Slideshows

ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার

পরিচালনা পরিষদ 

সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি

ওসমান গনি
 

প্রধান সম্পাদক

হাকিকুল ইসলাম খোকন
 

সম্পাদক

সুহাস বড়ুয়া হাসু
 

সহযোগী সম্পাদক

আয়েশা আকতার রুবী

প্রবাসীদের খবর

সুইজারল্যান্ডে স্বাধীনতা দিবসে বইমেলা, পিঠা উৎসব ও মুক্তির গান

বুধবার, ০৫ এপ্রিল ২০১৭

Picture

বাপ্ নিউজ : বাংলাদেশের মহান স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে সুইজারল্যান্ডের জুরিখের বাংলা স্কুলের এবারের কর্মসূচিতে ছিল বইমেলা, পিঠা উৎসব, বিদেশিদের নিয়ে ছবি প্রজেকশন ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। জুরিখের লিমাটপ্লাজের স্কুল মিলনায়তনের নিচতলায় ১১৪ নম্বর লিমাটস্ট্রিটের ফয়ার হল জুড়ে ছিল হরেক রকমের পিঠা ও বইয়ের মেলা। গির্জার হলে বাংলাদেশ ও মুক্তিযুদ্ধের ওপর ঘণ্টাব্যাপী ছবি প্রদর্শনী এবং হানস বেডার হলে মুক্তির গান শিরোনামের সংগীতানুষ্ঠান।

অনুষ্ঠানের একটি দৃশ্য

ডিজিটাল যুগের ইলেকট্রনিকস ইকুইপমেন্টের অতিরিক্ত নেতিবাচক ব্যবহার বিশেষ করে গেমস আমাদের নতুন প্রজন্মকে বই থেকে দুরে সরিয়ে রাখছে। এ সমস্যা সমাধানে প্রত্যেকের হাতে বই দিয়ে বই পড়ার অভ্যাস গঠনের লক্ষ্যে সবাইকে এগিয়ে আসার তাগিদ দেওয়ার প্রয়োজনীয়তার ওপর গুরুত্বারোপ করে প্রথমবারের মতো এই মেলার আয়োজন করে বাংলা স্কুল। এই বইমেলায় জার্মান ভাষায় আমাদের বাংলা সাহিত্যের কয়েকটি উল্লেখ্যযোগ্য বই অনুবাদ করার আগ্রহ প্রকাশ করেছে স্থানীয় একটি প্রকাশনী সংস্থা।একদিনের জন্য হলেও পিঠা খাও আর বই পড় এমন শিরোনামের এই উৎসবে উপস্থিত ছোট বড় দেশি বিদেশি সবার উৎসাহ ছিল বেশ আশাব্যঞ্জক।
অনুষ্ঠানের একটি দৃশ্য

পাশেই হানস বেডার হলে মুক্তির গান শিরোনামের সংগীতানুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন মনিরুল ইসলাম। সংগীত পরিবেশন করেন জার্মানপ্রবাসী সংগীত শিল্পী প্রকৌশলী মিনহাজ দীপন ও রোকনসহ এবং স্থানীয় শিল্পীরা। তবলায় ছিলেন আরেক জার্মানপ্রবাসী বাংলাদেশি প্রকৌশলী চিরঞ্জিত চাকি টিটু।যথারীতি স্কুলের সহযোগী সংগঠন শ্রী ‍চিন্ময় সেন্টারের ভিনদেশি বন্ধুরা পরিবেশন করেন জাতীয় সংগীত ও দেশের গান। স্কুলের শিশুরাও এই পরিবেশনায় অংশ নেয়।
অনুষ্ঠানের একটি দৃশ্য

পিঠা উৎসব শুরু হওয়ার আগে গির্জার হলে মেইন স্টিমের শতাধিক অংশগ্রহণকারীদের নিয়ে বাংলাদেশ ও মুক্তিযুদ্ধের ওপর ঘণ্টাব্যাপী ছবি প্রদর্শন এবং সেমিনারের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে আলোচক ছিলেন হেক্স প্রজেক্ট কর্মকর্তা মাথিয়াজ হাউপ্ট। তিনি তার বক্তব্যে মুক্তিযুদ্ধের সময় পাকিস্তান সেনাবাহিনী কর্তৃক সংগঠিত গণহত্যার বিষয়টিও আলোচনায় নিয়ে আসেন।স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে আয়োজিত এই সব কটি অনুষ্ঠানেই উপস্থিত ছিলেন সুইজারল্যান্ডে বাংলাদেশ দূতাবাস ও স্থায়ী মিশনের প্রথম সচিব মোহাম্মাদ হোসেন সরকার। তিনি প্রবাসে দেশের ভাবমূর্তি বিকাশের লক্ষ্যে প্রবাসী বাংলাদেশিদের সবাইকে একসঙ্গে কাজ করার আহ্বান জানান। তিনি প্রবাসীদের সকল সমস্যায় পাশে থাকবার অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন।
অনুষ্ঠানের একটি দৃশ্য

জুরিখপ্রবাসী বাংলাদেশিদের দীর্ঘদিনের দাবি জুরিখে কনসাল সেবা প্রদান চালু প্রসঙ্গে তিনি বলেন, রাষ্ট্রদূত বিষয়টি অবগত আছেন এবং দ্রুতই জুরিখে অস্থায়ী মিশনের কাজ শুরু হবে। জুরিখে কনসাল সেবা প্রদানের দাবির সঙ্গে তিনি পুরোপুরি একমত প্রকাশ করেন।প্রবাসে বাংলা ভাষা এবং সংস্কৃতি বিকাশের লক্ষ্যে আয়োজিত এই উৎসবে বরাবরের মতো এবারেও দেশি বিদেশিদের অংশগ্রহণ ছিল লক্ষণীয়।


পর্তুগালে বৃহত্তর নোয়াখালী অ্যাসোসিয়েশনের বনভোজন ও অানন্দভ্রমণ

বুধবার, ০৫ এপ্রিল ২০১৭

Picture

১২৯০ সালে প্রতিষ্ঠিত কুইমব্রা বিশ্ববিদ্যালয় ও কুইমব্রা শহরের চারিদিকে ঘুরে দেখেন অংশগ্রহণকারীরা। বাচ্চাদের নিয়ে বিভিন্ন রাইড ভ্রমণ শেষে লিসবনের রাঁধুনী রেস্টুরেন্টের সুস্বাদু ও মুখরোচক বাংলা খাবারের অায়োজনে দুপুরের খাবার উপভোগ করেন সবাই।এরপর অংশগ্রহণকারী সবার গন্তব্য হয় পর্তুগালের সর্বোচ্চ পর্বতশৃঙ্গ সেররা দ্য এস্ট্রেলা। যেটি ভূ-পৃষ্ঠ থেকে প্রায় সাড়ে ছয় হাজার মাইল উপরে অবস্থিত। গ্রীষ্ম বা শীত হোক সব ঋতুতে বরফে অাচ্ছাদিত থাকে পুরো পর্বত। পর্বতে পৌঁছে পরবর্তী আনন্দ-বিনোদনের কার্যক্রম শুরু হয়। বরফ নিয়ে বাচ্চাদের স্কেটিং অার এদিক-ওদিক ছুটোছুটি ছিলে চোখে পড়ার মতো।

alt

সফরের অায়োজন ও পরিচালনায় ছিলেন বৃহত্তর নোয়াখালী অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি জাহাঙ্গীর অালম, জ্যেষ্ঠ সভাপতি অাবুল কালাম অাজাদ, অর্থ সম্পাদক তবারক হোসেন তপু, নজরুল ইসলাম সুমন, রনি মোহাম্মদ এবং মনজুরুল হোসেন জিন্নাহ। এছাড়াও অারও উপস্থিত ছিলেন অাবুল বাসার, শহীদ উল্লাহ, মো. মহিন, মো. লিটন, মো. সোহেল, মোশাররফ হোসেন, মো. অাকতারুজ্জামান প্রমুখ ও পরিবারবর্গ।


কাতালোনিয়া আওয়ামী লিগের স্বাধীনতা দিবস উদযাপন

বুধবার, ০৫ এপ্রিল ২০১৭

মিরন নাজমুল : বাপ্ নিউজ : গত ২ এপ্রিল রবিবার স্পেনের বার্সিলোনায় কাতালুনিয়া আওয়ামী লীগের উদ্যোগে মহান স্বাধীনতা দিবস উদযাপন করেছে। এ উপলক্ষ্যে শহরের কালাবরিয়া সড়কের একটি হলরুমে আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। কাতালোনিয়া আওয়ামী লীগের সভাপতি নূরে জামান খোকনের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক বেলাল উদ্দীনের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি  হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা মেডিকেল কলেজ ছাত্রসংসদের সাবেক ভিপি ও ডেনমার্ক আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ড. বিদ্যুৎ বড়ুয়া, বিশেষ অতিথি ছিলেন স্পেন আওয়ামী লীগের নেতা ও প্রজন্ম একাত্তরের সভাপতি রিজভী আলম।

Picture

প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের সংগ্রামী ইতিহাস ও আদর্শের রাজনীতি আওয়ামী লীগের সবাইকে ধারণ করতে আহ্বান জানান। তিনি বলেন, মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাসের চর্চা করেই সকল অপশক্তি মুক্ত বাংলাদেশ গঠন করতে হবে। জাতিরজনকের আদর্শ ও রক্তের উত্তরাধিকার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে অর্থনৈতিক সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গঠনে আওয়ামী লীগের সবাইকে কাজ করতে হবে।

পবিত্র কুরআন থেকে তেলাওয়াত ও সম্মিলিত কণ্ঠে জাতীয় সংগীত পরিবেশনের মাধ্যমে সন্ধ্যা ৭টায় অনুষ্ঠান শুরু হয়। এরপর প্রধান অতিথীকে ফুল দিয়ে বরণ করা হয়। অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন কাতালোনিয়া আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা আবু তালেব লাবু, সহসভাপতি মহিউদ্দীন হারুন, আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক দিলাল হোসেইন, সাংগঠনিক সম্পাদক খাদিজা আক্তার মনিকা, সদস্য নজরুল ইসলাম, নাজমুল আলম, আজিজুর রহমান,মোঃ এনাম, আব্দুল কাইয়ুম, মোঃ মাসুদ, মোঃ হারুন,জেবুন্নেছা জেবু, জেসমিন আখতার,শিরিন আখতার, যুবলীগ সভাপতি রেহমান সাহাব উদ্দিন,সাধারণ সম্পাদক জুয়েল হোসাইন,সাংগঠনিক সম্পাদক নাজমুল ইসলাম। আলোচনা অনুষ্ঠানশেষে তানিয়া আখতার ও নিগার সুলতানার উপস্থাপনায় মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে দেশাত্ববোধক গান, শিশুদের নাচ ও ফ্যাশন শো পরিবেশন করা হয় হয়।


সুইডেন আওয়ামী লীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত

রবিবার, ০২ এপ্রিল ২০১৭

বাপ্ নিউজ : স্টকহোম, সুইডেন থেকে : দীর্ঘ প্রতীক্ষার পর ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে সুইডেনের স্টকহোমে সুইডেন আওয়ামী লীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। ব্যাপক উপস্থিতি ও গণতান্ত্রিক পদ্ধতিতে মনজুরুল হাসানকে সভাপতি ও লাভলু মনোয়ারকে সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত করেন সুইডেন আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা।দীর্ঘদিন পর অত্যন্ত প্রাণবন্তভাবে অনুষ্ঠিত হলো সুইডেন আওয়ামী লীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলন।

Picture

বেলা বাড়ার সাথে সাথে নেতাকর্মীদের মুহুর্মুহু মিছিলে প্রকম্পিত হয়ে উঠে সম্মেলনস্থল। সুইডেন ছাড়াও ইউরোপের বিভিন্ন দেশ থেকে নেতাকর্মীরা জড়ো হন সম্মেলনে। জাতীয় সংগীত ও জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও  মহান মুক্তিযুদ্ধে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে নীরবতার মাধ্যমে শুরু হয় সম্মেলনের প্রথম পর্ব।

alt

সুইডেন আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক মুক্তিযোদ্ধা খেতু মিয়ার সভাপতিত্বে ও ড. বিপ্লব শাহনেওয়াজ এর সঞ্চালনায় সম্মেলনে উদ্বোধনী বক্তব্য উপস্থাপন করেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কমিটির শিল্প ও বাণিজ্য সম্পাদক মুক্তিযোদ্থা আব্দুস সাত্তার। এ সময় সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী ও দলীয় সভানেত্রীর বাণী পাঠ করেন সম্মেলনের প্রধান অতিথি সর্ব ইউরোপিয়ান আওয়ামী লীগ এর সাধারণ সম্পাদক এম এ গনি। এ সময় সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন সুইডেন পার্লামেন্ট এর মিলিও পার্টির সাংসদ টিম নিলসেন, বেলজিয়াম আওয়ামী লীগ সভাপতি লতিফ শহিদুল হক, নেদারল্যান্ডস আওয়ামী লীগ সভাপতি শাহাদাত হোসেন, নরওয়ে আওয়ামী লীগ সভাপতি রুহুল আমিন মজুমদার, জার্মান আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক শেখ বাদল আহমেদ, নেদারল্যান্ডস আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক মুরাদ খান, ডেনমার্ক আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ড. বিদ্যুৎ বড়ুয়া, ফিনল্যাণ্ড আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক মাইনুল ইসলাম, গ্রিস আওয়ামী লীগ সদস্যসচিব মিজানুর রহমান, স্পেন আওয়ামী লীগ নেতা রিজভী আলম, সুইজারল্যান্ড আওয়ামী লীগ নেতা শ্যামল খান, সুইডেন ছাত্রলীগ এর সভাপতি পলাশ দাশ, সুইডেন যুবলীগ এর সাধারণ সম্পাদক জুবাইদুল হক সবুজ, সুইডেন এর নাজমুল খান সহ ইউরোপের বিভিন্ন দেশের নেতারা।

alt

বিগত আহ্বায়ক কমিটির সদস্যসচিব লাভলু মনোয়ার সাংগঠনিক রিপোর্ট পেশ করার পর সম্মেলনের দ্বিতীয় পর্বে নির্বাচন পরিচালনা পরিষদ এর আখতারুজ্জামান, গুলজার মিয়া ও খলিলুর রহমান সুইডেন আওয়ামী লীগ এর নেতৃত্ব নির্ধারণে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক এর নাম প্রস্তাব আহ্বান করলে সভাপতি পদে মনজুরুল হাসান ও সাধারণ সম্পাদক পদে লাভলু মনোয়ার এর নাম ছাড়া অন্য কোনো নাম প্রস্তাব না হলে নির্বাচন কমিশন দুজনকে বিজয়ী ঘোষণা করে।এর পর নেতাকর্মীরা ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান নবনির্বাচিত সভাপতি-সম্পাদককে। নির্বাচিত হওয়ার পর সুইডেন আওয়ামী লীগের নবনির্বাচিত  নেতারা তাদের অনুভূতি প্রকাশ করে ইউরোপ আওয়ামী লীগ এর সকল স্তরের নেতাকর্মীদের শুভেচ্ছা জানান। তারা বলেন, বাংলাদেশের উন্নয়নে প্রবাস থেকে সরকারকে পূর্ণ সহায়তা দেবে প্রবাসী আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা।


ইতালিতে মন্ত্রী রাশেদ খান মেননকে ফুলেল শুভেচ্ছা

রবিবার, ০২ এপ্রিল ২০১৭

বাপ্ নিউজ : ইতালি থেকে : ইতালির মিলানে বাংলাদেশ সরকারের বেসামরিক বিমান ও পর্যটন মন্ত্রী রাশেদ খান মেনন সরকারি সফরে মিলানে আগমন করেন শনিবার। মিলানের মালপেনসা বিমান বন্দরে ইতালির নিযুক্ত রাষ্ট্রদূত আব্দুস সোবহান  শিকদার ও মিলান কনস্যুলেট  এর কনসাল জেনারেল রেজিনা আহমেদ মন্ত্রীকে স্বাগত জানান। বিমানবন্দরে এই সময় মন্ত্রীকে লোম্বার্দিয়া আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান লোম্বার্দিয়া আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আব্দুল মান্নান মালিতা, সাধারণ সম্পাদক নাজমুল কবির জামানসহ অন্যান্যরা।

Picture

রাশেদ খান মেনন রবিবার মিলানের একটি অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করবেন এবং সোমবার মিলান কনস্যুলেট  এ প্রবাসীদের  সাথে মতবিনিময়  করবেন বলে জানা যায়।


রিটিশ পার্লামেন্টের অর্ধ-শতাধিক এমপির উপস্থিতিতে মহান স্বাধীনতা দিবস উদ্‌যাপন,যুক্তরাজ্য আওয়ামীলীগ’র ইতিহাস সৃষ্টি

শনিবার, ০১ এপ্রিল ২০১৭

বাপ্ নিউজ : গত ২৭ শে মার্চ বৃটেনের হাউস অব কমন্সের দি টেরেস প্যাভিলিয়নে যুক্তরাজ্য আওয়ামীলীগ ব্রিটিশ পার্লামেন্টের অর্ধ শতাধিক সংসদ সদস্যদের পদচারণায় ও কমিউনিটির বিশিষ্টজনদের উপস্থিতিতে বাংলাদেশের মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উদযাপন ২০১৭ এর অনুষ্ঠান সফল ভাবে সম্পন্ন করে নব ইতিহাস সৃষ্টি করেছে বলে সাংবাদিক মকিস মনসুর আহমদ জানিয়েছেন.। অতীতের মতো ব্রিটেন বাংলাদেশের বন্ধু রাষ্ট্র হিসেবে দেশের উন্নয়ন অগ্রগতিতে পাশে থাকবে বলে বাংলাদেশের ৪৭তম স্বাধীনতা দিবস উদ্‌যাপনের অনুষ্ঠানে যুক্তরাজ্যের ক্ষমতাসীন দল কনজারভেটিভ পার্টি, বিরোধী দল লেবার পার্টি, লিবারেল ডেমোক্র্যাটস ও স্কটিশ ন্যাশনালিস্ট পার্টির অর্ধ শতাধিক (তথা ৫৩ জন) এমপির উপস্থিতিতে এই ঘোষণা দেওয়া হয়।

Picture

যুক্তরাজ্য আওয়ামীলীগের সভাপতি সুলতান মাহমুদ শরীফের সভাপতিত্বে এবং যুক্তরাজ্য আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ সাজিদুর রহমান ফারুকের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত এই মহতি অনুষ্ঠানে প্রধান ও বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মোহাম্মদ শাহরিয়ার আলম এমপি. হোস্ট লেবার দলীয় এমপি জিম ফিটসজপেট্রিক. বঙ্গবন্ধুর দৌহিত্রী টিউলিপ সিদ্দীক এমপি. রুশনারা আলী এমপি, রুপা হক এমপি. যুক্তরাজ্যে নিযুক্ত বাংলাদেশের হাইকমিশনার নাজমুল কা্ওনাইন.বৃটিশ এমপি এল্যান মেইল, জনাথন অ্যাশওয়ার্থ, টম ব্লেইক, পল স্কালি, স্টিফেন টিমস, লিজ কেন্ডাল, কারেন বাক, এঞ্জেলা রায়নার, লূইসি এলমান,স্টিফেন টুইগ,জিম দাউদ, মার্ক হেনরিক,গিবেন বারওয়েল,জেস পিলিপস,জেসিকা মর্ডান, জনাথন ডিজেজানলি,নিক ডাকিন,ক্রিস ম্যাথসন,ফিলিপ ডেভিস,ডেইভ এন্ডারসন, জিম কানিংহাম, নাজ শাহ, চি ওনওয়ারা, টমি শেফার্ড, ওয়েস স্ট্রেটিং, কেলভিন হপকিন্স, মাইক গেইভস, কেভিন জন্স, এমা লুয়েল বাক প্রমুখ।

এমপি.সহ ২২জন পার্লামেন্টের এমপিবৃন্দ ও বক্তব্য রাখেন.।ঐতিহাসিক এই অনুষ্ঠানে যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগ, মহিলা আওয়ামীলীগ, যুক্তরাজ্য যুবলীগ, মহিলা যুবলীগ.যুক্তরাজ্য কৃষকলীগ. যুক্তরাজ্য তাতীলীগ. যুক্তরাজ্য শ্রমিকলীগ.যুক্তরাজ্য ছাত্রলীগ. বঙ্গবন্ধু পরিষদ ও জাস্টিস ফর বাংলাাদেশ জেনোসাইড ১৯৭১ ইন ইউকে নেতৃবৃন্দ সহ বিভিন্ন শহর থেকে আগত আওয়ামীলীগ সহ অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ ছাড়া ও বিভিন্ন কাউন্সিলের মেয়র. কাউন্সিলারবৃন্দ এবং কমিউনিটির বিশিষ্টজনেরা উপস্হিত ছিলেন।

unnamed (2)অনুষ্ঠানের শুরুতেই বাংলাদেশের জাতীয় সংগীত পরিবেশন করা হয় ও পরে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব সহ ৭৫’র ১৫ই আগস্ট নিহত বঙ্গবন্ধুর পরিবারের সদস্যবৃন্দ এবং সকল শহীদানদের স্মরণে এবং ব্রিটিশ পার্লামেন্টের সামনে ও বাংলাদেশের সিলেটে বোমা ও সন্ত্রাসী হামলায় নিহতদের স্মরণে ১ মিনিট নীরবতা পালন করা হয়।
বাংলাদেশের উন্নয়ন ও সমৃদ্ধির উপরে নির্মিত একটি ডকুমেন্টরিও ঐসময় ব্রিটিশ এমপি সহ সবাইকে দেখানো হয় এবং অনুষ্ঠানে যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে সকল এমপিকে বঙ্গবন্ধু আত্তজীবনী. বাংলাদেশের উন্নয়ন-অগ্রযাত্রায় ওপর কিছু গুরুত্বপূর্ণ বই -নিদেশিকা. নৌকা. চাপাতা ও সহ একটি প্যাকেট প্রদান করা হয়। অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশের উন্নয়ন অগ্রযাত্রা নিয়ে দুটি প্রমাণ্যচিত্র প্রদর্শণ করা হয়। ছিলো দেশাত্ববোধক গানের সাথে নৃত্য পরিবেশনা। এ অনুষ্ঠান উপলক্ষ্যে বাংলাদেশের উন্নয়ন অগ্রযাত্রা নিয়ে একটি স্মরনিকা বাহির করা হয়.।unnamed (3)

বৃটিশ এমপিরা তাদের বক্তব্যে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকারের উন্নয়ন-অগ্রযাত্রায় ভূয়শী প্রশংসা করেন। বঙ্গবন্ধুর দৌহিত্রী টিউলিপ সিদ্দীক এমপি বলেন বৃটেনের কোন অনুষ্ঠানে এত বৃটিশ এমপি আমি আগে দেখিনি. যে দিকে থাকাচ্ছি. শুধু এমপি আর এমপি দেখছি.।

তিনি বাংলাদেশ কমিউনিটিকে আরও বৃটিশ রাজনীতিতে এগিয়ে আসার ও আহবান জানান.। পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মোহাম্মদ শাহরিয়ার আলম এমপি যুক্তরাজ্য আওয়ামীলীগকে এই আয়োজনের জন্য ধন্যবাদ জানিয়ে ব্রিটিশ এমপিদের সামনে বাংলাদেশের উন্নয়ন-অগ্রযাত্রায় বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ দিক তুলে ধরেন। এখানে উল্লেখ্য যে মহান মুক্তিযুদ্ধের সময় যে সব এমপি ও বৃটিশ রাজনীতিবিদরা বাংলাদেশকে সহযোগীতা করেছেন এবং বৃটিশ এমপিদের সামনে বাংলাদেশের উন্নয়ন-অগ্রযাত্রায় বিভিন্ন দিক তুলে ধরতে যুক্তরাজ্য আওয়ামীলীগের এই মহতি আয়োজনের জন্য আগত অতিথিরা ও দলটির প্রশংসা করেছেন।


স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে আল আইন যুবলীগের সভা

শনিবার, ০১ এপ্রিল ২০১৭

Picture

সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন আল আইন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক দিদারুল আলম। প্রধান বক্তা ছিলেন মীরসরাই নিজামপুর কলেজের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক নুর উদ্দীন ভূইয়া।সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক নুর মোহাম্মদ ভূইয়ার পরিচালনায় সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন নিজামপুর কলেজের সাবেক জিএস গিয়াস উদ্দীন। এতে আরও উপস্থিত ছিলেন সাইফুল, মিজান, শাহজাহান, মাসুদ, ফারভেজ, জাহেদ, উপদেষ্টা ফিরোজ, ইকাল, সেলিম রাজু, ইছমাইল প্রমুখ।


কানাডার অটোয়ায় ৪৬তম স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উদযাপন করলো বাংলাদেশ হাইকমিশন

বৃহস্পতিবার, ৩০ মার্চ ২০১৭

Picture

মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষে বাংলাদেশ হাইকমিশনের পক্ষ থেকে ২৮শে মার্চ মঙ্গলবার সন্ধ্যায় নগরীর ঐতিহ্যবাহী ফেয়ারমন্ট শ্যাতো লরিয়ার হোটেলের এডাম হলে এক আনুষ্ঠানিক সম্বর্ধনার আয়োজন করা হয়। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কানাডার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সংক্রান্ত পার্লামেন্টারী সেক্রেটারী, জেনারেল এন্ড্রু লেসলি এমপি। অনুষ্ঠানে আগত অতিথিবৃন্দকে স্বাগত জানান কানাডায় নিযুক্ত বাংলাদেশের মান্যবর হাই কমিশনার মিজানুর রহমান, তাঁর সহধর্মিনী মিসেস নিশাত রহমান ও দূতাবাসের মিনিস্টার নাইম উদ্দিন আহমেদ। সম্বর্ধনা অনুষ্ঠানে কানাডার সংসদ সদস্য ও সিনেটরগণ, গ্লোবাল এ্যাফেয়ার্স ডিপার্টমেন্ট (পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়)সহ বিভিন্ন মন্ত্রণালয় ও অধিদপ্তরের উর্দ্ধতন কর্মকর্তাগণ, অটোয়ায় অবস্থানরত বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রদূত ও হাইকমিশনারগণ, আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ, মুক্তিযোদ্ধাগণ, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকবৃন্দ, ব্যবসায়ী, সাংবাদিক, উন্নয়ন সংস্থার প্রতিনিধিবৃন্দ, নেতৃস্থানীয় কানাডীয় সমাজকর্মীবৃন্দ, শিল্পী-সাহিত্যিকগণ, বাংলাদেশী ছাত্র-ছাত্রী গবেষক এবং চিকিৎসক, প্রকৌশলী, সরকারী চাকুরীজীবী ও উদ্যোক্তাসহ বাংলাদেশী বংশোদ্ভুত বিশিষ্ট কানাডীয় নাগরিকগণ যোগদান করেন।

alt

স্বাগত বক্তব্যে কানাডায় নিযুক্ত বাংলাদেশের হাই কমিশনার মিজানুর রহমান বলেন, বাংলাদেশ-কানাডা দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক অত্যন্ত সুদৃঢ় ভিত্তির উপর প্রতিষ্ঠিত। ১৯৭১ সালে মহান মুক্তিযুদ্ধের সময় কানাডার অকুণ্ঠ সহযোগিতার কথা স্মরণ করে তিনি বলেন, ঐতিহাসিক সেই সম্পর্কের বন্ধন আজ অনেক দূর এগিয়ে গেছে। সারা বিশ্বে তৈরি পোশাক শিল্পে বাংলাদেশ হচ্ছে কানাডার দ্বিতীয় বৃহত্তম সরবরাহের উৎসহ। অন্যদিকে, কানাডার সাস্কাচুয়ান ও এ্যালবার্টা প্রদেশ হতে প্রচুর পরিমাণে মসুর ডাল, ক্যানোলা তেল এবং পটাশ সার আমদানী করছে বাংলাদেশ। দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্য বর্তমানে ২.৪ বিলিয়ন ছাড়িয়ে গেছে। ঢাকা-টরন্টো বিমান চলাচল চুক্তি সম্পাদনের জন্য উভয় দেশ কাজ করছে। একটি বিনিয়োগ সুরক্ষা চুক্তির বিষয়টিও আলোচনাধীন রয়েছে। এছাড়াও দু'দেশের পররাষ্ট্র বিভাগের মধ্যে নিয়িমত আলোচনার জন্য ফরেন অফিস কন্সালটেশনের লক্ষ্যে সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরের প্রচেষ্টা চলমান। তিনি বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্নের সোনার বাংলা গঠনের লক্ষে মাননীয় প্রধামন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন বর্তমান সরকার কাজ করে চলেছে। ২০১৬ সালের সেপ্টেম্বর মাসে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ঐতিহাসিক কানাডা সফর এবং তার পরের মাসেই মাননীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ.এইচ. মাহমুদ আলীর সফরের পর দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক আরও জোরদার হয়েছে।  জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এবং স্বাধীন বাংলাদেশের জন্য আত্মদানকারী সকল শহীদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে হাই কমিশনার বলেন, লাখো শহীদের আত্মত্যাগের সেই মহান মুক্তিযুদ্ধে অর্জিত বিজয় তখনই অর্থবহ হয়ে উঠবে যখন আমরা প্রবৃদ্ধি ও সামাজিক উন্নয়নের ধারাবাহিকতায় একটি শক্তিশালী অর্থনীতির উপর দাঁড়াতে পারবো। সেজন্য তিনি কানাডা সরকার, কানাডীয় কোম্পানীসমূহ এবং উন্নয়ন সহযোগীদের বাংলাদেশে অধিকতর বিনিয়োগে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান।কানাডায় বসবাসকারী এক লক্ষাধিক বাংলাদেশী, যাঁরা দক্ষ মানবসম্পদ হিসেবে কানাডার অর্থনীতিতে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখছেন, তাঁদের প্রশংসা করে এদেশে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বলতর করার ক্ষেত্রে কাজ করার জন্য আহবান জানান বাংলাদেশের হাইকমিশনার।

alt

প্রধান অতিথির বক্তব্যে কানাডার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সংক্রান্ত পার্লামেন্টারী সেক্রেটারী এন্ড্রু লেসলি এমপি এম.পি. বলেন, কানাডার কাছে বাংলাদেশ খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি দেশ। দু'দেশের দ্বিপাক্ষিক কূটনৈতিক ও বাণিজ্যিক সম্পর্ক ক্রমবর্ধিঞ্চু। এমন প্রেক্ষাপটে গত বছর বাংলাদেশের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী এবং পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সফরের মাধ্যমে দু'দেশের সম্পর্ক আরও জোরদার হয়েছে। জনাব এন্ড্রু লেসলি বলেন, তাঁর কাছে বাংলাদেশের একটি বিশেষ আবেদন রয়েছে এজন্যই যে তাঁর নির্বাচনী এলাকা অরলিন্স -এর বিপুল সংখ্যক ভোটার হচ্ছেন বাংলাদেশী বংশোদ্ভুত কানাডীয়ান, যাঁরা সাফল্যের সাথে কানাডার উন্নয়নে অবদান রাখছেন। তাদের কল্যাণের জন্য কাজ করে যাবেন তিনি। সেই সাথে কানাডা-বাংলাদেশ দ্বি-পাক্ষিক সম্পর্ক যাতে আরও জোরদার হয় এবং উভয় দেশের মধ্যে ঘনিষ্ঠতা যাতে আরও বাড়ে সে লক্ষ্যে তাঁর পক্ষ থেকে সব রকম সহযোগিতা থাকবে বলে তিনি জানান। তাঁকে প্রধান অতিথি হিসেবে আমন্ত্রণের জন্য বাংলাদেশের হাইকমিশনারকে বিশেষ ধন্যবাদ জানান জেনারেল এন্ড্রু লেসলি এমপি। কানাডা-বাংলাদেশ দ্বিপাক্ষিক কূটেনৈতিক ও বাণিজ্যিক সম্পর্ক অত্যন্ত চমৎকার উল্লেখ করে এন্ড্রু লেসলি বলেন, আগামী দিনগুলোতে এ সম্পর্ক আরও জোরদার হবে বলে তিনি দৃঢ়ভাবে আশাবাদী।

আনুষ্ঠানিক বক্তব্যের পর বাংলাদেশের হাইকমিশনার, মিসেস নিশাত রহমান এবং প্রধান অতিথি এন্ড্রু লেসলী বাংলাদেশ-কানাডা দীর্ঘমেয়াদী বন্ধুত্বপুর্ণ সুসম্পর্ক কামনা করে টোস্ট করেন। এরপর উভয় দেশের বন্ধুত্বের প্রতীক অঙ্কিত কেক একত্রে কেটে বাংলাদেশের মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবসকে উদযাপন করেন হাইকমিশনার মিজানুর রহমান, তাঁর সহধর্মিনী মিসেস নিশাত রহমান এবং অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি জেনারেল এন্ড্রু লেসলী এমপি।

সম্বর্ধনা শেষ অতিথিদের আপ্যায়ন করা হয়। বাংলা-ইংরেজি-ফরাসী ত্রিভাষিক উপস্থাপনায় অনুষ্ঠানের ঘোষণা করেন প্রথম সচিব (বাণিজ্যিক) দেওয়ান মাহমুদ। সার্বিক সমন্বয়ে ও ব্যবস্থাপনায় ছিলেন মিনিস্টার নাইম উদ্দিন আহমেদ ও প্রথম সচিব আলাউদ্দিন ভুঁইয়া। অতিথি সমন্বয় ও সংযোগ করেন প্রথম সচিব অপর্ণা রাণী পাল ও প্রথম সচিব মোঃ সাখাওয়াত হোসেন। হাই কমিশনের সকল কূটনীতিক, কর্মকর্তা-কর্মচারীসহ তাঁদের পরিবারের সদস্যবৃন্দ অনুষ্ঠানে উপস্থিত থেকে অভ্যাগত অতিথিদের সাথে কুশল বিনিময় করেন।


কাতারে স্বাধীনতা দিবসের অনুষ্ঠানে ৭০ দেশের কূটনীতিক

বৃহস্পতিবার, ৩০ মার্চ ২০১৭

Picture

অনুষ্ঠানের শুরুতে কাতারে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত আসুদ আহমেদ, শ্রম কাউন্সিলর ড. সিরাজুল ইসলাম, কাউন্সিলর কাজী জাবেদ ইকবাল, প্রথম শ্রম সচিব রবিউল ইসলাম, দ্বিতীয় শ্রম সচিব মো. আজগর হোসেন আমন্ত্রিত অতিথিদের অভ্যর্থনা জানান।ভারত, পাকিস্তান, আলজেরিয়া, ওমান, আরব আমিরাত, শ্রীলঙ্কা, লিবিয়া, জর্ডান, আমেরিকা, তিউনিশিয়া, সুদান, ইরাক, যুক্তরাজ্য, জাপান, চীন, দুই কোরিয়া, ইন্দোনেশিয়া, ব্রুনেই, মিশর, থাইল্যান্ড, নেপাল, ব্রাজিল, গ্রীসসহ ৭০টি দেশের বিভিন্ন মিশনের রাষ্ট্রদূত ও কাউন্সিলররা অনুষ্ঠানে যোগ দেন।বাংলাদেশ ও কাতারের জাতীয় সংগীত পরিবেশনের মাধ্যমে অনুষ্ঠান শুরু হয়।

alt

এরপর রাষ্ট্রদূত আসুদ আহমেদ তার বক্তব্যে বাংলাদেশের স্বাধীনতা দিবসের তাৎপর্য সবার সামনে তুলে ধরেন। বিভিন্ন দেশের সঙ্গে বাংলাদেশের বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক আরও সুদৃঢ় করার অভিমতও ব্যক্ত করেন তিনি।এরপর কাতারে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত আসুদ আহমেদ অনুষ্ঠানের অতিথিদের সঙ্গে নিয়ে কেক কাটেন। পরে রাষ্ট্রদূত অতিথিদের সঙ্গে কুশল বিনিময় করেন এবং নৈশভোজের ব্যবস্থা করেন।

alt

তারপর কাতারে বাংলাদেশ স্কুল অ্যান্ড কলেজের ছাত্র-ছাত্রীদের আয়োজনে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান হয়। অনুষ্ঠানে দেশটিতে বসবাসরত বাংলাদেশ কমিউনিটি ও বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক, ব্যবসায়ী সংগঠন, প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিলেন।


সুইজারল্যান্ডের জেনেভায় মহান স্বাধীনতা দিবস উদযাপিত

বুধবার, ২৯ মার্চ ২০১৭

Picture

উক্ত আলোচনা সভায় স্বাধীনতা দিবস ও ২৬ মার্চের বিষয়ে বক্তব্য রাখেন সুইজারল্যান্ড -বাংলাদেশ মহিলা পরিষদের সভাপতি আমেনা ইসলাম রুকু ও সুইস বাংলাদেশ মহিলা সমিতির মহাসচিব কান্তা হোসেন, স্থানীয় ২১ ফেরুয়ারি উদযাপন কমিটির সহকারী সচিব নিশাত রহমান, ২৬ মার্চ উদযাপন কমিটির সাংস্কৃতিক সম্পাদক মেহনাজ পারভিন মুক্তি প্রমুখ। ওয়ার্ল্ড বড়ুয়া ওর্গেনাইজেশন জেনেভা এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।


সৌদি আরবে সবচেয়ে বড় বাংলাদেশি পতাকা দেখালো মদিনা বাংলা স্কুল

বুধবার, ২৯ মার্চ ২০১৭

মোহাম্মদ আল-আমীন, বাপ্ নিউজ : সৌদি আরব:সৌদি আরবের মধ্যে সবচেয়ে বড় বাংলাদেশের জাতীয় পতাকা প্রদর্শন করার রেকর্ড অর্জন করেছে বাংলাদেশ ইন্টারন্যাশনাল স্কুল অ্যান্ড কলেজ মদীনা শাখা। মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উদযাপন উপলক্ষে স্কুলের ছাত্রছাত্রীদের অংশগ্রহণে সৌদি আরবের মধ্যে সবচেয়ে বড় জাতীয় পতাকা প্রদর্শন করা হয়েছে। এর আগে দিবসকে কেন্দ্র করে শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়।  

Picture

স্কুলের প্রধান শিক্ষক টিএম শহিদুজ্জামানের সঞ্চালনায় ছাত্রছাত্রী ও অভিভাবকদের উপস্থিতিতে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। রিয়াদ বাংলাদেশ দূতাবাসের ইকোনোমিক কাউন্সিলর মোহাম্মদ আবুল হাসান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন। স্কুল পরিচালনা কমিটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক মুছা আব্দুল জলিলের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান বক্তা হিসাবে উপস্থিত ছিলেন, স্কুল পরিচালনা কমিটির চেয়ারম্যান ডা. আবুল কাশেম। বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন অভিভাবকদের মধ্য হতে রবিউল ইসলাম রবি ও ফায়েজুল ইসলাম।
 
মদিনা বিশ্ব বিদ্যালয়ের ছাত্র এইচ এম ফখরুদ্দিন খান মাদানীর কোরআন তেলাওয়াতের মধ্যদিয়ে অনুষ্ঠান শুরু হয়। স্কুলের ছাত্রছাত্রী অভিভাবক ও উপস্থিত সকলের পরিবেশনায় জাতীয় সঙ্গীতের মধ্য দিয়ে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করেন প্রধান অতিথি ড. আবুল হাসান ও অন্যান্য মেহমানবৃন্দ। । এরপরই ছাত্র ছাত্রীদের অংশগ্রহণে সৌদি আরবের মধ্যে সর্ববৃহৎ জাতীয় পতাকা প্রদর্শন করা হয়।