Slideshows

ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার

পরিচালনা পরিষদ 

সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি

ওসমান গনি
 

প্রধান সম্পাদক

হাকিকুল ইসলাম খোকন
 

সম্পাদক

সুহাস বড়ুয়া হাসু
 

সহযোগী সম্পাদক

আয়েশা আকতার রুবী

প্রবাসীদের খবর

মহান বিজয়য় দিবস উপলক্ষে ডেনমার্ক আওয়ামী লীগের আলোচনা সভা ২৪শে ডিসেম্বর

শনিবার, ১৯ ডিসেম্বর ২০১৫

বাপসনিঊজ:মহান বিজয়য় দিবস ২০১৫ উপলক্ষে ডেনমার্ক আওয়ামী লীগের উদ্যোগে আগামী ২৪শে ডিসেম্বর এক আলোচনা সভা, ছোটদের চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা,মুক্তি যোদ্ধের উপর প্রামাণ্য চিত্র ও সাংস্কৃতিক সন্ধ্যার আয়োজন করা হয়েছে। সাংস্কৃতিক সন্ধ্যায় গান ও নৃত্য পরিবেশন করবেন লন্ডন থেকে আগত শিল্পী রাদিয়া গুলজান এবং স্থানীয় শিল্পী ওমর ফারুখ সহ আরও অনেক এবং স্থানীয় শিল্পীবৃন্দ .

অনুষ্ঠান সূচিঃ
তারিখঃ ২৪শে ডিসেম্বর রোজ বৃহস্পতি বার .
স্থানঃ Holmbladsgade 47,2300 københaven S, Denmark.
সময়ঃ সন্ধ্যা ৫:০০ ঘটিকায়।
উক্ত অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের স্বাধীনতা বিশ্বাসী ও মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের সংগঠনের সকলকে উপস্থিত থাকার জন্য আহবান করা হচ্ছে। উক্ত অনুষ্ঠানের সকল প্রস্ততি এরই মধ্যে সম্পূর্ণ করা হয়েছে ।

Picture

অনুষ্ঠানের সার্বিক সহযোগিতায় থাকছেন ডেনমার্ক আওয়ামী লীগের সভাপতি এম মুস্তফা মজুমদার বাচ্চু , সাধারণ সম্পাদক মাহববুর রাহমান । ডেনমার্ক আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা বাবু সুভাষ ঘোষ, তাইফুর রহমান ভুঁইয়া, মাহবুবুল হক, শাহাব উদ্দিন ভুঁইয়া, রাফায়েত হোসেন মিঠু, হাসনাত রুবেল, কামরুল ইসলাম, জাহিদ, রুহুল আমিন কাজল, মল্লিক, সাইফুল আলম, ইনসান ভুঁইয়া, মাসুদ চৌধুরী। সহসভাপতি নিজাম উদ্দিন, এম আর , মজুমদার খোকন, মোহাম্মদ সহিদ, নাসরু হক, কাজী আনোয়ার, যগ্ন সম্পাদক নঈম বাবু , নুরুল ইসলাম টিটু,সফিউল এ সাফি,সাংগঠনিক সম্পাদক সরদার সাঈদুর রহমান, গোলাম কিবরিয়া শামীম, মোহাম্মদ সেলিম, ইবনে রাব্বি সহ শফিকুর রহমান, হুমায়ন কবির, কবির হোসেন, পরিতোষ সাহা, নাজমুল হোসেন, সাজ্জাদ হোসেন, সাইফুল আলম, তানিয় সুলতানা চাঁপা, সামছুল আলম , সামসুদ্দোহা একিন, দেবাশীষ দাস, তাসবির আহম্মেদ, অনু মিয়া, সালেহ আহম্মেদ, রশিদ মামুন, অমিত সরকার , দোলন, মুখলেছুর রহমান, সেলিনা হাসনাত, শামীমা আক্তার, জেনী হক, জেসমিন আক্তার, ফিরোজ আহম্মেদ, আরিফুল ইসলাম, আইশা আক্তার, জেনী আক্তার, সাহেরা জেসমিন, সুমন দাস, ফরাদ হোসেন, আইয়ুব আলী, ফিরোজ আহম্মেদ, আজাদুর রহমান, অন্তর, হাসান, পিনু, ইকবাল হোসেন, আলিমুজ্জামান মুন, নয়ন, শাহীন মজুমদার, জিল্লুর রহমান, সাহাব উদ্দিন, রাসেল, শামিমজ্জুমান ও রাজ্জাক ।
এছাড়াও ডেনমার্ক যুবলীগের আহ্বায়ক আমীর হোসেন জীবন, যগ্ন আহ্বায়ক ফজলে রাব্বি , ডেনমার্ক আওয়ামী নবীন লীগের সভাপতি নাজিম উদ্দিন খাঁন, সহসভাপতি সাইদুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক বদরুল আলম রনি, যুগ্ম সম্পাদক আরিফুল ইসলাম আরিফ, সাংগঠনিক সম্পাদক আজাদুর রহমান, দপ্তর সম্পাদক মোস্তাফিজ শোভন এবং তথ্য ও প্রযুক্তি সম্পাদক রুবেল আহম্মেদ, প্রচার সম্পাদক সাফকায়েতুল আলম অন্তর সহ আরো অনেকে।


আওয়ামীলীগ ও যুবলীগের উদ্দ্যোগে বিজয় দিবস পালিত

শনিবার, ১৯ ডিসেম্বর ২০১৫

আমিনুল হক ওয়েছঃ- ওল্ডহ্যাম আওয়ামীলীগ ও যুবলীগের যৌথ উদ্দ্যোগে পালন করা হয়েছে বাংলাদেশের মহান বিজয় দিবস। এ উপলক্ষ্যে গত ১৫ ডিসেম্বর দিবাগত রাতে বিজয় দিবসের উপড় এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। ওল্ডহ্যাম আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি হান্নান মিয়ার সভাপতিত্বে,ওল্ডহ্যাম আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক গীতিকার মোফাজ্জিল খান ও যুগ্ম সম্পাদক সাবেক ছাত্রনেতা, সাংবাদিক, কলামিষ্ট মোহাম্মদ আজিজুর রহমান দারার যৌথ সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সভার শুরুতে পবিত্র কোরান থেকে তেলাওয়াত করেন ওল্ডহ্যাম আওয়ামীলীগের ধর্ম সম্পাদক ক্বারী আব্দুল আহাদ। পরে মহান বিজয় দিবসের আলোচনা সভার শুরুতে সমবেত কন্ঠে জাতীয় সঙ্গীত পরিবেশন করা হয়। সভায় টেলি কনফারেন্সর মাধ্যমে বক্তব্য রাখেন যুক্তরাজ্য আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ সাজিদুর রহমান ফারুক। তিনি বিজয়ের প্রথম পহরে বিজয় দিবসের আলোচনা সভাকরার জন্য ওল্ডহ্যাম আওয়ামীলীগ ও যুবলীগকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করে আগামী পৌর নির্বাচনে যার যার অবস্থান থেকে নৌকা মার্কার পক্ষে কাজ করার আহ্ববান জানান। সাথে সাথে ওল্ডহ্যাম আওয়ামীলীগের কার্যক্রম চালিয়ে যেতে সাধারণ সম্পাদক মোফাজ্জিল খান এবং যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ আজিজুর রহমান দারাকে নির্দশনা দেন।

Picture

 

আলোচনা সভায় প্রধান অতিথী হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ম্যানচেষ্টার আওয়ামীলীগের সভাপতি আলহাজ্ব ছুরাবুর রহমান। প্রধান বক্তা ছিলেন ব্রাডফোড আওয়ামীলীগের সভাপতি শওকত আহমদ এমবি.ই। বিশেষ অতিথী হিসাবে উপস্থিত ছিলেন জি.এস.সি নর্থ ওয়েষ্ট গ্রেটার সিলেট এসোসিয়েশনের সভাপতি এম.সি কলেজের সাবেক ভিপি সৈয়দ মুজিবুর রহমান, উইরাল আওয়ামীলীগের সভাপতি আমিরুল ইসলাম মধু , চেষ্টার নর্থ ওয়েল্স আওয়ামীলীগের সভাপতি এটি.এম লোকমান আহমদ, বার্নলী আওয়ামীলীগের আহ্ববায়ক আলতাফ হোসেন জুয়েল প্রমূখ। স্বাগত বক্তব্য রাখেন ওল্ডহ্যাম আওয়ামীলীগের ত্রাণ ও পূর্নবান সম্পাদক মদরিছ আলী। বক্তব্য রাখেন ম্যানচেষ্টার আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি সৈয়দ মাহমুদুর রহমান, গউছ মিয়া, ম্যানচেষ্টার আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট মীর গোলাম মস্তফা, বার্নলী আওয়ামীলীগের সদস্য সচিব আনছার উদ্দিন আহমদ, যুগ্ম আহ্বায়ক হাজী মাহমুদ মিয়া, হাইড আওয়ামীলীগের আহ্বায়ক ছুরত মিয়া, জি.এস.সি লিভারপুল শাখার সভাপতি মোনিম খান, স্পেন বাংলাদেশ এসোসিয়েশনের সভাপতি সুরুজ্জামান মান্নান খাতুন, লিভারপুল মারছিসাইড আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি খাইরুল ইসলাম, ব্রেডফোড আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি সুনু মিয়া, বঙ্গবন্ধু পরিষদ ম্যানচেষ্টারের সভাপতি রুহুল আমিন চৌঃ মামুন, গ্রেটার ম্যানচেষ্টার বাংলাদেশ হউসের সহ-সভাপতিসাইকুল ইসলাম, গ্রেটার ম্যানচেষ্টার স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি আমিনুল হক ওয়েছ, রচডেল আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি দিলশাদ মিয়া, মুহিবুর রহমান, কোহিনূর মিয়া পাঠান, আবু বক্কর, আবুল হোসেন, লিভারপুল আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মুমিন খান, সাংগঠনিক সম্পাদক কামরান আহমদ,সৈয়দ মুস্তাকিম আলী ফরিদ মিয়া ,উইরাল আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মহী চৌধুরী প্রমুখ।


কোপেনহাগেনে অ্যাম্বাসিতে প্রথমবার বিজয় দিবস পালন

শুক্রবার, ১৮ ডিসেম্বর ২০১৫

শাকিল শাহরিয়ার, বাপসনিঊজ:কোপেনহেগেন থেকে: ডেনমার্কের রাজধানী কোপেনহাগেনে সদ্যখোলা বাংলাদেশ দূতাবাসে প্রথমবারের মতো বিজয় দিবস পালিত হয়েছে। দূতাবাসের প্রথম আবাসিক রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ আব্দুল মুহিত সকালে জাতীয় পতাকা উত্তোলনের মধ্য দিয়ে দিনব্যাপি কর্মসূচির সূচনা করেন।

বিকেলে দূতাবাস কর্তৃক দূতাবাস মিলনায়তনে বিজয় দিবস উপলক্ষ্যে বিশেষ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে ডেনমার্কস্থ প্রবাসী বাংলাদেশি রাজনীতিক ব্যক্তিত্ব, শিল্পী, ও বিভিন্ন শ্রেণী ও পেশার ব্যক্তিরা অংশ নেন। দিবসটি উপলক্ষ্যে রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, মাননীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর দেয়া বাণী পাঠ করে শোনানো হয়। অনুষ্ঠানে স্বাধীনতা যুদ্ধে আপামর বাঙ্গালির ওপর পাক হানাদার বাহিনী ও তাদের দোসর আল-বদর, আল-শামস এর নৃসংশতা ও ভয়াবহ নির্যাতনের উপর নির্মিত একটি প্রামাণ্যচিত্র প্রদর্শন করা হয়।

Picture

রাষ্ট্রদূত তার বক্তব্যে বলেন, ‘প্রবাসীদের অংশগ্রহণে বিজয় দিবস পালনের শুভ সূচনার মধ্য দিয়ে দূতাবাসের দীর্ঘ প্রতীক্ষার অবসান হলো। বিজয় দিবস বাঙ্গালি জাতির জীবনে সবচেয়ে গৌরবোজ্জ্বল অধ্যায়। এই দিনে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, স্বাধীনতা যুদ্ধের সকল বীর সেনানী, শহীদ ও সম্ভ্রমহারা মা-বোনদের প্রতি পরম শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করছি।’

তিনি বলেন, ‘আমি মনে করি, একটি জ্ঞান-নির্ভর ও ডিজিটাল মধ্যম আয়ের দেশ গঠনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার রূপকল্প-২০২১ বাস্তবায়নে মহান বিজয় দিবস জাতিকে অনুপ্রেরণা যোগাবে।’

জলবায়ু পরিবর্তনে বাংলাদেশকে চরম ঝুঁকিপূর্ণ দেশ হিসেবে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘পরিবেশ রক্ষায় শিল্পায়নে নবায়নযোগ্য জ্বালানী ব্যবহার ও পরিবেশ-বান্ধব প্রযুক্তি ব্যবহারে ডেনমার্কের লব্ধ অভিজ্ঞতা ও পারদর্শিতা থেকে বাংলাদেশ উপকৃত হতে পারে। জলবায়ু পরিবর্তনঘটিত সংকট মোকাবেলায় এর অভিযোজন ও প্রশমনে ডেনমার্কের সাথে সহযোগিতা বৃদ্ধিতে দূতাবাসের প্রচেষ্টা অব্যহত থাকবে।’

তিনি প্রবাসী বাংলাদেশিদের ডেনমার্কে নতুন দূতাবাসের কার্যক্রম সম্পর্কে অবহিত করেন এবং দূতাবাসের সফলতায় সবার সহাযোগিতা কামনা করেন।


কাতারে যথাযোগ্য মর্যাদায় বিজয় দিবস উদযাপিত

শুক্রবার, ১৮ ডিসেম্বর ২০১৫

Picture

সন্ধ্যায় বাংলাদেশ স্কুল প্রাঙ্গণে আয়োজন করা হয় পুরস্কার বিতরণী ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কাতারের বাংলাদেশ দূতাবাসের রাষ্ট্রদূত আসুদ আহমদ। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- রেবেকা সুলতানা, দূতাবাসের প্রথম সচিব (কাউন্সিলর-ফরেন) কাজী মোহাম্মদ জাবেদ ইকবাল, প্রথম সচিব (লেবার) ড.সিরাজুল ইসলাম, দ্বিতীয় সচিব মো. নাজমুল হক। আরো উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ স্কুলের প্রিন্সিপাল মো. জসিম উদ্দিন, ভাইস প্রিন্সিপাল মো. জুলফিকার আজাদ, সহকারি শিক্ষক মোহাম্মদ রাশেদ চৌধুরী।
altমহান বিজয় দিবস উপলক্ষে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের উপর রচনা ও চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতারও আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠান শেষে এক মনোজ্ঞ সংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এতে বাংলাদেশ স্কুল অ্যান্ড কলেজের বিভিন্ন শ্রেণির শিক্ষার্থীরা অংশ নেন। অনুষ্ঠানে বৃহত্তর ময়মনসিংহ সমিতি কাতারের পক্ষ থেকে ৪টি ল্যাপটপ স্কুল কর্তৃপক্ষের হাতে তুলে দেয়া হয়। এছাড়াও বাংলাদেশ স্কুল প্রাঙ্গণে আয়োজন করা হয় বিজয় মেলার।


ডেনমার্কে বাংলাদেশ দূতাবাসে ৪৫ তম বিজয় দিবস পালিত

শুক্রবার, ১৮ ডিসেম্বর ২০১৫

বাপসনিঊজ:ডেনমার্কের রাজধানী কোপেনহাগেনে নবপ্রতিষ্ঠিত বাংলাদেশ দূতাবাসে যথাযথ ভাবগাম্ভীর্য ও উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে ১৬ ডিসেম্বর ২০১৫ তারিখে ৪৫ তম বিজয়দিবস পালিত হয়েছে। ডেনমার্কে বাংলাদেশ দূতাবাসের প্রথম আবাসিক রাষ্ট্রদূত জনাব মোহাম্মদ আব্দুল মুহিত প্রতুষ্যে জাতীয় পতাকা উত্তোলনের মধ্য দিয়ে দিনব্যাপি কর্মসূচীর সুচনা করেন। বিকেলে দূতাবাস কর্তৃক দূতাবাস মিলনায়তনে বিজয় দিবস উপলক্ষ্যে বিশেষ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে ডেনমার্কস্থ প্রবাসী বাংলাদেশী রাজনীতিক ব্যাক্তিত্ব, শিল্পী, ও বিভিন্ন শ্রেণী ও পেশার ব্যাক্তিবর্গ অংশগ্রহণ করেন। দিবসটি উপলক্ষ্যে মহামান্য রাষ্ট্রপতি, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, মাননীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও মাননীয় পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী কর্তৃক প্রদত্ত বাণী পাঠ করে শোনানো হয়। অনুষ্ঠানে স্বাধীনতা যুদ্ধে আপামর বাঙ্গালীর উপর পাক হানাদার বাহিনী ও তাদের দোসর আল-বদর, আল-শামস এর নৃসংশতা ও ভয়াবহ নির্যাতনের উপর নির্মিত একটি প্রামান্য চিত্র প্রদর্শন করা হয়।

12162015_18_DENMARK_BD_EMBASSY

রাষ্ট্রদূত তাঁর বক্তব্যে বলেন, প্রবাসী বাংলাদেশীদের অংশগ্রহনে ১৬ ডিসেম্বর ২০১৫ তারিখে মহান বিজয় দিবস পালনের শুভ সুচনার মধ্য দিয়ে দূতাবাসের দীর্ঘ প্রতীক্ষার অবসান হলো। তিনি বিজয় দিবসকে বাঙ্গালী জাতির জীবনে সবচেয়ে গৌরবোজ্জ্বল অধ্যায় হিসেবে উল্লেখ করেন। তিনি বক্তব্যের শুরুতে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, স্বাধীনতা যুদ্ধের সকল বীর সেনানী, শহীদ ও সম্ভ্রমহারা মা-বোনদের প্রতি পরম শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করেন। তিনি মনে করেন একটি জ্ঞান-নির্ভর ও ডিজিটাল মধ্যম আয়ের দেশ গঠনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার রূপকল্প-২০২১ বাস্তবায়নে মহান বিজয় দিবস জাতিকে অনুপ্রেরণা যোগাবে। ৭১-এর পরাজিত শক্তির শত বাধার মুখে যুদ্ধাপরাধীদের বিচার সম্পন্ন করার ক্ষেত্রে সরকারের অবিচল অঙ্গিকারের কথা তিনি পুনর্ব্যাক্ত করেন। তিনি যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের পক্ষে এবং ১৯৭১ সালের গণহত্যা ও পাশবিকতা বিরূদ্ধে জনমত গড়ে তোলাে জন্য প্রবাসী বাংলাদেশীদের প্রতি আহ্বান করেন। তিনি প্রবাসী বাংলাদেশীদের ডেনমার্কে নতুন দূতাবাসের কার্যক্রম সম্পর্কে অবহিত করেন এবং দূতাবাসের সফলতায় সবার সহাযোগিতা কামনা করেন।

জলবায়ু পরিবর্তনে বাংলাদেশেকে চরম ঝুঁকিপূর্ণ দেশ হিসেবে উল্লেখ করে তিনি বলেন, পরিবেশ রক্ষায় শিল্পায়নে নবায়নযোগ্য জ্বালানী ব্যবহার ও পরিবেশ-বান্ধব প্রযুক্তি ব্যবহারে ডেনমার্কের লব্ধ অভিজ্ঞতা ও পারদর্শিতা থেকে বাংলাদেশ উপকৃত হতে পারে। জলবায়ু পরিবর্তনঘটিত সংকট মোকাবেলায় এর অভিযোজন ও প্রশমনে ডেনমার্কের সাথে সহযোগিতা বৃদ্ধিতে দূতাবাসের প্রচেষ্টা অব্যহত থাকবে বলে তিনি উপস্থিত প্রবাসী বাংলাদেশীদের আশ্বস্ত করেন। দূতাবাস কর্তৃক আয়োজিত চা-চক্রের মাধ্যমে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘোষণা করা হয়।


ডেনমার্কের পাকিস্থান দুতাবাস এর সামনে বিক্ষোভ সমাবেশ কর্মসূচি

শুক্রবার, ১৮ ডিসেম্বর ২০১৫

বাপসনিঊজ:ডেনমার্ক আওয়ামী লীগের সভাপতি মোহাম্মদ আলী মোল্লা লিংকন ও সাধারণ সম্পাদক ড. বিদ্যুত বড়ুয়া এক বিবৃতিতে জানান, আগামী ২১ শে ডিসেম্বর, সোমবার দুপুর দুইটায় ডেনমার্ক এর পাকিস্থান দুতাবাস এর সামনে ৭১ এর গণহত্যা অস্বিকার এর প্রতিবাদে এক বিক্ষোভ সমাবেশ এর আয়োজন করা হয়েছে। বিক্ষোভ সমাবেশ শেষে পাকিস্থান এর রাষ্ট্রদূত কে স্মারক লিপি প্রদান করা হবে।

12172015_16_PAKISTAN_STATEMENT 

ইতিমধ্যে বিক্ষোভ সমাবেশে ডেনিশ পুলিশ সহ সংশ্লিস্ট প্রশাসনের অনুমতি নেয়া হয়েছে। উক্ত বিক্ষোভ সমাবেশে মুক্তিযুদ্ধের পক্ষ শক্তির সকল নাগরিকদের উপস্থিত থাকার অনুরোধ করা যাচ্ছে। ঠিকানা- পাকিস্থান দুতাবাস সম্মুখ Valeursvej 17,2900 Hellerup


ডেনমার্কে বাংলাদেশ দুতাবাসে বিজয় দিবস উদযাপিত

বৃহস্পতিবার, ১৭ ডিসেম্বর ২০১৫

বাপসনিঊজ:ডেনমার্ক :ডেনমার্কের কোপেনহেগেন এ বাংলাদেশ দুতাবাস হাউসে যথাযোগ্য মর্যাদায় বিজয় দিবস উদযাপিত হয়।উল্লেখ ডেনমার্কে দুতাবাস প্রতিষ্ঠা হয় এবছর। বিকাল ৩ টায় জাতীয় সঙ্গীত এর মাধ্যমে অনুষ্ঠান শুরু হয়। এর পরে বাঙালি জাতির মহানায়ক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব ও স্বাধীনতা যুদ্ধে নিহত সকল শহীদদের আত্মার শান্তি কামনায় এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়। মহামান্য রাষ্ট্রপতির বাণী পরে শুনান মহামান্য রাষ্ট্রদূত জনাব এম. মুহিত। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ,পররাষ্ট্র মন্ত্রী , পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী এর বাণী পাঠ করেন দুতাবাস এর প্রথম সচিব জনাব শাকিল শাহরিয়ার।

12162015_14_DENMARK_AWAMI_LEAGUE

মহামান্য রাষ্ট্রদূত সৌজন্য ভাষণে মহান বিজয় দিবসের এই দিনে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমান সহ সকল মুক্তিযুদ্ধের আত্ম্ত্যাগের কথা স্মরণ করেন। তিনি বলেন , আজ বাংলাদেশ সৃষ্টি নাহলে আজ এমন দিনে আমরা সবাই বসে বাংলাদেশের কথা বলতে পারতাম না। প্রবাসের সকল বাঙালি এক এক জন দেশের প্রতিনিধি। আমাদের সকলের ঐক্যবদ্ধ ভাবে আমাদের দেশের কল্যানে আজ করতে হবে। ডেনমার্কের প্রবাসী বাঙালিদের মাঝে উপস্থিত ছিলেন ডেনমার্ক আওয়ামী লীগের সভাপতি জনাব মোহাম্মদ আলী মোল্লা লিংকন , সাধরণ সম্পাদক ড. বিদ্যুত বড়ুয়া , তাইফুর রহমান ভুইয়া , শাহবুদ্দিন ভুইয়া ,রুহুল আমিন কাজল , ইকবাল হোসেন মিঠু , আ ন ম আরিফ খালেক , জামাল আহমেদ , সাব্বির আহমেদ , সামি দাস ,মঞ্জুর আহমেদ লিমন , মোতালেব ভুইয়া , আমির হোসেন , রেজাউল করিম , ফাহমিদ আল মাহিদ,রেজাউল হক , রাশেদুল হাসান রুবেল, রবিন সায়ীদ , মাসুদ রানা , কবির হোসেন , শেখ কামাল সহ আরো অনেকে।


যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের বিজয় দিবস উদযাপন

বৃহস্পতিবার, ১৭ ডিসেম্বর ২০১৫

Picture
সভায় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের চেয়ারম্যান শামসুদ্দিন খান, যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ সাজিদুর রহমান ফারুক।সভার দ্বিতীয় পর্বে অনুষ্টিত হয় মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন যুক্তরাজ্য যুব মহিলা লীগের সাধারণ সম্পাদক সাজিয়া সুলতানা স্নিগ্ধা। বিলেতের স্বনামধন্য অনেক শিল্পীরা এতে গান পরিবেশন করেন।


রিয়াদ দূতাবাসে বিজয় দিবস উদযাপন

বৃহস্পতিবার, ১৭ ডিসেম্বর ২০১৫

Picture

বিজয় দিবসে রাষ্ট্রপতির বানী পাঠ করেন দূতাবাসের কাউন্সিলর খায়রুল আলম, প্রধানমন্ত্রীর বানী পাঠ করেন ইকোনমিক কাউন্সিলর ডঃ আবুল হাসান, পররাষ্ট্র মন্ত্রীর বানী পাঠ করেন লেবার কাউন্সিলর সরওয়ার আলম, পররাষ্ট্র প্রতি মন্ত্রীর বানী পাঠ করেন সোনালী ব্যাংক প্রতিনিধি আঃ ওহাব।
এক সংক্ষিপ্ত আলোচনায় রিয়াদ আওয়ামী লীগের সভাপতি সালাহউদ্দিন আহমেদ ফারুক বলেন, রিয়াদে জামাত-শিবিরের সরকার বিরোধী কার্যকলাপ প্রবাসীদের মধ্যে বিরুপ প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়েছে। প্রবাসী সাংবাদিকদের মধ্যে জামাতী কর্মকাণ্ড এখন ওপেন সিক্রেট হিসেবে প্রতিভাসিত হচ্ছে। তিনি দূতাবাসকে এ বিষয়ে সতর্ক থাকার আহ্বান জানান। তিনি সন্দেহ প্রকাশ করে বলেন, দূতাবাসের ভেতরে জামাত আছে কিনা তা খতিয়ে দেখা দরকার। কেননা ইতিপূর্বে দূতাবাস থেকে নানা অনুষ্ঠানের দাওয়াত নিয়ে যথেষ্ট সমালোচনা রয়েছে। এ সব সমালোচনায় জামাত-শিবিরের লোকদের প্রতি দূতাবাসের আগ্রহের বিষয়টি ফুটে উঠেছে। তিনি আরো বলেন, রিয়াদে এমনও বাংলাদেশি রয়েছেন যারা লক্ষ লক্ষ রিয়াল কামাই করে এসব টাকা বাংলাদেশে প্রেরণ না করে ইউরোপ-আমেরিকায় প্রেরণ করেন। বাংলাদেশ রেমিট্যান্স থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। আর এসব নাগরিকদের প্রাধান্য দেওয়া হচ্ছে দূতাবাসে।
রাষ্ট্রদূত গোলাম মসিহ বলেন, রিয়াদের সকল মিডিয়ার সাংবাদিকদের সঠিক তালিকাটি তার কাছে নেই। তিনি সাংবাদিকদের একটি তালিকা দূতাবাসে প্রণয়ন করার জন্য অনুরোধ করেন।

ইতিপূর্বে সৌদি আরবে অবস্থানরত ডাক্তার-ইঞ্জিনিয়ারদের সঠিক তালিকাটি দূতাবাসে না থাকার কারণে রাষ্ট্রদূত তাদের ব্যক্তিগত আমন্ত্রণ জানিয়ে তালিকা প্রস্তুত এবং বাংলাদেশ থেকে এই পেশায় অভিজ্ঞদের রিক্রুইট করার জন্য নানা রকমে টেকনিক্যাল বিষয়গুলি আহরণ করার জন্যই তাদের বিভিন্ন সময়ে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে বলে তিনি জানান।

সৌদি আরবে বাংলাদেশ দূতাবাসের শীর্ষস্থানীয় কর্মকর্তার দুর্নীতির প্রসঙ্গ টেনে রাষ্ট্রদূত বলেন, পূর্বে এদূতাবাসে অনেক দুর্নীতি হয়েছে যা এখন আমরা খতিয়ে দেখছি। সময় মত এসব খতিয়ান বাস্তবায়ন হবে বলে আমরা বিশ্বাস করি।তিনি এসব দুর্নীতির পেছনে রিয়াদের প্রভাবশালী ব্যক্তিদের সংশ্লিষ্টতার কথা ইঙ্গিত দেন।

তিনি আরো বলেন, বর্তমান সরকারের উন্নয়নের ধারাবাহিকতাকে সৌদি আরবে সমুন্নত রাখার প্রচেষ্টায় আমরা কাজ করছি। ইতিমধ্যে বৃহৎ আকারে ডেলিগেশন বাংলাদেশে যাওয়া সম্ভব হয়েছে আমাদের অক্লান্ত চেষ্টায়। খুব শিগরির পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সৌদি আরব সফর করার নিশ্চিত রয়েছে। এর পর পরই বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর সরকারী সফর ত্বরান্বিত হবে বলে আমরা আশা করছি।তিনি রিয়াদে আওয়ামী পরিবারভুক্ত সকল সংগঠনগুলোকে ঐক্যবদ্ধ থাকার আহ্বান জানান।


বিজয় দিবসের অঙ্গীকার ---- যুদ্ধাপরাধী ও তাদের দোসর মুক্ত বাংলাদেশ গড়তে হবে - ডেনমার্ক আওয়ামী লীগ

বৃহস্পতিবার, ১৭ ডিসেম্বর ২০১৫

বাপসনিঊজ:১৬ ডিসেম্বর মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে ডেনমার্ক আওয়ামী লীগের সভাপতি মোহাম্মদ আলী মোল্লা লিংকন ও সাধারণ সম্পাদক ড. বিদ্যুত বড়ুয়া এক বিবৃতিতে সবাইকে বিজয় দিবসের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। বিজয়ের ৪৪ বছর পর আজ বাংলাদেশ অনেক শীর্ষ যুদ্ধাপরাধী মুক্ত বাতাসে বিজয় দিবস উদযাপিত হতে যাচ্ছে। বাংলাদেশের স্বাধীনতা বিরোধীদের সমূলে উত্পাটন করার অঙ্গীকার করতে হবে। বাংলাদেশের প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশকে যুদ্ধাপরাধী মুক্ত করতে যে অঙ্গীকার ব্যক্ত করেছিলেন নির্বাচনী মেনিফেস্টো তে তা অক্ষরে অক্ষরে পালন করছেন। বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধের বিরোধিতাকারী বিএনপি মন্ত্রী বানিয়ে পুরস্কৃত করেছিল সেইদিন বাংলাদেশের সকল জনগনকে অপমান করেছিল। আজ বঙ্গকন্যা শেখ হাসিনা যুদ্ধাপরাধীর বিচার সম্পন্ন করে বাংলাদেশের বিজয় দিবসকে মহিমান্নিত করেছেন। আজকের মত আগামী দিনে সবাইকে জন নেত্রী শেখ হাসিনার পাশে থেকে বাংলাদেশের উন্নয়নের ধারাকে অব্যাহত রাখতে হবে।

12152015_19_DENMARK_AL

বিবৃতিতে সম্মতি জানান ,সহসভাপতি আ ন ম আরিফ খালেক ,জনাব ইকবাল মিঠু ,জামাল আহমেদ ,সুমি দাশ , যুগ্ম-সম্পাদক জনাব সাব্বির আহমেদ মুন্সী , সামি দাশ ,জাহাঙ্গীর আলম , সাংগঠনিক সম্পাদক মানজুর আহমেদ লিমন , জনাব মোতালেব ভুইয়া , বোরহান উদ্দিন , মোহাম্মদ ইউসুফ হিল্লোল বড়ুয়া , আমির হোসেন ,আবু সাইদ রবিন , রেজাউল হক ,কাউসার আহমেদ সুমন ,রেজাউল করিম , বেলাল হোসেন রুমি ,তায়মুল শোয়েব ,হুমায়ুন কবির রানা, শাহ আলম ,সেতু আহমেদ ,কবির আহমেদ , শাহজালাল পিন্টু ,খাদিজা খাতুন মিনি ,কোহিনুর আখতার মুকুল ,ডা. অমিত কুমার রায়, শামসুল আলম চৌধুরী , সাফিউল সাফী , আব্দুল্লাহ আল জাহিদ ,আবু আশরাফ মোহাম্মদ সাইফুল্লাহ ,নিহারুল ইসলাম রুম্মান , মোহাম্মদ রাব্বী ,কচি মিয়া ,রাশেদুল হাসান রুবেল ,সুমন দাশ ,বদিউজাম্মান শান্ত ,মাহফুজুর রহমান নয়ন এ কিউ এম হ্যাপী ,সবুজ মল্লিক , অধ্যাপক টুটুল ,জামাল আহমেদ সোহাগ ,শাহীন মিয়া , মোকলেসুর রহমান , পরাগ পারিয়াল ,দীপঙ্কর পাল ,সুজন সাহা , দেবাশিস বড়ুয়া মোহাম্মদ নাজমুল ,মোহাম্মদ আরাফাত ,শামসুদ্দিন ইয়াকিন ,সৈয়দ পাভেল ,নাসির রানা ,প্রত্যয় সাহা , কাজী হামিদ , রাইসুল রাহান ,মোহাম্মদ শহীদ ,মিজানুর রহমান , সুমন বিশ্বাস ,কানাই পোদ্দার ,মাইনুল হাসান ,হুমায়রা আখতার জাসিয়া , লিন্ডা হাসান, জাহেদুর রহমান ,অমিত বড়ুয়া , মাকসুদুল হাসান সহ আরো অনেকে। যুবলীগ ডেনমার্ক ভারপ্রাপ্ত সভাপতি জামিল আখতার কামরুল ও সাধারণ সম্পাদক আমির জীবন এবং ডেনমার্ক ছাত্রলীগ সভাপতি ইফতেখার সম্রাট ও সাধারণ সম্পাদক হুমায়ুন কবির নিরু।


টরেন্টোতে বিজয়ের পুনর্মিলনী অনুষ্ঠিত

মঙ্গলবার, ১৫ ডিসেম্বর ২০১৫

বাপসনিঊজ:মহান বিজয় দিবস উপলক্ষ্যে সম্প্রতি টরেন্টোতে মুক্তিযোদ্ধা সংহতি পরিষদ কানাডার উদ্যোগে “বিজয়ের পুনর্মিলনী” শীর্ষক এক আলোচনাসভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এডভোকেট নাজমা কায়সারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ ও কলামিস্ট ড. মোজাম্মেল খান। বিশেষ অতিথি ছিলেন শিক্ষাবিদ ড. আবদুল আওয়াল।

torontopic141215


অনুষ্ঠানের শুরুতেই টরন্টো’র খ্যাতিমান শিল্পীরা সমবেত কন্ঠে জাতীয় সঙ্গীত ও দেশাত্মবোধক গান পরিবেশন করেন। তারপর আবুল বাশারের সঞ্চালনায় শুরু হয় বিজয় দিবসের আলোচনা অনুষ্ঠান। ’৭১ এর বিজয়ের বীরগাঁথা নিয়ে বক্তব্য রাখেন বীর মুক্তিযোদ্ধা সাইফুল আলম চৌধুরী, বীর মুক্তিযোদ্ধা আজিজুল মালিক, বীর মুক্তিযোদ্ধা নাজমুল হক মনা, সাবেক ছাত্রনেতা ফায়জুল করিম, কানাডা আওয়ামীলীগ নেতা আজিজুর রহমান প্রিন্স, সাপ্তাহিক আজকাল পত্রিকার সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি সৈয়দ আবদুল গফফার ও মিজানুর রহমান।
আলোচনা অনুষ্ঠান শেষে টরন্টো’র স্থানীয় শিল্পীরা মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান সঙ্গীত পরিবেশন করেন। গানে গানে মাতিয়ে রাখেন শিল্পী ফারহানা শান্তা, মুক্তি প্রসাদ, সুমি বর্মন, সঙ্গীতা মুখার্জী, সুনীতি সর্দার, নবিউল হক বাবলু, জুঁই প্রমুখ।
স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্র থেকে প্রচারিত এম আর আখতার মুকুল পরিবেশিত সাড়া জাগানো চরম পত্র পাঠ করে শোনান টরন্টো’র বিশিষ্ট সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব ও নাট্যকর্মী আহমেদ হোসেন। আবৃত্তিতে ছিলেন লেখক তাসরীনা শিখা, কবি মৌ মধুবন্তী, রিনি সাখাওয়াত ও আফিয়া বেগম  এবং নৃত্য পরিবেশন করে রিধী রহমান। অনুষ্ঠানটির শব্দ নিয়ন্ত্রনে ছিলেন শরিফ চৌধুরী, শিল্পীদের গানের সঙ্গে তবলায় সহযোগিতা করেন তানভীর এবং সার্বিক তত্ত্ববধানে ছিলেন শায়লা রহমান। প্রতিবেদনঃ সাংবাদিক সাদেরা সুজন, ছবিঃ মুনির বাবু, কানাডা-বাংলাদেশ নিউজ এজেন্সি, টরেন্টো।