিক নিয়ে ৬,৯৬৫ ভোট পেয়ে বেসরকারি ভাবে চেয়ারম্যান হিসেবে নির্বাচিত হন গোলাম কিবরিয়া দাড়িয়া। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দী প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান মুন্সী এবাদুল ইসলাম আনারস প্রতিক নিয়ে ৫,৪১৩ ভোট পান।


অপরদিকে যারা ইউপি সদস্য সাধারন আসনে নির্বাচিত হয়েছেন তারা হলেন, ১ নং ওয়ার্ডে শাহ্ আলম শেখ (শাহানুর), ২নং ওয়ার্ডে সবুর শেখ, ৩নং ওয়ার্ডে মুছা বিশ্বাস, ৪নং ওয়ার্ডে লিটু খান, ৫নং ওয়ার্ডে মেহেদী হাসান, ৬নং ওয়ার্ডে লায়েক বিশ্বাস, ৭নং ওয়ার্ডে জাহিদ মোল্লা, ৮নং ওয়ার্ডে মোতাহার মোল্লা, ৯নং ওয়ার্ডে মৃনাল মৌলিক বেসরকারি ভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। অন্যদিকে সংরক্ষিত আসন ১ নং ওয়ার্ডে রাশিদা বেগম (পুতুল), ২নং ওয়ার্ডে নাদিরা বেগম, ৩নং ওয়ার্ডে ছুইটি বেগম বেসরকারি ভাবে নির্বাচিত হয়েছেন।
কোটালীপাড়া উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা হাসান উদ্দীন জানান, আমাদের হিরন ইউনিয়নের নির্বাচন নিয়ে অনেক জল্পনা-কল্পনা থাকলেও আমাদের সকলের প্রচেষ্টায় শান্তিপুর্ন ভাবে আমরা নির্বাচন সুষ্ঠ ভাবে সম্পন্ন করতে পেরেছি।
জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মুন্সি ওয়াহিদুজ্জামান জানান, হিরন ইউনিয়নের নির্বাচন নিয়ে অনেক জল্পনা-কল্পনা থাকলেও সকলের প্রচেষ্টায় শান্তিপুর্ন ভাবে নির্বাচন সুষ্ঠ ভাবে সম্পন্ন হয়েছে।
উল্লেখ হিরন ইউনিয়নে মোট ভোটার সংখ্যা ১৬,২০৭ জন, পুরুষ ৮,৩৪২ জন, মহিলা ৭,৮৬৫ বিগত ২০১৬ সালের ৩১ মার্চ এ ইউনিয়নের নির্বাচন হবার কথা ছিল। কিন্তু মামলা জনিত কারনে নির্বাচন স্থগিত হয়ে যায়। দলীয় ভাবে এ ইউনিয়নে কোন চেয়ারম্যান প্রার্থী নির্বাচন করেননি।


গোপালগঞ্জ-কাশিয়ানী-টুঙ্গীপাড়া রেলে ব্যয় বাড়ল ২২৩ কোটি টাকা
এম শিমুল খান,বাপ্‌স নিউজ : ,গোপালগঞ্জ  প্রতিনিধি : বাংলাদেশ রেলওয়ের কালুখালী-ভাটিয়াপাড়া সেকশন পুনর্বাসন এবং কাশিয়ানী-গোপালগঞ্জ-টুঙ্গীপাড়া পর্যন্ত নতুন রেলপথ নির্মাণ (প্রথম সংশোধিত) শীর্ষক প্রকল্পে ২২৩ কোটি ২১ লাখ টাকা বাড়ানোর প্রস্তাবে সম্মতি দিয়েছে সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটি।
সচিবালয়ে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিতের সভাপতিত্বে কমিটির এক সভায় এ অনুমোদন দেয়া হয়। এ প্রস্তাবসহ আরও ১৩টি ক্রয় প্রস্তাব অনুমোদন দিয়েছে কমিটি। বৈঠক শেষে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব মোস্তাফিজুর রহমান এ সব তথ্য সাংবাদিকদের জানান।
মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, কালুখালী-ভাটিয়াপাড়া সেকশন পুনর্বাসন এবং কাশিয়ানী-গোপালগঞ্জ-টুঙ্গীপাড়া পর্যন্ত নতুন রেলপথ নির্মাণ (প্রথম সংশোধিত) শীর্ষক প্রকল্পের মূল চুক্তিতে ব্যয় ধরা হয়েছিল ৫৯৯ কোটি টাকা। এর সঙ্গে ২২৩ কোটি ২১ লাখ টাকা বাড়ানোর কারণে এখন ব্যয় দাঁড়িয়েছে ৮২২ কোটি ৩৩ কোটি টাকা।
তিনি আরো বলেন, প্রকল্পের কাজের মধ্যে রয়েছে কাশিয়ানি-গোপালগঞ্জ সেকশনের পিএসসি স্লিপার, নতুন বাঁধ নির্মাণ, ছোট-বড় ব্রিজ নির্মাণ, স্টেশন ভবন, প্লাটফর্ম, লেভেল ক্রসিং গেট, একটি ফ্লাইওভার নির্মাণ প্রভৃতি।


গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়ায় মাই টিভির অষ্টম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত
এম শিমুল খান,বাপ্‌স নিউজ : ,গোপালগঞ্জ  প্রতিনিধি : গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়ায় আলোচনা সভা ও আনন্দ র‌্যালীর মধ্যে দিয়ে মাই টিভির অষ্টম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত হয়। শনিবার বেলা ১১টায় কোটালীপাড়া উপজেলা রিপোটার্স ক্লাবে মাই টিভির প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।
আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন কোটালীপাড়া মাই টিভি প্রতিনিধি কাজী পলাশ। এ সময় প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন জেলা পরিষদ সদস্য নজরুল ইসলাম হাজরা মুন্নু, বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন কোটালীপাড়া প্রেসক্লাবের সভাপতি এইচ এম কামাল হোসেন, রিপোটার্স ক্লাবের সভাপতি মোল্লা মহিউদ্দিন, জেলা রিপোটার্স ক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি আরিফুল হক আরিফ, মিজানুর রহমান বুলু, এইচ,এম মেহেদী হাসানসহ স্থানীয় বিভিন্ন প্রিন্ট মিডিয়ার সাংবাদিক বৃন্দ।
এরপর সেখানে কেক কেটে প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত হয়। পরে উপজেলা চত্তর থেকে একটি র‌্যালী বের হয়ে বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিন শেষে একই স্থানে গিয়ে শেষ হয়।


গোপালগঞ্জের কাশিয়ানীতে মাই টিভির ৮ম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত
এম শিমুল খান,বাপ্‌স নিউজ : ,গোপালগঞ্জ  প্রতিনিধি : গোপালগঞ্জের কাশিয়ানীতে নানা কর্মসূচীর মধ্য দিয়ে মাই টিভি‘র ৮ম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত হয়েছে। রোববার বেলা ১১ টায় বর্ণাঢ্য র‌্যালী ও কেক কাটার মাধমে প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন করা হয়। মাই টিভির কাশিয়ানী উপজেলা প্রতিনিধির কার্যালয় থেকে বর্ণাঢ্য র‌্যালী বের হয়ে উপজেলার বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে একই স্থানে এসে শেষ হয়।
মাই টিভির কাশিয়ানী উপজেলা প্রতিনিধি লিয়াকত হোসেন লিংকনের আয়োজনে র‌্যালী ও কেক কাটা অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন কাশিয়ানী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এ কে এম আলীনুর হোসেন, সদর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মশিউর রহমান খান, প্রেস ক্লাবের সভাপতি হানিফ মাহমুদ, সাংবাদিক মিকাইল মিয়া, সাদেক আহমেদ, এম এ জামান।
এছাড়া আরো উপস্থিত ছিলেন সাংবাদিক হেমায়েত মোল্যা, মোস্তফা সরদার, শহিদুল আলম মুন্না, শ্যামল দত্ত, নাজমুল হাসান রাজ, মাসুদ রানা, বিজু মোল্যা, সৈয়দ রাজিব হোসেন পরশ উজির, মোহাম্মাদ আলী উজিরসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।