Slideshows

ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার

পরিচালনা পরিষদ 

সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি

ওসমান গনি
 

প্রধান সম্পাদক

হাকিকুল ইসলাম খোকন
 

সম্পাদক

সুহাস বড়ুয়া হাসু
 

সহযোগী সম্পাদক

আয়েশা আকতার রুবী

প্রবাসীদের খবর

প্যারিসে ব্যাংকার ইকবাল চৌধূরীকে সংবর্ধনা

রবিবার, ০৬ সেপ্টেম্বর ২০১৫

দেলওয়ার হোসেন সেলিম, বাপসনিঊজ: প্যারিস (ফ্রান্স) থেকেঃ ফ্রান্সের প্যারিসে সিলেটের কানাইঘাটের কৃতি সন্তান, লন্ডনে কর্মরত ব্যাংক কর্মকর্তা আহমেদ ইকবাল চৌধুরীর প্যারিস সফর উপলক্ষে এক সংবর্ধনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। প্যারিসে অবস্হানরত কানাইঘাটবাসীর উদ্যোগে গত বৃহস্পতিবার (৩ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় স্হানীয় গারে দু নর্দের একটি অভিজাত রেষ্টুরেন্টে আয়োজিত সংবর্ধনা সভায় সভাপতিত্ব করেন কমিউনিটি ব্যাক্তিত্ব হাজী জালাল খান। সাংবাদিক দেলওয়ার হোসেন সেলিমের পরিচালনায় এতে বক্তব্য রাখেন শমসুল ইসলাম সমসু, সুয়েব আহমদ, এনাম আহমদ, আজমল চৌধুরী, আফজল চৌধুরী, আহমেদ মুরাদ চৌধুরী, জাবেদ আহমদ প্রমুখ।

Paris BAps 5
সংবর্ধিত ব্যাক্তিত্ব আহমেদ ইকবাল চৌধুরী তার বক্তব্যে বলেন, প্রবাসীরা শ্রম ঘামে অর্জিত রেমিটেন্স দেশে পাঠিয়ে জন্ম ভুমির অর্থনীতিতে গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা রাখছেন। দিন দিন এ রেমিটেন্সের পরিমাণ বেড়েই চলেছে। এতে দেশে প্রবাসীদের আত্মীয় স্বজনদের দুঃখ কষ্ট লাগব হচ্ছে। তিনি দেশে প্রবাসী পররিবার পরিজনের মৌলিক অধিকার সহ তাদের সার্বিক নিরাপত্তা নিশ্চিত করার জন্যে সরকারের কাছে জোর দাবী জানান।


কুয়ালালামপুরে বিএনপির প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে সভা

শনিবার, ০৫ সেপ্টেম্বর ২০১৫

মোস্তফা ইমরান, বাপসনিঊজ: কুয়ালালামপুর (মালয়েশিয়া) থেকে : বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলে (বিএনপি) সুবিধাবাদের সংখ্যা বেড়ে গেছে। কিছু স্বার্থবাজ নেতা পদ দখল করে বসে আছেন অথচ আন্দোলনের সময় তাদের মাঠে খুঁজে পাওয়া যায় না। তৃণমূল নেতারাই দলটিকে টিকিয়ে রেখেছেন। তাই অক্টোবরের সম্মেলনের মাধ্যমে দল থেকে সব আগাছা সরিয়ে যোগ্য ব্যক্তিদের হাতে নেতৃত্ব দেওয়ার দাবি জানিয়েছেন বিএনপির মালয়েশিয়া শাখার নেতা শহীদুল্লাহ শহীদ। দলের ৩৭তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। ১ সেপ্টেম্বর মঙ্গলবার কুয়ালালামপুরের রাজধানী রেস্টুরেন্টে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

দলের সুদিনে যারা অর্থলিপ্সু হয়ে দেশে ও প্রবাসে সুবিধা আদায় করেছেন দলের দুর্দিনে তাদের ভূমিকা নিয়েও প্রশ্ন তোলেন তিনি। বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার দৃষ্টি আকর্ষণ করে তিনি বলেন, আপনার আশপাশে সুবিধাভোগী যারা আছে তাদের চিহ্নিত করে দল থেকে বহিষ্কার করুন। অক্টোবরের সম্মেলনের মাধ্যমে যোগ্য ব্যক্তির হাতে নেতৃত্ব তুলে দিলে আগামী দিনে দল গতিশীল হবে।
জহিরুল ইসলামের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন টাঙ্গাইল জেলা বিএনপি নেতা আ খ ম রেজাউল করিম। তিনি বলেন, ১৯৭৫ সালের পর গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠায় জিয়াউর রহমানের বিকল্প ছিল না। তার জন্যই দেশে বহু দলীয় গণতন্ত্র আবার শুরু হয়েছিল। সেই গণতন্ত্র আবার হরণের চেষ্টা হচ্ছে। আসুন আমরা ঐক্যবদ্ধভাবে এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াই।

প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে কেক কাটছেন বিএনপির মালয়েশিয়া শাখার নেতারা 

মালয়েশিয়াপ্রবাসী বিএনপি ও এর অঙ্গসংগঠনের বিপুলসংখ্যক সমর্থকদের উপস্থিতিতে বেশ উৎসাহ-উদ্দীপনায় প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত হয়। এতে আরও বক্তব্য রাখেন কাজী সালাহউদ্দীন, জোসেবুল আলম, হাবিবুর রহমান, এস কে ফয়েজ, ইমন হাসান, রমজান আলী, মাসুদুল আলম কাজল, আবুল কাশেম, বাদল আহমেদ, টিপু সুলতান ও সোহেল রানা।
উল্লেখযোগ্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন আবুল কালাম, মাজু দেলোয়ার, কামাল উদ্দিন, নজরুল ইসলাম, শওকত সর্দার, ইসমাইল হোসেন, সালাহ উদ্দিন, জামাল উদ্দিন, মাসুদ রানা, সাইফুল ইসলাম ও শাহিন হাওলাদারসহ অনেকে।
অনুষ্ঠানে দলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে কেক কাটা হয়। এ ছাড়া প্রতিষ্ঠাতা প্রয়াত জিয়াউর রহমানের আত্মার মাগফিরাত এবং বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার সুস্বাস্থ্য কামনা ও দেশবাসীর মঙ্গল কামনা করে বিশেষ দোয়া ও মোনাজাত করা হয়। দোয়া ও মোনাজাত পরিচালনা করেন হাফেজ মো. মাসুদুর রহমান।


মালয়েশিয়ায় শহীদ মিনার নির্মাণের আহ্বান ড. কামালের

শনিবার, ০৫ সেপ্টেম্বর ২০১৫

মালয়েশিয়ায় শহীদ মিনার নির্মাণের আহ্বান ড. কামালের

বাপসনিঊজ: বায়ান্নার ভাষা আন্দোলনে শহীদদের স্মরণে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের মতো মালয়েশিয়ায়ও শহীদ মিনার স্থাপনের আহ্বান জানিয়েছেন বিশিষ্ট আইনজীবী ড. কামাল হোসেন।বৃহস্পতিবার (৩ সেপ্টেম্বর) কুয়ালালামপুরের রসনা বিলাস রেস্টুরেন্টে মালয়েশিয়ায় অবস্থানরত প্রবাসী বাংলাদেশিদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় তিনি এ  আহ্বান জানান। ড. কামাল বলেন, বিশ্বের যেখানেই বাংলাদেশিরা বসবাস করছেন তার প্রায় সব দেশেই শহীদ মিনার আছে। কিন্তু মালয়েশিয়ায় এখনও কেন হয়নি, তা বুঝতে পারছি না। তাই যতো দ্রুত সম্ভব মালয়েশিয়ায় শহীদ মিনার নির্মাণের উদ্যোগ নিতে আপনাদের প্রতি আহ্বান জানাই।

মালয়েশিয় প্রবাসীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, দেশকে কিছু দেওয়া মানে দেশকে ভালবাসা। তাই দেশের উন্নয়নে প্রবাসীদেরই এগিয়ে আসতে হবে। এক্ষেত্রে তরুণদের ভূমিকা অগ্রগণ্য।৬০ এর দশককে রাজনীতির স্বর্ণযুগ অবহিত করে এ সংবিধান প্রনেতা বলেন, বাংলাদেশে এখন সব কিছুতেই দলীয়করণ হচ্ছে। দলীয়করণ এখন আমাদের দেশের বড় সমস্যা। ডাক্তার আইনজীবীসহ সব পেশাতেই দলীয় পরিচিতি ব্যবহার করা হচ্ছে।  এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, প্রবাসীদেরকে ভোটাধিকারের আওতায় আনতে একটি রিট করা হয়েছিল এবং তার রায়ও আমাদের পক্ষে এসেছিল। কিন্তু কোনো অদৃশ্য ইশারায় তা আজও বাস্তবায়িত হচ্ছে না।

ভালবাসি বাংলাদেশ’র প্রধান সমন্বয়ক হারুন-অর-রশিদের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন- ড. আহমেদ বোরহান, ইঞ্জিনিয়ার বাদলুর রহমান বাদল, মোশাররফ হোসেন, তালহা মাহমুদ, রাশেদ বাদল, তাজকির আহমেদ, ইঞ্জিনিয়ার আমিরুল ইসলাম খোকন, পেয়ার আহমেদ আকাশ, মির্জা সালাউদ্দিনসহ মালয়েশিয়া বিভিন্ন ইউনিভার্সিটির শিক্ষার্থী, শিক্ষক, সাংবাদিকরা।


ইতালির ভারেজ প্রভিন্স আওয়ামীলীগের আয়োজনে বঙ্গবন্ধুর ৪০তম শাহাদাৎ বার্ষিকী পালিত

শনিবার, ০৫ সেপ্টেম্বর ২০১৫

Picture

বঙ্গবন্ধুর জীবননের বিভিন্ন দিক নিয়ে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন সাবেক সংসদ সদস্য তৌহিদ জং মুরাদ,এছাড়া বক্তব্য রাখেন বিশিষ্ট আওয়ামীলীগ নেতা এস,এম,কবিরুল আলম,সিরাজুল ইসলাম,নূর মোহাম্মদ মালেক,নুরুল ইসলাম হাদী খান,নাসির উদ্দিন খান,রেজাউল করিম,মিলান আওয়ামীলীগ নেত্রীবৃন্দ আব্দুল মান্নান মালিথা,মো হানিপ শিপন,আকরাম হোসেন,রয়েল তালুকদার,হাজি শাহালম,মুনসুর খালাসী,জাকির হোসেন মামুন,আব্দুল মান্নান,হান্নান হাওলাদার,জিয়া,হাসান,মিনজাল হাওলাদার,তৈয়েবালী বেপারী প্রমূখ।শেষে বঙ্গবন্ধুর বিদেহী আত্মার শান্তি ও প্রধান মন্ত্রীর দীর্ঘায়ু কামনায় করা হয় বিশেষ মোনাজাত এবং বিতরণ করা হয় শোক দিবসের নেওয়াজ।.সকল মতোনৈক্যের অবশান করে ভারেজ প্রভিন্স আওয়ামীলীগের এই কর্মসূচীতে মিলানো,ভারেজ,গালারাতে,মোনছা,লেক্কো সহ বিভিন্ন প্রভিন্স থেকে নেতা কর্মী ও শত শত প্রবাসীরা অংশনেয় এতে।


রিয়াদে বঙ্গবন্ধুর শাহাদাৎ বার্ষিকী উপলক্ষে শোকসভা

শনিবার, ০৫ সেপ্টেম্বর ২০১৫

বাপসনিঊজ:  সৌদি আরবের রিয়াদে বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমানের ৪০তম শাহাদাৎ বার্ষিকী উপলক্ষে শোকসভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। সোমবার (৩১ আগস্ট) রাতে রিয়াদ আওয়ামী লীগের উদ্যোগে নগরীর হারা হোটেলে দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। রিয়াদ মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি জাকির হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন, বাংলাদেশ দূতাবাসের রাষ্ট্রদূত গোলাম মসীহ।সভায় বক্তারা বলেন, আওয়ামী লীগ ঐক্যবদ্ধ হতে পারছে না এমন কিছু মানুষের জন্য, যারা আওয়ামী লীগের নাম ধারণ করে রাজনীতিকে ব্যবসা হিসেবে নিয়ে রেখেছে। এমন সামান্য কয়েকজন মুখোশধারী নেতাদের প্রতিহত করলেই আওয়ামী লীগের মধ্যে আর কোনো সমস্যা দেখা দেবেনা। 

alt

শোক সভায় বক্তব্য দেন, রিয়াদ মহানগর আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি গোলাম মহিউদ্দীন, সাধারণ সম্পাদক সেলিম ভুঁইয়া, সাংগঠনিক সম্পাদক মেহেদী হাসান মুরাদ, সৌদি আরব প্রবাসী সাংবাদিক ফোরামের সভাপতি আবুল বশির, চাটখিল কলেজের সাবেক ভিপি নিজাম উদ্দিন, রিয়াদ ইংলিশ স্কুলের পরিচালনা পর্ষদের সাবেক সদস্য ডাক্তার সারওয়ার হোসেন, ডাক্তার কামরুল ইসলাম, রিয়াদ মহানগর যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক শহীদুল ইসলাম, প্রবাসী লাকসাম মনোহরঞ্জ আওয়ামী লীগ সভাপতি মাসুদ পারভেজ, বি’বাড়িয়া আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কাইয়ুম প্রমুখ।


এম এ গনি ঘোষিত ডেনমার্ক আওয়ামী লীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি

বৃহস্পতিবার, ০৩ সেপ্টেম্বর ২০১৫

বাপসনিঊজ: ডেনমার্ক: সর্ব ইউরোপিয়ান আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক জনাব এম এ গনি ও সর্ব ইউরোপিয়ান আওয়ামী লীগের নেতাদের উপস্থিতিতে গত ২০ই জুন ২০১৫ তারিখে ডেনমার্ক আওয়ামী লীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত সম্মেলনে জনাব মোস্তাফা মজুমদার বাচ্চুকে সভাপতি ও জনাব মাহবুবুর রহমানকে সাধারণ সম্পাদক করে ৭১সদস্যের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষিত হয়। এরপর থকে সেই কমিটি ডেনমার্ক আওয়ামীলীগের সকল কার্যক্রম চালিয়ে আসছে।

উক্ত কমিটির সকল নেতা কর্মীদের অগোচরে সর্ব ইউরোপিয়ান আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক জনাব এম এ গনির নাম ব্যবহার করে, কোন সম্মেলনের ডাক না দিয়ে শুধু মাত্র সভাপতি ও সাধারন সম্পাদকের নাম পত্রিকায় প্রকাশ করে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ বা এর অঙ্গ সংগঠনের কোন কমিটি আজ পর্যন্ত হই নাই এবং ভবিষ্যতেও হবে না। তেমনি ডেনমার্ক আওয়ামী লীগেও সেটা সম্ভব নয়। ঘরে বসে নিজের মন মতো দুই জন দুইটা পদ ভাগ করে নিয়ে তা পত্রিকায় প্রকাশ করিলেই তাকে কোন কমিটি বলা যায় না।

বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ তথা ডেনমার্ক আওয়ামীলীগ যেমন তেমন সংগঠন নয়। শুধু মাত্র পত্রিকায় দুই জনের নাম প্রকাশ করিলেই কমিটি হয় না। ডেনমার্ক আওয়ামী লীগের কমিটি হইতে হইলে তা বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সংবিধান অনুসারে হইতে হবে। সংবিধান অনুসারে গত ২০শে জুন ২০১৫ তারিখে অনুষ্ঠিত ডেনমার্ক আওয়ামী লীগে সম্মেলনে সর্ব ইউরোপিয়ান আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক জনাব এ এ গনি নিজে উপস্থিত থেকে ডেনমার্ক আওয়ামীলীগের ৭১ সদস্যের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষনা করে গেছেন। যার ছবি ও ভিডিও আমাদের কাছে আছে।

গত ২০শে জুন ২০১৫ তারিখের সম্মেলনে ঘোষিত ডেনমার্ক আওয়ামী লীগের পূর্ণ কমিটি নি¤œরুপঃ

Picture

উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্য (৯টি)
১. বাবু সুভাষ ঘোষ (চেয়ারম্যান)
২. মাহবুবুল হক
৩. তাইফুর ভূইয়া
৪. সাহাবুদ্দীন ভুইয়া
৫. রিয়াজুল হাসনাত রুবেল
৬. জাহিদুল ইসলাম কামরূল
৭. রাফায়েত হোসেন মিঠ’
৮. সাইফুল আলম
৯. ইনসান ভ’ইয়া

১. সভাপতি (১টি)ঃ মোস্তফা মজুমদার বাচ্চু

২. সহ-সভাপতি (৯টি)
মোঃ নিজাম উদ্দিন
মিজানুর রহমান
নাসির উদ্দিন সরকার
মোহাম্মদ শহিদ
ইকবাল হোসেন মিঠু
নাসরু হক
জাহিদ চৌধুরী বাবু
আঃ নঃ মঃ খালেক
কাজী আনোয়ার
৩. সাধারণ সম্পাদক (১টি)ঃ মাহবুবুর রহমান
৪. যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক (৩টি)ঃ
বিদুৎ বড়ুয়া
নাঈম উদ্দিন
নুরুল ইসলাম টিটু

৫. সাংগঠনিক সম্পাদক (৫টি)ঃ
জাহাঙ্গীর আলম
সরদার সাঈদুর রহমান
আমীর হোসেন জীবন
শফিউল আলম সাফি
গোলাম কিবরিয়া শামীম
৬. আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদকঃ হিল্লোল বড়–য়া
৭. অভিবাসন বিষয়ক সম্পাদকঃ আরিফুল হক আরিফ
৮. কৃষি বিষয়ক সম্পাদকঃ সাজ্জাদ হোসেন
৯. তত্ত¦ ও গবেষনা বিষয়ক সম্পাদকঃ সম্্রাট
১০. ত্রাণ ও সমাজ কল্যান বিষয়ক সম্পাদকঃ ইউসুফ আহম্মেদ
১১. সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদকঃ কোহিনুর আক্তার মুকুল
১২. ধর্ম-বিষয়ক সম্পাদকঃ কচি মিয়া
১৩. প্রচার ও প্রকাশনা বিষয়ক সম্পাদক ঃ নীরু সুমন
১৪. বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদকঃ কামরুল ইসলাম
১৫. বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদকঃ রেজাউল হক রেজা
১৬. মহিলা বিষয়ক সম্পাদকঃ তানিয়া সুলতানা চাপা
১৭. মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক সম্পাদকঃ মোহাম্মাদ ইউসুুফ
১৮. যুব ও ক্রিয়া বিষয়ক সম্পাদক ঃ মোহাম্মদ সেলিম
১৯. শিক্ষা ও মানব বিষয়ক সম্পাদকঃ নাজিম উদ্দিন খান
২০. শিল্প ও বাণিজ্য বিষয়ক সম্পাদকঃ মোতালেব হোসেন
২১. শ্রম বিষয়ক সম্পাদকঃ গোলাম রাব্বি
২২. সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদকঃ লায়লা আক্তার সীমা
২৩. স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদকঃ সামছু উদ্দিন
২৪. দপ্তর সম্পাদকঃ দেবাসীষ দাস
২৫. প্রচার ও প্রকাশনা বিষয়ক সম্পাদকঃ নয়ন
২৬. কোষাধক্ষ বিষয়ক সম্পাদকঃ তুষার বড়–য়া
কার্যনির্বাহী সদস্য (৩১টি)ঃ
১. হুমায়ন কবির
২. কবির আহম্মেদ
৩. সুমন ভুমিক
৪. পরিতোষ শাহা
৫. সিফাত আল শহীদ
৬. তাসবির আহম্মেদ
৭. সালে আহম্মেদ
৮. সফিকুল ইসলাম
৯. সাইফ’ল মোহাম্মাদ
১০. নাজমুল ইসলাম
১১. সোহেল
১২. আজাদুর রহমান
১৩. স্ইাদুর রহমান
১৪. রশিদ মামুন
১৫. আব্দুর রাজ্জাক
১৬. পাভেল মোস্তাফিজ
১৭. অনিক ঘোষ
১৮. লিপি ঘোষ
১৯. ইরিন আহম্মেদ
২০. সুলতানা রাজিয়া
২১. সাকির
২২. রাজিয়া আক্তার
২৩. মাহবুল আলম
২৪. অনু মিয়া
২৫. সেলিনা হাসনাত
২৬. মখলেসুর রহমান
২৭. জেসমিন আক্তার
২৮. শামীমা আক্তার
২৯. সুলতানা আক্তার
৩০. জেনী হক
৩১. ওমর মারুফ


ডেনমার্ক আওয়ামী লীগের নতুন কার্যকরী কমিটিকে অভিনন্দন – ডেনমার্ক ছাত্রলীগ

বৃহস্পতিবার, ০৩ সেপ্টেম্বর ২০১৫

বাপসনিঊজ: ডেনমার্ক ছাত্রলীগের সভাপতি ইফতেখার সম্রাট ও সাধারণ সম্পাদক হুমায়ুন কবির নিরু এক বিবৃতিতে, ডেনমার্ক আওয়ামী লীগের নতুন কার্যকরী কমিটির সভাপতি মোহাম্মদ আলী মোল্লা লিঙ্কন ও সাধারণ সম্পাদক ড. বিদ্যুত বড়ুয়া কে অভিনন্দন জানিয়েছে। ডেনমার্ক আওয়ামী লীগের নতুন কমিটি ঘোষণা করায় সর্ব ইউরোপিয়ান আওয়ামী লীগ এর সভাপতি শ্রী অনিল দাশ গুপ্ত ও সাধারণ সম্পাদক এম,এ গনিকে ও ধন্যবাদ জানান। দীর্ঘদিন ধরে চলমান অচলবস্থার অবসান হয়েছে। ডেনমার্ক ছাত্রলীগের ও তাদের ভবিষত কর্মকান্ডে নতুন কমিটির সাথে ঐক্যবদ হয়ে কাজ করবেন।

Picture
বিবৃতিতে আরো সম্মতি জানান নাজমুল হাসান ,আরাফাত, মাহফুজুর রহমান নয়ন ,শামসুদ্দিন ইয়াকিন , সৈয়দ পাভেল , নাসির রানা ,কাজী হামিদ ,রাইসুল রায়হান , মোহাম্মদ শহীদ ,মিজানুর রহমান,জাহিদুর রহমান , সুমন বিশ্বাস , হাসান,অমিত বড়ুয়া , হাসান, কানাই পোদ্দার ও প্রত্যয় চৌধুরী।


৩৭তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন করেছে ফিনল্যান্ড বিএনপি

বৃহস্পতিবার, ০৩ সেপ্টেম্বর ২০১৫

জামান সরকার,বাপসনিঊজ:  হেলসিংকি থেকেঃ প্রতিবছরের মত এবারো বিএনপি’র ৩৭তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন করেছে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি) ফিনল্যান্ড শাখা। এতে ছিল দলীয় কার্যালয়ে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন এবং আলোচনা সভা।ফিনল্যান্ড বিএনপির সভাপতি জামান সরকারের সভাপতিত্বে ও সাধারন সম্পাদক মবিন মোহাম্মদের পরিচালনায় আলোচনা সভায় দলের নেতৃবৃন্দ বলেন- বাংলাদেশের স্বাধীনতার ঘোষক শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান সামাজিক ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে, অর্থনৈতিক সাম্য প্রতিষ্ঠার প্রত্যয়ে জনগণের ক্ষমতায়নে ভূমিকা পালন করার জন্য এ দিনে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি) প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। বর্তমানে ঘাত-প্রতিঘাত ও প্রতিকুলতা এবং রাজনৈতিক বৈরী পরিবেশে দেশে আজ গণতন্ত্র বিপন্ন।

09022015_15_FIN_BNP

বিএনপি সবসময় জনগণকে সঙ্গে নিয়ে স্বৈরশাসন-গণতন্ত্রবিরোধী অপশক্তির চ্যালেঞ্জকে দৃঢ়তার সঙ্গে মোকাবেলা করে গণতন্ত্রকে পুনরুদ্ধার করেছে। বর্তমান জাতীয়-রাজনৈতিক সংকটে এবারও বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে।এ সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন ফিনল্যান্ড বিএনপির সিনিয়র সহ সভাপতি মোকলেসুর রহমান চপল, সহ সভাপতি এজাজুল হক ভূঁইয়া রুবেল, বদরুম মনির ফেরদৌস, আওলাদ হোসেন, প্রদীপ কুমার সাহা, সিনিয়র যুগ্ম সম্পাদক মিজানুর রহমান মিঠু, সাংগঠনিক সম্পাদক গাজী সামসুল আলম, আবদুল্লাহ আল মাসুদ, আবুল কালাম আজাদ, নিজাম আহমেদ, তাজুল ইসলাম, আনোয়ার হোসেন, সাইফুর রহমান সাইফ, মোস্তাক সরকার, যুগ্ম সম্পাদক আলাউদ্দিন আহমেদ, আশরাফ উদ্দিন, মনিরুল ইসলাম, সোলেমান মোঃ জুয়েল, সাজ্জাদ মুন্না, নুরুল ইসলাম, সাগর, আরিফুজ্জামান বাবু, মামুন হোসেন, মুকুল হোসেন, সবুজ খান, রাসেল খান, মোঃ জুয়েল, ফাহমিদ-উস-সালেহীন, মোহাম্মদ হাসিব উদ্দিন, শাকিল নেওয়াজ, সাজিদ খান জনি ও এমরান হোসেন খান, নজরুল ইসলাম প্রমুখ।


রিয়াদ কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগের শোক দিবস পালন

বৃহস্পতিবার, ০৩ সেপ্টেম্বর ২০১৫

Picture

শহিদুল ইসলাম,রিয়াদ, সৌদি আরব: সোম বার রাতে রিয়াদের স্থানীয় একটি কমিউনিটি সেন্টারে রিয়াদ কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগের উদ্যোগে পালিত হলো জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর ৪০ তম শাহাদাৎ বার্ষিকী, রিয়াদ কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি জনাব জাকির হোসেন জাকির এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথী ছিলেন রিয়াদস্থ বাংলাদেশ দূতাবাসের মান্যবর রাষ্ট্রদূত জনাব গোলাম মসীহ।রিয়াদ মহানগর যুবলীগের সাধারন সম্পাদক শহিদুল ইসলাম ও রিয়াদ কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক জনাব মোহাম্মদ সেলিম ভূইয়ার যৌথ পরিচালনায় শোক সভায় বক্তব্য রাখেন, ড. রেজাউল করিম , ডাক্তার সারোয়ার , ডাক্তার কামরুল ইসলাম, গোলাম মহিউদ্দীন, মেহেদি হাসান মুরাদ, ভিপি নিজাম উদ্দিন, আব্দুল কাইউম, মাসুদ পারভেজ প্রমুখ ।শোক সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন রিয়াদের আওয়ামীলীগ, যুবলীগ, অংঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতা কর্মী বৃন্দ।


হাত বাড়িয়ে দিন কোরিয়া প্রবাসী অসহায় ইমরানকে

বুধবার, ০২ সেপ্টেম্বর ২০১৫

মাঈনুল ইসলাম নাসিম : কোরিয়ান ডাক্তারের ভুল চিকিৎসায় স্পাইনাল কর্ড ড্যামেজ হবার পাশাপাশি পা থেকে কোমর পর্যন্ত প্যারালাইজড হয়ে সিউলের হসপিটালে শুয়ে থেকে টানা ৩ বছর কাটাতে বাধ্য হলেন হতভাগ্য প্রবাসী বাংলাদেশী ইমরান হোসাইন(৩৬)। সুন্দর দিনগুলো তাঁর ডুবে গেছে তাই হতাশার অন্ধকারে। ‘কোরিয়া প্রবাসী ইমরানের সহায়তায় এগিয়ে আসুন’ শীর্ষক গত বছর আমার রাইটআপে যেমনটা আশংকা করেছিলাম, অক্ষরে অক্ষরে তাই হয়েছে কোরিয়ার নিম্ন আদালতে। বর্ণবাদী দেশ দক্ষিণ কোরিয়াতে বিদেশী নাগরিক ইমরান সুচিকিৎসার পাশাপাশি বঞ্চিত হয়েছেন ন্যায়বিচার থেকেও।
 
বাংলাদেশের কুমিল্লা শহরের প্রাণচঞ্চল মেধাবী যুবক ইমরান একসময় মার্চেন্ডাইজার হিসেবে কাজ করতেন গাজীপুরের একটি গার্মেন্টসে। বিদেশ যাবার ছোটবেলার স্বপ্নপূরণ করতে গিয়ে সম্মানজনক ঐ চাকরি ছেড়ে ২০১১ সালে পাড়ি জমান কোরিয়াতে। এক বছর না পেরুতেই ট্র্যাজেডির সূত্রপাত। এখন থেকে তিন বছর আগে ফ্যাক্টরির কর্মস্থলে ওজন উঠাতে গিয়ে পিঠে আঘাতপ্রাপ্ত হন ইমরান। সুপরিচিত সংমো হসপিটালে ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১২ রাতভর তিন তিনবার অপরারেশন হয় তাঁর। অপারেশন পরবর্তী ব্যথা কমা বা সুস্থ হওয়া দূরের কথা, সেই থেকেই পঙ্গুত্ব বরণ করেন হসপিটালের বেডে শয্যাশায়ী ইমরান।
 
অপারেশনের ৪ মাসের মাথায় অবশ্য তাঁকে সংমো হাসপাতাল থেকে স্থানান্তর করা হয় সিউলের অন্য আরেকটি হসপিটালে, যেখানে ডাক্তাররা পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে নিশ্চিত হন আগেকার হসপিটালের ভুল চিকিৎসার বিষয়টি। অফিসিয়াল রিপোর্টে জানানো হয় ইমরান ‘রং ট্রিটম্যান্ট’-এর শিকার। সংমো হসপিটালের ডাক্তারের বিরুদ্ধে মামলা করা হয় ভুল চিকিৎসার অভিযোগে। মামলার রায়ও হয়েছে সম্প্রতি নিম্নআদালতে, কিন্তু হেরে গেছেন ইমরান। রায় তাঁর অনুকুলে এলে সংশ্লিষ্ট ডাক্তারের সার্টিফিকেট বাতিল সহ বড় অংকের জরিমানা ও ক্ষতিপূরণ গুণতে হতো সংমো হসপিটাল কর্তৃপক্ষকে।

Picture
 
দুর্ভাগ্যের বিষয় হচ্ছে, গীর্জার অধীনে পরিচালিত সংমো হসপিটাল কর্তৃপক্ষ কোরিয়াতে অনেক প্রভাবশালী হওয়ার সুবাদে এবং ইমেজ ক্ষুন্নের আশংকা থেকে বিবাদী পক্ষ জোরেশোরে মাঠে নামে আদালতের রায় নিজেদের পক্ষে নিতে এবং তারা সফলও হয় মামলার দুর্বল বাদী ইমরানের বিপক্ষে। কোরিয়ান বেশকিছু মেইনস্ট্রিম মিডিয়াও ইমরানের পক্ষে কাভারেজ করতে এসে বিগত দিনে এক পা এগিয়ে দু’ পা পিছিয়েছে শুধুমাত্র ইমরান বিদেশী নাগরিক বলে এবং সংমো হসপিটাল কর্তৃক প্রভাবিত হয়ে। বিচারের বানী নীরবে নিভৃতে কাঁদার বিষয়টি গত বছরই পরিষ্কার হয়ে যায় কোরিয়ান মূলধারার মিডিয়ার এই নেক্কারজনক ভূমিকায়।
 
এটাতো গেলো আইন-আদালতের বিষয়, সরকারী হেল্থ ইনস্যুরেন্সের আওতায় না থাকার পরিণতিতে অর্থের অভাবে এখন ব্যহত হচ্ছে হতভাগ্য এই বাংলাদেশি যুবকের সুচিকিৎসা। এভাবে চলতে থাকলে ইমরানের পুরো শরীর প্যারালাইজড হয়ে যাবারও আশংকা প্রকাশ করেছেন বর্তমান হসপিটালের চিকিৎসকরা। এখন যেখানে আছেন ইমরান, বিভিন্ন থেরাপি সহ আনুষাঙ্গিক চিকিৎসায় প্রতি মাসে হসপিটাল বিল উঠছে ৫৯ লাখ কোরিয়ান ওন, ইউএস ডলারের হিসেবে যা ৫ হাজার ডলারের সমপরিমাণ। খাবার ও কেয়ারটেকার বাবদ সাড়ে ১০ লাখ ওন (৮৯০ ইউএস ডলার) আলাদাভাবে গুণতে হচ্ছে প্রতিমাসে।
 
হসপিটালের আসল বিল মাসে মাসে পরিশোধ না করার পরিণতিতে পাহাড়সম বকেয়ার পরিমাণ এখন প্রায় ১১ কোটি ওন তথা প্রায় ৯৩ হাজার ইউএস ডলারের ওপর। কোরিয়া আসার পর দুর্ঘটনার আগে ইমরান ১ বছরে যা আয় করেছিলেন তার সবটাই ব্যয় করেন নিজের চিকিৎসায়। বিভিন্ন সময়ে কোরিয়ান ব্যাংক সহ কিছু দাতব্য সংস্হা তাঁকে কিছু সাহায্য করে। আইবিকে ব্যাংক কর্তৃক পাওয়া ১ কোটি ওন (৮ হাজার ৪৫৬ ইউএস ডলার) আর্থিক সহায়তার পুরোটা দিয়ে পরিশোধ করা হয় আগেকার সেই কুখ্যাত সংমো হসপিটালের বকেয়া।
 
বাংলাদেশ কমিউনিটি ইন কোরিয়া বিসিকে’র সভাপতি এবি সিদ্দিক রানা এবং সাধারণ সম্পাদক এমএন ইসলাম তাঁদের সংগঠনের মাধ্যমে শুরু থেকেই পাশে দাড়ান ইমরানের। আনসান মসজিদ কর্তৃপক্ষের হয়ে ছোটন আহমেদ সহ কমিউনিটি নেতৃবৃন্দ এবং সাধারণ প্রবাসীরাও এগিয়ে আসেন। ফান্ড রেইজিংয়ে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেয় মাইগ্রেন্ট ওয়ার্কার্সদের সংগঠন ইপিএস বাংলা। কমিউনিটি নেতৃবৃন্দ কর্তৃক মনিটরিংকৃত ইমরানের একাউন্টে সর্বশেষ হিসেব অনুযায়ী এখন জমা আছে মাত্র সাড়ে ৪ মিলিয়ন ওনের কিছু বেশি যা ইউএস ডলারের হিসেবে ৪ হাজার ডলারের কিছু কম। নিম্ন আদালতের রায়ের বিরুদ্ধে আপীল বাবদ উকিলকে দিতে হচ্ছে ২ মিলিয়ন ওন তথা প্রায় ১৭শ’ ইউএস ডলার।
 
গত বছর রাষ্ট্রদূত এনামুল কবিরের দায়িত্ব পালনকালীন সময়ে ইমরান ইস্যুতে আশানুরূপ সাড়া দেয়নি সিউলের বাংলাদেশ দূতাবাস। আশার কথা, এ বছরের মাঝামাঝি রাষ্ট্রদূত জুলফিকার রহমান দায়িত্ব নেয়ার পরপরই হসপিটালে দেখতে যান শয্যাশায়ী ইমরানকে। দূতাবাসের তরফ থেকে আর্থিক সহায়তারও আশ্বাস দেয়া হয়েছে তাঁকে, বিশেষ করে নিম্ন আদালতের রায়ের বিরুদ্ধে আপীল করে মামলা চালিয়ে যাবার প্রয়োজনে। ডাক্তাররা বলছেন, প্রাইভেট ক্লিনিকে সর্বোচ্চ চিকিৎসা নিশ্চিত করা গেলে হয়তোবা একদিন ইমরানের পক্ষে সম্ভব হবে হুইল চেয়ারে বসার। কিন্তু এর জন্য প্রয়োজন বড় অংকের অর্থের।
 
বাংলাদেশে থাকতেই বাবা-মাকে হারানো এই অসহায় যুবকের আত্মীয়-স্বজন বলতেও তেমন কেউ নেই। তিন বোনের বিয়ে হয়েছে বাংলাদেশে, ছোট ভাই জন্ম থেকে শারীরিক প্রতিবন্ধি। দেশে ফিরে গেলে বোনদের সংসারে সমস্যা হতে পারে এমন আশংকায় তেমন কিছু চিন্তাই করতে পারেন না ইমরান। দেশে-বিদেশের বহুবিধ বাস্তবতায় কোরিয়াতে থেকেই জীবনযুদ্ধ চালিয়ে যাবার সংকল্প তাঁর। ডাক্তাররা যেমনটা আগেও বলেছেন এখনও বলছেন, একমাত্র মিরাকলই পারে তাঁকে এই করুণ পরিণতি থেকে মুক্তি দিতে। মহাপরাক্রমশালীর ওপর ভরসা রেখে সুস্থ হবার স্বপ্নে বিভোর আজ ইমরান।
 
সিউলের হাসপাতালে ইমরান হোসাইনের সাথে সরাসরি কথা বলতে চাইলে যে কেউ কোরিয়ার স্থানীয় সময় খেয়ালে রেখে দিনের যে কোন সময় ডায়াল করতে পারেন + 82 102 946 5047 এই নম্বরে। ইমরানের Bank Account : 1002-144-356723, Benficiary : HOSSAIN IMRAN, Bank Name : WORI BANK (SWIFT CODE: HVBKKRSEXXX) Gyeonggi Do, Korea. পৃথিবীর নানা প্রান্ত থেকে আগ্রহী যে কেউ বাংলাদেশ কমিউনিটি ইন কোরিয়া বিসিকে’র প্রেসিডেন্ট এবি সিদ্দিক রানা (+82 108 770 7746) এবং সেক্রেটারি এমএন ইসলামের (+82 109 629 1477) সাথেও যোগাযোগ করতে পারেন যে কোন তথ্যের প্রয়োজনে, সর্বোপরি ইমরানকে বাঁচাতে।


মন্ট্রিয়লে ভিএজি,বি আয়োজিত “বঙ্গবন্ধু, বাংলাদেশ ও আমাদের ইতিহাস” শীর্ষক আলোচনা সভা

বুধবার, ০২ সেপ্টেম্বর ২০১৫

বাপসনিঊজ: কানাডা ব্যুরো :বঙ্গবন্ধুর ৪০তম শাহাদত বার্ষিকী তথা জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষ্যে ভিএজি,বি আয়োজিত আলোচনা সভায় বক্তাগণ বলেন, বঙ্গবন্ধু, বাংলাদেশ ও আমাদের ইতিহাস এক অবিচ্ছেদ্য বন্ধনে আবদ্ধ। বঙ্গবন্ধুর জন্ম না হলে জাতি স্বাধীনতার আকাঙ্ক্ষায় উজ্জীবিত হতো না এবং আমাদের জাতীয় ইতিহাসও ভিন্ন পথে এগিয়ে যেতো। বঙ্গবন্ধু আমাদেরকে স্বাধীনতা ও জাতীয় পরিচয় দিয়েছেন। জাতি হিসেবে আমরা তার কাছে ঋণী। 

Picture

যারা স্বাধীনতার প্রশ্নে বঙ্গবন্ধুর ভূমিকাকে বিতর্কিত করার প্রয়াস চালান তারা জ্ঞানপাপী। ভিএজি,বি’র প্রচার ও প্রকাশনা সাব-কমিটির প্রধান আরিয়ান হক জানিয়েছেন গত ৩০ আগস্ট রোববার মন্ট্রিয়লের ৬৭৬৭ কোট দ্য নেইজ মিলনায়তনে “বঙ্গবন্ধু, বাংলাদেশ ও আমাদের ইতিহাস” শীর্ষক এই আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন ভিএজি,বি আহবায়ক শাহ মোস্তাইন বিল্লাহ। সভায় বিশেষ আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ডঃ সৈয়দ জাহিদ হাসান ও ডঃ শোয়েব সাঈদ। এছাড়াও, সভায় উপস্থিত ছিলেন ও আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন অধ্যাপক আবুল আলম, অধ্যাপক আনন্দ মোহন দাস, সাবেক এমপি এডভোকেট শহীদুল ইসলাম খান, ক্যুইবেক স্কুল কমিশনার খোকন মনিরুজ্জামান, সিবিএস সভাপতি জিয়াউল হক জিয়া, কানাডা আওয়ামী লীগ সহ-সভাপতি গোলাম মুহিবুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক ইয়াহিয়া আহমেদ, কুইবেক আওয়ামী লীগ সভাপতি সৈয়দ আনোয়ার হোসেন, গ্রন্থপ্রকাশক মোস্তফা শামীম ওয়াহিদ, শামশাদ আরা রানা, বাবু দিলীপ কর্মকার, খান মাশরেকুল আলম, এডভোকেট আলী আহম্মদ, এহসানুল হক কামাল, ডঃ মহিউদ্দিন তালুকদার, এডোয়ার্ড কর্নেলিয়াস গোমেজ, হামোম প্রমোদ সিনহা, অধ্যাপক মোহাম্মদ নাসির উদ্দিন, আরিয়ান হক, মোঃ শফিক উর রহমান, কাজী আশরাফুজ্জামান সাজু, আব্দুর রহিম, মোঃ সিদ্দিক, আনোয়ার হোসেন চোধুরী, মাসুম আনাম, আশরাফুল কবীর, মোঃ শাকিল, অরিজিৎ দাস, মিসবাহ উদ্দিন, তামকিন জাহান খান, মিলি আনোয়ার, সীমা রাণী দত্ত, নাহিদা আকতার, বিদ্যুৎ কুমার দাস প্রমুখ।

ভাবগম্ভীর পরিবেশে আয়োজিত এই আলোচনা সভার শুরুতে বঙ্গবন্ধুর স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে সকলেই দাঁড়িয়ে কিছুক্ষণ নীরবতা পালন করেন এবং আলোচনা শেষে শামশাদ আরা রানা বঙ্গবন্ধুর উদ্দেশ্যে রচিত কবি নির্মলেন্দু গুনের একটি কবিতা পাঠ করেন।