Slideshows

ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার

পরিচালনা পরিষদ 

সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি

ওসমান গনি
 

প্রধান সম্পাদক

হাকিকুল ইসলাম খোকন
 

সম্পাদক

সুহাস বড়ুয়া হাসু
 

সহযোগী সম্পাদক

আয়েশা আকতার রুবী

যুক্তরাষ্ট্রের খবর

বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, যুক্তরাষ্ট কমান্ড এর উদ্যোগে আলোচনা সভা

মঙ্গলবার, ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৭

বাপ্ নিউজ : প্রধান অতিথি:মেজর জে নারেল (অবঃ) হেলাল মোর্শেদ খান, বীর বিক্রম বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদের কেন্দ্রীয় কমান্ড কাউন্সিলের চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল (অবঃ) হেলাল মোর্শেদ খান, বীর বিক্রম এর যুক্তরাষ্ট্রে শুভাগমন উপলক্ষে বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, যুক্তরাষ্ট কমান্ড এর উদ্যোগে এক মত বিনিময় ও আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়েছে। উক্ত সভায় মুক্তিযোদ্ধা ও মুক্তিযুদ্ধে প্রত্যক্ষভাবে অংশগ্রহনকারী সকলকে উপস্থিত থাকার জন্য অনুরোধ জানানো যাইতেছে।
SMART ACADEMIA..  AT  6PM.(September  12th,2017).
165-23 2nd Floor. Hillside Ave. Jamaica.  NY 11432.
বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, যুক্তরাষ্ট কমান্ড
আহবায়ক ড. আব্দুল বাতেন  .Tel. 347-848 3763. এই ইমেইল ঠিকানা স্পামবট থেকে রক্ষা করা হচ্ছে।এটি দেখতে হলে আপনাকে JavaScript সক্রিয় করতে হবে।
 সদস্য সচিব  আহসান হাবিবজগলু  


ওয়াশিংটন ডিসিতে প্রধানমন্ত্রীর আগমন উপলক্ষে প্রস্তুতি সভা

শনিবার, ০৯ সেপ্টেম্বর ২০১৭

হাকিকুল ইসলাম খোকন: বাপ্ নিউজ : যুক্তরাষ্ট্র থেকে:গত ৬ই সেপ্টেম্বর ২০১৭ রোজ বুধবার ভার্জিনিয়ার স্প্রীংফিল্ডে নিরালা রেস্টুরেন্টে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার মেট্রো ওয়াশিংটন ডিসি আগমন উপলক্ষ্যে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ালীগ নেতৃবৃন্দের সঙ্গে মেট্রো ওয়াশিংটন আওয়ামী লীগ, ভার্জিনিয়া স্টেট আওয়ামীলীগ এবং মেরিল্যান্ড স্টেট আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্দের এক যৌথ সভা অনুষ্ঠিত হয় । সভায় সভাপতিত্ব করেন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামীলীগের সন্মানিত সভাপতি ড.সিদ্দিকুর রহমান এবং সভা পরিচালনা করেন মেট্রো ওয়াশিংটন আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক এম নবী বাকী ।

Picture

সভার শুরুতেই এম নবী বাকী উপস্থিত নেতৃবৃন্দকে স্বাগত জানিয়ে সভা আয়োজনের প্রেক্ষাপট বর্ননা করেন । যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্দের মধ্যে ছিলেন সহসভাপতি আবুল কাসেম, ভারপ্রাপ্ত সাধারন সম্পাদক আব্দুস সামাদ আজাদ, সাংগঠনিক সম্পাদক ফারুক আহমেদ, কার্যকরী কমিটির সদস্যা শাহানারা রহমান । মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর আসন্ন সফরকে কেন্দ্র করে আয়োজিত এই সভায় যথেষ্ঠ স্বতঃস্ফূর্ততা ছিল এবং উপস্থিত সকলে তাদের খোলামেলা বক্তব্য উপস্থাপন করেন জননেত্রীর আগমনকে কেন্দ্র করে ।

alt

বক্তা ছিলেন যথাক্রমে জনাব মোহাম্মদ আলমগীর, মেট্রো ওয়াশিংটন আওয়ামীলীগের সভাপতি সাদেক খান, সহসভাপতি নুরুল আমিন নুরু, সহসভাপতি মোহাম্মদ আযম আজাদ, সহসভাপতি আনিসুর রহমান মিঠু, সহসভাপতি নুরুন নাহার মেরী, যুগ্ম সাধারন সম্পাদক হারুন উর রশীদ, যুগ্ম সাধারন সম্পাদক কামাল হোসেন, মেট্রো ওয়াশিংটন আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবকলীগ সভাপতি আবুল হোসেন শিকদার, মেট্রো ওয়াশিংটন আওয়ামী যুবলীগের সভাপতি রাবিউল ইসলাম রাজু, ভার্জিনিয়া স্টেট আওয়ামীলীগের সভাপতি রফিক পারভেজ, সহসভাপতি আবুল হাসেম, সহসভাপতি আবুল কালাম আজাদ, দস্তগীর জাহাঙ্গীর, জীবক বড়ুয়া,যুগ্ম সাধারন সম্পাদক ওসমান খান, যুবলীগ সভাপতি দেওয়ান মোহাম্মদ আরশাদ বিজয়, ভার্জিনিয়া স্টেট আওয়ামীলীগের প্রাক্তন সাধারন সম্পাদক জি আই রাসেল, মেরিল্যান্ড স্টেট আওয়ামীলীগের সভাপতি শেখ সেলিম, সহসভাপতি মোশারফ হোসেন দুলাল, সাধারন সম্পাদক মইনুল হাসান তাপস, ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক রফিকুল ইসলাম এবং কেন্দ্রীয় মহিলা আওয়ামীলীগের দপ্তর সম্পাদক রোজিনা নাসরিন । সভায় অন্যান্যের মধ্যে আরো উপস্হিত ছিলেন মেট্রো ওয়াশিংটন আওয়ামীলীগের উপদেষ্ঠা প্রফেসর জিয়াউদ্দিন খান ,সহসভাপতি জুয়েল বড়ুয়া, সাংগঠনিক সম্পাদক বাবু নারায়ন দেবনাথ, সাংগঠনিক সম্পাদক শহিদুল ইসলাম জয়, সাংগঠনিক সম্পাদক রোমিও হক, কার্যকরী কমিটির মেম্বার শাহিদা পারভিন লিপি, মেট্রো ওয়াশিংটন আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবকলীগ সাধারন সম্পাদক খিজির আহমেদ টিটু, সহসভাপতি বাবু উত্তম মন্ডল, যুগ্ম সম্পাদক জাহিদুল ইসলাম, প্রচার সম্পাদক সোহেল আহমেদ, মেট্রো ওয়াশিংটন আওয়ামী যুবলীগের সহসভাপতি আবু বকর সিদ্দিক সাজ, সাধারন সম্পাদক সর্বজিৎ দাশ তুর্য, যুগ্ম সম্পাদক ইমরান হামিদ, সাংগঠনিক সম্পাদক কামরুল হাসান রাশেদ, মেট্রো ওয়াশিংটন মহিলা আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ফারজানা নবী, সাধারন সম্পাদক রিফাত শারমিন আহমেদ, ভার্জিনিয়া স্টেট আওয়ামীলীগের সহসভাপতি আনোয়ারুল আজিম, যুবলীগের সাধারন সম্পাদক জাহিদ হোসেন, ছাত্রলীগের রিফাত হোসেন এবং কেন্দ্রীয় মহিলা আওয়ামীলীগের দফতর সম্পাদক রোজিনা নাসরিন ।

alt

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন গ্রেটার ওয়াশিংটন ডিসি বাংলাদেশ এসোসিয়েশন অব গ্রেটার ওয়াশিংটন ডিসির (বাগডিসি) প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ আলমগীর, বিশিষ্ঠ ব্যক্তিত্ব রাশিদুল হাসান খান রজত, সিদ্দিকুর রহমান, কফিল উদ্দিন, মামুন, নুরুন নবী ।সমাপনী বক্তব্যে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামীলীগের সভাপতি ড.সিদ্দিকুর রহমান সকলের বক্তব্যের সূত্র ধরে বলেন মেট্রো ওয়াশিংটনে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সফরকে সর্বাত্বক সফল করতে স্থানীয় তিন কমিটিকে সংশ্লিষ্ট করেই সব কিছু করা হবে । এছাড়া উনি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নিউইয়র্ক সফরকালীন সময়ে ১৯শে সেপ্টেম্বর গনসংবর্ধনা এবং অন্যান্য কর্মকান্ডে সকলকে অংশগ্রহন করার জন্য আমন্ত্রণ জানান । সভায় সিদ্ধান্ত হয় ভার্জিনিয়ায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর প্রোগ্রামের দিন হোটেলের সম্মূখে বর্তমান সরকারের সমর্থনে শান্তিপূর্ণ পথ সমাবেশ হবে । স্বল্প সময়ের সিদ্ধান্তে এই প্রস্তুতি সভায় নেতাকর্মীদের ব্যাপক উপস্থিতিই প্রমান করে দিয়েছে সকলে যুক্তরাষ্ট্রের মাটিতে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনাকে বরন করে নিতে উদগ্রীব হয়ে আছেন । মেট্রো ওয়াশিংটন আওয়ামীলীগের প্রেস এন্ড পাবলিকেশন্স সম্পাদক শামীম হায়দার ব্যানার তৈরী এবং ফটোগ্রাফার হিসেবে উপস্হিত ছিলেন । সাউন্ড সিস্টেম প্রোভাইড করেছেন মেট্রো ওয়াশিংটন আওয়ামী স্বেচছাসেবকলীগের সহ সভাপতি বাবু উত্তম মন্ডল ।

জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু ।


নিউ ইয়র্ক ট্রাফিক বিভাগে দেড়শ বাংলাদেশি

শনিবার, ০৯ সেপ্টেম্বর ২০১৭

Picture

হাকিকুল ইসলাম খোকন: বাপ্ নিউজ :নিউইয়র্ক (যুক্তরাষ্ট্র) থেকে : নিউ ইয়র্ক পুলিশের ট্রাফিক এনফোর্সমেন্ট বিভাগে প্রবাসী বাংলাদেশিরা সুনাম অর্জন করায় বাংলাদেশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন নিউ ইয়র্ক পুলিশ ইউনিয়নের সভাপতি সৈয়দ রহিম।

alt

ট্রাফিক বিভাগে নতুন করে দেড়শ প্রবাসী বাংলাদেশির নিয়োগ পাওয়া উপলক্ষে রোববার সন্ধ্যায় নবীনবরণ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে বাংলাদেশি ট্রাফিক পুলিশের সংগঠন 'এন-ওয়াই-পি-ডি ট্রাফিক এনফোর্সমেন্ট এজেন্টস।

alt

নিউ ইয়র্কের বেলাজিনো পার্টি হলে আয়োজিত অনুষ্ঠানে সংগঠনের সভাপতি মাসুদ আলী ভুইঁয়ার সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন জাতিসংঘে নিযুক্ত বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি মাসুদ বিন মোমেন, নিউইয়র্ক পুলিশের লেফটেনেন্ট মিল্লাত খান ও ট্রাফিক কর্মকর্তা সৈয়দ উৎবা প্রমুখ।

alt

এ সময় মাসুদ বিন মোমেন প্রবাসীদের প্রত্যেককে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূতের ভূমিকা পালনের আহ্বান জানান।


শাহ্ সাহিদুল হক সাইদ এর অস্ত্রোপাচার সম্পন্ন

শনিবার, ০৯ সেপ্টেম্বর ২০১৭

হাকিকুল ইসলাম খোকন,বাপসনিঊজ:ওয়ার্ল্ড হিউম্যান রাইট্স ডেভেলাপমেন্ট ইউএসএ -এর প্রেসিডেন্ট শাহ্ সাহিদুল হক সাইদ এর অসুস্থতার কারনে ৫ই সেপ্টেম্বর মঙ্গলবার ফ্লাশিংস্থ প্রেসবাইটেরিয়ান হাসপাতালে ৫১১ নং কক্ষে ভর্তি করা হয়।

এই হাসপাতালে অস্ত্রোপাচার সম্পন্ন হয়েছে এবং দেশ এবং প্রবাসে সকলের কাছে সুস্থতার জন্য দোয়া কামনা করেছেন ওয়ার্ল্ড হিউম্যান রাইট্স ডেভেলাপমেন্ট ইউএসএ ইন্ক এর ভাইস প্রেসিডেন্ট জসিম উদ্দিন এবং আমেরিকা-বাংলাদেশ এলাইন্সের প্রেসিডেন্ট ও যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক এমএ সালাম,এবিসিডিআই সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা ড. প্রদীপ রঞ্জন কর,লেখক ও এক্টিভিষ্ট সিকদার গিয়াসউদ্দিন, সিডিএলজি নির্বাহী পরিচালক আবু তালেব,যুক্তরাষ্ট্র সোহরাওয়ার্দী স¥ৃতি পরিষদের সভাপতি শিশু সাহিত্যিক হাসানুর রহমান ও সাধারণ সম্পাদক সিনিয়র সাংবাদিক হাকিকুল ইসলাম খোকন,সংগঠক আবদুর রহিম বাদশা, নিউইংল্যান্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি ওসমান গণি ও সাধারণ সম্পাদক সুহাস বড়ুয়া, সেন্ট্রাল ফ্লোরিডা আওয়ামী লীগের সভাপতি মাহবুবুর রহামন মিলন ও সাধারণ সম্পাদক আলো আহমেদ,আমেরিকান প্রেসক্লাব অব বাংলাদেশ অরিজিন  সভাপতি সিনিয়র সাংবাদিক হাকিকুল ইসলাম খোকন ও সাধারণ সম্পাদক হেলাল মাহমুদ,  মুক্তিযোদ্ধা বিএম জাকির হোসেন হিরু ভূইয়া, মুক্তিযোদ্ধা গোলাম কুদ্দুস,বোস্টনবাংলানিউজ ডটকম সহযোগী সম্পাদক বিশ্বজিৎ সাহা ,নাসিম পারভীন,সামসুল আলম ও আয়েশ আক্তার রুবি, ইউএসএবাংলানিউজ এর সম্পাদক আবু সাঈদ রতন, কবি ও সঙ্গীত শিল্পী শামীমআরা আফিয়া, কবি আব্দুল আজিজ, ফিরোজ মাহমুদ, আশাফ মাসুক,জাহাঙ্গীর কবির জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল জেএসডি যুক্তরাষ্ট্র শাখার সভাপতি হাজী আনোয়ার হোসেন লিটন ও সাধারণ সম্পাদক শামসুউদ্দিন আহমেদ শামীম, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল- জাসদ যুক্তরাষ্ট্র শাখার সিনিয়র সহ সভাপতি দেওয়ান শাহেদ চেীধুরী ও সাধারান সম্পাদক নূরে আলম জিকু এবং শেখ হাসিনা মঞ্চে যুক্তরাষ্ট্রের সভাপতি হাজী জালাল উদ্দিন জলিল ও সাধারণ সম্পাদক কায়কোবাদ খান আবুল কাসম ভুইয়া প্রমুখ।


সোহ্রাওয়ার্দীর ১২৫তম জন্মদিন পালিত

শনিবার, ০৯ সেপ্টেম্বর ২০১৭

হাকিকুল ইসলাম খোকন, বাপসনিউজ, এনওয়াইবিডিনিউজঃ‘গণতন্ত্রের মানসপুত্র‘ ঐতিহ্যবাহী রাজনৈতিক দল আওয়ামী লীগের মূল প্রতিষ্ঠাতা ও জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ‘রাজনৈতিক পিতা‘ হোসেন শহীদ সোহ্রাওয়ার্দীর ১২৫তম জন্মদিন ৮ সেপ্টে¤¦র  সকাল  ১১টায় নিউইয়র্ক মহানগরীর এস্টোরিয়া ৩৬ এভিনিউস্থ একটি রেঁস্তোরায় আয়োজন করে এক মনোজ্ঞ আলোচনা সভার। আয়োজিত এই আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন সোহ্রাওয়াদী স¥ৃতি পরিষদের সভাপতি প্রবীণ শিশু সাহিত্যিক  হাসানুর রহমান। সোহ্রাওয়াদী স¥ৃতি  পরিষদের সাধারধ সম্পাদক সিনিয়র সাংবাদিক হাকিকুল ইসলাম খোকন অনুষ্ঠান পরিচালনার দায়িত্ব পালন করেন।  উপস্থিত অতিথিদের মধ্যে সোহ্রাওয়ার্দীর বর্ণাঢ্য জীবনের উপর সারগর্ভ আলোচনায় অংশ গ্রহণ করেন।এতে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন আমেরিকা-বাংলাদেশ এলাইন্সের প্রেসিডেন্ট ও যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক এমএ সালাম। বিশেষ অতিথি ছিলেন জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল- জাসদ যুক্তরাষ্ট্র শাখার সিনিয়র সহ সভাপতি,সাধারান সম্পাদক নূরে আলম জিকু, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জেএসডি-যুক্তরাষ্ট্র শাখার সভাপতি হাজী আনোয়ার হোসেন লিটন,  উদয়ন শিল্পী গোষ্ঠীর সভাপতি ডাঃ টমাস দুলু রায়, কন্ঠশিল্পী  শামীমআরা আফিয়া,ইন্টারন্যাশনাল বঙ্গবন্ধু সেন্টারের মহাসচিব ভূতত্ত্ববিদ গিয়াসউদ্দিন আহমেদ,  চিকিৎসক ডাঃ হেলেন রায়, সংগঠক জাহাঙ্গীর কবীর, বঙ্গবন্ধু প্রচারকেন্দ্র সমাজকল্যাণ পরিষদেও সহ সভাপতি ফিরোজ মাহমুদ ও সাধারণ সম্পাদক কবি এম আনোয়ার, রিয়েল্টর আবু শোয়েব সহ আরো অনেকে সারগর্ভ আলোচনায় অংশ নেন এই মনোরম সভায়,
প্রধান অতিথি এমএ সালাম তাঁব বক্তব্যে বলেন, ‘‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সোহ্রাওয়ার্দীকে তাঁর রাজনৈতিক পিতা হিসেবে উলেলখ করেছিলেন, অথচ বর্তমান সময়ের অনেক নেতাই সোহ্রাওয়ার্দীর নাম যথাযথভাবে উচ্চারণ করেন না।‘‘ সাংবাদিক হাকিকুল ইসলাম খোকন বলেন, ‘‘কিংবদন্তী নেতা সোহ্রাওয়ার্দী গণতন্ত্রের পতাকাকে সমুন্নুত রাখার সাধনায় সারা জীবন ব্যাপৃত ছিলেন বলে তাঁকে ‘গণতন্ত্রের মানসপুত্র‘ হিসেবে অভিহিত করা হয়ে থাকে।

সভাপতির ভাষণে শিশু সাহিত্যিক হাসানুর রহমান বলেন, ‘পদ¥া-মেঘনা-যমুনা যতদিন বহমান থাকবে, স¦াধীন বাংলাদেশের স¦প্নদ্রষ্টা সোহ্রাওয়ার্দী ও তাঁর একান্ত শিষ্য স¦াধীন বাংলাদেশের স্থপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নাম রবে চির অমলিন। সোহ্রাওয়ার্দী ছিলেন তাঁর সময়কার অবিস¥রণীয় জনপ্রিয় নেতা।‘‘ সভার শুরুতে সোহ্রাওয়ার্দী ও বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পামাল্য অর্পণ করা হয়।     
সবার প্রারম্ভে ১৯৭৫-এর ১৫ আগষ্ট স্বপরিবারে নিহত জাতির জনক বঙ্গবন্ধু, ডাঢা কেন্দ্রিয় কারাগারে চার জাতীয় নেতা, একাত্তর-এর মুক্তিযুদ্ধ ও  ১৯৫২- এর মহান ভাষা আন্দোলনসহ আজ পর্যন্ত সকল গণতান্ত্রিক আন্দোলনে নিহতদের স্মরনে সভায় দাঁড়িয়ে  এক মিনটি কাল নিরাবতা পালন করা হয়।


ঙ্গবন্ধুর দেখানো পথেই শান্তির সংস্কৃতিকে এগিয়ে নিতে বৈশ্বিক পরিমন্ডলে নেতৃস্থানীয় ভূমিকা রেখে কাজ করে যাচ্ছে বাংলাদেশ - জাতিসংঘে রাষ্ট্রদূত মাসুদ বিন মোমেন

শনিবার, ০৯ সেপ্টেম্বর ২০১৭

হাকিকুল ইসলাম খোকন, বাপসনিঊজ:“বঙ্গবন্ধুর দেখানো পথেই শান্তির সংস্কৃতিকে এগিয়ে নিতে বৈশ্বিক পরিমন্ডলে সামনের সারিতে থেকে এবং জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা ও শান্তি বিনির্মাণ কর্মসূচিতে নেতৃস্থানীয় ভূমিকা রেখে কাজ করে যাচ্ছে বাংলাদেশ”- গত  ৭ সেপ্টেম্বর জাতিসংঘ সদরদপ্তরের সাধারণ পরিষদ হলে ‘শান্তির সংস্কৃতি’র উপর জাতিসংঘের উচ্চপর্যায়ের ফোরামে সাধারণ বিতর্কে ভাষণ প্রদানকালে একথা বলেন জাতিসংঘে নিযুক্ত বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি ও রাষ্ট্রদূত মাসুদ বিন মোমেন।খবর বাপসনিঊজ।
স্থায়ী প্রতিনিধি তাঁর ভাষণে সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে স্মরণ করে বলেন, “জাতির পিতা আমাদের পররাষ্ট্র নীতির মৌলিক বিষয়গুলোর মধ্যে ‘শান্তির সংস্কৃতি’কে প্রোথিত করেছিলেন। আজ থেকে ৪২ বছর আগে জাতিসংঘে প্রদত্ত প্রথম বাংলা ভাষণে জাতির পিতা ‘সকলের প্রতি বন্ধুত্ব, কারো প্রতি বৈরিতা নয়’, ‘বিরোধের শান্তিপূর্ণ সমাধান’ ও ‘আন্তর্জাতিক সম্পর্কের ক্ষেত্রে পেশী শক্তির ব্যবহার বর্জন’ এর মতো বিষয়গুলো উল্লেখ করেছিলেন”।
শান্তির সংস্কৃতির অগ্রসরতায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভূমিকার কথা উল্লেখ করে রাষ্ট্রদূত মাসুদ বলেন, “প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বঙ্গবন্ধুর নীতি-আদর্শকে তাঁর সরকার ও তাঁর রাজনৈতিক মতাদর্শের কেন্দ্রীয় নীতি হিসেবে ধারণ করেছেন। তাঁর প্রথমবারের সরকারের সময় ১৯৯৭ সালে তিনিই প্রথম ‘শান্তির সংস্কৃতি’ ধারণাটি প্রস্তাব করেন। সেই থেকে বাংলাদেশ স্বপ্নদর্শী ও সার্বজনীন এই ‘শান্তির সংস্কৃতি’ ধারণার পূর্ণ ও কার্যকর বাস্তবায়নের লক্ষে এর প্রাধিকারমূলক ক্ষেত্রসমূহের উপর গৃহীত সকল ঘোষণা ও কর্মপরিকল্পনার সাথে নিবিড়ভাবে সম্পৃক্ত রয়েছে এবং সকল সংশ্লিষ্ট পক্ষের সাথে একযোগে কাজ করে যাচ্ছে”। উল্লেখ্য ১৯৯৭ সাল থেকে শুরু করে প্রতিবছরই জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদে সর্বসম্মতিক্রমে ‘শান্তির সংস্কৃতি’র প্রস্তাবসমূহ পাশ হয়।

Picture
এই সভায় রাষ্ট্রদূত মাসুদ আরও জানান, বাংলাদেশ শান্তি বিষয়ক শিক্ষার উপর বিশেষভাবে গুরুত্ব দিয়েছে এবং সে অনুযায়ী স্কুলের পাঠ্যসূচিতে শান্তি সম্পর্কিত পাঠ অর্ন্তভুক্ত করা হয়েছে যাতে শিক্ষার্থীগণ শৈশবকাল থেকেই এ বিষয়ে শিক্ষা পায়। তরুনদের মনে শান্তির সংস্কৃতির বীজ বপনের ক্ষেত্রে কতিপয় বিষয়ের প্রতি বিশেষ দৃষ্টি দিয়ে তিনি বলেন,“স্কুলে যাওয়ার আগেই পরিবার থেকে শান্তির সংস্কৃতির শিক্ষা শুরু করা উচিত। পারিবারিক এই শিক্ষাই সমাজ থেকে দেশ, দেশ থেকে বিশ্বব্যাপী শান্তির সংস্কতি ও সহনশীলতার আন্দোলনকে বেগবান করতে পারে”। তিনি আরও বলেন, সন্ত্রাসবাদ ও সহিংস চরমপন্থার বিরুদ্ধে আমাদের লড়াইয়ে আমরা ‘সমগ্র সমাজ’ পদ্ধতি গ্রহণ করেছি।
সাম্প্রতিক সময়ে সীমান্তের ওপার থেকে আসা বিশাল জনগোষ্ঠী বিশেষ করে শিশু, নারী ও বৃদ্ধসহ দূর্দশাগ্রস্থ মানুষদেরকে নিয়ে যে গুরুতর চ্যালেঞ্জ বাংলাদেশ মোকাবিলা করছে সে বিষয়ে তিনি এ পরিষদকে অবহিত করেন এবং শান্তি ও মানবতা রক্ষার স্বার্থে এর সমাধানে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের জরুরী মনোনিবেশ প্রত্যাশা করেন।
সকালে শুরু হওয়া ‘শান্তির সংস্কৃতি’র সাধারণ বিতর্ক অংশে সভাপতিত্ব করেন জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের সভাপতি পিটার থমসন। এ সভায় কী-নোট স্পীচ প্রদান করেন নবেল লরিয়েট বেটি উইলিয়ামস।
বিকালে সংশ্লিষ্ট বিষয়ের উপর একটি প্যানেল আলোচনা অনুষ্ঠিত হয় যেখানে মডারেটর দায়িত্ব পালন করেন জাতিসংঘে নিযুক্ত বাংলাদেশের সাবেক স্থায়ী প্রতিনিধি ও জাতিসংঘের সাবেক সহকারি সেক্রেটারি জেনারেল রাষ্ট্রদূত আনোয়ারুল করিম চৌধুরী। ইউনেস্কোর সাবেক মহাপরিচালক ও কালচার অফ পিচ ফাউন্ডেশনের সভাপতি প্রফেসর ফেডারিকো মেয়র, শিশুদের প্রতি সহিংসতা বিরোধী জাতিসংঘ মহাসচিবের বিশেষ প্রতিনিধি ড. মারতা স্যানতোজ পাইজ ও ইউনিসেফের প্রতিষ্ঠান আর্লি চাইলহুড পিচ কনসোর্টিয়াম এর চেয়ারপরসন ড. রিমা সালাহ্সহ এনজিও, সুশীল সমাজের প্রতিনিধিগণ এবং সদস্যরাষ্ট্রের প্রতিনিধিবর্গ এই ইন্টারেক্টিভ প্যানেল আলোচনা পর্বে অংশ নেন।

alt
“The way, shown by Bangabandhu has inspired Bangladesh to work at the global forefront for promoting ‘Culture of Peace” – Ambassadar Masud Bin Momen at UN
 
 Hakikul Islam Khokan,Bapsnews:“The way, shown by Bangabandhu has inspired Bangladesh to work at the global forefront for promoting ‘Culture of Peace’ through its leadership role in UN Peacekeeping and Peacebuilding” says Permanent Representative of Bangladesh to the UN Ambassadar Masud Bin Momen today at the general debate on United Nations High Level Forum on the Culture of Peace, held at the General Assembly Hall at UN Headquarters.
In his address, he recalled the Greatest Bangalee of all times, Father of the Nation Bangabandhu Sheikh Mujibur Rahman who had ingrained a ‘culture of peace’ into our foreign policy fundamentals. Bangabandhu enunciated at the United Nations 42 years ago narratives like “Friendship to all and malice towards none”, “peaceful settlement of disputes”, and “renouncement of the use of force in international relations”.
Mentioning Prime Minister Sheikh Hasina’s role to promote the ‘Culture of Peace’, Ambassador Masud said, “Our Prime Minister Sheikh Hasina has also upheld Bangabandhu’s ideals as a central tenet of her governance and political ideology. It was during her first tenure that Bangladesh worked with other Member States as the proponent of Culture of Peace in 1997. Since then Bangladesh along with all the stakeholders have been engaged in successive Declaration and Programme of Action on a Culture of Peace which highlighted the priority areas for the full and effective implementation of this visionary and universally applicable idea”. Since 1997, the United Nations General Assembly has adopted consensus resolutions every year in support of a culture of peace.
Ambassador Masud further informed the Assembly that Bangladesh recognizes the importance of peace related education in the school curriculum to introduce peace perspective from the very childhood. Highlighting the fact that seeds of Culture of Peace must be sown in the minds of the young, he said that the efforts should be given at the family level even before school. This lesson from the family then can be amplified into the society, the country and globally as a movement for culture of peace and tolerance. In our fight against terrorism and violent extremism, we have taken a ‘whole-of-society’ approach he added.
The PR also apprised the General Assembly that Bangladesh was facing serious challenges with the recent large influx of people from across the border and the plight of the children, women and elderly in particular that needs urgent attention of international community for the sake of peace and humanity.
The General Debate in the morning was presided over by the President of General Assembly, Peter Thomson and Key Note Speech was delivered by Nobel Peace Laureate Betty Williams.
In the afternoon, a Panel Discussion was held which was moderated by Ambassador Anwarul Karim Chowdhury, former Assistant Secretary General of UN and former Permanent Representative of Bangladesh to the UN. Panelists included Former Director-General of UNESCO and President, Culture of Peace Foundation Professor Federico Mayor and Special Representative of UN Secretary-General on Violence against Children Dr. Marta Santos Pais and Dr. Rima Salah, Chair of the Early Childhood Peace Consortium (ECPC), an UNICEF entity. NGOs and civil society along with Member States took part in the interactive discussion.


হিন্দু কল্যাণ পরিষদের ৫ দিন ব্যাপি দূর্গাপূজা শুরু ২৬ সেপ্টেম্বর

শনিবার, ০৯ সেপ্টেম্বর ২০১৭

 হিন্দু কল্যাণ পরিষদের ৫ দিন ব্যাপি দূর্গাপূজা শুরু ২৬ সেপ্টেম্বর

বাপ্ নিউজ : কুইন্স: ‘উত্তর আমেরিকা হিন্দু কল্যাণ পরিষদ‘র আয়োজনে শ্রী শ্রী দূর্গা পূজা জ্যামাইকা ওর্কা পার্টি হলে আগামী ২৬ সেপ্টেম্বর মঙ্গলবার থেকে শুরু হবে শেষ হবে ৩০ সেপ্টেম্বর শনিবার। পূজাতে পুষ্পাঞ্জলি, সন্ধ্যা আরতি, খাতে-খড়ি, গীতা পাঠ, অঞ্জলী, মহাপ্রসাদ ছাড়াও প্রবাসের থাকবে খ্যাতনামা শিল্পীদের পরিবেশনায় মনোমুগ্ধকর সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। পূজা অনুষ্ঠানকে সুন্দর ও স্বার্থক করতে সংগঠনের সভাপতি উমেশ পাল, সাধারণ সম্পাদক সদানন্দ হালদার ও উদযাপন কমিটির আহবায়ক শুভাশীষ নন্দি হিন্দু ধর্মের সকলকে যথাসময়ে উপস্থিত থাকার জন্য বিশেষভাবে অনুরোধ জানিয়েছেন।


যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের কার্যকরী পরিষদের সভা অনুষ্ঠিত

বৃহস্পতিবার, ০৭ সেপ্টেম্বর ২০১৭

হাকিকুল ইসলাম খোকন: বাপ্ নিউজ : নিউইয়র্ক থেকে :বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জাতিসংঘের ৭২তম সাধারন অধিবেশনে যোগদানের উদ্দেশে যুক্তরাষ্ট্রে আগমন উপলক্ষে  সংগঠনের প্রস্ততি নেওয়ার জন্য যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগ  ৩ সেপ্টেম্বর  রবিবার  জ্যাকসন হাইটস এর খাবার বাড়ির পার্টি হলে কার্যকরী পরিষদের সভা অনুষ্ঠিত হয় ।

Picture

উক্ত সভায় সভাপতিত্ব করেন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি নুরুজ্জামান সরদার এবং সভা পরিচালনা করেন সাধারন সম্পাদক সুবল দেবনাথ। উক্ত অনুষ্টানে সন্মানীত অতিথি হিসাবে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সভাপতি ডঃ সিদ্দিকুর রহমান ও বাংলাদেশ স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহ- আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক সাখাওয়াত বিশ্বাস ।

alt

যুক্তরাষ্ট্র স্বেচ্ছাসেবক লীগের সকল নেতাবৃন্দ উপস্তিত ছিলেন। সভায় নেতা কর্মীরা নিজ নিজ বক্তব্যের মাধ্যমে  প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নিউইয়র্কে অবস্থান কালে তার নিরাপত্তা সহ সকল ধরনের সেবা দেওয়ার জন্য সর্বাত্মক ভাবে প্রস্তুত আছেন বলে ব্যক্ত করেন এবং সংগঠনকে আরো শক্তিশালী করার জন্য করনীয় বিভিন্ন কর্মসুচীর সুপারিশ করে বক্তব্য রাখেন সকল নেতাবৃন্দ । সংগঠনের সভাপতি এবং সাধারন সম্পাদক সকল নেতা কর্মীর কথা ধর্য্য সহকারে শুনেন এবং সকল নেতা কর্মীর পরামর্শক্রমে গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত গ্রহন করেন।


নিউ ইয়র্কে বঙ্গবন্ধু সম্মেলন ৯ সেপ্টেম্বর

বৃহস্পতিবার, ০৭ সেপ্টেম্বর ২০১৭

হাকিকুল ইসলাম খোকন: বাপ্ নিউজ :যুক্তরাষ্ট্রে সেপ্টেম্বরের দ্বিতীয় সপ্তাহে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া পঞ্চম ‘বঙ্গবন্ধু সম্মেলন ও বঙ্গবন্ধু স্মারক বক্তৃতা’অনুষ্ঠানের প্রস্তুতি চলছে।স্থানীয় সময় শনিবার (৯ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যা ৭টায় নিউ ইয়র্ক সিটির জ্যাকসন হাইটসের জুইশ সেন্টার অডিটোরিয়ামে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে ‘যুক্তরাষ্ট্র বঙ্গবন্ধু পরিষদ’।এবারের স্মারক বক্তৃতার বিষয় হচ্ছে ‘বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন ও বাংলাদেশের গ্রাম’। স্মারক বক্তৃতা দেবেন জাতিসংঘের অর্থনীতিবিদ নজরুল ইসলাম।সংগঠনের সেক্রেটারি শিতাংশু গুহ জানান, প্রথম থেকে চতুর্থ ‘বঙ্গবন্ধু সম্মেলন ও স্মারক বক্তৃতা’ সফল হবার পর এবার পঞ্চম সম্মেলন। বঙ্গবন্ধুর ওপর বিশেষজ্ঞদের একক বক্তৃতা সুধীমহলে যথেষ্ট প্রশংসা কুড়াতে সক্ষম হয়। সেই আলোকে এটি অনুষ্ঠিত হবে।

Picture

প্রথম বঙ্গবন্ধু সম্মেলনে স্মারক বক্তা ছিলেন অধ্যাপক মুনতাসির মামুন। জ্যাকসন হাইটসের পালকি সেন্টারে দ্বিতীয় সম্মেলনে স্মারক বক্তা ছিলেন সাংবাদিক শাহরিয়ার কবীর। তৃতীয় ও চতুর্থ সম্মেলনে স্মারক বক্তা ছিলেন যথাক্রমে স্বাধীনতা পদকপ্রাপ্ত মুক্তিযোদ্ধা কাজী সাজ্জাদ আলী জহীর (বীরপ্রতিক) ও টেলিভিশন ব্যক্তিত্ব, কলামিস্ট বেলাল বেগ।

আয়োজক সংগঠনের সভাপতি নূরন্নবী বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু মাত্র ৫৫ বছর বেঁচে ছিলেন। এই সামান্য সময়ের মধ্যে তিনি বাঙালিদের একটি স্বাধীন দেশ উপহার দেন। একজন মানুষের কাছে, বাঙালির আর কি চাই’। তিনি বলেন, ‘আমরা নিউ ইয়র্কের জ্যাকসন হাইটসে বসে যে কথা বলতে পারছি, তাও তারই জন্যে। তিনি আমাদের একটি সবুজ পাসপোর্ট দিয়েছিলেন বলেই। বঙ্গবন্ধুর ‘অসমাপ্ত আত্মজীবনী’ এবং ‘কারাগারের রোজনামচা’ বইগুলো এখন প্রকাশিত হয়েছে। জাতির জনককে জানতে এই বইগুলো পড়ার জন্যে আমরা সবাইকে অনুরোধ করছি।’


যুক্তরাষ্ট্র যুবলীগের টাউন হল মিটিং ১০ সেপ্টেম্বর

বৃহস্পতিবার, ০৭ সেপ্টেম্বর ২০১৭

হাকিকুল ইসলাম খোকন: বাপ্ নিউজ : নিউইয়র্ক (যুক্তরাষ্ট্র) থেকে : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যুক্তরাষ্ট্র আগমনকে সুন্দর ও স্বাথর্ক করার লক্ষ্যে প্রস্তুতিমূলক “টাউন হল মিটিং” এর আয়োজন করেছে বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ যুক্তরাষ্ট্র শাখা। আগামি ১০ সেপ্টেম্বর রবিবার বিকালে সভা অনুষ্ঠিত হবে জ্যাকসন হাইটসের খাবার বাড়ী চাইনিজ রেষ্টুরেন্টে। এতে প্রধান অতিথি থাকবেন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সভাপতি ড. সিদ্দিকুর রহমান। উল্লেখ্য, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আগামি ১৭ সেপ্টেম্বর জাতিসংঘর ৭২তম সাধারন অধিবেশনে যোগদানে উদ্দেশ্যে নিউইয়র্কে এসে পৌছঁবেন বলে দায়িত্বশীল সূত্র বাপসনিঊজকে জানান ।

Picture
প্রধানমন্ত্রীর আগমন উপলক্ষে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ হাসিনা এবং তার তনয় সজীব ওয়াজেদ জয়ের  ছবি সম্মেলিত ব্যানার, ফেস্টুন, প্লেকার্ড ব্যবহারের মাধ্যমে তাঁকে স্বাগত জানাবেন বলে জানান যুক্তরাষ্ট্র যুবলীগের আহবায়ক একেএম তারিকুল হায়দার চৌধুরী। ১০ সেপ্টেম্বরের টাউন হল মিটিং সফল করার জন্য যুক্তরাষ্ট্র যুবলীগের সকল নেতাকর্মীসহ মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের সকলকে উপস্থিত থাকার জন্য আহবান জানিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্র যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক খন্দকার বাহার সবুজ।


যুক্তরাষ্ট্র জাতীয় পাটি রোহিঙ্গা নির্যাতনে নিন্দা ও বিশ্বনেতৃবৃন্দের প্রতি সমাধানের আহ্বান

বৃহস্পতিবার, ০৭ সেপ্টেম্বর ২০১৭

হাকিকুল ইসলাম খোকন,বাপসনিঊজ:গত ৩ সেপ্টেম্বর রবিবার সন্ধ্যা ৭টায় নিউইয়ক-এর জ্যাকসন হাইটস্থ আল ফালাহ রেষ্টুরেন্টে জাতীয় পার্টি যুক্তরাষ্ট্র শাখার উদ্যোগে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত সভায় সভাপতিত্ব করেন জাতীয় পার্টির সভাপতি ও কেন্দ্রীয় ভাইস চেয়ারম্যান মাহবুব আলী বুলু ও সভা পরিচালনা করেন জাতীয় পার্টি যুক্তরাষ্ট্র শাখার  সাধারণ সম্পাদক ও কেন্দ্রীয় নির্বাহী সদস্য আবু তালেব চৌধুরী চান্দু। সভায় উপস্থিত ছিলেন জাতীয় পার্টি যুক্তরাষ্ট্র শাখার উপদেষ্টা গিয়াস মজুমদার, সাবেক কমিশনার মোহাম্মদ আলী, জাতীয় পার্টি যুক্তরাষ্ট্র শাখার সহ সভাপতি ও কেন্দ্রীয় সদস্য হাজী আব্দুর রহমান, সহ সভাপতি ও কেন্দ্রীয় সদস্য আলহাজ্ব এডভোকেট হারিছ উদ্দিন আহমেদ, সহ সভাপতি গিয়াস আহমেদ, সহ সভাপতি খন্দকার আলী নাছিম, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও কেন্দ্রীয় সদস্য লুৎফুর রহমান, যুগ্ম তথ্য ও যোগাযোগ সম্পাদক মাহবুব হাসান সোহাগ, যুগ্ম মহিলা সম্পাদিকা ফারজিন আহমেদ স্বর্ণা, নিউইয়র্ক ষ্ট্রেট কমিটির সভাপতি এডভোকেট মোহাম্মদ হানিফ, সাধারণ সম্পাদক ফিরোজ হাসান মিলন, নিউইয়র্ক সিটি কমিটির সভাপতি শুভংকর গাঙ্গুলী, যুব সংহতির সহ সভাপতি ইব্রাহীম আলী ও খন্দকার আনোয়ার।খবর বাপসনিঊজ।

alt
উক্ত আলোচনা সভায় উপস্থিত সকল জাতীয় পার্টির নেতৃবৃন্দ সাম্প্রতিক মায়ানমারে রোহিঙ্গাদের উপর সামরিক বাহিনীর নির্যাতন, বর্বরোচিত হত্যাকান্ডের তীব্র প্রতিবাদ জানানো হয়। বক্তারা আরো বলেন, আজ এই নির্যাতনে সারা বিশ্বের নেতৃবৃন্দদের তীব্র নিন্দার ঝড় শুরু হয়েছে। মায়ানমারে নেত্রী অং চি সুচিকে এই হত্যাকান্ড বন্ধের জন্য যাবতীয় ব্যবস্থা গ্রহণের আহ্বান জানান। বাংলাদেশ সরকারকে মায়ানমারের রোহিঙ্গাদের যাবতীয় মানবিক সাহায্য, সহযোগিতা, সুচিকিৎসা দিয়ে আশ্রয় প্রদানের আহ্বান জানান। জাতিসংঘের উদ্যোগে বিশ্বের সকল নেতৃবৃন্দকে রোহিঙ্গা পূর্ণবাসনের জন্য এগিয়ে আসার আহ্বান জানান এবং রোহিঙ্গা সমস্যার স্থায়ী সমাধানের জন্য মায়ানমান সরকারের প্রতি চাপ প্রয়োগের জন্য আহ্বান জানান।পরিশেষে বাংলাদেশে বন্যায় নিহত সকলের রুহের মাগফেরাত কামান করে দোয়া ও মোনাজাত করা হয়।