Slideshows

ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার

পরিচালনা পরিষদ 

সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি

ওসমান গনি
 

প্রধান সম্পাদক

হাকিকুল ইসলাম খোকন
 

সম্পাদক

সুহাস বড়ুয়া হাসু
 

সহযোগী সম্পাদক

আয়েশা আকতার রুবী

গোপালগঞ্জ শহরবাসীর জন্য ন্যায় বিচারের সুযোগ সৃষ্টি প্রকল্পের উদ্বোধন

বুধবার, ১৭ মে ২০১৭

এম শিমুল খান, বাপ্ নিউজ : গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি : গোপালগঞ্জ পৌরসভার প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর অধিকার প্রতিষ্ঠায় সহায়তার জন্য শহরবাসীর জন্য ন্যায় বিচারের সুযোগ সৃষ্টি নামে একটি প্রকল্পের উদ্বোধন করা হয়েছে মঙ্গলবার। গোপালগঞ্জ পৌরসভা ও মাদারীপুর লিগ্যাল এইড এসোসিয়েশনের যৌথ উদ্যোগে এ প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হবে। পৌর এলাকার দুঃস্থ অসহায় বিশেষ করে নারী ও শিশুদের আইনগত অধিকার প্রতিষ্ঠাই হবে এ প্রকল্পের মূল কাজ।
এ উপলক্ষে মঙ্গলবার সকাল ১১টায় গোপালগঞ্জ পৌরসভা মিলনায়তনে পৌর মেয়র কাজী লিয়াকত আলি লিকু প্রকল্পটির উদ্বোধন করেন।
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন গোপালগঞ্জ সদর উপজেলা চেয়ারম্যান শেখ লুৎফর রহমান বাচ্চু ও বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ আমিনুল ইসলাম ইসলাম। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন মাদারীপুর রিগ্যাল এইড এসোসিয়েশনের প্রধান সমন্বকারী এ্যাডভোকেট খান মোঃ শহীদ।
উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে পৌর কাউন্সিলরগন, সরকারী কর্মকর্তা, ডাক্তার, প্রকৌশলী, সাংবাদিক, ব্যবসায়ী ও উন্নয়ন কর্মীগন এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

গোপালগঞ্জে পুলিশের বিশেষ অভিযানে মাদক ব্যবসায়ীসহ আটক ২৪
এম শিমুল খান, বাপ্ নিউজ : গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি :গোপালগঞ্জে পুলিশ বিশেষ অভিযান চালিয়ে মাদক ব্যবসায়ীসহ ২৪ জনকে আটক করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার ভোর রাত থেকে দুপুর পর্যন্ত এদেরকে আটক করা হয়।
সংশ্লিষ্ট থানার অফিসার ইনচার্জরা জানান, জেলার আইন শৃংখলা পরিস্থিতি ঠিক রাখতে বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালানো হয়। এ সময় সদর থানা এলাকা থেকে ৮ জন, টুঙ্গিপাড়া থানা এলাকা থেকে ৬ জন, মুকসুদপুর থানা এলাকা থেকে ৫ জন, কোটালীপাড়া থানা এলাকা থেকে ৪ জন ও কাশিয়ানী থানা এলাকা থেকে একজন কে আটক করা হয়। আটককৃত ২৪ জনকে আদালতে পাঠানো হয়েছে। তারা আরো জানান, আটককৃতদের মধ্যে মাদক ব্যবসায়ী ও ওয়ারেন্ট ভুক্ত আসামী রয়েছে। জেলার আইনশৃংখলা পরিস্থিতি ঠিক রাখতে এ অভিযান অব্যাহত থাকবে।

গোপালগঞ্জে মেকানাইজেশন ভিলেজ, লাভবান হচ্ছেন চাষীরা
এম শিমুল খান, বাপ্ নিউজ : গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি :গোপালগঞ্জে মেকানাইজেশন ভিলেজ কৃষিতে বিপ্লব ও নব দিগন্ত উম্মোচন করছে। মেকানাইজেশন ভিলেজে ধান উৎপাদনে কৃষি যন্ত্রপাতি ব্যবহার করে কৃষক বীজ, সার ও শ্রমিক খরচ সাশ্রয় করেছেন। ধানে উৎপাদন খরচ কমেছে ৩০ থেকে ৪০ ভাগ। কৃষক ধানের অধিক ফলন পেয়ে লাভবান হয়েছেন।
গোপালগঞ্জ জেলার কাশিয়ানী উপজেলার রাজপাট ইউনিয়নের রাজপাট গ্রামে বাংলাদেশ ধান গবেষণা ইনস্টিটিউটের (ব্রি) ফার্ম মেশিনারি এ্যান্ড পোস্ট হারভেষ্ট টেকনোলজি বিভাগ চলতি বোর মৌসুমের শুরুতে পিরোজপুর-গোপালগঞ্জ-বাগেরহাট সমন্বিত কৃষি উন্নয়ন প্রকল্পের (পিজিবি) আর্থায়নে মেকানাইজেশন ভিলেজ তৈরী করে। এ বছর ওই ভিলেজের ১৫০ টি প্লটে পরীক্ষা মূলক ভাবে কৃষি যন্ত্রপাতি ট্রাক্টর, রাইস প্লান্টার, উইডার, দানাদার ইউরিয়া প্রয়োগ যন্ত্র ও রিপার ব্যবহার করে কৃষক ধান আবাদে সাফল্য পেয়েছেন।
রাজপাট গ্রামের কৃষক রাশেদুল আলম শামীম মিয়া বলেন, প্রথম ট্রেতে বীজতলা করেছি। ট্রাক্টর দিয়ে জমি চাষ দিয়েছি। ট্রে বীজতলার চারার বয়স ২৫ দিন হওয়ার পর রাইস প্লান্টার মেশিন দিয়ে জমিতে ধান রোপন করেছি। এতে বীজ খরচ সাশ্রয় হয়েছে। প্রচলিত পদ্ধতিতে যে জমিতে ধান রোপনে ১২ জন শ্রমিকের ৫ ঘন্টা লাগতো সেখানে এ পদ্ধতিতে ২ জন শ্রমিক মাত্র দু’ ঘন্টায় সে ধান রোপন করেছেন। এ ছাড়াও উইডার, দানাদার ইউরিয়া প্রয়োগ যন্ত্র ও ধান কাটার রিপার ব্যবহার করে ধান উৎপাদনের খরচ কমেছে প্রায় ৪০ ভাগ। ফলন বেশি পেয়েছি। আগামী বছর আমাদের এলাকায় কৃষি যন্ত্রপাতির ব্যবহার বৃদ্ধি পাবে।
পিজিবির প্রকল্প পরিচালক ও ব্রির কৃষিতত্ত্ব বিভাগের উর্ধতন বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. মোঃ খায়রুল আলম ভূইয়া বলেন, ব্রি উদ্ভাবিত রাইচ প্লান্টার মেসিন দিয়ে চারা রোপন করলে প্রচলিত পদ্ধতির তুলনায় ৯ থেকে ১০ ভাগ ফলন বাড়ে। ৬০ ভাগ শ্রমিক সাশ্রয় হয়। উইডার দিয়ে দ্রুত আগাছা নিড়ানী দিয়ে ৭৫ ভাগ শ্রমিক খরচ বাঁচানো যায়। পক্ষান্তরে খরচ সাশ্রয় হয় ৬৫ ভাগ। এ ছাড়া দানাদার ইউরিয়া সার প্রয়োগ যন্ত্রের মাধ্যমে সার প্রয়োগ করলে ৩০ ভাগ সার কম লাগে। তিনি আরো বলেন, ধান কাটা মৌসুমে শ্রমিক সংকট একটি অন্যতম সমস্যা। এ সংকট মোকাবেলায় আমরা ধান কাটার যন্ত্র রিপার মেশিন নিয়ে এসেছি। এ মেশিন দিয়ে ২ ঘন্টায় ১ জন শ্রমিক ১ বিঘা জমির ধান কাটতে পারে। এতে শ্রমিক ও খরচ সাশ্রয় হয়। গোপালগঞ্জে মেকানাইজেশন ভিলেজে ধান উৎপাদনে এ সব যন্ত্রপাতি ব্যবহার করে কৃষকরা ব্যাপক সাফল্য পেয়েছেন।
বাংলাদেশ ধান গবেষনা ইনস্টিটিউটের পরিচালক (প্রশাসন ও সাধারণ পরিচর্যা) ড. মোঃ শাহজাহান কবীর বলেন, কৃষিতে শ্রমিক সংকট বাড়ছে। আমরা সঠিক সময়ে কৃষি কাজ করতে পারছি না। এ জন্য আমরা গোপালগঞ্জে পরীক্ষামূলক ভাবে মেকানাইজেশন ভিলেজে তৈরী করি। এ ভিলেজের কৃষকরা যন্ত্রপাতি ব্যবহার করে ধান উৎপাদনে বীজ, সার ও শ্রমিক খরচ সাশ্রয় করেছে। অধিক ধান উৎপাদন করে বিপ্লব সৃষ্টি করেছে। তারা কৃষিতে নব দিগন্ত উম্মোচন করেছে।

গোপালগঞ্জে অনুষ্ঠিত হলো ঐতিহ্যবাহী চড়ক পূজা
এম শিমুল খান, বাপ্ নিউজ : গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি :বৈশাখ সংক্রান্তি উপলক্ষ্যে গোপালগঞ্জে অনুষ্ঠিত হলো হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের ঐতিহ্যবাহী চড়ক পূজা ও দুই দিনব্যাপী মেলা। এ পূজার মূল আকর্ষণ ছিল চড়ক ঘুল্লি। যা দেখতে ভিড় করে হাজার হাজার মানুষ।
পঞ্জিকা মতে বৈশাখ সংক্রান্তি প্রতি বছরের মত মঙ্গলবার বিকালে সদর উপজেলার টুঠামান্দ্রা গ্রামের মৃনাল কান্তি হীরার বাড়ির সামনের মাঠে আয়োজন করা হয় চড়ক ঘুল্লির বার্ষিক উৎসব। মন্ত্র পাঠ করে ঘুল্লিতে অংশ নেওয়া তিন যুবকের পিঠে লোহা দিয়ে তৈরী দুটি করে বড়শি ফোটানো হয়। পরে মন্দিরের পাশের মাঠে গাছ দিয়ে বানানো চৌকাঠের তিন মাথায় রশি দিয়ে বেঁধে ঝুলিয়ে দেওয়া হয় ওই তিন যুবককে। অপর প্রান্তের রশি দিয়ে বেধে ঘুরানো হয় কয়েক দফা। বিকাল থেকে গোধূলী লগ্ন পর্যন্ত চলে এ চড়ক ঘুল্লি। চড়ক ঘুল্লি শেষে চলে পূজা অর্চনা।
নাম না জানাতে চাইলেও পূণ্য লাভ, দেশ ও জাতির মঙ্গল কামনায় এ চড়ক ঘুল্লিতে অংশ নেন তারা। তবে এ ভাবে ঘোরানোতে ব্যাথা বা শারীরিক সমস্যা হয় না বলেও জানান অংশ নেওয়া যুবকেরা।
এ চড়ক মেলা দেখতে গোপালগঞ্জসহ মাদারীপুর, খুলনা, বাগেরহাট, পিরোজপুরসহ বিভিন্ন এলাকা থেকে শিশু-নারীসহ বিভিন্ন সম্প্রদায়ের হাজার হাজার মানুষ ভীড় জমায়। অনুষ্ঠান স্থল মিলন মেলায় পরিণত হয়। এ চড়ক পূজাকে কেন্দ্র করে বসে গ্রামীণ মেলা। খাবার, গহনা, মিষ্টির দোকান ও মাটির খেলনাসহ বিভিন্ন দোকান বসে। এ চড়ক ঘুল্লি দেখে কেউ পেয়েছেন আনন্দ আবার কেউ এসেছেন প্রথমবার অভিজ্ঞতা অর্জনের জন্য।
চড়ক ঘুল্লি দেখতে আসা বয়োবৃদ্ধ অশোক বিশ্বাস, ও স্কুল ছাত্রী সিমা বিশ্বাস জানান, ধর্মীয় রীতির কারণে চড়ক ঘুল্লির আয়োজন করা হয়ে থাকে। তবে এখন আগের মত আর চড়ক ঘুল্লি হয় না। তবে এখানে চড়ক ঘুল্লি দেখতে পেরে আমরা খুশি।
চড়ক মেলার আয়োজক মৃনাল কান্তি হীরা জানান, দেশ ও জাতির মঙ্গল কামনা করে ৭৫ বছর ধরে আমরা চড়ক পূজা ও চরক ঘুল্লির আয়োজন করে আসছি। এটা আমাদের পারিবারিক একটি ঐতিহ্য। এ মেলাতে শুধু হিন্দু ধর্মাম্বালম্বীরাই নয়, অন্যান্য ধর্মের লোকজন চরক ঘুল্লি দেখতে আসেন। এতে মহা মিলন মেলায় পরিণত হয়। সৃষ্টি হয় জাতি ধর্ম, বর্ন নির্বিশেষে সৌহার্দ্য সম্পৃতির সেতু বন্ধন।

গোপালগঞ্জের মুকসুদপুরে গাঁজাসহ এক মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার
এম শিমুল খান, বাপ্ নিউজ : গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি :গোপালগঞ্জ জেলার মুকসুদপুর উপজেলার জলিরপাড় এলাকায় গাবরিয়াল বৈরাগী (৪০) নামে এক মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।
পুলিশ সূত্রে জানা যায়, মুকসুদপুর থানার জলিরপাড় বাজার পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ এস আই শাহ্ জামাল গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বিশেষ অভিযান চালিয়ে মঙ্গলবার সকালে কাশালিয়া ইউনিয়নের চকসিন নয়াকান্দি থেকে বিক্রয়ের সময় ৩শ’গ্রাম গাঁজাসহ মাদক ব্যবসায়ী গাবরিয়াল বৈরাগীকে গ্রেফতার করে। গ্রেফতারকৃত গাবরিয়াল বৈরাগী মুকসুদপুর উপজেলার কাশালিয়া ইউনিয়নের চকসিন নয়াকান্দি গ্রামের মৃত অনুকুল বৈরাগীর ছেলে।
এ ব্যপারে মুকসুদপুর থানায় জলিরপাড় বাজার ক্যাম্পের ইনচার্জ এস আই শাহ্ জামাল জানায়, মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রন আইনে একটি মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।