Slideshows

ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার

পরিচালনা পরিষদ 

সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি

ওসমান গনি
 

প্রধান সম্পাদক

হাকিকুল ইসলাম খোকন
 

সম্পাদক

সুহাস বড়ুয়া হাসু
 

সহযোগী সম্পাদক

আয়েশা আকতার রুবী

সংঘাতময় পরিস্থিতিতে যুদ্ধ এবং সন্ত্রাসবাদের কৌশল হিসাবে যৌন সহিংসতার ক্রমবর্ধমান প্রবণতার তীব্র নিন্দা জানায় বাংলাদেশ

বুধবার, ১৭ মে ২০১৭

Picture

মহান মুক্তিযুদ্ধের কথা স্মরণ করে রাষ্ট্রদূত মোমেন বলেন, “১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধে আমাদের মা-বোনদের উপর নজীরবিহীন যৌন সহিংসতার চালানো হয়েছিল। ২ লাখ মা-বোন এই ভয়াবাহ নির্যাতনের শিকার হন”।সন্ত্রাসবাদের সাম্প্রতিক প্রেক্ষাপটে স্থায়ী প্রতিনিধি বলেন, “ইদানিং সন্ত্রাসবাদ মোকাবিলা করতে গিয়ে  আমরা সন্ত্রাসী ও সহিংস চরমপন্থীদের মধ্যে একটি নতুন প্রবণতা দেখতে পাচ্ছি।

alt
চরমপন্থিরা সন্ত্রাসী কাজে নারী ও শিশুদের ব্যবহার করছে যার বেশিরভাগই তাদের পরিবারের সদস্য”। এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর কথা উল্লেখ করে রাষ্ট্রদূত মোমেন বলেন, “আমাদের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সকল নারী ও মাকে তাঁদের পরিবারে শান্তির সুরক্ষাকারী হিসেবে এবং সহিংস চরমপন্থা ও সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে গড়ে ওঠা সামাজিক আন্দোলনে সক্রিয়ভাবে কাজ করার আহ্বান জানিয়েছেন”।

alt
বেসামরিক নাগরিকদের সুরক্ষার ক্ষেত্রে ‘যৌন সহিংসতা প্রতিরোধ’ জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা কাযর্ক্রমের একটি অবিচ্ছেদ্য অংশ উল্লেখ করে স্থায়ী প্রতিনিধি বলেন, “আমরা আমাদের শান্তিরক্ষীদের যৌন সহিংসতার বিষয়ে প্রশিক্ষণ দিচ্ছি এবং এ বিষয়ে আমরা প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। আমরা শান্তিরক্ষা কন্টিনজেন্টে নারী শান্তিরক্ষীদের অংশগ্রহণ বৃদ্ধি করছি। স্থানীয় জনগণ ও সিভিল সোসাইটির সদস্যদের সাথে নিয়মিতভাবে যোগাযোগ রেখে সকলে মিলে যৌন সহিংসতা প্রতিরোধে ভূমিকা রাখতেও আমাদের শান্তিরক্ষী ও সেক্টর কমান্ডারদের আমরা উৎসাহিত করে থাকি”।নিরাপত্তা পরিষদের চলতি মে মাসের প্রেসিডেন্ট উরুগুয়ে এই উন্মুক্ত বিতর্কের আয়োজন করে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, চীন, ফ্রান্স, রুশ ফেডারেশন, জার্মানি, ভারত ও জাপানসহ ৬৮টি দেশ এতে অংশগ্রহণ করে।


Add comment


Security code
Refresh