Slideshows

ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার

পরিচালনা পরিষদ 

সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি

ওসমান গনি
 

প্রধান সম্পাদক

হাকিকুল ইসলাম খোকন
 

সম্পাদক

সুহাস বড়ুয়া হাসু
 

সহযোগী সম্পাদক

আয়েশা আকতার রুবী

নিউয়র্কের খবর

ইউএস সিনেটর ক্রিষ্টিন জিলিব্যান্ড এর সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেছেন বাপসনিউজ ও কটিয়াদিনিউজ এডিটর - সেক্যুলার বাংলাদেশ এগিয়ে চলায় খুশি মার্কিন সিনেটর

শুক্রবার, ০৭ এপ্রিল ২০১৭

হাকিকুল ইসলাম খোকন, বাপসনিউজ : গত ২ এপ্রিল রবিবার ২১২ ওয়েষ্ট ৮৩ ষ্ট্রীটে চিল্ডেন’স মিউজিয়াম অব ম্যানহাটান এ যুক্তরাষ্ট্র কংগ্রেসের প্রভাবশালী ইউএস সিনেটর ক্রিষ্টিন জিলিব্যান্ড-এর সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেছেন আন্তজার্তিক বার্তা সংস্থা বাপসনিউজ এডিটর ও আমেরিকান প্রেসক্লাব অব বাংলাদেশ অরিজিন সভাপতি হাকিকুল ইসলাম খোকন এবং জনপ্রিয় নিউজ পোর্টাল কটিয়াদিনিউজ ডটকম সম্পাদক আয়েশা আক্তার রুবি। খবর বাপসনিউজ।ইউএস সিনেটর ক্রিষ্টিন জিলিব্যান্ড-এর সাথে সাক্ষাৎ কালে সাংবাদিক হাকিকুল ইসলাম খোকন ও আয়েশা আক্তার রুবি বাংলাদেশ কমিউনিটি এবং বাংলাদেশের অভিবাসী সহ বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোকপাত করেন। সিনেটর আয়েশা আক্তার রুবিকে অভিবাসী হয়ে যুক্তরাষ্ট্রে আসার জন্য অভিনন্দন জানান।


ডেমোক্র্যাটিক পার্টির সিনেটর ক্রিষ্টিন জিলিব্যান্ড খুব খুশি হয়েছেন সত্যিকারের সেক্যুলার ডেমোক্রেসি চালুর পথে বাংলাদেশ অনেক এগিয়ে যাওয়ায়। সিনেটর ক্রিষ্টিন জিলিব্যান্ড বলেন, ‘ইট্স ডিমান্ড অব হিউম্যানিটি’, ইট্স দ্য ভেল্যু অব হিউম্যানিটি’।সিনেটরের সঙ্গে একান্তে কথা বলেন হাকিকুল ইসলাম খোকন এবং আয়েশা আক্তার রুবি।

বাপসনিউজ এডিটর ও আমেরিকান প্রেসক্লাব অব বাংলাদেশ অরিজিন সভাপতি হাকিকুল ইসলাম খোকন এবং জনপ্রিয় নিউজ পোর্টাল কটিয়াদিনিউজ ডটকম সম্পাদক আয়েশা আক্তার রুবি তাকে জানান যে, ‘নানা প্রতিবন্ধকতা এবং প্রতিকূলতা সত্ত্বেও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঐকান্তিক আগ্রহে বাংলাদেশে সত্যিকারের অসাম্প্রদায়িক চেতনা প্রতিষ্ঠার বলিষ্ঠ পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে এবং সামাজিক-রাজনৈতিক-প্রশাসনে সেভাবেই সবকিছু পরিচালিত হচ্ছে।’

ছবিতে মাঝে ইউএস সিনেটর ক্রিষ্টিন জিলিব্যান্ড, বামে সাংবাদিক হাকিকুল ইসলাম খোকন ও ডানে আয়েশা আক্তার রুবিকে দেখা যাচ্ছে। ছবি ঃ বাপসনিউজ।
বাপসনিউজ এডিটর ও আমেরিকান প্রেসক্লাব অব বাংলাদেশ অরিজিন সভাপতি হাকিকুল ইসলাম খোকন এবং জনপ্রিয় নিউজ পোর্টাল কটিয়াদিনিউজ ডটকম সম্পাদক আয়েশা আক্তার রুবিকে সিনেটর ক্রিষ্টিন জিলিব্যান্ড জানান, ‘ট্রাম্পের মুসলিম বিদ্বেষমূলক কর্মকা যুক্তরাষ্ট্রের সেক্যুলার ইমেজ আজ প্রশ্নবিদ্ধ। তেমনি অবস্থায় মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ হওয়া সত্ত্বেও বাংলাদেশ সত্যিকারের সেক্যুলার কান্ট্রিতে পরিণত হতে যাচ্ছে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে।’
বাংলাদেশের ব্যাপারে প্রচ আগ্রহ দেখে তারা জিএসপি প্রসঙ্গ উত্থাপন করে বাংলাদেশের খেটে খাওয়া মানুষের স্বার্থে অবিলম্বে তা পুনর্বহালে যথাযথ সহায়তার আহ্বান জানান। জবাবে সিনেটর বলেন, ‘নতুন প্রশাসন কীভাবে ঐ বিষয়ে পদক্ষেপ নেয়, তা দেখার অপেক্ষায় রয়েছি। তবে ইতিপূর্বে যে সব শর্ত বেঁধে দেয়া হয়েছিল, সেগুলোর কতটা পূরণ হয়েছে, তাও খতিয়ে দেখার অবকাশ রয়েছে। বাংলাদেশের শ্রমিকদের স্বার্থেই সবকিছু করা হয়।জঙ্গীবাদ-সন্ত্রাসবাদ ইত্যাদি প্রতিহত করে বাংলাদেশের সামগ্রিক এগিয়ে চলার আলোকপাতও করেন তারা । এসব তথ্য এ সংবাদদাতাকে জানিয়ে উল্লেখ করেন, ‘সিনেটরের সঙ্গে আলাপে মনে হয়েছে যে, বাংলাদেশের গার্মেন্টস সেক্টরের সামগ্রিক কল্যাণে শেখ হাসিনা সরকারের গৃহীত পদক্ষেপ সম্পর্কে স্পষ্ট ধারণা রয়েছে এই সিনেটরের।


সিলেট এমসি ও গভঃ বিশ^বিদ্যালয়ের এলামনাই এসোসিয়েশন ইউএসএ-এর যথাযথ মর্যাদায় মহান ৪৬তম স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উদযাপন

বুধবার, ০৫ এপ্রিল ২০১৭

হাকিকুল ইসলাম খোকন, আয়েশ আক্তার রুবি,বাপ্ নিউজ : নিউইয়র্ক থেকে : সিলেট এমসি ও গভঃ বিশ^বিদ্যালয়ের এলামনাই এসোসিয়েশন ইউএসএ যথাযথ মর্যাদায় ৪৬তম মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উদযাপন করেছে। গত ১২ই এপ্রিল, রোবাবর দুপুর ২টায় এষ্টোরিয়া, নিউইয়র্ক-এনওয়াই-১১১০৬,এর জালালাবাদ এসোসিয়েশন অব আমরিকার অফিসে সিলেট এমসি ও গভঃ কলেজ এলামনাই এসোসিয়েশন ইউএসএ সভাপতি বেলাল উদ্দিন-এর সভাপতিত্ত্বে ও সাধারান সম্পাদক জামাল সুয়েজ আহমদ-এর সাবলীল উপস্থাপনায় অনুষ্টিত স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবসের আলোচনা সভায় অতিথি হিসেবে বক্তব্যে রাখেন  আমেরিকা-বাংলাদেশ এলাইন্সের প্রেসিডেন্ট ও যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক এমএ সালাম, বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ যুক্তরাষ্ট্র কমান্ড-এর আহ্বায়ক ও সিলেট এমসি ও গভঃ কলেজ এলামনাই এসোসিয়েশন ইউএসএ সাবেক সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মুকিত চৌধুরী, মুক্তিযোদ্ধ তোফায়েল আহমদ চৌধুরী , মুক্তিযোদ্ধ আকতার আহমদ চৌধুরী ও সিলেট এমসি ও গভঃ কলেজ এলামনাই এসোসিয়েশন ইউএসএ সাবেক সভাপতি সুফিয়ান আহমদ খান এবং জালালাবাদ এসোসিয়েশন অব আমরিকার সাবেক সভাপতি আবদুল বাসেত।আলোচনা সভায় সুভেচছা বক্তব্যে রাখেন সিলেট এমসি ও গভঃ কলেজ এলামনাই এসোসিয়েশন ইউএসএ সহ সভাপতি দেওয়ান শাহেদ চৌধুরী।


আলোচনা সভায় বক্তব্যে রাখেন সাবেক সাধারান সম্পাদক সাখাওয়াত আলী,আজিজুর রহমান বুরহান,আমিনুল হক চুননু, মো:রহমান সাচচু,মো:হাসইন ছরওয়ার । অতিথিদর মাঝে অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন আমেরিকান প্রেসক্লাব অব বাংলাদেশ অরিজিন-এর সভাপতি সাংবাদিক হাকিকুল ইসলাম খোকন ও কটিয়াদিনিঊজ ডটকম সম্পাদক আয়েশ আক্তার রুবি । অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন কাজি আবদুল ওদুদ,কবির আহমদ,গোলাম কিবরিয়া চৌধুরী , মো:ঊছমান, রোকশানা উদ্দিন,মিতা চৌধুরী ,এহতেশাম চৌধুরীসহ আরা অনেকে।খবর বাপসনিঊজ ।


আলোচনা সভায় বক্তৃতাগন মহান মুক্তিযুদ্ধে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এবং শহীদ বীর মুক্তিযোদ্ধাদের অবদান গভীর শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করেন।স্বাধীনতা যুদ্ধে শহীদ ও বীর মুক্তিযোদ্ধাদের অবদানের কথা উল্লেখ করতে গিয়ে নিউইয়র্কবাসীদের বিশেষ করে মেডিসন স্কয়ার গার্ডেনে জর্জ হ্যারিসন, রবি শংকরসহ অন্যান্য পপ তারকার ”কনসার্ট ফর বাংলাদেশ” স্বাধীনতা সংগ্রাম বেগবান করতে যে বিশেষ ভূমিকা রেখেছিল তা বিশেষভাবে তুলে ধরেন।আলোচনা সভায় বক্তৃতাগন বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশের ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে। আট বছর ধরেই জিডিপি প্রবৃদ্ধি ৬ শতাংশের বেশি অর্জিত হয়েছে। প্রবাসী আয় কয়েকগুণ বেড়েছে। নারীর ক্ষমতায়ন হয়েছে। মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও জাতির পিতার আদর্শ বাস্তবায়িত হচ্ছে। কিছু অপশক্তি বাংলাদেশের এ অগ্রগতিকে বাঁধাগ্রস্ত করতে চায়। এসব অপশক্তিকে সকলে মিলে রুখে দিয়ে জাতির পিতার স্বপ্নের সোনার বাংলা প্রতিষ্ঠায় স্ব-স্ব অবস্থান থেকে অবদান রাখার জন্য প্রবাসীদের প্রতি আহবান জানান।


বক্তৃতাগন বলেন, বাংলাদেশ অত্যন্ত সফলতার সাথে এমডিজি অর্জন করেছে। এখন টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্য (এসডিজি) বাস্তবায়নের কাজ শুরু হয়েছে। এসডিজি’র ১৭টি লক্ষ্য ও ১৬৯টি টার্গেট পূরণে দেশকে এগিয়ে নিতে বাংলাদেশ জাতিসংঘে কাজ করে যাচ্ছে। ২০২১ সালের মধ্যে একটি মধ্যম আয়ের দেশ এবং ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে প্রধানমন্ত্রীর কর্মসূচী বাস্তবায়নে বক্তৃতাগন প্রবাসীদেরকে সার্বিক সহযোগিতা করার আহবান জানান।

অনুষ্ঠানে মুক্তিযোদ্ধা এবং কয়েকজন বিশিষ্ট ব্যক্তি বক্তৃতা করেন। বক্তারা জাতির পিতার নেতৃত্বে স্বাধীনতা সংগ্রাম ও মুক্তিযুদ্ধের বিভিন্ন দিক তুলে ধরেন। তাঁরা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়নের ধারাকে এগিয়ে নিতে সকলে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার দৃঢ় অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন।


স্বাধীনতা যুদ্ধে অসামান্য অবদানের জন্য প্রাক্তন সভাপতি সুফিয়ান আহম্মদ খানের সৌজন্যে সিলেট এমসি ও গভঃ বিশ^বিদ্যালয়ের এলামনাই এসোসিয়েশন ইউএসএ বিশ^বিদ্যালয়ের সাবেক তিন শিক্ষার্থী মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মুকিত চৌধুরী, তোফায়েল আহম্মেদ চৌধুরী ও আকতার আহম্মেদ চৌধুরীকে সম্মাননা ক্রেষ্ট প্রধান করা হয় । পরিশেষে, ঐতিহ্যবাহী বাংলাদেশী খাবারে অতিথিদের আপ্যায়ন করা হয়। ১৯৭১ সালে মহান স্বাধীনতা সংগ্রামে শহীদ বীর মুক্তিযোদ্ধাদের রুহের মাগফেরাত কামনা ও দেশের অব্যাহত শান্তি ও সমৃদ্ধি কামনা করে বিশেষ মোনাজাত পরিচালনা করা হয়। সবার প্রারম্ভে ১৯৭৫-এর ১৫ আগষ্ট স্বপরিবারে নিহত জাতির জনক বঙ্গবন্ধু, ডাঢা কেন্দ্রিয় কারাগারে চার জাতীয় নেতা, মহান স্বাধীনতা যুদ্ধে আত্মোৎসর্গকৃত ৩০ লাখ শহীদ ও ১৯৫২- এর মহান ভাষা আন্দোলনসহ আজ পর্যন্ত সকল গণতান্ত্রিক আন্দোলনে নিহতদের স্মরনে সভায় দাঁড়িয়ে এক মিনটি কাল নিরাবতা পালন করা হয়।


নিউইয়র্কস্থ বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেনারেল-এ যথাযথ মর্যাদায় স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উদযাপন

শনিবার, ০১ এপ্রিল ২০১৭

alt

কনস্যুলেট মিলনায়তনে ২৭ মার্চ সোমবার সন্ধ্যায় একটি অভ্যর্থনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানের শুরুতে বাংলাদেশ ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় সংগীত বাজানো হয় এবং শহীদদের স্মরণে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়। কনসাল জেনারেল মোঃ শামীম আহসান,এনডিসি তার স্বাগত বক্তৃতায় মহান মুক্তিযুদ্ধে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, শহীদ, বীর মুক্তিযোদ্ধা এবং বীরাঙ্গনাদের অবদান গভীর শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করেন। তিনি তার বক্তব্যে নিউইয়র্কবাসীদের বিশেষ করে মেডিসন স্কয়ার গার্ডেনে জর্জ হ্যারিসন, রবি শংকর, বব ডাইলানসহ অন্যান্য পপ তারকার ”কনসার্ট ফর বাংলাদেশ” স্বাধীনতা সংগ্রাম বেগবান করতে যে বিশেষ ভূমিকা রেখেছিল তা বিশেষভাবে তুলে ধরেন।

alt

বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের মাননীয় সংসদ সদস্য বেগম আখতার জাহান, এমপি, জাতিসংঘ বাংলাদেশ স্থায়ী প্রতিনিধি ও রাষ্ট্রদূত মান্যবর মাসুদ বিন মোমেন, নিউজার্সির আটলান্টিক সিটির মেয়র ডোনাল্ড এ. গার্ডিয়ান(Mr. Donald A. Guardian),স্টেট ডিপার্টমেন্ট এর পাবলিক এ্যাফেয়ার্স ব্যুরোর পরিচালক মিজ্ ক্যাথলিন এম. এইগান(Ms. Kathleen M. Eagen) সহ আমন্ত্রিত অতিথিদের মধ্য থেকে কয়েকজন শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন। মুক্তিযুদ্ধে অসাধারণ অবদানের জন্য বাংলাদেশ সরকার কর্তৃক “Friends of Liberation War Honor” প্রাপ্ত প্রখ্যাত মার্কিন চলচ্চিত্র নির্মাতা  লেয়ার লেভিনও আবেগভরা কণ্ঠে তার অনুভূতি ব্যক্ত করেন।

Picture

নিউইয়র্ক সিটি মেয়র মাননীয় বিল দ্য ব্লাজিও (Bill de Blasio) এবং নিউইয়ক স্টেট গভর্নর মাননীয় এন্ড্রু এম কিউমো(Andrew M. Cuomo) কর্তৃক প্রেরিত অভিনন্দন বার্তা তাদের প্রতিনিধিরা পাঠ করেন। পরে অতিথিরা দিবসটি উদযাপনের জন্যে কেক কাটায় অংশগ্রহণ করেন।

alt

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের উচ্চ পদস্থ কর্মকর্তা, বিভিন্ন দেশের কনসাল জেনারেল, বিপুল সংখ্যক কূটনীতিক, নিউইয়র্ক ও অন্যান্য স্টেটের প্রতিনিধি, কংগ্রেশনাল স্টাফ, থিংক-ট্যাংক, সুশীল সমাজের প্রতিনিধি, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের প্রতিনিধিবৃন্দ এবং বাংলাদেশ কম্যুনিটির সদস্যসহ বিপুল সংখ্যক অতিথি অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন। ঐতিহ্যবাহী বাংলাদেশী খাবারে অতিথিদের আপ্যায়ন করা হয়।

alt

মহান স্বাধীনতা দিবসে শহীদ বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মানার্থে নিউইয়র্কস্থ এলমহার্স্ট হাসপাতালে ২৬ মার্চ ২০১৭ তারিখে বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেনারেল, জাতিসংঘে বাংলাদেশ স্থায়ী মিশন এবং কংগ্রেস অব বাংলাদেশী-আমেরিকান ইন্ক এর যৌথ উদ্যোগে রক্তদান কর্মসূচীর আয়োজন করা হয়। এছাড়াও, বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেনারেল ও জাতিসংঘে বাংলাদেশ স্থায়ী মিশন এর যৌথ উদ্যোগে ২৫ মার্চ ২০১৭ তারিখে ”গণহত্যা দিবস” উপলক্ষ্যে মিশনের বঙ্গবন্ধু হলে সাংবাদিক ও কম্যুনিটি নেতৃবৃন্দের উপস্থিতিতে একটি আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়।

alt
Bangladesh Consulate General in New York celebrates 46th Anniversary of the Independence and National Day of Bangladesh
 Hakikul Islam Khokan,Bapsnews:
Consulate General of Bangladesh in New York celebrated 46th Anniversary of the Independence and National Day in a befitting way. The programmes began at 9:30 am on 26 March 2017 with the hoisting of the National Flag at the Chancery in the presence of the officers and officials of the Consulate General. Messages from the Honorable President, Honorable Prime Minister, Honorable Foreign Minister and Honorable State Minister for Foreign Affairs sent on the occasion were read out. Special munajat was offered seeking eternal peace of the departed souls of those who had made supreme sacrifices to achieve country’s independence in 1971 and for the peace, prosperity and continued progress of the country and its people.

 alt
As a part of the celebratory activities, a Reception was held at the Auditorium of the Consulate General at 6:30pm-9:30pm on 27 March 2017. It started with the playing of the national anthems of Bangladesh and the USA. One minute silence was observed as a mark of respect for the martyrs. In his welcome remarks, Mr. Md. Shameem Ahsan,ndc, Consul General paid rich tribute to the Father of the Nation Bangabandhu Sheikh Mujibur Rahman and martyrs of 1971. He also paid respect to the valiant freedom fighters and brave women who were subjected to heinous form of war crimes. The Consul General specially recalled the contribution of the people in New York with special reference to George Harrison, Ravi Shankar, Bob Dylan and other Pop Stars for the Concert for Bangladesh at the Maddison Square Garden, New York who stood for the cause of Bangladesh’s independence.

alt

Begum Akthar Jahan, MP, H.E. Mr. Masud Bin Momen, Ambassador & Permanent Representative of Bangladesh to UN and US representatives including Honorable Mr. Donald A. Guardian, Mayor of Atlantic City, New Jersey, Ms. Kathleen M. Eagen, Director, Bureau of Public Affairs, US Department of State also spoke on the occasion. Mr. Lear Levin, Recipient of “Friends of Liberation War Honor” and a noted US film maker shared his sentiment. Congratulatory messages sent by the Mayor of New York City Honorable Bill de Blasio and Governor of New York State Honorable Andrew M. Cuomo were read out by their representatives. The event marked a cake-cutting ceremony to commemorate the Day.
 alt
A good number of senior US officials, Consuls General of a number of countries, diplomats, elected representatives from New York and other States, Congressional Staffers, members of the Think Tank, businessmen, journalists and a large number of members of Bangladesh Diaspora attended the Reception, among others. The guests were served with traditional Bangladeshi food.In a related development, Consulate General, Permanent Mission of Bangladesh to UN and Congress of Bangladeshi-American Inc. jointly organized a blood donation program on 26 March 2017 at the local Elmhurst Hospital. The Consulate General also organized a discussion meeting jointly with the Permanent Mission of Bangladesh on 25 March 2017 at the Bangabandhu Auditorium to commemorate “Genocide Day” with the presence of the members of media and community leaders.


যথাযোগ্য মর্যাদায় জাতিসংঘে বাংলাদেশ স্থায়ী মিশনে ‘স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস’ উদযাপন

বুধবার, ২৯ মার্চ ২০১৭

হাকিকুল ইসলাম খোকন,বাপসনিঊজ:নিউইয়র্ক : প্রতি বছরের ন্যায় এবারও যথাযোগ্য মর্যাদায় জাতিসংঘে বাংলাদেশ স্থায়ী মিশন, মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস ২০১৭ উদযাপন করেছে। দিবসটি উদযাপন উপলক্ষে দিনব্যাপী কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়।

alt

গত ২৬ মার্চ রবিবার সকাল ৯টায় স্থায়ী মিশনে জাতীয় সঙ্গীতের সূর-মূর্ছনার মধ্য দিয়ে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়। এরপর সকাল ১০টায় বাংলাদেশ স্থায়ী মিশন এবং নিউইর্য়কস্থ বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেনারেল ও কংগ্রেস অব বাংলাদেশি আমেরিকান ইনক্ যৌথভাবে স্থানীয় এলম্হার্স্ট হাসপাতালে স্বেচ্ছায় রক্তদান কর্মসূচি আয়োজন করে। মিশন ও কনস্যুলেটের কর্মকর্তা-কর্মচারি ছাড়াও স্থানীয় প্রবাসী বাঙালিগণ এই কর্মসূচিতে স্বেচ্ছায় রক্ত দান করেন।খবর বাপসনিঊজ।

alt
বেলা ২টায় স্থায়ী মিশনের বঙ্গবন্ধু মিলনায়তনে পূনরায় জাতীয় সঙ্গীত পরিবেশনের মধ্য দিয়ে শুরু করা হয় মূল আলোচনা অনুষ্ঠান। এসময় সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, জাতীয় চারনেতা, মহান মুক্তিযুদ্ধের ৩০ লাখ শহীদ এবং ২ লাখ নির্যাতিত মা-বোনের স্মরণে একমিনিট নিরবতা পালন করা হয়। এরপর উপস্থিত মুক্তিযোদ্ধাগণ জাতির পিতার প্রকৃতিতে সম্মিলিতভাবে সশ্রদ্ধ সালাম প্রদর্শন করেন।

alt

মূল আলোচনার আগে দিবসটি উপলক্ষে প্রদত্ত মহামান্য রাষ্ট্রপতি, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, মাননীয় পররাষ্ট্র মন্ত্রী, মাননীয় পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর বাণী পাঠ করা হয়। আলোচনা পর্বের শুরুতে স্বাগত ভাষণ প্রদান করেন জাতিসংঘে নিযুক্ত বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি ও রাষ্ট্রদূত মাসুদ বিন মোমেন।

alt
স্বাগত ভাষণে স্থায়ী প্রতিনিধি স্বাধীনতার জন্য বাঙালির সূদীর্ঘ সংগ্রামের ইতিহাস তুলে ধরে বলেন, “জাতির পিতার অবিসংবাদিত নেতৃত্বে বাঙালি জাতি পরাধীনতার শৃঙ্খল ভেঙ্গে বিজয় অর্জন করেছে। আমরা বঙ্গবন্ধুর প্রদর্শিত পররাষ্ট্র নীতি ‘সকলের সঙ্গে বন্ধুত্ব-কারও সঙ্গে বৈরিতা নয়’ ধারণ করেই পররাষ্ট্র নীতির বাস্তবায়ন করে যাচ্ছি”।

alt
জাতির পিতার স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়ার লক্ষ্য নিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বর্তমান সরকার বাংলাদেশকে বিশ্বের বুকে উন্নয়নের রোল মডেলে পরিণত করেছে মর্মে উল্লেখ করে প্রবাসীদের উদ্দেশ্যে রাষ্ট্রদূত বলেন, “আপনারা রেমিটেন্স পাঠানোর মাধ্যমে দেশের উন্নয়নে প্রত্যক্ষ ভূমিকা রাখছেন।

alt

প্রত্যেক প্রবাসী বাংলাদেশী বিদেশের মাটিতে দেশের শুভেচ্ছা দূত। আপনারা আপনাদের কাজ ও ব্যবহারের মাধ্যমে প্রবাসে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল রাখবেন। জাতির পিতার সোনার বাংলা গড়ায় আরও ভূমিকা রাখবেন - এটাই আমার প্রত্যাশা”।

alt
নিউইয়র্কস্থ কনস্যুলেট জেনারেলের কনসাল জেনারেল শামীম আহসান এনডিসি বলেন, “একাত্তরের শহীদদের রক্ত আর মা-বোনের সম্ভ্রম বৃথা যায়নি। বাংলাদেশ আজ শুধু আঞ্চলিক পর্যায়েই নয়, বিশ্বের বুকে মাথা উচু করে দাড়িয়েছে; আর এটি সম্ভব হয়েছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার গতিশীল নেতৃত্বে”। তিনি প্রবাসী কমিউনিটিকে সরকারের ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণে আরও অবদান রাখার আহ্বান জানান।

alt
যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সভাপতি ড. সিদ্দিকুর রহমান বলেন, “আসুন দলমত নির্বিশেষে প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশকে আরও সামনে এগিয়ে নিতে সকল প্রবাসী বাংলাদেশি নাগরিক একযোগে কাজ করে যাই - মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবসে এই হোক আমাদের অঙ্গীকার”।

alt
 অনুষ্ঠানটিতে যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী মুক্তিযোদ্ধা, সংস্কৃতি কর্মী, নাট্যকার, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ যুক্তরাষ্ট্র শাখার নেতা-কর্মীসহ জাতীয় পার্টির নেতৃবৃন্দ ও বিপুল সংখ্যক প্রবাসী বাংলাদেশী নাগরিক উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানটিতে স্বেচ্ছায় রক্তদানকারীদের মাঝে সনদপত্র বিতরণ করা হয়।


বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়ার প্রত্যয় নিয়ে যুক্তরাষ্ট্র আ:লীগের স্বাধীনতা দিবস উদযাপন

বুধবার, ২৯ মার্চ ২০১৭

হাকিকুল ইসলাম খোকন: বাপ্ নিউজ : নিউইয়র্ক থেকে :যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের উদ্যোগে যথাযোগ্য মর্যাদায় মহান স্বাধীনতা দিবস ২৬শে মার্চ পালন করেন ৷ যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামীলীগের সভাপতি ড.সিদ্দিকুর রহমানের সভাপতিত্বে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জাতিসংঘে বাংলাদেশর স্থায়ী প্রতিনিধি ড. মাসুদ বিন মোমিন ৷ বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন.যুক্তরাস্ট্র আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা ড. প্রদীপ কর.ডা: মাসিদুল হাসান.ও সাংবাদিক হাকিকুল ইসলাম খোকন . এবং বীরমুক্তিযোদ্ধারা । গত ২৬শে মার্চ রবিবার সন্ধ্যা ৭টায নিউইয়র্কে উডসাইড কুইন্স প্যালেস পার্টি হলে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয। । অনুষ্ঠvb   পরিচলনা করেন . ভারপ্রাপ্ত সাধারন সম্পাদক আব্দুস সামাদ আজাদ।

alt

উক্ত আলোচনা সভায প্রধান অতিথি জাতিসংঘে বাংলাদেশর স্থায়ী প্রতিনিধি ড. মাসুদ বিন মোমিন বলেন, যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামীলীগ একটি বৃহৎ সংগঠন ৷ যেখানে অনেক নেতাকর্মী আছে থাকবে কিন্তু একটা জিনিস মনে রাখতে হবে দলের স্বার্থে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে একসাথে চলতে হবে ৷ তিনি উল্লখ করেন কিছুদিন আগে ডাঃ দিপু মনি যুক্তরাষ্ট্র সফরের সময় দলীয় নেতাকর্মীদের যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সভাপতি ড.সিদ্দিকুর রহমানের নেতৃত্বে ঐক্যবদ্ধ থাকার আহ্বান জানিয়েছেন ৷ তিনি আরও বলেন এই ধরনের জাতীয় অনুষ্ঠান গুলোতে তরুন প্রজন্ম তেমন একটা উপস্থিত থাকেন না তিনি দলীয় নেতাকর্মীসহ সকলের প্রতি আহ্বান জানান এই ধরনের অনুষ্ঠান গুলোতে তরুন প্রজন্মকে অংশগ্রহনে উৎসাহ যোগাতে হবে তবেই তারাও মুক্তিযুদ্ধ ও এর সঠিক ইতিহাস জানতে পারবে এবং মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উজ্জীবিত হবে ৷

alt
যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সভাপতি ড.সিদ্দিকুর রহমান তার বক্তব্যে বলেন, আমার একটি চ্যালেঞ্জ ছিল সেটি হলো যেদিন দেখবো যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামীলীগ বিভক্ত সেদিন আমি আর যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সভাপতি পদে থাকবো না ৷ যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ নিয়ে অনেকেই অনেক ধরনের ষড়যন্ত্র করেছে কিন্তু কোন ষড়যন্ত্রই সফল হয়নি ৷ হবেও না কারন আমরা একটা জায়গায় অনঢ় ছিলাম সেটা হলো আমরা বঙ্গবন্ধুর সৈনিক আমরা শেখ হাসিনার সৈনিক আমরা সজীব ওয়াজেদ জয়ের সৈনিক ৷ আমরা আর কোথাও মাথা নিচু করবো না ৷ তিনি বলেন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের পদ নিয়ে যারা ঘরে বসে থাকে ৩রা মার্চ,৭ই মার্চ,১৭ই মার্চ, ২৫শে মার্চ,২৬শে মার্চ যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের জাতীয় অনুষ্ঠান গুলোতে আসবেন না তা হতে পারেনা ৷ তিনি অঙ্গ সহযোগি সংগঠনের সকল নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্য বলেন মুখে আওয়ামী লীগ করবেন অথচ আওয়ামী লীগ আয়োজিত অনুষ্ঠানে আসবেন না তা হতে পারে না, প্রয়োজনে পদ ছেড়ে দিন ৷ তিনি আরও বলেন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামীলীগের মধ্যে কোন দ্বিধাবিভক্ত নেই থাকতে পারে না ৷ তিনি উল্লখ করেন বাংলাদেশ থেকে যুক্তরাষ্ট্রে আসার আগে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের সাথে আমার সাক্ষাত হয়েছে তিনি বলেছেন, অঙ্গসহযোগি সংগঠন কোন দল থাকবে আর কোন দল থাকবে না তা আপনাদের যাচাই-বাছাই করতে হবে ৷

alt

সিদ্দিকুর রহমান বলেন মূল দলের ক্ষতি করে এমন কোন সংগঠনকে যেমন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সমর্থন করে না তেমনি যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগও সমর্থন করবে না ৷ তিনি শ্রমীক লীগের কঁথা উল্লেখ করে বলেন। আমি যদি চাই শ্রমীক লীগ থাকবে যদি না চাই থাকবে না। এটা আমাকে বলে দিয়েঁছে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক । পরিশেষে তিনি জঙ্গীবাদ নিয়েও কঁথা বলেন। সভায আরো বক্তব্য রাখেন. যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সহ–সভাপতি সৈয়দ বসরাত আলী, মাহাবুবুর রহমান, সাছুদ্দিন আজআদ, লুতফুর করিম। যুগ্ন সাধারন সম্পাদক আইরিন পারভীন, সাংগঠনিক সম্পাদক ফারুক আহমেদ, মহিউদিন দেওয়ান, আব্দুল হাসীব মামুন, কৃষি বিষয়ক সম্পাদক আশরাফুজ্জামান, ত্রাণ ও সমাজ কল্যাণ সম্পাদক,জাহাঙ্গির হোসেন, প্রচার সম্পাদক হাজী এনাম, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধা মোজাহিদুল ইসলাম,যুব ও ক্রীড়া সম্পাদক মাহাবুবুর রহমান টুকু, শিক্ষা বিষয় সম্পাদক এম এ করিম জাহাঙ্গীর, শিল্প ও বাণিজ্য ফরিদ আলম,শ্রম সম্পাদক মেজবা আহমেদ, সাংস্কৃতিক সম্পাদক শহীদ হাসান, উপপ্রচার সম্পাদক তৈয়বুর রহমান টনি, কোষাধ্যক্ষ আবুল মনসুর খান–, প্রবাসী কল্যাণ সম্পাদক সোলেয়মান আলী, ইমিগ্রেশন সম্পাদক আব্দুর রহমান মামুন ।

Picture

মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি জাকারিযা চৌধরী. সাধারন সম্পাদক ইমদাদ চৌধরী. ইষ্ট আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক শাহীন আজমল ।সদস্য যুক্তরাস্ট্র আওয়ামী লীগ সম্মানিত শাহানারা রহমান, খোরশেদ খন্দকার, আব্দুল হামিদ .শামশুল আবেদিন, আলী হোসেন গজনবী, আমিনুল ইসলাম কলিন্স, আতাউল গনি আসাদ, হাসান মাসুক ও এম আনোয়ার, মহিলা আওয়ামী লীগের সভানেত্রী মমতাজ শাহানাজ . সাধারন সম্পাদক ফরিদা ইয়াসমিন প্রমুখ।

alt

এছাডাও সভায যুক্তরাষ্ট্র যুবলীগ. সেবক লীগ .ছাত্রলীগ সহ অন্যান্য অঙ্গরাজ্য থেকে আশা অনেক নেতাকর্মী উপস্থিত ছিল। সভায সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মধ্যে দিয়ে শেষ হয । সংগীত পরিবেশন করেন স্বাধীনবাংলা বেতারকেন্দ্রের শিল্পী শহীদ হাসান.ও সুমিতা দাস।সভায় সিলেটে নিহত শহীদের রুহের মাগফেরাত কামনা করে বিশেষ দোয়া করা হয। দোয়া পরিচলনা করেন মওলানা সাইফুল ইসলাম ।

alt

সবার প্রারম্ভে ১৯৭৫-এর ১৫ আগষ্ট স্বপরিবারে নিহত জাতির জনক বঙ্গবন্ধু, ডাঢা কেন্দ্রিয় কারাগারে চার জাতীয় নেতা, একাত্তর-এর মুক্তিযুদ্ধ ও  ১৯৫২- এর মহান ভাষা আন্দোলনসহ আজ পর্যন্ত সকল গণতান্ত্রিক আন্দোলনে নিহতদের স্মরনে সভায় দাঁড়িয়ে  এক মিনটি কাল নিরাবতা পালন করা হয়।


রাজাকার ও জঙ্গিমুক্ত বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠার স্লোগানে নিউইয়র্কে স্বাধীনতা দিবস প্যারেড

মঙ্গলবার, ২৮ মার্চ ২০১৭

Picture

প্রবাসে মহান স্বাধীনতা দিবস পালন করেছে বাংলাদেশ স্থায়ী মিশন, ওয়াশিংটন দূতাবাস, নিউইয়র্ক বাংলাদেশ কন্স্যুলেট, যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ, যুক্তরাষ্ট্র মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, যুক্তরাষ্ট্র জাতীয় পার্টি, নিউইয়র্কের সবচেয়ে বড় সংগঠন বাংলাদেশ সোসাইটি, মুক্তধারা ফাউন্ডেশন, বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী ফোরাম, বিয়ানীবাজার সমিতিসহ প্রবাসের বিভিন্ন সামাজিক ও আঞ্চলিক সংগঠন।

alt

২৬ মার্চ রোববার অপরাহ্নে দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ার মধেই শতশত প্রবাসী জ্যাকসন হ্ইাটসের রাস্তায় এ শোভাযাত্রায় অংশ নেন। নেতৃত্ব দেন মুুক্তিযুদ্ধে আমেরিকান বন্ধু লেয়ার লেভিনকে সাথে নিয়ে প্রবাসের মুক্তিযোদ্ধারা।

alt

বেলুন উড়িয়ে এ শোভাযাত্রার উদ্বোধন ঘোষণা করেন নিউইয়র্ক সিটির পাবলিক এডভোকেট লেটিসা জেমস। এর আগে ডাইভার্সিটি প্লাজায় মুক্তমঞ্চে স্থাপিত জাতীয় স্মৃতিসৌধে মুক্তিযোদ্ধা অভিবাদন জ্ঞাপন করেন। এ কর্মসূচির নেতৃত¦ দেন ‘সেক্টর কমান্ডার্স ফোরাম’র নবগঠিত যুক্তরাষ্ট্র শাখার আহবায়ক রাশেদ আহমেদ। এ সময় হিমেল হাওয়ার মধ্যেই নতুন প্রজন্মের শিশু-কিশোরেরা চিত্রাঙ্কন ও রচনা প্রতিযোগিতায় অংশ নেয়।

alt

প্রবাসের ৪৬ কবির আবৃত্তি ও কবিতা পাঠের পর উপস্থিত ২০ মুক্তিযোদ্ধাকে লাল-সবুজের উত্তরীয় পরিয়ে বিশেষ সম্মান জানানো হয়। এ পর্বের উপস্থাপন করেন মুক্তধারা ফাউন্ডেশনের দিনব্যাপি এ কর্মসূচির আহবায়ক মুক্তিযোদ্ধা তাজুল ইমাম। সম্মানপ্রাপ্ত মুক্তিযোদ্ধার মধ্যে ছিলেন মমতাজ হাসান বীরপ্রতিক, ক্যাপ্টেন (অব:)সাঈদ বীরপ্রতিক, ড. নূরন্নবী, মাহবুবুর রহমান, লাবলু আনসার, আবুল কাশেম সরকার, নূরল ইসলাম, আয়ুব আলী খান প্রমুখ।

alt

এরপর মূলমঞ্চে মুক্তিযুদ্ধের পক্ষে অবিস্মরণীয় ভূমিকা পালনকারি আমেরিকান লেয়ার লেভিনকে বিশেষভাবে সম্মান জানানো হয়। এ পর্বের সঞ্চালনা করেন সাংবাদিক ও লেখক হাসান ফেরদৌস।স্বাধীনতা দিবসের আমেজে শিশু-কিশোরদের প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ করেন মুক্তিযোদ্ধা নূরল ইসলাম ও আবুল কাশেম। এ পর্বের সমন্বয় করেন নারী সংগঠক রানু ফেরদৌস ও লেখিকা নাসরীন চৌধুরী।

alt

প্রসঙ্গত: উল্লেখ্য যে, ২০২১ সালে স্বাধীনতা দিবসের ৫০ বছর পূর্তিকে সামনে রেখে গত বছর থেকেই প্রস্তুতিমূলক নানা কর্মসূচির আয়োজন করছে মুক্তধারা ফাউন্ডেশন।

alt

রজত জয়ন্তী উৎসবে ব্যাপক লোক-সমাগমের প্রস্তুতি কর্মসূচিতে বিভিন্ন শ্রেণী ও পেশার প্রবাসী ছাড়াও নতুন প্রজন্মের অংশগ্রহণ সকলকে আশান্বিত করছে বলে জানান মুক্তধারা ফাউন্ডেশনের কর্ণধার বিশ্বজিৎ সাহা।

alt

এবারের বিভিন্ন পর্বে সঙ্ীত পরিবেশন করে সুর ও ছন্দ শিল্পী গোষ্ঠি, বহ্নিশিখা সংগীত নিকেতনের শিল্পীরা। সমগ্র অনুষ্ঠানে নিউইয়র্কে বাংলাদেশের কন্সাল জেনারেল শামীম আহসানও ছিলেন সরব।


নিউইয়র্কের এলমহার্স্ট হাসপাতালে “রক্তদান কর্মসূচী” পালিত

মঙ্গলবার, ২৮ মার্চ ২০১৭

Picture

জাতিসংঘে বাংলাদেশর স্থায়ী মিশনের মান্যবর রাষ্ট্রদূত ও স্থায়ী প্রতিনিধি মাসুদ বিন মোমেন-এর প্রস্তাবনায় নিউইয়র্কস্থ বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেনারেল ও কংগ্রেস অব বাংলাদেশী আমেরিকানস-এর যৌথ উদ্যোগে উক্ত রক্তদান কর্মসূচী সফলভাবে সম্পন্ন হয়।খবর বাপসনিঊজ।

alt

কংগ্রেস অব বাংলাদেশী আমেরিকানস-এর চেয়ারম্যান প্রকৌঃ মোহাম্মদ আলী সিদ্দিকীর সভাপতিত্বে উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন জাতিসংঘে বাংলাদেশ স্থায়ী মিশনের মান্যবর রাষ্ট্রদূত ও স্থায়ী প্রতিনিধি মাসুদ বিন মোমেন, বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন মাননীয় কনসাল জেনারেল শামীম আহসান, এনডিসি। আরেক বিশেষ অতিথি মাননীয় কাউন্সিলম্যান ড্যানিয়েল ড্রম- তাঁর মায়ের অসুস্থতাজনিত কারণে অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকতে পারেননি।

alt
অন্যান্য অতিথিবৃন্দের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সভাপতি ও কংগ্রেস উপদেষ্টা ড.সিদ্দিকুর রহমান, কংগ্রেস অব বাংলাদেশী আমেরিকানস-এর উপদেষ্টা ড. মহসিন আলী, ড. প্রদীপ রঞ্জন কর, ডা.মাসুদূল হাসান, লেখক-কলামিস্ট বেলাল বেগ, কংগ্রেসের পরিচালক এ্যাড. শাহ মোঃ বখতিয়ার আলী, রুমানা আক্তার, সাখাওয়াত বিশ্বাস, নূরুজ্জামান সর্দার, জাহাঙ্গীর এইচ মিয়া, গিয়াস উদ্দিন বিশ্বাস, দুরুদ মিয়া রনেল, রফিকুল ইসলাম, রহিমুজ্জামান সুমন, পঙ্কজ দেবনাথ, শাকিল আহমেদ, সফিউল আলম, কবিতা সেন, উপস্থায়ী প্রতিনিধি তারেক আহমেদ, ডেপুটি কনসাল জেনারেল শাহেদ আহমেদ, ভাইস কনসাল আসিফ আহমেদ সহ কংগ্রেস অব বাংলাদেশী আমেরিকানস-এর আরও ৪০/৫০ জন কর্মকর্তাবৃন্দ।

alt
রক্তদান কর্মসূচীর উদ্বোধনী অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন কংগ্রেসের সেক্রেটারী জেনারেল মনজুর চৌধুরী ও ভাইস চেয়ারম্যান কাজী আজিজুল হক খোকন। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুর রহিম বাদশাহ। প্রধান অতিথির ভাষনে মান্যবর রাষ্ট্রদূত মাসুদ বিন মোমেন বলেন, বাংলাদেশী কমিউনিটিতে ব্যতিক্রমধর্মী এধরনের উদ্যোগকে ভূয়সী প্রশংসা করেন এবং ভবিষ্যতে “রাস্তাঘাট পরিচ্ছন্ন্য করণ”, “স্বাস্থ সচেতনতামূলক” বিভিন্ন কর্মসূচী হাতে নেয়ার আহবান জানান।

alt

উনি অতীতে রাষ্ট্রদূত হিসেবে যেখানে ছিলেন, সেখানেই এধরনের কার্যক্রম করেছেন বলে জানান। তিনি কনস্যুলেটের সংশ্লিষ্টতাকে ধন্যবাদ দেন এবং কংগ্রেস অব বাংলাদেশী আমেরিকান্স এর মত একটি অরাজনৈতিক সংগঠনের সেবামূলক কাজের ভূয়সী প্রশংসা করেন এবং ভবিষ্যতে আরও বেশী বেশী উদ্যোগ গ্রহনের আহবান জানান।জনাব শামীম আহসান তাঁর বক্তব্যে বলেন, আমেরিকানদের রক্ত দিয়ে বাংলাদেশী কমিউনিটি একটি মেলবন্ধন সৃষ্টি করতে যাচ্ছে। উনি বলেন, আমি সত্যিই অভিভূত এ ধরনের উদ্যোগ নেয়ার জন্যে। আমি নিজে রক্ত দিয়ে নিজেকে এ কর্মসূচিতে শরীক হতে পেরে ধন্য মনে করছি। এ কর্মসূচীর খবর মূলধারার রাজনীতি ও মিডিয়ায় প্রচারের জন্য তিনি অনুরোধ জানান।কর্মসূচীতে মোট ৩৪জন ডোনার রক্তদান করেন এবং ২৪জন প্রাথমিক পরীক্ষায় অকৃতকার্য্য হওয়ায় রক্তদান করতে পারেননি। উপস্থিত অনেকেই শারীরিক অসুস্থতা ও বয়সের কারণে রক্তদান করতে সমর্থ হননি। সকাল ১০ঃ০০টা থেকে শুরু করে একটানা বেলা ৩ঃ০০টা পর্যন্ত বিরামহীনভাবে রক্তদান কর্মসূচী পালিত হয়।

alt
পরে জাতিসংঘের বাংলাদেশ স্থায়ী মিশনে সকল ডোনারদের মধ্যে মান্যবর রাষ্ট্রদূতের পক্ষ থেকে সনদপত্র বিতরণ করা হয় এবং সকলকে মধ্যাহ্নভোজে আপ্যায়ন করা হয়।


গণহত্যা দিবসের আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি আদায়ের দৃঢ় অঙ্গীকার

মঙ্গলবার, ২৮ মার্চ ২০১৭

হাকিকুল ইসলাম খোকন,হেলাল মাহমুদ, বাপসনিঊজ:নিউইয়র্ক (যুক্তরাষ্ট্র) থেকে : ২৫শে মার্চ, ১৯৭১। রাতের অন্ধকারে রচিত হয়েছিল মানব সভ্যতার ইতিহাসে একটি কলঙ্কিত অধ্যায়। বাঙালির মুক্তিসংগ্রামের আন্দোলনকে শ্বাসরুদ্ধ করতে ঘুমন্ত নারী শিশুসহ নিরীহ নিরস্ত্র বাঙালির উপর ঝাপিয়ে পরে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী। ‘অপারেশন সার্চলাইট’ নামের সেই অভিযানে কালরাতের প্রথম প্রহরে ঢাকায় চালানো হয় গণহত্যা।সেই কাল রাত্রিতে সংঘটিত গণহত্যায় শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে যথাযথ মর্যাদায় গণহত্যা দিবস পালন করেন একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি নিউইয়র্ক চ্যাপ্টার।

alt

জ্যাকসন হাইটসের ডাইভারসিটি প্লাজায় প্রদীপ প্রজ্বলন করে কিছুক্ষন নীরবে দাঁড়িয়ে থাকেন সংগঠনের নেতৃবিন্দ। এর পর সংগঠনের সভাপতি ফাহিম রেজা নুর বলেন বাংলাদেশে একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি ৩০ লক্ষ শহীদের স্মরণে ৩০ লক্ষ বৃক্ষ রোপণের কর্মসূচী হাতে নিয়েছে, তারই ধারাবাহিকতায় সংগঠনের নিউইয়র্ক চ্যাপ্টারও শহীদদের স্মৃতি চির সবুজ, চির জাগ্রত রাখতে একটি প্রতীকী বৃক্ষ রোপণের সিদ্ধান্ত নিয়েছে।এইসময় তিনি বৃক্ষটি নির্মূল কমিটির উপদেষ্টা সিতাংশু গুহের বাড়ীর আঙ্গিনায় রোপণ করার জন্য হস্থান্তর করেন।

Picture

একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি নিউইয়র্ক চ্যাপ্টার সাধারণ সম্পাদক স্বীকৃতি বড়ুয়ার পরিচালনায় গণহত্যা দিবসের আলোচনায় সেক্টর কমান্ডারস ফোরাম মুক্তিযুদ্ধ ‘৭১ সংগঠনের যুক্তরাষ্ট্র শাখা এবং নিউইয়র্ক স্টেট আওয়ামী লীগও অংশগ্রহণ করেন। সমবেত নেতৃবিন্দরা বলেন দীর্ঘ ৪৬ বছর পরে হলেও বাংলাদেশে গণহত্যা দিবস জাতীয় স্বীকৃতি পেয়েছে। এজন্য নেতৃবিন্দ বাংলাদেশ সরকার, নির্মূল কমিটির কেন্দ্রীয় কমিটির নেতৃবিন্দ এবং বাংলাদেশের জনগণকে ধন্যবাদ ও অভিনন্দন জানা। তারা বলেন ‘গণহত্যা দিবস’ বাংলাদেশের মুক্তিসংগ্রামে ত্রিশ লক্ষ বাঙালির আত্মত্যাগের মহান স্বীকৃতির পাশাপাশি তৎকালীন পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর বর্বর গণহত্যার বিরুদ্ধে চরম প্রতিবাদের প্রতীক। এই ধরনের নৃশংস হত্যাকাণ্ড যেন পৃথিবীর আর কোথাও না ঘটে, ২৫শে মার্চকে আন্তর্জাতিক গণহত্যা দিবস ঘোষণা দিয়ে বিশ্ববাসীকে গণহত্যার ভয়াবহতা সম্পর্কে জানাতে হবে। বক্তব্য রাখেন নির্মূল কমিটির উপদেষ্টা মণ্ডলীর সদস্য যথাক্রমে সৈয়দ মোহাম্মদ উল্লাহ, আমেরিকান প্রেসক্লাব অব বাংলাদেশ অরিজিন সভাপতি সাংবাদিক হাকিকুল ইসলাম খোকন, বেলাল বেগ, সুব্রত বিশ্বাস, সিতাংশু গুহ, মুক্তিযোদ্ধা সংহতি পরিষদের গোলাম মোস্তফা মিরাজ, গণজাগরণ মঞ্চের মিনহাজ সাম্মু, সেক্টর কমান্ডারস ফোরামের আব্দুল বারী, নিউইয়র্ক স্টেট আওয়ামী লীগের শাহীন আজমল, প্রমুখ। অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন কবির আনোয়ার, আকবর হায়দার কিরণ, নবেন্দু দত্ত, শফি চৌধুরী হারুন, গোপন সাহা, শিবলী সাদেক, শুভ রায়, দুরুদ মিঞা রনেল সহ অন্যান্য নেতৃবিন্দ। বক্তব্যের পর সবার সমবেত কণ্ঠে জাতীয় সঙ্গীতের মাধ্যমে অনুষ্ঠান সমাপ্ত হয়।


নিউইয়র্ক সিটি কাউন্সিল মেজারিটি লিডার জিমি ভ্যান ভারর্মার ব্লেক হিষ্টোরি মাস অনুষ্ঠান

শনিবার, ২৫ মার্চ ২০১৭

হাকিকুল ইসলাম খোকন ,বাপসনিউজ ঃ নিউইয়র্ক সিটি কাউন্সিল মেজরিটি লিডার জিমি ভ্যান বারর্মার-এর উদ্যোগে গত ২৭ ফেব্রুয়ারী সোমবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় মুলধারার জেকব এ. বিজ নেবোহোডএ ১০-২৫, ৪১ এভিনিউ, লংআইল্যান্ড সিটি’র হলরুমে ৭তম বার্ষিক ব্লেক হিষ্টোরি মানথ অনুষ্ঠানে কমিউনিটির উননয়নে মুলধারার বিভিন্ন নেতৃবৃন্দকে সম্মাননা প্রধান করা হয়।খবর বাপসনিঊজ।

alt

উক্ত অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত বাংলাদেশ কমিউনিটির একমাত্র প্রতিনিধি আমেরিকান প্রেসক্লাব অব বাংলাদেশ অরিজিন সভাপতি সাংবাদিক হাকিকুল ইসলাম খোকন উপস্থিত ছিলেন।


অনুষ্ঠানে কুইন্স পাবলিক লাইব্রেরীর প্রেসিডেন্ট এবং সিইও, নিউইয়র্ক সিটির প্রাক্তন ডেপুটি মেয়র ও প্রাক্তন স্কুল চ্যান্সেলর ডেনিস ওয়ালকটকে বিশেষ সম্মননা এ্যাওয়ার্ড প্রদান করা হয়।

এছাডাও এ্যাওয়াড প্রদান করা হয় কুইন্স বিজ টেনট এসোসিয়েশনের সহ সভাপতি কিম এলষটন,কমিউনিটি বিশেষজ্ঞ গামেল বুরগাম, বিল্ড কুইন্স ব্রীজ ৬৯৯-এর ইমসদুল মালিক ক্যামপেল,

alt

রিজ কমিউনিটির মুলধারার স্বেচ্ছাসেবী জয়েম জিডি জনসন, পিওম-১১১-এর সহকারী অধ্যক্ষ রিনি জনসন পিওম-১১১-শিক্ষার্থী ইসা ব্রাউন ও আই এস-২০৪ এর শিক্ষার্থী ডিভিনসী জনসন অনুষ্ঠানে শিশু-কিশোরদেও ভেলে নেতৃসহ সংঙ্গীতানুষ্ঠানের পর নৈশভোজে আপ্যায়নের মাধ্যমে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘটে।

alt


নিউইয়র্কে সার্বজনীন আয়োজনে বঙ্গবন্ধু’র জন্মোৎসব এবং জাতীয় শিশু দিবস উদযাপন

শনিবার, ২৫ মার্চ ২০১৭

alt

হাকিকুল ইসলাম খোকন’ বাপসনিউজ : যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী বঙ্গবন্ধু’র অনুসারীদের নিয়ে সার্বজনীন কমিটির উদ্যোগে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৭ তম জন্ম বার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস সার্বজনীন আয়োজনে গত ১৮ মার্চ শনিবার সন্ধ্যা ৭টায় নিউইয়র্কের বাঙ্গালী অধ্যুষিত জ্যাকসন হাইটসের জুইস কমিউনিটি সেন্টারে অনুষ্ঠিত হয়। খবর বাপসনিউজ।

alt

আয়োজকদের অন্যতম সুপরিচিত উপস্থাপক রিনা আবেদিন ও কিশোরী অহনার যৌথ পরিচালনায় অনুষ্ঠানের শুরুতে বাংলাদেশ ও আমেরিকার জাতীয় সঙ্গীতের পর দেশের সঙ্গীত পরিবেশন করে বিপুল সংখ্যক শিশু-কিশোরবৃন্দ।

alt

আয়োজকদের পক্ষ থেকে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পার্ঘ্য অর্পন করেন জাতির জনক বঙ্গবন্ধু’র অন্যতম ঘনিষ্ট সহচর সাবেক এমএনএ প্রয়াত এডভোকেট দেওয়ান আবুল আববাসের তনয় আয়োজকদের অন্যতম নিউইয়র্ক প্রবাসী সংগঠক দেওয়ান আশরাফুল আলম, জাকির হোসেন হিরু ভূইয়া , জাকির হোসেন বাচ্চু, রিনা আবেদিন, চিত্র শিল্পী ওবায়েদউল্লাহ মামুন, রাজু আহমেদ মোবারক,

alt

আমেরিকান প্রেসক্লাব অব বাংলাদেশ অরিজিন সভাপতি সাংবাদিক হাকিকুল ইসলাম খোকন,সাধারন সম্পাদক হেলাল মাহমুদ, আওয়ামী লীগরে প্রবাসী কল্যাণ সম্পাদক সোলমোন আলী,সবিতা দাস,আলিফ আলম,শরফরাজ আশরাফ আলম এবং কোরিয়ান ছাএ ইয়াং সং কো।

alt

পরে বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক, ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের পক্ষ থেকে সার্বজনীন উদ্যোগে অনুষ্ঠিত জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৭ তম জন্মদিন ও জাতীয় শিশু দিবসে বঙ্গবন্ধু’র প্রতিকৃতিতে পুষ্পার্ঘ্য অর্পন করেন বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ যুক্তরাষ্ট্র ইউনিট কমান্ডার আবুল মুকিত চৌধুরীর নেতৃত্বে মুক্তিযোদ্ধা সংসদ,

alt

স্বাধীনতার চেতনা মঞ্চ, প্রজন্ম ৭১ যুক্তরাষ্ট্র, শেখ হাসিনা মঞ্চ যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ, বঙ্গবন্ধু প্রচার কেন্দ্র সমাজকল্যাণ পরিষদ যুক্তরাষ্ট্র, প্রগ্রেসিভ ফোরাম যুক্তরাষ্ট্র, বাংলাদেশী আমেরিকান আর্টস ফোরাম, যুক্তরাষ্ট্রস্থ সোহরাওয়ার্দী স্মৃতি পরিষদ, বাংলাদেশ মানবাধিকার পরিষদ যুক্তরাষ্ট্র, প্রবাসী নাগরিক সমাজ সেবক , জেনোমাইড’৭১ ফাউন্ডেশন ইউএসএ সভাপতি ও মুক্তিযোদ্ধা প্রদীপ রঞ্জন কর,আওয়ামী লীগরে প্রবাসী কল্যাণ সম্পাদক সোলমোন আলী, বাংলাদেশ আওয়ামী ফারাম ইউএস’র সাধারন সম্পাদক হারুন অর রশীদ,

alt

গিয়াস উদ্দিন মুজিব সেনা, বাংলাদেশ ল সোসাইটির সভাপতি মুর্শেদা জামান ও সাবেক সভাপতি মোহাম্মদ আলী বাবুলের নেতৃত্বে বাংলাদেশ ল সোসাইটি ইউএসএ একুশে চেতনা পরিষদ, ঢাকা ড্রামা, সাংস্কৃতিক সংগঠন দহলিজ, কর্নেল ইউনির্ভাসিটি, শিক্ষার্থী, উদিচি স্কুল অব আর্ট, খান টিউটোরিয়াল এর প্রেসিডেন্ট নাঈম খানের  নেতৃত্বে শিক্ষার্থীবৃন্দ, কলামিষ্ট বেলাল বেগ, বহ্নি শিখা সঙ্গীত নিকেতন, চারু কলা শিশু কিশোর পরিষদের ফারদিনা, আমেরিকান প্রেসক্লাব অব বাংলাদেশ অরিজিন, দহলিজসহ সাংবাদিক, লেখক, কবি,সাহিত্যিকসহ বিশিষ্ট ব্যাক্তিবর্গ পুষ্পার্ঘ্য অর্পন করেন।

alt
শিশু-কিশোরদেও বঙ্গবন্ধু’র চিত্রাংকন, কবিতা, ছবি অংকনের জন্য তাদের মেডেল প্রদান করেন নাঈমা খান ও অধ্যাপক হোসনে আরা এবং পরিচালনা করেন ফটো সাংবাদিক ও চিত্র শিল্পী ওয়াজেদ উল্লাহ মামুন।

alt
প্রধান আয়োজক দেওয়ান আশরাফুল আলমের পরিচালনায় সার্বজনীন জন্মোৎসব উপলক্ষে প্রকাশিত বাংলা ও ইংরেজীতে প্রকাশিত ম্যাগাজিন সরনীয় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের এর মোড়ক উন্মোচন করেন প্রবীন সাংবাদিক সৈয়দ মোহাম্মদউল্লাহ, কলামিষ্ট বেলাল বেগ,

alt

সাপ্তাহিক ঠিকানার প্রধান সম্পাদক ফজলুর রহমান, উদিচির সুব্রত বিশ^াস,মুক্তিযোদ্ধা সংসদ যুক্তরাষ্ট্র ইউনিট কমান্ডার আবুল মুকিত চৌধুরীর নেতৃত্বে মুক্তিযোদ্ধাবৃন্দ, জেনোমাইড’৭১ ফাউন্ডেশন ইউএসএ সভাপতি ও মুক্তিযোদ্ধা প্রদীপ রঞ্জন কর,মুক্তিযোদ্ধা সংসদ যুক্তরাষ্ট্র ইউনিট আহবায়ক ড. আবুল বাতেন,

alt

মুক্তিযোদ্ধা শওকত আকবর রিচি, মুক্তিযোদ্ধা ও কবি সৈয়দ হাসমত আলী, মুক্তিযোদ্ধা হিরু ভূইয়া, জাকির হোসেন বাচ্চু, সোলাইমান আলী, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জাসদ যুক্তরাষ্ট্র শাখার সাধারন সম্পাদক নূরে আলম জিকু,

alt

মুর্শেদা জামান, নাঈমা খান, হোসনে আরা , আলী হাসান কিবরিয়া অনু, মোজাহিদ আনসারী, শিল্পী সহীদ হাসান,কানিজ আয়েশা, সবিতা দাস প্রমুখ। নৃত্য ছোট মনি ফারিয়া।

alt
আয়োজকদের অন্যতম ইসমাইল হোসেন হাওলাদার ২১-১০-১৯৭১-এর নাতনী-ও উপস্থাপক রিনা আবেদীন তার বক্তব্যে বলেন, বঙ্গবন্ধু’র ডাকে তার ৪ ভাই মুক্তিযোদ্ধে অংশ নেওয়ার কারনে তার বাবাকে ধরে নিয়ে গুলি করে হত্যা করে পাক বাহিনী ।

alt

অনুষ্ঠানে সঙ্গীত পরিবেশন করেন স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের কন্ঠযোদ্ধা সহীদ হাসান, সবিতা দাসের নেতৃত্বে বহ্নিশিখা সঙ্গীত নিকেতন, দহলিজ-এর শিল্পীবৃন্দ।

alt
যথাযোগ্য মর্যাদায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৭তম জন্ম বার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস উদযাপন করে।

alt

কর্মসূচীর অংশ হিসেবে শিশুদের চিত্রাংকন ও রচনা প্রতিযোগিতা, বঙ্গবন্ধুর জীবন ও কর্ম সম্পর্কে আলোচনা সভায় বক্তাগণ শিশুদের প্রতি জাতির পিতার প্রগাঢ় ভালোবাসার কথা উল্লেখ করে নতুন প্রজন্মের কল্যাণে বঙ্গবন্ধু এবং বর্তমান সরকার কর্তৃক গৃহীত পদক্ষেপ সমূহের উপর আলোকপাত করেন।

alt

বঙ্গবন্ধুর বর্ণাঢ্য ও কর্মময় জীবনের বিভিন্ন দিক সম্পর্কে নতুন প্রজন্মকে অবহিত করার প্রয়োজনীয়তার কথা উল্লেখ করেন।

alt
অনুষ্টানে কম্যুনিটির নেতৃবৃন্দ আলোচনা করেন এবং আবৃত্তিকাররা বঙ্গবন্ধুর উপরে কবিতা পাঠ করেন।

alt

স্থানীয় কমিউনিটির বিপুল সংখ্যক সদস্য এবং তাদের শিশু সন্তান, এবং তাদের পরিবারের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। বিজয়ী প্রতিযোগীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরন করা হয়।

alt

বঙ্গবন্ধুর জন্ম দিন উপলক্ষে কেক কাটা পর্বে শিশুসহ অন্যান্যরা অংশগ্রহণ করেন।

alt

অনুষ্টানের প্রারম্ভে ১৯৭৫-এর ১৫ আগষ্ট স্বপরিবারে নিহত জাতির জনক বঙ্গবন্ধু, ডাকা কেন্দ্রিয় কারাগারে চার জাতীয় নেতা,

alt

একাত্তর-এর মুক্তিযুদ্ধ ও  ১৯৫২- এর মহান ভাষা আন্দোলনসহ আজ পর্যন্ত সকল গণতান্ত্রিক আন্দোলনে নিহতদের স্মরনে সভায় দাঁড়িয়ে  এক মিনটি কাল নিরাবতা পালন করা হয়।তবলায় সহযোগিতা করেন তপন মোদক।

alt

শেষে নৈশভোজের মাধ্যমে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘটে।


জেএসডি নেতা প্রফেসার শামসুল ইসলামের মৃত্যুতে শোক প্রকাশ

শুক্রবার, ২৪ মার্চ ২০১৭

হাকিকুল ইসলাম খোকন ,বাপসনিউজ ঃ জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল - জেএসডি নেতা ও মুক্তিযোদ্ধা নিউইয়র্ক প্রবাসী প্রফেসার শামসুল ইসলাম (৬৬) গত ১৮ মার্চ শনিবার ঢাকার স্কোয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীনকালে মৃত্যু বরণ করেছেন। ( ইন্নালিল্লাহে ...........রাজিয়ুন)। খবর বাপসনিউজ। মৃত্যুকালে স্ত্রী, ১ পুত্র ও ১ কন্যা সহ অসংখ্য গুণগ্রাহী ও বন্ধু বান্ধব রেখে গেছেন। উল্লেখ্য, প্রফেসার শামসুল ইসলাম ১৯ নভেম্বও ২০১৫ নিউইয়র্কের ম্যানহাটনের বেলভিউ হাসপাতালে ভর্তি হলে তার ভ্রুন (হার) ক্যান্সার ধরা পরে।


প্রফেসার শামসুল ইসলামের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ ও শোক সমতপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেছেন জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জেএসডি কেন্দ্রিয় কমিটির সভাপতি সাবেক মন্ত্রী আ স ম আব্দুর রব ও সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মালেক,সাবক প্রবাস বিয়ক সম্পাদক এডভোকট মজিবুর রহমান,আমেরিকা-বাংলাদেশ এ্যালায়েন্সের প্রেসিডেন্ট ও যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক এমএ সালাম, যুক্তরাষ্ট্রস্থ সোহরাওয়ার্দী স্মৃতি পরিষদের সভাপতি প্রবীণ শিশু সাহিত্যিক হাসানুর রহমান ও সাধারণ সম্পাদক সাংবাদিক হাকিকুল ইসলাম খোকন, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল জেএসডি যুক্তরাষ্ট্র শাখার সভাপতি আনোয়ার হোসেন লিটন ও সাধারন সম্পাদক সামসুউদ্দিন আহম্মদ শামীম এবং সাংগঠনিক সম্পাদক তসলিম উদ্দিন খান।