Slideshows

ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার

পরিচালনা পরিষদ 

সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি

ওসমান গনি
 

প্রধান সম্পাদক

হাকিকুল ইসলাম খোকন
 

সম্পাদক

সুহাস বড়ুয়া হাসু
 

সহযোগী সম্পাদক

আয়েশা আকতার রুবী

নিউইয়র্কে ২৫তম আন্তর্জাতিক বাংলা উত্সব ও বইমেলা শুরু - লেখক-সাহিত্যিক-শিল্পী সমাগমে মুখরিত নিউইয়র্ক

সোমবার, ২২ মে ২০১৭

Picture

উৎসবের শুরুতে একটি মঙ্গল শোভাযাত্রার আয়োজন করা হয়। এরপর মঞ্চে প্রদীপ প্রজ্বলনের মাধ্যমে শুরু হয় মূল অনুষ্ঠানমালা। এতে অংশ নেন অধ্যাপক পবিত্র সরকার, অধ্যাপক শামসুজ্জামান খান, জামাল উদ্দিন হোসেন, ড. লীনা তাপসী, নাজমুন নেসা পিয়ারী, রোকেয়া হায়দার, ইকবাল হাসান, লুৎফর রহমার রিটন, আমীরুল ইসলাম, আহমদ মাযহার, ফেরদৌস সাজেদীন, ড. হুমায়ূন কবীর, জসিম মল্লিক, কণাবসু মিশ্র, আলমগীর শিকদার লোটন, মেজবাহ উদ্দিন আহমেদ, জিয়াউদ্দিন আহমেদ, নিনি ওয়াহেদ, দুলাল তালুকদার, সব্যসাচী ঘোষ দস্তিদার, খায়রুল আনাম, তাজুল ইমাম, তাপস কর্মকার, লতিফুল ইসলাম শিবলী, হাসান ফেরদৌস প্রমুখ। এর আগে তাদের সবাইকে উত্তরীয় পরিয়ে দেওয়া হয়।
 alt
অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন এবারের উৎসবের আহ্বায়ক ফেরদৌস সাজেদীন। তিনি এবারের আয়োজনের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সকলের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। অনুষ্ঠানে উদ্বোধনী সঙ্গীত ‘আলো আমার আলো’ পরিবেশন করে আনন্দধ্বনি। এরপর শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন অধ্যাপক শামসুজ্জামান খান, অধ্যাপক পবিত্র সরকার, আমীরুল ইসলাম, ড. লীনা তাপসী, মেজবাহ উদ্দিন আহমেদ, জামাল উদ্দিন হোসেন, ফেরদৌস আরা, রোকেয়া হায়দার এবং নিউইয়র্কে বাংলাদেশের কনসাল জেনারেল মো. শামীম আহসান।  শুভেচ্ছা বক্তব্যে বাংলা একাডেমীর মহাপরিচালক অধ্যাপক শামসুজ্জামান খান বলেন, দেশের গণ্ডি পেরিয়ে প্রবাসীরা প্রবাসেও বাঙালি সংস্কৃতিকে মনেপ্রাণে লালন করছেন। তিনি বলেন, ২৬তম বাংলা উৎসব ও বইমেলা বাঙালির বিশ্বায়ন।  
 alt
অধ্যাপক পবিত্র সরকার বলেন, বিশ্বজুড়ে বাঙালির জয়জয়কার। বাঙালি সংস্কৃতি পৃথিবীর দিগন্ত থেকে দিগন্তে ছড়িয়ে পড়েছে। বাঙালির কবিতা, সঙ্গীত, চিত্রকলা বিশ্বের পাঠকের কাছে জনপ্রিয় হচ্ছে।ড. লীনা তাপসী বলেন, আমাদের বাঙালি সংস্কৃতির মৌলিক গুণ বাঁচিয়ে রাখতে হবে। যে ভাষার জন্য আমরা রক্ত দিয়েছি সেই রক্তের দাগ কখনো মুছে যাবে না। সেই দাগকে আমরা জিইয়ে রাখচোই। আমাদের প্রজন্মরা যেন জানতে পারে এই বাংলা ভাষার এই বর্ণিল শব্দগুলোর জন্য এই বাংলাদেশ নেতৃত্ব দিয়েছে। তিনি বলেন, বাংলা ভাষার যে ক্ষমতা, এই ভাষার যে স্বরবর্ণ ও ব্যঞ্জনবর্ণ তা অনেক ক্ষমতাবান। আমরা বাংলা ভাষা জানি বলেই পৃথিবীর যে কোনো ভাষা অতি সহজেই আমরা উচ্চারণ করতে পারি।শুভেচ্ছা বক্তব্য শেষে ‘আবহমান বাংলা’ শীর্ষক নৃত্য পরিবেশন করে নৃত্যাঞ্জলি। এটি পরিচালনা করেন চন্দ্রা ব্যানার্জি। নতুন প্রজন্মের শিল্পীরা পরিবেশন নৃত্য, আবৃত্তি ও গান। এতে অংশ নেয় অন্তরা সাহা, মার্জিয়া স্মৃতি, রিতিকা দেব, চন্দ্রিকা দে, শ্রুতিকণা দাশ, বিরশা ও শতাব্দী রায়। রবীন্দ্র সঙ্গীতের একক পরিবেশনায় অংশ নেন শামা রহমান।
 alt
দ্বিতীয় দিন শনিবার উৎসব শুরু হবে বেলা ১১ টা থেকে রাত সাড়ে ১১টা পর্যন্ত এবং শেষ দিনের অনুষ্ঠানও শুরু হবে বেলা ১১টা থেকে এবং তা চলবে রাত ১১টা পর্যন্ত। এবারের আন্তর্জাতিক বাংলা উৎসব ও বইমেলার অনুষ্ঠান মঞ্চের ব্যবস্থাপনা, অনুষ্ঠান পরিকল্পনা ও উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের সার্বিক তত্ত্বাবধানে ছিলেন নিনি ওয়াহেদ, হাসান ফেরদৌস, সেমন্তী ওয়াহেদ এবং উৎসবের আয়োজক মুক্তধারা ফাউন্ডেশনের কর্ণধার বিশ্বজিৎ সাহা।নিউইয়র্কের বাংলাদেশি অধুষ্যিত জ্যাকসন হাইটস এখন লেখক, সাংবাদিক ও শিল্পীদের পদচারণায় মুখরিত। আজ শুক্রবার থেকে শুরু হচ্ছে মুক্তধারা ফাউন্ডেশন আয়োজিত ২৫তম নিউইয়র্ক বইমেলা ও আন্তর্জাতিক বাংলা উৎসব। এদিন সন্ধ্যায় জ্যাকসন হাইটসের পিএস-৬৯ স্কুলের মিলনায়তনে তিনদিনব্যাপী বইমেলার উদ্বোধন করবেন রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক পবিত্র সরকার। এবারের বইমেলার বিশেষ অতিথি বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক শামসুজ্জামান খান। নিউইয়র্ক বইমেলা ও আন্তর্জাতিক বাংলা উৎসবের এবারের আহ্বায়ক লেখক-সাহিত্যিক ফেরদৌস সাজেদীন।

alt
এছাড়াও বাংলাদেশ, ভারতের পশ্চিমবঙ্গ, নর্থ আমেরিকা ও ইউরোপের বিভিন্ন দেশ ও স্থান থেকে লেখকেরা বইমেলায় যোগ দিচ্ছেন। এদের মধ্যে আছেন আবুল হাসনাত, কণা বসু মিশ্র, ড. লীনা তাপসী, ইকবাল হাসান, হুমায়ুন কবীর ঢালী, নাজমুন নেসা পিয়ারি, জসিম মল্লিক। প্রকাশকদের মধ্যে মেলায় যোগ দিচ্ছেন আহমেদ মাহমুদুল হক,ফরিদ আহমেদ, মনিরুল হক, মেজবাউদ্দিন আহমেদ, জাফর আহমেদ রাশেদ, রেদোয়ানুর রহমান জুয়েল, জহিরুল আবেদীন জুয়েল, মোহাম্মদ জসিম উদ্দিন, তাপস কর্মকার, আলমগীর শিকদার লোটন, মোহাম্মদ মাশফিকুল্লাহ তন্ময় প্রমুখ। প্রকাশনা সংস্থা গুলো হচ্ছে বাংলাদেশ থেকে যোগ দিচ্ছে মাওলা ব্রাদার্স, সময় প্রকাশন, অনন্যা, কথাপ্রকাশ, ইত্যাদি, গ্রন্থপ্রকাশ, নালন্দা, ভাষাচিত্র, স্টুডেন্ট ওয়েজ, থিয়েটার এবং কলকাতা থেকে যোগ দিচ্ছে পত্রভারতী ও সাহিত্যম।মেলায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের বিভিন্ন পর্বে অংশ নিবেন সৈয়দ আবদুল হাদী, ফেরদৌস আরা, শামা রহমান, দেবাঙ্গনা সরকার, শিরীন বকুল ও আহকাম উল্লাহ।২৫তম নিউইয়র্ক বইমেলা ও আন্তর্জাতিক বাংলা উৎসবের তিনদিনব্যাপী কর্মসূচি নিচে দেওয়া হলো।

alt
প্রথম দিন, ১৯ মে, শুক্রবার:
বিকেল ৬টায় উদ্বোধন: উন্মুক্ত অনুষ্ঠান হবে জ্যাকসন হাইটসে। ব্যবস্থাপনায়: মোশাররফ হোসেন, গোপাল স্যানাল, শাহাদৎ, শুভ, ফাহিম রেজা নূর, জাকিয়া ফাহিম, স্বপ্ন কুমার, মণিকা রায়, পূর্ণিমা রায়, মিশুক সেলিম, মকসুদা আহমদ, রওশন হাসান ও আলপনা গুহ।
এরপর জমায়েত, বিশিষ্ট অতিথিদের বক্তব্য ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান হবে ফাহিম রেজা নূর ও মোশাররফ হোসেনের সঞ্চালনায়।
সন্ধ্যা ৭টায় মঙ্গল শোভাযাত্রা ( পিএস-৬৯ । ব্যবস্থাপনায়: মোশাররফ, গোপাল, শুভ, মিশুক সেলিম।
(পরবর্তী সকল অনুষ্ঠান হবে পিএস-৬৯ এর মিলনায়তনে)
সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় মুক্তমনা মঞ্চে আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন। বেলুন উড়িয়ে ও ফিতা কেটে উদ্বোধন করবেন অধ্যাপক পবিত্র সরকার। ব্যবস্থাপনায় রানু ফেরদৌস। সহযোগিতায় নাসরিন চৌধুরী, রাহাত কাজী, উম্মে কুলসুম পপি। পৌনে ৭টায় উদ্বোধনী সঙ্গীত : আলো আমার আলো। পরিবেশনায়: আনন্দধ্বনি।
সন্ধ্যা ৭টা ৫৫ মিনিটে স্বাগত বক্তব্য রাখবেন নিউইয়র্ক বইমেলা ও আন্তর্জাতিক বাংলা উৎসব ২০১৭ এর আহ্বায়ক ফেরদৌস সাজেদিন।
রাত ৮টায় মঙ্গল প্রদীপ প্রজ্বলন। প্রজ্বলনের সময় গান: আগুনের পরশমণি। পরিবেশনায়: আনন্দধ্বনি।
রাত সাড়ে ৮টায় স্বাগত বক্তব্য রাখবেন শামসুজ্জামান খান, পবিত্র সরকার, কনসাল জেনারেল শামীম আহসান, সায়মন জাকারিয়া, আমিরুল ইসলাম, অনিন্দিতা কাজী, ড. লীনা তাপসী, ড. জিয়াউদ্দিন আহমদ, মনজুর আহমদ, জামাল উদ্দিন হোসেন, রোকেয়া হায়দার।
রাত ৯টায় আবহমান বাংলা (উদ্বোধনী পরিবেশনা), অংশগ্রহণে: নৃত্যাঞ্জলি। সাড়ে ৯টায় আগামী (নতুন প্রজন্মের শিল্পীদের অনুষ্ঠান), অংশগ্রহণে: অন্তরা সাহা ও মার্জিয়া স্মৃতি (নৃত্য), রিতিকা দেব (আবৃত্তি), চন্দ্রিকা দে (সঙ্গীত), শ্রুতিকতা দাশ (ভায়োলিন), বিরশা (স্যাক্সোফোন), শতাব্দী রায় (সঙ্গীত)।
রাত ১০টায় রবীন্দ্রনাথের গান, একক পরিবেশনা। অংশগ্রহণে শামা রহমান।

alt
দ্বিতীয় দিন, ২০ মে, শনিবার:
বেলা ১১টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত নির্মল বাঙালি আড্ডা, সাথে বাঙালি প্রাতরাশ। অংশগ্রহণে সকল লেখক ও সাহিত্যামোদী। সঞ্চালনায় ইকবাল হাসান।
দুপুর ১টা থেকে পৌনে ১টা পর্যন্ত উন্মুক্ত আলোচনায় মুখোমুখি হবেন: লেখক-প্রকাশক-পাঠক। সঞ্চালনায় ফাহিম রেজা নূর।
১টা ৫০ মিনিট থেকে ২টা পর্যন্ত: আমার নজরুল শীর্ষক আলোচনা করবেন ফেরদৌস আরা।
২টা ৫ মিনিট থেকে বিকেল ৩টা পর্যন্ত হবে কবিতা পাঠ ও আবৃত্তি। সঞ্চালনায়: মনজুর কাদের।
বিকেল ৩টা ১০ মিনিট থেকে ৪টা ৫ মিনিট পর্যন্ত নতুন বই নিয়ে হাজিন হবেন সুনীল কৃষ্ণ দে, দুলাল তালুকদার, আহমেদ ছহুল, আহম্মদ হোসেন বাবু, মনজুর কাদের, খালেদ সরফুদ্দিন, স্বপ্ন কুমার, মনিজা রহমান, শামস আল মমীন, শামস চৌধুরী রুশো, রওশন হাসান, তাহমিনা জামান, রোমেনা লেইস, শাহ আলম দুলাল, কাজী জহিরুল ইসলাম, নাসরীন চৌধুরী। এ অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন পবিত্র সরকার ও শামসুজ্জামান খান। সঞ্চালনায় আদনান সৈয়দ।
৪টা ১০ মিনিট থেকে ৪টা ৩৫ মিনিট পর্যন্ত পেশা ও প্রতিতী: পেশাজীবী যখন লেখক শীর্ষক চিকিৎসক লেখকদের নিয়ে আড্ডা। অংশগ্রহণে সিনহা আবুল মনসুর ও শিহাব আহমেদ। সঞ্চালনায় ড: হুমায়ুন কবীর। অতিথি: পবিত্র সরকার ও আহমদ মাযহার।
৪টা ৪০ মিনিটে একক কবিতা আবৃত্তি: মোহাম্মদ আহকাম উল্লাহ। ৪টা ৫৫ মিনিটে মূলধারার বাঙালি লেখক। অংশগ্রহণে: নাদিয়া চৌধুরী। উপস্থাপনা কৌশিক আহমদ। ৫টা ২৫ মিনিটে ‘সোনার ছেলে’ নাটিকা। পরিবেশনায়: রঙ্গালয়।
৫টা ৫০ মিনিটে একাত্তরের সহযোদ্ধা শীর্ষক অনুষ্ঠানে স্যালি উলোবিকে সম্মাননা জানানো হবে। তাকে উত্তরীয় পড়াবেন শামসুজ্জামান খান ও ফাহিম রেজা নূর। ৬টা ২০ মিনিটে চ্যানেল আই-মুক্তধারা ২০১৭ সাহিত্য পুরষ্কার। ঘোষণা করবেন আমিরুল ইসলাম ও ফেরদৌস সাজেদিন।
৬টা ৩৫ মিনিটে স্মরণ: কবি সৈয়দ শামসুল হক ও শহীদ কাদরীর কবিতা নিয়ে বিশেষ অনুষ্ঠান। পরিবেশনায়: পেইন্টেড পোয়েমস। ভূমিকা: সউদ চৌধুরী। ৭টা ৫ মিনিটে কালিকা: প্রয়াত লোকশিল্পী কালিকা প্রসাদের প্রতি শ্রদ্ধাঞ্জলি। পরিচালনায়: সেমন্তী ওয়াহেদ। ৭টা ৩০ মিনিটে অয়োময়:  হুমায়ুন আহমেদের গান। পরিবেশনায় শাহ মাহবুব। ৭টা ৫০ মিনিটে মুক্তধারা বইমেলা ২০১৭ ভাষণ। ‘অভিবাসী লেখকের ভাষা ও দেশকাল।’ বক্তা অধ্যাপক পবিত্র সরকার। রাত ৮টা ১৫ মিনিটে ‘লেখক বঙ্গবন্ধু’ শীর্ষক বলবেন শামসুজ্জামান খান। ৮টা ৪০ মিনিটে পবিত্র সরকার ও শামসুজ্জামান খানকে সম্মাননা দেওয়া হবে।
রাত ৯টায় হে নিরুপমা: উত্তর আমেরিকার শিল্পীদের গানের অনুষ্ঠান। অংশগ্রহণে: নাফিয়া উর্মি, শিখা আহমেদ, জাফর বিল্লাহ, জাভেদ ইকবাল। ৯টা ৪০ মিনিটে একক সঙ্গীত: পরিবেশনায় ফেরদৌস আরা।

alt
তৃতীয় ও সমাপনী দিন, ২১ মে, রবিবার
বেলা ১১টায় কবিতা পাঠের আসর: স্বরচিত কবিতা পাঠ। সঞ্চালনায় মোশাররফ হোসেন। এরপর কবিতা নিয়ে আলোচনা-সমালোচনা, তর্ক-বিতর্ক। পরিচালনায় লুৎফর রহমান রিটন। অতিথি: আবুল হাসনাত। আপ্যায়নে থাকবেন শুভ।
দুপুর ১টায় নতুন বই নিয়ে অনুষ্ঠানে থাকবেন তমিজ উদ্দীন লোদী, প্রতীপ দাশগুপ্ত, মোখলেসুর রহমান, সৈয়দ শামসুল হুদা, মিশুক সেলিম, রিমি রুম্মান, মাকসুদা আহমেদ, খায়রুল আনাম, অরপি আহমেদ, শামসাদ হুসাম, কামরুন নাহার ডলি, আলম সিদ্দিকী, সালমা বাণী। অতিথি: শামসুজ্জামান খান। সঞ্চালনায় জসীম মল্লিক।
১টা ৪৫ মিনিটে নতুন বই: মুক্তিযুদ্ধ ও সাহিত্য শীর্ষক অনুষ্ঠানে ফকির ইলিয়াস, শরিফ মাহবুবুল আলম, আলী সিদ্দিকী। অনুষ্ঠানে অতিথি থাকবেন: আবুল হাসনাত। সঞ্চালনায়: ওবায়দুল্লাহ মামুন।
২টা ৫ মিনিটে ছোট ছোট গল্পপাঠ। পড়বেন কতাবসু মিশ্র ও খায়রুল আনাম। ২টা ২০ মিনিটে বাংলা শিশু সাহিত্য: শিশু সাহিত্য উপেক্ষিত কেন? আলোচনায় অংশ নিবেন শামসুজ্জামান খান, আমিরুল ইসলাম, হুমায়ুন কবীর ঢালী, কাজী জহিরুল ইসলাম, শাহ আলম দুলাল। সঞ্চালনায়: লুৎফর রহমান রিটন।
বিকেল ৩টা ৫ মিনিটে নতুন প্রজন্মের লেখক। অংশগ্রহণে: ততী নন্দিনী ইসলাম ও আবীর হক। লেখকদের পরিচয় করিয়ে দেবেন সেমন্তী ওয়াহেদ। সাড়ে ৩টায় সম্পাদকের আড্ডা: কালি ও কলম সম্পাদক আবুল হাসনাতের সাথে আলাপচারিতা। সাথে থাকবেন তমিজ উদ্দীন লোদী ও শামস আল মমীন। ৪টায় বাংলার লোক সংস্কৃতি: অজানা খনি শীর্ষক আলোচনা ও সঙ্গীত। অংশগ্রহণে শামসুজ্জামান খান ও সায়মন জাকারিয়া। সঙ্গীত পরিবেশন করবেন কাবেরী দাশ। সঞ্চালনায়: তাজুল ইমাম।
৪টা ৪০ মিনিটে সম্মাননা: দুলাল ভৌমিক। শিল্পীকে পরিচয় করিয়ে দেবেন রথীন্দ্রনাথ রায়। উত্তরীয় পড়াবেন শামসুজ্জামান খান। ৪টা ৫৫ মিনিটে নৃত্য। পরিবেশনায় রঞ্জনী। ৫টা ৫ মিনিটে একই দুই বাংলার সাহিত্য নিয়ে মতবিনিময় ‘একই আকাশ একই বাতাস’। অংশগ্রহণে আবুল হাসনাত, সালমা বাণী, ফজলুর রহমান, নাজমুন নেসা পেয়ারী, কতাবসু মিশ্র, আমিরুল ইসলাম, ফকির ইলিয়াস। সঞ্চালনায়: নিনি ওয়াহেদ।
৫টা ৪৫ মিনিটে উত্তর আমেরিকার শিল্পীদের গানের আসর ‘গানগুলি মোর’। অংশগ্রহণে: সাইফুল্লাহ পারভেজ, কৃষ্ণা তিথী, দেলোয়ার হোসেন, তাহমিনা শহীদ। ৬টা ৩৫ মিনিটে একক অভিনয় ‘অপর পুরুষ’। অভিনয় করবেন শিরীন বকুল। রচনা: আব্দুল্লাহ আল মামুন। ৭টায় মুখোমুখি আলাপচারিতায় থাকবেন শামসুজ্জামান খান, পবিত্র সরকার, সায়মন জাকারিয়া, ফেরদৌস সাজেদিন, লুৎফর রহমান রিটন, আহমদ মাযহার, আবুল হাসনাত। সঞ্চালনায় ইকবাল হাসান।
রাত ৮টায় একক সঙ্গীতের অনুষ্ঠান ‘রবি প্রণাম’। পরিবেশনায় দেবাঙ্গনা সরকার। ৯টা ৫ মিনিটে একক সঙ্গীত ‘জন্ম থেকে জ্বলছি’, পরিবেশনায় সৈয়দ আব্দুল হাদী। ১০টা ১০ মিনিটে ধন্যবাদ জ্ঞাপন ও সমাপ্তি ঘোষণা করবেন ফেরদৌস সাজেদিন।


Add comment


Security code
Refresh