Slideshows

ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার

পরিচালনা পরিষদ 

সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি

ওসমান গনি
 

প্রধান সম্পাদক

হাকিকুল ইসলাম খোকন
 

সম্পাদক

সুহাস বড়ুয়া হাসু
 

সহযোগী সম্পাদক

আয়েশা আকতার রুবী

দেশের চাহিদা মেটানোর পরই ‘ইলিশ’ বিদেশে রপ্তানী করা হবে---মৎস্য ও পশু-সম্পদ মন্ত্রী

মঙ্গলবার, ০৯ জানুয়ারী ২০১৮

এম শিমুল খান,বাপ্ নিউজ : গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি : মৎস্য ও পশু-সম্পদ মন্ত্রী নারায়ণ চন্দ্র চন্দ বলেছেন, দেশের চাহিদা মেটানোর পরই ইলিশ মাছ বিদেশে রপ্তানী করা হবে। ইলিশ মাছসহ দেশে মৎস্য সংরক্ষণে সরকার ব্যাপক কার্যক্রম হাতে নিয়েছে। মায়ানমারের কাছ থেকে আমরা যে জলসীমা পেয়েছি সেখানেও ইলিশ অভয়ারণ্য তৈরী করা কিনা সে ব্যাপারেও সরকার পদক্ষেপ নিচ্ছে। তিনি আরও বলেন, গত তিনটি ঈদ অনুষ্ঠান আমরা পার করেছি ভারতীয় গরু আমদানী ছাড়া। আমরা নিজেরাই এখন পশু সম্পদের ব্যাপক উন্নয়ন করছি। ভবিষ্যতে আমাদের পশু আমদানীর প্রয়োজন হবে না।
মঙ্গলবার বিকেলে গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধিতে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে সাংবাদিকদেরকে দেয়া সাক্ষাৎকারে তিনি এসব কথা বলেন।
এর আগে বিকেল সাড়ে ৩ টায় তিনি টুঙ্গিপাড়ায় পৌঁছেন এবং জাতির পিতার বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধি বেদীতে ফুল দিয়ে তাঁর প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। এরপর তিনি সেখানে বঙ্গবন্ধুসহ ১৫ আগস্টে নিহত সকল শহীদদের আত্মার শান্তি কামনায় প্রার্থণা করেন। এ সময় সেখানে গোপালগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান চৌধুরী এমদাদুল হক, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মাহাবুব আলী খান, দপ্তর সম্পাদক ইলিয়াস হক ও টুঙ্গিপাড়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান গাজী গোলাম মোস্তফাসহ মন্ত্রীর নিজ নির্বাচনী এলাকা খুলনার ডুমুরিয়া এলাকার দু’শতাধিক দলীয় নেতাকর্মী সেখানে উপস্থিত ছিলেন।

গোপালগঞ্জের কাশিয়ানীতে শীতে জনজীবনে দূর্ভোগ
এম শিমুল খান,বাপ্ নিউজ : গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি :গোপালগঞ্জের কাশিয়ানীতে তীব্র শীতে জনজীবনে চরম দূর্ভোগ। শৈত্যপ্রবাহ আর কনকনে শীতে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে উপজেলার স্বাভাবিক জীবন যাত্রা। শীতের তীব্রতা বৃদ্ধি পাওয়ায় নাকাল হয়ে পড়েছে হত দরিদ্র-ছিন্নমূল মানুষ। শীতের কবল থেকে বাঁচার জন্য গ্রামাঞ্চলের দরিদ্র মানুষ খড়কুটো জ্বালিয়ে শীত নিবারনের চেষ্টা করছে। প্রচন্ড ঠান্ডার কারণে মানুষ প্রয়োজন ছাড়া ঘর থেকে বের হচ্ছে না। ফলে সন্ধ্যার পর হাট-বাজার, রাস্তাঘাটে লোকের উপস্থিতি কম থাকায় ব্যবসা বাণিজ্যেও মন্দা ভাব দেখা দিয়েছে। ব্যাহত হচ্ছে উপজেলার স্বাভাবিক জীবনযাত্রা।
কাশিয়ানী উপজেলা সদর হাসপাতালসহ প্রাইভেট ক্লিনিকগুলোতে শীতজনিত রোগে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বাড়ছে। শিশু, বৃদ্ধ ও নারী-পুরুষরা ডায়রিয়া, নিমোনিয়া, শ্বাসকষ্ট ও সর্দি জ্বরসহ বিভিন্ন ঠান্ডা জনিত রোগে আক্রান্ত হচ্ছে। প্রতিদিন চিকিৎসা নিতে হাসপাতালগুলোতে রোগীদের ভিড় বাড়ছে। গৃহপালিত পশুপাখির শীতে কাহিল হয়ে পড়েছে। তবে আগের মতো গাছিদের কর্ম ব্যস্ততা দেখা যায়নি। দিন দিন গ্রামাঞ্চল থেকে হারিয়ে যাচ্ছে খেজুর গাছ। এদিকে বোরো ধানের রোপনকৃত চারা লালচে রং ধারণ করতে শুরু করেছে বলে কৃষকরা জানিয়েছেন।

গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়ায় স্কুল ছাত্রী ধর্ষন : মুখ খুললে ভিডিও নেটে ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকি
এম শিমুল খান,বাপ্ নিউজ : গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি :গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়ায় ৮ম শ্রেনীর এক স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষন করে মোবাইল ফোনে ধারণকৃত ভিডিও ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দিয়েছে ধর্ষকরা। এ ঘটনার পর থেকে ওই ছাত্রী স্কুলে যাওয়া বন্ধ হয়ে গেছে। সাম্প্রতি ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার পীড়ারবাড়ী গ্রামে। ঘটনাটি কিছু দিন পূর্বে ঘটলেও স্থানীয় একটি প্রভাবশালী মহলের চাপে এতদিন মুখ খুলতে সাহস পায়নি ধর্ষিতার পরিবার।
মঙ্গলবার সরেজমিন ওই এলাকায় গেলে ধর্ষিতা স্কুল ছাত্রী বলেন, তোরা টেইলার্সের মালিক রুপাই ও হরিদাস জামার মাপ দেওয়ার কথা বলে আমাকে দোকান ঘরের ভিতর নিয়ে দরজা বন্ধ করে দিয়ে জোর পূর্বক ধর্ষন করে ছবি তুলে রাখে, বিষয়টি কাউকে জানালে ধারনকৃত ছবিগুলো ইন্টারনেটে ছেড়ে দেওয়ার হুমকি দেয়।
ধর্ষিতার বাবা গৌরঙ্গ মল্লিক ও মা লতিকা মল্লিক অভিযোগ বলেন, কিছু দিন আগে আমার মেয়ে চলবল উচ্চ বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেনীর ছাত্রী সাথী মল্লিক ১৩ (ছদ্দনাম) সকাল অনুমান সাড়ে ৯ টার দিকে স্কুলে যাচ্ছিল এমন সময় পীড়ারবাড়ী বাজারের তোড়া টেইলার্সের মালিক বুরুয়া গ্রামের ধীরেন হাজরার ছেলে রূপচাঁন হাজরা রুপাই (২৬) ও পীড়ারবাড়ী গ্রামের হরবিলাস বালার ছেলে হরিদাস বালা (১৭) জামার মাপ ভুল হয়েছে বলে দোকান ঘরের ভিতর ডেকে নিয়ে দরজা বন্ধ করে মেরে ফেলার ভয় দেখিয়ে দু’জনেই ধর্ষন করে ভিডিও ছবি ধারন করে রাখে এবং বিষয়টি কাউকে জানালে ধারনকৃত নগ্ন ছবিগুলো ইন্টারনেটে ছেড়ে দেওয়ার হুমকি দেয়। এরপর থেকে মেয়ে স্কুলে যাওয়া বন্ধ করে দেয়। পরে মেয়ের কাছ থেকে ঘটনাটি জানতে পেরে স্থানীয় মাদবর অরুন মল্লিক, শষোধর মল্লিক, বিল্পব হালদার, প্রকাশ বালা, নিতিশ বালাসহ আরও অনেককে জানালে তারা বিষয়টিকে কোন গুরুত্ব না দিয়ে ধামাচাপা দেওয়ার জন্য বিভিন্ন তালবাহানা করে চুপচাপ থাকতে বলে। অন্যদিকে রুপাইর দুলাভাই বিল্পব হালদার মেয়ের বাবার নামে ৩শত টাকা মূল্যের একটি সাদা স্ট্যাম্প খরিদ করে তাতে স্বাক্ষর করে পঞ্চাশ হাজার টাকা নিয়ে চুপচাপ থাকার কথা বলে।
তারা আরও বলেন, আমার মেয়ে এখন ভয়ে স্কুলে যেতে পারছে না। তার ভবিষ্যৎ অনিশ্চিত, আমরা এই লম্পটদের শাস্তি চাই। ঘটনাটি এলাকায় জানা জানি হয়ে গেলে সাধারন মানুষের মধ্যে তীব্র ক্ষোভ বিরাজ করছে। এদিকে এ ঘটনার পর থেকে দুই ধর্ষক দোকান বন্ধ করে গা ঢাকা দিয়েছে বলে জানা গেছে।
এ ব্যাপারে কোটালীপাড়া থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি মোহাম্মাদ কামরুল ফারুক বলেন, ঘটনাটি এখনও কেউ জানায়নি তবে এ ধরনের ঘটনা ঘটলে দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।