Slideshows

ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার

পরিচালনা পরিষদ 

সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি

ওসমান গনি
 

প্রধান সম্পাদক

হাকিকুল ইসলাম খোকন
 

সম্পাদক

সুহাস বড়ুয়া হাসু
 

সহযোগী সম্পাদক

আয়েশা আকতার রুবী

বিনোদন

৮৮তম অস্কারে জয়ীদের সম্পূর্ণ তালিকা

সোমবার, ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০১৬

বাপসনিঊজ:বরাবরের মতোই লস এঞ্জেলসের ডলবি থিয়েটারে বসেছিল বিনোদন জগতে বছরের সবচেয়ে প্রতীক্ষিত আসর। ৮৮তম অ্যাকাডেমি অ্যাওয়ার্সে অবশেষে লিওনার্দো ডি ক্যাপ্রিওর হাতে অস্কার উঠেছে, সেরা নির্মাতা হয়েছেন গতবারও একই বিভাগে অস্কারজয়ী আলেহান্দ্রো গনজালেস ইনারিতু।

৮৮তম অস্কারে জয়ীদের সম্পূর্ণ তালিকা 

এবার এক নজরে দেখে নেয়া যাক কে কোন বিভাগে সেরা:

সেরা চলচ্চিত্র: স্পটলাইট

সেরা অভিনেতা: লিওনার্দো ডি ক্যাপ্রিও ( দ্য রেভনেন্ট)

সেরা অভিনেত্রী: ব্রি লার্সন (রুম)

সেরা পরিচালক: আলেহান্দ্রো গনজালেস ইনারিতু (দ্য রেভনেন্ট)

পার্শ্ব-চরিত্রে সেরা অভিনেতা: মার্ক রায়লেন্স (ব্রিজ অফ স্পাইস)

পার্শ চরিত্রে সেরা অভিনেত্রী: অ্যালিসিয়া ভিকান্দার (দ্য ড্যানিশ গার্ল)

সেরা বিদেশি ভাষার চলচ্চিত্র: ‘সন অফ সাওল' (হাঙ্গেরি)

সেরা তথ্যচিত্র: ‘এমি'

সেরা স্বল্পদৈর্ঘ্য তথ্যচিত্র: ‘আ গার্ল ইন দ্য রিভার: দ্য প্রাইস অফ ফরগিভনেস'

সেরা অ্যানিমেটেড চলচ্চিত্র: ‘ইনসাইড আউট'

সেরা স্বল্পদৈর্ঘ্য অ্যানিমেটেড চলচ্চিত্র: 'বিয়ার স্টোরি'

সেরা মৌলিক চিত্রনাট্য: জশ সিঙ্গার ও টম ম্যাকার্থি (দ্য বিগ শর্ট)

সেরা সাহিত্যনির্ভর চিত্রনাট্য: চালর্স র‌্যানডল্ফ ও অ্যাডাম ম্যাককে (স্পটলাইট)

সেরা মৌলিক সংগীত: এনিও মরিকনি (দ্য হেইটফুল এইট)

সেরা মৌলিক গান: "রাইটিংস অন দ্য ওয়াল", জিমি নেপস ও স্যাম স্মিথ (স্পেক্টার)


অবশেষে অস্কার পেলেন ডি ক্যাপ্রিও

সোমবার, ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০১৬

বাপসনিঊজ:রেভন্যান্ট সিনেমায় অনবদ্য অভিনয়ের জন্য প্রথমবারের মতো অস্কার পেলেন লিওনার্দো ডি ক্যাপ্রিও। এর আগে বেশ কয়েকবার মনোনীত হলেও শেষ পর্যন্ত জেতা হয়নি।

এদিকে দ্য রুম সিনেমার জন্য সেরা অভিনেত্রীর পুরস্কার জিতেছেন ব্রাই লারসন। এদিকে অস্কারের সেরা সিনেমার পুরস্কার পেয়েছে টম ম্যাকার্থির পরিচালনায় স্পটলাইট সিনেমা। সবচেয়ে বেশি ছয়টি অস্কার পেয়েছে ম্যাড ম্যাক্স: ফিউরি রোড। ১০টি ক্যাটেগরিতে মনোনয়ন পেয়েছিল এই সিনেমা।

অবশেষে অস্কার পেলেন ডি ক্যাপ্রিও 

এবার অস্কার জয়ের পথে ডি ক্যাপ্রিও পেছনে ফেলেছেন এডি রেডম্যাইন (দ্য ড্যানিশ গার্ল), মাইকেল ফাসবেন্ডার (স্টিভ জবস), ব্রায়ান ক্র্যানস্টন (ট্রাম্বো) এবং ম্যাট ডেমনকে (দ্য মার্শিয়ান)। রেভন্যান্ট সিনেমায় অনবদ্য অভিনয়ের আগে পাঁচবার মনোনীত হয়েছিলেন। ১৯৯৩ সালের সিনেমা হোয়াট ইটিং গিলবার্ট গ্রেপ এর জন্য সেরা পার্শ্ব অভিনেতার জন্য প্রথমবারের মতো মনোনীত হয়েছিলেন। এরপর সেরা অভিনেতার জন্য মনোনীত হয়েছিলেন দ্য অ্যাভিয়েটর (২০০৫), ব্লাড ডায়মন্ড (২০০৭), দ্য উলফ অব ওয়ালস্ট্রিট (২০১৩) এর জন্য মনোনীত হয়েছিলেন।

উল্লেখ্য, একই সিনেমার জন্য সেরা পরিচালকের পুরস্কার পেয়েছেন আলেহান্দ্রো গঞ্জালেস ইনারিতু। রেভন্যান্ট সিনেমার জন্য ইমানুয়েল লুবজেকি টানা তৃতীয় বারের মতো সিনেমাটোগ্রাফির জন্য পুরস্কার পেয়েছেন।  এর আগে ২০১৫ সালে বার্ডম্যান এবং ২০১৪ সালে গ্র্যাভিটির জন্য অস্কার পেয়েছিলেন তিনি। ১০ টি ক্যাটেগরিতে মনোনয়ন পেয়ে তিনটিতে অস্কার পেল রেভন্যান্ট। 

সেরা পার্শ্ব অভিনেতার পুরস্কার পেয়েছেন ব্রিজ অব দ্য স্পাই সিনেমায় অনবদ্য অভিনয় করা মার্ক রিল্যান্স।  এদিকে পার্শ্ব অভিনেত্রীর পুরস্কার জিতেছেন দ্য ড্যানিশ গার্ল সিনেমায় অভিনয় করা অ্যালিসিয়া ভিকান্দার। বন্ডের সর্বশেষ সিনেমা স্পেক্টারের অরিজিনাল সাউন্ডট্র্যাক ‘রাইটিং অন দ্য ওয়াল’ এর জন্য অস্কার পেয়েছেন স্যাম স্মিথ। 


টানা দ্বিতীয়বারের মতো সেরা পরিচালক ইনারিতু

সোমবার, ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০১৬

বাপসনিঊজ:বহুল আলোচিত দ্য রেভন্যান্ট সিনেমার জন্য সেরা পরিচালকের অস্কার পেয়েছেন আলেহান্দ্রো গঞ্জালেস ইনারিতু। এর আগে গত বছর মেক্সিকান এই পরিচালক দ্য বার্ডম্যান সিনেমার জন্যও অস্কার জিতেছিলেন তিনি।

টানা দ্বিতীয়বারের মতো সেরা পরিচালক ইনারিতু 

এর আগে রেভন্যান্ট সিনেমার জন্য বাফটা ও গোল্ডেন গ্লোবে সেরা পরিচালকের পুরস্কার পেয়েছিলেন তিনি। ইনারিতুর আগে সর্বশেষ জোসেফ এল মানকিউইজ টানা দুইবার পুরস্কার পেয়েছিলেন। মানকিউইজ যথাক্রমে ১৯৫০ সালে অ্যা লেটার টু থ্রি ওয়াইভস এবং ১৯৫১ সালে অল অ্যাবাউট ইভ সিনেমার জন্য অস্কার পেয়েছিলেন।


অস্কার ঘোষণার আগেই ‘দ্য রেভিনেন্ট’-এর বাজিমাত

শনিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০১৬

Picture

গেল বছর থেকে আশায় বুক বাধতে থাকা পৃথিবীর নামিদামি এমনসব মানুষদের স্বপ্নকে চুরমার করতে আগামীকালকেই ঘোষিত হচ্ছে অস্কার অ্যাওয়ার্ড ২০১৬। হ্যাঁ। চূড়ান্ত ফল ঘোষণার আগে সিনেবোদ্ধারাও একটি অনুমান নির্ভর অস্কার ২০১৬’এর পুরস্কার বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করে দিয়েছেন। যেখানে গত পাঁচবার অস্কার মনোনীত কিন্তু অস্কার খরায় আক্রান্ত ‘টাইটানিক’ খ্যাত অভিনেতা লিওনার্দো ডিক্যাপ্রিওকে দেয়া হয়েছে অগ্রীম অস্কার পুরস্কার। গেল বছরের আলোচিত ছবি ‘দ্য রেভিনেন্ট’ ছবির জন্য তাকে অগ্রীম এই পুরস্কার দেয়া হয়েছে। সেরা নির্মাতা হিসেবে দেয়া হয়েছে ‘দ্য রেভিনেন্ট’ নির্মাতা আলেজান্দ্রো গঞ্জালেস ইনারিতুকে। 

alt

সেরা অভিনেত্রীর পুরস্কার পেতে পারেন জেনিফার লরেন্স...

শুধু তাই না, সিনেবোদ্ধারা মনে করছেন যে চলতি বছরে ফের সেরা অভিনেত্রী হিসেবে অস্কার পেতে পারেন জেনিফার লরেন্স। ‘জয়’ সিনেমার জন্য তাকে অগ্রীম অস্কারে সেরা অভিনেত্রী হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে! এছাড়া কারা কারা এই আসরে অস্কার পেতে পারেন, বা পাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে তার একটি পূর্ণ তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে। সিনোবোদ্ধার বিচার বিশ্লেষণে যে বা যারা অস্কার ভাগিয়ে নিতে পারেন, তাদের পূর্ণ তালিকা দেখে নিতে পারেন এখানে:

যে বা যাদের ছবিগুলো চলতি আসরে অস্কার মাতাবে:
সেরা ছবি: দ্য রেভিনেন্ট
সেরা অভিনেতা: লিওনার্দো ডিক্যাপ্রিও, দ্য রেভিনেন্ট
সেরা অভিনেত্রী: জেনিফার লরেন্স, জয়
সেরা নির্মাতা: আলেজান্দ্রো গঞ্জালেস ইনারিতু, দ্য রেভিনেন্ট
সেরা পার্শ্ব-অভিনেত্রী: এলিসিয়া ভিকান্দর, দ্য ডেনিশ গার্ল
সেরা অ্যানিমেশন ফিল্ম: ইনসাইড আউট
সেরা অরিজিনাল স্কোর: দ্য হেটফুল এইট
সেরা চিত্রনাট্য: রুম

alt

মেড ম্যাক্স ফিউরি রোড সিনেমার একটি দৃশ্য....

সেরা অরিজিনাল স্ক্রিনপ্লে: স্পটলাইট
সেরা সিনেমা সম্পাদনা: মেড ম্যাক্স ফিউরি রোড

সেরা সিনেমাটোগ্রাফি: দ্য রেভিনেন্ট
সেরা প্রোডাকশন ডিজাইন: মেড ম্যাক্স: ফিউরি রোড
সেরা ভিজ্যুয়াল ইফেক্টস: মেড ম্যাক্স: ফিউরি রোড
সেরা অরিজিনাল সং: রাইটিং অন দ্য ওয়াল, স্পেক্টর
সেরা ডকুমেন্টারি(শর্ট সাবজেক্ট): বডি টিম ১২
সেরা ডকুফিল্ম(ফিচার): অ্যামি

alt

চমক দেখাতে পারে হেটফুল এইট ছবিটিও... 

সেরা কস্টিউম ডিজাইন: মেড ম্যাক্স: ফিউরি রোড
সেরা সাউন্ড মিক্সিং: ব্রিজ অব দ্য স্পাইস
বেস্ট লাইভ অ্যাকশন শর্টফিল্ম: এভ মারিয়া
সেরা অ্যানিমেটেড শর্ট ফিল্ম: সঞ্জয় সুপার টিম
সেরা মেকাপ এবং হেয়ারস্টাইল: মেড ম্যাক্স: ফিউরি রোড
সেরা সাউন্ড সম্পাদনা: স্টার ওয়ার্স: দ্য ফোর্স অ্যাওয়াকেন্স 

প্রসঙ্গত, অস্কার বা অ্যাকাডেমি অ্যাওয়ার্ডকে বলা হয় চলচ্চিত্রের ‘নোবেল’। নোবেল পুরস্কারকে যতোটা সম্মানের হিসেবে মূল্যায়ন করা হয়, চলচ্চিত্রে ঠিক ততটাই গুরুত্বপূর্ণ আর সম্মানের হিসেবে বিবেচিত একটা ‘অস্কার’! প্রতি বছর তাই এই পুরস্কার জয়ের জন্য মুখিয়ে থাকেন বিশ্বের তাবৎ প্রভাবশালী নির্মাতা থেকে অভিনেতা, অভিনেত্রী, সিনেমাটোগ্রাফারসহ চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্ট সকলেই। ২৮ ফেব্রুয়ারি কাঙ্ক্ষিত অস্কার পুরস্কারটি প্রতীক্ষিত ব্যক্তিটির হাতে তুলে দেয়ার মধ্য দিয়ে শেষ হবে চলতি বছরের অনুষ্ঠান। তবে এবার আর ‘সেরা সিনেমা’র চেয়ে সবচেয়ে বেশি আকর্ষণের জন্ম দিয়েছি ‘সেরা অভিনেতা’ কে হতে যাচ্ছেন এই প্রশ্নটি। এখন দেখার বিষয়, সেরা অভিনেতার পুরস্কারটি নিয়ে যে আলাপ আলোচনা, তা কতোটা প্রভাবিত করতে পারে অস্কারের জুরিতে থাকা বিচারকদের!  


১২ ভাষায় ‘আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো’ ( ভিডিও )

শনিবার, ২০ ফেব্রুয়ারী ২০১৬

আয়েশা আকতার রুবী,বাপসনিঊজ:১২টি ভাষায় গাওয়া হলো ‘আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারি’ গানটি। বাংলাসহ বাকি ১১টি ভাষা হলো মালয় (মালয়েশিয়া), আরবি (লেবানন), জার্মান (জার্মানি), নেপালি (নেপাল), হিন্দি (ভারত), ফরাসি (ফ্রান্স), স্পেনীয় (ভেনেজুয়েলা), রুশ (রাশিয়া), ইংরেজি (যুক্তরাষ্ট্র), চীনা (হংকং) ও ইতালীয় (ইতালি)।

Picture

গেয়েছেন ওই ভাষাভাষী দেশের শিল্পীরা। এই কাজটি যাঁর উদ্যোগে হয়েছে, তিনি ২২ বছরের বাংলাদেশি তরুণ নাবিদ সালেহীন। বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়-পড়ুয়া এই তরুণ জানালেন, গত বছরের মাঝামাঝি সময়ে তিনি ১৬টি দেশের সংগীতশিল্পীদের সঙ্গে যোগাযোগ করেন।

রাশিয়ার গায়ক আলেকসান্দর 

অনুরোধ করেন ‘আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারি’ গানটি তাঁদের ভাষায় গাওয়ার। সেখান থেকে ১২ জন তাঁর ডাকে সাড়া দেন। পরে তিনি বাংলা ছাড়া গানটির ১১টি ভাষার অনুবাদ ও মিউজিক পাঠিয়ে দেন শিল্পীদের কাছে। শিল্পীরা গানটি গেয়ে ভিডিওসহ পাঠিয়ে দেন সালেহীনের কাছে। এভাবেই তৈরি হয়ে যায় ১২টি ভাষায় ‘আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো’ গানটি।
জার্মানির কণ্ঠশিল্পী নোরা 
গানটি গাওয়া প্রসঙ্গে নাবিদ সালেহীন বলেন, ‘আমরা চেয়েছিলাম আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে ভাষাশহীদদের অন্য রকমভাবে শ্রদ্ধা জানাতে। এটা তারই অংশ।’গানটি তৈরিতে সহযোগিতা করেছে আজব রেকর্ডস। গানটি নাবিদ সালেহীনের ফেসবুক পেজ ও ইউটিউব চ্যানেলে দেখা যাবে।
ভিডিও ক্লিপটি দেখতে ক্লিক করুন...https://www.youtube.com/watch?v=-MvrBDlSWG4


আফ্রিকানদের কণ্ঠে ‘আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো’ (ভিডিও)

শনিবার, ২০ ফেব্রুয়ারী ২০১৬

বাপসনিঊজ:জাতিসংঘ শান্তি মিশনের অংশ হিসেবে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের মতো সিয়েরা লিওনে বাংলাদেশের প্রতিরক্ষা বাহিনী কাজের মাধ্যমে সুনাম অর্জন করেছে। তাদের কাজে মুগ্ধ হয়ে হাজার মাইল দূরে পশ্চিম আফ্রিকার দেশটির সাধারণ মানুষ বাংলাদেশকে ভালবেসে বাংলা ভাষাকে নিজেদের দ্বিতীয় ভাষা হিসেবে দিয়েছে বিশেষ মর্যাদার আসন।

Picture


বাংলা ও আফ্রিকান ভাষায় সিয়েরা লিওনের শিল্পীরা গেয়েছেন প্রভাতফেরির গান ‘আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারি’। এর কথা লিখেছেন আবদুল গাফফার চৌধুরী, সুর করেছেন আলতাফ মাহমুদ।সিয়েরা লিওনের শিল্পীদের গাওয়া গানটি নিয়ে দেশের শীর্ষস্থানীয় মোবাইল প্রতিষ্ঠান গ্রামীণফোনের উদ্যোগে তৈরি হয়েছে একটি নতুন বিজ্ঞাপনচিত্র। এর নির্দেশনা দিয়েছেন অমিতাভ রেজা।সিয়েরা লিওনে দ্বিতীয় জাতীয় ভাষা বাংলা। শিল্পীরা উভয় ভাষায় গানটি গেয়েছেন। গত ১০ ফেব্রুয়ারি ইউটিউবে এসেছে এটি। এ ছাড়া প্রচার হচ্ছে বিভিন্ন টিভি চ্যানেলেও।

* সিয়েরা লিওনের শিল্পীদের কণ্ঠে ‘আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো’ : https://www.youtube.com/watch?v=SMPUsEunt00


পলাশ মাহবুবের উপস্থাপনায় ’প্রাণের মেলা’

বুধবার, ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০১৬

আয়েশা আকতার রুবী,বাপসনিঊজ:অমর একুশে গ্রন্থমেলা নিয়ে বৈশাখী টেলিভিশনে প্রচারিত হচ্ছে ’প্রাণের মেলা’। অনুষ্ঠানটি একই সাথে মেলা প্রাঙ্গন এবং স্টুডিও থেকে সরাসরি সম্প্রচারিত হয়। স্টুডিওতে থাকেন একজন খ্যাতিমান লেখক অথবা প্রকাশক। অন্যদিকে মেলা প্রাঙ্গন থেকেও লেখক, পাঠক এবং প্রকাশকরা সরাসরি যুক্ত হন। ’প্রাণের মেলা’ অনুষ্ঠানটি উপস্থাপনা করছেন জনপ্রিয় লেখক ও নাট্যকার পলাশ মাহবুব। প্রচারিত হয় প্রতি রবি থেকে বৃহস্পতিবার বিকেল ৫টা ২০ মিনিটে।


প্রাণের মেলা প্রসঙ্গে পলাশ মাহবুব বলেন, গত চার বছর ধরে অনুষ্ঠানটি উপস্থাপনা করছি। তাছাড়া আমি যেহেতু লেখালেখি করি, মেলায় যেহেতু আমারও বই প্রকাশিত হয়েছে তাই বই এবং বইয়ের অনুষ্ঠানের প্রতি যে অন্যরকম ভালোলাগা কাজ করে তা বলার অপেক্ষা রাখেনা।


তৃতীয় বিয়ের পর কঠিন সত্য প্রকাশ করলেন রোমানা

সোমবার, ১৫ ফেব্রুয়ারী ২০১৬

বাপসনিঊজ:তৃতীয়বারের মতো বিয়ে করেছেন জনপ্রিয় মডেল ও অভিনেত্রী রোমানা।যুক্তরাষ্ট্রের নিইউয়র্ক শহরের নদী তীরবর্তী ওয়ার্ল্ড স্পেয়ার মেরিনা হলে ব্যবসায়ী এলিন রহমানের সঙ্গে তার বিয়ে হয়। অনুষ্ঠানে যুক্তরাষ্ট্রে বসবাসরত বিভিন্ন তারকারা অংশ নেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন রোমানার বাবা, মা, ভাইসহ অন্যান্য বন্ধু-বান্ধব ও স্বজনেরা। রোমানার স্বামী এলিন রহমানের পরিবারের সদস্যরাও উপস্থিত ছিলেন সেখানে।

বিয়ের পর রোমানা বলেন, সংসার ও অভিনয় দুটো আসলে একসঙ্গে চালানো সম্ভব নয়। তাই আমি সিদ্ধান্ত নিয়েছি অভিনয় আর করবো না। সংসার জীবনটাকে এখন প্রাধান্য দিতে চাই। এলিনকে, এলিনের পরিবারকে সুখী করতে চাই। দেশ বিদেশের সবাই আমাদের জন্য দোয়া করবেন যেন আমরা সুখী হতে পারি, ভালো থাকতে পারি।

Picture

এসএসসিতে সম্মিলিত মেধা তালিকায় স্থান পাওয়া এলিন রহমান এইচএসসি শেষ করার পর বুয়েটে স্থাপত্যবিদ্যায় এবং পরর্তীতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে অর্থনীতি অনার্স পড়ছিলেন। কিন্তু পরবর্তীতে কানাডায় ব্যাচেলর অব ইঞ্জিনিয়ার ডিগ্রি অর্জন করেন।

এলিন রহমান ‘আটলান্টিস ক্যাপিটাল এলএলসি’, ‘ অ্যাংকর আমেরিকা ফান্ডিং এলএলসি’, ‘আটলান্টিস প্রপার্টিজ এলএলসি’ ও ‘অ্যাক্রোনিমস ইনকর্পোরেটেড’-এর প্রেসিডেন্ট, ফাউন্ডার ও সিইও। যুক্তরাষ্ট্রে বাংলাদেশি একজন ব্যবসায়ী হিসেবে তার যথেষ্ট সুনাম রয়েছে।

এর আগে আরো দুবার বিয়ে হয়েছে রোমানার। প্রথমে উপস্থাপক ও নির্মাতা আনজাম মাসুদকে বিয়ে করেন তিনি। পরে সে বিয়ে ভেঙে গেলে সাজ্জাদ নামে ঢাকার আরেক ব্যবসায়ীর সঙ্গে ঘর বাঁধেন রোমানা। সে বিয়েও টিকেনি। কিন্তু দ্বিতীয় বিয়ের ক্ষত শুকানোর আগেই তৃতীয় বিয়ে করে ফেললেন।


বুয়াকে চুমু, বউয়ের পরকীয়া, রুমীর বিভ্রন্তিকর সংবাদ নিয়ে তোলপাড়

শনিবার, ১৩ ফেব্রুয়ারী ২০১৬

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে এ ধরণের সংবাদের লিংকটি প্রকাশ করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী ফাতেমা আলী মুনা। এরপরই বিষয়টি ভাইরাল হয়ে যায় এবং তোলপাড় শুরু হয়। এমনকি জনপ্রিয় কষ্ঠশিল্পী আরেফিন রুমির সঙ্গে মধ্যবয়সী এক মহিলার ছবিও জুড়ে দেয়া হয়েছে।

এর আগে দ্বিতীয় স্ত্রীকে ডিভোর্স দেয়ার নেপথ্য কারণ নিয়ে জনপ্রিয় আরেফিন রুমির বক্তব্যের সঙ্গে তার মায়ের বক্তব্যের মিল নেই।
বুধবার নিজের অফিশিয়াল ফেসবুক পেজে রুমি দাবি করছেন, দ্বিতীয় স্ত্রী কামরুন নেসা তার মাকে গালাগালি করতেন, অবাধ্য ছিলেন আর তাকে মানসিক অত্যাচার করতেন।
কিন্তু দুপুরে এ ব্যাপারে রুমির মা নাসিমা আক্তারের সঙ্গে কথা হলে তিনি বলেন, কামরুন নেসার আরেক স্বামী আছে যিনি যুক্তরাষ্ট্রে থাকেন। তিনি নিয়মিত সেই স্বামীর সঙ্গে যোগাযোগ রাখতেন এবং প্রায়ই যুক্তরাষ্ট্রে গিয়ে তার সঙ্গে সময় কাটিয়ে আসতেন। কিন্তু বিয়ের আগে রুমিরা জানতেন কামরুন নেসা তালাকপ্রাপ্তা।
জানা যাচ্ছে, গত ৩১ জানুয়ারি দ্বিতীয় স্ত্রী কামরুন নেসাকেও ডিভোর্স দেন আরেফিন রুমি। গত মঙ্গলবার রুমির আইনজীবী আবদুর রহিম কামরুন নেসার বাবাকে ডিভোর্স লেটার পাঠানোর বিষয়টি অবগত করেন।ডিভোর্সের খবরটি মিডিয়ায় চাউর হতেই আলোচনা-সমালোচনার ঝড় ওঠে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অনেকেই সমালোচনা করেন।

Picture

এদিকে, আরেফিন রুমি আরো বলেন, তার দ্বিতীয় স্ত্রীর চরিত্র মোটেও ভলো না। তার সাবেক স্বামীর সঙ্গে এখনো দৈহিক সম্পর্ক রয়েছে। এ ধরণের মেয়েদের বেশ্যা ছাড়া আর কিই বা বলার আছে।

এর জবাবেই ফেসবুক পেজে আত্মপক্ষ সমর্থন করে একটি ভিডিওবার্তা দিয়েছেন রুমি। তিনি বলেছেন, ‘তালাক দেওয়ার অন্যতম কারণ ছিল, সে (কামরুন্নেসা) আম্মুকে গালাগালি করত। সে আমার বাধ্যগত ছিল না। জানি, সবার বাসায় অনেক কিছুই হয়। আমার কিছু বলার ছিল না। সবচেয়ে বড় কথা, নিজে বাঁচলে তবেই তো নিঃশ্বাস নেব। আসুন কথা বলি আমরা ক্যারিয়ার নিয়ে। কারণ এর জন্যই সবকিছু।’
কামরুন নেসা কাজেও বাধা দিতেন উল্লেখ করে বলেন, ‘কাজ যদি না করতাম, সবাই বলত- বেকার। কাজ করছি। কাজেও সে বাধা হয়। তালাকের এটাও একটা কারণ। একজন গায়ক যদি লাইট হয়। আর সে লাইটকেই যদি বন্ধ করে দেওয়া হয়, তাহলে তো হলো না। সে স্টুডিওতে পর্যন্ত কাজ করতে দিত না। এটাই আসলে বড় কারণ। আমি আমার বেবি ও কামরুন্নেসা দুজনকেই মিস করি। অনেক। কিন্তু সে আমার কথা বুঝল না। আর কী করা! পৃথিবাটা অনেক বড়। আর একটা কথা আমি টাকা উপার্জন করে আনি অথচ আমার বাধ্যগত যদি না থাকে তাহলে আমি তাদের জন্য কেন করব? সত্যিই কিছু করার ছিল না।’
তালাকপ্রাপ্ত প্রথম স্ত্রী অনন্যার ঘরের ছেলে আরিয়ানকে কাছে আনতে দিত না বলেও রুমির অভিযোগ।
তবে তার মা নাসিমা আক্তার বলছেন, ‘রুমি জানতো কামরুন নেসা তালাক প্রাপ্তা। কিন্তু বছরখানেক আগে জানা গেল কামরুন নেসার আরেক স্বামী আছে। তার নাম সোহাগ আলী। থাকে নিউইয়র্কে। রুমির চোখ ফাঁকি দিয়ে প্রতিদিনই তার সঙ্গে কথা বলতো কামরুনন্নেসা। একদিন তাকে হাতেনাতে ধরে ফেলে রুমি। রুমির কথা হলো, একজন নারীর একসঙ্গে দুইটা স্বামী থাকতে পারে না। কিন্তু কামরুন্নেসা বিষয়টা মাথায় নেয়নি। ছয়মাস রুমির কাছে থাকে আর বাকি ছয়মাস আমেরিকায় প্রথম স্বামীর সঙ্গে কাটায়। এসব বলতে গেলে কামরুন্নেসা আমাদের সঙ্গে খারাপ আচরণ করে।

এদিকে, প্রিয়ংকা দে নামের আরেফিন রুমির এক ভক্ত সংবাদ২৪.নেটকে বলেন, একজন শিল্পীকে নিয়ে এমন আজেবাজে সংবাদ মোটেই কাম্য নয়। তার ক্যারিয়ারও শেষ হয়ে যেতে পারে। ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে বেশি ঘাটাঘাটির কি দরকার আছে বলুন। আমাদের কাছে রুমি একজন শিল্পী এর বেশি কিছু জানার দরকার নেই।

চুমু না দিলে আরেফিন রুমী আমার বেতন দিত না : রহিমা বুয়া

জনপ্রিয় কন্ঠশিল্পী আরেফিন রুমী তার দ্বিতীয় স্ত্রীকে বাইন তালাক দেয়ার পর এবার আরেকটি অভিযোগ উঠলো তার নামে। অভিযোগটি করেছেন রুমীদের বাসার কাজের বুয়া রহিমা। গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় একটি সংবাদ সম্মেলন করে তিনি সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে বলেন, “রুমী একটি খারাপ ছেলে। সে আমাকে খুব পাশবিক নির্যাতন করে। মাস শেষে যখন বেতন দেয়ার সময় হয়। তখন রুমী তালবাহানা করে। লিপ কিস না দিলে বেতন দিবেনা বলে জানায় রুমী। আমি বাধ্য হয়ে সতেরোবার তার সাথে লিপ কিস করেছি। এই ভয়ংকর লুচোর মুখোশ উন্মোচনে আপনারা সোচ্চার হোউন।”

এব্যাপারে রুমীকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তার ফোনে বেশ কয়েকটি মিসকল দেয়া হলেও তিনি কল ব্যাক করেননি।

rumi kamrunnesa 10-02-16

আরেফিন রুমি আমার শারিরীক চাহিদাই মেটাতে পারেনি: কামরুন্নেসা

রুমি আমার সঙ্গে প্রতারনা করেছে-এমনটাই বললেন জনপ্রিয় গায়ক ও সঙ্গীত পরিচালক আরফিন রুমির দ্বিতীয় স্ত্রী কামরুন্নেসা।সম্প্রতি কামরুন্নেসাকে ডিভোর্স লেটার পাঠানো ও এ সংক্রান্ত খবর বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমে প্রকাশ হওয়ার প্রেক্ষিতে বুধবার দুপুরে দুবাই থেকে একটি অনলাইন নিউজ পোর্টালকে তিনি এই কথা বলেন।

কামরুন্নেসা বলেন, ‘আমি অক্টোবরে নিউ ইয়র্কে বেড়াতে আসি। গত ৩০ জানুয়ারি রুমির সঙ্গে আমার কথা হয়। ফোনে রুমি আমার সঙ্গে খুবই বাজে ব্যবহার করেন। এমনকি আমাকে তার বাসাতেও আসতে মানা করে। আমি এই নিয়ে তার সঙ্গে বেশি কথা বলিনি। কিন্তু বুধবার বিভিন্ন অনলাইনও সংবাদমাধ্যেমে ডিভোর্সের খবর প্রকাশ হয়েছে। এসব দেখে আমি হতবাক হয়েছি। কিছুদিন আগে আমাদের সন্তান আয়ান তার বাবার সঙ্গে কথা বলতে চাওয়ার কারণে রুমিকে ভিডিও কল করেছি বেশ কয়েকবার। কিন্তু রুমি ফোন ধরেনি। কেন রুমি আমার সঙ্গে এ ধরনের প্রতারণা করল? আমি দেশে ফিরেই তার কাছে সব প্রশ্নের উত্তর চাইব। তাছাড়া আমি এখনও কোনও ডিভোর্স পেপার পাইনি। এটা নিয়ে লড়াই চালিয়ে যাব।’

তিনি বলেন, ‘রুমি হয়তো নতুন কোনোও সম্পর্কে জড়িয়েছেন। এজন্য আমাকে এবং আমার সন্তানকে এড়িয়ে চলছে। তাই আমার নামে মিথ্যা বদনাম ছড়াচ্ছে সে ও তার মা। রুমির মা আমার সঙ্গে কেমন ব্যবহার করত, তা রুমির কাছের বন্ধুরাই ভালো বলতে পারবে। তারপরও চুপচাপ থেকেছি। আর এখন আমাকে ভিভোর্স দিচ্ছে। বিয়েটা কি খেলার পুতুল নাকি?’ এছাড়া আরেফিন রুমি কি পুরুষ কিনা সে বিষয়ে প্রশ্ন রয়েছে। সে তো আমার শারিরীক চাহিদাও কোনদিন পুরোপুরি মেটাতে পারেনি।

তিনি আরো বলেন, ‘রুমি তার প্রথম স্ত্রীর সঙ্গে কেমন আচরণ করতো তা সবাই জানেন। আমার সঙ্গেও সেই একই রকম আচরণ করার চেষ্টা করেছে । আমি তার এই আচরণের প্রতিবাদ করায় আমাকে এখন সে আর পছন্দ করে না। ডিভোর্স দিতে চায়।’

এদিকে মঙ্গলবার নিউ ইয়র্ক থেকে বাংলাদেশের উদ্দেশ্যে রওনা দিয়েছেন কামরুন্নেসা। বুধবার সন্ধ্যায় তিনি পুত্র আয়ানকে নিয়ে দেশে ফিরেছেন।

প্রসঙ্গত, ইতোপূর্বে প্রথম স্ত্রী অনন্যার দায়ের করা নারী নির্যাতন মামলায় কারাগারে গিয়েছিলেন রুমি। পরবর্তীতে সমঝোতার মাধ্যেমে আদালতের নির্দেশে ২০ লাখ টাকা দিতে হয়েছে অনন্যাকে। প্রথম ঘরে একটি পুত্র সন্তান রয়েছে রুমির।


পুতুল ও তুর্যের গানে মাতবে সিডনী-মেলবোর্ন

শনিবার, ১৩ ফেব্রুয়ারী ২০১৬

বাপসনিঊজ:এনটিভিতে আগামী ১৩ ও ১৪ ফেব্রুয়ারি অস্ট্রেলিয়ার সিডনী ও মেলবোর্নে প্রথমবারের মতো আয়োজন করতে যাচ্ছে ‘এনটিভি উৎসব ২০১৬’। এনটিভি অস্ট্রেলিয়া এই অনুষ্ঠানটির আয়োজক। দুইদিন ব্যপী এই অনুষ্ঠানে থাকছে স্থানীয় শিল্পীদের বিভিন্ন পরিবেশনা, স্থানীয় তরুণদের দলগত পরিবেশনা, স্থানীয় সাংবাদিক, লেখক, কমিউনিটির পুন:র্মিলনী, এনটিভি অস্ট্রেলিয়ার উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের পরিচিতি পর্ব, মাল্টি-কালচারাল শো।

Picture

উক্ত অনুষ্ঠানে যোগ দিতে বাংলাদেশ থেকে গতকাল ১০ ফেব্রুয়ারি অস্ট্রেলিয়া গেছেন ক্লোজআপ ওয়ান তারকা পুতুল এবং পাওয়ার ভয়েস তারকা তারেক তুর্য। তারা দু’জনই সিডনী ও মেলবোর্নে সঙ্গীত পরিবেশন করবেন। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন এনটিভি’র চেয়ারম্যান ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোহাম্মদ মোসাদ্দেক আলী।


‘বেঁচে থাকার গান’ ও ‘বাংলার ছেলে’ অ্যালবামের মোড়ক উন্মোচন

সোমবার, ০৮ ফেব্রুয়ারী ২০১৬

বাপসনিঊজ:তরুণ গায়ক অর্ণব সুমনের একক অ্যালবাম `বাংলার ছেলে`  ও মিক্সড এ্যালবাম `বেঁচে থাকার গান` দুটি  আধুনিক গানের সিডি প্রকাশ করেছে গানবাজ। রোববার সন্ধ্যায় জাতীয় প্রেসক্লবের কনফারেন্স লাউঞ্জে এই অ্যালবাম দুটির মোড়ক উন্মোচন করা হয়।

‘বেঁচে থাকার গান’ ও ‘বাংলার ছেলে’ অ্যালবামের মোড়ক উন্মোচন  

‘বেঁচে থাকার গান‘ অ্যালবামে বাপ্পা মজুমদার, পান্থ কানাই, সুমন কল্যাণ, সানিয়া রমা, দিনাত জাহান, ঐশি, নিশিতা, রবিন ও মুহিনের গান আছে।মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন জাতীয় প্রেসক্লবের সভাপতি শফিকুর রহমান, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের (একাংশ) সাধারণ সম্পাদক কুদ্দুস আফ্রাদ, সাবেক সাধারণ সম্পাদক মোল্লা জালাল,কণ্ঠ শিল্পি আসিফ আকবর, গীতিকার শহিদুল্লাহ ফরাজী,গানবাজ প্রোডাকশন হাউজের সিইও সোহেল অটল প্রমুখ।