Slideshows

ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার

পরিচালনা পরিষদ 

সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি

ওসমান গনি
 

প্রধান সম্পাদক

হাকিকুল ইসলাম খোকন
 

সম্পাদক

সুহাস বড়ুয়া হাসু
 

সহযোগী সম্পাদক

আয়েশা আকতার রুবী

যুক্তরাষ্ট্রের খবর

প্রবাসী শরীয়তপুর সমিতি নতুন কমিটির শপথ গ্রহণ

বুধবার, ৩০ মার্চ ২০১৬

হাকিকুল ইসলাম খোকন: বাপ্ নিউজ : নিউইয়র্ক থেকে :প্রবাসী শরীয়তপুর সমিতি ইউএসএ ইন্ক’র ২০১৬-২০১৭ সালের কার্যকরী কমিটির নবনির্বাচিত কর্মকর্তারা শপথ নিয়েছেন। এ উপলক্ষ্যে গত ২০ মার্চ রোববার সন্ধ্যায় জ্যাকসন হাইটস্থ মিনা বাজার মিলনায়তনে এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

image002
সমিতির নবনির্বাচিত সভাপতি মোহাম্মদ রতন শরীফের সভাপতিত্বে আয়োজিত অনুষ্ঠানে নবনির্বাচিত কর্মকর্তাদের শপথ বাক্য পাঠ করেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার আকবর চৌধুরী। শপথ অনুষ্ঠানে বক্তারা তাদের বক্তব্যে প্রবাসী সকল শরীয়তপুরবাসীদের মধ্যকার ঐক্যের উপর গুরুত্বারোপ করেন এবং সকলে মিলে সংগঠনকে শক্তিশালী করাকে কেন্দ্র করে বিশৃংখল  ও অপ্রীতিকর পরিবেশের সৃষ্টি হয়। পরবর্তীতে সিনিয়র সদস্যদের হস্তক্ষেপের ফলে সুন্দর পরিবেশে শপথ অনুষ্ঠান সমাপ্ত হয়।

image003

অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার আকবর চৌধুরী, নির্বাচন কমিশনার যথাক্রমে নুরুল হুদা, মোহাম্মদ আবুল কাশেম, হুমায়ুন কবীর ও মোহাম্মদ বাদল, সাবেক সভাপতি ইমতিয়াজ জামাল প্রমুখ। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন নবনির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক বিএম সালাহউদ্দিন।

image004


প্রবাসী শরীয়তপুর সমিতির নবনির্বাচিত কর্মকর্তারা হলেন: সভাপতি মোহাম্মদ রতন শরীফ, সাধারণ সম্পাদক বিএম সালাহউদ্দিন, সহ সভাপতি মো: এম রহমান (ইব্রাহিম), নুর জামান (মাঝি), আব্দুল মান্নান ঢালী, মোহাম্মদ মিজানুর রহমান (সেলিম) ও মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর কবীর (পিন্টু), যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ কামাল উদ্দিন (দীপু), কোষাধ্যক্ষ মোহাম্মদ এইচ রহমান (তুহিন), সহ কোষাধ্যক্ষ মোহাম্মদ এ উদ্দিন (মিলন), সাংগঠনিক সম্পাদক রিয়াদ উদ্দিন, সহ সাংগঠনিক সম্পাদক আসাদুজ্জামান তালুকদার (সফল), দপ্তর সম্পাদক নুরুল আই খান (ফনু), সহ দপ্তর সম্পাদক কে এম সুমন মিয়া, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক মোহাম্মদ এস হক  রোমান), ধর্ম ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক মো: মাজহারুল ইসলাম, ক্রীড়া সম্পাদক সৈয়দ আহমেদ, সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক মো: জসিম ইউ আহমেদ (বাদল),আপ্যায়ন সম্পাদক বাবুল আহমেদ, আইন বিষয়ক সম্পাদক সোহেল রশীদ কোতোয়াল, শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক সহিদুল ইসলাম, আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক সোহেল খান এবং মহিলা বিষয়ক সম্পাদক ফাতিমা টি জোহরা (শিমু)। কার্যকরী পরিষদ সদস্য সরদার সিরাজুল ইসলাম, মো: মোস্তাফিজুর রহমান, চৌধুরী জি কাউসার, হাবিবুর রহমান (হাবীব), সৈয়দ এম জলিল, মোহাম্মদ ওয়াই আলী, মো: জিয়াউর রহমান (শাহীন), মনোয়ার মুন্সী, সৈয়দ সিদ্দিকুর রহমান ও সৈয়দ আব্দুল হাদী (জিল্লু)।


ঢাকা-ওয়াশিংটন একসঙ্গে কাজ করবে সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে

বুধবার, ৩০ মার্চ ২০১৬

হাকিকুল ইসলাম খোকন: বাপ্ নিউজ : ঢাকা-ওয়াশিংটন একসঙ্গে কাজ করার অঙ্গীকার ব্যক্ত করেছে সন্ত্রাস মৌলবাদ আর জঙ্গিবাদ নির্মূলে । গত ২৯ মার্চ মঙ্গলবার ওয়াশিংটনস্থ বাংলাদেশ দূতাবাসের বঙ্গবন্ধু অডিটরিয়ামে বাংলাদেশের ৪৫তম স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে এই অঙ্গীকার পূর্ণব্যক্ত করেন যুক্তরাষ্ট্রে নিযুক্ত বাংলাদেশ রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ জিয়াউদ্দীন এবং যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র মন্ত্রনালয়ের দক্ষিণ ও মধ্য এশিয়া বিষয়ক এসিস্টেন্ট সেক্রেটারি নিশা দেশাই বিসওয়াল।  
বাংলাদশে দূতবাসা কর্তৃক ৪৫ তম স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে আয়োজিত এই অনুষ্ঠানে যুক্তরাষ্ট্র পররাষ্ট্র দফতর, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এবং হোয়াইট হাউজের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা বৃন্দসহ বিপুল সংখ্যক স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তি, কূটনীতিক, বিচারক, আন্তর্জাতিক সংস্থার কর্মকর্তা, শিক্ষাবিদ, বিজ্ঞানী, ব্যবসায়ী প্রতিনিধি, সাংবাদিক ও পেশাজীবি এবং উল্লেখযোগ্য সংখ্যক প্রবাসী বাংলাদেশি অংশ গ্রহণ করেন। অনুষ্ঠানের শুরুতেই রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ জিয়াউদ্দীন এবং দূতাবাসের পদস্থ কর্মকর্তাবৃন্দ আগত অতিথিবৃন্দকে অভ্যর্থনা জানান এবং তাদের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় করেন।

অনুষ্ঠানের শুরুতেই ওয়াশিংটনের সংস্কৃতিক সংগঠন ধ্রুপদ ও বর্ণমালার শিল্পীবৃন্দের অংশ গ্রহণে পরিবেশিত হয় বিশেষ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ জিয়াউদ্দীন আগত অতিথিদের উদ্দেশ্যে সংক্ষিপ্ত বক্তব্যের শুরুতেই বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রামে জাতির জনকের অবিসংবাদিত নেতৃত্বের কথা শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করেন। তিনি সশ্রদ্ধ চিত্তে স্মরণ করেন মহান স্বাধীনতাযুদ্ধে আত্মদানকারী জাতির শ্রেষ্ঠসন্তানদের। রাষ্ট্রদূত তার বক্তব্যে বিভিন্ন ক্ষেত্রে জাতির সাম্প্রতিক অর্জনের কথা উল্লেখ করে যুক্তরাষ্ট্রকে বাংলাদেশের এই উন্নয়ন মিছিলে শরিক হবার আহ্বান জানান।
অনুষ্ঠানে যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের দক্ষিণ ও মধ্য এশিয়া বিষয়ক এসিস্ট্যান্ট সেক্রেটারি নিশা দেশাই বিসওয়ালতার বক্তব্যে বাংলাদেশকে একটি বন্ধুরাষ্ট্র হিসাবে উল্লেখ করে যুক্তরাষ্ট্রকে বাংলাদেশের উন্নয়নে পাশে দাড়ানোর কথা পূর্ণব্যক্ত করেন। তিনি বলেন, বাংলাদেশ আজ বিশ্বের উন্নয়নের একটি রোল মডেল হিসেবে পরিচিতি লাভ করেছে। বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ভূয়সী প্রশংসা করে যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের দক্ষিণ ও মধ্য এশিয়া বিষয়ক এসিস্ট্যান্ট সেক্রেটারি নিশা দেশাই বিসওয়াল সন্ত্রাস জঙ্গিবাদ ও মৌলবাদ নির্মূলে বাংলাদেশের সঙ্গে একযোগে কাজ করার অঙ্গীকার পূর্ণব্যক্ত করেন।
অনুষ্ঠানেচিত্র শিল্পী কালিদাস কর্মককার মোস্তফা আরশাদের চিত্রকর্মের সপ্তাহ ব্যাপী প্রদর্শনী উদ্বোধন করা হয়।
উল্লেখ্য, যে ইতোপূর্বে গত ২৬ মার্চ বাংলাদেশ দূতাবাসে মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবসের আনুষ্ঠানিক কর্মসূচী পালন করা হয়। জাতীয় দিবস উপলক্ষে মহামান্য রাষ্ট্রপতি, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর প্রদত্তবানী সমূহ পাঠকরা হয় এবং মহান স্বাধীনতা দিবসের তাৎপর্য বিষয়ে আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়।


নিউইয়র্ক মহানগর আওয়ামী লীগের মহান স্বাধীনতা দিবস পালন

বুধবার, ৩০ মার্চ ২০১৬

হাকিকুল ইসলাম খোকন: বাপ্ নিউজ : নিউইয়র্ক থেকে :গৌরবময় ৪৫তম মহান স্বাধীনতা দিবস উদযাপন উপলক্ষে নিউইয়র্ক মহানগর আওয়ামী লীগ কর্তৃক আয়োজিত আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয় ২৬ শে মার্চ ২০১৬ শনিবার সন্ধ্যা ৭টায় জ্যাকসন হাইটস্থ ইত্যাদি গার্ডেন (ফুডকোর্ড) পাটি হলে।

03292016_18_NYCAL

সংগঠনের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার নূর নবীর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক ইমদাদুর রহমান চৌ. ইমদাদের পরিচালনায় উক্ত সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বীর মুক্তিযোদ্ধা, বিশিষ্ট শিক্ষাবীদ ও বিজ্ঞানী কাউন্সিল ম্যান ড. নুর নবী চৌধুরী এবং উক্ত অনুষ্ঠানের আহ্বায়ক সহ সভাপতি মোঃ মাসুদ হোসেন সিরাজী, যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি জয়নুল আবেদীন, যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সমাজ কল্যান ও আপ্যায়ন সম্পাদক জাহাঙ্গীর হোসেন, সদস্য সামসুল আবেদিন, রুহেল চৌধুরী, বাবলু আনোয়ার চৌধুরী, মহানগর আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক শাহীন ইবনে দিলওয়ার, আইন বিষয়ক সম্পাদক আব্দুল কাদের মিয়া, ক্রীড়া সম্পাদক আ¯্রাফ আলী লিটন, অর্থ সম্পাদক সৌরব প্রামানিক, সাংস্কৃতিক সম্পাদক সাহাবউদ্দিন লিটন, সহ প্রচার সম্পাদক সুব্রত তালুকদার, তথ্য ও গবেষনা সম্পাদক মোর্শেদা জামান, ম্যানহাটন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবুল কাসেম, ইসমত হক খোকন, কাজী ফয়সল, অরুন কুমার, মোঃ দিদার, আলাউদ্দীন, প্রধান অতিতি ড. নবী বলেন, স্বাধীন বাংলাদেশের শ্রষ্টা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবের প্রদশিত পথেই বাংলাদেশের মুক্তির সোপান। তিনি যুদ্ধা অপরাধীদের বিচারের যে প্রক্রিয়া শুরু করেছিলেন সেই পথে বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য কন্যা শেখ হাসিনা অনুসরন করে যুদ্ধাপরাধীদের বিচার চালিয়ে যাচ্ছে।অহ্বায়ক মাসুদ হোসেন সিরাজী বলেন স্বাধীন বাংলা দেশের গৌরব গাঁতা ইতিহাস এবং বাংলাদেশ সৃষ্টির নেতৃত্বে দানকারী ইতিহাসের মহানায়ক জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সংগ্রামী জীবনি ও অবদান এবং মুক্তিযোদ্ধাদের আত্মত্যাগের আজকে নতুন প্রজন্মকে জানানো আমাদের নৈতিক দায়িত্ব। শাহীন দিলোয়ার ইতিহাস বিকৃতিকারীদের প্রতি সজাগ দৃষ্টি রাখার আহ্বান জানান। উক্ত অনুষ্ঠানে আগত মুক্তিযোদ্ধাদের যথাযত সম্মান প্রদর্শন করা হয়।


জর্জিয়া আওয়ামী লীগের এর উদ্যোগে স্বাধীনতা দিবস উদযাপন

বুধবার, ৩০ মার্চ ২০১৬

বাপসনিঊজ:জর্জিয়া থেকে : ২৬ মার্চ, এক সাগর রক্তের বিনিময়ে অর্জিত বাংলাদেশের মহান স্বাধীনতার ৪৫তম বর্ষপুর্তী যথাযোগ্য মর্যাদার সাথে বিপুল সংখ্যক প্রবাসীর উপস্থিতিতে ২৮শে মার্চ সোমবার ২০১৬ , ৮টায়  লিলবার্ন ক্যাফে  জর্জিয়া আওয়ামী লীগের সকল নেতৃবৃন্দ গভীর শ্রদ্ধার সাথে-স্মরণ করেছেন, ত্রিশ লক্ষ শহীদদের যাঁদের আত্মত্যাগের ফলে বাঙ্গালী জাতি স্বাধীনতা পেয়েছে।

Picture

শ্রদ্ধার সাথে-স্মরণ করেছে, লক্ষ লক্ষ মা-বোনদের যাঁদের অমূল্য সম্ভ্রমের বিনিময়ে জাতি পরাধীনতার শৃংখল মুক্ত হয়েছে। নেতৃবৃন্দ, বিনম্র শ্রদ্ধা ও কৃতজ্ঞতাচিত্তে স্মরণ করেছেন, সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ট্র্র বাঙ্গালী, ইতিহাসের মহানায়ক, স্বাধীন বাংলাদেশের স্থপতি, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে, যিনি পাকিস্তানী হানাদার বাহিনীর হাতে গ্রেফতার হওয়ার পূর্বে ২৬ মার্চের প্রথম প্রহরে বাংলাদেশের স্বাধীনতা ঘোষণা করেন। শুরু হয় মহান মুক্তিযুদ্ধ। এবং দীর্ঘ ৯ মাসের রক্তক্ষয়ী মুক্তিযুদ্ধের পর ১৬ ডিসেম্বর ১৯৭১, অর্জিত হয় বাঙ্গালী জাতির মহান বিজয়। জন্ম হয় স্বাধীন সার্বভৌম রাষ্ট্র্র বাংলাদেশের।

alt

বাংলাদেশের স্বাধীনতা আন্দোলনের মহা নায়ক হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও মহান স্বাধীনতাযুদ্ধে যাদের অবদান রয়েছে তাদের  স্মরনে বিনম্র শ্রদ্ধা ও কৃতজ্ঞতাচিত্তে সভায় দাঁড়িয়ে এক মিনিট নিরাবতা পালন করা হয়।

alt
সাধারণ সম্পাদক মাহমুদ রহমান ও সহ সভাপতি শেখ জামালের যৌথ সঞ্চালনায় সভাপতিত্ব করেন জর্জিয়া আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ আলী হোসেন।

alt
২৫ মার্চকে ‘আন্তর্জাতিক গণহত্যা দিবস’ ঘোষণা করার আহবান জানিয়েছে জর্জিয়া আওয়ামীলীগ । পাকিস্তানী হানাদার বাহিনী কর্তৃক বাঙালি নিধনের এই কালোদিনটিকে আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি দিতে জাতীসংঘ সহ বিশ্ব সম্প্দা্য়ের প্রতি দাবি জানিয়েছেন জর্জিয়া আওয়ামীলীগের নেতারা ।

alt

জর্জিয়া আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ আলী হোসেন বলেন হাজার বছরের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কারনে  আজ আমরা বাংলাদেশী , না হলে পাকিস্তানির গোলামী করে জেতে হতো , তিনি অবিলম্বে স্বাধীনতাবিরোধী মৌলবাদী জঙ্গীগোষ্টী জামায়াতে ইসলামীকে নিষিদ্ধ ঘোষণা করার দাবী জানান।এক সাগর রক্তের বিনিময়ে অর্জিত স্বাধীন বাংলাদেশে একটি ‘রাজাকার’ থাকা পর্যন্ত আমাদের আন্দোলন অব্যাহত থাকবে।স্বাধীনতাকে আরও অর্থময় করে তুলতে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উদ্বুদ্ধ হয়ে এগিয়ে যেতে হবে। স্বাধীনতা আর মুক্তিযুদ্ধের প্রকৃত ইতিহাস সকলকে জানাতে হবে। তিনি আরও বলেনঃ   আজকের দিনে-আমাদের সকলের শপথ হোক, স্বাধীনতা বিরোধীদের আমরা সর্বদা সর্বশক্তি দিয়ে প্রতিহত করবো। শেখ হাসিনার যুগান্তকারী চিন্তাধারায় বাংলাদেশ এখন বিশ্ব দরবারে একটি উন্নয়নশীল দেশ হিসেবে পরিচয় পাচ্ছে। বাংলাদেশ এখন উল্কাগতিতে এগিয়ে যাচ্ছে ।মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনা সমুন্নত রাখবো এবং বঙ্গবন্ধু’র স্বপ্নের শোষণমুক্ত, সম্মৃদ্ধশালী সোনার বাংলা ও রাজাকারমুক্ত এবং ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়তে তিন বারের সফল প্রধানমন্ত্রী, জননেত্রী শেখ হাসিনার হাতকে আরও শক্তিশালী করবো।

alt

জর্জিয়া আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জনাব মাহমুদ রহমান তার বক্তব্যে বলেন হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মের কারণে বাংলা জাতি আজ স্বাধীন। বঙ্গবন্ধু জন্মের কারণে গোটা বাঙ্গালি জাতি গর্বিত। তিনি আরও বলেনঃ  “খণ্ডিত নয়, নয় কোন বিকৃত মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস জানুক প্রজন্ম থেকে প্রজন্ম ” এই মুক্তিযোদ্ধার সন্তান মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় জয় বাংলার প্রেরনায় ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শে জননেত্রি শেখ হাসিনার হাত কে শক্তিশালী করার জন্য তরুণ প্রজন্মকে আহবান করেন।

alt

জর্জিয়া আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি দিদারুল আলম গাজী জাতীর জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবকে শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করে মুক্তিযুদ্ধে তার বিভিন্ন অবদানের কথা তুলে ধরে বলেন ,বঙ্গবন্ধু ২৬ সে মার্চর ভাষণ পাঠ করেন , সেই সময় মেজর জিয়াউর রহমান উনি স্বাধীনতার ঘোষক না পাঠক মাত্র । তাই বিএনপি , জামাত যেই চক্রান্ত করুক না কেন দেশ নেত্রী , জন নেত্রী , শেখ হাসিনার হাত কে শক্তিশালী করার জন্য জর্জিয়া  আওয়ামী লীগ বদ্ধ পরিকর ।

alt

যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি ডাঃ মুহম্মদ আলী মানিক বলেন, দীর্ঘ নয় মাস মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে ও ত্রিশ লক্ষ শহীদান এবং দু’লক্ষ মা-বোনের ইজ্জতের বিনিময়ে ও অনেক আত্মত্যাগের মাধ্যমে আমরা পেয়েছি লালবৃত্ত সবুজ পতাকা। আমাদের প্রাণের বাংলাদেশ।তিনি আরো বলেন, জননেত্রী শেখ হাসিনার গতিশীল নেতৃত্বে দেশ আজ এগিয়ে যাচ্ছে। বিশ্বের কাছে বাংলাদেশ আজ উন্নয়নের রোল মডেল। উন্নয়নের এ ধারাকে অব্যাহত রাখতে প্রবাসীদেরও এগিয়ে আসতে হবে।

alt

এছাড়াও আরো বক্তব্য রাখেন, সৈয়দ মুরাদ , সৈয়দ আহমেদ চুননু , সামির মাস্টার, আব্দুল হক, ডাঃ রাশিদ মালিক, যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক এ এইচ রাসেল সহ  আরও  অনেকে।

alt

মঞ্চে অন্যান্যের মধ্যে আসন অলংকৃত করেছিলেন আব্দুল হক, ইকবাল হোসেন, মারুফ ভূঁইয়া , মিনহাজুল ইসলাম বাদল ,শরভ সরকার, Q জামান ,ফারহাদ আহমেদ , সাকিলা আলি বাচ্ছী , মোহাঃ মইন উদ্দিন , শিফুন নাহার, নজরুল ইসলাম সহ বিভিন্ন স্তরের নেতৃবৃন্দ।

alt

অনুষ্ঠানে অন্যান্য আমন্ত্রিত অতিথিদের মধ্যে উপস্হিত ছিলেন- ডাঃ আওালদি খান , এল আবু, আনোয়ার হোসেন ,  মিসেস আব্দুল হক সহ  আরও  অনেকে।

alt


জাতিসংঘের হাই-লেভেল ইভেন্টের মূল বক্তা পুতুল

বুধবার, ৩০ মার্চ ২০১৬

হাকিকুল ইসলাম খোকন: বাপ্ নিউজ : নিউইয়র্ক প্রতিনিধি :বিশ্ব অটিজম দিবস ২০১৬ উপলক্ষ্যে আগামী ১ এপ্রিল জাতিসংঘে অটিজম মোকাবেলা শীর্ষক হাই-লেভেল ইভেন্ট অনুষ্ঠিত হবে। এ ইভেন্টের মূল বক্তা থাকছেন প্রধানমন্ত্রী তনয়া সায়মা ওয়াজেদ হোসেন পুতুল। জাতিসংঘে বাংলাদেশ স্থায়ী মিশন বিষয়টি নিশ্চিত করেছে।

alt

বাংলাদেশের অটিজম বিষয়ক জাতীয় পরামর্শক কমিটির চেয়ারপার্সন মিস সায়মা ওয়াজেদ হোসেন বাংলাদেশ, ভারত, কাতার, দক্ষিণ কোরিয়া ও যুক্তরাষ্ট্রের স্থায়ী মিশন এবং অটিজম স্পিকস এর যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত এ ইভেন্টে মূল বক্তা হিসেবে উপস্থিত থাকবেন। অনুষ্ঠানে মিসেস বান কি মুন এবং বিভিন্ন সংস্থার প্রতিনিধিরা উপস্থিত থাকবেন।এ ইভেন্ট কাভার করার জন্য সাংবাদিকদের পাশ সংগ্রহ করতে অনুরোধ জানানো হয়েছে মিশনের পক্ষ থেকে। পয়লা এপ্রিল দুপুর ১টা থেকে ২ টার মধ্যে মিশন থেকে সংগ্রহ করার অনুরোধ করা করতে বলা হয়েছে।


কুমিলা জেলা সোসাইটির মহান স্বাধীনতা দিবস উৎযাপন ও তনু হত্যার প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত

মঙ্গলবার, ২৯ মার্চ ২০১৬

হাকিকুল ইসলাম খোকন: বাপ্ নিউজ : নিউইয়র্ক থেকে :গত ২৭ মার্চ জেকসন হাইটস্হ একটি রেষ্টুরেন্টে কুমিল্লা জেলা সোসাইটি যুক্তরাষ্টের আয়োজনে মহান স্বাধীনতা দিবস উৎযাপন ও কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের ছাত্রী তনু হত্যার প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয় ।

Picture

উক্ত অনুষ্ঠানে সংগঠনের সভাপতি আমিনুল ইসলাম চৌধুরীর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক ওয়াসিম উদ্দিন ভুইয়ার পর্চিালনায় সভায় বক্তব্য রাখেন  সংগঠনের উপদেষ্টা এমদাদুল হক কামাল ও আজাদ বাকির বীর মুক্তিযোদ্ধা উপদেষ্টা আক্তরুজ্জামান , সিনিয়র সহ সভাপতি বদরুল হক আজাদ , সহ সভাপতি  কবির হোসেন ,এম এ রহিম ,খাইরুল ইসলাম খোকন ,সহ সাধারণ সম্পাদক নুরুল আমিন , সাংগঠনিক সম্পাদক মনিরুল হক মজাদার লিটন ,অর্থ সম্পাদক সাইফুল আমিন ,প্রচার সম্পাদক মোঃ আবদুল মতিন , ক্রীডা ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক ইভা ইসমত পপি , কার্যনির্বাহী সদস্য জসিম উদ্দিন সরকার,  লেয়াকত আলী, সোলায়মান ভুইয়া, মো¯তফা রিপন, একেএম কামাল উদ্দিন খান, মো¯তাক আহম্মেদ ও খোরশেদ আলম মেম্বার ।

alt

আরো উপস্হিত ছিলেন  দেলোয়ার হোসেন , নাসির উদ্দিন ,মাসুদুর রহমান ,এম এ হোসেন বাদল ,  মালেক হোসেন , ওমর ফারুক সহ আরো অনেকে । বক্তারা সকলেই সকল সহীদদের প্রতি স্রদ্ধা নিবেদন করে তাঁদের আত্ত্বার মাগফেরাত কামনা করেন । অনতিবিলম্বে তনু হত্যার পকৃত অপরাধীকে বিচারের মোখোমোখি করার জন্য জোর দাবী জানান ।


নিউইয়র্ক স্টেট বিএনপি ও সিটি বিএনপি’র যৌথ উদ্যোগে স্বাধীনতা দিবসের র‌্যালী অনুষ্ঠিত

মঙ্গলবার, ২৯ মার্চ ২০১৬

হাকিকুল ইসলাম খোকন,বাপসনিঊজ:২৭ ই মার্চ রবিবার সন্ধ্যা ৭টায় জ্যাকসন হাইট্সের ডাইভার সিটি প্লাজায় নিউইয়র্ক স্টেট বিএনপি ও সিটি বিএনপি’র যৌথ উদ্যোগে মহান স্বাধীনতা দিবসের  র‌্যালী অনুষ্ঠিত হয়।উক্ত র‌্যালীতে সভাপতিত্ব করেন- নিউইয়র্ক স্টেট বিএনপি’র সভাপতি মাওলানা অলিউল্যাহ্ মোহাম্মদ আতিকুর রহমান। র‌্যালী পরিচালনা করেন- নিউইয়র্ক সিটি বিএনপি’র সাধারণ সম্পাদক  আশরাফ হোসেন।যুক্তরাষ্ট্র বিএনপির সাবেক কোষাধ্যক্ষ প্রধান বক্তা  জসিম উদ্দিন ভূঁইয়া।খবর বাপসনিঊজ।

index
 বক্তব্য রাখেন সাবেক ছাত্রনেতা ও নিউইয়র্ক সিটি বিএনপি’র সভাপতি হাবিবুর রহমান সেলিম রেজা, সাবেক ছাত্রনেতা ও নিউইয়র্ক স্টেট বিএনপি’র সাধারন সম্পাদক সাইদুর রহমান সাইদ, নিউইয়র্ক স্টেট বিএনপি’র প্রধান উপদেষ্টা ভিপি জসিম, সহ-সভাপতি নিউইয়র্ক স্টেট বিএনপি  মোস্তাক আহমেদ, নিউইয়র্ক সিটি বিএনপি’র সহ-সভাপতি, সাবেক ছাত্রনেতা- আলমগীর হোসেন মৃধা, নিউইয়র্ক স্টেট বিএনপি’র সহ-সভাপতি ও সাবেক ছাত্রনেতা মোঃ আমিনুর রহমান।

alt
নেতৃবৃন্দের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- নিউইয়র্ক স্টেট বিএনপি’র সহ-সভাপতি মোঃ আরিফ, মোঃ আলমগীর- সাংগঠনিক সম্পাদক, যুগ্ম সাধারন সম্পাদক জিএস আলমগীর, আনিসুর রহমান, হুমায়ুন কবির, হাবিবুল আলম, মিজানুর রহমান, নিউইয়র্ক সিটি বিএনপি’র যুগ্ম-সম্পাদক আরিফুল ইসলাম তুহিন, মাসুম বিল্লাহ্, জাফর উল্যাহ ফরাজী, সাবের হোসেন, যুক্তরাষ্ট্র মহিলা দলের নেতৃ নীরা রাব্বানী ও রীনা আক্তার, মোঃ বায়েজিদ, ঝালকাঠি জাতীয়তাবাদী ফোরামের সভাপতি- মোঃ মোতালেব হোসেন।অন্যান্যদের উপস্থিত ছিলেন- মোঃ কামুরুল হাসান, আক্তার হোসেন, মোঃ বাহার, হোসেন মেম্বার, আবুল খায়ের, কাউসার আলম ভূঁইয়া, আব্দুল কাইয়ুম, আবু জাফর সিরাজী, আনিসুর রহমান, রকিব উদ্দিন, মজিবুর রহমান, মাসুম বিল্লাহ্, মোঃ হোসেন প্রমূখ।

alt
র‌্যালীতে বক্তারা বলেন- শহীদ সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়ার জন্ম না হলে স্বাধীনতার সূর্য উদিত হতো না, সত্যিকার অর্থে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল-ই হচ্ছে স্বাধীনতার স্বপক্ষের শক্তি। বাংলাদেশের স্বাধীনতা-সার্বভৌমত্ব ও জাতীয় নিরাপত্তা বর্তমানে ধ্বংস প্রায়, রন্ধে রন্ধে দূর্নীতি আজ মাথা ছাড়া দিয়ে উঠেছে, রাষ্ট্রীয় ব্যাংকের টাকা লোপাট, সেনানিবাসের ভিতরে ধর্ষন ও হত্যার মতো ন্যাক্কারজনক ঘটনাও এক কলঙ্কিত ইতিহাসের জন্ম দিয়েছে। দেশের এই অন্তিম ক্ষণে একমাত্র দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার নেতৃত্বের বিকল্প নেই। বক্তারা অনতিবিলম্বে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবি বাস্তবায়নের ব্যাপারে জোর দাবি জানান।

alt
র‌্যালীকে সফল ও স্বার্থক করার জন্য উপস্থিত নেতৃবৃন্দের সাথে একাত্বতা ও সমর্থন প্রকাশ করেন- যুক্তরাষ্ট্র বিএনপি’র সাবেক ভারপ্রাপ্ত সভাপতি শরাফত হোসেন বাবু।


মহান স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে জেএসডি’র আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

মঙ্গলবার, ২৯ মার্চ ২০১৬

স্বাধীন দেশের উপযোগী রাষ্ট্র-ব্যবস্থাপনা ও রাজাকার মুক্ত বাংলাদেশ গঠনের মধ্যদিয়েই স্বাধীনতার চেতনা বাস্তবায়ন করতে হবে --------হাজী আনোয়ার হোসেন লিটন
হাকিকুল ইসলাম খোকন,বাপসনিঊজ: স্বাধীনতার দিবস উদযাপন করেছে জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জেএসডি, যুক্তরাষ্ট্র শাখা। এ উপলক্ষে ২৭ মার্চ ,রোরবার ,বিকালে ৩৭ এভিনিউ,  জ্যাকসন হাইটস নিউইয়র্ক এনওয়াই-১১৩৭২ এ এক আলোচনা সভার অনঠিত  হয়। জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জেএসডি যুক্তরাষ্ট্র শাখা  কর্তৃক আয়োজিত মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল -জেএসডি যুক্তরাষ্ট্র শাখার সভাপতি হাজী আনোয়ার হোসেন লিটন এবং সাধারন সম্পাদক সামসুউদ্দিন আহমেদ শামীম-এর সুন্দর , সার্বিক উপস্থাপনা ও পরিচালনায় অনুষ্টিত সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের সাবেক সংসদ সদস্য ও মুক্তিযোদ্বা আনিসুজ্জামান খোকন ।
  সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন  শিশু সাহিতিক হাসানুর রহমান ,আমেরিকান প্রেসক্লাব অব বাংলাদেশ অরিজিন সভাপতি সাংবাদিক হাকিকুল ইসলাম খোকন,জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জেএসডি যুক্তরাষ্ট্র শাখা  উপদেষ্টা হাজী আহসান মাসুদ,,শামসুল ইসলাম, দলের কেন্দ্রীয় কমিটি সদস্য সারোয়ারুল হোসেন,  বীর মুক্তিযোদ্ধা এম জি সারোয়ার ।
নেতৃবৃন্দের মধ্যে উপস্থি ছিলেন সংগঠনের যুক্তরাষ্ট্র শাখার সহ-সভাপতি  সুভাষ মজুমদার ও হেলালউদ্দিন, সহ-সাধারণ সম্পাদক রফিক উল্লাহ ও শরীফ উদ্দিন, সাংগঠনিক সম্পাদক তছলিম উদ্দিন খান।

শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল -জেএসডি যুক্তরাষ্ট্র শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক প্রকৌশলী তসলিম উদ্দিন খান, বক্তব্য রাখেন জেএসডি নেতা রফিকঊললাহ,শরীফ ঊদিদন,নূরে আলম সেলিম, হারুন অর রশীদ বাবুল, প্রমুখ।

জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জেএসডি’র ইঊএসএ সভাপতি হাজী আনোয়ার হোসেন লিটন বলেছেন, দেশে বিরাজমান ব্রিটিশ-পাকি¯তানী মডেলের শাসন ব্যবস্থার পরিবর্তন করে স্বাধীন দেশের উপযোগী রাজনীতি ও রাষ্ট্র-ব্যবস্থাপনা গড়ে তোলা এবং যুদ্ধাপরাধী ও রাজাকার মুক্ত বাংলাদেশ গঠনের মধ্যদিয়েই স্বাধীনতার চেতনা বা¯তবায়ন করতে হবে। স্বাধীনতার ৪৫ বছর পরও স্বাধীন দেশের উপযোগী রাজনীতি ও রাষ্ট্র-প্রশাসন গড়ে উঠেনি, বিকাশ ঘটনে জাতীয় সংস্কৃতির। উপনিবেশিক ব্যবস্থার লালন, দুর্নীতি-দুঃশাসন ও মৌলবাদী চেতনাই জাতীয় বিকাশের প্রধান অšতরায়। জাতির বিকাশের জন্য মুক্তিযুদ্ধের চেতনাভিত্তিক রাষ্ট্র-প্রশাসন গড়ে তুলতে হলে দেশে ৯টি প্রদেশ, দ্বি-কক্ষ বিশিষ্ট পার্লামেন্ট ও স্ব-শাসিত স্থানীয় সরকার ব্যবস্থা গড়ে তুলতে হবে। এজন্য বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার প্রতিনিধি, প্রগতিশীল ও গনতন্ত্রমনা রাজনৈতিক দল এবং সুশীল সমাজের সমন্বয়ে তৃতীয় রাজনৈতিক শক্তি গড়ে তোলা সময়ের দাবী। প্রজন্ম চত্বরের গণ জাগরণ থেকে এ শক্তি গড়ে উঠবে। লিটন বলেন, আগামী নির্বাচনকে নিরপেক্ষ ও সকল দল-মহলের নিকট গ্রহনযোগ্য করার স্বার্থে পার্লামেন্টের উচ্চ কক্ষ গঠন করে সেখান থেকে নির্বাচনকালীন সময়ে তত্ত্বাবধায়ক সরকার গঠনের বিধান করতে হবে। যা হবে নির্বাচিত ও জবাবদিহিতামূলক। আজ ২৯ মাচ,বিকেল ৪টায় নিঊইয়কে মহান স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে জেএসডি আয়োজিত আলোচনা সভায় সভাপতির বক্তব্যে লিটন এ সকল কথা বলেন। খবর বাপসনিঊজ.জেএসডি সাধারণ সম্পাদকশামসুঊদদীন আহমদ শামীম  বলেন, আওয়ামীলীগ ও বিএনপি দেশে ক্ষমতার  শাšিতপূর্ণ ও গ্রহনযোগ্য পরিবর্তনের পথ রুদ্ধ করে দিচ্ছে। এমতাবস্থায় রাজনৈতিক শক্তির বাইরে দেশী-বিদেশী বিভিন্ন শক্তির হ¯তক্ষেপের পথ প্রসস্থ হচ্ছে।
আলোচনা সভায় আরো বক্তব্য রাখেন তসলিম ঊদিদন খান,শরীফ ঊদিদন, হেলাল ঊদিদন প্রমূখ।  

আলোচনা অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন,- স্বাধীনতা-সার্বভৌমত্ব রক্ষা, গণতন্ত্র ও ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠা আর আধিপত্য-ফ্যাসিবাদ রোখার দৃপ্ত শপথে মৃত্যুপণ লড়াই ও রক্ত সমুদ্র পাড়ি দিয়ে বীর বাঙালি ছিনিয়ে এনেছে জাতীয় ইতিহাসের সর্বশ্রেষ্ঠ অর্জন স্বাধীনতা। স্বাধিকার আদায়ের দৃঢ় মনোবল নিয়ে পশুশক্তিকে পরাজিত করে ঘোর অন্ধকার অমানিশা কাটিয়ে বাংলার চিরসবুজ জমিনে রক্তে রাঙানো লাল-সবুজ পতাকার জন্ম হয় আজকের এই ঐতিহাসিক দিনেই। কিন্তু   আজও লাখো লাখো  অনাহারি মানুষের দীর্ঘশ্বাস বাংলার বাতাসে ভেসে বেড়াচ্ছে। বঞ্চনার শিকার হাজারও মানুষের দেখার কেউ নেই।  বাংলাদেশর মানুষ আজ নিজের দেশে পর বাসী  ।

আলোচনা অনুষ্ঠানে বক্তারা আরো বলেন,--মানবাধিকার বহু স্থানেই আজ উপেক্ষিত। দিন দিন গরিব আরও গরিব হচ্ছে। স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবসের ইতিহাস বিকৃতি করা হচ্ছে।   হারিয়ে যাচ্ছে মধ্যবিত্তের অহঙ্কার। সন্ত্রাস, নৈরাজ্য, রাজনৈতিক হানাহানি, সংঘর্ষ, সর্বগ্রাসী দুর্নীতি আর প্রতিহিংসা দেশ ও সমাজকে খেয়েছে কুরে কুরে। পাশবিকতায় বন্দি হয়ে পড়ছে দারিদ্র্যক্লিষ্ট বহু জীবন। এদের কাছে সাধারণ মানুষ আজ বড়ই অসহায়।

সভায় প্রধান অতিথি  বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের সাবেক সংসদ সদস্য ও মুক্তিযোদ্বা আনিসুজ্জামান খোকন বলেন- দেশ গভীর সংকটকাল অতিক্রম করছে। দুই বড় দলই কেবল ক্ষমতার জন্য দেশ ও দেশের মানুষকে জিম্মিকরে রাজনীতি করছে। স্বাধীনতাত্তোর স্বাধীন দেশের উপযোগী রাষ্ট্র কাঠামো প্রতিষ্ঠা করতে ব্যর্থ, স্বাধীন দেশের অনুকূলীয় প্রশাসন গড়ে তুলতে ব্যর্থ, বৃটিশ ও পাকিস্তানী রাষ্ট্র কাঠামোয় দেশ পরিচালিত হওয়ার কারনে গত ৪৪ বছরে আমরা এ দূরাবস্থায় পৌছেছি। আমরা ৪৪ বছরে শুধু সুশাসন, সুবিচারের দাবিই জানিয়ে গেলাম, প্রতিষ্ঠা করতে পারলাম না। আমরা বাহ্যিক স্বাধীনতা পেলেও এখনও অভ্যন্তরীন পরাধীনতার মধ্যেই বসবাস করছি। স্বাধীন দেশের রাষ্ট্র ব্যবস্থা আজও অনুপস্থিত। মুক্তিযুদ্ধের সরিষার ভূত ছিল বলেই সম্ভবত স্বাধীনতা অর্জনের পর থেকেই আমরা অভ্যন্তরীনভাবে পরাধীনই থেকে গেলাম।  
সব দলের দিকে তাকালেই দেখা যায় কোথাও গণতন্ত্র নেই। দলে গণতন্ত্র থাকলে দেশ পরিচালনাতেও গণতন্ত্র কাজ করে। এছাড়া সংবিধান ও গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার অনুকূল নয়। সরকার প্রধানকে এতটাই একচেটে ক্ষমতা দেওয়া হয়েছে যে, তা স্বৈরাচারে পরিনত হতে উৎসাহিত করে। গণতন্ত্র ও সুশাসন প্রতিষ্ঠার স্বার্থে এককেন্দ্রিক সরকার ব্যবস্থা পরিবর্তন হওয়া জরুরী হয়ে পড়েছে। একটি কেন্দ্র থেকে ১৬ কোটির মতো মানুষকে সুশাসন দেয়া ও সেবা করা সম্ভব নয়। তাই ক্ষমতা বিকেন্দ্রীকরন করতে হবে।
বিএনপি, আওয়ামীলীগ ও জামায়াত শিবিরকে বাংলাদেশের জন্য রাহু উল্লেখ করে নেতৃবৃন্দ বলেন, এই রাহু থেকে দেশের মানুষ মুক্তি চায়। তাই এই মুহুর্তে তৃতীয় শক্তির উথ্থান জরুরী। স্বাধীন নির্বাচন কমিশন, দুর্নীতি দমন কমিশন, বিচার ব্যবস্থা এবং স্বাধীনভাবে ভোটদানের অধিকার নিশ্চিত করা জরুরী হয়ে পড়েছে। মধ্যবর্তী নির্বাচনের জন্য সকল দলের মধ্যে আলোচনা, সংলাপ ও সমজোতা অত্যাবশ্যক। রাজনীতির নামে নীরিহ মানুষকে জিম্মি করা এবং সন্ত্রাসের মাধ্যমে দেশটিকে গভীর অন্ধকারের দিকে ঠেলে দেয়া হচ্ছে। বিষয়টি রাজনৈতিক তাই রাজনৈতিক ভাবে এ সমস্যার দ্রুত সমাধানের জন্য এবং বৃহৎ জনগোষ্ঠীর কল্যাণ ও নিরাপত্তার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য বক্তারা সকলের প্রতি আহ্বান জানান। তারা আরো বলেন যে, সরকারকে এজন্য অগ্রনী ভুমিকা পালন করতে হবে।
 জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল জেএসডি যুক্তরাষ্ট্র শাখার সাধারণ সম্পাদক শামসুদ্দিন আহমদ শামীম ও মিসেস শামীম এর সৌজন্যে  ্রতী নৈশভোজে অনুষ্ঠানের সবাইকে বিপুল আয়োজনে আপ্যায়িত করা হয়।

সভার শুরুতে  ৭১ এর শহীদ মুক্তিযোদ্ধ, ৫২’র মহান ভাষা আন্দোলনের সকল শহীদদের স্মরনে দাড়িয়ে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়।


যুক্তরাষ্ট্রে ‘সাহসী নারী’ সম্মাননা পাচ্ছেন বাংলাদেশের সারা হোসেন

মঙ্গলবার, ২৯ মার্চ ২০১৬

হাকিকুল ইসলাম খোকন: বাপ্ নিউজ : যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র দফতরের ‘ইন্টারন্যাশনাল উইমেন অব কারেজ অ্যাওয়ার্ড’ পাচ্ছেন বাংলাদেশের আইনজীবী সারা হোসেন। তার সঙ্গে বিভিন্ন দেশের আরো ১৩ জন নারীকে এই পুরস্কারের জন্য মনোনীত করা হয়েছে এবার।যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জন কেরি মঙ্গলবার ওয়াশিংটনে তাদের হাতে পুরস্কার তুলে দেবেন বলে পররাষ্ট্র দফতরের এক বিবৃতিতে জানানো হয়েছে।স্টেট ডিপার্টমেন্ট লিখেছে, ড. কামাল হোসেনের মেয়ে ব্যারিস্টার সারা হোসেন দেশের সুবিধাবঞ্চিত এবং প্রান্তিক জনগোষ্ঠী, বিশেষ করে নারী ও শিশুদের পক্ষে সর্বোচ্চ আদালতে আইনি লড়াই করেন।

‘সাহসী নারী’ সম্মাননা পাচ্ছেন সারা হোসেন 

বাংলাদেশ লিগ্যাল এইড অ্যান্ড সার্ভিসেস  ট্রাস্টের (ব্লাস্ট) নির্বাহী পরিচালক সারা হোসেন নারীর প্রতি সহিংসতা প্রতিরোধে আইনের খসড়া প্রণয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখেন। ২০১০ সালে ওই আইন পাশ হয়।ফতোয়ার বিরুদ্ধে তার মামলা লড়ার কথাও স্টেট ডিপার্টমেন্টের বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়েছে। স্টেট ডিপার্টমেন্ট আরো লিখেছে ‘মিসেস হোসেনের সাহস, আন্তরিকতা ও সততা মক্কেলদের কাছে তাকে আস্থাশীল করার পাশাপাশি বিশ্বব্যাপী মানবাধিকার কর্মীদের শ্রদ্ধা কুড়িয়েছে।’


প্যাটারসনে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি নিউজার্সি স্টেইট ,যুবদল ও ছাত্রদলের যৌথ উদ্যেগে স্বাধীনতা দিবস পালিত

মঙ্গলবার, ২৯ মার্চ ২০১৬

 বিশ্বজিৎ দে বাবলু ,বাপ্ নিউজ : নিউজার্সি থেকে ।। নিউজারসির প্যাটারসনে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদি দল বিএনপি নিউজার্সি স্টেইট ,যুবদল ও ছাত্রদলের যৌথ উদ্যেগে  ২৬শে মার্চ মহান স্বাধীনতা দিবস ২০১৬ উপলক্ষে এক আলোচনা সভা, ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে।

alt

গত শনিবার রাতে  প্যাটারসনের বেঙ্গল ইন্সুরেন্সর হল রুমে অনুষ্ঠিত ওই সভায় সভাপতিত্ব করেন জাতীয়তাবাদি দল বিএনপি নিউজার্সি শাখার সভাপতি ও  প্রসপেক্ট পার্ক সিটির বোর্ড অব এডুকেশনে কমিশনার আবুল হোসেন সুরমান। সাধারণ সম্পাদক মিনহাজ আহমেদ এর পরিচলনায় অনুষ্ঠিত সভায় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন  রাখেন বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদি দল বিএনপি নিউজার্সি স্টেইটের উপদেষ্টা  সাবেক চেয়াম্যান মোহাম্মদ মোছাব্বির আলি,  সহ-সাধারণ সম্পাদক লুৎফুল হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক জামাল হোসেন , নিউজার্সি স্টেইটের উপদেষ্টা ছমির উদ্দীন মাষ্টার ,যুবদলের সভাপতি নুরুল ইসলাম খসরু, বিএনপি নিউজার্সি স্টেইটের কোষাদক্ষ শাহিন মোহাম্মদ , সহ-সভাপতি রুহেল আহমেদ, সহ-সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আতিকুল ইসলাম সুমন ,সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ আব্দালসহআরও অনেক । এসময় বক্তাগন  তাদের  বক্তব্যে বলেন একটি ষড়যন্ত্রকারী মহল স্বাধীনতার সঠিক ইতিহাসকে বিভিন্ন ভাবে অপপ্রচাারে করছে। মহান স্বাধীনতার ঘোষক স্বপ্নময় বাংলাদেশের রূপকার মহান মুক্তিযোদ্ধের স্বাধীনতার ঘোষনা দিয়ে রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান বীর উত্তম বাংলাদেশের গণতন্ত্রকামী মানুষকে স্বাধীন বাংলাদেশে আন্দোলন সংগ্রামে ঝাপিয়ে পড়তে উদ্ভদ্ধ করেছিলেন। সেই মহান নেতা জিয়াউর রহমান বীর উত্তম বাংলাদেশের স্বাধীনতার ঘোষণা দিয়েছেন। তারা আরো বলেন, আজ বাংলাদেশের গণতন্ত্র স্বৈরতন্ত্রে পরিণত হয়েছে। গণতন্ত্র পূর্ণরায় প্রতিষ্ঠা করার লক্ষে দেশনেত্রী সাবেক সফল প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া ও জননেতা তারেক রহমানের নেতৃত্বে ঐক্যবন্ধ আন্দোলন সংগ্রামে ঝাপিয়ে পড়তে আহবান জানান।


যুক্তরাষ্ট্র আওযামী লীগের (অপর অংশ)উদ্যোগে মহান স্বাধীনতা দিবসের আলোচনা সভা অনুুষ্ঠিত

মঙ্গলবার, ২৯ মার্চ ২০১৬

বাপসনিঊজ:গত ২৭শে মার্চ রবিবার জ্যাকসন হাইটসের পালকি পাটি সেন্টারে যুক্তরাষ্ট্র আওযামী লীগের উদ্যোগে নানা আয়োজনে মহান স্বাধীনতা দিবস উদ্যাপন করা হয়। যুক্তরাষ্ট্র আওযামী লীগের অন্যতম সহ সভাপতি বাংলাদেশ সোসাইটির  সাবেক সাধারন সম্পাদক উদযাপন কমিটির আহবায়ক  জযনুল আবেদীনের সভাপতিত্বে  এবং যুক্তরাষ্ট্র আওযামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জালালবাদ এসোসিযেশনের সাবেক সাধারন সম্পাদক ও উদযাপন কমিটির সদস্য সচীব আব্দুল হাছিব মামুনের পরিচালনায় অনুষ্টিত সার্বজনীন এই সমাবেশে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের বিপুল সংখ্যক নেতৃবৃন্দ উপস্থিত  ছিলেন।

alt
সভার শুরুতেই বীর মুক্তিযোদ্ধা লেখক ড: নূরান নবী প্রধান অতিথির আসন গ্রহন করেন। সভায় উপস্থিত মুক্তিযোদ্ধারা বিশেষ অথিতির মর্যাদায় সভা মঞ্চে আসন গ্রহন করেন। মহান স্বাধীনতা সংগ্রামের বীর মুক্তিযোদ্ধাদেরকে সম¥াননা প্রদান করা হয়। বিশেষ অতিথির হিসাবে মঞ্চে আসন গ্রহন করে হিন্দু বৌদ্ধ খৃষ্ঠান  ঐক্যে পরিষদের সভাপতি  অধ্যাপক নরেন্দু দত্ত, কমান্ডার নুরুননবী,বাংলাদেশ সোসাইটির সাবেক সভাপতি কামাল আহমদ, বীর মুক্তিযোদ্ধা অহিদুর রহমান মুক্তা, যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের অন্যতম উপদেষ্ঠা বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল জরিল, বীর মুক্তিযোদ্ধা আজিজুর রহমান সাবু, ওসমানী স্মৃতি পরিষদের সভাপতি নজমুর ইসলাম চৌধুরী, বীর মুক্তিযোদ্ধা সরাফ সরকার, আবুল কাশেম, জাহিদুল ইসলাম, ফিরোজ পাঠোয়ারী। এছাড়াও মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন সামসুল আবেদীন, মহিউদ্দিন মহি, মুরশেদা জামান, আনোয়ার হোসেন ও তরিকুল হায়দার চৌধুরী।খবর বাপসনিঊজ।
alt
সভায় প্রধান অতিথি বীর মুক্তিযোদ্দা নূরান নবী তার বক্তব্যে স্বাধীনতা সংগ্রামের ইতিহাস তুলে ধরে বর্তমান প্রজন্মকে স্বাধীনতার চেতনায় উজ্জবিত হয়ে জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশকে উন্নত দেশ হিসাবে গড়ে তুলার সংগ্রামে শামিল হওয়ার আহ্বান জানান। তিনি জননেত্রী শেখ হাসিনার সরকার যুদ্ধাপরাধীদের বিচার প্রক্রিয়া বাস্তবায়ন করায় প্রবাসীদের পক্ষ থেকে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে অভিনন্দন এবং কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন।বিশেষ অতিথি অধ্যাপক নরেন্দ দত্ত তার বক্তব্যে জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশকে একটি আধুনিক ধর্ম নিরপেক্ষ এবং উন্নত দেশ হিসাবে বিশ্বের দরবারে প্রতিষ্ঠিত করতে সাবাইকে ঐকবন্ধ্যভাবে কাজ করার আহ্বান জানান,কমান্ডার নূরনবী যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ পরিবারকে সকল প্রকার সুবিদাবাধী ধান্ধাবাজদের ক্ষপ্পর থেকে মুক্ত থেকে জননেত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করার জন্য ঐক্যবদ্ধ্য হওয়ার আহ্বান জানান। অনুষ্ঠানের সদস্য সচিব আব্দুল হাছিব মামুন তার বক্তব্যে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের ত্যাগী নেতৃবৃন্দকে পদ পদবীর চিন্তা না করে জাতীর জনকের আদর্শ বাস্তবায়নে নিরলসভাবে কাজ করার আহ্বান জানান। প্রধান সমন্বয়কারী যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক  মহিউদ্দিন দেওয়ান তার বক্তব্যে  যুদ্ধপরাধীদের বিচারের কাঠগড়ায় দাড় করানোর জন্য জননেত্রী শেখ হাসিনাকে অভিনন্দন জানান। তিনি স্বাধীনতা বিরোধীদের চক্রান্তের প্রতি সবাইকে সতর্ক থাকার আহ্বান জানান।

alt
সভায় বক্তব্য রাখেন বীর মুক্তিযোদ্ধা যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের অন্যতম উপদেষ্টা আব্দুল জলিল, ওসমানী স্মৃতি পরিষদের সভাপতি নজমুল ইসলাম চৌধুরী, যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের কার্যকরী পরিষদের অন্যতম সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা অহিদুর রহমান মুক্তা, বীর মুক্তিযোদ্ধা ফিরোজ পাঠোয়ারী, বঙ্গবন্ধু পরিষদের সাধারণ সম্পাদক শুতাংশ গুহ, যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক এমএ করিম জাহাঙ্গীর, সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম, উপ প্রচার সম্পাদক তৈয়বুর রহমান, কার্যকরি পরিষদের অন্যতম সদস্য হাজী নিজাম, আমিনুল ইসলাম কলিন্স, আজহারুল ইসলাম লিটন, মহসিন রিপন, নূরুল আফসার সেন্টু, বজলুরর রহমান, ওয়ালি হোসাইন, অধ্যাপক আমিনুল হক চুন্নু, নিউইয়র্ক মহানগর আওয়ামী লীগের নূরুল আমিন বাবু, শাহিন দেলোয়ার, সাইকুল ইসলাম, শিমুল হাসান, সুব্রত তালুকদার, মোস্তফা কামাল, ইফজাল আহমদ, শ্রমীক লীগের সাধারণ সম্পাদক ওয়াহিদ কাজী এলিন, রুহেল চৌধুরী, ইয়াকুত রহমান, যুক্তরাষ্ট্র যুবলীগের গিয়াস উদ্দিন, স্বেচ্ছাসেবক লীগের জাফর আহমদ, প্রজন্ম লীগের রিপন দৌল্লা, এছাড়াও অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ইফজাল আহমদ, আনোয়ারুল হক পারেক, আবুল কাশেম, শাহ আব্দুর রহিম শ্যামল, খন্দকার জাহেদুল ইসলাম, সুমন আলী, অক্কদস মিয়া, এবিএম রানা , রিয়াজুল করিম, আলম খান, আকতারুজ্জামান রানা, রিয়াজুল কাদের, লস্কর মিঠু, সামছুল আলম, সেলিম চৌধুরী, শেফু রহমান, নিলু চৌধুরী, ইসমত জাহান প্রমূখ।

alt
সভার সভাপতি জয়নুল আবেদীন তার সমাপনি বক্তব্যে সকল মুক্তিযোদ্ধা এবং আওয়ামী লীগে এবং সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দকে সভায় উপস্থিত হওয়ার জন্য কৃতজ্ঞতা এবং অভিনন্দন জানান। ৭ই মার্চ ১৯৭১ সালে বঙ্গবন্ধুর ভাষনের মাধ্যমে স্বাধীনতা ঘোষনা করায় ঐ দিনটিকে “স্বাধীনতা ঘোষনা দিবস” হিসেবে রাষ্ট্রীয় স্বীকৃতির জোর দাবি জানান। তিনি আরো বলেন বিগত ২০০৬ সালে বাংলাদেশ সোসাইটির নির্বাচনে, আমাকে নির্বাচিত করায় প্রতিবছর জাতিয় শোক দিবস পালন করার পদ্ধতি চালু করতে সক্ষম হই।সভার শেষে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে স্বাধীন বাংলা বেতারের গান পরিবেশনা করা হয়। আমন্ত্রিত অতিথি এবং উপস্তিত সবাইকে নৈশভোজে আপ্যায়নের মাধ্যমে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘটে।
বপিুল সংখ্যক প্রবাসীর উপস্থতিতিে অনুষ্ঠানরে শুরুতইে সবার প্রারম্ভে ১৯৭৫-এর ১৫ আগষ্ট স্বপরিবারে নিহত জাতির জনক বঙ্গবন্ধু, ডাকা কেন্দ্রিয় কারাগারে চার জাতীয় নেতা, একাত্তর-এর মুক্তিযুদ্ধ  ত্রশি লাখ শহীদ ও  ১৯৫২- এর মহান ভাষা আন্দোলনসহ আজ পর্যন্ত সকল গণতান্ত্রিক আন্দোলনে নিহতদের প্রতি শ্রদ্ধা নবিদেন করে তদরে স্মরনে সভায় দাঁড়িয়ে  এক মিনটি কাল নিরাবতা পালন করা হয়।