Slideshows

ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার

পরিচালনা পরিষদ 

সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি

ওসমান গনি
 

প্রধান সম্পাদক

হাকিকুল ইসলাম খোকন
 

সম্পাদক

সুহাস বড়ুয়া হাসু
 

সহযোগী সম্পাদক

আয়েশা আকতার রুবী

প্রবাসীদের খবর

মরুর দেশে বর্ণিল বর্ষবরণ

রবিবার, ১৬ এপ্রিল ২০১৭

মোহাম্মদ আল-আমীন, বাপ্ নিউজ : সৌদি আরব : নতুন বছরকে বরণ করে নিতে বাংলাদেশের মতো প্রবাসেও ছিল নানা আয়োজন। সকলের প্রাণের উত্তাপে কাটে শুভ দিনের প্রতিটি প্রহর। আর পূর্ণতার এমন দিনে মিলনের মোহনায় এসে মিশে। বঙ্গাব্দ ১৪২৪-কে বরণ করতে সৌদি প্রবাসীরাও মিলিত হয় শ্যাডো আয়োজিত পহেলা বৈশাখী আনন্দ মেলায়।শুক্রবার ছুটির দিন হওয়ায় বিকেল গড়িয়ে সন্ধ্যা হতেই মেলা প্রাঙ্গণে সহস্র বাঙালির মিলনমেলায় ফুটে ওঠে প্রবাসের ছোট্ট বাংলাদেশ। মেলার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন রিয়াদ বাংলাদেশ দুতাবাসের মিশন উপ প্রধান মোঃ নজরুল ইসলাম। দুতাবাসের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তা-কর্মচারী, শ্যাডোর নেতৃবৃন্দসহ নানা শ্রেণী পেশার প্রবাসীরা উপস্থিত ছিলেন।

Picture

সাত সমুদ্র তেরো নদী পেরিয়েও বাঙালিরা নিজেদের সংস্কৃতি আর বাংলাদেশকে ভুলতে পারে না। তাই সুযোগ পেলেই বুকের ভেতর থেকে বের করে আনে এক টুকরো বাংলাদেশ। সৌদি প্রবাসী বাঙালিরাও এর ব্যতিক্রম নয়। তাইতো রিয়াদ বাংলাদেশ দুতাবাসের সহযোগিতায় বৈশাখী মেলার আয়োজন করে রিয়াদের স্বনামধ্য ইভেন্ট অর্গানাইজার প্রতিষ্ঠান “শ্যাডো”।

alt

রিয়াদের বৈশাখী মেলা শুধুমাত্র একটি সাধারণ মেলাই নয়,প্রতি বছর এ বৈশাখী  মেলা পরিণত হয় প্রবাসীদের এক বিশাল মিলন মেলায়। রাজধানী ও তার আশেপাশে বসবাসরত হাজার হাজার প্রবাসী ছুটে আসেন একেবারে নির্ভেজাল বাঙালীদের এই আয়োজনে। ফলে দেখা হয় অনেক পুরোনো বন্ধু-বান্ধবদের সাথেও।

মেলায় বসে হরেক  রকমের দেশী খাবারের স্টল সচরাচর ব্যস্ত প্রবাস জীবনে দেশী যে সব সুস্বাদু  খাবার চেহারা পর্যন্ত দেখা যায় না পান্তা-ইলিশ থেকে শুরু করে সে সব খাবার  মিলে যায় এই বৈশাখী মেলায়। আশেপাশে গোটা এলাকাতে হাঁটলে মনে হবে বাংলাদেশেই আছি।

মেলা আসা প্রবাসীরা জানান,'এটা সত্যিই অসাধারণ আয়োজন। আমি ভীষণ খুশি এখানে আসতে পেরে। বাংলাদেশিদের কর্মদক্ষতা আর মেধা অত্যন্ত প্রশংসনীয়। ' এসব মেলার আয়োজন বৈশাখের অসাম্প্রদায়িক চেতনায় ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে বাঙালিত্বে একাকার হয়ে যায় প্রবাসীরা।


গানে গানে মালয়েশিয়ায় প্রবাসীদের বর্ষবরণ

রবিবার, ১৬ এপ্রিল ২০১৭

আহমাদুল কবির, বাপ্ নিউজ : মালয়েশিয়া থেকে : গানে গানে বাংলা নতুন বছর ১৪২৪ বঙ্গাব্দকে বরণ করে নিয়েছেন মালয়েশিয়া প্রবাসী বাংলাদেশিরা। শুক্রবার কুয়ালালামপুরের বুকিত বিনতাং এলাকায় রসনা বিলাস রেস্তোরাঁয় আয়োজিত অনুষ্ঠানে নববর্ষ উদযাপন করা হয়। ‘এসো হে বৈশাখ এসো এসো’ গানের সঙ্গে সুর মিলিয়ে নতুন বছরকে স্বাগত জানান প্রবাসীরা। এ সময় রসনা বিলাসের ওই বৈশাখী আয়োজন পরিণত হয় প্রবাসী বাঙালিদের মিলন মেলায়।দিনব্যাপী অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ থেকে আগত শিল্পী ছাড়া প্রবাসী শিল্পীরাও বাউল সম্রাট শাহ আবদুল করিমসহ লালন সাঁইয়ের গান পরিবেশন করেন।এর আগে রাগ ভৈরবী দিয়ে শুরু হয় বৈশাখের পরিবেশনা। রাগের অনিন্দ্য মূর্ছনায় ভরে ওঠে বুকিত বিনতাং জালান তংসিং এর চারদিক।

Picture

রসনা বিলাসের স্বত্ত্বাধিকারী এস এম রহমান পারভেজ বলেন, প্রবাসীদের নিয়ে বাঙালির ঐতিহ্য বর্ষবরণ উৎসব উদযাপন করতে প্রতিবছর পহেলা বৈশাখে এ ধরনের অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। উৎসবে পান্তা-ইলিশসহ থাকে বাহারি রকমের খাবারের আয়োজনও। রসনা বিলাসের বৈশাখী আয়োজনে কুয়ালালামপুরে নিযুক্ত বাংলাদেশ হাইকমিশনেরন মিনিস্টার (পলিটিক্যাল) রইছ হাসান সারোয়ার, ফার্স্ট সেক্রেটারি (শ্রম) মো. হেদায়েতুল ইসলাম, প্রবাসী কমিউনিটি নেতা কামরুজ্জামান কামাল, মনিরুজ্জামান মনির, ইমদাদুল হক সবুজ, শাহ আলম হাওলাদার, প্রবাসী সিলেটিদের সংগঠন জালালাবাদ অ্যাসোসিয়েশনের সিনিয়র সহ সভাপতি সোনাহর খান রশিদ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।


ফোর্বস’এর তালিকায় বাংলাদেশি তরুণ তরুণী

শনিবার, ১৫ এপ্রিল ২০১৭

বাপ্ নিউজ :২ বাংলাদেশি তরুণ তরুণী সামাজিক উদ্যোক্তা হিসেবে ফোর্বস’এর তালিকায় স্থান করে নিয়েছেন। এরা হলেন মিজানুর রহমান কিরণ ও শওগাত নাজবিন খান। বিশ্বের শীর্ষ ধনীদের তালিকা ধারাবাহিকভাবে প্রকাশ করে থাকে ফোর্বস। এবার এশিয়ার দেশগুলোতে ৩০ বছরের কম বয়স্ক ও বছরের সেরা সামাজিক উদ্যোক্তা হিসেবে যে তালিকা প্রকাশ করেছে ম্যাগাজিনটি তাতে এ দুই বাংলাদেশি তরুণ তরুণী রয়েছেন। এশিয়া থেকে ৩০ জন উদ্যোক্তাকে নির্বাচিত করেছে ফোর্বস ম্যাগাজিন যারা ব্যবসাকে সামাজিক দায়িত্ব হিসেবে নিয়ে বিশ্বের সমস্যাগুলোর সমাধানের পথ বাৎলে দিচ্ছেন। ২৯ বছরের মিজানুর রহমান কিরণ বাংলাদেশে শারীরিক প্রতিবন্ধী তরুণদের উন্নয়নে ফিজিক্যালি-চ্যালেঞ্জস ডেভলপমেন্ট ফাউন্ডেশন (পিডিএফ) প্রতিষ্ঠা করেছেন। ২০১৫ সালে ডেইলি স্টার তাকে তার কাজের স্বীকৃতি হিসেবে ‘ইয়াং এ্যাসিভার’ উপাধি দেয়।

Picture

কিরণ পত্রিকাটিকে বলেন, আগামী ১০ বছরের মধ্যে তিনি তার প্রতিষ্ঠানটিকে এশিয়ার তরুণদের মধ্যে সেরা প্রতিষ্ঠান হিসেবে দেখতে চান। তার প্রতিষ্ঠান শারীরিক প্রতিবন্ধী তরুণদের আইনী সহায়তা ও অধিকার সচেতনতায় সাহায্য করে থাকে।

শওগাত নাজবিন খান এইচ এ ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা। তিনি তার প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে ডিজিটাল পদ্ধতিতে গ্রামের গরিব ছেলে মেয়েদের শিক্ষা দিয়ে থাকেন। সামান্য খরচের মাধ্যমে ছেলে মেয়েরা তার প্রতিষ্ঠানে বিনামূল্যে বই, পোশাক ও যাতায়াত সুবিধা পেয়ে থাকে। অন্তত ৬’শ ছেলে মেয়েকে পড়াশুনার সুযোগ করে দেয়ার পর শওগাত নাজবিন খান গত বছর কমনওয়েলথ ইয়থ এ্যাওয়ার্ড পান। তিনি কম খরচে সৌর সেচ ব্যবস্থা চালুর জন্যে একই বছর গ্রিন ট্যালেন্ট এ্যাওয়ার্ডে ভূষিত হন।


বিসিসিবি’র মন্ট্রিয়েল চ্যাপ্টারের গুরুত্বপূর্ণ সভা অনুষ্ঠিত

বৃহস্পতিবার, ১৩ এপ্রিল ২০১৭

বাপ্ নিউজ : কানাডা থেকে।। বাংলাদেশি কানাডিয়ানদের সংগঠন বিসিসিবি’র মন্ট্রিয়েল চ্যাপ্টারের গুরুত্বপূর্ণ এক সভা অনুষ্টিত হয় গত রোববার সন্ধ্যায় মন্ট্রিয়লের কনকার্ডিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের ইভি বিল্ডিংয়ে। এতে উপস্থিত ছিলেন চ্যাপ্টারের সাথে সংশ্লিষ্ট ভলান্টিয়ার এবং নতুনভাবে উদ্দীপ্ত বেশ কয়েকজন প্রতিশ্রুতিবান বিসিসিবি-ইয়ান।

সভায় বিসিসিবির কার্যক্রম তথা ২০১৭ সালের রোড ম্যাপ যেমন বিসিবির নিজস্ব ইভেন্ট কিডস ডে, গ্যাপ ডে আয়োজন, নিয়মিত গেট টুগেদার, স্পোর্টস ইভেন্ট আয়োজন, জব সাপোর্ট পোর্টফোলিও কার্যক্রম ও মেন্টরশীপ চালু সহ আরো অনেক বিষয়ে আলোচনা অনুষ্টিত হয়।

রোডম্যাপ নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেন চ্যাপ্টারের অন্যতম টিম লীড এম..জে.এফ রূপম। সার্বিক সহায়তায় ছিলেন ওপর টিম লীড শিহাব উদ্দিন, মশিয়র রহমান সোহেল, রাফি মোহাম্মদ আজাদ, রিয়াজ ফারিদ।

সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন আশিক রহমান, হিশাম করিম চৌধুরী, শাহাব কাজী, নাজমুল হাসান, খালেদ আহমেদ প্রমুখ|

কিডস ডে আয়োজনের জন্য পাঁচ সদস্য বিশিষ্ট একটি সাব কমিটি গঠিত হয়। কমিটিতে আছেন নাফিসা রহমান, রাকিব সিদ্দিকী, শাহাবুল আলম, এজাজ হান্নাহ ও মোহাম্মদ সুমন। সাব কমিটি অচিরেই কিডস ডে’র তারিখ ঘোষণা করবে।

Picture

সভার এক পর্যায়ে টেলিফোন কল আসে বিসিসিবি সভাপতি রিমন মাহমুদের কাছ থেকে। লাউড স্পিকারে রিমন মাহমুদ মন্ট্রিয়েল চ্যাপ্টারের অগ্রযাত্রা দেখে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেন। তিনি বলেন, ‘আমরা প্রথম প্রজন্ম  কানাডায় সংগ্রাম করবো এটাই স্বাভাবিক। আমাদের এই সংগ্রামকে যথা সম্ভব সহজতর করা এবং এ সংগ্রামের আউটপুট যাতে আমাদের পরবর্তী প্রজন্ম কাজে লাগাতে পারে, তার জন্যই আমাদের এই বিসিসিবি করা। আর এজন্যই সকলকে  বাংলাদেশ এবং কানাডাকে বুকে ধারণ করে এক সাথে কাজ করে এগিয়ে যেতে হবে| কানাডার  বুকে  সর্বশ্রষ্ঠ  কমিউনিটি  হবে  আমাদের  বিসিসিবি কমিউনিটি- এটাই আমাদের মোটিভেশন। একটি সুন্দর কানাডা গড়ে  তোলার জন্য এটাই হবে আমাদের কনন্ট্রিবিউশন।’

রিমন মাহমুদ তার বক্তব্যে বিসিসিবির একাধিক সাফল্যের উদাহরণ দেন। তিনি আরো বলেন, তিনি  বিশ্বাস  করেন  যে ভবিষ্যতে মন্ট্রিয়েল চ্যাপ্টার বিসিসিবি’র নিজস্ব প্যারামিটারের মধ্যে থেকে একটি স্বায়িত্বশাসিত (ইনিপেন্ডেন্ট চ্যাপ্টার ) চ্যাপ্টার হবে। তার জন্য এখন থেকেই প্রস্তুতি নিতে হবে।

সভায় প্রাথমিকভাবে বিভিন্ন পোর্টফলি ও বন্ঠন করা হয়। রিয়াজ ফারিদ “বিসিসি জব সাপোর্ট পোর্টফোলিও গড়ে তোলার দায়িত্ব নেন। এছাড়া রাফি আল আজাদ স্পোর্টস পোর্টফোলিও,  মশিয়র রহমান সোহেল ‘মেন্টরশীপ’, এম.জে.এফ রূপম "Funding  & community outreach" এবং শিহাব উদ্দিন দায়িত্ব নেন "Accommodation and Connection to the new comers" বিষয়গুলি দেখার।


জঙ্গীমুক্ত বাংলাদেশ শেখ হাসিনার অঙ্গীকার - এম এ সাত্তার

মঙ্গলবার, ১১ এপ্রিল ২০১৭

বাপ্ নিউজ : কোপেনহেগেন , ডেনমার্ক : বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ এর কেন্দ্রীয় কমিটির শিল্প ও বাণিজ্য সম্পাদক সাবেক এম পি বীর মুক্তিযোদ্ধা জনাব আবদুস সাত্তার এর সাথে গত ৫ এপ্রিল , বুধবার ডেনমার্ক আওয়ামী লীগ এর মতবিনিময় সভায় জঙ্গীমুক্ত বাংলাদেশ গঠনে অঙ্গীকার জননেত্রী শেখ হাসিনা এর অঙ্গীকার এর কথা বলেন।ডেনমার্ক আওয়ামী লীগ এর সভাপতি ইকবাল হোসেন মিঠু এর সভাপতিত্বে সাধারণ সম্পাদক  ড. বিদ্যুৎ বড়ুয়া  এর সঞ্চালনায় আরো উপস্থিত ছিলেন

Picture

ডেনমার্ক আওয়ামী লীগ এর যুগ্ম -সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম , মোতালেব ভূঁইয়া ,মোহাম্মদ ইউসুফ , হিল্লোল বড়ুয়া , আব্দুল আল জাহিদ, ফাহমিদ আল মাহিদ ,আমির জীবন, কোহিনুর আখতার মুকুল , ইফতেখার সম্রাট ,আসাদুসজ্জামান , রেজাউল করিম , শোয়েব আহমেদ , রিয়াদ হোসেন , ফয়সাল হোসেন , জামশেদ রহমান , ইমরান হোসেন ,সুবীর , শাওন , কোহিনূর মুকুল , সাগর ,  তানভীর শুভ , সুকান্ত দে , আসিফ মুস্তারিন  সহ আরো অনেকে।

alt

জনাব আবদুস সাত্তার বলেন ,বাংলাদেশের জঙ্গিবাদের উদ্যোক্তা হচ্ছে বিএনপি।  ২০০১ সাল থেকে  বিএনপি বাংলাদেশে ধর্মীয় উন্মাদনায় জঙ্গিবাদ কে প্রশ্রয় দিয়ে পাকিস্তান এর নীলনকশা বাস্তবায়ন করে।  আমাদের নেত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা ক্ষমতায় আসার পর সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ  বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতি গ্রহণ করে অনেক শীর্ষ  জঙ্গি ও তাদের মাস্টার মাইন্ডদের বিচার এর আওতায় এনে জঙ্গিমুক্ত বাংলাদেশ গঠনে কাজ করে যাচ্ছেন।  তার সাহসী ও  দৃঢ়চেতা পদক্ষেপ বাংলাদেশ কে অর্থনৈতিক ভাবে সমৃদ্ধশালী করবে।  দেশকে সামাজিক ও অর্থনৈতিক ভাবে  সমৃদ্ধশালী করতে আওয়ামী লীগ সরকারের কোন বিকল্প নেই। 

alt

তাই আমাদেরকে  আগাছা পরগাছা হাইব্রিডমুক্ত আওয়ামী লীগ গঠনে সত্যিকার এর আওয়ামী লীগ এর সবাইকে সজাগ থাকতে হবে। আমাদের পরিচয় একটাই আমরা জয়বাংলার লোক ও জাতির জনকের আদর্শের ও শেখ হাসিনা এর বিশ্বস্ত কর্মী। পরে ডেনমার্ক আওয়ামী লীগ এর পক্ষ থেকে জনাব এম এ সাত্তার ডেনমার্ক এর স্মারক লিটল মারমেইড উপহার দেয়া হয়।


কাতালোনিয়ায় ‘ভয়েস অব বার্সেলোনা’র আত্মপ্রকাশ

মঙ্গলবার, ১১ এপ্রিল ২০১৭

Picture

লায়েবুর খাঁনঃ বাপ্ নিউজ : সামাজিক দায়বদ্ধতা থেকে গতানুগতিক ধারার একটু বাহিরে গিয়ে নিজেদের হাঁসি কান্না ভাগাভাগি করার প্রত্যয়ে এক্য, বল এবং সংগ্রাম মূলমন্ত্রে আত্ম প্রকাশ করে কাতালোনিয়ার ‘ভয়েস অব বার্সেলোনা’।অনুষ্ঠানে মিলিত একঝাক যুবকের একই আওয়াজ; আমরা পদ-পদবি চাই না, আমরা একত্রে থেকে সমাজ গঠনে কাজ করে যেতে চাই। এপ্রিলের ২ তারিখে বার্সেলোনার একটি হলে অনুষ্ঠিত হয় ‘ভয়েস অব বার্সেলোনা’র প্রস্তুতি সভা।

সভা পরিচালনা করেন উদীয়মান সংগঠন এ আর লিটু এবং সভাপতিত্বে ছিলেন সফল ব্যাবিসায়ী আমিন আলী রফিক। নবগঠিত এ সংগঠনের কার্যক্রম, দিক নির্দেশনা, সঠিক পথচলা এ বিষয়গুলো নিয়ে উপস্থিতির মধ্যে বক্তব্য রাখেন কমিউনিটি ব্যাক্তিত্ব হাসিবুর রহমান মিলন, আফাজ জনি, কাজী আমির হোসেন আমু, খালেদুর রহমান, খালেদ রফিক, নজরুল ইসলাম আবির, মিজানুর রহমান মিজান, কামরুজ্জামান ফটিক, সুমন আহমদ, আনিসুর রহমান বিজয়, মোঃ ফয়সল আহমদ, মোঃ আলী আকবর, বিধুভূষন দাস, আব্দুল মুকিত, জুয়েল আহমদ সৈয়দ, হুমায়ূন আহমদ প্রমূখ।

স্পেন বাংলা প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক আফাজ জনি সমাপনি বক্তব্যের পূর্বে সভাপতি-মোঃ ফয়সল আহমদ, সাধারণ সম্পাদক-এ আর লিটু, প্রচার সম্পাদক হিসেবে এম লায়েবুর রহমান এর নাম ঘোষনা করেন।


সংহতি সাহিত্য পরিষদের উদ্যোগে আমিরাতে বাঙালিয়ানা উৎসব

মঙ্গলবার, ১১ এপ্রিল ২০১৭

বাপ্ নিউজ : আমিরাত প্রতিনিধি : ‘বিশ্ব মানব হবি যদি শ্বাশত, বাঙালি হ’ এই স্লোগানে নববর্ষকে স্বাগত জানিয়ে বর্ণাঢ্য আয়োজনে সংযুক্ত আরব আমিরাত সংহতি সাহিত্য পরিষদের উদ্যোগে বাঙালিয়ানা উৎসব অনুষ্ঠিত হয়েছে।আমিরাত সংহতি সাহিত্য পরিষদের সভাপতি মোস্তাকা মৌলার সভাপতিত্বে পরিষদের সম্পাদক কবি লুৎফুর রহমানের সঞ্চালনায় শুক্রবার (৭ এপ্রিল) শারজাহ শেখ ফয়সল এলাকায় জাতীয় সংগীতের মধ্য দিয়ে শুরু হয় উৎসব। উৎসব সমন্বয়ক ছিলেন সংহতি আমিরাতের সহ-সভাপতি সৈয়দা দেবা। আমিরাত প্রবাসীদের প্রাণের আমেজে বৈশাখের পুঁথি, জারি, ভাটিয়ালি, লোকগীতি, কবিতা, লোকনৃত্য, উৎসবে দেশীয় খাবার, পিঠা প্রদর্শনী, ও মুক্তিযুদ্ধের গান ছিল এই উৎসবে। শিশুরাও এসেছিলেন বাঙালি সাজে। প্রবাসে বেড়ে ওঠা প্রজন্মকে বাংলা সংস্কৃতির সঙ্গে পরিচয় করাতে এমন আয়োজনের প্রয়োজন বলে জানান প্রবাসীরা।

alt

এতে গান পরিবেশন করেন আমিরাত প্রবাসী কণ্ঠশিল্পী রেহানা রহমান, ইয়াছমিন কালাম, জসিম উদ্দিন পলাশ, শম্পা শফিক, মাসুম, ত্হমিনা রিক্তা, সাবরিনা মেহেরুন ও সঞ্জয় ঘোষ। কবিতা আবৃতি করেন প্রফেসর আবদুস সবুর, সৈয়দা দিবা, আহমেদ ইফতিখার পাভেল, আবদুল্লাহ শাহিন, মাহনুর রওশন মুমু এবং নাচ পরিবেশন করেন তিশা সেন। উৎসবে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সিআইপি জেসমিন আক্তার, নারী উদ্যোক্তা শাফিয়া আক্তার আখি, এনআরবি ব্যাংক পরিচালক আবদুল করিম ও শফিকুল ইসলাম প্রমুখ।


ডেনমার্কে অপ্রথাগত বাংলাদেশি পণ্যের প্রদর্শনী

রবিবার, ০৯ এপ্রিল ২০১৭

Picture

বাপ্ নিউজ : ডেনমার্কের রাজধানী কোপেনহেগেনে বাংলাদেশ দূতাবাস ও ডেনিশ কম্পানি নিউ এশিয়ান নরডিক গ্রুপের যৌথ আয়োজনে ৬ এপ্রিল সন্ধ্যায় স্থানীয় 'এশিয়া হাউস' এ রপ্তানির ক্ষেত্রে অপ্রথাগত বাংলাদেশি পণ্যর একটি জাঁকজমকপূর্ণ প্রদশর্নী অনুষ্ঠিত হয়। বাংলাদেশি কারিগরদের নিপুণ হাতের ছোঁয়ায় এবং প্রখ্যাত ডেনিশ ডিজাইনারদের করা নকশার যুগপৎ মিশ্রণে তৈরি বাংলাদেশি পণ্য অনুষ্ঠানে আগত অতিথিদের মাঝে ব্যাপক আগ্রহ-উদ্দীপনার জন্ম দেয়।

alt
 
অনুষ্ঠানে উল্লেখযোগ্য সংখ্যক ইউরোপিয়ান রাষ্ট্রদূত, ডেনমার্কের বিভিন্ন বৃহৎ আমদানীকারক প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধি এবং বিনিয়োগকারীরা উপস্থিত ছিলেন। প্রদর্শিত পণ্যের মধ্যে নিউ এশিয়ান নরডিক গ্রুপ এবং অন্যান্য বাংলাদেশি প্রতিষ্ঠানের তৈরি বাইসাইকেল ও কার্গোবাইক, অর্গানিক চা, পাটের তৈরি কার্পেট ও অন্যান্য পণ্য, পিতলের তৈজসপত্র, হস্তশিল্প, চামড়াজাত পণ্য উল্লেখযোগ্য।

alt

অনুষ্ঠানের শুরুতে ডেনমার্কে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ আব্দুল মুহিত তার শুভেচ্ছা বক্তব্যে ডেনমার্কসহ ইউরোপের অন্যান্য দেশে মানসম্পন্ন বাংলাদেশি অপ্রথাগত পণ্যের প্রসারে অপার সম্ভাবনার কথা তুলে ধরেন। তিনি এ খাতে ডেনিশ ব্যবসায়ীদের অধিকতর বাণিজ্য ও বিনিয়োগে আহ্বান জানান। তিনি বলেন, ২০১৫-১৬ অর্থবছরে ডেনমার্কে বাংলাদেশের রপ্তানি আয় ছিল ৬৬৪ মিলিয়ন মার্কিন ডলার। যার মধ্যে সিংহভাগই (৯৭ %) ছিল তৈরি পোশাক খাতে। রাষ্ট্রদূত ডেনমার্কে অপ্রথাগত বাংলাদেশি পণ্য প্রসারে স্থানীয় নিউ এশিয়ান নরডিক গ্রুপের উদাহরণ টেনে বিনিয়োগকারী ও ব্যবসায়ীদের এ ধরণের সুযোগ কাজে লাগিয়ে লাভবান হওয়ার আহ্বান জানান।

alt

তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশ দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে সবচেয়ে ব্যবসা-বিনিয়োগবান্ধব হওয়ায় এখানে বাণিজ্য ও বিনিয়োগের মাধ্যমে ডেনিশ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানগুলো লাভবান হতে পারে। অনুষ্ঠানে নিউ এশিয়ান নরডিক গ্রুপের সিইও হেনরিকবাক প্রদর্শিত পণ্যগুলোর বিশেষত্ব সবার মাঝে তুলে ধরেন।

alt

উল্লেখ্য, বাংলাদেশ সরকার ২০১৫ সালের মে মাসে ডেনমার্কে নতুন দূতাবাস স্থাপন করে যার অন্যতম লক্ষ্য ছিল দুই দেশের মধ্যে বাণিজ্য প্রসার ও বিনিয়োগ বৃদ্ধির প্রচেষ্টা বেগবান করা। মূলত বাংলাদেশ সরকারের বিশ্বব্যাপী বাংলাদেশের বহুমুখী রপ্তানি পণ্যের প্রসারে নেওয়া কার্যক্রমের অংশ হিসেবে বাংলাদেশ দূতাবাস এ প্রদর্শনীর আয়োজন করে।


সম্মেলন সফল করুন : ডেনমার্ক আওয়ামী লীগ

শুক্রবার, ০৭ এপ্রিল ২০১৭

বাপ্ নিউজ : ডেনমার্ক আওয়ামী লীগের ত্রি- বার্ষিক সম্মেলন ২০১৭, সফলভাবে সম্পন্ন করার লক্ষে, সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটি ও নির্বাচন কমিশনের যৌথ উদ্যগ,আগামী ৮ই এপ্রিল ২০১৭, শনিবার, সন্ধ্যা ৭ টায় রুইপার্কেন কমিউনিটি সেন্টারে, এক সাধারন সভার আয়োজন করা হয়েছে ।সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটি চেয়ারম্যান শাহাব উদ্দিন ভুইয়া ও নির্বাচন কমিশনের প্রধান তাইফুর রহমান এক যুক্ত বিবৃতিতে বলেন, আগামী ৬মে ২০১৭ অনুষ্ঠিতব্য ডেনমার্ক আওয়ামীলীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন, ডেনমার্ক আওয়ামী লীগের সকল সদস্যদের নিয়ে সফল ও সার্থকভাবে সম্পন্ন হবে । ইতিমধ্যে ছোট খাটো মতানৈক্য সমাধানে সন্তোষজনক অগ্রগতি হয়েছে।

Picture

আগামী ৮ এপ্রিল ২০১৭,শনিবারের সাধারন সভায় সকলের গঠনতান্ত্রিক আলোচনার মধ্যদিয়ে, সম্মেলনের চূড়ান্ত কর্মকান্ড নির্ধারন করা হবে । ইতিমধ্যে , ডেনমার্ক আওয়ামী লীগের সকল সদস্যদের আমন্ত্রন জানানো হয়েছে । ডেনমার্কের সকল নেতৃবৃন্দরা আশা করেন , ডেনমার্ক আওয়ামী লীগের এই গুরুত্বপুর্ন সম্মেলনে, জননেত্রী শেখ হাসিনার আস্থাভাজন নেতা, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ইউরোপ ইউংস প্রধান ও সর্ব ইউরোপিয়ান আওয়ামী লীগের চেয়ারম্যান শ্রী অনিল দাশ গুপ্ত ,প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত থেকে সম্মেলনকে সফল করবেন । সর্ব ইউরোপিয়ান আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক, উদীয়মান জনপ্রিয় তরুন নেতা শামীম হক , প্রবাসী কল্যাণ সম্পাদক হাসনাত মিয়াসহ ইউরোপের বিভিন্ন দেশের নেতাদের আগমন অনেকটা নিশ্চিত।

নেতৃদ্বয়, ডেনমার্ক আওয়ামীলীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন সফল করার জন্য সকলের প্রতি আহবান জানান । বিস্তারিত তথ্যের জন্য , ডেনমার্ক আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্যবৃন্দ এবং সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির সদস্য মাসুদ চৌধুরী, সৈয়দ মোঃ শোয়েব ,শফিকুল ইসলাম এবং ডঃ সাহাদাত হোসেন খানের সাথে যোগাযোগের অনুরোধ করা হয়েছে । উক্ত সাধারন সভায়, আপনাকে উপস্থিত থাকার জন্য বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো ।

শুভেচ্ছান্তে,
শাহবুদ্দিন ভুইয়া
চেয়ারম্যান,
সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটি ২০১৭

প্রধান নির্বাচন কমিশনার
ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন ২০১৭
সভার আলোচ্যসুচী

# সম্মেলন সংক্রান্ত গৃহীত বিধি-বিধান প্রকাশ ও আলোচনা
# কাউন্সিলার, ডেলিগেট এবং সম্মানিত অতিথি সংক্রান্ত আলোচনা
# সম্মেলনের বাজেট সংক্রান্ত আলোচনা
# উপ-কমিটির কর্মকান্ডের অগ্রগতি সম্বন্ধে আলোচনা
# বিবিধ
স্থান> Ryparken 21, DK-2100 Copenhagen- Ø
সভা শেষে নৈশ ভোজ


সুইজারল্যান্ডে স্বাধীনতা দিবসে বইমেলা, পিঠা উৎসব ও মুক্তির গান

বুধবার, ০৫ এপ্রিল ২০১৭

Picture

বাপ্ নিউজ : বাংলাদেশের মহান স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে সুইজারল্যান্ডের জুরিখের বাংলা স্কুলের এবারের কর্মসূচিতে ছিল বইমেলা, পিঠা উৎসব, বিদেশিদের নিয়ে ছবি প্রজেকশন ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। জুরিখের লিমাটপ্লাজের স্কুল মিলনায়তনের নিচতলায় ১১৪ নম্বর লিমাটস্ট্রিটের ফয়ার হল জুড়ে ছিল হরেক রকমের পিঠা ও বইয়ের মেলা। গির্জার হলে বাংলাদেশ ও মুক্তিযুদ্ধের ওপর ঘণ্টাব্যাপী ছবি প্রদর্শনী এবং হানস বেডার হলে মুক্তির গান শিরোনামের সংগীতানুষ্ঠান।

অনুষ্ঠানের একটি দৃশ্য

ডিজিটাল যুগের ইলেকট্রনিকস ইকুইপমেন্টের অতিরিক্ত নেতিবাচক ব্যবহার বিশেষ করে গেমস আমাদের নতুন প্রজন্মকে বই থেকে দুরে সরিয়ে রাখছে। এ সমস্যা সমাধানে প্রত্যেকের হাতে বই দিয়ে বই পড়ার অভ্যাস গঠনের লক্ষ্যে সবাইকে এগিয়ে আসার তাগিদ দেওয়ার প্রয়োজনীয়তার ওপর গুরুত্বারোপ করে প্রথমবারের মতো এই মেলার আয়োজন করে বাংলা স্কুল। এই বইমেলায় জার্মান ভাষায় আমাদের বাংলা সাহিত্যের কয়েকটি উল্লেখ্যযোগ্য বই অনুবাদ করার আগ্রহ প্রকাশ করেছে স্থানীয় একটি প্রকাশনী সংস্থা।একদিনের জন্য হলেও পিঠা খাও আর বই পড় এমন শিরোনামের এই উৎসবে উপস্থিত ছোট বড় দেশি বিদেশি সবার উৎসাহ ছিল বেশ আশাব্যঞ্জক।
অনুষ্ঠানের একটি দৃশ্য

পাশেই হানস বেডার হলে মুক্তির গান শিরোনামের সংগীতানুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন মনিরুল ইসলাম। সংগীত পরিবেশন করেন জার্মানপ্রবাসী সংগীত শিল্পী প্রকৌশলী মিনহাজ দীপন ও রোকনসহ এবং স্থানীয় শিল্পীরা। তবলায় ছিলেন আরেক জার্মানপ্রবাসী বাংলাদেশি প্রকৌশলী চিরঞ্জিত চাকি টিটু।যথারীতি স্কুলের সহযোগী সংগঠন শ্রী ‍চিন্ময় সেন্টারের ভিনদেশি বন্ধুরা পরিবেশন করেন জাতীয় সংগীত ও দেশের গান। স্কুলের শিশুরাও এই পরিবেশনায় অংশ নেয়।
অনুষ্ঠানের একটি দৃশ্য

পিঠা উৎসব শুরু হওয়ার আগে গির্জার হলে মেইন স্টিমের শতাধিক অংশগ্রহণকারীদের নিয়ে বাংলাদেশ ও মুক্তিযুদ্ধের ওপর ঘণ্টাব্যাপী ছবি প্রদর্শন এবং সেমিনারের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে আলোচক ছিলেন হেক্স প্রজেক্ট কর্মকর্তা মাথিয়াজ হাউপ্ট। তিনি তার বক্তব্যে মুক্তিযুদ্ধের সময় পাকিস্তান সেনাবাহিনী কর্তৃক সংগঠিত গণহত্যার বিষয়টিও আলোচনায় নিয়ে আসেন।স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে আয়োজিত এই সব কটি অনুষ্ঠানেই উপস্থিত ছিলেন সুইজারল্যান্ডে বাংলাদেশ দূতাবাস ও স্থায়ী মিশনের প্রথম সচিব মোহাম্মাদ হোসেন সরকার। তিনি প্রবাসে দেশের ভাবমূর্তি বিকাশের লক্ষ্যে প্রবাসী বাংলাদেশিদের সবাইকে একসঙ্গে কাজ করার আহ্বান জানান। তিনি প্রবাসীদের সকল সমস্যায় পাশে থাকবার অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন।
অনুষ্ঠানের একটি দৃশ্য

জুরিখপ্রবাসী বাংলাদেশিদের দীর্ঘদিনের দাবি জুরিখে কনসাল সেবা প্রদান চালু প্রসঙ্গে তিনি বলেন, রাষ্ট্রদূত বিষয়টি অবগত আছেন এবং দ্রুতই জুরিখে অস্থায়ী মিশনের কাজ শুরু হবে। জুরিখে কনসাল সেবা প্রদানের দাবির সঙ্গে তিনি পুরোপুরি একমত প্রকাশ করেন।প্রবাসে বাংলা ভাষা এবং সংস্কৃতি বিকাশের লক্ষ্যে আয়োজিত এই উৎসবে বরাবরের মতো এবারেও দেশি বিদেশিদের অংশগ্রহণ ছিল লক্ষণীয়।


পর্তুগালে বৃহত্তর নোয়াখালী অ্যাসোসিয়েশনের বনভোজন ও অানন্দভ্রমণ

বুধবার, ০৫ এপ্রিল ২০১৭

Picture

১২৯০ সালে প্রতিষ্ঠিত কুইমব্রা বিশ্ববিদ্যালয় ও কুইমব্রা শহরের চারিদিকে ঘুরে দেখেন অংশগ্রহণকারীরা। বাচ্চাদের নিয়ে বিভিন্ন রাইড ভ্রমণ শেষে লিসবনের রাঁধুনী রেস্টুরেন্টের সুস্বাদু ও মুখরোচক বাংলা খাবারের অায়োজনে দুপুরের খাবার উপভোগ করেন সবাই।এরপর অংশগ্রহণকারী সবার গন্তব্য হয় পর্তুগালের সর্বোচ্চ পর্বতশৃঙ্গ সেররা দ্য এস্ট্রেলা। যেটি ভূ-পৃষ্ঠ থেকে প্রায় সাড়ে ছয় হাজার মাইল উপরে অবস্থিত। গ্রীষ্ম বা শীত হোক সব ঋতুতে বরফে অাচ্ছাদিত থাকে পুরো পর্বত। পর্বতে পৌঁছে পরবর্তী আনন্দ-বিনোদনের কার্যক্রম শুরু হয়। বরফ নিয়ে বাচ্চাদের স্কেটিং অার এদিক-ওদিক ছুটোছুটি ছিলে চোখে পড়ার মতো।

alt

সফরের অায়োজন ও পরিচালনায় ছিলেন বৃহত্তর নোয়াখালী অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি জাহাঙ্গীর অালম, জ্যেষ্ঠ সভাপতি অাবুল কালাম অাজাদ, অর্থ সম্পাদক তবারক হোসেন তপু, নজরুল ইসলাম সুমন, রনি মোহাম্মদ এবং মনজুরুল হোসেন জিন্নাহ। এছাড়াও অারও উপস্থিত ছিলেন অাবুল বাসার, শহীদ উল্লাহ, মো. মহিন, মো. লিটন, মো. সোহেল, মোশাররফ হোসেন, মো. অাকতারুজ্জামান প্রমুখ ও পরিবারবর্গ।