Slideshows

ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার

পরিচালনা পরিষদ 

সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি

ওসমান গনি
 

প্রধান সম্পাদক

হাকিকুল ইসলাম খোকন
 

সম্পাদক

সুহাস বড়ুয়া হাসু
 

সহযোগী সম্পাদক

আয়েশা আকতার রুবী

যুক্তরাষ্ট্রের খবর

আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাতের পবিত্র ফাতেহায়ে ইয়াজদহম পালন

বৃহস্পতিবার, ২৮ ডিসেম্বর ২০১৭

Picture

বাদ মাগরিব থেকে মধ্যরাতব্যাপী মাহফিলের শুরুতে পবিত্র কোরআন তেলাওয়াত করেন হাফেজ মাওলানা ওয়াসিম সিদ্দিকী, না’ত শরীফ পেশ করেন মুহাম্মদ ওমর ফারুক ও শামীম তালুকদার ও উদ্বোধনী বক্তব্য রখেন সংগঠনের মহাসচিব আলহাজ্ব মুহাম্মদ সেলিম উদ্দিন। উক্ত মাহফিলের আহ্বায়ক- মুরাদুল আলম চৌধুরী, প্রধান সমন্ময়কারী- নাজিম উদ্দিন এবং যুগ্ম আহ্বায়কদ্বয়- মোঃ ইয়াহিয়া হোসেন ও মুহাম্মদ মুরাদ মুজাদ্দেদী আগত সবাইকে স্বাগত জানান। মাহফিলে বক্তব্য রাখেন সংগঠনের কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দঃ মাওলানা আতাউর রহমান, আলহাজ¦ মোহাম্মদ ইকবাল হোসাইন, সৈয়দ হেলাল উদ্দিন মাহমুদ, হাফেজ মাওলানা আব্দুর রহিম মাহমুদ, মোহাম্মদ আসলাম হাবীব, শেখ মুহাম্মদ আলী, মজিবুর রহমান, মোহাম্মদ ওমর ফারুক, হাজী মোহাম্মদ এসকান্দর মিয়া, মোহাম্মদ আরিফ চৌধুরী, মুহাম্মদ দিদার, মোহাম¥দ ইউসুফ আলী, মহাবুবুর রহমান, গিয়াস উদ্দীন আহমেদ চৌধুরী, শামীম তালুকদার, সফিকুল ইসলাম, মুহাম্মদ শাহ আলম, মোঃ মুনিরুল হক চৌধুরী, শাহ জাকারিয়া, নাজমুল খান, বদরুল হক, সৈয়দ আকিকুর রহমান, আবু সালিক, মতিউর রহমান চৌধুরী প্রমুখ। মাহফিলে বিশেষ সহযোগিতায় ছিলেন আব্দুল কাদের মিয়া, আনোয়ার হোসেন, শাহ জে চৌধুরী, এটিএম সালেহ আহমেদ, খোরশেদ খন্দকার, আরশাদ ওয়ারেশ, আবু তালেব চৌধুরী চান্দু, মোঃ নাদের, মুরাদ হোসেন, মোঃ কামাল উদ্দিন, বদিউল আলম প্রমুখ।

alt

প্রথান মেহমান আল্লামা শায়েখ আবু সুফিয়ান আল কাদেরী বলেন, নবীপ্রেম হলো ঈমানের মূল, আর ওলীপ্রেম হলো নবীপ্রেমের পূর্বশর্ত। আর তাই ওলীপ্রেমহীন ইসলাম প্রকৃত ইসলাম নয়। কোরআন ও সুন্নাহর আলোকে তিনি বলেন অসংখ্য আয়াত শরীফ ও হাদিসসমূহে ইমামত ও বেলায়েতের উল্লেখ থাকার পরেও যারা ইমাম ও ওলীদের বিরুদ্ধাচরন করে তাদেরকে চিন্থিত করে সরলপ্রাণ মুসলমানদের ঈমান রক্ষায় আমাদের সবাইকে আহলে সুন্নাতের পতাকাতলে ঐক্যবদ্ধ হয়ে বাতেল ফেরকা সমূহের প্রাদুর্ভাব রুখতে হবে। তিনি আরও বলেন হাদিস শরীফে সুস্পষ্টভাবে উল্লেখ রয়েছে যে মহান প্রিয়নবী (দঃ) বলেছেন আমার প্রত্যেক্ষ সময়ের পর, আরও তিনটি প্রজন্ম সম্মিলিতভাবে ঈমান ও দ্বীনের দলিল। আর তাই প্রথম প্রজন্মঃ আহলে বায়েত, খোলাফায়ে রাশেদীন ও সাহাবায়ে কেরাম, দ্বিতীয় প্রজন্মঃ তাবেয়ীন, তৃত্বীয় প্রজন্মঃ তাবে তাবেঈন ও চতুর্থ প্রজন্ম ঃ আইম্মায়ে মুজতাহেদীন তথা মজহাবের ইমামবৃন্দ। তৎপরবর্তীতে সেই চার প্রজন্মের আনুগত্যের ধারাবাহিকতায় ইমামত ও বেলায়েতের সর্বশেষ সংযোজন তরীকতের ইমামগন যাঁদের সর্বশ্রেষ্ঠ হলেন গাউসুল আজম, ইমাম আব্দুল কাদের জিলানী (রাঃ)। তাঁর পরবর্তীতে ইমাম মুঈনুদ্দীন চিশতি, ইমাম বাহাউদ্দীন নক্শবন্দী, ইমাম আহমদ আল ফারুকী আল মুজাদ্দেদী (রাঃ) প্রমুখগন সারা পৃথিবীতে ঈমান-দ্বীন প্রচার ও মুসলিম মিল্লাতের প্রসারে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রাখেন যা সর্বজনবিদিত। আর তাই ঈমানের তাকিদে, প্রকৃত তাকওয়া অর্জনে ও পরিপূর্ণ ধর্ম পালনে সকল মুসলমানকে সাহাবায়ে কেরাম, ইমামবৃন্দ ও আওলিয়ায়ে কেরামের আনুগত্যে থাকা অত্যাবশ্যক যা ব্যতিরেকে ঈমান পরিপূর্ণ হয়না। আল্লামা শায়েখ আবু সুফিয়ান আল কাদেরী উল্লেখ করেন যে বেলায়েতের প্রতি আনুগত্যের শ্রেষ্ঠ প্রমান হলো ওলীকুল স¤্রাট গাউসুল আজম, ইমাম আব্দুল কাদের জ্বিলানী (রাঃ) এর প্রতি আনুগত্য যার প্রেমময় বহিঃপ্রকাশ হল “পবিত্র ফাতেহায়ে ইয়াজদহম” পালন। পরিশেষে আল্লামা শায়েখ আবু সুফিয়ান আল কাদেরী আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাতের পতাকাতলে ঐক্যবদ্ধ হয়ে সবাইকে স্বীয় ঈমান রক্ষা ও ধর্মের মূলধারায় থেকে দ্বীন ও মিল্লাতের খেদমত করার আহ্বান জানান। সালাতু সালাম তথা মিলাদ-ক্বিয়াম-দরূদ পাঠান্তে বিশ্ব মানবতার প্রকৃত মুক্তি কামনায় বিশেষ মুনাজাত ও তবারুক বিতরণের মাধ্যমে মাহফিল সমাপ্ত হয়।


মুক্তিযোদ্ধা অধ্যাপক গোলাম রহমান মজনু হাসপাতালে

বৃহস্পতিবার, ২৮ ডিসেম্বর ২০১৭

হাকিকুল ইসলাম খোকন,বাপসনিউজ ঃ গত ২১ ডিসেম্বর বৃহষ্পতিবার ফুসফুসের সমস্যা জনিত কারণে মুক্তিযোদ্ধা অধ্যাপক গোলাম রহমান মজনু নিউইয়র্কের কুইন্সের ফ্রেসব্যাটিরিয়ান হাসপাতালে ভর্তি হন। নিউউয়র্কের ব্রঙ্কএ বসবাসরত বরগুণা প্রবাসী মুক্তিযোদ্ধা অধ্যাপক গোলাম রহমান মজনুর সাত বছর পূর্বে ওপেন হার্ট সার্জারী করা হয়েছিল।

alt

তিনি সকল প্রবাসীদের দোয়া কামনা করেছেন। গত ২৩ ডিসেম্বর শনিবার সন্ধায় তাকে হাসপাতালে দেখতে গিয়েছিলেন কমিউনিটি এক্টিভিষ্ট জাহাঙ্গীর কবির ও সিনিয়র সাংবাদিক হাকিকুল ইসলাম খোকন। তারা মুক্তিযোদ্ধা অধ্যাপক গোলাম রহমান মজনুর  চিকিৎসার খোঁজ খবর নেন এবং ডাক্তারদের সাথে তার চিকিৎসার ব্যাপারে আলোকপাত করেন। হাসপাতালে মুক্তিযোদ্ধা অধ্যাপক গোলাম রহমান মজনু।ছবি:বাপসনিঊজ।


প্রবাসে বাংলা সংস্কৃতি বিকাশে সরকারকে এগিয়ে আসতে হবে- এটর্নী মঈন চৌধুরী

বৃহস্পতিবার, ২৮ ডিসেম্বর ২০১৭

হাকিকুল ইসলাম খোকন,বাপসনিঊজ:প্রবাসে বাংলা সংস্কৃতি সংরক্ষণ ও বিকাশে বাংলাদেশ সরকারকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান এটর্নী মঈন চৌধুরী। গত ২৩ শে ডিসেম্বর শনিবার সন্ধ্যা ৭টায় জ্যামাইকাস্থ স্টার পার্টি হলে বাংলাদেশ-আমেরিকা কালচারাল একাডেমী আয়োজিত শীতের পিঠা উৎসব এর উদ্ভোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ডেমোক্রেটিক পার্টির  ডিস্ট্রিক্ট লিডার এট-লার্জ এর্টনী এট ল’  মঈন চৌধুরী এই মন্তব্য করেন। খবর বাপসনিঊজ।

Picture
সংগঠনের সভাপতি পারভীন বানুর সভাপতিত্বে ও শেখ সিরাজ এর সঞ্চালনায় পিঠা উৎসবে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ডাঃ রোমানা সবুর, নিউইয়র্ক বাংলাদেশ প্রেস ক্লাবের সভাপতি ডাঃ ওয়াজেদ এ খান, নিউইয়র্ক বাংলাদেশ প্রেস ক্লাবের সাবেক সভাপতি  মাহফুজুর রহমান, এবিএম সালাহ্উদ্দিন সহ আরো অনেকে।প্রধান অতিথি এর্টনী মঈন চৌধুরী তাঁর বক্তব্যে আরো বলেন, যে দেশের সংস্কৃতি যত বেশি সমৃদ্ধ সেই দেশ তত বেশি উন্নত, আমরা বাংলাদেশী হিসেবে বাংলাদেশের সাহিত্য ও সংস্কৃতি নিয়ে গর্ববোধ করতে পারি। এই সংস্কৃতি সংরক্ষণ করার দায়িত্ব আমাদের সকলের। আমরা যদি সংরক্ষণ করতে না পারলে ভবিষ্যত প্রজন্মের কাছে তা হারিয়ে যাবে। প্রবাসে শত ব্যস্ততার মাঝেও যারা এই সংস্কৃতিকে কাজে কর্মে বাচিয়ে রেখেছেন তাদের প্রতি আমরা সবাই কৃতজ্ঞ। বাংলাদেশের বিশাল একটি জনগোষ্ঠী প্রবাসে স্থায়ীভাবে বসবাস করছে বিধায় বাংলাদেশ সরকারের উচিত প্রবাসে বাংলা সংস্কৃতি বিকাশে, সংরক্ষণে এবং প্রচারে বিভিন্ন সংগঠনকে প্রবাসী মন্ত্রনালয়ের মাধ্যমে সর্বাত্মকভাবে সহযোগিতা প্রদান করা। অন্যথায় হাজার বছরের ঐতিহ্য ও সংস্কৃতি অদূর ভবিষ্যতে নতুন প্রজন্মের কাছে পৌছানো কষ্টসাধ্য হবে পড়বে।
পিঠা উৎসবে আগত সকল অতিথিকে বিভিন্ন ধরনের সুস্বাদ্যু পিঠা পরিবেশন করা হয় এবং স্থানীয় শিল্পীবৃন্দের প্রাণবন্ত মনোঞ্জ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে পিঠা উৎসবকে উপভোগ্য করে তুলা হয়।


নিউইয়র্কে ব্রঙ্কসের পার্কচেষ্টার জামে মসজিদের নতুন কমিটির অভিষেক

বৃহস্পতিবার, ২৮ ডিসেম্বর ২০১৭

অভিষিক্তরা হলেন : সভাপতি মোস্তাক আহমদ চৌধুরী, সহ সভাপতি (১) আঃ শহীদ, সহ সভাপতি (২) জয়নাল আহমেদ চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক মো. খলিলুর রহমান, সহ সাধারণ সম্পাদক আম্বিয়া মিয়া, কালচারাল সেক্রেটারী হিফজুর রহমান চৌধুরী, ফিউনারেল সেক্রেটারী মোঃ নুরুল আহিয়া, মেইনটেনেন্স সেক্রেটারী মোঃ ফটিক মিয়া, এডুকেশন সেক্রেটারী ইসলাম উদ্দিন, কোষাধ্যক্ষ মাজলুল আহমেদ, সহ কোষাধ্যক্ষ মোঃ রফিকুল ইসলাম, সদস্য : আঃ বাছির খান, আঃ মতিন, লুকমান হোসেন লুকু ও মো. মজনু মিয়া।

অনুষ্ঠানে শপথ পরিচালনার প্রাক্কালে মসজিদের ইমাম ও খতিব মাওলানা মোহাম্মদ মঈনুল ইসলাম বলেন, নির্বাচন আসলেই এক পক্ষ আরেক পক্ষকে ঘায়েল করার চরম কাদা ছোড়া-ছুড়ি শুরু হয়। অভিযোগ পাল্টা অভিযোগ ছাড়াও ব্যক্তিগত চরিত্র হননেও প্রতিপক্ষরা সকল সীমা ছাড়িয়ে যায়। সাধারণ মুসল্লীরা পড়েন চরম বিপাকে। নির্বাচনকে ঘিরে মসজিদের পবিত্রতা হুমকির মুখে পড়ে যায়। তিনি বলেন, আল্লাহর ঘর মসজিদের পত্রিতা রক্ষায় ভবিষ্যতে ইলেকশান পরিহার করে সিলেকশনের মাধ্যমে কমিটি গঠন করা যায় কিনা সাধারণ মুসল্লীদের তরফ থেকে এ দাবি থাকল নতুন কমিটির কাছে। বাংলা বাজার জামে মসজিদের প্রতিষ্ঠাতা প্রেসিডেন্ট আলহাজ্ব গিয়াস উদ্দিন পার্কচেষ্টার জামে মসজিদ প্রতিষ্ঠায় তার ও অন্যান্যদের ভুমিকার কথা তুলে ধরে ভবিষ্যতে সুন্দর পরিবেশের জন্য ইলেকশান নয়, সিলেকশনের মাধ্যমে কমিটি গঠনের আহ্বান জানান।

বক্তারা মসজিদের নজিরবিহীন সুষ্ঠু নির্বাচন অনুষ্ঠানের জন্য নির্বাচন কমিশনের বলিষ্ঠ ভূমিকার কথা উল্লেখ করে তাদের ধন্যবাদ জানান। প্রধান নির্বাচন কমিশনার অধ্যাপক সাইয়্যিদ মুজিবুর নব নির্বাচিত কমিটির উদ্দেশ্যে বলেন, মসজিদের মুসুল্লিরা আগামী দু’বছরের জন্য আপনাদের উপর পবিত্র দ্বায়িত্ব অর্পণ করেছেন। তিনি মুসুল্লিদের কল্যানে সবাইকে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার আহ্বান জানিয়ে বলেন, ভালো বা মন্দ সকল কাজের জন্য মুসুল্লিদের কাছে আপনাদের জবাবদিহী করতে হবে। 

নির্বাচন কমিশনের সদস্য সচিব সিরাজ উদ্দিন আহমদ সোহাগ সুষ্ঠু নির্বাচন অনুষ্ঠানে সহায়তার জন্য সকলের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে বলেন, আমাদের ওপর অর্পিত পবিত্র দায়িত্ব পালনে আমরা সাধ্যমত চেষ্টা করেছি। এজন্য নির্বাচন কমিশন আপ্যায়ন বা ভাতা বাবদ কোন অর্থ গ্রহণ করেনি। তিনি বলেন, নির্বাচনে নমিনেশন ফি বাবদ প্রার্থীদের কাছ থেকে সংগৃহীত অর্থ থেকে প্রয়োজনীয় ব্যয় নির্বাহের পর উদ্বৃত্ত ৪৩২৫ ডলার নব নির্বাচিত কমিটিকে আমরা ফেরত দিয়েছি।

Picture

নব নির্বাচিত সভাপতি মোস্তাক আহমদ চৌধুরী তার বক্তব্যে নির্বাচন কমিশন, তাদের প্যানেল নির্বাচন পরিচালনা কমিটির আহ্বায়ক আবদুল হাসিম হাসনু, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী বাংলা টাউন সুপার মার্কেট ও বাংলা গার্ডেন রেষ্টুরেন্টের কর্ণধার কাওসারুজ্জামান কয়েস সহ সংশ্লিষ্ট সকলের প্রতি ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানান।পরে নর্থ ব্রঙ্কস জামে মসজিদ অ্যান্ড ইসলামিক সেন্টারের খতীব মাওলানা মো: মাসহুদ ইকবাল বিশেষ মুনাজাত পরিচালনা করেন। শপথ অনুষ্ঠান শেষে উপস্থিত সবাইকে মধ্যাহ্ন ভোজে আপ্যায়িত করা হয়।

উল্লেখ্য, বহুল আলোচিত পার্কচেষ্টার জামে মসজিদের নির্বাচন গত ১২ নভেম্বর রোববার সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন হয়। নির্বাচনে ১৫টি পদে ‘এ’ ও ‘বি’ ২টি প্যানেলে ৩০ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। পার্কচেস্টার জামে মসজিদের ইতিহাসে এবারই প্রথম বারের মত পদ ভিত্তিক সরাসরি নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। আগে সরাসরি ভোটে প্রথমে নির্বাচিত হতেন ১৫ জন। এরপর তারা নিজেদের মধ্যে গোপন ব্যালটে নির্বাচিত করতেন সভাপতি, সাধারণ সম্পাদকসহ অন্যদের। সংবিধান সংশোধন করে এবারই প্রথম সরাসরি পদভিত্তিক নির্বাচনের আয়োজন করা হল। এ নির্বাচনে মোট ভোটার ৮৭২ জনের মধ্যে ৭৩১ জন ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন। নির্বাচন পরিচালনা করে ৫ সদস্যের নির্বাচন কমিশন। তারা হলেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার সাইয়্যিদ মুজিবুর রহমান, নির্বাচন কমিশনের সদস্য সচিব সিরাজ উদ্দিন আহমদ সোহাগ. নির্বাচন কমিশনার ইফতেখার সিরাজ, শামিম মিয়া ও মোহাম্মদ আজিজুল করিম।

নির্বাচনে বিজিতরা হলেন, নাজিম-নজরুল প্যানেল : সভাপতি সৈয়দ আল ওয়াহিদ নাজিম, সহ সভাপতি (১) সৈয়দ শামসুজ্জামান আহমেদ, সহ সভাপতি (২) ফয়জুর রহমান চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক মোঃ নজরুল হক, সহ সাধারণ সম্পাদক মোঃ আকসাদ আলী, কালচারাল সেক্রেটারী মোঃ আব্দুল হাই, ফিউনারেল সেক্রেটারী মোঃ আরিফ চৌধুরী, মেইনটেনেন্স সেক্রেটারী মোঃ রেজাউল ইসলাম, এডুকেশন সেক্রেটারী সাব্বির কাজী আহমদ, কোষাধ্যক্ষ নুরুল হুদা চৌধুরী, সহ কোষাধ্যক্ষ জুলু আহমেদ, সদস্য: আলমাছ আলী, ফারুক চৌধুরী, কামাল উদ্দিন ও শালিক সিকদার।


নিউইয়র্কে ব্ল্যাকমেইল করে যৌন সম্পর্ক স্থাপন : এক বাংলাদেশী গ্রেফতার : চারিদিকে নানা ফাঁদ : ভাঙছে সংসার, বাড়ছে পারিবারিক অশান্তি

বৃহস্পতিবার, ২৮ ডিসেম্বর ২০১৭

Picture
নিউইয়র্কের অন্যতম শীর্ষ স্থানীয় ও বহুল প্রচারিত সাপ্তাহিক বাংলা পত্রিকার চলতি সংখ্যায় (২৫ ডিসেম্বর প্রকাশিত) একাধিক নারীকে ব্ল্যাকমেইল করে যৌন সম্পর্ক গড়ার অভিযোগে নিউইয়র্ক সিটি পুলিশ কর্তৃক এক বাংলাদেশীকে আটক করার খবর ‘লীড খবর’ হিসেবে প্রকাশিত হয়েছে। খবরটি কমিউনিটিতে ব্যাপক চাঞ্চল্য সৃষ্টি করেছে। বাংলা পত্রিকা সাবধান : চারিদিকে নানা ফাঁদ ॥ ভাঙছে সংসার, বাড়ছে পারিবারিক অশান্তি : ব্ল্যাকমেইল করে যৌন সম্পর্ক স্থাপন : এক বাংলাদেশী গ্রেফতার’ শিরোনামে খবরটি প্রকাশ করে। ইতিপূর্বে লুকন মিয়ার গ্রেফতারের খবরটি নিউইয়র্কের জনপ্রিয় টাইম টেলিভিশনে গত ২২ ডিসেম্বর রাত ১০টার ‘টাইম নিউজ’-এ ‘ফাঁদে ফেলে অসহায় বাংলাদেশী নারীদের সাথে যৌন সম্পর্কের অভিযোগ, নিউইয়র্কে আটক এক ব্যক্তি’ শিরোনামে মূল খবর হিসেবে প্রচার করে। খবর ইউএনএ’র।
বাংলা পত্রিকা’র খবরে বলা হয়েছে: বাংলাদেশী কমিউনিটির এক শ্রেনীর ‘সামাজিক দূর্বৃত্ত’ চারিদিকে নতুন নতুন ফাঁদ ফেলে নানা অপকর্ম করে বেড়াচ্ছে। বিশেষ করে নারীদেরকে নানা কৌশলে বা ফাঁদে ফেলে তাদের সাথে যৌন সম্পর্ক গড়ে তোলো তাদের জীবনে ঝড় তুলছে। ফলে ভাঙছে সংসার, বাড়ছে পারিবারিক অশান্তি। এদিকে ব্ল্যাকমেইল করে অসংখ্য নারীর সাথে যৌন সম্পর্ক স্থাপনের অভিযোগে গ্রেফতার হয়েছেন এক বাংলাদেশী। নিউইয়র্কের ব্রুকলীনের বাসিন্দা বাংলাদেশী লুকন মিয়া নামের এ ব্যক্তি কমিউনিটিতে বিভিন্ন নামে পরিচিত। বর্তমানে তাকে আলী মিয়া নামেও চিনে থাকেন অনেকে। alt

জানা গেছে, লুকন মিয়া ওরফে আলী মিয়া ব্রুকলীনের নস্টার্ন এলাকায় বসবাস করছে। তার বাড়ি বাংলাদেশের বৃহত্তর সিলেটের বালাগঞ্জ উপজেলায়। তার বিরুদ্ধে অভিযোগ অসংখ্য নারীকে ফুসলিয়ে ফাঁদে ফেলে যৌন সম্পর্ক স্থাপন করে তাদের সর্বশান্ত করেছে। পরিচিত কিংবা অপরিচিত বাংলাদেশী অভিবাসী নারীদের ‘আপা সম্বোধন’ করার পর নিজের ফ্ল্যাট কিংবা হোটেলে নিয়ে যাওয়ারও অভিযোগ পাওয়া গেছে। এরপর ব্লাকমেইলের মাধ্যমে মোবাইলে ভিডিও ধারণের পর যৌন সম্পর্ক স্থাপনে বাধ্য করা হয় ভুক্তভোগী অসংখ্য নারীদের। স্বামী-সংসার ও সমাজের কাছে হেয়-প্রতিপন্নের ভয়ে কথিত ‘আলী ওরপে লুকন মিয়ার’ জালে আটকে যাওয়া দু’জন নারী এবার প্রকাশ্য মুখ খুলেছেন।
অনুসন্ধানে জানা গেছে, রেস্টুরেন্টে ডেলিভারীম্যান হিসেবে কাজ করা ‘নারী লোভী’ এমন ব্যক্তির খপ্পরে পড়েছেন যারা, তাদের বেশীরভাগই নিরীহ। আনুষ্ঠানিক অভিযোগের পর বৃহস্পতিবার (২১ ডিসেম্বর) ব্রুকলীনের একটি বাসা থেকে লুকন মিয়াকে আটক করা হয়। ঘটনার দিন বাংলাদেশী আরেক নারী কৌশলেই আলী মিয়াকে বাসায় ডেকে নিয়ে আসে। এসময়ে হাজির করা হয় দীর্ঘদিন ধরে তার হাতে লালসার শিকার আরো দু’জন নারীকে। সবার উপস্থিতিতেই আনুষ্ঠানিক অভিযোগ গ্রহণের পর ‘আলী ওরফে লুকন মিয়’কে গ্রেফতার করে নিয়ে যায় পুলিশ।
জানা গেছে, অন্যান্য নারীদের মতো লুকন মিয়া ব্রুকলীনে বসবাসকারী অপর নারীর সাথে কৌশলে সম্পর্ক গড়ে তোলার চেষ্টা করে। চতুর বাংলাদেশী ঐ নারী লুকন মিয়ার মনোভাব বুঝে তাকে ফাঁদে ফেলার উদ্যোগ নেয়। তিনি তার স্বামীর সাথে পরামর্শ করে লুকন মিয়ার সাথে ভালো ব্যবহার করে তার মনোযোগ দৃষ্টি কাড়ে এবং লুকন মিয়া কোথায় কি করেছে তা জেনে নেয়। লুকন মিয়াও না বুঝে বাংলাদেশী মহিলার ফাঁদে পা দেয়। ইতিমধ্যে ঐ মহিলা লুকন মিয়া যেসব নারীদের ফাঁদে ফেলে তাদের মধ্যে দু’জনকে পেয়ে যায়। ঘটনার দিন অর্থাৎ গত বৃহস্পতিবার সকালে ঐ মহিলা তিনি তার স্বামীর সাথে পরামর্শ করে স্বামী সহ ভুক্তভোগী আরো দু’জন বাংলাদেশী নারীকে পৃথক রুমে লুকিয়ে রেখে লুকন মিয়াকে তার ব্রুকলীনের বাসায় আসার আমন্ত্রণ জানায়। তিনি লুকন মিয়াকে বলেন, আজ বাসায় আমি একা আপনি আসেন। আমন্ত্রণ পেয়ে লুকন মিয়া বাংলাদেশী মহিলার পাশে বাসায় এসে খোশ-গল্পে মেতে উঠে এবং এক পর্যায়ে তাকে (বাংলাদেশী মহিলা) আপন করে পেতে চায়। অবস্থা বেগতিক দেখে এবং লুকন মিয়াকে হাতেনাতে ধরার মোক্ষম সময় পেয়ে তাকে (লুকন মিয়া) রুমের মধ্যে যাওয়ার আহ্বান জানালে ঐ রুমে তার পূর্ব পরিচিত এবং একাধিকবার ধর্ষণের শিকার দুই নারীকে দেখে হতভম্ব হয়ে পড়ে। এরপর বাংলাদেশী মহিলার স্বামীও এসে যোগ দিয়ে লুকন মিয়া যে ধরা পড়ে গেছে তা বুঝতে পারে। উপায়ান্তর না দেখে লুকন মিয়া হাতেপায়ে ধরে মাফ চাইতে থাকে এবং জীবনে আর কোন নারীর সর্বনাশ করবে না বলে জানায়। কিন্তু ‘পাপ ছাড়ে না বাপ-কে’। পরবর্তীতে তারা ৯১১-এ কল করে লুকন মিয়াকে পুলিশের কাছে তুলে দিলে পুলিশ তাকে আটক করে।
সূত্র মতে, যৌন হয়রানীর অভিযোগে শুধু আটক লুকন আলীই নয়, এমন আরো অনেক ‘সাধু বেশী’ লুকন মিয়া রয়েছেন যাদের বিরুদ্ধে অনৈতিকতার হাজারো অভিযোগ। জানা গেছে, কমিউনিটির অনেক বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ ছাড়াও অনেক সামাজিক সংগঠনের শীর্ষ স্থানীয় নেতারা যৌন হয়রানী সহ নানা অনৈতিক কাজে জড়িত। তথা কথিত কমিউনিটি নেতা ও ‘ইঞ্জিনিয়ার’ পরিচয় ধারী ব্রঙ্কসের এক বাংলাদেশী সাম্প্রতিককালে নারীদেরকে যৌন হয়ারানী সহ একাধিক অনৈতিক কাজে জড়িত থাকার অভিযোগে একাধিকবার গ্রেফতার হয়েছে। ‘কুমিল্লা সোসাইটি অব নর্থ আমেরিকা’র সাবেক এক নেতা কর্তৃক প্রতারণার শিকার হয়ে সংসার ভেঙে গেছে অপর এক বাংলাদেশী নারীর।
অনুসন্ধানে জানা গেছে, অনেক ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের মালিকগণ কর্মস্থলে কর্মচারী নারীদের সাথে অসামাজিক কর্মকান্ডে লিপ্ত হচ্ছেন। অনেকে কাজ দেয়ার নামে তাদেরকে যৌন সম্পর্কে বাধ্য করছেন। আবার এক শ্রেনীর যুবক বা ব্যাচেলাররা নানা প্রলোভনে নারীদের সাথে অসামাজিক সম্পর্ক গড়ে তুলছেন। পাল্টা অভিযোগ রয়েছে যে, আমেরিকার মিশ্র সংস্কৃতির শিকার হয়ে নানা লোভে পড়ে অনেক নারীও গা ভাসিয়ে দিচ্ছে। অনেকে ‘লিভ টুগেদার’ও করছেন। সব মিলিয়ে ভাঙছে সংসার, বাড়ছে অশান্তি, নষ্ট হচ্ছে বাঙালীর ঐতিহ্যের পারিবারিক বন্ধন আর সামাজিক পরিবেশ।


যুক্তরাষ্ট্র বঙ্গবন্ধু প্রজন্মলীগের বিজয় দিবস পালন

বৃহস্পতিবার, ২৮ ডিসেম্বর ২০১৭

হাকিকুল ইসলাম খাকন,বাপসনিঊজ : ‘বিজয়ের চেতনায় বাংলাদেশের এগিয়ে চলার গতি ত্বরান্বিত করতে সামনের নির্বাচনে সকল প্রবাসীকে একযোগে সোচ্চার হতে হবে। অর্থ, মেধা এবং সাংগঠনিক শক্তির বিনিয়োগ ঘটিয়ে শেখ হাসিনার মনোনীত প্রার্থীদের বিজয় নিশ্চিত করার পথ সুগম করতে হবে। অন্যথায় আবারো একাত্তরের পরাজিত শক্তির উত্থান ঘটলে বাংলাদেশ মুখ থুবড়ে পড়বে’-এমন অভিমত পোষণ করা হয় বিজয় দিবস উপলক্ষে ২২ ডিসেম্বর শুক্রবার রাতে নিউইয়র্কে অনুষ্ঠিত এক সমাবেশ থেকে। যুক্তরাষ্ট্র বঙ্গবন্ধু প্রজন্মলীগের উদ্যোগে এ সমাবেশে প্রধান অতিথি ছিলেন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ও মুক্তিযোদ্ধা মাহবুবুর রহমান। প্রধান বক্তা ছিলেন ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সামাদ আজাদ। হোস্ট সংগঠনের সভাপতি এবং নিউইয়র্ক মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আলহাজ্ব কাদের মিয়ার সভাপতিত্বে এ সমাবেশ সঞ্চালনা করেন যৌথভাবে আলমগীর কবির এবং এ টি এম মাসুদ।

alt

অতিথি হিসেবে আরো বক্তব্য রাখেন নিউইয়র্ক মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি জাকারিয়া চৌধুরী এবং যুগ্ম সম্পাদক নূরল আমিন বাবু, যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি লুৎফুল করিম, সাংগঠনিক সম্পাদক মহিউদ্দিন দেওয়ান, মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক সম্পাদক মোজাহিদুল ইসলাম, ত্রাণ সম্পাদক জাহাঙ্গির হোসেন, উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্য মোহাম্মদ হানিফ, নির্বাহী সদস্য খোরশেদ খন্দকার, আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহ-সভাপতি আ¯্রাফউদ্দিন, বঙ্গবীর জেনারেল ওসমানী স্মৃতি পরিষদের সভাপতি হাজী নজমুল ইসলাম চৌধুরী, সন্দ্বীপ এসোসিয়েশনের সাবেক সভাপতি রেফায়েতউল্লাহ চৌধুরী এবং সাবেক সেক্রেটারি নজরুল ইসলাম, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় এলামনাই এসোসিয়েশনের সাবেক সভাপতি জাহাঙ্গির শাহনেওয়াজ ডিকেন্স, মহানগর আওয়ামী লীগের নেতা আব্দুল মতিন পারভেজ, ব্রুকলীন আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি এম এ জলিল, সন্দ্বীপ পৌরসভা কল্যাণ পরিষদের সভাপতি হাজী জাফরউল্লাহ, আওয়ামী লীগ নেতা মাস্টার কামালউদ্দিন, হুমায়ূন কবীর, সৌরভ প্রামানিক, চার্চ-ম্যাকডোনাল্ড আওয়ামী লীগের সেক্রেটারি সুমন, ম্যানহাটান আওয়ামী লীগের সেক্রেটারি আবুল কাশেম প্রমুখ।

Picture

প্রধান অতিথি মাহবুবুর রহমান বলেন, ‘বিজয়ের চেতনাকে সমুন্নত রাখার মধ্য দিয়ে বঙ্গবন্ধুর কন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ সারাবিশ্বে এখন উন্নয়নের মডেল হিসেবে পরিণত হয়েছে। এই অহংবোধকে জাগ্রত রাখতে হবে।’প্রধান বক্তা আব্দুস সামাদ আজাদ বলেন, ‘একাত্তরের চেতনায় প্রবাসীদের আবারো ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের বাংলাদেশ রচনায় জননেত্রী শেখ হাসিনার বলিষ্ঠ নেতৃত্ব অব্যাহত রাখার বিকল্প নেই।’ ‘সর্বস্তরের মানুষের বিপুল সমাগম ঘটিয়ে বিজয় দিবসের এ বর্ণাঢ্য আয়োজন করার মধ্য দিয়ে ব্রুকলীনবাসী আবারো প্রমাণ দিলো যে, ব্রুকলীন হচ্ছে শেখ হাসিনার ঘাঁটি’-উল্লেখ করেন আজাদ।

alt

নিউইয়র্ক মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি জাকারিয়া চৌধুরী বলেন, ‘এই প্রবাসেও রাজাকার-ঘাতকেরা সক্রিয় রয়েছে। আওয়ামী পরিবারকে বিভক্ত করার ষড়যন্ত্র চালাচ্ছে। এ ব্যাপারে সকলকে সজাগ থাকতে হবে।’নির্বাহী সদস্য খোরশেদ খন্দকার বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে মুক্তিযুদ্ধের মধ্য দিয়ে স্বাধীনতা পাওয়া বাংলাদেশের লাল-সবুজ পাসপোর্ট বহনকারি অনেক মাওলানা মোনাজাতের সময় জাতিরজনকের নাম নিতে কুন্ঠাবোধ করেন। বিজয় দিবসের অনুষ্ঠান থেকে আমি তেমন শ্রেণীর মাওলানা নামধারী রাজাকারদের পাসপোর্ট সারেন্ডার করার আহবান জানাচ্ছি।’ এই অনুষ্ঠানে বিশেষ মোনাজাতে নেতৃত্ব প্রদানকারী হাফেজ ক্বারী মাওলানা সুলতান মাহমুদকে বিশেষভাবে ধন্যবাদ জানিয়ে খোরশেদ খন্দকার বলেন, ‘আওয়ামী পরিবারের সকলের জন্যে খুবই আনন্দের সংবাদ যে, সুলতান মাহমুদের মত একজন আলেম আমরা পেয়েছি এই প্রবাসে।’

alt

সভাপতির সমাপনী বক্তব্যে আলহাজ্ব কাদের মিয়া সকলের প্রতি গভীর কৃতজ্ঞতা জানিয়ে বলেন, ‘বিজয়ের চেতনায় উজ্জীবিত ব্রুকলীনবাসী আবারো প্রমাণ করলেন যে, আদর্শের প্রশ্নে, বাংলাদেশকে সমৃদ্ধির প্রশ্নে আমরা সকলেই শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ঐক্যবদ্ধ। সামনের বছরের জাতীয় নির্বাচনে আমরা শেখ হাসিনার মনোনীত প্রার্থীদের জন্যে সর্বাত্মক সহযোগিতা অব্যাহত রাখবো।’দোয়া-মাহফিলপ্রাণী সম্পদ মন্ত্রী ছায়েদুল হক এবং চট্টগ্রামের সাবেক মেয়র এ বি এম মহিউদ্দিন চৌধুরীর আত্মার মাগফেরাত কামনায় বিশেষ দোয়া-মাহফিল অনুষ্ঠিত হয় নিউইয়র্ক সিটির ব্রুকলীনে বাংলাদেশী মালিকানাধীন একটি রেস্টুরেন্টে। যুক্তরাষ্ট্র বঙ্গবন্ধু প্রজন্মলীগের এ মাহফিলে সর্বস্তরের প্রবাসীর সমাগম ঘটে। মাহফিল পরিচালনা করেন হাফেজ ক্বারী মাওলানা সুলতান মাহমুদ।


নিউইয়র্কে বাংলাদেশী-আমেরিকান কালচারাল এসোসিয়েশনের বিজয় দিবসের অনুষ্ঠান

বৃহস্পতিবার, ২৮ ডিসেম্বর ২০১৭

বাপ্ নিউজ : নিউইয়র্ক (যুক্তরাষ্ট্র) থেকে :নিউইয়র্কে বাংলাদেশী-আমেরিকান কালচারাল এসোসিয়েশনের বিজয় দিবসের অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্ট বার এসোসিয়শনের সাবেক সাধারণ সম্পাদক বিশিষ্ট মুক্তিযুদ্ধা এডভোকেট শ ম রেজাউল করিম বলেছেন, রাজনীতিকদের লোভের কারণে মুক্তিযুদ্ধের চেতনার বাংলাদেশ আজো গড়া সম্ভব হয়ে ওঠেনি।

Picture

গত ২৪ ডিসেম্বর রোববার রাতে নিউইয়র্কে ব্রঙ্কসের বাংলা গার্ডেন রেষ্টুরেন্টে যুক্তরাষ্ট্রে বাঙালীদের অন্যতম এ সামাজিক সংগঠনটির চমৎকার আয়োজনে বাংলাদেশের ৪৬তম মহান বিজয় দিবস উদযাপন করে।alt

উৎসবমুখর পরিবেশের এ আয়োজনে ছিল বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ ভিত্তিক চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা, আলোচনা সভা ও মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক পরিবেশনা। ‘সাত সমুদ্র তের নদী বাঙালিয়ানা নিরবধি’ স্লোগানে এগিয়ে যাওয়া সংগঠনটির সভাপতি আব্দুল হাসিম হাসনুর সভাপতিত্বে এ বিজয় উৎসবে প্রধান অতিথি ছিলেন মুক্তিযুদ্ধা এডভোকেট শ ম রেজাউল করিম। বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ সোসাইটির সাধারণ

alt

সম্পাদক রুহুল আমিন সিদ্দিকি, প্রবীণ সমাজসেবী আব্দুর রব দলা, বাংলাদেশ সোসাইটির সাবেক সহ সাধারণ সম্পাদক সিরাজ উদ্দিন আহমদ সোহাগ, স্কুল ও শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক আহসান হাবিব, বাংলা সাংস্কৃতিক স্কুল ’আমাদের পাঠশালা’র প্রধান মনিকা মন্ডল, সমাজকর্মী সুপ্রিয়া নন্দি, রাজনীতিবিদ কফিল চৌধুরী, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী কবি জালাল উদ্দিন।alt

সংগঠনের বিজয় দিবস উদযাপন কমিটির আহবায়ক সারওয়ার চৌধুরীর পরিচালনায় এ অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক আহবাব চৌধুরী খোকন। অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন কমিউনিটি এক্টিভিস্ট শামীম মিয়া, সেবুল খান মাহবুব, সোহেল আহমদ, আবুল খায়ের আকন্দ, রেহানুজ্জামান, শাহ বদরুজ্জামন রুহেল, জে মোল্লা সানী, মোহাম্মদ সাদী মিন্টু, অনুষ্ঠান সমন্বয়কারী মাকসুদা আহমদ প্রমুখ।
অনুষ্ঠানের শুরুতে ’আমাদের পাঠশালা’র খুদে শিশু-কিশোররা বাংলাদেশের জাতীয় সঙ্গীত ও আমেরিকার ন্যাশনাল এনথাম পরিবেশন করে। alt

অনুষ্ঠানের অন্যতম আকর্ষন ছিলো ’আমাদের পাঠশালা’র শিশু-কিশোরদের পরিবেশনায় কবিতা আবৃত্তি ও দেশাত্মবোধক গান। অনুষ্ঠানে তিনটি গ্রুপে চল্লিশটি শিশু-কিশোর বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ ভিত্তিক চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতায় অংশ গ্রহণ করে। এই প্রতিযোগিতায় বিচারক হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন বিশিষ্ট সাহিত্যিক সুনিয়া কাদির, মাকসুদা আহমদ, জে মোল্লা সানি ও শামিম মিয়া। এতে প্রত্যেকটি গ্রুপে প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থান অধিকারী ৯জনকে ট্রপি এবং অংশ গ্রহণকারী সকল শিশু কিশোরদের সান্তনা পুরস্কার প্রদান করা হয়।
alt

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি সহ সকল বক্তা শিশু কিশোরদের নিয়ে এই জাতীয় অনুষ্ঠান আয়োজনে আয়োজকদের ভূয়সী প্রশংসা করেন।প্রধান অতিথি এডভোকেট শ ম রেজাউল করিম বলেন, যে প্রত্যাশা নিয়ে মুক্তিযোদ্ধারা দেশ স্বাধীন করেছিল সে বাংলাদেশ আজ অনেক এগিয়ে গেছে। কিন্তু কাঙ্খিত অর্জন এখনো সম্ভব হয়নি রাজনীতিকদের ব্যর্থতার কারণে। তিনি বলেন, মুক্তিযোদ্ধারা একটি স্বাধীন দেশ উপহার দিয়েছেন।

alt

রাজনীতিকদের লোভের কারণে মুক্তিযুদ্ধের চেতনার বাংলাদেশ আজো গড়া সম্ভব হয়ে ওঠেনি। স্বাধীনতাবিরোধীদের বিভিন্নভাবে পুনর্বাসন করে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা নস্যাৎ করা হয়। তিনি নতুন প্রজন্মের নিকট মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস তুলে ধরার আহ্বান জানান।

alt

অনুষ্ঠানের শেষার্ধে সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক আহবাব চৌধুরী খোকন ও অনুষ্ঠান সমন্বয়কারী মাকসুদা আহমেদের জন্ম দিন উদযাপন করা হয়। মাকসুদা আহমদ এবং আহবাব চৌধুরী তাদের বক্তব্যে এ আয়োজনের জন্য সংগঠনের নের্তৃবৃন্দ বিশেষ করে মোহাম্মদ সাদী মিন্টু ও জে মোল্লা সানীকে এ জন্য ধন্যবাদ জানান।alt

গভীর রাত পর্যন্ত দর্শক-শ্রোতারা অনুষ্ঠান উপভোগ করেন। অনুষ্ঠানের সার্বিক তত্ত্বাবধানে ছিলেন আয়োজক সংগঠনের কর্মকর্তারা।


গুলিবিদ্ধ মুহিবুলকে দেখতে হাসপাতালে

বৃহস্পতিবার, ২৮ ডিসেম্বর ২০১৭

বাপসনিঊজ:গত ২১শে  ডিসেম্বর রোজ বৃহস্পতিবার বৃহত্তর সিলেটের মৌলভীবাজার জেলার রাজনগর উপজেলার মুহিবুল ইসলাম নিউইয়র্কের এস্টোরিয়ায় নিজ এপাটমেন্টে গুলিবিদ্ধ হন। তকে দেখতে হাসপাতালে যান ভাইস কন্সানারেল আসিফ আহমদ,নিউইয়র্ক স্টেট আওয়ামীলীগ  সাধারণ সম্পাদক শাহীন আজমল শাহিন, রিয়েলস্টেট ব্যবসায়ী ময়নুল ইসলাম ।


ঐ সময় ভাইস কন্সানারেল আসিফ আহমদ গুলিবিদ্ধ মুহিবুল ইসলামের খোজ খবর নেন । গুলিবিদ্ধ মুহিবুল ইসলাম প্রবাস ও দেশবাসীর দোয়া চেয়েছেন ।


যুক্তরাষ্ট্রের লস্ এঞ্জেলেসে এক বাংলাদেশির মৃত্যু : কমিউনিটিতে গভীর শোক

বৃহস্পতিবার, ২৮ ডিসেম্বর ২০১৭

Picture

মরহুমের পরিবারের পক্ষ থেকে জানাজা ও দাফন অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকার অনুরোধ জানানো হয়েছে। শাহরিয়ার কবিরের মৃত্যুতে প্রবাসী বাংলাদেশিদের মাঝে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।


বাংলাদেশ আওয়ামী ফোরাম ইউএসএ এর ৪৬তম মহান বিজয় দিবস উদযাপিত

রবিবার, ২৪ ডিসেম্বর ২০১৭

হাকিকুল ইসলাম খোকন,বাপসনিঊজ:বাংলাদেশ আওয়ামী ফোরাম ইউএসএ এর উদ্যোগে মহান বিজয় দিবস উদযাপন করা হয় গত ১৭ই ডিসেম্বর রবিবার এস্টোরিয়াস্থ বৈশাখী রেস্টুরেন্টে। অনুষ্ঠানে সংগঠনের নেতৃবৃন্দের পাশাপাশি বিভিন্ন রাজনৈতিক, সাংস্কৃতিক, সামাজিক ও আঞ্চলিক সংগঠন, ইলেক্ট্রনিক মিডিয়া, প্রিন্ট মিডিয়া, মুক্তিযোদ্ধা সহ সমাজের বিবিন্ন শ্রেনী পেশার মানুষ অংশগ্রহন করেন। সভায় সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের সহ সভাপতি আবুল বাশার মিলন, কোরান থেকে তেলোয়াত করেন  মাহমুদুল হাসান, গীতা পাঠ করেন বাবু শান্তী রঞ্জন, বাইবেল পাঠ করেন ডা: টমাস দুলু রায়। অনুষ্ঠানে মুক্তিযুদ্ধে তথা সকল গণতান্ত্রিক আন্দোলনে যারা নিহত হয়েছেন তাদের সম্মানে ১ মিনিট দাড়িয়ে নিরবতা পালন করার পর বাংলাদেশ ও আমেরিকান জাতীয় সংগীত পরিবেশন করা হয়। সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক  হারুন অর রশীদ এর অনবধ্য সার্বিক পরিচালনায় অতিথীবৃন্দের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সাবেক ছাত্র নেতা বীর মুক্তিযোদ্ধা মহিউদ্দীন হায়দার খোকা। তিনি মুক্তিযুদ্ধের প্রথম থেকে বিজয় পর্যন্ত বঙ্গবন্ধুর অবদান ও সার্বিক বিষয়ে বক্তব্য রাখেন।

Picture

অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সংগঠনের উপদেষ্টা রাজনীতিবিধ ডা: টমাস দুলু রায়, মুক্তিযোদ্ধা শওকত আকবর রিচি, যুক্তরাষ্ট্র জাতীয় পার্টির সিনিয়র সহ সভাপতি হাজি আবদুর রহমান ও সাধারন সম্পাদক আবু তালেব চৌধুরী চান্দু ,জাসদের সভাপতি হাজী শাহেদ চৌধুরী,সাবেক ছাত্র নেতা রফিকুল ইসলাম, মুক্তিযোদ্ধা বিএম জাকির হোসেন হীরু, সাবেক ছাত্রনেতা রাজু আহমেদ মোবারক, রাজনীতিবিধ আকতার হোসাইন ও ইমাদ চৌধুরী,  সাংবাদিক হেলাল মাহমুদ, উপদেস্টা এম আর সেলিম, মহান বিজয় দিবস উদযাপন কমিটির আহ্বায়ক ও সংগঠনের সহ সভাপতি  সহিদুল ইসলাম সহিদ, সহ সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা উলফৎ আলী মোল্লা, উদযাপন কমিটির যুগ্ম আহ্বায়ক ও সহ সাধারন সম্পাদক  শহীদুল ইসলাম শহীদ ও সদস্য সচিব  মাহমুদুল হাসান, যুগ্ম আহ্বায়ক ও সহ সাংগঠনিক সম্পাদক  জোহাউজ্জামান জোহা, কার্যকরী পরিষদের সদস্য এম. এইচ মতিনখবর বাপসনিঊজ।বক্তব্যের শুরুতে সুচনা বক্তব্য রাখেন উদযাপন কমিটির প্রধান সমন্বয়কারী ও সংগঠনের সহ সাধারন সম্পাদক  ফারুক হোসাইন।

alt
নেতৃবৃন্দের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের উপদেষ্টা ও বিশিষ্ট চলচ্চিত্র পরিচালক কাজল আরেফিন,  টি মোল্লা, আবদুল মুহিত মুক্তা, সহ সভাপতি নজরুল ইসলাম, কাজী সফিকুল ইসলাম, সহ সাধারন সম্পাদক আবুল হাবিব, সাংগঠনিক সম্পাদক রফিকুল ইসলাম, অর্থ সম্পাদক আবদুল হক, প্রচার সম্পাদক মো: শরিয়তউল্লাহ, মহিলা বিষয়ক সম্পাদিকা নীলুফা রশীদ, শ্রম ও কর্মসংস্থান সম্পাদক বাবু শান্তী রঞ্জন। বন ও পরিবেশ সম্পাদক মনিরুল হুদা, কার্যকরী পরিষদের সদস্য এহসানুল হক বাবুল,  আশিকুর রহমান ও  রমজান আলী। অতিথীবৃন্দের মধ্যে আরও উপস্থিত ছিলেন নিউইয়র্ক স্টেট আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি আতিকুর রহমান, যুক্তরাষ্ট্র শেখ হাসিনা মঞ্চের সহ সভাপতি আবুল কাশেম ভূইয়া, নরসিংদী জেলা সমিতির সাবেক সভাপতি ও উদযাপন কমিটির সদস্য আজহারুল ইসহাক খোকা ও সাবেক সাধারন সম্পাদক জসিম উদ্দীন খন্দকার ও  সাধারন সম্পাদক  মাহবুবুর রহমান ও কার্যকরী পরিষদের সদস্য  আনোয়ার হোসাইন, বাংলাদেশ সোসাইটির স্কুল ও শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক আহসান হাবিব, এক্টিভিস্ট মীর জাকারিয়া, সহ অনেক মহিলা ও শিশু কিশোর উপস্থিত ছিলেন।

alt
দ্বিতীয় পর্বে সাংস্কৃতিক সম্পাদক সবিতা দাস এর সঞ্চালনায় প্রথমে রম্ম কবিতা আবৃত্তি করেন সংগঠনের সহ সভাপতি মেহরাব ইসলাম জুই, যাদু প্রদর্শন ও বঙ্গবন্ধুর উপর নির্মিত নাটকের কিছু অংশ পাঠ করেন খান শওকত। সংগীত পরিবেশন করেন প্রবাসের স্বনামধন্য সংগীত শিল্পী বাপ্পী সোম, সবিতা দাস, গাজী এস এ জুয়েল, পলাসি খন্দকার, কানিজ আয়শা। অনুষ্ঠানে আগত সকল অতিথীবৃন্দকে রাতের ডিনার পরিবেশন করা হয়। অনুষ্ঠান শেষে উপস্থিত সবাইকে ইংরেজী নতুন বছরের অগ্রিম শুভেচ্ছা জানিয়ে বিজয় দিবসের অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘোষনা করা হয়।


রংপুর সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচনে জাতীয় পার্টি প্রার্থী মোস্তাফিজুর রহমান মোস্তফার জয়ের মাধ্যমে প্রমাণ করে জাতীয় পার্টির লাঙ্গলের শহর রংপুর

রবিবার, ২৪ ডিসেম্বর ২০১৭

হাকিকুল ইসলাম খোকন,বাপসনিঊজ:রংপুর সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচনএ জাতীয় পার্টি প্রার্থী মোস্তাফিজুর রহমান মোস্তাফা বিপুল ভোটে জয় হয়ে জাতীয় পার্টির লাঙ্গলের শহর রংপুর প্রমাণ করে। আজ সন্ধ্যা ৭ টায় সময় জাতীয় পার্টির যুক্তরাষ্ট্র শাখার জ্যাকসন হাইটস্থ পার্টির প্রধান কার্যালয়ে এক আনন্দ উল্লাসে মেতে ওঠে নেতা এবং নেত্রীবৃন্দরা একে ওপরকে মিষ্টিমুখ করিয়া আনন্দ উল্লাস করে।

উক্ত আনন্দ উল্লাসে জাতীয় পার্টির যুক্তরাষ্ট্র  শাখার ভারপ্রাপ্ত সভাপতি  হাজী আবদুর রহমান, জাপার উপদেষ্টা  গিয়াস মজুমদার, জাপার সাধারণ সম্পাদক আবু তালেব চৌধুরী চান্দু, জাপার যুগ্ন সাধারন সম্পাদক আসিফ বারী টুটুল, জাপার মহিলা বিষয় সম্পাদিকা জেসমিন আক্তার চৌধুরী, জাপার যুগ্ন মহিলা বিষয় সম্পাদক ফারজিন আহমেদ স্বর্ণা, যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সম্পাদক  সোলাইমান আলী, আওয়ামী লীগ সদস্য মোহাম্মদ নাজিম, জাসদ সদস্য মোস্তাক আলী প্রমুখ। উপস্থিত নেত্রীবৃন্দ বৃত্তহর রংপুর বাসী লাঙ্গল মার্কায় ভোট দিয়ে মোস্তাফিজুর রহমান মোস্তফাকে মেয়র নির্বাচিত করায় যুক্তরাষ্ট্র জাতীয় পার্টির পক্ষ থেকে কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ জ্ঞাপন করা হয়। রংপুরের মাটি এরশাদের ঘাটি, এটাই  প্রমাণ হল। এই বিজয়ের মধ্যে আগামীতে রংপুরের জাতীয় পার্টির প্রার্ত্রী জয় হবে ইনশ্াআল্লাহ।পরিশেষে চেয়ারম্যান এরশাদ সাহেবের র্দীঘ আয়ু ও সুষ্ঠতা কমনা করা হয়।