Slideshows

ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার

পরিচালনা পরিষদ 

সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি

ওসমান গনি
 

প্রধান সম্পাদক

হাকিকুল ইসলাম খোকন
 

সম্পাদক

সুহাস বড়ুয়া হাসু
 

সহযোগী সম্পাদক

আয়েশা আকতার রুবী

নিউয়র্কের খবর

ড. নূরন্নবীর আমেরিকায় জাহানারা ইমামের শেষ দিনগুলি’ গ্রন্থের আলোচনা

সোমবার, ২১ মার্চ ২০১৬

হাকিকুল ইসলাম খোকন বিশেষ সংবাদদাতা,বাপ্ নিউজ : নিউইয়র্ক থেকে :‘একাত্তরের বাংলাদেশের পুনর্জন্ম দানের জন্যে ক্যান্সারে আক্রান্ত জাহানারা ইমাম কীভাবে কাজ করেছেন, সে সময় তার মনোবল কেমন ছিল, ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির সহযোদ্ধাদের ভzমিকা এবং চিকিৎসার জন্যে ১৯৯০ থেকে ১৯৯৪ সাল পর্যন্ত ঘনঘন যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থানকালিন দিনগুলো বাংলাদেশের ইতিহাসের অবিচ্ছেদ্য অংশ হয়ে থাকবে। সেই অজানা অধ্যায় নতুন প্রজন্মের জানার বিশেষ প্রয়োজন উপলব্ধি করেই এ গ্রন্থ রচনায় মনোনিবেশ করি’-এসব কথা বলেন লেখক ড. নূরন্নবী ‘আমেরিকায় জাহানারা ইমামের শেষ দিনগুলি’ তার গ্রন্থে।

alt
গ্রন্থটির ওপর আলোচনা উপলক্ষে ১৯ মার্চ শনিবার সন্ধ্যায় নিউইয়র্ক সিটির জ্যাকসন হাইটসে জুইস সেন্টার এক সভার আয়োজন করে ‘একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি’র নিউইয়র্ক চ্যাপ্টার। জাতিরজনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবের ৯৬তম জন্ম বার্ষিকী উপলক্ষে কেক কাটার মধ্য দিয়ে এ অনুষ্ঠান শুরু হয়। সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের সভাপতি ফাহিম রেজা নূর। সমগ্র অনুষ্ঠানের সঞ্চালনা করেন সেক্রেটারি স্বীকৃতি বড়zয়া। গ্রন্থটির ওপর আলোচনা করেন লেখক-কলামিস্ট বেলাল বেগ এবং হাসান ফেরদৌস ও সাপ্তাহিক বাঙালির সম্পাদক কৌশিক আহমেদ।বেলাল বেগ বলেন, ‘বাংলাদেশকে এখনও একাত্তরের বাংলাদেশ বলা যাবে না। কারণ, এখনও জামাতের তৈরী বিএনপি বিদ্যমান রয়েছে। সত্যিকার অর্থে সেটি হচ্ছে ‘ভেজাল বাংলাদেশ।’ জাহানারা ইমাম সেই ভেজাল দূর করার পথ দেখিয়ে গেছেন। সে পথে আমাদের আরো জোরদারভাবে এগুতে হবে।’ ‘বাঙালিকে আবরো জেগে উঠার ক্ষেত্রে জাহানারা ইমামের সাহসী ভ’মিকা অত্যন্ত বলিষ্ঠভাবে এই গ্রন্থে উপস্থাপন করে ড. নবী একটি মৌলিক দায়িত্ব পালন করেছেন’-বলেন বেলাল বেগ।

alt
অধুনালুপ্ত সাপ্তাহিক প্রবাসীর সম্পাদক সৈয়দ মুহম্মদ উল্লাহ শহীদ জননী জাহানারা ইমামকে বাঙালি জাতির জন্যে ‘ইতিহাসের এক বিশেষ ব্যক্তি’ হিসেবে অভিহিত করে বলেন, ‘তার দৃঢ় মনোবলের কারণে দীর্ঘদিন পর হলেও একাত্তরের ঘাতকদের বিচারে বাঙালিরা ঐক্যবদ্ধ হয়েছেন।’হাসান ফেরদৌস বলেন, ‘জাহানারা ইমামের নেতৃত্বে বাংলাদেশে শুরু হওয়া ঘাতক বিরোধী আন্দোলনে যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসীদের সম্পৃক্ততার ধারাবিবরণী হিসেবে এই গ্রন্থের ভ’মিকা অপরিসীম।’জাহানারা ইমামের ছিল না কোন রাজনৈতিক দল বা পুলিশ-প্রশাসন। তবে তার পক্ষে ছিলেন আপামর জনগোষ্ঠি। মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে অর্জিত ভূখন্ডে রাজাকার-কুলঙ্গারদের ঠাঁই হবে না-এটি ছিল তার মন্ত্র এবং এ মন্ত্রে আমরা প্রবাসীরাও জেগে উঠি। আর এভাবেই শহীদ জননী জাহানারা ইমাম হয়ে উঠেন মুকুটহীন সরাজ্ঞী।’

alt
কৌশিক আহমেদ বলেন, ‘মহীয়সী রমনী জাহানারা ইমাম একদিকে ক্যান্সারের যন্ত্রণায় ছটফট করেন, আবার একইসাথে বাংলাদেশে চলমান আন্দোলনে সম্পৃক্তদেরকেও দিক-নির্দেশনা দিয়েছেন। এসব অজানা তথ্য প্রকাশ না করলে গৌরবের অনেকখানিই হয়তো অজানা থেকে যেত।’একাত্তরের কাদেরিয়া বাহিনীর থার্ড ইন কমান্ড, পঁচাত্তর থেকে যুক্তরাষ্ট্রে বসবাসরত বিজ্ঞানী এবং বর্তমানে নিউজার্সীর প্লেইন্সবরো সিটির কাউন্সিলম্যান ও এই গ্রন্থের লেখক ড. নূরন্নবী তার বক্তব্যে বলেন, ‘আমি সাহিত্যিক নই। লেখকও হতে চাই না। এটি লিখেছি দায়বদ্ধতা থেকে। শহীদ জননী জাহানারা ইমামের ভূমিকা বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে নতুন করে জাগ্রত করার ক্ষেত্রে কতটা জরুরী ছিল-তা প্রজন্মকে অবহিত করার তাগিদ থেকেই লিখেছি গ্রন্থটি।’বইটির দাম ধার্য করা হয়েছে ১০ ডলার। অনুষ্ঠানে আগত অনেকেই বইটি ক্রয় করেন এবং ড. নবীর অটোগ্রাফ নেন। বাংলা একাডেমি প্রাঙ্গণের বইমেলায় ২০১৫ সালে এটি প্রথম প্রকাশ পেলেও এবারের বইমেলায় সংশোধিত কপি প্রকাশ করে সময় প্রকাশন।


নিউইয়র্ক স্টেট আওয়ামীলীগের উদ্যোগে বঙ্গবন্ধুর ৯৬তম জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস পালন

রবিবার, ২০ মার্চ ২০১৬

হাকিকুল ইসলাম খোকন: বাপ্ নিউজ : নিউইয়র্ক থেকে :বিশ্বের নির্যাতিত নিপীড়িত বঞ্চিত মানুষের নেতা ও স্বাধীন বাংলাদেশের স্থপতি, সর্ব কালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৬তম জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস উপলক্ষে নিউইয়র্ক স্টেট আওয়ামীলীগ গত ১৭ই মার্চ রোজ বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৬টায় এস্টোরিয়ার সুন্দরবন রেষ্টুরেন্টে এক আলোচনা সভা ও মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করে ।

alt

উক্ত আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন সভাপতি মুজিবুর রহমান ও পরিচালনা করেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক শাহীন আজমল শাহিন । দোয়া পরিচালনা করেন স্টেট আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি শেখ আতিকুল ইসলাম ।বাঙালি জাতির অবিসংবাদিত এই নেতা ১৯২০ সালের ১৭ই মার্চ গোপালগঞ্জ জেলার টুঙ্গিপাড়ায় এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন।বঙ্গবন্ধুর ৯৬তম জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস যথাযোগ্য মর্যাদা ও উৎসাহ-উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে দিবসটি উদযাপিত হয় । এতে শিশু কিশোর সহ অনেক অভিবাবক উপস্থিত ছিলেন ।

alt

এতে অন্যান্যদের মধে্য উপস্থিত ছিলেন নিউইয়র্ক স্টেট আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি মহি উদ্দিন, এম আর সেলিম, উপদেষ্টা আব্দুল মতিন, প্রচার সম্পাদক ভিপি পলাশ, প্রবাসী কল্যাণ সম্পাদক সালাউদ্দিন চৌধুরী, সহ প্রচার সম্পাদক ফিরোজ আহমদ, যুক্তরাষ্ট সেচ্ছসেবক লীগের সহ-সভাপতি ও নিউইয়র্ক স্টেট আওয়ামীলীগের কার্যনির্বাহী সদস্য দুরুদ মিয়া রনেল,স্টেট আওয়ামীলীগের কার্যনির্বাহী সদস্য এম এন জিনাত, আবুল বাশার মিলন, মইন উদ্দিন মাইন ও অভিবাবক বৃন্দ ।খবর বাপসনিঊজ।
alt
সভার প্রারম্ভে ১৯৭৫-এর ১৫ আগষ্ট স্বপরিবারে নিহত জাতির জনক বঙ্গবন্ধু, ডাকা কেন্দ্রিয় কারাগারে চার জাতীয় নেতা, একাত্তর-এর মুক্তিযুদ্ধ ও  ১৯৫২- এর মহান ভাষা আন্দোলনসহ আজ পর্যন্ত সকল গণতান্ত্রিক আন্দোলনে নিহতদের স্মরনে সভায় দাঁড়িয়ে  এক মিনটি কাল নিরাবতা পালন করা হয়।


নিউইয়র্কে বাংলাদেশ কনস্যুলেট এ বঙ্গবন্ধুর ৯৬তম জন্ম বার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস উপদযাপন

রবিবার, ২০ মার্চ ২০১৬

হাকিকুল ইসলাম খাকন,খোকন,বাপসনিঊজ: বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেনারেল ১৭ মার্চ ২০১৬ তারিখে যথাযোগ্য মর্যাদায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৬তম জন্ম বার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস উদযাপন করে। কর্মসূচীর অংশ হিসেবে শিশুদের চিত্রাংকন ও রচনা প্রতিযোগিতা, বঙ্গবন্ধুর জীবন ও কর্ম সম্পর্কে আলোচনা এবং তাঁর বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করে বিশেষ মোনাজাত করা হয়। মহামান্য রাষ্ট্রপতি, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, মাননীয় পররাষ্ট্র মন্ত্রী, মাননীয় পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী কর্তৃক প্রদত্ত বাণী পাঠ করে শোনানো হয়।

alt
কনসাল জেনারেল শামীম আহসান, এনডিসি, তার স্বাগত বক্তৃতায় শিশুদের প্রতি জাতির পিতার প্রগাঢ় ভালোবাসার কথা উল্লেখ করে নতুন প্রজন্মের কল্যাণে বঙ্গবন্ধু এবং বর্তমান সরকার কর্তৃক গৃহীত পদক্ষেপ সমূহের উপর আলোকপাত করেন। তিনি বঙ্গবন্ধুর বর্ণাঢ্য ও কর্মময় জীবনের বিভিন্ন দিক সম্পর্কে নতুন প্রজন্মকে অবহিত করার প্রয়োজনীয়তার কথা উল্লেখ করেন।খবর বাপসনিঊজ।

alt
আলোচনা সভায় ব্রাজিলে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মিজারুল কায়েস ও কম্যুনিটির নেতৃবৃন্দ আলোচনা করেন এবং আবৃত্তিকাররা বঙ্গবন্ধুর উপরে কবিতা পাঠ করেন। স্থানীয় কমিউনিটির বিপুল সংখ্যক সদস্য এবং তাদের শিশু সন্তান, কনস্যুলেট জেনারেল এর কর্মকর্তা/কর্মচারী এবং তাদের পরিবারের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। বিজয়ী প্রতিযোগীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরন করা হয়। বঙ্গবন্ধুর জন্ম দিন উপলক্ষে কেক কাটা পর্বে শিশুসহ অন্যান্যরা অংশগ্রহণ করেন।

alt
অনুষ্ঠান শেষে অতিথিদের ঐতিহ্যবাহী বাংলাদেশী খাবার পরিবেশন করা হয়।প্রারম্ভে ১৯৭৫-এর ১৫ আগষ্ট স্বপরিবারে নিহত জাতির জনক বঙ্গবন্ধু, ডাকা কেন্দ্রিয় কারাগারে চার জাতীয় নেতা, একাত্তর-এর মুক্তিযুদ্ধ ও  ১৯৫২- এর মহান ভাষা আন্দোলনসহ আজ পর্যন্ত সকল গণতান্ত্রিক আন্দোলনে নিহতদের স্মরনে সভায় দাঁড়িয়ে এক মিনটি কাল নিরাবতা পালন করা হয়।

Bangladesh Consulate in New York Celebrates 96th Birth Anniversary of Bangabandhu and National Children’s Day

Hakikul Islam Khokan,Bapsnews:The Consulate General of Bangladesh in New York celebrated 96th Birth Anniversary of the Father of the Nation Bangabandhu Sheikh Mujibur Rahman and National Children’s Day on 17 March 2015 in a befitting manner. The program included, among others, painting and essay competition for the children, discussion-meeting, screening of a documentary on the life and works of Bangabandhu and special prayer and cutting of cake. Messages of the Honorable President, Honorable Prime Minister, Honorable Foreign Minister and Honorable State Minister for Foreign Affairs were read out.
 alt
In his welcome remarks, Mr. Md. Shameem Ahsan, ndc, Consul General of Bangladesh in New York mentioned about the heartfelt attachment of the Father of the Nation for the children. He also shed lights on various initiatives Bangabandhu and of the present government for the welfare of the younger generation. He also highlighted on the need for educating the children about the life and works of Bangabandhu.  
alt
H.E. Mr. Mohamed Mijarul Quayes, Bangladesh Ambassador to Brazil and members of the community also shared their thoughts on Bangabandhu’s role in the emergence of Bangladesh. A large number of children and representatives of various social, cultural and political organizations of the community were present along with the officials and their families of the Consulate General. Prizes were distributed among the winners. The guests were served with traditional Bangladeshi food.


ওয়াশিংটনে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে ফোবানার ৩০তম আসর দুই লক্ষ ডলারের বাজেট নিয়ে নিউইয়র্ক সংবাদ সম্মেলনে নেতৃবৃন্দ

বৃহস্পতিবার, ১৭ মার্চ ২০১৬

হাকিকুল ইসলাম খোকন: বাপ্ নিউজ :নিউইয়র্ক (যুক্তরাষ্ট্র) থেকে : ওয়াশিংটনে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে ফোবানার ৩০তম আসর দুই লক্ষ ডলারের বাজেট নিয়ে । ”ফোবানার অঙ্গীকার বাঙালির অংহকার” এই স্লোগান নিয়ে ওয়াশিংটনের অদূরে যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক বাহিনির সদর দপ্তর পেন্টাগনের পাশেই শেরাটন পেন্টাগন সিটি হোটেলে ফোবানার ৩০তম আসর অনুষ্ঠিত হবে বলে গত ১২ জানুয়ারি শনিবার নিউইয়র্কে এক সংবাদ সম্মেলনে জানিয়েছেন আয়োজক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ। গত ১২ মার্চ শনিবার নিউইয়র্কের জ্যাকসন হাইটসের পালকি সেন্টারে ৩০তম ফোবানা সম্মেলনের আয়োজক সংগঠন বাংলাদেশ এসোসিয়েশন অব আমেরিকা (বাগডিসি)। ৩০তম সম্মেলনের সহযোগিতায় রয়েছে ওয়াশিংটনের অন্যতম বৃহৎ সংগঠন বাংলাদেশ এসোসিয়েশন অব আমেরিকা ইনক (বাই)।

alt
 
সংবাদ সম্মেলনে নেতৃবৃন্দ জানান, ৩০তম ফোবানা সম্মেলনকে সামনে রেখে নেয়া হয়েছে নানা কর্মসূচী নানা আয়োজন। ওয়াশিংটনবাসীকে ঐক্যবদ্ধ ফোবানার ছায়াতলে নিয়ে এসে একটি সফল ফোবানা সম্মেলন উপহার দেয়ার জন্য নেয়া হয়েছে সর্বাতœক উদ্যেগ। ওয়াশিংটনের বাংলাদেশ ইঞ্জিনিয়ার্স এন্ড আর্কিটেক্ট (আবেয়া), ধ্রুপদ, একতারা, ফ্রেন্ডস এন্ড ফ্যামেলি, বিসিসিডিআই (বাংলাস্কুল), প্রিয় বাংলা সহ আরো অনেক সংগঠন এই ৩০তম ফোবানার ছায়াতলে ঐক্যবদ্ধ হয়েছে।

alt

সম্মেলনে বাংলাদেশ থেকে শিল্পী সাহিত্যিক বুদ্ধিজীবী রাজনীতিবীদ, সাংবাদিকদের আমন্ত্রন জানানো হয়েছে। সম্মেলনে সাইন্স ফেয়ার ইয়ুথ ফোরাম কাব্য জলসা, প্যারেড, ম্যারাথন সেমিনার চিত্র প্রদর্শনী, চলচ্চিত্র প্রদর্শনী সহ নানা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে বলেও জানিয়েছেন নেতৃবৃন্দ।

alt

লেখক সাংবাদিক শিব্বীর আহমেদ ও এনটিভি প্রতিনিধি আবির আলমগীরের উপস্থাপনায় অনুষ্ঠিত এই সাংবাদিক সম্মেলনের শুরুতেই ৩০তম ফোবানা সম্মেলনের স্বাগতিক কমিটিকে পরিচয় করিয়ে দেয়া হয়। সংবাদ সম্মেলনে মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন স্বাগতিক কমিটির সভাপতি ও এক্সিকিউটিভ কমিটির ভাইস চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আলমগীর, এক্সিকিউটিভ কমিটির  চেয়ারম্যান নাহিদ চৌধুরী মামুন,সরাফত এইচ বাবু , কনভেনার এটিএম আলম, সদস্য সচিব নুরুল আমিন, প্রধান সমন্বয়ক করিম সালাউদ্দীন, ফাইন্যান্স কমিটির কো-চেয়ার গোলাম মোস্তফা, উপদেষ্টা রাশেদুল ইসলাম খান ও সাংবাদিক হারুন চৌধুরী।


যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের উদ্যোগে ঐতিহাসিক ৭ মার্চের আলোচনা সভা

সোমবার, ১৪ মার্চ ২০১৬

Picture

মঞ্চে অন্যান্যের মধ্যে আসন অলংকৃত করেছিলেন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের অন্যতম সহ সভাপতি যথাক্রমে আকতার হোসেন, সৈয়দ বসারত আলী, আবুল কাশেম, সাংগঠনিক সম্পাদক ফারুক আহমেদ, আইন বিষয়ক সম্পাদক এ্যাড শাহ মোঃ বখতিয়ার, দপ্তর সম্পাদক প্রকৌ: মোহাম্মদ আলী সিদ্দিকী, প্রবাসী কল্যাণ সম্পাদক সোলেমান আলী ।

alt

আলোচনা সভার এক পর্যায়ে বাংলাদেশ থেকে কেন্দ্রীয় বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ডাঃ দীপু মনি টেলিফোনে ভাষণ প্রদান করেন। তিনি যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের আয়োজনে ঐতিহাসিক ৭ মার্চের আলোচনা সভায় উপস্থিত নিউইয়র্ক স্টেট আওয়ামী লীগ, সিটি আওযামী লীগ, যুবলীগ, শ্রমীক লীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, মহিলা আওয়ামী লীগ, ছাত্রলীগ, মুক্তিযোদ্ধা সংহতী পরিষদ, শেখ রাসেল স্মৃতি সংসদ, শেখ হাসিনা মঞ্চ, সহ সকল সংগঠনের নেতাকর্মীদের শুভেচ্ছা জানান। তিনি জাতির পিতা বঙ্গবন্দু শেখ মুজিরের ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ভাষনের প্রেক্ষাপট তূলে ধরে বলেন তিনি তীলে তীলে বাঙালী জাতীকে ঐক্যবন্ধ করে স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধের ডাক দিয়েছিলেন। বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ আজ আন্তর্জাতিকভাবে শ্রেষ্ট ভাষগুলির অন্যতম সেরা ভাষনের তালিকায় স্থান পেয়েছেন।

alt
আলোচনা সভার শুরুতে বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণের টেপ বাজিয়ে শোনানো হয়। সভায় আলোচক সা:বাংলা পএিকা সম্পাদক আবু তাহের  তার বক্তব্যের মধ্য দিয়ে আলোচনা শুরু হয়। তিনি বঙ্গবন্ধুকে ইতিহাসের একক ও অবিসংবাদিত নেতা হিসেবে উল্লেখ করে বলেন, স্বাধীকার ও মুক্তির জন্যে ডাক দিয়েছিলেন বলেই সমগ্র জাতী মিলে পাক হানাদার বাহিনীকে পরাস্থ করে আমাদের, স্বাধীনতা লাভ সম্ভব হয়েছিল। বঙ্গবন্ধু দলমত নির্বিশেষে সকল বিতর্কের উধ্বে, জাতির মহানায়ক।

alt
সবার প্রারম্ভে ১৯৭৫-এর ১৫ আগষ্ট স্বপরিবারে নিহত জাতির জনক বঙ্গবন্ধু, ডাকা কেন্দ্রিয় কারাগারে চার জাতীয় নেতা, একাত্তর-এর মুক্তিযুদ্ধ ও  ১৯৫২- এর মহান ভাষা আন্দোলনসহ আজ পর্যন্ত সকল গণতান্ত্রিক আন্দোলনে নিহতদের স্মরনে সভায় দাঁড়িয়ে  এক মিনটি কাল নিরাবতা পালন করা হয়। রফিকুল ইসলামের কোরআন তেলাওয়াত ও গণেশ কির্তনীয়ার গীতা পাঠের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠানের শুরু হয়।


শিমুল মোস্তাফার আবৃত্তি ও রুবিনা শিল্পীর সংগীতে মুগ্ধ দর্শক শ্রোতা

সোমবার, ১৪ মার্চ ২০১৬

Picture

হাকিকুল ইসলাম খোকন,বাপসনিউজ: যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসের অন্যতম সাংস্কৃতিক সংগঠন ‘উত্তরণ শিল্পী গোষ্ঠী ইউএসএ এর উদ্যোগে গত ১১ মার্চ শুক্রবার রাত সাড়ে ৮টায় নিউইয়র্কের জ্যাকসন হাইটসের পালকি সেন্টারে বাংলাদেশের জনপ্রিয় আবৃতি শিল্পী শিমুল মোস্তাফার আবৃতি এবং প্রবাসের জনপ্রিয় সংগীত শিল্পী রুবিনা শিল্পীর গানে মুগ্ধ দর্শক শ্রোতাবৃন্দ। খবর বাপসনিউজ।

alt
পিন পতন নীরবতায় শিমুল মোস্তাফার অনেকগুলো আবৃতি এবং রুবিনা শিল্পীর সঙ্গীতে দর্শক শ্রোতাগন তাদের ভরাট কন্ঠের মাধুর্যে ছিলেন বিমোহিত । চমৎকার আবৃতি ও সঙ্গীতের অনুষ্টানটিতে ছিলেন হলভর্তি দর্শক শ্রোতা।

alt

শিমুল মোস্তাফার অসাধারন কবিতা আবৃতি সাথে সাথে কবিতা এবং সময়ের প্রেক্ষাপট বর্ণনা করেছেন।এবং পাঁচ মিশালী সংগীত  পরিবেশন করেন রুবিনা শিল্পী। তারা দক্ষতার প্রমান দিয়েছেন। অনুষ্টানের শুরুতে সংগঠনের সাধারন সম্পাদক সেলিম ইব্্রাহিম ২টি সংগীত পরিবেশন করেন। শিমুল মোস্তাফার অনুরোধে একটি কবিতা আবুতি করেন নাট্যাভিনেত্রী লুৎফুন্নাহার লতা।অনুষ্টান উপস্থাপনা করেন সাবিনা শারমিন নিহার।

alt
শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন কবি আবু রায়হান। আবৃতি শিল্পী শিমুল মোস্তাফাকে ফুলের তোড়া দিয়ে বরণ করেন সংগঠনের অন্যতম উপদেষ্টা এবিএম সালেহউদ্দিন ও সংগীত শিল্পী রুবিনা শিল্পকে ফুলের তোড়া দিয়ে বরণ করেন নাট্যাভিনেত্রী লুৎফুন্নাহার লতা।

alt

অনুষ্ঠানে তবলায় সহযোগীতা করেন জনপ্রিয় তবলা শিল্পী পিনাক গোস্বামী । কি বোডে পার্থ গ্রপ্ত,অক্টোপ্যাডে রাকেশ ব্যানার্জী এবং সাউন্ড সিষ্টেমে ছিলেন হারুন খান । অনুষ্টানের প্রারম্ভে মহান স্বাধীনতা যুদ্ধে শহীদের প্রতি দাঁড়িয়ে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়।


৩ মাস ধরে বাংলাদেশি বধূ মাহফুজা নিখোঁজ নিউইয়র্কে

বৃহস্পতিবার, ১০ মার্চ ২০১৬

হাকিকুল ইসলাম খোকন: বাপ্ নিউজ : নিউইয়র্ক থেকে :নিউইয়র্ক সিটির ব্রঙ্কসের বাংলাদেশি বধূ মাহফুজা রহমানের সন্ধান করছে নিউইয়র্কের পুলিশ। ডিসেম্বরের ৮ তারিখ কর্মস্থল বেলভ্যু হাসপাতাল ত্যাগের পর থেকেই তার আর সন্ধান নেই। বেলভিউ হাসপাতালের নার্স মাহফুজা (৩০)’র স্বামী মোহাম্মদ চৌধুরী (৩৮) হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে সে সময় জানিয়েছিলেন যে, বাংলাদেশে এক দুর্ঘটনায় নিকটাত্মীয়ের আহত হবার সংবাদ পেয়েই মাহফুজা ঢাকায় চলে গেছেন। মাস তিনেক পর ফিরবেন। কিন্তু সে অনুযায়ী তিনি মার্চের প্রথম দিনেও ফিরেননি। এমনকি এই দীর্ঘ সময়ে মাহফুজা তাদের সাথে ফোন কিংবা ই-মেইলেও যোগাযোগ করেননি।

নিউ ইয়র্কে বাংলাদেশি গৃহবধূর নিখোঁজ রহস্যে তৎপর পুলিশ

এমন পরিস্থিতিতে হাসপাতালের সহকর্মীরা তার বাসায় এবং স্বামীকে ফোন করে না পেয়ে পুলিশকে অবহিত করেন। এরপর পুলিশ ব্রঙ্কসের কিংসব্রিজ হেইটস এলাকায় ইস্ট ১৯৮ স্ট্রিটের বাসায় গত ৫ মার্চ গিয়ে দেখেন যে ঘরটি তালাবদ্ধ।প্রতিবেশীরা পুলিশকে জানান, ৩ মাস ধরেই বাসাটি তালাবদ্ধ এবং মাহফুজার স্বামী মোহাম্মদ চৌধুরীও ৯ বছর বয়েসী কন্যাকে নিয়ে সম্প্রতি বাংলাদেশে চলে গেছেন। যাবার সময় নিকট প্রতিবেশীদের অনুরোধ জানিয়েছেন বাসার প্রতি খেয়াল রাখতে। এ পরিস্থিতিতে পুলিশের সন্দেহ আরও বাড়ে। মাহফুজাকে হত্যা করে লাশ গুম করা হয়েছে আশংকায় তারা গত ৭ মার্চ সোমবার ওই বাড়ির আঙ্গিনা খুঁড়ে এবং কুকুর দিয়ে তল্লাশি চালায়। এর আগে পুরো বাসা তন্নতন্ন করে খোঁজ করা হয়। কিন্তু তেমন কিছুর হদিস পায়নি পুলিশ। বাসার সামনে পুলিশ প্রহরা বসানো হয়েছে। ঘটনাটি সর্বত্র চাঞ্চল্য সৃষ্টি করেছে। পুলিশের ধারণা, মাহফুজা মারাত্মক কোন পরিস্থিতির শিকার হয়েছেন। এজন্য তারা নিকটস্থ আদালতে আবেদন জানিয়েছে মাহফুজা রহমানের ব্যাংক একাউন্টের হদিস জানার অনুমতির জন্য।

নিউ ইয়র্কে বাংলাদেশি নার্স নিখোঁজের খবর

নিউইয়র্কের পুলিশ অনুরোধ জানিয়েছে বাংলাদেশে তার স্বজনদের অবিলম্বে যোগাযোগ করতে। জানা গেছে, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে রসায়নে মাস্টার্স করে নিউইয়র্কে আসার পর হান্টার কলেজ থেকে নার্সিংয়ে ডিপ্লোমা করেছেন মাহফুজা। লাগোয়ার্ডিয়া কলেজ থেকে ২০১৪ সালে তিনি কলা ও বিজ্ঞানে এসোসিয়েট ডিগ্রিও সংগ্রহ করেছেন। মাহফুজা যে এলাকায় বাস করছিলেন সেখানে বা তার আশপাশে বাংলাদেশিদের বসতি না থাকায় তাদের ব্যাপারে বিস্তারিত জানা সম্ভব হয়নি। ব্রঙ্কসের কম্যুনিটি লিডার ও আবদুর রহীম বাদশা ৮ মার্চ বলেন, ঘটনাটি মূলধারার সংবাদপত্র এবং মিডিয়ায় দেখার পর চেষ্টা করছি মাহফুজা ও চৌধুরী দম্পতির হদিস উদঘাটনে। সেটি জানা সম্ভব হলে বাংলাদেশে তাদের স্বজনদের ফোন করে হয়তো প্রকৃত রহস্য জানা সম্ভব হবে।


২রা মার্চ পতাকা উত্তোলন দিবস এর আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

মঙ্গলবার, ০৮ মার্চ ২০১৬

দ্বিতীয় ধারায় গণমুখী রাজনীতির মাধ্যমে নতুন বাংলাদেশ গঠন করতে হবে...... -জেএসডি যুক্তরাষ্ট্র শাখার
হাকিকুল ইসলাম খোকন ,বাপসনিউজ:২রা মার্চ স্বাধীনতার পতাকা উত্তোলন দিবস উপলক্ষে গত ২রা মার্চ বুধবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় ৩৭-০৭, ৭৪ ষ্ট্রীট, জ্যাকসন হাইটসের সাপ্তাহিক দেশবাংলা ও বাংলাটাইমস কার্যালয়ে জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জেএসডি যুক্তরাষ্ট্র শাখা আয়োজিত আলোচনা সভায় স্মৃতিচারণমূলক বক্তৃতায় প্রধান অতিথি বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের সাবেক সংসদ সদস্য ও মুক্তিযোদ্বা আনিসুজ্জামান খোকন বলেন, ব্রিটিশ উপনিবেশিক শক্তির সরাসরি বিরোধীতায় গত ২শ বছরে বিপ্লবী ধারার ভিত্তিতে দেশজ উপাদান সংযুক্ত করে জনগণের অংশিদারিত্ব দিয়ে দ্বিতীয় ধারায় গণমুখী রাজনীতির মাধ্যমে নতুন বাংলাদেশ গঠন করতে হবে।

alt

আওয়ামী লীগ-বিএনপি-জাতীয় পার্টি-জামায়াতের রাজনীতির একই ধারা-যা যুক্তরাজ্য ভিত্তিক সংসদীয় গণতান্ত্রিক ব্যবস্থা চর্চা করে, উপনিবেশিক শাসন বা আইন দিয়ে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ বা স্বাধীনতা উপযোগী রাষ্ট্র ব্যবস্থা প্রবর্তন করা সম্ভব হবে না। জনাব খোকন বলেন, দ্বিতীয় ধারার রাজনীতির ধারাবাহিকতায় নিউক্লিয়াস-বিএলএফ গড়ে উঠে এবং সর্বশেষ সশস্ত্র যুদ্ধের মাধ্যমে বাংলাদেশ ‘জাতি-রাষ্ট্র’ অর্জিত হয়। ১৯৬২ সাল থেকে ১৯৭১ সাল পর্যন্ত সকল আন্দোলন সংগ্রামের পরিকল্পনাকারী ছিলো নিউক্লিয়াস। ২রা মার্চ-৩রা মার্চ-৭ মার্চ ছিলো ইতিহাসের ধারাবাহিকতা-ইতিহাসের ন্যায্যতা যা বিনষ্ট করা যায় না।২রা মার্চ উপলক্ষে আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল -জেএসডি যুক্তরাষ্ট্র শাখার সভাপতি হাজী আনোয়ার হোসেন লিটন এবং সাধারন সম্পাদক সামসুউদ্দিন আহমেদ শামীম-এর সার্বিক উপস্থাপনা ও পরিচালনায় অনুষ্টিত সভায় সম্মানীত বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন সাপ্তাহিক দেশবাংলা ও বাংলাটাইমস প্রধান সম্পাদক ডা:চেীধুরী সারওয়ারুল হাসান, সমাজতান্ত্রিক দল -জেএসডি কেন্দ্রিয় কমিটির প্রবাস বিষয়ক সম্পাদক ও মুলধারার রাজনৈতিক এডভোকেট মুজিবুর রহমান, যুক্তরাষ্ট্রস্থ সোহরাওয়ার্দী স্মৃতি পরিষদের সভাপতি প্রবীণ শিশু সাহিত্যিক হাসানুর রহমান,সাবেক ছাএলীগনেতা জাকির হোসন সপন সা:আজকাল সম্পাদক মনজুর আহেমদ,সাংবদিক মইনঊদিদন নােসর,যুক্তরাষ্ট্র জাতীয় পার্টির সাধারন সম্পাদক আবু তালেব চৌধুরী চান্দু, রাজনীতিক ও লেখক এডভোকেট মনির হোসেন ও প্রগ্রেসিপ ফোরামে জাকির হোসেন বাচ্চু প্রমুখ। সভায় অন্যান্যদের মাঝে বক্তব্য রাখেন জেএসডি যুক্তরাষ্ট্র শাখার সহ -সভাপতি সুভাষ মজুমদার,সাংগঠনিক সম্পাদক মীর তসলীম ঊদদীন খান,নুর আলম সেলিম,জয়নাল আবেদীন,নুরুল ইসলাম,হজরত আলাী,তারেক মাহমুদ।

alt
প্রধান অতিথি বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের সাবেক সংসদ সদস্য ও মুক্তিযোদ্বা আনিসুজ্জামান খোকন  বলেন, সিরাজুল আলম খানের অবদান, তার সৃষ্ট স্বাধীন বাংলা নিউক্লিয়াস , বি এল এফ এর ভুমিকা , ২রা মার্চ স্বাধীনতার পতাকা উত্তোলন ও ৩রা মার্চ স্বাধীনতার ইশতেহার পাঠসহ ইতিহাসের উলেখযোগ্য ব্যক্তি ও ঘটনাসমুহকে রাষ্ট্রীয়ভাবে স্বীকৃতি না দেয়া এক দিকে যেমন ইতিহাসের বিকৃতি অন্যদিকে তা স্বাধীনতার প্রশ্নে বঙ্গবন্ধুকে খাটো করার অপচেষ্টার সামিল। এর দ্বারা প্রমানিত হয় বঙ্গবন্ধু পাকিস্তানীরা চাপিয়ে দেয়ার আগে স্বাধীনতা চাননি। ‘৭১ এর ১৭ই এপ্রিল প্রবাসী সরকার শপথ নেয়ার আগে আওয়ামী লীগ কোনদিন স্বাধীনতার পক্ষে প্রস্তাব গ্রহন করেনি। ৬২ সাল থেকে নিউক্লিয়াস ও পরবর্তীতে গঠিত বি এল এফ স্বাধীনতার পক্ষে কাজ করেছে।  নিউক্লিয়াস ও বিএলএফ এর পরিকল্পনার ফসলই হলো স্বাধীনতার পতাকা উত্তোলন, ইশতেহার পাঠ । এ সব কিছুর সাথে বঙ্গবন্ধুর সংশ্লিষ্টতাই প্রমান করে তিনি ৬০ এর দশক থেকেই স্বাধীনতার পক্ষে ছিলেন।আবদুল মালেক রতন বলেন, ১/১১ কে নিয়ে বেশী ঘাটাঘাটি করলে কেঁচো খুড়তে সাপ বেরিয়ে পড়বে। অতএব তা না করে ১/১১ সৃষ্টির মতো রাজনৈতিক পরিস্থিতি যাতে দেশে সৃষ্টি না হয় তার জন্য সরকার সহ সংশ্লিষ্ট সকল মহলকে সতর্ক থাকতে হবে।

alt
সবার প্রারম্ভে ১৯৭৫-এর ১৫ আগষ্ট স্বপরিবারে নিহত জাতির জনক বঙ্গবন্ধু, ঢাকা কেন্দ্রিয় কারাগারে চার জাতীয় নেতা, একাত্তর-এর মুক্তিযুদ্ধ ও  ১৯৫২- এর মহান ভাষা আন্দোলনসহ আজ পর্যন্ত সকল গণতান্ত্রিক আন্দোলনে নিহতদের স্মরনে সভায় দাঁড়িয়ে  এক মিনটি কাল নিরাবতা পালন করা হয়। শেষে সবাইকে নৈশভোজে আপ্যায়ণ করা হয়।


বারাক ওবামা ডেমোক্রেটিক ক্লাব- এর আয়োজনে নিউইয়র্ক ১৩ কংগ্রেশনাল প্রার্থী ফোরাম

শনিবার, ০৫ মার্চ ২০১৬

alt
হাকিকুল ইসলাম খোকন,বাপসনিউজ:  যুক্তরাষ্ট্রের কংগ্রেসের নিউইয়র্ক কংগ্রেশনাল ডিষ্ট্রিক ১৩এর এক ফোরাম গত ২৮ ফেব্রুয়ারী রবিবার ৩টায়, ৫৩০ ওয়েষ্ট ১৬৬ ষ্ট্রীট ম্যানহাটনের আলী আনজা ডমিনিকান কালচ্যারাল সেন্টারে অনুষ্টিত হয়।

alt

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা ক্লাবের উদ্যোগে অনুষ্টিত যুক্তরাষ্টের কংগ্রেসের ১৩ ডিষ্ট্রিক এর নির্বাচনে প্রার্থীদের এর ফোরামে অংশ নেন

alt

নিউইয়র্ক ষ্টেট সিনেটর এডরিয়ানো এসপাইয়াদ্র, নিউইয়র্ক ষ্টেট সিনেটর কিথ রাইট, নিউইয়ক ষ্টেট এ্যাসেলীম্যান এডাম ক্লেটন পাওয়াল , ড. গুলিনারো লিনাবেস, ফ্লডি ইউলিয়াম,সোজেন জনসন কুক এবং মাইক্যাল গেলাগার।

alt

১৩ কংগ্রেশনার প্রাইমারী অনুষ্ঠিত হবে ২৮ জুন। সকল প্রার্থীই নিজের যোগ্য বলে দাবী করেন। এবং অভিবাসী, অর্থনীতি সহ বিভিন্ন কর্মসূচীর কথা অভিব্যাক্তি করেন।

alt
উক্ত ফোরামে সাউথ এশিয়ার একমাত্র আমন্ত্রিত হিসেবে অংশ নেন বাপসনিউজ এডিটর হাকিকুল ইসলাম খোকন।

alt

alt


"ফাউন্ডেশন অফ গ্রেটার জৈন্তা" নিউইয়র্ক এর নতুন কমিটি গঠন

শনিবার, ০৫ মার্চ ২০১৬

হাকিকুল ইসলাম খোকন: বাপ্ নিউজ :নিউইয়র্ক থেকে : প্রাকৃতিক সৌন্দর্য আর ঐতিহ্যের ধারক বাহক ও খনিজ সম্পদে ভরপুর  বৃহত্তর জৈন্তা(জৈন্তাপুর-গোয়াইনঘাট-কানাইঘাট-কোম্পানীগন্জ) এলাকার উন্নয়নে, প্রবাসীদের সমন্বয়ে সম্প্রতি গঠিত "ফাউন্ডেশন অফ গ্রেটার জৈন্তা" নিউইয়র্ক এর নতুন কমিটি গঠন করা হয়েছে।

Picture

নিউইয়র্কে বসবাসরত বৃহত্তর  জৈন্তা'র প্রবাসীদের বহু প্রত্যাশিত এই সামাজিক সংগঠন এর নতুন কমিটি গঠন উপলক্ষ্যে গত 30শে জানুয়ারী শনিবার রাত আটটায় অনাড়ম্বর এক সাধারণ   সভা অনুষ্ঠিত হয়। বাংলাদেশী অধ্যুষিত নিউইয়র্কের জ্যাকসন হাইটসে উক্ত সভায় সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের আহবায়ক মাওলানা রশীদ আহমদ।সংগঠনের সদস্য সচিব জামীল আনছারীর সাবলীল উপস্থাপনায় শুরুতে কালামে হাকীম থেকে তেলাওয়াত করেন মৌলভী আলা উদ্দিন।প্রথমে চলে পরিচিতি পর্ব।এরপর শুরু হয় মূক্ত আলোচনা।

alt

মূক্ত আলোচনায় অংশ নেন মাওলানা জাকারিয়া মাহমুদ, বরকতুল করীম, বুরহান উদ্দিন, রফিক আহমদ, সৈয়দ আলী,মুহাম্মাদ আব্বাস,আলা উদ্দিন, মহসীন মাসরুর প্রমূখ। এছাড়াও মেহমান হিসেবে  আরো উপস্থিত ছিলেন সাংবাদিক   রিমন ইসলাম, হাকিকুল ইসলাম খোকন ও সৈয়দ আদনান।

alt

আলোচনা পর্যালোচনার এক পর্যায়ে সংগঠনের কার্যক্রম কে আরো বেগবান করার লক্ষ্যে 13 সদস্য বিশিষ্ট  কার্যকরী কমিটি ও আট সদস্য বিশিষ্ট উপদেষ্টা পরিষদ  গঠন করা হয়। নব নির্বাচিত  "ফাউন্ডেশন অফ গ্রেটার জৈন্তা " নিউইয়র্ক আগামী  2016-2017 সেশনের কমিটি নিম্নরূপঃ

alt
সভাপতিঃ- মাওলানা রশীদ আহমদ(গোয়াইনঘাট )
সহঃ সভাপতিঃ- মহাম্মদ আব্বাস (কানাইঘাট )
সহঃ সভাপতিঃ- মুহাম্মদ বুরহান উদ্দিন (গোয়াইনঘাট )
সহঃ সভাপতিঃ- শামীম চৌধুরী (কানাইঘাট )
সহঃ সভাপতিঃ মাওলানা আনোয়ার হোসাইন (গোয়াইনঘাট )
সাধারন সম্পাদকঃ- জামিল আনছারী(জৈন্তাপুর)
সহঃ সাধারন সম্পাদকঃ- সৈয়দ আলী(কোম্পানিগঞ্জ )

alt
সহঃ সাধারন সম্পাদকঃ- মুনায়েম কিবরিয়া(গোয়াইনঘাট )
সাংঘঠনিক সম্পাদকঃ- রফিক আহমদ (কানাইঘাট )
সহঃ সাংঘঠনিক সম্পাদকঃ- বিদ্যুৎ দেব (জৈন্তাপুর)
অর্থ সম্পাদকঃ- বারাকাতুল কারীম (কানাইঘাট )
প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদকঃ- মহসিন মাসরুর(জৈন্তাপুর)
সহ প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদকঃ আবদুল মোহিত(কোম্পানিগঞ্জ )।
কার্যকরী কমিটির পরামর্শের উপর ভিত্তি করে আগামী কিছুদিনের ভিতরে উপদেষ্টা মন্ডলীর নাম ঘোষণা করা হবে।
সবশেষে অনুষ্ঠানে  উপস্থিত সবাইকে সংগঠনের পক্ষ থেকে  ডিনার পরিবেশন করা হয়।


সাংবাদিক শাহানার দুর্ঘটনায় দাঁত ভেঙ্গে গেছে

শনিবার, ০৫ মার্চ ২০১৬

হাকিকুল ইসলাম খোকন,বাপসনিউজ: মহান ভাষা দিবস ও আন্তজার্তিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলামনাই এসোসিয়েশন আয়োজিত নিউইয়র্কের এষ্টোরিয়ার এনটিভি ভবনে অনুষ্টিত একুশের অনুষ্টানে ভবনের দরজায় ধাক্কা লেগে গুরুতর আহত হয়েছেন টিভি সাংবাদিক সৈয়দা লুৎফা শাহানা। খবর বাপসনিউজ।

alt

২০ ফেব্রুয়ারী ,শনিবার সন্ধ্যায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলামনাই এসোসিয়েশনসহ প্রবাসের বিভিন্ন সংগঠনের সম্মিলিত উদ্যোগে আয়োজিত এনটিভি ভবনের অনুষ্টানে ঢুকতে গিয়ে মিলনায়তনের কাঁচের দরজায় তিনি ধাক্কা খান। দরজার শক্ত কাচটি তিনি আলো-আঁধারেতে লক্ষ্য করতে পারেনি। প্রচন্ড আঘাতে তার সামনের দুটি দাঁত ভেঙ্গে মাটিতে পড়ে যায়। মুখ দিয়ে তখন রক্ত ক্ষরণ হতে থাকে । তিনি দ্রুত ওয়াশ রুমে গিয়ে রক্ত নিয়ন্ত্রণে আনেন। একটি ভাঙ্গা দাঁত তিনি মেঝেতে কুড়িয়ে পেলে ও অপরটি পাননি। বর্তমানে তিনি চিকিৎসা ধীন রয়েছেন বলে জানাগেছে। নিউইয়র্ক প্রবাসী সাংবাদিক লুৎফা শাহানা ঢাকায় একুশে টিভি, দিগন্ত টিভি ও বৈশাখী টিভিতে সাংবাদিকতা করেছেন । একুশে টিভিতে তিনি যুগ্ম বার্তা সম্পাদক ও দিগন্ত টিভিতে বার্তা সম্পাদক হিসাবে কর্মরত ছিলেন।

alt

ছবিতে গত বছর ২২ মে ২০১৫ সালে নিউইয়র্কের জ্যাকসন হাইটসের পিএম-৬৯ অডিটরিয়ামে অনুষ্ঠিত মুক্তধারার বইমেলার একটি ষ্টলে সাংবাদিক সৈয়দা লুৎফা শাহানাকে দেখা যাচ্ছে -আমেরিকান প্রেসক্লাব অব বাংলাদেশ অরিজিন সভাপতি সাংবাদিক হাকিকুল ইসলাম খোকন এর সাথে। ছবিঃ বাপসনিউজ।