Slideshows

ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার

পরিচালনা পরিষদ 

সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি

ওসমান গনি
 

প্রধান সম্পাদক

হাকিকুল ইসলাম খোকন
 

সম্পাদক

সুহাস বড়ুয়া হাসু
 

সহযোগী সম্পাদক

আয়েশা আকতার রুবী

ট্যাটুর নেশায় স্থায়ীভাবে বদলে গেল ছেলেটি!

মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০১৮

Picture

একই রঙের ট্যাটু তিনি তার চোখেও এঁকেছেন। যদিও চোখে ট্যাটু আঁকাটা বিশেষ পারদর্শী বিশেষজ্ঞের কাছেও ভীষণ ঝুঁকিপূর্ণের কাজ। তার পরও জীবন বাজি রেখে ঝুঁকিপূর্ণ ইনজেকশনের মাধ্যমে চোখের ট্যাটুর কাজটিও সম্পন্ন করেন তিনি। এলি নিজেকে স্প্যানিশ চিত্রশিল্পী পাবলো পিকাসোর অনুসারী বলে দাবি করেন। পাবলোর ছবিতে বস্তুনিরপেক্ষ চিত্রের দেখা মিলত বেশি। তাই এলিও তার শরীরকে বস্তুনিরপেক্ষভাবে উপস্থাপন করতে চান।

alt

২৭ বছর বয়সী তরুণ এলি ইঙ্ক। ছবি: সংগৃহীত

ইংল্যান্ডের ব্রাইটনে বসবাসকারী এলি ইঙ্ক কবে থেকে এভাবে শরীরে ট্যাটু আঁকতে শুরু করেলেন তা জানতে চাওয়া হলে তিনি বলেন, ‘ছোট বেলায় মামা স্পেন থেকে বেশ মজার ট্যাটু নিয়ে এসেছিলেন। সেই থেকেই ট্যাটুর প্রতি আমি ঝুঁকতে শুরু করি।’

alt

altঅদ্ভুত ট্যাটুর নেশায় মেতেছেন এলি ইঙ্ক। ছবি: সংগৃহীত


এলির সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, তিনি তার শরীর নিয়ে নানা রকম গবেষণা করেতে ভালো বাসেন। শরীরকে পুরো দমে কালো কালির ট্যাটু, নাকে অদ্ভুতভাবে ফুটো করে অবাক করা গহনা পরা, আর নিজের ঠোঁটের বিরল পরিবর্তন আনাকেও তিনি তার বস্তুনিরপেক্ষ শিল্প বলে মনে করেন। এলির সঙ্গে প্রেম করছেন হলি নামের এক তরুণী। দুজন দুজনকে ভীষণ ভালোও বাসেন। যদিও এলির এভাবে নিজেকে অদ্ভুত থেকে অদ্ভুতে রূপান্তর করা নিয়ে হলি’র কোনো নিষেধাজ্ঞা নেই। তা ছাড়া নিষেধাজ্ঞা বা নেতিবাচক মন্তব্যকে সবসময় বুড়ো আঙ্গুল দেখিয়ে এসেছেন এলি। তাই কোনো কিছুতেই আর দমিয়ে রাখা সম্ভব নয় তাকে। কেননা তিনি সিদ্ধান্ত নিয়েছেন মৃত্যুর আগ পর্যন্ত তিনি তার শরীরে অদ্ভুত সব শিল্পকর্ম চালিয়ে যাবেন।

alt

শরীরে ট্যাটু আঁকার পূর্বে যেমন ছিলেন এলি ইঙ্ক। ছবি: সংগৃহীত

সূত্র: ডেইলি মেইল।