Editors

Slideshows

http://bostonbanglanews.com/components/com_gk3_photoslide/thumbs_big/605744Finding_Immigrant____SaKiL___0.jpg

কুইন্স ফ্যামিলি কোর্টে অভিবাসী

হাকিকুল ইসলাম খোকন/বাপ্‌স নিউজ/প্রবাসী নিউজ ঃ বষ্টনবাংলা নিউজ ঃ দ্যা ইন্টারফেইস সেন্টার অব নিউইয়র্ক ও আইনী সহায়তা সংগঠন নিউইয়র্ক এর উদ্যোগে গত ২৪ অক্টোবর বৃহস্পতিবার সকাল ৯ See details

http://bostonbanglanews.com/components/com_gk3_photoslide/thumbs_big/455188Hasina__Bangla_BimaN___SaKiL.jpg

দাবি পূরণের আশ্বাস প্রধানমন্ত্

বষ্টনবাংলা নিউজ ঃ দাবি-দাওয়া বাস্তবায়নে আলোচনা না করে আন্দোলন করার জন্য পাইলটরা প্রধানমন্ত্রীর কাছে দুঃখ প্রকাশ করে নিঃশর্ত ক্ষমা চেয়েছেন। পাইলটদের আন্দোলনের কারণে ফ্লাইটসূচিতে জটিলতা দেখা দেয়ায় যাত্রীদের কাছে দুঃখ See details

http://bostonbanglanews.com/components/com_gk3_photoslide/thumbs_big/701424image_Luseana___sakil___0.jpg

লুইজিয়ানায় আকাশলীনা‘র বাৎসরিক

হাকিকুল ইসলাম খোকন/বাপ্‌স নিউজ/প্রবাসী নিউজ ঃ বষ্টনবাংলা নিউজ ঃ লুইজিয়ানা থেকে ঃ গত ৩০শে অক্টোবর শনিবার সনধ্যায় লুইজিয়ানা স্টেট ইউনিভার্সিটির ইণ্টারন্যাশনাল কালচারাল সেণ্টারে উদযাপিত হলো আকাশলীনা-র বাৎসরিক বাংলা সাহিত্য ও See details

http://bostonbanglanews.com/components/com_gk3_photoslide/thumbs_big/156699hansen_Clac__.jpg

ইতিহাসের নায়ক মিশিগান থেকে বিজ

হাকিকুল ইসলাম খোকন/বাপ্‌স নিউজ/প্রবাসী নিউজ ঃ বষ্টনবাংলা নিউজ ঃ ইতিহাস সৃষ্টিকারী নির্বাচনে ডেমক্র্যাটরা হাউজের আধিপত্য ধরে রাখতে সক্ষম হলো না। সিনেটে নিজেদের নিয়ন্ত্রণ অক্ষুন্ন রাখতে সক্ষম হলেও আসন হারিয়েছে কয়েকটি। See details

http://bostonbanglanews.com/components/com_gk3_photoslide/thumbs_big/266829B_N_P___NY___SaKil.jpg

বিএনপি চেয়ারপারসনের অফিসে পুলি

হাকিকুল ইসলাম খোকন/বাপ্‌স নিউজ/প্রবাসী নিউজ ঃ বষ্টনবাংলা নিউজ ঃ নভেম্বর মঙ্গলবার সন্ধ্যায় নিউইয়র্ক সিটির জ্যাকসন হাইটস্থ আলাউদ্দিন রেষ্টুরেন্টের সামনে যুক্তরাষ্ট্র বিএনপি তাৎক্ষণিক এক বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে। এই See details

ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার

পরিচালনা পরিষদ 

সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি

ওসমান গনি
 

প্রধান সম্পাদক

হাকিকুল ইসলাম খোকন
 

সম্পাদক

সুহাস বড়ুয়া হাসু
 

সহযোগী সম্পাদক

আয়েশা আকতার রুবী

প্রবাসীদের খবর

গত একবছরে ডেনমার্ক আওয়ামী লীগ কার্যক্রম

সোমবার, ২৬ ডিসেম্বর ২০১৬

কোপেনহেগেন , বাপ্ নিউজ : ডেনমার্ক : ডেনমার্ক আওয়ামী লীগের বর্তমান সভাপতি ইকবাল হোসেন মিঠু ও সাধারণ সম্পাদক ড. বিদ্যুৎ বড়ুয়া বলেন , প্রবাসে থেকেও ডেনমার্ক বাঙালিদের মুক্তিযুদ্ধের চেতনার পক্ষ শক্তিকে ঐক্যবদ্ধ করে  আওয়ামী লীগ  কে শক্তিশালী করার জন্য কাজ করে যাচ্ছে।  সর্ব ইউরোপিয়ান আওয়ামী লীগ এর সভাপতি শ্রী অনিল দাশ  গুপ্ত ও সাধারণ সম্পাদক এম এ  গনি এর সার্বিক পরামর্শে কাজ করছে ।   আওয়ামী লীগের জাতীয় দিবস সমূহ যথাযথ ভাবে পালন এর মাধ্যমে ডেনমার্ক আওয়ামী লীগ সদা সক্রিয়।  ১০ জানুয়ারী জাতির জনক বঙ্গ বনধু শেখ মুজিবর রহমান এর স্বদেশ  প্রত্যাবর্তন দিবস পালন এর মাধ্যমে বছরের কর্মসূচি শুরু হয়।  এর পর আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস ও অমর একুশে এর  শহীদ দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা আয়োজন করে। এর পরে ৭ মার্চ বঙ্গবনধু এর ভাষণ এর উপর আলোচনা সভা , ১৯ মার্চ বঙ্গবনধু এর জনবার্ষিকী উপলক্ষে জাতীয় শিশু দিবস উদযাপন করে  ।  ২২  মার্চ  ১৯৭১ সালে স্বাধীনতা যুদ্ধে পাকিস্তানিদের ক্ষমা চাওয়ার জন্য ডেনমার্ক এর পাকিস্তান দূতাবাস ঘেরাও  করে। ২৫  মার্চ  কালো রাত্রিতে ডেনমার্ক সংসদ এর  সামনে মোমবাতি প্রজ্জলন করে।  মহান স্বাধীনতা দিবস ২৬  মার্চ উপলক্ষে এক আলোচনা অনুষ্ঠান ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান এর আয়োজন করে।  এর পরে ১৭ মে শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে এক আলোচনা সভা এর আয়োজন করে।  এতে প্রধান অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ এর কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ডা. দীপুমনি  এম পি , বিশেষ অতিথি আব্দুল মান্নান এম পি  , অর্থ প্রতিমন্ত্রী , সর্ব ইউরোপিয়ান আওয়ামী লীগ এর যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এম এ গনি ,অধ্যাপক ডাঃ হাবিবে মিল্লাত এম পি , আয়েশা ওয়াসিকা এম পি। ২৩ জুন আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন করে আলোচনা সভা অনুষ্ঠান এর মাধ্যমে। জাতীয় শোকদিবস ১৫ অগাস্ট উপলক্ষে জাতির জনক এর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করে দিনের কার্যক্রম শুরু করি। এর পরে মিলাদ ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। ২৮ সেপ্টেম্বর  আমাদের প্রিয় নেত্রী  প্রধানমন্ত্রী শেখ  হাসিনার জন্মদিন উপলক্ষে আনন্দ উৎসব এর আয়োজন করে।  এর বাইরে সর্ব ইউরোপিয়ান আওয়ামী লীগ কতৃক       " জাতিসংঘ কতৃক শেখ হাসিনার পুরস্কার ও সজীব ওয়াজেদ জয় এর পুরস্কার  প্রাপ্তিতে  আনন্দ উৎসবে অংশগ্রহণ করে।  লন্ডনে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সফর উপলক্ষে ডেনমার্ক আওয়ামী লীগের সভাপতি ইকবাল হোসেন মিঠু ও সাধারণ সম্পাদক ড. বিদ্যুত বড়ুয়া , হিল্লোল বড়ুয়া  লন্ডন এ হাজির হন।   সর্ব ইউরোপিয়ান আওয়ামী লীগ এর আয়োজনে জাতির জনক সমাধি স্থল  গোপালগঞ্জের  টুঙ্গিপাড়ায়  শ্রদ্ধা নিবেদন করতে যান  ডেনমার্ক আওয়ামী লীগের সভাপতি ইকবাল হোসেন মিঠু ও সাধারণ সম্পাদক ড. বিদ্যুত বড়ুয়া , হিল্লোল বড়ুয়া। বাংলাদেশ  আওয়ামী লীগ এর জাতীয় কাউন্সিলে এ ডেনমার্ক আওয়ামী লীগের সভাপতি ইকবাল হোসেন মিঠু ও সাধারণ সম্পাদক ড. বিদ্যুৎ বড়ুয়া কাউন্সিলর হিসেবে অংশগ্রহণ করে। পরবর্তীতে নব নির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের   কে ডেনমার্ক আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে স্মারক ক্রেস্ট প্রদান  করা হয়।  জেল হত্যা দিবস ৩ নভেম্বর উপলক্ষে আলোচনা সভা অণুষ্ঠিত হয়।

alt
হাঙ্গেরী এর বুদাপেস্ট শহরে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী  শেখ  হাসিনা আগমন  উপলক্ষে ডেনমার্ক আওয়ামী লীগ এর প্রতিনিধি হিসেবে যোগদানা করি ডেনমার্ক আওয়ামী লীগের সভাপতি ইকবাল হোসেন মিঠু ও সাধারণ সম্পাদক ড. বিদ্যুৎ বড়ুয়া।  মহান বিজয় দিবস ১৬ ডিসেম্বর উপলক্ষে   ডেনমার্ক আওয়ামী লীগ আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান এর  মাধ্যমে   ২০১৬ এর সাংগঠনিক কার্যক্রম সমাপ্ত করে।  ডেনমার্ক আওয়ামী লীগ এর সভাপতি ইকবাল হোসেন মিঠু ও সাধারণ সম্পাদক ড. বিদ্যুৎ বড়ুয়া আশা করেন , আগামী বছরে ডেনমার্ক আওয়ামী লীগ আরো বেশি শক্তিশালী হয়ে আওয়ামী লীগকে প্রবাসে প্রতিষ্টিত করবে।


আছির প্রদেশ আ’লীগ কার্যকরী কমিটির বিজয় দিবস উদযাপন

সোমবার, ২৬ ডিসেম্বর ২০১৬

Picture

বাপ্ নিউজ : মোস্তফা জাহেদ: আছির প্রদেশ আ’লীগ কার্যকরী কমিটি বিজয় দিবস উদযাপন করেছে। ২৩ ডিসেম্বর শুক্রবার বিকেল ৫টায় ৪৫ তম বিজয় দিবস উদযাপন করেন আছির প্রদেশ আ’লীগ কার্যকরী কমিটি।আছির প্রদেশ কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগ এর সিনিয়র সহ সভাপতি মো:বেলাল উদ্দিনের সভাপতিত্বে ও কার্যকরী কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মো: আজাদ রহমান এর সঞ্চালনায় এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, জেদ্দা আওয়ামী পরিষদের সাধারণ সম্পাদক সেরতাজুল আলম (দিপু), বিশেষ অতিথি ছিলেন আছির প্রদেশ আ’লীগের প্রধান উপদেষ্টা আবু বকর কামাল, সভাপতি মন্ডলির সদস্য  মো: নুরুল আবছার, মো: সফিউল আজম, সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম, সাংগঠনিক সম্পাদক মো: রহিম মাহমুদ, প্রকাশনা সম্পাদক সাংবাদিক মোস্তফা জাহেদ (লিটন), প্রচার সম্পাদক মো:মনছুর আহম্মেদ (বাবু)।

unnamed 

বক্তারা বলেন , আওয়ামীলীগ সরকার শ্রম অভিবাসনকে একটি উদীয়মান খাত হিসেবে চিহ্নিত করে এটিকে জাতীয় এজেন্ডা বিবেচনা রেখেছে, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আওয়ামীলীগ সরকার ২০০৯সাল থেকে অভিবাসন ব্যবস্থাকে নিরাপদ , সুশৃঙ্খল  করতে অনেক গুলো উদ্যোগ গ্রহণ করেছে।

unnamed 
প্রধান অতিথি বলেন আমরা স্বাধীন দেশের স্বাধীন নাগরিক আমরা বঙ্গবন্ধু আদর্শের রাজনীতি করে আজ প্রবাসে মহান বিজয় দিবস উদযাপন করছি , আমার জীবনে এই প্রথম আছির প্রদেশ এসে দেখলাম আমরা হাজারো মুজিব সৈনিক আপনাদের সবাই কে সালাম জানাই।  নব্বই এর রাজপথ কাপানো অনেক সাবেক ছাত্রনেতা আছেন।আছির আওয়ামীলীগীর প্রধান উপদেষ্টা বলেন ” আমি ১৯৭১ সালে ছোট ছিলাম কিন্তু স্বাধীনতার ইতিহাস শুনেছি, পড়েছি বঙ্গবন্ধুর আদর্শের রাজনীতি করি বলে আজ চাকুরী শেষে প্রবাসী জীবনে মহান বিজয় দিবস পালন করছি। আমি গৌরব বোধ করি আমি  বাংলাদেশের স্বাধীন নাগরিক আমি আমরা সকলেই মিলে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসির ডিজিটাল বাংলাদেশ বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের বাংলাদেশ গড়ব ইনশাল্লাহ।
unnamed-3 
অনুষ্ঠানে আছির প্রদেশ কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগ এর কাযকারী কমিটি ঘোষণা করা হয়। কমিটির সভাপতি মো: রুস্তম শাহরীয়া , সিনিয়র সভাপতি মো: বেলাল উদ্দিন , সাধারণ সম্পাদক মো: জাহাঙ্গীর আলম , যুগ্ন সম্পাদক মো:আজাদ , সাংগঠনিক সম্পাদক মো:আব্দুর রহিম , দপ্তর সম্পাদক মো: শাজাহান মুন্সী , অথ সম্পাদক মো:আব্দুল করিম , প্রচার সম্পাদক মো:মনছুর আহাম্মেদ (বাবু) প্রকাশনা সম্পাদক সাংবাদিক মোস্তফা জাহেদ (লিটন) ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক মো: আহম্মদ আলী নঈমী।এই পরিচিতি সভায় সকলেই  অঙ্গীকার করেন আমরা  দেশ ও  জাতির  প্রবাসীর সকল উন্নয়নের লক্ষে কাজ করে যাবেন ।সভা শেষে দেশ ও জাতির কল্যাণে দোয়া ও মোনাজাত নৈশ ভোজের আয়োজন করা হয়।


লিবিয়ায় প্রবাসীদের বিজয় দিবস উদযাপন

রবিবার, ২৫ ডিসেম্বর ২০১৬

বাপ্ নিউজ : ত্রিপলি থেকে:লিবিয়ায় বাংলাদেশ দূতাবাদের উদ্যোগে ১৬ ডিসেম্বর মহান বিজয় দিবস উদযাপন করেছে বাংলাদেশ কমিউনিটি স্কুল ও কলেজের শিক্ষার্থীরা।লিবিয়ার স্থানীয় সময় বিকেল সাড়ে ৩টায় কোরআন তেলাওয়াতের মাধ্যমে অনুষ্ঠান শুরু হয়। পর্যায়ক্রমে জাতীয় সঙ্গীত,বাণী পাঠ করা হয়।রাষ্ট্রদূতের বক্তব্যের পর শুরু হয় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

Picture

এরপর একে একে বেশ কয়েকটি দেশাত্মবোধক দলীয় সঙ্গীত এবং নৃত্য পরিবেশিত হয়। এছাড়াও অনুষ্ঠানে 'সেই রেল লাইনের ধারে' গানটির সঙ্গে দুজন মুক্তিযোদ্ধা এবং পাকিস্তানি মিলিটারির যুদ্ধের দৃশ্য এবং নিখোঁজ সন্তানের প্রতীক্ষায় থাকা মায়ের আহাজারি - হা-হুতাশ প্রদর্শন-দূতাবাসের উদ্দ্যোগে স্কুল ও কলেজের শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে আয়োজিত অনুষ্ঠানে অনেক প্রবাসীদের উপস্থিতি লক্ষ্য করা যায়, যা লিবিয়ার বর্তমান পরিস্থিতে সম্পূর্ণ কল্পনাতীত।

alt

লিবিয়ায় চলমান নৈরাজ্যকর পরিস্থিতির মাঝেও বিজয় দিবস উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে উপস্থিত হয়ে যে দেশপ্রেমের পরিচয় দিয়েছে প্রবাসী বাংলাদেশিরা। অনুষ্ঠানে অংশ নেন- লিবিয়ায় নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মেজর জেনারেল (অব.) মো. শাহিদুল হক, কাউন্সিলর (শ্রম) আসম আশরাফুল ইসলাম, কাউন্সিলর (রাজনৈতিক) এম মোজামেল হক, প্রথম সচিব (শ্রম) মো. আলম মোস্তফা, বাংলাদেশ কমিউনিটি স্কুল ও কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মো. শিহাব উদ্দীন, কার্যকরী পরিষদের সদস্য মো. দারুল ইসলাম, মো. শাহজালাল, মো. আমির হোসেন। এছাড়াও অনুষ্ঠানে অংশ নেন স্কুল ও কলেজের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের অভিভাবকরা।


পর্তোতে ইউরোপের চতুর্থ স্থায়ী শহীদ মিনারের উদ্বোধন

শনিবার, ২৪ ডিসেম্বর ২০১৬

Picture

পর্তুগালের বাংলাদেশ দূতাবাস, পর্তো সিটি মিউনিসিপাল ও বাংলাদেশ কমিউনিটি ইন পর্তো নেতৃবৃন্দের অক্লান্ত পরিশ্রম ও অর্থায়ন বাংলাদেশ কমিউনিটি ইন পর্তোর সভাপতি শাহ অালম কাজলের নেতৃত্বের দায়িত্বশীলতা ও সদিচ্ছার কারণেই অতি অল্প সময়ে পর্তো বাঙালি কমিউনিটি পেয়েছে পর্তুগালের দ্বিতীয় ও ইউরোপের ৪র্থ স্থায়ী শহীদ মিনার।  

alt

অনুষ্ঠানের ২য় পর্বে মহান বিজয় দিবস উদযাপন এবং অথিতিদের সম্মানে পর্তোর হোটেল ক্রাউন প্লাজায় ডিনার পার্টির অায়োজন করে বাংলাদেশ কমিউনিটি ইন পর্তো। শুরুতেই বাংলাদেশ ও পর্তুগালের জাতীয় সঙ্গীতের মধ্য দিয়ে দ্বিতীয় পর্বের অনুষ্ঠানের সূচনা হয়। অতিথিদের ক্রেস্ট ও ফুল দিয়ে বরণ করে নেন বাংলাদেশ কমিউনিটি ইন পর্তো নেতৃবৃন্দ।প্রধান অথিতির বক্তব্যে পর্তো সিটি মেয়র বলেন, পর্তোতে যতগুলো কমিউনিটির বসবাস এর মধ্যে বাংলাদেশ কমিউনিটি উনার সব থেকে পছন্দের, এই কমিউনিটির যে কোনো প্রয়োজনে তিনি পাশে অাছেন এবং প্রত্যেক বাংলাদেশিই তার হৃদয়ে অাছেন বলে জানান।  

alt

বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত ইমতিয়াজ অাহমেদ পর্তো সিটি মেয়রসহ উপস্থিত সকলকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, পর্তুগালের লিসবনের পরে পর্তো সিটিতে দ্বিতীয় স্থায়ী শহীদ মিনারের উদ্বোধন করতে পেরে অামি অত্যন্ত অানন্দিত। ইউরোপের মাটিতে শহীদ মিনার করতে পারাটা অামাদের জন্য অত্যন্ত সম্মান অার গৌরবের। অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ কমিউনিটি ইন পোর্তোর সাধারণ সম্পাদক মামুন হাজারি, জামসেদ হোসেন, হারুনুর রশিদ, অাব্দুল অালীম, নাজির অাহমেদ, শাহ জামাল অাজাদ, মোঃ মোহাব্বত অালম টিপু, তৌহিদুল ইসলাম, মহিন অাহমেদ, বেলাল হোসেন, শাহ মোয়াজ্জেম হোসেন, অানোয়ার হোসেন, লিটন অাহমেদ, ফিরোজ অালম, রাকিব অাহমেদ প্রমুখ।


জার্মান আ'লীগের আয়োজনে মহান বিজয় দিবস উৎযাপন

শনিবার, ২৪ ডিসেম্বর ২০১৬

Picture

এ সময় শহীদদের গভীর শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করে দাঁড়িয়ে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়।বক্তারা বলেন, জার্মান আওয়ামী লীগ জননেত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করতে সব সময় ঐক্যবদ্ধ আছে এবং থাকবে। কোন ষড়যন্ত্রকারীর স্থান জার্মান আওয়ামী লীগে হবে না। শেখ হাসিনা এবং সজীব ওয়াজেদ জয়ের প্রসংশা করে তারা বলেন, দেশের উন্নয়নের ধারাবাহিকতা রক্ষায় বাংলাদেশে আবারো আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় আনতে হবে। এজন্য পূর্বের ন্যায় প্রবাসীদের কাজ করতে হবে। আলোচনা সভা শেষে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।


লন্ডনে হাইকমিশনের বিজয় দিবস উদযাপন, উপেক্ষিত বঙ্গবন্ধু!

শনিবার, ২৪ ডিসেম্বর ২০১৬

বাপ্ নিউজ : যুক্তরাজ্য: যুক্তরাজ্যের লন্ডন হাইকমিশনের মহান বিজয় দিবসের অনুষ্ঠানে জাতির জনক বঙ্গববন্ধু ছিলেন উপেক্ষিত, আর এ নিয়ে ক্ষোভে প্রকাশ করছেন স্থানীয় যুবলীগ ও ছাত্রলীগের নেতা কর্মীরা। বাংলাদেশ হাইকমিশনের উদ্যোগে উদযাপিত বাংলাদেশের ৪৫তম মহান বিজয় দিবস। ১৬ ডিসেম্বর শুক্রবার সকাল ১০টায় হাইকমিশন ভবনে আনুষ্ঠানিকভাবে জাতীয় পতাকা উত্তোলনের মাধ্যমে মহান বিজয় দিবসের কর্মসূচীর উদ্বোধন করেন যুক্তরাজ্যে নিযুক্ত বাংলাদেশের হাইকমিশনার মো. নাজমুল কাওনাইন। জাতীয় পতাকা উত্তোলনের পর হাইকমিশন ভবনের হল রুমে দিবসটির তাৎপর্যের উপর অনুষ্ঠিত হয় এক আলোচনা অনুষ্ঠান।

কিন্তু ব্যানারে কোথাও বঙ্গবন্ধু বা প্রধানমন্ত্রীর ছবি ছিলনা। এই নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ক্ষোভ প্রকাশ করছেন অনেকেই। প্রশ্ন তুলেছেন, নব নিযুক্ত হাই কমিশনারের রাজনৈতিক দৃষ্টিভঙ্গি নিয়ে। যুক্তরাজ্য যুবলীগ নেতা জামাল খানের একটি স্ট্যাটাস মূলত ভাইরাল হয়ে পড়ে।যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের সভাপতি, মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক,সুলতান মোহাম্মদ শরীফ বলেন, একটি রাষ্ট্র কিভাবে চলে ধারনা না রেখে অযথা বিতর্ক সৃষ্টির কোন মানে নেই। যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ সাজিদুর রহমান ফারুক বলেন, হাইকমিশন সরকারী নির্দেশের বাইরে যাবে কিভাবে, একই ব্যানারে তো বিগত বছর ও বিজয় দিবসের অনুষ্ঠান হয়েছে, তখন কেউ সমালোচনা করলো না, আর দেয়ালে তো পোট্রেট ছিল বঙ্গবন্ধুর।

Picture

বিজয় দিবসের ব্যানারে বঙ্গবন্ধুর ছবি না থাকার কারণ জানতে চাইলে হাইকমিশনের মিনিস্টার প্রেস নাদিম কাদির বলেন, ‘ইতিপূর্বে হাইকমিশনের উদ্যোগে আয়োজিত বিজয় দিবসের অনুষ্ঠানের ব্যানারে বঙ্গবন্ধুর ছবি ছিলো না। স্বাধীনতা দিবস ও ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবসে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি দিয়ে ডিজাইন করে ব্যানার বানানো হয়। বিজয় দিবসের অনুষ্ঠানে বঙ্গবন্ধুর ছবি ব্যবহার না করার অন্য কোনও এজেন্ডা নেই। সরকারের নির্দেশিত গাইডলাইন মেনেই অনুষ্ঠান, ব্যানার এসব করা হয়ে থাকে। এখানে কারো ব্যক্তিগত কিছু করার নেই। বিশ্বের বিভিন্ন হাইকমিশনে ছবি ব্যবহারের উদাহরণ দিলে, তিনি বলেন সেটা একান্তই তাদের বিষয়।

ফেইসবুকে স্ট্যাটাস দেয়া নিয়ে যুক্তরাজ্য যুবলীগের যুগ্মসম্পাদক জামাল খান বলেন, আমি খুব সহজভাবে বুঝি, যে মানুষের জন্য দেশ, আমাদের স্বাধীনতা, বিজয় দিবসের অনুষ্ঠানের ব্যানারে তাঁর ছবি না থাকা আমাকে ব্যক্তিগত ভাবে ব্যথিত করেছে। বিশ্বের অন্যান্য হাইকমিশনের ব্যানারে বঙ্গবন্ধুর ছবিসহ ব্যানারই দেখেছি আমি।

অনুষ্ঠানের শুরুতেই মহান মুক্তিযুদ্ধে আত্মোৎসর্গকারী শহীদদের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়। আলোচনার শুরুতে মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে মহামান্য রাষ্ট্রপতি, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, পররাষ্ট্র মন্ত্রী ও পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর বাণী পাঠ করে শোনানো হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন যুক্তরাজ্যে অবস্থানরত আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সংসদীয় স্থায়ী কমিটির চেয়ারম্যান জনাব সুরঞ্জিত সেন গুপ্ত। তিনি তার বক্তব্যে বলেন, বাংলাদেশের স্বাধীনতা কারো দয়ায় আসেনি, রক্তের বিনিময়ে এসেছে আমাদের এই স্বাধীনতা। আন্তজাতিক ক্ষেত্রে যুদ্ধকালীন সময়ে কূটনৈতিক সাফল্যের কারণে আমাদের স্বাধীনতা অর্জন হয়েছে খুব অল্প সময়ে।

হাইকমিশনার তার বক্তব্যের শুরুতে, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ডাকে ও নেতৃত্বে মহান মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ করে শহীদ হয়েছেন, সেই সকল শহীদ মুক্তিযোদ্ধা, যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা, বীরঙ্গনা ও জাতীয় চার নেতার প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। মহান মুক্তিযুদ্ধের সময় প্রবাসে বসবাসরত বিশেষ করে যুক্তরাজ্যে বসবাসরত বাঙ্গালীদের অনন্য ভূমিকার কথা উল্লেখ করেন।


বিজয় দিবস উপলক্ষে ফিনল্যান্ড বিএনপির আলোচনা সভা

বুধবার, ২১ ডিসেম্বর ২০১৬

সামি-উর রাশেদীন, বাপ্ নিউজ : হেলসিংকি (ফিনল্যান্ড): বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল ফিনল্যান্ড শাখা মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে সোমবার সন্ধ্যায় হেলসিংকিতে এক আলোচনা সভার আয়োজন করেছে।ফিনল্যান্ড বিএনপির জেষ্ঠ নেতা জামান সরকারের সভাপতিত্বে আলাউদ্দিন মোহাম্মেদের সঞ্চালনায় স্বাগত বক্তব্য দেন সাবেক ছাত্রনেতা গাজী সামসুল আলম।আলোচনা সভায় আরো বক্তব্য রাখেন ফিনল্যান্ড বিএনপির জেষ্ঠ নেতা মোকলেসুর রহমান, বদরুম মনির ফেরদৌস, নাজমুল হুদা মনি, আবদুল্লা আল আরিফ, তাপস খান প্রমুখ।

alt 

এতে বক্তারা বলেন, গণবিরোধী সরকার ক্ষমতায় বসে দেশে রাজত্ব করছে। এই দেশে যত বিধ্বংসী নির্বাচন হয়েছে তার সবকিছু হয়েছে এই সরকারের আমলে। সরকার ভোট চুরি করে আর ইসি সেটা চেয়ে চেয়ে দেখে। গণবিরোধী এই সরকারের পক্ষে কখনো সুষ্ঠু নির্বাচন সম্ভব নয়। নাসিক নির্বাচনের আগের দিন থেকে নারায়ণগঞ্জে সেনা মোতায়েনের দাবীও জানান বিএনপির নেতারা।

alt 

আলোচনা সভায় নেতৃবৃন্দ আরো বলেন, রাষ্ট্রপতি ও চেয়ারপারসনের বৈঠকে আমরা আশাবাদী, মহামান্য রাষ্ট্রপতি চলমান সংকট থেকে দেশের উ‍ত্তরণের জন্য নিঃসন্দেহে ফলপ্রসূ ভূমিকা পালন করবেন।আলোচনা সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন মোস্তাক সরকার, আবুল কালাম আজাদ, তাজুল ইসলাম, মোঃ আনোয়ার হোসেন, নাজমুল হাসান, মীর সেলিম, মোঃ সাইফুর রহমান, ফাহমিদ উস সালেহীন, মনোয়ার পারভেজ, মোঃ সালাহউদ্দিন, জনি খান, মোঃ সামিউল আরেফিন, জাভেদ ইকবাল, শায়খ আকবার হোসাইন, মোঃ ইউসুফ ইসলাম ভূইয়া, সাইদ আহমেদ, ফাহিম শাহরিয়ার,  সামি-উর রাশেদীন, মীর ইসমাইল প্রমুখ।


ইতালির পাদোভায় আন্তর্জাতিক অভিবাসী দিবস পালিত

বুধবার, ২১ ডিসেম্বর ২০১৬

Picture

বাপ্ নিউজ : ইতালি প্রতিনিধি : ইতালির পাদোভায় প্রবাসী বাংলাদেশী ও ইতালিয়ান প্রবাসীদের অংশগ্রহণে উৎসব মুখর  আনন্দঘন পরিবেশে আলোচনা খেলাধুলা সম্মাননা ও পুরস্কার বিতরণীর মধ্য দিয়ে জাকজমক পূর্ণ আন্তর্জাতিক অভিবাসী দিবস পালন করা হয়েছে।

alt

রবিবার স্থানীয় একটি হলরুমে মিলান কনস্যুলেট এর আয়োজনে সবুজ  বাংলা এসোসিয়েশন পাদোভার সার্বিক সহযোগিতায় অভিবাসী দিবসের আলোচনা সভায় সভাপতিত্তে করেন মিলান কনস্যুলেট এর কনসাল জেনারেল রেজিনা আহমেদ। আলোচনার শুরুতে মাননীয় রাট্রপ্রতি,মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও অর্থ মন্ত্রীর বাণী পাঠ করেন কনসাল  রফিকুল করিম। পররাষ্ট্রমন্ত্রী, প্রবাসী কল্যাণ বৈদেশিক ও কর্মসংস্থান মন্ত্রী ও  মন্ত্রণালয়ের সচিব এর বাণী পাঠ করেন ভাইস কনসাল নাফিসা মনসুর।

alt
রফিকুল করিমের উপস্থাপনায় আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন কমুনে দি কাদুনেহ এর মেয়র মি মিকেলে স্কেয়াবো। শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন কমিউনিটির পক্ষে বাংলাদেশ ইসলামিক কালচারাল সেন্টার পাদোভার সভাপতি হুমায়ন কবির,কাউন্সিলর এন্ড কমিশনার অফ ইমিগ্রেন্ট কমুনে দি পাদোভার শাহ সেলিম,ভেনিস বাংলা স্কুলের সভাপতি কামরুল সারোয়ার,পাদোভা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ফরিদ শেখ,সবুজ বাংলা এসোসিয়েশনের সহ সভাপতি কামরুল মজুমদার,সাধারণ সম্পাদক কামাল আকন্দ প্রমুখ।

alt
আলোচনা শেষে কনস্যুলেট এর পক্ষ থেকে অভিবাসী দিবসের বিশেষ সম্মাননা প্রধান করেন প্রধান অতিথি সহ উপস্থিত ৩ জন ইতালিয়ান প্রবাসীকে।

alt
ব্যাডমিন্টন টুর্নামেন্টের সমাপনী খেলা ও প্রবাসী বাংলাদেশী এবং ইতালিয়ান প্রবাসীদের অংশগ্রহণে প্রীতি ভলিবল খেলা অনুষ্টিত হয়। খেলা শেষে বিজয়ী ও পরাজিত সকল খেলোয়াড় দেরকে এবং সহযোগিতা কারী সকলকে পুরস্কার প্রদান করা হয়।

alt

পরিশেষে কনসাল জেনারেল উপস্থিত সকল প্রবাসীদেরকে অভিবাসী দিবসে অংশগ্রহণ করে ধন্যবাদ জানান সেই সাথে প্রবাসীরা ও কনস্যুলেট জেনারেলের এই ভিন্ন ধর্মী আয়োজনের জন্য প্রবাসীদের পক্ষ থেকে  অভিনন্দন ও কৃতজ্ঞতা জানানো হয়।


বিজয় দিবস উপলক্ষে জাপান আওয়ামী লীগের আলোচনা সভা

বুধবার, ২১ ডিসেম্বর ২০১৬

Picture

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন- জাপান শাখা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক কমিটির সদস্য ইঞ্জি. হানিফ, আওয়ামী লীগ নেতা এম ডি আলাউদ্দিন, ইঞ্জি. জসিম উদ্দিন, স্বেচ্ছাসেবকলীগের আহ্বায়ক নুরুল আমিন রনি, যুবলীগ সভাপতি বি এম শাজাহান, মীর মিলন, সাহাবুদ্দিন আহমেদ সাবু, জয় ইসালাম, নাজমুল, ফখরুল ইসলাম আজাদ, হাসান, ড. এনামুল হক প্রমুখ।


বর্ণিল আয়োজনে কানাডায় বাংলাদেশ হাই কমিশনের বিজয় দিবস ২০১৬ উদযাপন

মঙ্গলবার, ২০ ডিসেম্বর ২০১৬

সদেরা সুজন, বাপ্ নিউজ : কানাডা থেকে।।  যথাযোগ্য মর্যাদা ও উৎসাহ-উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে মহান বিজয় দিবস ২০১৬ উদযাপন করেছে কানাডার অটোয়াস্থ বাংলাদেশ হাই কমিশন। এ উপলক্ষ্যে ১৬ ডিসেম্বর শুক্রবার সকালে বাংলাদেশ হাউসে আনুষ্ঠানিকভাবে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করেন কানাডায় নিযুক্ত বাংলাদেশের মান্যবর হাই কমিশনার মিজানুর রহমান। এ সময় দূতাবাসের সকল কূটনীতিক ও কর্মকর্তা-কর্মচারী উপস্থিত ছিলেন। পতাকা উত্তোলনের পর ১৯৫২'র ভাষা আন্দোলন থেকে শুরু করে ১৯৭১ এর মহান মুক্তিযুদ্ধের বীর শহীদদের এবং জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তাঁর শহীদ পরিবারের সদস্যবৃন্দের আত্মার মাগফিরাত কামনা করে বিশেষ মোনাজাত করা হয়।

alt
বিজয় দিবসের কর্মসূচীর দ্বিতীয় অংশে সন্ধ্যায় অটোয়ার সুপ্রসিদ্ধ কার্লটন ইউনিভার্সিটির কৈলাশ মিতাল থিয়েটারে এক আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করে বাংলাদেশ হাই কমিশন। অনুষ্ঠানের পূর্বে মহান মুক্তিযুদ্ধের বিভিন্ন ঘটনাপঞ্জী ও বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক ৭ই মার্চের ভাষনের ভিডিও তথ্যচিত্র প্রদর্শন করা হয়, যা উপস্থিত দর্শক-শ্রোতাদরে বিমুগ্ধ করে। অনুষ্ঠানের শুরুতেই ঢাকা থেকে প্রেরিত মহামান্য রাষ্ট্রপতির বাণী পাঠ করেন হাই কমিশনের মিনিস্টার নাইম উদ্দিন আহমেদ। মাননীয় প্রধামন্ত্রীর বাণী পাঠ করেন কাউন্সিলর মাকসুদ খান; মাননীয় পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর বাণী পাঠ করেন প্রথম সচিব আলাউদ্দিন ভুঁইয়া  এবং মাননীয় পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর বাণী পাঠ করেন প্রথম সচিব অপর্ণা রাণী পাল।

alt 
অটোয়া ও কানাডাবাসীকে বিজয় দিবসের অনুষ্ঠানে স্বাগত জানিয়ে কানাডায় নিযুক্ত বাংলাদেশের মান্যবর হাই কমিশনার মিজানুর রহমান বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে ১৯৭১ সালে বাংলাদেশের স্বাধীন রাষ্ট্র হিসেবে প্রতিষ্ঠা ছিল বাঙালী জাতির ইতিহাসের সর্বশ্রেষ্ঠ অধ্যায়। আর সেই দীর্ঘ নয় মাসের রক্তক্ষয়ী মুক্তিযুদ্ধে চূড়ান্ত বিজয় অর্জিত হয় ১৬ই ডিসেম্বর, যে কারণে এ দিবসের তাৎপর্য এত ব্যাপক। স্বাধীন বাংলাদেশের জন্য আত্মদানকারী শহীদদের এবং বাঙালীর অবিসংবাদিত নেতা জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানিয়ে হাই কমিশনার বলেন, তাঁদের আত্মত্যাগে অর্জিত বিজয় তখনই  সার্থক হবে যখন আমরা মুক্তিযুদ্ধের চেতনার আলোকে আমাদের ভবিষ্যত প্রজন্মকে গড়ে তুলতে পারবো।

alt 

বাংলাদেশ-কানাডা দ্বি-পাক্ষিক সম্পর্ক জোরদারকরণে বর্তমান সরকারের বিভিন্ন উদ্যোগের বিস্তারিত তুলে ধরে তিনি বলেন, গত ১৫-১৮ই সেপ্টেম্বর বাংলাদেশের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কানাডা সফর করেন এবং কানাডার মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডোর সাথে দেশের স্বার্থসংশ্লিষ্ট দ্বি-পাক্ষিক আলোচনায় মিলিত হন। বাংলাদেশের মহান মুুক্তযিুদ্ধে কানাডার অকুন্ঠ সমর্থনের স্বীকৃতিস্বরূপ কানাডার তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী পিয়ের এলিয়ট ট্রুডোর প্রতি উৎসর্গীকৃত "বাংলাদেশ মুক্তিযুদ্ধ সম্মাননা" বর্তমান কানাডীয় প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডোর হাতে তুলে দেন বাংলাদেশের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, যা দু'দেশের দ্বি-পাক্ষিক সম্পর্কে যোগ করেছে এক নতুন মাত্রা। এরই ধারাবাহিকতায় গত অক্টোবর মাসে বাংলাদেশের মাননীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী কানাডা সফর করেন এবং কানাডার মাননীয় পররাষ্ট্র মন্ত্রী স্টিফেন ডিওনের সাথে দ্বি-পাক্ষিক বৈঠকে মিলিত হন।

বন্ধুপ্রতীম দুই রাষ্ট্রের মধ্যে দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্য বর্তমানে ২.৪ বিলিয়ন মার্কিন ডলারে উন্নীত হয়েছে, যা ভবিষ্যতে আরো বৃদ্ধি পাবে। কানাডা প্রবাসী বাংলাদেশীদের কল্যাণে দূতাবাস কর্তৃক বিভিন্ন কার্যক্রম গ্রহণ করা হয়েছে। বিভিন্ন প্রদেশে কনস্যুলার সেবা বৃদ্ধি করা হচ্ছে। সম্প্রতি টরন্টো, ক্যালগেরী, এডমন্টন ও সাস্কাটুনে সফরে বিপুল সংখ্যক বাংলাদেশীকে কনস্যুলার সেবা দেওয়া হয়েছ; পর্যায়ক্রমে সবগুলো প্রদেশে এবং সবক'টি বড় শহরেই কনসুলার সেবা সম্প্রসারিত করা হবে।

alt

বাণিজ্য সম্প্রসারণে মিশনের কার্যক্রম জোরদার করা হচ্ছে। তেলসমৃদ্ধ এ্যলবার্টা প্রদেশ থেকে তেল আমদানী এবং সেখানকার তেলক্ষেত্রে বিনিয়োগের বিষয়ে তাঁর সম্প্রতিক সফরে আলোচনা হয়েছে সংশ্লিষ্ট কর্তপক্ষের সাথে; সাস্কাচুয়ানের সাথে কৃষি-সংক্রান্ত বাণিজ্য বেড়ে চলেছে। প্রবাসীদের কল্যাণার্থে দূতাবাসের আন্তরিক প্রচেষ্টায় কানাডার সবচাইতে বাংলাদেশী অধ্যূষিত শহর টরন্টোতে  একটি কনসুলেট খোলার বিষয়ে সরকারের সিদ্ধান্তের কথা উপস্থিত সকলকে অবহিত করেন বাংলাদেশের হাই কমিশনার। দু'দেশের মধ্যে বিমমান চলাচল চুক্তি এবং বৈদেশিক বিনিয়োগ সুরক্ষা চুক্তি স্বাক্ষরের বিষয়গুলো প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। তিনি কানাডাপ্রবাসী বাংলাদেশীদের সেবার প্রতি সর্বোচ্চ গুরুত্বারোপ করে বলেন, তাঁদের কল্যাণে বাংলাদেশ দূতাবাস দৃঢ়ভাবে অঙ্গীকারাবদ্ধ।

অনুষ্ঠানের দ্বিতীয় পর্বে ১৯৭১ -এর মহান মুক্তিযুদ্ধ, বঙ্গবন্ধুর ৭ই মার্চের ভাষণ, মুক্তিযোদ্ধাদের আত্মত্যাগ এবং চূড়ান্ত বিজয়ের উপর বিভিন্ন দেশাত্মবোধক ও জাগরণের গান, নাচ ও কবিতা পরিবেশন করেন অটোয়ার এবং বাংলাদেশে হাই কমিশনের শিল্পীবৃন্দ। একে একে সমবেত কণ্ঠে পরিবেশিত হয় "বাংলা হিন্দু, বাংলার খ্রিষ্টান, বাংলার বৌদ্ধ, বাংলার মুসলমান - আমরা সবাই বাঙালী", "নোঙ্গর তোলো তোলো, সময় যে হলো হলো", "পূর্ব দিগন্তে, সূর্য উঠেছে, রক্ত লাল, রক্ত লাল, রক্ত লাল", "ধন-ধান্য-পুষ্প-ভরা, আমাদের এই বসুন্ধরা", "এই পদ্মা, এই মেঘনা, এই যমুনা-সুরমা নদী তটে", সূর্যোদয়ে তুমি, সূর্যাস্তেও তুমি ও আমার বাংলাদেশ" এবং "জয় বাংলা বাংলার জয়" - গানগুলো। পরিবেশন করেন শিল্পী অং, রুবি, ডালিয়া, শামা, সাখাওয়াত, মাকসুদ, মাহমুদ, সাজি, শিউলী ও সোহেল। একক কন্ঠে পরিবেশিত হয় "গ্রাম যে আমার শিল্পীর আঁকা বিশাল একটা ছবি" (সাখাওয়াত হোসেন), "আজি বাংলাদেশের হৃদয় হতে কখন আপনি" (মমতা দত্ত), "ও আমার দেশের মাটি, তোমার পরে ঠেকাই মাথা" (শারমিন সিদ্দীক শামা), "মু্ক্তিযোদ্ধারা, কোথায় আছো লুকিয়ে" (দেওয়ান মাহমুদ), "ও ভাই খাঁটি সোনার চেয়ে খাঁটি আমার দেশের মাটি" (অং সুয়ে থয়োই), "এক নদী রক্ত পেরিয়ে, বাংলার আকাশে মুক্তির সূর্য আনলে যারা" (নার্গিস আক্তার রুবি), এবং "সব ক'টা জানালা, খুলে দাও না" (ডালিয়া ইয়াসমীন)। আবৃত্তি করা হয় জীবনান্দ দাসের "আবার আসিব ফিরে" (গিয়াস ইকবাল সোহেল), সৈয়দ শামসুল হকের "আমার পরিচয়" (শিউলী হক), স্বরচিত "স্মৃতির নামাজগড় কতদূর" (সুলতানা শিরীন সাজী), এবং নির্মলেন্দু গুণের "স্বাধীনতা শব্দটি কী করে আমাদের হলো" (মাকসুদ খান)। শিশুশিল্পীরা পরিবেশন করে দুইটি সমবেত সঙ্গীত "মা গো ভাবনা কেন" এবং "মোরা ঝঞ্চার মতো উদ্দাম" (এ্যালিসিয়া, আলিনা, ওয়াজিদ এবং চন্দ্রিমা)। শিশু আবৃত্তিকার ফতিমা সহীহ আবৃত্তি করে সৈয়দ শামসুল হকের "এই আমাদের বাংলাদেশ" কবিতাটি। সবগুলো আয়োজনই দর্শক-শ্রোতাদের মুগ্ধ করে।  যন্ত্রসঙ্গীতে ছিলেন সাখাওয়াত হোসেন (বাঁশী) সাদী রোজারিও (তবলা) এবং আরেফিন কবীর (কীবোর্ড ও গীটার) । মনোমুগ্ধকর নৃত্য পরিবেশন করেন আফরোজা খান লিপি ও শিশুশিল্পী আঁচল ("জন্ম আমার ধন্য হলো মাগো"), এবং কারিনা দত্ত ("একই সুরে আওয়াজ ওঠাও, এক পতাকা তোলো")। প্রতিটি পরিবেশনার সাথে ব্যাক-স্ক্রীনে প্রদর্শিত গ্রাম-বাংলার জীবন, সংস্কৃতি, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু এবং বাঙালীর মহান মুক্তিযুদ্ধের সংগ্রামের বর্ণিল চিত্রায়ন দর্শকদের বিমোহিত করে।

অনুষ্ঠান গ্রন্থনা ও সঞ্চালনায় ছিলেন বাংলাদেশ হাই কমিশনের প্রথম সচিব (বাণিজ্যিক) দেওয়ান মাহমুদ। সার্বিক সমন্বয় ও ব্যবস্থাপনায় ছিলেন প্রথম সচিব ও দূতালয় প্রধান আলাউদ্দিন ভুঁইয়া। তীব্র ঠান্ডা (-৩০) উপেক্ষা করে অটোয়া, মন্ট্রিয়েল ও কর্নওয়াল থেকে শতাধিক বাংলাদেশী ও কানাডীয়র স্বতঃস্ফুর্ত অংশগ্রহণে প্রাণবন্ত হয়ে উঠে বর্ণাঢ্য এ আয়োজন।

অনুষ্ঠানের শেষে মঞ্চে এসে মান্যবর হাই কমিশনার মিজানুর রহমান এবং তাঁর সহধর্মিনী মিসেস নিশাত রহমান সফল এ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান আয়োজনের জন্য সকল শিল্পী, কলা-কূশলী এবং হাই-কমিশনের সহকর্মীগণকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন। সুস্বাদু দেশীয় খাবার দিয়ে আগত অতিথিদের আপ্যায়ানের মধ্য দিয়ে সমাপ্ত হয় বাংলাদেশ হাই কমিশনের বিজয় দিবস উদযাপন।


রাষ্ট্রপতি এডভোকেট আব্দুল হামিদ-এর সাথে যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসীদের সাক্ষাৎ

রবিবার, ১৮ ডিসেম্বর ২০১৬

বাপসনিউজ যুক্তরাজ্য : সম্প্রতি রাষ্ট্রপতি এডভোকেট আব্দুল হামিদ যুক্তরাজ্যে সফরকালে যুক্তরাজ্যে প্রবাসী বাঙ্গালীদের  একটি প্রতিনিধি দল লন্ডন হোটেল সুইটে রাষ্ট্রপতির সাথে  সাক্ষাৎ করেন।

alt

বিশিষ্ট আলেম এবং ইসলামি চিন্তাবিদ মৌওলানা শফিকুর রহমান বিপ্লবী, আওয়ামী লীগ নেতা সারোয়ার হোসেন খান লিটনসহ যুক্তরাজ্য প্রবাসী বিশিষ্ট ব্যক্তিগণ সাক্ষাৎ করলে রাষ্ট্রপতি তাদের ধন্যবাদ জানান। এবং প্রবাসে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে দেশের কল্যানে মুল ধারায় কাজ করার আহবান জানান। ছবি ঃ বাপসনিউজ।