Slideshows

ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার

পরিচালনা পরিষদ 

সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি

ওসমান গনি
 

প্রধান সম্পাদক

হাকিকুল ইসলাম খোকন
 

সম্পাদক

সুহাস বড়ুয়া হাসু
 

সহযোগী সম্পাদক

আয়েশা আকতার রুবী

বন্দুকধারীর গুলিতে রক্তাক্ত ম্যানহাটন, নিহত ৬

বৃহস্পতিবার, ০২ নভেম্বর ২০১৭

Picture

ম্যানহাটন অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ এলাকা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের অন্যতম শহর নিউইয়র্কের প্রধান এলাকা হিসেবেই পরিচিত। সেখানে হামলার জেরে সন্ত্রস্ত সবাই।

Us killed pick truck 902813068

যুক্তরাষ্ট্রে ভিড়ের মধ্যে ট্রাক তুলে দিয়ে ৮ জনকে হত্যা। ছবি: রয়টার্স

নিউ ইয়র্কের ম্যানহাটনে সাইকেল চালানোর রুটে ট্রাক তুলে দিয়ে ৮ জনকে হত্যা করা হয়েছে। সে সময় আহত হয়েছেন কমপক্ষে ১২ জন। ২৯ বছর বয়সী একজনকে ওই ট্রাক থেকে পালিয়ে যাবার সময় পুলিশ তাকে আটক করেছে।

যুক্তরাষ্ট্রের গণমাধ্যম বলছে, লোয়ার ম্যানহাটনে এই হামলাকারীর নাম সাইফুল্লো সাইপোভ। যিনি ২০১০ সালে অভিবাসী হিসেবে দেশটিতে এসেছেন।

নিউইয়র্কের পুলিশ বিভাগের কমিশনার জেমস ও’নিল জানান, স্থানীয় সময় বেলা ৩টার দিকে রিটেইলার হোম ডিপো থেকে সাদা রঙের একটি ট্রাক যাত্রা শুরু করে। এরপর সাইকেল চালানোর রাস্তায় পথচারীদের ওপর সেই ট্রাকটি চালিয়ে দেয় হামলাকারী।

ট্রাকটি বেশ কিছুদূর অতিক্রম করার পরে একটি স্কুল বাসের সাথে গিয়ে সংঘর্ষের পর তা থেমে যায়। এরপর পালিয়ে যাবার সময় পুলিশ হামলাকারীকে পেটে গুলি করে। পরে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় তাকে আটক করে।

পুলিশ কমিশনারের তথ্য অনুযায়ী, তার হাতে দুটি বন্দুক ছিল এবং হামলাকারীর দেয়া ভাষ্য সন্ত্রাসী হামলার সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ। ঘটনাস্থল থেকে দুটি খেলনা বন্দুক উদ্ধার করা হয়। স্থানীয়রা অনেকেই ঘটনার সময় গুলির শব্দ শুনেছে বলে জানা গেছে।

নিউইয়র্কের মেয়র বিল ডি ব্লাসিও একে কাপুরুষোচিত সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড বলে অভিমত জানিয়েছেন। মেয়র বলেন, ‘এটি একটি সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড। আরো পরিষ্কার করে বললে, খুবই কাপুরুষোচিত সন্ত্রাসী কাজ। আমরা জানি এটি আমাদের শক্তিকে নষ্ট করার চেষ্টা। কিন্তু নিউইয়র্কবাসীরা খুবই শক্তিশালী, ধৈর্যশীল এবং আমাদের অগ্রযাত্রা কখনোই এরকম সন্ত্রাসের কাছে থেমে যাবেনা।’

এই ঘটনায় প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প দুটি টুইট বার্তা পাঠিয়েছেন। একটিতে তিনি বলেছেন যে, নিউইয়র্কের হামলা দেখে মনে হচ্ছে খুবই অসুস্থ বিপদজনক কেউ এটি চালিয়েছে। অপর টুইটে ট্রাম্প বলেছেন যে, আমরা কোনো আইএস গোষ্ঠীর কাউকে মধ্যপ্রাচ্য বা অন্য কোনো স্থান থেকে হারিয়ে দেবার পর এখানে অবশ্যই প্রবেশ করতে দেবো না।

এই হামলাটি এমন একটি সময়ে চালানো হয় যখন নিউইয়র্কবাসী তাদের অন্যতম উৎসব হ্যালোইনে মেতে ছিল।