Slideshows

ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার

পরিচালনা পরিষদ 

সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি

ওসমান গনি
 

প্রধান সম্পাদক

হাকিকুল ইসলাম খোকন
 

সম্পাদক

সুহাস বড়ুয়া হাসু
 

সহযোগী সম্পাদক

আয়েশা আকতার রুবী

হাইকমান্ডের চিঠি পেয়ে এগিয়ে চলছে মামলার কাজ = যুক্তরাষ্ট্র বিএনপির ৮ শীর্ষ নেতৃবৃন্দের পক্ষে কেন্দ্রের চিঠি

সোমবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০১৭

বাপ্ নিউজ : যুক্তরাষ্ট্র বিএনপির ৮ শীর্ষ নেতৃবৃন্দের বিরুদ্ধে গত ২৭/৯/২০১৭ইং তারিখে একটি মামলা করেন জ্যাকব মিল্টন নামে এক ব্যক্তি। তিনি নিজেকে যুক্তরাষ্ট্রের বিএনপি নেতা বলে দাবি করেন এবং তিনি এমনও মনে করেন যে, তিনি ব্যতিত অন্য কেউ যুক্তরাষ্ট্রে বিএনপির হয়ে কাজ করতে পারবেন না। যুক্তরাষ্ট্রে যে কেউ যে কারো বিরুদ্ধে মামলা করতে পারেন। সেই সুযোগ কাজে লাগিয়ে তিনি উক্ত মামলাটি করেন।
এই মামলার পরিপেক্ষিতে ৮ শীর্ষ নেতৃবৃন্দ একটু হতবাগ হয়ে পড়েন এবং তারা উক্ত বিষয়টি বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপির) প্রধান কার্যালয় জানান। কিন্তু এই মামলা আবারো সবর হচ্ছে। কারণ হাই কমান্ড থেকে চিঠি পাঠানো হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রে।
এরই পরিপ্রেক্ষিতে গত ২৭/১১/২০১৭ইং তারিখে বিএনপির কেন্দ্রীয় আন্তর্জাতিক সম্পাদক ব্যারিস্টার আবদুস সালাম লন্ডন থেকে এবং ২৮/১১/২০১৭ইং তারিখে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর ঢাকা থেকে ৮ শীর্ষ নেতৃবৃন্দের কাছে চিঠি পাঠান। ৮ শীর্ষ নেতৃবৃন্দরা হলেন, সাবেক ভারপ্রাপ্ত সভাপতি শরাফত হোসেন বাবু, সাবেক কোষাধ্যক্ষ জসিম উদ্দিন ভূয়া, সাবেক যুগ-সম্পাদক আকতার হোসেন বাদল, সাবেক যুগা আহবায়ক মিজানুর রহমান ভূইয়া (মিল্টন), সিটি বিএনপির সভাপতি সেলিম রেজা, মোহাম্মদ সবুজ, ওমর ফারুক ও কামাল পাশা বাবুল।
চিঠিতে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, বিএনপি হল বাংলাদেশের একটি বড় রাজনৈতিক দল, সুতারাং এই বৃহত দলের বিরুদ্ধে কোনো ষড়যন্ত্র মেনে নেওয়া হবে না। বিএনপি কারো ব্যক্তিগত সম্পদ নয়। জ্যাকব মিল্টন অন্য কাউকে যুক্তরাষ্ট্রে বিএনপির লগো, পোস্টার, ব্যানার ব্যবহার করতে নিষেধ করতে পারেন না। কারণ তিনি বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপির) মালিক নন। এই সম্পর্কে একমাত্র দলই সিদ্ধান্ত নিতে পারেন। সুতরাং দলের পক্ষ থেকে স্পষ্টভাবে জানানো যাচ্ছে যে, সাবেক ভারপ্রাপ্ত সভাপতি শরাফত হোসেন বাবু, সাবেক কোষাধ্যক্ষ জসিম উদ্দিন ভূইয়া, সাবেক যুগ-সম্পাদক আকতার হোসেন বাদল, সাবেক যুগা আহবায়ক মিজানুর রহমান ভূইয়া (মিল্টন), সিটি বিএনপির সভাপতি সেলিম রেজা, মোহাম্মদ সবুজ, ওমর ফারুক ও কামাল পাশা বাবুল তারা তাদের মত করে বিএনপির হয়ে যুক্তরাষ্ট্রে কাজ করবেন। এতে জনাব জ্যাকব মিলটন কোনো বাধা প্রদান করতে পারবেন না এবং যত আইনি জটিলতা তিনি তৈরি করেছেন তা অনতি বিলম্বে তিনি যেন তুলে নেন। ভবিষ্যতে এই আটজন বিএনপির হয়ে যুক্তরাষ্ট্রের সকল সভা, সমাবেশ, মিছিল ও সংগঠনের হয়ে সকল কাজ করবেন।
হাই কমান্ড থেকে এই নির্দেশের পর খুব দ্রুত এগিয়ে চলছে মামলা নিষ্পত্তির কাজ। যুক্তরাষ্ট্রের ৮ জন শীর্ষ নেতৃবৃন্দের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে মামলার সকল কাগজ পত্র তাদের হাতে রয়েছে, এখন শুধু সময়ের অপেক্ষা। তারা বলেন জ্যাকব মিল্টন বিএনপির সুনাম ক্ষুন্ন করার লক্ষে এই মামলাটি আমাদের বিরুদ্ধে করেছেন।
সাবেক ভারপ্রাপ্ত সভাপতি শরাফত হোসেন বাবু ও সাবেক কোষাধ্যক্ষ জসিম উদ্দিন ভূইয়া জানান, মামলা জয়ের জন্য সকল কাগজপত্র আমাদের কাছে রয়েছে। ৮ ডিসেম্বরের মধ্যে যথাযথ জবাব আমরা আদালতের মাধ্যমে জ্যাকব মিল্টনকে দেব ইনশা আল্লাহ। (আইনি সীমাবদ্ধতার জন্য উল্লেখিত চিঠি দুইটি প্রকাশ করা হয়নি )।


Add comment


Security code
Refresh