Slideshows

ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার

পরিচালনা পরিষদ 

সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি

ওসমান গনি
 

প্রধান সম্পাদক

হাকিকুল ইসলাম খোকন
 

সম্পাদক

সুহাস বড়ুয়া হাসু
 

সহযোগী সম্পাদক

আয়েশা আকতার রুবী

জর্জিয়ায় জেসমিন খান মিলির উদ্যোগে বাংলা নববর্ষ উৎযাপিত

বুধবার, ১৯ এপ্রিল ২০১৭

বাপ্ নিউজ : জর্জিয়া থেকে : দেশ থেকে বহু দূরে থাকলেও নাড়ির টান কখনো ভুলে যাওয়ার নয়। দূর প্রবাসে থেকেও ভুলে যায়নি বাঙ্গালি সভ্যতা,সংস্কৃতি,যেন মিশে আছে তাদের আষ্টে পিষ্টে,গৌরবের ঐতিহ্যর স্বমহিমায়।

Picture

তাইতো দেশ থেকে হাজার কিলোমিটার দূরে থেকেও নিজ সংস্কৃতিকে চিত্তে ধারণ করে বাংলার ঐতিহাসিক পহেলা বৈশাখে বাংলা নববর্ষ উৎসবের রং ছড়িয়ে পড়ে জর্জিয়াতেও। তাইতো আনন্দে-উচ্ছ্বাসে মেতে উঠে জর্জিয়ার প্রবাসী বাংলাদেশিরা।

alt

ধর্ম-বর্ণ, শ্রেণি-পেশা নির্বিশেষে সব বয়সের মানুষ একযোগে গাইলেন, জর্জিয়ায়ও রব উঠেছে এসো হে বৈশাখ এসো এসো..সব গ্লানি মুছে নবোদ্যমে শুরু হোকে পথচলা। বাঁধভাঙা প্রাণের উচ্ছ্বাসে বাংলা নতুন বছর ১৪২৪ বরণ করে নিলেন জর্জিয়ার প্রবাসী বাংলাদেশিরা।

alt

যান্ত্রিক নাগরিক কোলাহল পেরিয়ে সময়ের একটু ফাঁকে,বহুদিনের লালিত স্বপ্ন, বহু আকাঙ্খার প্রত্যাশিত প্রতিফলনে, জেসমিন খান মিলির উদ্যোগে অনুষ্ঠিত হয়ে গেল বাংলা নববর্ষ, পয়লা বৈশাখ। বিপুল উৎসাহ,উদ্দিপনার মধ্যে অনুষ্ঠিত হয় এই মিলন মেলা। বিপুলসংখ্যক জর্জিয়ার প্রবাসী বাংলাদেশি সপরিবারে অংশ গ্রহণ করেন বাংলা নববর্ষের এই জমকালো অনুষ্ঠানে।

alt

জেসমিন খান মিলি , হাইমান্তি বরুয়া, নার্গিস সুলতানা, রেশমা জাকির, রাশিদা বেগম, তামিনা শারমিন, সিমা সমাদ্দেন, বাবুল মিস্ত্রী , মিজান রাহমান, মাসুদ এইচ খান,  নাজরুল খান,খন্দকার এ হক , শাহিদুল আলম, শামিনা শাহিদা, শওকাত জাহান সহ আর অনেকে বাংলা নববর্ষের এই জমকালো অনুষ্ঠানে অংশ গ্রহণ করেন। সবার স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণ ,অনুষ্ঠানের আনন্দের মাত্রা বাড়িয়ে দেয় দ্বিগুণ ।

alt

সকাল থেকে বিভিন্ন প্রান্ত থেকে অথিতিদের আগমন এবং নানান রঙে,নানান সাঁজে দেশীয় ঐতিয্য পোশাকের প্রাধান্য ছিল চোখে পরার মত।

alt

এমনকি ছোট ছোট কোমল মোদী ছেলে মেয়েদেরকে তাদের দেশীয় সংস্কৃতি থেকে ভুলে যেতে দেয়নি তাদের অভিভাবকরা। দেশীয় পোশাক এবং তাদের কণ্ঠের কবিতায় তার প্রমান মেলে তারা কতটুকু বাংলার ঐতিয্যকে ধারন করে আছে তাদের প্রাণে ।

 alt

এসব অনুষ্ঠানের ছিল হরেক রকমের ভাজি-ভর্তাসহ পান্তা-ইলিশ খাওয়ার উৎসব।রং-বেরংয়ের বাহারি পোশাকে তাদের সদর্প পদচারনায় থিক থিক ভিড়ে অনুষ্ঠানস্থল হয়ে উঠেছিল ক্ষণিকের জন্য একখণ্ড মিনি বাংলাদেশ।

alt

ব্যাপক আনন্দ আর সুখ স্মৃতি নিয়ে জর্জিয়ার প্রবাসী বাংলাদেশিরা নিজ নিজ ঘরে ফিরে যায় উদ্যোক্তাদের কৃতজ্ঞতা আর ধন্যবাদ দিয়ে।


Add comment


Security code
Refresh