Slideshows

ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার

পরিচালনা পরিষদ 

সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি

ওসমান গনি
 

প্রধান সম্পাদক

হাকিকুল ইসলাম খোকন
 

সম্পাদক

সুহাস বড়ুয়া হাসু
 

সহযোগী সম্পাদক

আয়েশা আকতার রুবী

যুক্তরাষ্ট্রের খবর

মাওলানা আবদুল মুমিন পাকিস্তানী হুজুর আর নেই! নিউইয়র্কে নামাজে জানাজা

বুধবার, ২৯ মার্চ ২০১৭

রশীদ আহমদ ,বাপ্‌স নিউজ : নিউইয়র্ক থেকেঃ নিউইয়র্কের প্রাচীনতম ইসলামী বিদ্যাপীঠ  দারুল উলূম নিউইয়র্ক এর মুহাদ্দিস,সিলেট নগরীর ঐতিহ্যবাহী দ্বীনী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান জামেয়া হোসাইনিয়া ইসলামিয়া মিরবক্সটুলা নয়াসড়ক এর সাবেক মুহতামিম  আলহাজ্ব মাওলানা আব্দুল মুমিন (পাকিস্তানী হুজুর) আর নেই।তিনি গতকাল ( ২৮শে মার্চ) মঙ্গলবার বিকাল ৩.৫৪ মিনিটের সময় নিউইয়র্কের কুইন্স জেনারেল হাসপাতালে ইন্তেক্বাল করেন। ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন। তিন মেয়ে ও পাঁচ ছেলে সহ অসংখ গুনগ্রাহী,আত্মীয় স্বজন ছাত্র রেখে গেছেন। তাঁর গ্রামের বাড়ী সিলেট জেলার জকিগন্জ উপজেলার মানিকপুর গ্রামে। মরহুম মাওলানা আব্দুল মুমিন ‘পাকিস্তানি হুজুর’ হিসেবে পরিচিত ছিলেন। বড় এক মেয়ে ও ছোট তিন ছেলে নিয়ে তিনি নিউইয়র্কের জ্যামাইকাতে থাকতেন। মরহুমের নামাজে জানাযা আজ বুধবার বাদ জোহর দারুল উলুম নিউইয়র্ক 150-15 Hillside Avenue, Jamaica, New York এর পার্কিংলটে অনুষ্টিত হবে।

alt

উল্লেখ্য যে মুহাদ্দিস আবদুল মুমিন অল্প দিনে প্রবাসে দারুল উলূম নিউইয়র্ক সহ দ্বীনের অনেক খেদমত করে গেছেন এবং বাংলাদেশী কমিউনিটির কাছে একজন গ্রহণযোগ্য আলেম হিসেবে সমাদৃত হয়েছিলেন।রাজনৈতিক অঙ্গনে  দেশে জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশ এর সাখে সম্পৃক্ত ছিলেন।
সিলেট দরগাহ মাদরাসা থেকে দাওরায়ে হাদীস এবং জামেয়া ফারুকিয়া পাকিস্তান থেকে ইফতা সমাপ্ত করেন।
১৯৮৬ সালে জামেয়া ইমদাদিয়া কিশোরগঞ্জ থেকে কমৃজীবনের সুচনা করেন। এর পরে সিলেটের সুবহানীঘাট,শাহগলী জকিগঞ্জ,দলইপাড়া সিলেট এ শিক্ষকতা করেন। সর্বশেষ ২০০৩ সালে সিলেট নয়াসড়ক মাদরাসার মুহতামিমের দায়িত্ব গ্রহন করেন। খলিফায়ে মাদানি আব্দুল জলিল বদরপুরি ও শায়খে কৌড়িয়ার (র) এর সাথে তার ইসলাহি সম্পর্ক ছিলো।
তিনি দীর্ঘ পঁচিশ বছর ধরে দারসে হাদীসের খেদমত করে গেছেন। গেল কয়েক দিন যাবৎ অসুস্থ ছিলেন,বলতে গেলে অনেকটা হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়েছিলেন। সর্বশেষ মরণব্যাধি ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে গত তিন দিন ধরে হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন।
এদিকে মরহুম মাওলানা আব্দুল মুমিন এর ইন্তেকালে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন,নিউইয়র্ক থেকে প্রকাশিত  ইর্য়ক বাংলা ম্যাগাজিন এর সম্পাদক মাওলানা রশীদ আহমদ, মাদানী কাফেলা বাংলাদেশের সভাপতি মাওলানা রুহুল আমীন নগরী,সেক্রেটারী মাওলানা সালেহ আহমদ, সিলেট মহানগর মাদানী কাফেলার আহবায়ক হাফিজ শিব্বির আহমদ রাজি, সদস্য সচিব হাফিজ মাহদী হাসান মিনহাজ প্রমুখ।


সম্মীলিত বরিশাল বিভাগবাসীর সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত

বুধবার, ২৯ মার্চ ২০১৭

হাকিকুল ইসলাম খোকন,বাপসনিঊজ:গত ২২ মার্চ, বুধবার সম্মীলিত বরিশাল বিভাগবাসীর সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত হয় জ্যাকসন হাইটস্থ পালকি পার্টি হলে। উক্ত সভায় সভাপতিত্ব করেন  এমএল গাজী এবং সভা পরিচালনা করেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক  শাহ আলম। সভায় উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের নীতি নির্ধারক  ওয়াদুদ তালুকদার, ডাঃ আব্দুস সবুর, স্বপন মোঃ সরদার, মামুনুর রশিদ এবং কায়কোবাদ খান। সহ-সভাপতি এমএ সালাম আকন্দ, কামরুজ্জামান বাচ্চু, হাবিব রায়ান, জুয়েল লস্কর, আঃ জব্বার, সম্পাদক মন্ডলীর নীরু এস নিরা, শবিতা দাস, বশির উদ্দিন, সাথী আহমেদ, নির্বাহী সদস্য সোহেল হাওলাদার, আনোয়ার হোসেন, হাফিজ আহমেদ, পারভীন বানু, উপদেষ্টা মন্ডলীর জসিম উদ্দিন রেচৗধুরী, এম এ রব, মাহবুবুর রহমান টুকু, সাধারণ সদস্য রীনা বেগম, শিরিন আকতার সহ সংগঠনের সকল সদস্য।খবর বাপসনিঊজ
সভায় ২০১৭ সনের বিভিন্ন কর্মসূচী গৃহিত হয় এবং উক্ত কর্মসূচীর জন্য পৃথক পৃথক উপ-কমিটি গঠন করা হয়।  ১. ইফতার মাহফিল উপকমিটি- আহবায়ক কামরুজ্জামান বাচ্চু, সদস্য সচিব হাবিব রায়ান,
২. বনভোজন উপকমিটি- আহবায়ক কায়কোবাদ খান, সদস্য সচিব জুয়েল লস্কর, সাথী আহমেদ,
৩. ঈদ পূর্নমিলনী ইপকমিটি- আহবায়ক মামুনুর রশিদ, সদস্য সচিব এমএ সালাম আকন্দ।
উপস্থিত সকল সদস্যের সম্মতিতে সকল সিদ্ধান্ত গৃহিত হয়। সভায় মূল্যবান সময় ব্যয় ও মতামত দিয়ে সিদ্ধান্ত সমূহ গৃহিত হওয়ায় সভাপতি সকলকে ধন্যবাদ দিয়ে সভার সমাপ্তি ঘোষনা করেন এবং সভা শেষে সকলকে নৈশ ভোজে আপ্যায়িত করন হয়।


জর্জিয়া আওয়ামী লীগের এর উদ্যোগে স্বাধীনতা দিবস উদযাপন

মঙ্গলবার, ২৮ মার্চ ২০১৭

Picture

বাপ্ নিউজ : জর্জিয়া থেকে : ২৬ মার্চ, এক সাগর রক্তের বিনিময়ে অর্জিত বাংলাদেশের মহান স্বাধীনতার ৪৬ তম বর্ষপুর্তী যথাযোগ্য মর্যাদার সাথে বিপুল সংখ্যক প্রবাসীর উপস্থিতিতে ২৬শে মার্চ রবিবার ২০১৭, দুপুর ১২ টায় স্থানীয় ইন্ডিয়ান গ্রিল রেস্টুরেন্টে স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে শিশুকিশোরদের অংশগ্রহণে মুক্তিযুদ্ধ ভিত্তিক আকর্ষণীয় চিত্রাঙ্গন প্রতিযোগিতা ও আলোচনা সভার আয়োজন করা হয় ।

alt

সাধারণ সম্পাদক মাহমুদ রহমানের পরিচালনায় উক্ত আলোচনা অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন জর্জিয়া আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ আলী হোসেন।

alt

জর্জিয়া আওয়ামী লীগের সকল নেতৃবৃন্দ গভীর শ্রদ্ধার সাথে-স্মরণ করেছেন, ত্রিশ লক্ষ শহীদদের যাঁদের আত্মত্যাগের ফলে বাঙ্গালী জাতি স্বাধীনতা পেয়েছে। শ্রদ্ধার সাথে-স্মরণ করেছে, লক্ষ লক্ষ মা-বোনদের যাঁদের অমূল্য সম্ভ্রমের বিনিময়ে জাতি পরাধীনতার শৃংখল মুক্ত হয়েছে। নেতৃবৃন্দ, বিনম্র শ্রদ্ধা ও কৃতজ্ঞতাচিত্তে স্মরণ করেছেন, সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ট্র্র বাঙ্গালী, ইতিহাসের মহানায়ক, স্বাধীন বাংলাদেশের স্থপতি, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে ।

alt
বাংলাদেশের স্বাধীনতা আন্দোলনের মহা নায়ক হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও মহান স্বাধীনতাযুদ্ধে যাদের অবদান রয়েছে তাদের স্মরনে বিনম্র শ্রদ্ধা ও কৃতজ্ঞতাচিত্তে সভায় দাঁড়িয়ে এক মিনিট নিরাবতা পালন করা হয়।

alt
২৫ মার্চকে ‘আন্তর্জাতিক গণহত্যা দিবস’ ঘোষণা করার আহবান জানিয়েছে জর্জিয়া আওয়ামীলীগ । পাকিস্তানী হানাদার বাহিনী কর্তৃক বাঙালি নিধনের এই কালোদিনটিকে আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি দিতে জাতীসংঘ সহ বিশ্ব সম্প্দা্য়ের প্রতি দাবি জানিয়েছেন জর্জিয়া আওয়ামীলীগের নেতারা ।

alt

জর্জিয়া আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ আলী হোসেন বলেন, লাখো শহীদের রক্তের বিনিময়ে অর্জিত হয়েছে আমাদের স্বাধীনতা। ২৬ র্মাচ বাংলাদেশের ইতিহাসে এক রক্তাক্ত আনন্দের নাম। ২৬ মার্চ বিশ্বের বুকে লাল সবুজের পতাকা ওড়ানোর দিন। ১৯৭১ সালের ২৫ মার্চ মধ্যরাতে পাকিস্তানী হানাদার বাহিনী ঘুমন্ত নিরস্ত্র বাঙালির ওপর আধুনিক যুদ্ধাস্ত্র নিয়ে ঝাঁপিয়ে পড়েছিল। বাঙালির স্বাধীকার আন্দোলন, এমনকি জাতীয় নির্বাচনের ফলাফলে প্রাপ্ত আইনসঙ্গত অধিকারকেও রক্তের বন্যায় ডুবিয়ে দিতে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী শুরু করেছিল সারাদেশে গণহত্যা। সেইরাতে হানাদাররা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জগন্নাথ হল, ইকবাল হল, রোকেয়া হল, শিক্ষকদের বাসা, পিলখানার ইপিআর সদরদপ্তর, রাজারবাগ পুলিশ লাইনে একযোগে নৃশংস হত্যাযজ্ঞ চালিয়ে হত্যা করে অগণিত নিরস্ত্র দেশপ্রেমিক ও দেশের শ্রেষ্ঠ সন্তানদের।

alt

জর্জিয়া আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জনাব মাহমুদ রহমান তার বক্তব্যে বলেন, বাংলাদেশের ইতিহাসে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ দিন ২৬ মার্চ। এই দিনের প্রথম প্রহরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান স্বাধীনতা ঘোষণা করেছিলেন। মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসকে কালে কালে বিকৃত করা হয়েছে। বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ যদি ক্ষমতায় না আসতো তাহলে মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস বইয়ের ভেতরে আবদ্ধ থাকত। একটা আইন করা হোক যাতে করে মক্তিযুদ্ধ ও শহীদদের সংখ্যা নিয়ে কেউ বিতর্ক করতে না পারে।

alt

জর্জিয়া আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি দিদারুল আলম বলেন,‘বাঙালির হাজার বছরের স্বপ্ন ও আশা-আকাঙ্খার বাস্তবায়ন ঘটেছে এই দিনে। জন্ম হয়েছে বাংলাদেশের।’ তিনি বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আমাদের প্রিয় বাংলাদেশ এগিয়ে চলছে, এগিয়ে যাক, বিশ্বের দরবারে মাথা উঁচু করে দাঁড়াক এটাই আজ আমাদের প্রত্যাশা।’

alt

যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি ডাঃ মুহম্মদ আলী মানিক বলেন, ৪৬তম স্বাধীনতা দিবসে আমাদের সকলের শপথ হোক, জামায়াত-শিবির ও জঙ্গীবাদ এবং স্বাধীনতাবিরোধী অপশক্তিদের আমরা ঐক্যবদ্ধ প্রতিহত করবো। মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনা সমুন্নত রাখবো। এবং বঙ্গবন্ধু’র স্বপ্নের সম্মৃদ্ধশালী সোনার বাংলা ও রাজাকারমুক্ত বাংলাদেশ গড়তে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, জননেত্রী শেখ হাসিনার হাতকে আরও শক্তিশালী করবো।

alt

এছাড়াও আরো বক্তব্য রাখেন, জর্জিয়া আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি হুমায়ূন কবীর কাউসার, সহ সভাপতি শেখ জামাল , মুক্তিযোদ্ধা সুভাষ চন্দ্র চক্রবর্তী সহ আরও অনেকে।

alt

অনুষ্ঠানে অন্যান্য আমন্ত্রিত অতিথিদের মধ্যে উপস্হিত ছিলেন- মাহবুব ভুইয়া , যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক মোশাররফ হোসেন , ইকবাল হোসেন ,সাগর, মোঃ খান রাসেল,সাকিলা আলি বাচ্ছী , মোঃ জামাল, মারুফ ভূঁইয়া ,আরিফিন বাবুল, সৈয়দ আহাম্মেদ চুনু ,

alt

পারভেজ, লিয়াকত হোসেন আবু , আনোয়ের হোসেন, জয়নাল আবেদিন সহ আরও অনেকে। জর্জিয়া আওয়ামীলীগের নেতৃবৃন্দ ছাড়াও অনেক প্রবাসী বাংলাদেশীরা অনুষ্ঠানে যোগ দেন।

alt

শিশু কিশোরদের মুক্তিযুদ্ধ ভিত্তিক আকর্ষণীয় চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করে - মিফতাহুস হোসেন সুলাহা, সিদারতুল হোসেন তাহা, মোঃ আজমির জামান ,সামারা আলম, শেখ সাবা আক্তার, জান্নাতুস হোসেন, সাঞ্জিভান হালদার, ফারিয়া উলফাত পৃথা,ফাযা উলফাত প্রিপ্তি, রাজমিলা ভুইয়া সহ  আরও  অনেকে।

alt

শিশুকিশোরদের অংশগ্রহণে মুক্তিযুদ্ধ ভিত্তিক আকর্ষণীয় চিত্রাঙ্গন প্রতিযোগিতা পরিচালনা করেন সাকিলা আলি বাচ্ছী ও মোঃ Q জামান।

alt
মুক্তিযুদ্ধ ভিত্তিক আকর্ষণীয় চিত্রাঙ্গন প্রতিযোগিতায় ১ম, ২য় ও ৩ য় হয় – মোঃ আজমির জামান , রাজমিলা ভুইয়া  ও শেখ সাবা আক্তার ।

alt

শিশুকিশোরদের অংশগ্রহণে মুক্তিযুদ্ধ ভিত্তিক আকর্ষণীয় চিত্রাঙ্গন প্রতিযোগিতা শেষে পুরুস্কার বিতরন করা হয় ।


যুক্তরাষ্ট্র মুক্তিযোদ্ধা সংসদ : বাংলাদেশের যত মহত্তম অর্জন সব কিছুই মহান স্বাধীনতাকে কেন্দ্র করে

মঙ্গলবার, ২৮ মার্চ ২০১৭

হাকিকুল ইসলাম খোকন,হেলাল মাহমুদ, বাপসনিঊজ:নিউইয়র্ক (যুক্তরাষ্ট্র) থেকে :যুক্তরাষ্ট্র মুক্তিযোদ্ধা সংসদের উদ্যোগে গত ২৬ মার্চ রবিবার সন্ধ্যায় নিউইয়র্কের জামাইকার একটি পার্টি সেন্টারে বাংলাদেশের মহান স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে অনুষ্ঠিত সভা থেকে সকল দ্বিধাদ্বন্দ্ব ভুলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে উন্নয়ন কর্মকাণ্ড ত্বরান্বিত করতে প্রবাসীদের ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানানো হয়। সভার শুরুতেই জাতির জনক বঙ্গবন্ধু, জাতীয় চার নেতা, মুক্তিযুদ্ধের সকল শহীদ,ইজ্জতহারানো দুইলক্ষ মাবোনদের স্মৃতির প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানিয়ে দাঁড়িয়ে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়। কুরআন পাঠ জাতির কল্যাণ কামনা করে বিশেষ মোনাজাত পরিচালনা করেন বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ মনির হোসেন। বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ যুক্তরাষ্ট্র কমান্ড এরউদ্যোগে যুক্তরাষ্ট্র মুক্তিযোদ্ধা সংসদের আহ্বায়ক বীর মুক্তিযোদ্ধা ড. আবদুল বাতেনর সভাপতিত্বে এবং বীর মুক্তিযোদ্ধা মশিউল আলম জগলুর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সভায় বক্তারা বলেন বাংলাদেশের যত মহত্তম অর্জন সবকিছুই মহান স্বাধীনতাকে কেন্দ্র করে। দেশি ও আন্তর্জাতিক সব ষড়যন্ত্র নস্যাত্ করে বাংলাদেশ নিজের গতিপথ নিজেই বেছে নিয়েছিল। এ গতিপথের একমাত্র নির্ধারক ছিলেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। তার নেতৃত্বে ১৯৭১ সালে দীর্ঘ ৯ মাসের রক্তক্ষয়ী যুদ্ধে আমরা স্বাধীনতা লাভ করি। স্বাধীনতার মধ্যদিয়ে আমরা জাতি হিসেবে যেসব মূলনীতি আমাদের চেতনায় ও রাষ্ট্র ব্যবস্থায় ধারণ করেছিলাম সেগুলির মধ্যে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ছিলো জাতীয়তাবোধ, গণতন্ত্র ও ধর্মনিরপেক্ষতা। এই নীতিগুলি অর্জনের জন্য জাতিকে বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে বছরের পর বছর আন্দোলন করতে হয়েছে এবং লক্ষ লক্ষ মানুষকে প্রাণ দিতে হয়েছে। দুঃখের বিষয়, ১৯৭৫ পরবর্তী সামরিক স্বৈরাচারী শাসনামলে সংবিধানের পঞ্চম ও অষ্টম সংশোধনীর মাধ্যমে এই নীতিগুলিকে ক্ষতবিক্ষত করা হয়

Picture
এ সময় যুক্তরাষ্ট্র মুক্তিযোদ্ধা সংসদের আহ্বায়ক বীর মুক্তিযোদ্ধা ড. আবদুল বাতেন উল্লেখ করেন যে, জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা পুনরুজ্জীবিত হয়েছে এবং আন্তর্জাতিক অঙ্গনেও বাংলাদেশ মাথা উঁচু করে দাঁড়ানোর সাহস দেখাচ্ছে। যুদ্ধাপরাধ ট্রাইব্যুনাল ইস্যুতে শেখ হাসিনার দৃঢ়তা সাহসিকতা বিচার প্রক্রিয়াটিকে বাস্তবে রূপ দিয়েছে। আর এটি হচ্ছে আমাদের মুক্তিযুদ্ধের শহীদদের শ্রদ্ধার প্রতি প্রকৃত সম্মান। জননেত্রী শেখ হাসিনা না থাকলে এইযুদ্ধাপরাধ ট্রাইবুনাল বাস্তবায়িত হতো না, ১৯৯৬ সালে শেখ হাসিনা ক্ষমতায় আসার পরই মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য কিছু করার প্রক্রিয়া শুরু করা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ দেশের মুক্তিযোদ্ধাদের সত্যিকার সম্মান দিয়েছেন। মুক্তিযোদ্ধাদের পরবর্তী বংশধরদের জন্য চাকুরীর নিশ্চয়তা দেওয়া হয়েছে। এজন্য সংসদে আইন পাশ করা হয়েছে। শেখ হাসিনা প্রধানমন্ত্রী বলেই এটা সম্ভব হয়েছে। অন্যকোন নেতার পক্ষে এ কাজটি করা কোন মতেই সম্ভব হতো না ।


জালালাবাদ এসোসিয়েশনের সহযোগিতায় কানেকটিকাটে দু’দিনব্যাপী ভ্রাম্যমান কনস্যুলেট সেবা প্রদান

মঙ্গলবার, ২৮ মার্চ ২০১৭

বাপ্ নিউজ : নিউইয়র্ক (যুক্তরাষ্ট্র) থেকে : কনস্যুলেট জেনারেল অব নিউইয়র্ক কানেকটিকাটে দু’দিনব্যাপী ভ্রাম্যমান কনস্যুলেট সেবা প্রদান করেছে। কনস্যুলেট সেবার মধ্যে ছিল এমআরপি, নো ভিসা রিকোয়ার্ড, বার্থ সার্টিফিকেট, পাওয়ার অব এটর্নী, দ্বৈত নাগরিকত্ব আবেদন গ্রহণ, ডকুমেন্ট সত্যায়ন ও সংশোধন ইত্যাদি। জালালাবাদ এসোসিয়েশন অব আমেরিকা ইনকের সহযোগিতায় বাংলাদেশের মহান স্বাধীনতা দিবসের প্রাক্কালে কানেকটিকাট প্রবাসীদের এ সেবা প্রদান করা হয়। বিপুল সংখ্যক প্রবাসী

alt

উৎসবমুখর পরিবেশে কনস্যুলেট সেবা গ্রহণ করেন। কানেকটিকাটে ম্যানচেসটার ৮২৪ মেইন স্ট্রিটে গত ২৪ ও ২৫শে মার্চ শুক্রবার ও শনিবার সকাল ১০টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত ডেপুটি কনস্যাল জেনারেল শাহেদুর রহমানের নেতৃত্বে ৫ সদস্যের একটি মোবাইল টীম এ কনস্যুলেট সেবা প্রদান করে।

Picture

কনস্যুলেট টীমের অন্য্ন্যা সদস্যরা হলেন শামীম হোসেন (ফার্স্ট সেক্রেটারী পাসপোর্ট ও ভিসা), মাসুমা আক্তার শেলী (এডমিনিস্ট্রেটিভ অফিসার), মোহাম্মদ কবির হোসেন (পার্সোনাল অফিসার) এবং আবু জাফর (অফিস সহকারী)। কনস্যুলেট টীমকে সার্বক্ষণিক সহযোগিতা প্রদান করেন জালালাবাদ এসোসিয়শনের সাবেক তিন সাধারন সম্পাদক জুনেদ এ খান, ময়নুল হক চৌধুরী হেলাল ও আহমেদ জিলু, সংগঠনের সাবেক কর্মকর্তা তৌফিকুল আম্বিয়া, ঢাকাস্থ জালালাবাদ এসোসিয়শনের সাবেক কোষাধ্যক্ষ সোহেলুর রহমান স্বপন, ব্যবসায়ী মোহাম্মদ মাসুদুর রহমান অপু, তারেক আম্বিয়াসহ বিপুল সংখ্যক জালালাবাদবাসী।alt
সেবা গ্রহণকারী কানেকটিকাট প্রবাসীরা জানান, অত্যন্ত আন্তরিকতা ও সুশৃংখলভাবে কনস্যুলেট সেবা প্রদান করা হয়। অংশগ্রহণকারীরা দোরগোড়ায় কনস্যুলেট সেবা পেয়ে দারুণ উতফুল্ল। দু’দিনব্যাপী কনস্যুলেট সেবা প্রদান কর্মসূচি সফলভাবে সমাপ্ত হওয়ায় জালালাবাদ এসোসিয়েশন অব আমেরিকা ইনকের সভাপতি বদরুল হোসেন খান এবং সাধারণ সম্পাদক জুয়েল চৌধুরী সংশ্লিষ্ট সবাইকে আন্তরিক ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন।


অগ্নিঝরা মার্চের আলোকে বাংলাদেশের স্বাধীনতা এবং বঙ্গবন্ধু শীর্ষক আলোচনা সভার আয়োজন করেন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগ

শনিবার, ২৫ মার্চ ২০১৭

Picture

হাকিকুল ইসলাম খোকন,হেলাল মাহমুদ, বাপসনিঊজ:নিউইয়র্ক থেকে :২৩শে মার্চ যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের আয়োজনে নিউইয়র্কের জ্যাকসন হাইটস এর পালকি পার্টি সেন্টারে  অগ্নিঝরা মার্চের আলোকে বাংলাদেশের স্বাধীনতা এবং বঙ্গবন্ধু শীর্ষক আলোচনা সভা অনুষ্টিত হয়।

alt

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের সভাপতি নুরুজ্জামান সরদার এবং অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন সাধারন সম্পাদক সুবল দেবনাথ। উক্ত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রনালয়ের  প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকী এম পি।

alt
বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি সৈয়দ বসারত আলী, যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারন সম্পাদক আবদুস সামাদ আজাদ , বাংলাদেশ আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের আন্তর্জাতিক বিষয়ক সহ সম্পাদক সাখাওয়াত বিশ্বাস .নিউইয়র্ক স্টেট আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক শাহীন আজমল . অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন যুক্তরাষ্ট্র স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহ সভাপতি আশরাফ উদ্দিন .দুরুদ মিয়া রনেল .কবির আলী .এবাদুল হক . মাহবুবুর রহমান . জাহিদ মিয়া . অতুল প্রসাদ রায় . যুগ্ম সাধারন সম্পাদক নাফিকুর রহমান তুরান .এইচ এম ইকবাল . গোলাম কিবরিয়া . আনিসুজ্জামান সবুজ . সাংগঠনিক সম্পাদক সোহেল কোতয়ালী . সুমন আহমেদ .প্রচার সম্পাদক সাইফুল আলম . দপ্তর সম্পাদক এম. জি মুস্তফা, সহ প্রচার সম্পাদ সাদিক রহমান .শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক সাগর এম সানু . মহিলা বিষয়ক সম্পাদক রত্না ইসলাম, ত্রান ও দুর্যোগ সম্পাদক আলমগীর মোল্লা, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক আলামিন হোসেন, গন সংযোগ সম্পাদক কামাল হোসেন .পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক উত্তম পাল . সমাজ কল্যান বিষয়ক সম্পাদক  বিপু রহমান সজল . কার্যকরী সদস্য রফিক আহমেদ মিলু , সালাউদ্দিন বিপ্লব, যুক্তরাষ্ট্র মহিলা আওয়ামী লীগের সভানেত্রী  অধ্যাপিকা মমতাজ শাহনাজ . জাতীয় শ্রমিক লীগের সভাপতি কাজী আজিজুল হক খোকন সহ সভাপতি  মুঞ্জুর চৌধুরী, খাঁন শওখত, যুক্তরাষ্ট্র যুবলীগের আহবায়ক তরিকুল হাইদার ঢৌধুরী .যুগ্ম আহবায়ক জামাল হোসেন .যুগ্ম আহবায়ক হুমায়ুন চৌধুরী, ইফজাল আহমেদ চৌধুরী, সদস্য মিজানুর রহমান শিমুল , বাবু।


যুক্তরাষ্ট্রে নিহত তিন বাংলাদেশিকে স্মরণ করলেন কংগ্রেসওম্যান গ্রেস মেং

শনিবার, ২৫ মার্চ ২০১৭

হাকিকুল ইসলাম খোকন,হেলাল মাহমুদ, বাপসনিঊজ:নিউইয়র্ক থেকে :বাংলাদেশিসহ দক্ষিণ এশীয়দের ওপর ধর্মীয় বিদ্বেষমূলক হামলার ব্যাপারে মার্কিন কংগ্রেসে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন কংগ্রেসওম্যান গ্রেস মেং। গত বৃহস্পতিবার ইউএস ক্যাপিটাল হিলে কংগ্রেসে শুনানীর আয়োজন করে মানবাধিকার সংস্থা ‘সাউথ এশিয়ান-আমেরিকান লিডিং টুগেদার’ (সল্ট)। সেখানেই আমেরিকার পররাষ্ট্র সম্পর্কিত কমিটির প্রভাবশালী সদস্য এবং কংগ্রেসনাল বাংলাদেশ ককাসের সদস্য মেং তার উদ্বেগ প্রকাশ করেন।

Picture
গত বছরের নভেম্বরে আমেরিকায় প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের আগে থেকেই যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন সিটিতে বাংলাদেশিসহ দক্ষিণ এশীয়রা ধর্মীয় ও জাতিগত বিদ্বেষমূলক হামলার শিকার হচ্ছেন। সে আলোকেই ‘ক্ষমতা, যন্ত্রণা এবং সম্ভাবনা’ শীর্ষক এ আলোচনার আয়োজন করা হয়।
ডেমক্র্যাটিক পার্টির কংগ্রেসওম্যান গ্রেস মেং বলেন, অভিবাসী, মুসলিম, আরব, শিখ, হিন্দু এবং দক্ষিণ এশীয় আমেরিকানরা প্রতিনিয়ত ধর্মীয় বিদ্বেষমূলক হামলার শিকার হচ্ছে। গোটা সম্পদায়ে সন্ত্রস্ত অবস্থা বিরাজ করছে। রাজনৈতিক সভা-সমাবেশের বক্তব্য থেকেই এমন বিদ্বেষের বিস্তার ঘটেছে।
কংগ্রেসওম্যান ওং বলেন, গত বছর নিউইয়র্ক সিটিতে এক ইমাম, এক মুয়াজ্জিন এবং কর্মজীবী এক নারী দুর্বৃত্তদের হামলায় প্রাণ হারান। এ তিনজনই বাংলাদেশি। সম্প্রতি দুই ভারতীয় খুন হয়েছেন। কমপক্ষে পাঁচজনকে আহত করা হয়েছে ধমীয় ও জাতিগত বিদ্বেষের কারণে।


নারী অধিকার রক্ষা ও নারীর ক্ষমতায়নই আন্তর্জাতিক শান্তি ও নিরাপত্তার আবশ্যিক পূর্বশর্ত - জাতিসংঘে মাসুদ বিন মোমেন

শনিবার, ২৫ মার্চ ২০১৭

হাকিকুল ইসলাম খাকন,বাপসনিঊজ:নিউইয়র্ক,“জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের সদস্য হিসেবে ২০০০ সালে বাংলাদেশের গৃহীত প্রাথমিক পদক্ষেপের ফসল হিসেবেই নারীর শান্তি ও নিরাপত্তা বিষয়ে জাতিসংঘের ল্যান্ডমার্ক রেজুলেশন ১৩২৫ গৃহীত হয়। বাংলাদেশ বিশ্বাস করে নারী অধিকার রক্ষা ও নারীর ক্ষমতায়নই আন্তর্জাতিক শান্তি ও নিরাপত্তার আবশ্যিক পূর্বশর্ত” – গত ২৪ মাচ জাতিসংঘ সদর দপ্তরে কমিশন অন দ্যা স্টাটাস অফ উইমেন (সিএসডব্লিউ) এর চলতি ৬১তম সেশনের শেষদিনে ‘খবাবৎধমরহম ডড়সবহ’ং চড়ঃবহঃরধষ ভড়ৎ ঝঁংঃধরহরহম চবধপব’ বিষয়ক এক সাইড ইভেন্টে একথা বলেছেন জাতিসংঘে নিযুক্ত বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি ও রাষ্ট্রদূত মাসুদ বিন মোমেন। টেকসই শান্তি বিনির্মাণে নারীর ভূমিকা নিয়ে প্রথমবারের মত আয়োজিত এই সাইড ইভেন্টে বাংলাদেশ স্থায়ী মিশনের সাথে সহ-আয়োজক ছিল কানাডা মিশন। আর এতে সহযোগিতা প্রদান করে ইউএন উইমেন ও জাতিসংঘের পিস বিল্ডিং সাপোর্ট অফিস।খবর বাপসনিঊজ:


স্থায়ী প্রতিনিধি তাঁর বক্তব্যে বলেন, “আমরা দেশের সকল স্তরের নারীদের জন্য এমন একটি পরিবেশ তৈরি করতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ, যেখানে নারীরা স্বাধীনভাবে কাজ করবে, সমাজে অবদান রাখবে এবং স্থায়ী শান্তির পথে যে সকল বাধা রয়েছে তা দূর করে জাতীয় জীবনে শান্তির সংস্কৃতি ও অহিংসাকে আরও বেগবান করবে। একথা নি:সন্দেহে বলা যায় যে ৪৫ বছর আগের সদ্য স্বাধীন, যুদ্ধবিধ্বস্থ ও ভঙ্গুর অর্থনীতির বাংলাদেশকে আমরা এ পর্যায়ে আনতে পেরেছি জাতি গঠন ও জাতীয় উন্নয়নে নারীর কৌশলী ভূমিকার কারণে। সমাজে নারীর ক্রম অগ্রগতির ক্ষেত্রে গৃহীত প্রতিটি আন্তর্জাতিক উদ্যোগে বাংলাদেশ সবসময়ই সামনের সারিতে থেকে লিঙ্গসমতা ও নারীর ক্ষমতায়ন প্রতিষ্ঠায় কাজ করে যাচ্ছে যা আজ প্রমাণিত”।
বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সর্বদাই নারীদের মা, শিক্ষক, সেবাদানকারী, সামজকর্মী, জন প্রতিনিধি, উদ্যোক্তা ও কর্মী এবং সমাজ পরিবর্তনের প্রতিনিধি হিসেবে বহুমূখী ভূমিকা রাখতে আহ্বান জানিয়ে যাচ্ছেন মর্মে রাষ্ট্রদূত তাঁর বক্তব্যে উল্লেখ করেন।
জাতিসংঘের সাবেক আন্ডার সেক্রেটারি জেনারেল ও বাংলাদেশ স্থায়ী মিশনের সাবেক স্থায়ী প্রতিনিধি আনোয়ারুল করিম চৌধুরী, কানাডা মিশনের চার্জ দ্য আফেয়ার্স রাষ্ট্রদূত মিখায়েল ডগলাস গ্রান্ট (গরপযধবষ উড়ঁমষধং এৎধহঃ), পিস বিল্ডিং সার্পোট অফিসের উপ-পরিচালক মিজ্ মারি ইয়ামাসিতা (গং. গধৎর ণধসধংযরঃধ), ইউএন এন ইউমেন এর প্রতিনিধি মিজ্ ম্যারি ওকুমু (গং. গধৎু ঙশঁসঁ) এবং এডুকেয়ার লাইবেরিয়া’র নির্বাহী পরিচালক মিজ্ ডেওলা ফ্যামাক(গং. উবড়ষধ ঋধসধশ) এই সাইড ইভেন্টে প্যানেলিস্ট হিসেবে মূল্যবান বক্তব্য রাখেন।


নিউইয়র্ক প্রবাসী বীর মুক্তিযাদ্ধা বশির আর নেই

শনিবার, ২৫ মার্চ ২০১৭

বাপ্ নিউজ : নিউইয়র্ক থেকে : মরণব্যাধি ক্যান্সারের সাথে লড়াই করে অগ্নিঝরা মার্চে মৃত্যুকে আলিঙ্গন করে নিলেন নিউইয়র্কে স্থায়ীভাবে বসবাসকারী বীর মুক্তিযাদ্ধা বশিরুল আলম (৬২)। শুক্রবার সকাল ১১:৩৪ মিনিট জ্যামাইকার নিজ এপার্টমেন্টে শেষ নি:শ্বাস ত্যাগ করেন মুক্তিযাদ্ধা বশিরুল আলম। শনিবার ২৫ মার্চ বাদ জোহর জ্যামাইকা মুসলিম সেন্টারে মরহুমের জানাজার শেষে নং আইসল্যান্ড ওয়াশিংটন মেমোরিয়াল গ্রেভ ইয়ার্ডে তাকে সমাহিত করা হবে।

Picture

একাত্তরের মার্চে বঙ্গবন্ধুর ডাকে মুক্তিযুদ্ধে অংশ নিতে ভারতের ত্রিপুরার মেলাগডে ক্র্যাক প্লাটুনে যোগ দেন বশিরুল আলম।বাংলাদেশ লিবারেশন ফোর্স (বিএলএফ) এর সদস্য হয়ে মুক্তিযুদ্ধে গৌরবজনক অংশ নেয়া মুক্তিযাদ্ধা বশিরুল আলম ২০০৮ সালে আমেরিকায় তলে আসেন সপরিবারে ফ্যানিলি ভিসায়।মৃতুযরালে তিনি স্ত্রী ফরিদা বেগম ও পুত্র রিদউয়ান আলম (২১), ব্যাচেলর করছেন ।

দুবছর আগে ব্লাডার ক্যান্সার ধরা পরলে ম্যানহাটনে লিংকন হসপিটালে ভর্তি হয়ে চিকিৎসা নেয়া শুরু করেন তিনি। চিকিতসা চলছিল। কিন্তু দুসপ্তাহ আগে শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে ভর্তি হন নং আইসল্যান্ড দুইশ হসপিটালে। ১২ দিন চিকিতসা চলার ডাক্তাররা আশা ছেড়ে দেন। একদিন আগে তাকে বাসায় পাঠিয়ে দেন চিকিৎসকরা।


যুক্তরাষ্ট্রে স্বাধীনতা দিবসের অনুষ্ঠানে থাকছেন লেয়ার লেভিন

শনিবার, ২৫ মার্চ ২০১৭

বাপ্ নিউজ : বাংলাদেশের স্বাধীনতা দিবসে যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্কে ‘মুক্তধারা ফাউন্ডেশন’ আয়োজিত অনুষ্ঠানে থাকবেন ‘মুক্তির গান’ প্রামাণ্যচিত্রের চিত্রগ্রাহক মার্কিন সহ-মুক্তিযোদ্ধা লেয়ার লেভিন।২৬ মার্চ রোববার জ্যাকসন হাইটসের ডাইভার্সিটি প্লাজায় দুপুর ১২টা থেকে শুরু হবে স্বাধীনতা দিবসের মূল অনুষ্ঠান।অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত বিশেষ অতিথি হিসেবে থাকবেন কাদেরীয়া বাহিনীর অন্যতম বীর মুক্তিযোদ্ধা ও নিউ জার্সির কাউন্সিলম্যান নূরন নবী। অনুষ্ঠানে এ বছর আমেরিকায় বসবাসরত পাঁচজন প্রবীণ মুক্তিযোদ্ধাকে সম্মাননা দেওয়া হবে বলে জানান আহ্বায়ক তাজুল ইমাম। বাংলাদেশের পতাকা দিয়ে বানানো উত্তরীয় পরিয়ে সম্মান জানানো হবে এই মুক্তিযোদ্ধাদের ।

alt

মুক্তিযুদ্ধে গৌরবোজ্বল অবদানের জন্য বীর বিক্রম খেতাবপ্রাপ্ত  নিউ ইয়র্কের ব্রুকলিনে বসবাসরত মুক্তিযোদ্ধা আবদুল মালেক, বীর প্রতিক উপাধিপ্রাপ্ত ক্যাপ্টেন সায়ীদ মোহাম্মদ ও নিউ ইয়র্কের লং আইল্যান্ডে বসবাসরত বীরপ্রতীক মমতাজ হাসান উপস্থিত থাকবেন বলে জানায় আয়োজকরা।

এছাড়া আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধে অসাধারণ বীরত্বের জন্য দুই মহিলা মুক্তিযোদ্ধা, বীরপ্রতিক খেতাব অর্জন করা মিশিগান প্রবাসী ক্যাপ্টেন সিতারা রহমান। অসুস্থতার কারণে তিনি যোগ দিতে না পারলেও স্বাধীনতার ৫০ বছর পূর্তি উৎসবকে সামনে রেখে গত দুই বছর ধরে নিউ ইয়র্কে এই প্রস্তুতি কর্মসূচিকে স্বাগত জানিয়ে অভিনন্দন জানিয়েছেন উদযাপন পরিষদকে।

এছাড়া আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে কথা সাহিত্যিক আনিসুল হক ও শিল্পী রেজওয়ানা চৌধুরী বন্যাকে।

‘উদীচী শিল্পীগোষ্ঠী’, ‘সুর ও ছন্দ’ এবং ‘সঙ্গীত পরিষদ’ দলগতভাবে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে অংশ নেবে মুক্তধারা ফাউন্ডেশনের এ অনুষ্ঠানে। একক সঙ্গীত পরিবেশন করবেন শিল্পী শহীদ হাসান, কাবেরী দাস, শাহরীন সুলতানা, জিনাত রেহানা, তাহমিনা শহীদ ও শাহ মাহবুব।

অনুষ্ঠানে ৪৬ জন কবি পড়বেন ৪৬টি স্বাধীনতার কবিতা। দুপুর ১টায় শিশু-কিশোরদের চিত্রাংকন ও রচনা প্রতিযোগিতা শুরু হবে ইত্যাদি রেস্টুরেন্টের দোতলায়। বিকেল ৫টায় শুরু হবে প্যারেড।

নিউ ইয়র্কের গভর্নর অ্যান্ড্র ক্যুমো এবং নিউ ইয়র্ক সিটির মেয়র বিল ডি ব্লাসিও পৃথক পৃথক বার্তায় বাংলাদেশের স্বাধীনতা দিবস পালন করার জন্য মুক্তধারা ফাউন্ডেশন ও প্রবাসী বাংলাদেশিদের অভিনন্দন জানিয়েছেন।


যুক্তরাষ্ট্রস্থ জেনোসাইড ’৭১ ফাউণ্ডেশন ২৫ মার্চ গণহত্যা দিবসে শহীদদের স্মরণ

শনিবার, ২৫ মার্চ ২০১৭

হাকিকুল ইসলাম খাকন,বাপসনিঊজঃ জেনোসাইড ’৭১ ফাউণ্ডেশন, ইউএসএ এবং মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের বিভিন্ন সংগঠনের সহযোগিতায় আগামী ২৫ শে মার্চ শনিবার দিবাগত রাত ৭টা থেকে ১২-০১ মিনিট পর্যন্ত পচিশে মার্চ গণহত্যায় শহীদদের স্মরণ, একাওুরে বাংলাদেশে সংঘটিত গণহত্যার আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি ও ২৬ মার্চ প্রথম প্রহরে মহান স্বাধীনতা দিবস উদযাপনের বিভিন্ন কর্মসূচী গ্রহন করা হয়েছে। কর্মসূচীর মধ্যে বিশেষভাবে-

• একাওুরে বাংলাদেশের গণহত্যা শীর্ষক সেমিনার ও আলোচনা

• ২৫ মার্চকে গণহত্যা দিবস হিসেবে স্বীকৃতি আদায়ে জেনোসাইড ’৭১ 

ফাউণ্ডেশনের এ যাবৎ গৃহীত কর্মসূচীর উপর রিপোট পেশ 

* গনসঙ্গীত ও কবিতা আবৃত্তি

• ১২-০১ মিনিটে গণহত্যায় শহীদদের স্মরণে প্রজ্জলিত

• ২৬ মার্চ মহান স্বাধীনতা দিবসের প্রথম প্রহরে বঙ্গবন্ধুর

প্রতিকৃতিতে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ ও

• সম্মিলিত কণ্ঠে জাতীয় সংঙ্গীত পরিববেশনা

আপনারা সাদর আমন্তিত।

স্থানঃ বাংলাদেশ প্লাজা বিল্ডিং এর কনফারেন্স রুম (ল্যোয়ার লেভেল), 

৩৭-১৫, ৭৩ ষ্ট্র্র্রিট, জ্যাকসন হাইস্টস্, নিউইয়ক।