Slideshows

ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার

পরিচালনা পরিষদ 

সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি

ওসমান গনি
 

প্রধান সম্পাদক

হাকিকুল ইসলাম খোকন
 

সম্পাদক

সুহাস বড়ুয়া হাসু
 

সহযোগী সম্পাদক

আয়েশা আকতার রুবী

প্রবাসীদের খবর

সমাজকল্যাণ মন্ত্রী সৈয়দ মহসিন আলীর মৃত্যুতে টরন্টতে শোক সভা অনুষ্ঠিত

মঙ্গলবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৫

বাপসনিঊজ:টরন্টো ২০ সেপ্টেম্বর, সদ্য প্রয়াত গণ প্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের সমাজকল্যান মন্ত্রী সৈয়দ মহসিন আলীর স্মরণে শোকসভা অনুষ্ঠিত হয়। কানাডা ও অন্টারিও আওয়ামী লীগের যৌথ উদ্যোগে অনুষ্ঠিত এই শোকসভায় সভাপতিত্ব করেন কানাডা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি সৈয়দ আব্দুল গাফফার। সভার শুরুতেই দলের সাধারন সম্পাদক আজিজুর রহমান প্রিন্স মরহুমের সংক্ষিপ্ত জীবন বৃত্তান্ত পড়ে শোনান এবং এক মিনিট দাঁড়িয়ে নীরবতা পালন করেন। বিশিষ্ট মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ তুতিউর রহমান পবিত্র কোরআন তালাওয়াতের মাধ্যমে মরহুমের বিদেহী আত্মার জন্য দোয়া প্রার্থনা করেন। উপস্থিত সুধি মন্ডলিরা সৈয়দ মহসিন আলীর জীবনের উপর আলোকপাত করেন। অন্টারিও আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি শ্রী সুকমল রায় স্মৃতিচারণ করতে গিয়ে বলেন,  মহসিন আলী ছিলেন সাধারন মানুষের নেতা। লোভ লালসার বাইরে থেকে তিনি নিরলস কাজ করে গেছেন মানুষের জন্য। সাবেক ছাত্রনেতা রজত পাল বলেন নেতা আছে আরো আসবে ভবিষ্যতে কিন্তু, আরেকজন মহসিন আলী আসবেননা। অন্টারিও আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক সুদিপ সোম বলেন, মন্ত্রী থেকেও মহসিন আলী এক কোটি টাকা ঋণ রেখে গেছেন।

Picture

কানাডা আওয়ামীলীগের সংগঠনিক সম্পাদক মরশেদ আহাম্মেদ মুক্তা বলেন, গ্রুপ রাজনীতি করতে গিয়ে মহসিন আলীর গ্রুপেই ছিলাম কিন্তু, তিনি এই বিভাজন পছন্দ করতেন না। আরেক সাংগঠনিক সম্পাদক ইমরুল ইসলাম বলেন, মহসিন আলী আমার নেতা, তার হাত ধরেই আর তার প্রেরণাতেই রাজনীতিতে আমার হাতেখড়ি। শ্রী সুশীতল সিংহ চৌধুরী বলেন, মহসিন আলী ছিলেন আপাদমস্তক জন নেতা এবং অসম্প্রাদিক চেতনায় বিশ্বাসী। তিনি মানুষকে মানুষ হিসাবে বিবেচনা করতেন, তার ধর্মীয় পরিচয়ে না। প্রকৌশলী আনোয়ার কামাল বলেন, আমি সিলেটের লোক না, মহসিন আলীকেও চিনতাম না। যতটুকু জেনেছি, পত্র পত্রিকার মাধ্যমেই জেনেছি। জেনেছি আর অবাক হয়েছি তার বিশালতা জেনে। যারা তাকে কট্টর সমালোচনা করেছেন, তারাই এখন তাদের বক্তব্য প্রত্যাহার করে নিয়েছেন। কানাডা আওয়ামী লীগের যুগ্ন সম্পাদক মুজাহিদুল ইসলাম বলেন, আমি সিলেট সদরের লোক হলেও আমার শশুর বাড়ী মৌলভীবাজারে। একবার এই নেতাকে জিজ্ঞেস করেছিলাম, আপনি এত সরাসরি কথা বলেন এটা লোকেরা ভালভাবে নেয়না। উত্তরে মহসিন ভাই বলেছিলেন, ‘সত্য কথা অনেকেই পছন্দ করেনা। আমি সত্য বলি এবং বলবোই। মনের ভেতরে আমি কিছু লুকিয়ে রাখিনা।’ অন্টারিও আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি শ্রী রাধিকা রঞ্জন চৌধুরী স্মৃতিচারন করে বলেন, মহসিন আলি মৌলভীবাজারের রাজনীতিকে সংগঠিত করেছেন এবং নেতৃত্ব দিয়েছেন। আমরা তার কর্মী হিসাবে তাঁর কাছ থেকে যে উৎসাহ পেয়েছি তা বাকী জীবনের পাথেয় হয়ে থাকবে। কানাডা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক আজিজুর রহমান প্রিন্স তার সামাপনী বক্তৃতায় বলেন, মহসিন আলীর সঙ্গে পরিচয়ের পর বুঝেছি তিনি এক বিশাল হৃদয়ের মানুষ। তার দেখা মহসিন আলীর কিছু দুর্লভ বিষয় উল্লেখ করে আবেগাপ্লুত কণ্ঠে বলেন, দেশ একজন মুক্তিযোদ্ধা, একজন জননেতা আর একজন ভাল মানুষকে হারিয়েছে, আমি একজন সতীর্থকে হারালাম। সভাপতির বক্তৃতায় সৈয়দ আব্দুল গাফফার বলেন, শুধু মৌলভীবাজারবাসি হিসাবেই নয় আত্মিক সম্পর্কও ছিল মরহুম মহসিন আলীর সাথে আমার। মন্ত্রিত্ব গ্রহনের পরদিনই দেখা হয়েছিল তার সংবর্ধনা সভায়। কথা ছিল ডিসেম্বরে আবার দেখা হবে, আমার সেই প্রত্যাশা পুরন হলনা। গাফফার বলেন, তার অনেকগুলি বিষয় ছিল চোখে পরার মত এবং তিনি ছিলেন একজন সৎ মানুষ। সকলের কাছ থেকে মরহুম মহসিন আলীর জীবনের নানা দিক উঠে আসে বক্তব্যে।


যুক্তরাজ্য আ.লীগ যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক রিপনকে ওসমানী বিমাবন্দরে সংবর্ধনা

মঙ্গলবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৫

Picture

বাপসনিঊজ:যুক্তরাজ্য সিটি আওয়ামী লীগ এর যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক ম্মোয়াজেম হোসেন চৌধুরী রিপনকে সিলেট ওসমানী বিমানবন্দরে সংবর্ধনা দেয়া হয়েছে। সোমবার দুপুরে সিলেট আওয়ামীলীগ,যুবলীগ ও ছাত্রলীগ এর পক্ষ থেকে তাকে এই সংবর্ধনা প্রদান করা হয়। এসময় উপস্থিত ছিলেন সিলেট জেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শফিউল আলম চৌধুরী নাদেল, মহানগর যবলীগ নেতা মো: জাকির হোসেন, শাবি-ছাত্রলীগ নেতা মোস্তাকীন আহমদ মোস্তাক,মারুপ আহমদ, সদর উপজেলা প্রজ¥লীগের সভাপতি আব্দুল কাদির, মহানগর ছাত্রলীগের নেতা রানা আহমদ শিবলু,সায়েম আহমদ, সুমন আহমদ, কুলাউড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি খাইরুল ইসলাম কামাল, সাধারণ সম্পাদক ইনুছ মিয়া,৮নং রাতগাও ইউপি মেম্বার লকুছ মিয়া। অন্যান্যর মাঝে উপস্থিত ছিলেন মো: নাজমুল ইসলাম, হেলাল আহমদ,আব্দুল হেকিম, তানিম চৌধুরী, মো: সুরুজ আলী, আব্দুল খালিক, মো: ইনুছ আলী, শিপন খান প্রমুখ।


ডেনমার্ক নবীন লীগের সভাপতি বাচ্চু ও সম্পাদক মাহবুব নির্বাচিত

মঙ্গলবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৫

Picture

বাপসনিঊজ:নবীনলীগ ডেনমার্ক শাখার সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন এম মোস্তফা মজুমদার বাচ্চু ও সাধারন সম্পাদক মাহবুবুর রহমান এ উপলক্ষে নবীনলীগের সকল সদস্যদের নিয়ে গতকাল এক চা চক্রের আয়োজন করা হয় । এতে ডেনমার্কের নবীন প্রবীণ অনেকেই উপস্থিত ছিলেন। এ উপলক্ষে ডেনমার্কে সকল দল মত উর্ধে রেখে সকলের মাঝে আনন্দের বন্যা বয়ে যায়। উপস্থিত সকল সদস্যরা প্রতিজ্ঞা করেন, আগামীতে এই তারুন্যের ধারা সারা বিশ্বে ছড়িয়ে দেয়ার।
কোন সুযোগ সুবিধা নয়, ঐক্যবদ্ধ হয়ে এগিয়ে জয়ায়ার ঘোষণা দিয়ে এক বক্তা বলেন, নবীণ লীগ শুধু নবীনদের নয় এখানে আমরা সবায় ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করবো। তিনি উদাহরন দিয়ে বলেন, শিশু পার্কে কি শুধু শিশুরাই যায় নাকী ।
সকলের মাঝে আরো উপস্থিত ছিলেন,তারন্যের অহংকার বাবু সুভাস ঘোষ,তাইফুর রমান, বদরুল আমিন রনি ,ইন সান ভুইয়া ,বাবু মালিক, আরিফুল ইসলাম, আজাদুর রহমান,রবেল আহম্মেদ, শোভন, রিয়াজুল হাসনাত, নাজিমদুদ্দিন, সিয়েদুর রহমান,নাস্রু হক, নিজামুদ্দিন, সাইফুল ইসলাম, সেলিম, জাহাঙ্গীর হোসেন,কামরুল ইসলাম,সরিফুল ইসলাম, মসিউর রহমানসহ আরো অনেকে।
উপস্থিত সকলে নবীনলীগ ডেনমার্ক শাখার নব নির্বাচিত সভাপতি এম মোস্তফা মজুমদার বাচ্চু ও সাধারন সম্পাদক মাহবুবুর রহমানকে প্রানঢালা অভিনন্দন জানান।


আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম লন্ডনে

সোমবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৫

ব্রাজিলের স্কুলে বাংলাদেশী মাধুরীর অভাবনীয় কৃতিত্ব

রবিবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৫

মাঈনুল ইসলাম নাসিম : বিশ্বব্যাপী নারীর ক্ষমতায়ণের এই যুগে বাংলাদেশের অনুকুলে আরো একটি সাফল্যের অধ্যায় রচিত হলো ল্যাটিন আমেরিকার প্রাণকেন্দ্র ব্রাজিলে। রাজধানীর স্বনামধন্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ‘ব্রাসিলিয়া ইন্টারন্যাশনাল স্কুল’ বিআইএস-এর স্টুডেন্টস ইউনিয়নের প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হয়েছেন বাংলাদেশী মেধাবী ছাত্রী মাধুরী কায়েস। গোটা ল্যাটিন আমেরিকার কোন স্কুলে এই প্রথম কোন বাংলাদেশী বিশেষ এই গুরুত্ববহ সাফল্য অর্জন করলেন।

Picture

১৭ সেপ্টেম্বর বৃহষ্পতিবার ব্রাসিলিয়াতে অনুষ্ঠিত বিআইএস কাউন্সিলের তীব্র প্রতিদ্বন্দিতাপূর্ণ নির্বাচনে ব্রাজিলীয় ছাত্রী এদুয়ার্দাকে মাত্র ১৪ ভোটের ব্যবধানে হারিয়ে গৌরবের আসনে অধিষ্ঠিত হন মাধুরী। এসোসিয়েশন অব আমেরিকান স্কুলস অব ব্রাজিলের মেম্বার-স্কুল হিসেবে ব্রাসিলিয়া ইন্টারন্যাশনাল স্কুলটি পরিচালিত হয়ে আসছে বিশ্বখ্যাত ইন্টারন্যাশনাল ক্রিশ্চিয়ান্স স্কুলস নেটওয়ার্কের আওতায়। বিশ্বের ২৯টি দেশের ছাত্র-ছাত্রীরা পড়াশোনা করছে এখানে।ব্রাজিলের রাজধানীর অত্যন্ত প্রেস্টিজিয়াস এই স্কুলের স্টুডেন্টস কাউন্সিলের নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট মাধুরী কায়েস ব্রাসিলিয়াস্থ বাংলাদেশ দূতাবাসে দায়িত্বরত রাষ্ট্রদূত মিজারুল কায়েস ও নাঈমা কায়েসের কনিষ্টা কন্যা। লন্ডন থেকে বাবার বদলীর সুবাদে গত বছর ব্রাসিলিয়াতে আগমন মাধুরীর। বিআইএস-এর ১২ গ্রেডের ছাত্রী মেধাবী এই বাংলাদেশী তাঁর অভাবনীয় সাফল্যে দারুন উচ্ছসিত। সন্তানের উজ্জল ভবিষ্যতের জন্য মাধুরীর বাবা-মা দেশ-বিদেশের সবার দোয়া চেয়েছেন।


স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজামানের সঙ্গে অষ্ট্রিয়া আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দের মতবিনিময়

রবিবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৫

বাপসনিঊজ:ভিয়েনা: গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজামান খাঁন কামাল এমপির সঙ্গে ১৬ সেপ্টেম্বর রাতে ভিয়েনার প্যান এসিয়া হোটেলে অষ্ট্রিয়া আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দের মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।এই অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন, সংগঠনের সভাপতি খন্দকার হাফিজুর রহমান নাসিম ও পরিচালনা করেন, সাধারণ সম্পাদক সাইফুল ইসলাম কবির।রাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজামান খাঁন কামাল ছাড়াও অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে আরো বক্তব্য রাখেন, সর্বইউরোপিয়ান আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক এবং অষ্ট্রিয়া প্রবাসী মানবাধিকার কর্মী, লেখক, সাংবাদিক এম. নজরুল ইসলাম, বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ অষ্ট্রিয়া ইফনিট কমান্ডের কমান্ডার মুক্তিযোদ্ধা বায়োজিদ মীর প্রমুখ।অনুষ্ঠানে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজামান খাঁন কামাল বলেন, ‘আমরা বঙ্গবন্ধুর ডাকে যুদ্ধ করে বাংলাদেশ পেয়েছি। যারা বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে মানে না তাদের বাংলাদেশে থাকার অধিকার নাই।’ তিনি আরো বলেন, ‘স্বাধীনতা বিরোধী চক্রের দোসররা অষ্ট্রিয়াসহ বিশ্বের বহু দেশে সক্রিয়। তাদেরকে প্রতিহত করতে প্রবাসী বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিকদের বলিষ্ঠ ভ’মিকা রাখতে হবে।’

Picture
মানবাধিকার কর্মী ও লেখক এম. নজরুল ইসলাম বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার সরকারের অব্যাহত সাফল্যে আমরা প্রবাসীরা দারুনভাবে আনন্দিত। আমাদের দৃঢ় বিশ্বাস সাফল্যের এই ধারা অব্যাহত থাকলে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়তে খুব বেশী সময় লাগবে না।’অনুষ্ঠানের সভাপতি খন্দকার হাফিজুর রহমান নাসিম বলেন, ‘আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে দেশ এখন এগিয়ে চলছে। দেশের এই অগ্রযাত্রাকে ব্যাহত করতে বিএনপি-জামাত চক্র উঠে পরে লেগেছে। তাদেরকে ঐক্যবন্ধভাবে প্রতিহত করতে হবে।’মতবিনিময় অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, জার্মান আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আনিসুল ইসলাম তালুকদার, জার্মান যুবলীগের সভাপতি মনিরুজামান, বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ অষ্ট্রিয়া ইফনিট কমান্ডের ডিপোটি কমান্ডার মুক্তিযোদ্ধা রবেন ডি কস্টা, অষ্ট্রিয়া আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আব্দুল জলিল, আকতার হোসেন, শামছুল ইসলাম, একেএম সওকত আলী, অধ্যাপক রুহী দাস সাহা, শফিকুল ইসলাম, মিজানুর রহমান শ্যামল, বখতিয়ার রানা, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক শাহ কামাল, সাংগঠনিক সম্পাদক নয়ন হোসেন, লুৎফর রহমান সুজন, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক সাইফুল হক, আইন বিষয়ক সম্পাদক মাহবুব খান শামীম, সাংস্কৃতিক সম্পাদক সাইফুল ইসলাম, ইমিগ্রেশন বিষয়ক সম্পাদক আহসান হাবিব বারি, স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদক জাহাঙ্গির আলম, বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক এমরান মজুমদার, কোষাধ্যক্ষ এবিএম মাইনুদ্দিন, সদস্য সাইফুজ্জামান, ইমরুল কায়েস মানিক, এহসানুল হক হেলাল, সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী, এমদাদুল হক পারভেজ, আলী হোসেন, সাইদুল ইসলাম কিরন, জহির তুহিন প্রমুখ।


কাতারে মহসিন আলী স্মরণে দোয়া ও মিলাদ

রবিবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৫

বাপসনিঊজ:সদ্য প্রয়াত সমাজকল্যাণমন্ত্রী বীর মুক্তিযোদ্ধা সৈয়দ মহসিন আলী স্মরণে দোয়া ও মিলাদ মাহফিল করেছে ‘জালালাবাদ অ্যাসোসিয়েশন দোহা-কাতার’।শুক্রবার (১৮ সেপ্টেম্বর) রাতে কাতারের রাজধানী দোহায় নাজমা রমনা রেস্টুরেন্টে এ দোয়া ও মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করা হয়।সংগঠনের আহ্বায়ক নজরুল ইসলামের সভাপতিত্বে এবং আহমেদ মালেকের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে সংক্ষিপ্ত বক্তৃতা করেন জালালাবাদ অ্যাসোসিয়েশনের সদস্য সচিব কপিল উদ্দিন, সৈয়দ আনা মিয়া, এনামুজামান, আলাউদ্দিন আহমদ, মাকসুদ আহমদ লেবু, আহমেদ জাহেদ, ওমর ফারুক চৌধুরী, এস এম ফরিদুল হক, ফয়েজ আহমেদ, সিরাজুল ইসলাম শাহিন, আবদুল হান্নান পান্না প্রমুখ।নজরুল ইসলাম বলেন, বীর মুক্তিযোদ্ধা সৈয়দ মহসিন আলী ছিলেন গণমুখী রাজনীতির এক উজ্জ্বল নক্ষত্র। ৪১ বছরের রাজনীতির দীর্ঘ পথ পরিক্রমায় দুর্নীতির কলঙ্ক যাকে স্পর্শ করতে পারেনি, তিনি সমাজকল্যাণমন্ত্রী সৈয়দ মহসিন আলী। তিনি ছিলেন বৃহত্তর সিলেটের গর্ব। তার মৃত্যুতে বাংলাদেশের অনেক ক্ষতি হয়ে গেল।

Picture

কপিল উদ্দিন বলেন, সাদামাটা এক অসাধারণ ব্যক্তি ছিলেন মহসিন আলী। তার কাছ থেকে অচেনা মানুষরাও খালি হাতে ফিরতেন না। সংস্কৃতি ও খেলাধুলায় পৃষ্ঠপোষকতা করতেন তিনি। জীবনের প্রতিটি মুহূর্ত মানুষের মাঝে থেকেই উপভোগ করেছেন মহসিন আলী। তার জীবন ছিল খোলা বইয়ের মতো। তার মৃত্যুতে কাতারের সিলেটবাসী শোকাহত।দোয়া ও মিলাদ মাহফিলের পরিচালনা করেন মাওলানা আলী আক্কাস।


বাংলাদেশ প্রবাসী পরিষদ রাশিয়ার সভা

রবিবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৫

জামিল খান, বাপসনিঊজ:মস্কো (রাশিয়া) থেকে : সভার দৃশ্যবাংলাদেশ প্রবাসী পরিষদ রাশিয়ার নতুন কার্যকরী কমিটি গঠন উপলক্ষে মস্কোয় সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। ১২ সেপ্টেম্বর শনিবার বিকেলে মস্কোর স্থানীয় এক মিলনায়তনে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।সংগঠনের সভাপতি কল্লোল দাশের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ সভা পরিচালনা করেন সহসভাপতি মোহম্মদ মোহসিন। ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক প্রণব বোস বিদায়ী কমিটির কার্যক্রমের ওপর প্রতিবেদন পেশ করেন। সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য দেন আতাউর রাহমান, বিজন সাহা, শহিদুল হক, রবীন গুহ, প্রবীর সরকার, আবদুল ওয়াহাব ও হাবিবুর রহমান প্রমুখ। সভায় ৩৯ সদস্যবিশিষ্ট নতুন কার্যনির্বাহী কমিটি গঠন করা হয়।

Picture
উল্লেখ্য, ২০১০ সালে একটি অরাজনৈতিক ও সামাজিক সেবামূলক সংগঠন হিসেবে মস্কোতে বাংলাদেশ প্রবাসী পরিষদ রাশিয়া কার্যক্রম শুরু করে। বড় পরিসরে বাংলা নববর্ষ উদ্‌যাপন, মেধাবী শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা ও গুণীজন সম্মাননাসহ বিভিন্ন সামাজিক অনুষ্ঠান আয়োজন করে এই সংগঠনটি ইতিমধ্যে প্রবাসীদের কাছে বেশ সুনাম কুড়িয়েছে।


সবাইকে একযোগে কাজ করতে হবে’

শনিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৫

শুক্রবার মালয়েশিয়া সময় রাত ৯টায় বাংলাদেশ দূতাবাস ও জহুর বারু বাংলাদেশী কমিউনিটি কর্তৃক আয়োজিত এম আরপি ডিজিটাল পাসপোর্ট মোবাইল ক্যাম্পিংয়ের উদ্ভোধনী অনুষ্টানে তিনি এ সব কথা বলেন।

জহুরবারু বাংলাদেশী কমিউনিটি সংগঠনের সভাপতি মো: তরিকুল ইসলাম রবিনের সভাপতিত্বে ও দপ্তর সম্পাদক মো: শামীম এজাজ ও সুমনের যৌথ পরিচালনায় দেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে প্রবাসী বাংলাদেশীদের অবদানের প্রশংসা করে মালয়েশিয়া জহুর প্রদেশে তাদের নিজ নিজ অবস্থানে থেকে কর্ম, শিষ্টাচার, মেধা ও প্রজ্ঞা দিয়ে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল করার আহ্বান জানান রাষ্ট্রদূত।

Picture

জহুর বারুতে এই মোবাইল ক্যাম্পিংয়ের মাধ্যমে সকল প্রবাসীদের হাতে এম আরপি ডিজিটাল পাসপোর্ট পৌঁছে দিতে এ উদ্যোগ নেয়া হয়েছে এবং সকলের হাতে পাসপোর্ট পৌছে দেওয়ার চেষ্টা চলছে এবং ডিজিটাল পাসপোর্ট করতে ১১৬ রিঙ্গীত খরচ হবে। দূতাবাসে দায়িত্ব গ্রহণের পর জহুর বারুতে এটাই ছিল হাইকমিশনারের প্রথম সফর। সভায় জহুর বারু এলাকায় কর্মরত এবং ব্যবসায়ীসহ সর্বস্তরের প্রবাসী বাংলাদেশীরা উপস্থিত ছিলেন। রাষ্ট্রদূত বিদেশে যে  কোনো প্রয়োজনে এবং বিপদে আপদে বাংলাদেশীদেরকে একে অপরের সাহায্যে এগিয়ে আসতে এবং দেশে বৈধপথে রেমিটেন্স প্রেরণের আহ্বান জানান।

উদ্ভোধনী অনুষ্টানে উপস্তিত ছিলেন, হাই কমিশনারের সহধর্মিনী মিসেস শাহনাজ ইসলাম, ডেপুটি হাই কমিশনার মো: ফয়সল আহমেদ, লেবার কন্স্যুলার মো: সায়েদুল ইসলাম মুকুল, লেবার কন্স্যুলারের সহধর্মিনী মিসেস সাবিহা পারভীন, ফার্ষ্ট সেক্রেটারি মো: এম এসকে শাহীন, মালয়েশিয়া আওয়ামীলীগের যুগ্ন আহবায়ক মো: রাশেদ বাদল, মালয়েশিয়া যুবলীগের আহবায়ক মো: তাজকীর আহমেদ।

অনুষ্টানে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশী কমিউনিটি জহুরের সাংগঠনিক সম্পাদক মো: তরিকুল ইসলাম আমিন। অনুষ্ঠানে কমিউনিটি নেতৃবৃন্দের মধ্যে উপস্তিত ছিলেন, সিনিয়র সহ সভাপতি মো: ফাহিম, মো: জয়নাল, মো: জুয়েল, মো: বাবলু, মো: জাকির হোসেন, নজরুল ইসলাম বাবু, আবু সালেহ মানিক, রুহুল আমিন, মো: শাহীন, মো: আব্দুল মন্নান, উজ্জল, লরেন্স, আল আমিন, নজরুল, রহিম, দেলোয়ার, মো: ইউসুফ সহ সকল কমিউনিটি নেতৃবৃন্দ।


মহসিন আলী ছিলেন একজন সাদামনের মানুষ- স্টক অন টেন্ট আওয়ামীলীগ

শনিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৫

বাপসনিঊজ:বাংলাদেশের সমাজকল্যাণমন্ত্রী ও মৌলভীবাজার সদর আসনের এমপি  সৈয়দ মহসিন আলীর  মৃত্যুতে শোকসভা ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করেছে  যুক্তরাজ্য আওয়ামীলীগ স্টক অন টেন্ট  শাখা ।গত বৃহস্পতিবার ১৭ অক্টোবর স্থানীয় বিলাস রেস্টুরেন্টে আায়োজিত শোকসভায় সভাপতিত্ব করেন স্টক অন টেন্ট আওমীলীগের সভাপতি আব্দুল মতিন ।

Picture

সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক ইউসুফ চৌধুরীর পরিচালনায় অনুিষ্ঠ্ত শোক সভায় বক্তব্য রাখেন আওয়ামীলীগ নেতা ফখরুজ্জামান ফখরু, আবুল কাসেম চৌধুরী  ,আমিন মিয়া ,বসির মিয়া ,ময়না মিয়া , শাহ আবেদ মিঠু ,আব্দুস সামী, শামীম মিয়া প্রমুখ.।সভায় বক্তারা বলেন মরহুম মহসিন আলী ছিলেন সাধারণ মানুষের নেতা,একজন সাদামনের মানুষ । তার সারা জীবন তিনি এলাকার গরীব ও অসহায় মানুষের সেবায় তিনি নিয়োজিত ছিলেন।তার মতো  সরলপ্রাণ নেতা বর্তমান সমাজে বিরল । বক্তারা বলেন তার মৃত্যুতে মৌলভীবাজার তথা দেশের যে অপূরণীয় ক্ষতি হয়েছে তা অপূরণীয় ।বক্তারা আরো বলেন এই নেতা তার নিজের বাড়ীটি সাধারণ মানুষের জন্য দান করে দিয়েছেন যা অন্যদের জন্য উদাহরণ স্বরুপ। ্সভায় মরহুমের আত্মার মাগফেরাত কামনা করে তার শোক সনÍপ্ত  পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।সভা শেষে মরহুমের আত্মার মাগফেরাত ও দেশ এবং জাতির শান্তি  কামনা করে দোয়া করা হয়।


সিডনিতে ঐতিহ্যবাহী বাংলা লোকমেলা অনুষ্ঠিত

শুক্রবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৫

Picture

প্রবাসী বাংলাদেশীদের অন্যতম সামাজিক সংগঠন ‘বাংলাদেশী আস্ট্রেলিয়ান ওয়েলফেয়ার সোসাইটি’ গত ৪ বছরের ন্যায় এবারও আয়োজন করেছিল এই ঐতিহ্যবাহী “বাংলা লোকমেলা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান” ২০১৫।বসন্তের রৌদ্র উজ্জ্বল দুপুর ১টা ৫০ মিনিটে স্বাধীনতা যুদ্ধের সকল বীর মুক্তিযোদ্ধা ও শহীদদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানিয়ে বাংলাদেশ এবং অস্ট্রেলিয়ার জাতীয় সঙ্গীতের মধ্য দিয়ে বেলুন উড়িয়ে এই মেলার উদ্বোধন ঘোষণা করা হয়। এসময় বাংলাদেশের জাতীয় পতাকা উত্তোলন করেন সংগঠনের সভাপতি মতিউর রহমান খান, আহ্বায়ক ইসমাইল মিয়াসহ অন্যান্য সদস্যবৃন্দ এবং অস্ট্রেলিয়ার জাতীয় পতাকা উত্তোলন করেন ফেডারেল মেম্বার ফর অয়ারিওরা লরি ফারগুসন ও স্টেট পার্লামেন্ট মেম্বার ফর মাকুরিফিল্ড আয়নুল্যাক চানথিভং।

IMG_4300

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এমপি লরি ফারগুসন তার বক্তৃতায় বাংলাদেশী অস্ট্রেলিয়ান ওয়েলফেয়ার সোসাইটি ইনক এর সকল কর্মকর্তাদের ধন্যবাদ জানান, যারা অক্লান্ত শ্রম ও মেধা দিয়ে প্রবাসের যান্ত্রিক জীবনের বাইরে এসেও বাঙালী জাতির ভাষা, সাহিত্য, সংস্কৃতির চর্চাকে সমুন্নত রেখেছেন। তিনি বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্বে নিহত সকল গভীর শহীদদেরকে শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করেন।সংগঠনের সভাপতি মতিউর রহমান খান ও মেলা কমিটির আহবায়ক ইসমাইল মিয়া বলেন, অস্ট্রেলিয়ায় জন্ম নেয়া ও বেড়ে ওঠা নতুন প্রজন্মকে বাঙালী জাতির ভাষা, সাহিত্য, সংস্কৃতি চর্চা ও এর ইতিহাসের সাথে পরিচয় করিয়ে দেয়াই এই মেলার প্রধান উদ্দেশ্য।বিকাল ৪টা ৩০ মিনিটে মহিলাদের চেয়ার সিটিং ও ছেলেদের মোরগ লড়াইয়ের মধ্য দিয়ে শুরু হ্য় সাংস্কৃতিক পর্বের। তারপর ক্যাম্বেলটাউন বাংলা স্কুলের ছোট্ট সোনামনিরা ও কিশলয় কচিকাঁচার ছেলেমেয়রা দেশাত্মবোধক গান, নৃত্য ও কবিতা আবৃতি করে।

IMG_4301

মাগরিবের নামাজের বিরতির পর ইন্সট্রুমেন্টাল ফিউশনে সরদ ও তবলার সমন্বয়ে কবিতা আবৃতি, পুথিপাঠ, ও ফোক গান নিয়ে ছিল একটি সম্পূর্ণ ব্যতিক্রমধর্মী লোকজ পরিবেশনা। এতে অংশগ্রহন করেন শাহিন শানেওয়াজ , তামান্না, রাজিব, শুভ্রা ও অভিজিৎ।এছাড়াও এই মেলায় ইভানা, ফারিয়া, লুতফা ও স্বপ্ন ব্যান্ডের মিঠুসহ স্থানীয় শিল্পীরা একক ও দ্বৈত সঙ্গীত পরিবেশন করে।অনুষ্ঠানের প্রথম পর্বের উপস্থাপনায় ছিলেন বিডি গোল্ড কাপের পরিচালক নাসিম সামাদ ও দ্বিতীয় পর্বের উপ্সহাপনায় ছিলেন চার্লস স্টুয়ার্ড ইউনিভারসিটির লেকচারার ও গবেষক শিবলি আবদুল্লাহ।

IMG_4296

মেলা প্রাঙ্গণে চারিদিক ঘিরে বাঙালী খাবার ও দেশীয় পোশাকের ২৫টিরও বেশী স্টল দেয়া হয়। খাবারের স্টলগুলিতে দেশীয় খাবার পুরি, চটপটি, পিয়াজু, হালিম, জিলাপি, সিঙ্গারা বিরানি, রকমারি পিঠা ও মিষ্টি। তবে খাবারের স্টল কম থকায় লম্বা লাইনে দাড়াতে হয় ক্রেতাদের। আর তৈরি পোশাকের স্টলগুলিতে সালোয়ার কামিজ, জামদানি ও অন্যান্য তাঁতের শাড়ির বিপুল সমাহার লক্ষ্য করা যায়। উপচে পড়া বাঙালী দর্শক ছাড়াও স্টলগুলিতে বিদেশী দর্শকদেরও খাবার ও পোশাক কেনাকাটা করতে দেখা গেছে। মেলায় আট-দশ রকমের রাইড বড় দর্শকদের গ্রাম্য নাগরদোলার স্মৃতি মনে করিয়ে দেয়াসহ ছোট ছোট বাচ্চাদের সারা-বেলা আনন্দে মাতিয়ে রাখে। লোকমেলা উপলক্ষে বাংলাদেশী অস্ট্রেলিয়ান ওয়েলফেয়ার সোসাইটি ইনক মেলা প্রাঙ্গণে “বাংলা লোকমেলা ২০১৫” নামে স্থানীয় লেখক, কবি ও কলামিস্টদের লেখা নিয়ে একটি স্মরণিকা প্রকাশ করে।

IMG_4299

মেলায় স্টলের দায়িত্বে ছিলেন মাহবুব উল চৌধুরী শরীফ, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন মুনীর হোসেন এবং প্রচার ও প্রকাশনার দায়িত্বে ছিলেন মোঃ শহীদ আজিজ। এছাড়াও মেলার সার্বিক তত্ত্বাবধানে ছিলেন ওয়েলফেয়ার সোসাইটির অন্যান্য সদস্যবৃন্দ। দর্শকদের জন্য “বিনা টিকেটে” মেলায় প্রবেশের সুযোগ ও ফ্রি পর্যাপ্ত কার পার্কিং এর ব্যবস্থা থাকায় সিডনির দূর দূরান্ত ছাড়াও ক্যানবেরা মেলবোর্ন থেকেও মেলায় দর্শক সমাগম ঘটে। সবশেষে রাত দশটায় মেলার কার্যক্রম শেষ হয়।মেলা কমিটি সর্বস্তরের দর্শক শ্রোতা, সহকর্মী সহ বিজ্ঞাপনদাতা, পৃষ্ঠপোষক, বিপণী সংস্থা ও মিডিয়াকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানান।