Slideshows

ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার

পরিচালনা পরিষদ 

সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি

ওসমান গনি
 

প্রধান সম্পাদক

হাকিকুল ইসলাম খোকন
 

সম্পাদক

সুহাস বড়ুয়া হাসু
 

সহযোগী সম্পাদক

আয়েশা আকতার রুবী

যুক্তরাষ্ট্রের খবর

স্থায়ী মিশনে যথাযোগ্য মর্যাদায় জাতির পিতার জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস উদযাপিত

সোমবার, ২০ মার্চ ২০১৭

হাকিকুল ইসলাম খোকন,বাপসনিঊজ:নিউইয়র্ক, ১৯ মার্চ ২০১৭:সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৭তম জন্মবার্ষিকী (৯৮তম জন্মদিন) ও জাতীয় শিশু দিবস ২০১৭ উদযাপন উপলক্ষে গত ১৯ মার্চ রবিবপার জাতিসংঘে বাংলাদেশ স্থায়ী মিশনে দিনব্যাপী অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এতে যুক্তরাষ্ট্রে বসবাসরত শতাধিক বাঙালি শিশু অংশ নেয়। পুরো মিশন পরিণত হয় শিশুমেলায়।খবর বাপসনিঊজ:

Picture

দিনব্যাপী অনুষ্ঠানের প্রথম পর্বের শুরুতে সকাল ১০:৩০ মিনিটে উপস্থিত শিশুদের রেজিষ্ট্রেশনের পর বেলা ১১ টায় চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতার সূচনা করা হয়। বয়সের ভিত্তিতে শিশুদের ‘ক’ ও ‘খ’ গ্রুপে বিভক্ত করা হয়। ‘ক’ গ্রুপের চিত্রাঙ্কনের বিষয় ছিল ‘বাংলা বর্ণমালা’ আর ‘খ’ গ্রুপের ‘শহীদ মিনারে প্রভাত ফেরী’। রঙতুলি আর বর্ণিল সাজে আয়োজিত এ চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতায় বিচারক ছিলেন কিংস্ বোরো কমিউনিটি কলেজের আর্ট প্রফেসর চিত্রশিল্পী জেমী উইলকিনসন, ফাউন্ডেশন ফর আর্ট এন্ড মেমরী এর পরিচালক চিত্রশিল্পী জ্যাক স্যাল এবং স্থানীয় চিত্রশিল্পী লেইন উইটকম। চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা শেষে জাতির পিতার উপর একটি কুইজ অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করে সমেবেত শিশুরা। কুইজের প্রশ্নোত্তরে শিশুদের সক্রিয় সমবেত অংশগ্রহণ তাদেরকে বঙ্গবন্ধুর জীবন ও কর্মের বিভিন্ন দিক সমন্ধে জানার সুযোগ করে দেয়। ‘ক’ গ্রুপে ২য় গ্রেডের ছাত্রী তাসনিয়া নুর এবং ‘খ’ গ্রুপে ৭ম গ্রেডের ছাত্রী নওশিন রহমান ।

alt

প্রথম স্থান অধিকার করে। অনুষ্ঠানে বিজয়ীদের মাঝে “বঙ্গবন্ধু ক্রেস্ট” প্রদান করা হয়। চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতায় স্থানীয় প্রবাসী বাঙালি ও মিশনের অফিসিয়ালদের ৪৮ জন সন্তান অংশগ্রহণ করে।
মধ্যহ্ন বিরতি শেষে বেলা ২টায় শুরু হয় দিনব্যাপী অনুষ্ঠানের মূল পর্ব - আলোচনা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। এ পর্বের শুরুতে জাতির পিতার জীবনাদর্শ তুলে ধরে একটি প্রামাণ্যচিত্র পরিবেশিত হয়। এতে জাতির পিতার নেতৃত্বে ভাষা আন্দোলন থেকে শুরু করে স্বাধীনতা সংগ্রাম, মহান মুক্তিযুদ্ধ, স্বাধীনতা অর্জন এবং যুদ্ধবিধ্বস্ত বাংলাদেশের পুনর্গঠন, জাতিসংঘসহ বিভিন্ন দেশের সাথে আন্তর্জাতিক ও কূটনীতিক সম্পর্ক স্থাপনে জাতির পিতার ভূমিকার বিভিন্ন দিক ফুটিয়ে তোলা হয়। পরে রাষ্ট্রপতি মোঃ আব্দুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী এবং পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম -এর বাণী পাঠ করে শোনানো হয়।অনুষ্ঠানটির প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মাননীয় মন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকি এমপি। প্রবাসী বাংলাদেশী নাগরিকদের সন্তানদের আরও বেশী জাতির পিতার জীবন ও কর্মের বিষয়ে জানানোর উপর গুরুত্বারোপ করে বলেন, “যে দেশের সাথে নাড়ীর বন্ধন, যে দেশে বাপ-দাদার ভিটা, সে দেশের প্রকৃত ইতিহাস প্রবাসের এই নতুন প্রজন্মকে জানাতে হবে। বাঙালি বীরের জাতি। আমাদের রয়েছে বাহান্নর একুশে ফেব্রুয়ারি, একাত্তরের মহান মুক্তিযুদ্ধের মতো গৌরবোজ্জ্বল ইতিহাস। এসকল ইতিহাস তুলে ধরে তাদের মনে দেশপ্রেম জাগ্রত করতে হবে”।

alt
এর আগে দিবসটি উপলক্ষে আলোচনার সূত্রপাত করেন জাতিসংঘে নিযৃুক্ত বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি ও রাষ্ট্রদূত মাসুদ বিন মোমেন। স্থায়ী প্রতিনিধি বলেন, “বঙ্গবন্ধুর জন্ম না হলে বাংলাদেশের জন্ম হতো না। বাংলাদেশকে সঠিক পথে এগিয়ে নিয়ে জাতির পিতাকে বছরের প্রতিটি দিনই স্মরণ করতে হবে। বর্তমান ও ভবিষ্যৎ প্রজন্মের হৃদয়ে ধারণ করতে হবে। জাতির পিতার জীবন ও কর্মের বিভিন্ন দিক সম্পর্কে জানতে তাই আজকের সকল আয়োজন শিশুদের ঘিরেই করা হয়েছে”।
বিশেষ অতিথির বক্তৃতায় মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব নাসিমা বেগম এনডিসি বলেন, “মার্চ মাস বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মমাস। এ কারনে এবং শিশুদের প্রতি বঙ্গবন্ধুর অগাধ ভালোবাসার স্বীকৃতিস্বরূপ তাঁর জন্মদিনটিকে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শিশু দিবস বলে ঘোষণা করেছেন”।পরে স্থানীয় একটি ব্যান্ড দল ‘মাটি’, ম্যানহাটান বাংলা স্কুল ও বহ্নিশিখা সঙ্গীত নিকেতনের শিশু শিল্পীসহ স্থানীয় বাঙালি কমিউনিটি, বাংলাদেশ স্থায়ী মিশন ও কনস্যুলেটের কর্মকর্তা-কর্মচারির সন্তানদের অংশগ্রহণে এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। তারা জাতির পিতাকে নিয়ে গান, দেশের গান, মুক্তিযুদ্ধের গান ও রবীন্দ্র সঙ্গীত, বঙ্গবন্ধুর জীবন-কর্ম নিয়ে কবিতা আবৃতি, সঙ্গীত ও নৃত্য পরিবেশন করে।
অনুষ্ঠানে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ ও এর সহযোগী সংগঠনগুলোর নেতাকর্মী, নিউইয়র্কের বিশিষ্ট নাগরিক, মিডিয়া প্রতিনিধিসহ বিপুল সংখ্যক প্রবাসী উপস্থিত ছিলেন।


শাহজালাল এবং ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরে প্রবাসীদের যাত্রী সেবা দিচ্ছে সিপার যাত্রী সেবা

সোমবার, ২০ মার্চ ২০১৭

বাপ্ নিউজ : ঘাম এবং শ্রম দিয়ে বাংলাদেশের অর্থনীতির ধ্বমণীকে সচল রাখা প্রবাসীদের জন্য সিলেটের ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরে  চালু হয়েছে সিপার যাত্রী সেবা। গত ১১ জানুয়ারি বিমান বন্দরের ভিআইপি লাউঞ্জের একটি বুথে এ সেবার উদ্বোধন হয়েছে। অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত এ সেবার উদ্বোধন করেন। এর পর থেকে যুক্তরাজ্য এবং যুক্তরাষ্ট্র থেকে ব্যাপক সাড়া পাওয়া যাচ্ছে। স্থানীয় সময় রোববার সন্ধ্যায় নিউইয়র্কের জ্যাকসন হাইটসের একটি রেস্তোরাঁয় আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান সিপার এয়ার সার্ভিসের সিইও খন্দকার সিপার আহমদ। সাংবাদিক শাহাব উদ্দিন সাগরের সঞ্চলনায় সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন সাপ্তাহিক পরিচয় সম্পাদক নাজমুল আহসান, সাপ্তাহিক প্রবাস সম্পাদক মোহাম্মদ সাঈদ, সাংবাদিক ইব্রাহীম চৌধুরী খোকন, , সিলেট চেম্বার অব কমার্সের অন্যতম পরিচালক মোহাম্মদ লায়েছ উদ্দিন, লেখক শাহীন দেলোয়ার প্রমুখ।
সিপার যাত্রী সেবার সিইও খন্দকার সিপার আহমদ জানান, বিমান থেকে যাত্রীরা নামার সঙ্গে সঙ্গে সিপার যাত্রী সেবার কর্মীরা সেবা দেয়া শুরু করবেন। যাত্রীর ইমিগ্রেশনের সময় সিপার যাত্রী সেবা কর্মীরা কাউন্টারের বাইরে অপক্ষেমান থাকবেন। ইমিগ্রেশন এবং কাস্টমস শেষ হওয়ার পর লাগেজসহ যাত্রীকে বিমান বন্দরের বাইরে পর্যন্ত নিরাপদে পৌঁছে দেবেন কর্মীরা ।
সিপার আহমদ আরো বলেন, সিলেট ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরে সিপার এয়ার সার্ভিসের সেবা নিতে হলে জনপতি দিতে হবে পাঁচ ইউএস ডলার।  ঢাকার শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরে যাত্রীদের সেবা নেয়ার জন্য দিতে হবে জনপতি ৮ ইউএস ডলার। বিমান বন্দর থেকে বের হয়ে কোন যাত্রীর পরিবহনের দরকার হলে সে সার্ভিসও সিপার যাত্রী সেবা নিশ্চিত করবে উপযুক্ত ফি প্রদান সাপেক্ষে।
তিনি বলেন, আন্তর্জাতিক এবং অভ্যন্তরীণ উভয় চলাচলকারী যাত্রী সিপার যাত্রী সেবা গ্রহণ করতে পারবেন। রোাগী বা সিনিয়র সিটিজেনদের জন্য থাকবে হুইল চেয়ারের ব্যবস্থা।
সিপার আহমদ বলেন, ট্রাভেল এজেন্ট অথবা প্রবাসী স্বজনরা ০১৭৫৬৪৭১৪৭১ অথবা ০১৭৫৬৪৭০৪৭০ নাম্বারে ফোন করে সেবা নিতে পারবেন। সেবা নিতে যাওয়া যাত্রী বিমান বন্দরে নেমে দেখতে পাবেন সিপার যাত্রী সেবা প্রতিষ্ঠানের কর্মীদের। তারা সিপার যাত্রী সেবার প্রিন্টেট লগো সমৃদ্ধ হলুদ রঙের বিশেষ ইউনিফর্মে অপেক্ষমান থাকবেন। কর্মীরা তাদের পরিচয়পত্রও বহন করবেন।  
সিপার আহমদ আরো বলেন, কর্মীরা ইমিগ্রেশন কাউন্টারে যাত্রীর নামসমেত প্লেকার্ড নিয়ে অপেক্ষমান থাকবেন। এছাড়া বিদেশগামী যাত্রীদেরও সিপার যাত্রী সেবা প্রতিষ্ঠানের কর্মী বাহিনী ইমিগ্রেশন এবং কাস্টমস পর্যন্ত লাগেজসহ পৌঁছে দেবেন।

alt
তিনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের যাত্রীদের জন্য সিপার যাত্রী সেবা মোবাইল সার্ভিস সেবাও দেবে। যাত্রীরা নির্ধারিত ফিস দিয়ে বাংলাদেশ থেকে মোবাইল সিম নিয়ে বিমান উঠতে পারবেন। এই সিম যুক্তরাষ্ট্রের বিমান বন্দরে পৌঁছার সঙ্গে সঙ্গে চালু হয়ে যাবে। যাতে অন্তত বাংলাদেশে অন্তত বারোশ মিনিট কথা বলার টক টাইম থাকবে।
সিপার আহমদ বলেন, ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরের ভিআইপি টার্মিনালেই রয়েছে সিপার যাত্রী সেবার কার্যালয়। সেখানে সার্বক্ষণিক দায়ত্বিপ্রাপ্তরা থাকবেন। কোন ধরনের অভিযোগ এবং সমস্যা থাকলে ফোন অর্থবা স্বশরীরে উপস্থিত হয়ে তা জানানো যাবে।
সিপার এয়ার সার্ভিস নিউইয়র্কে একটি অফিস খােলেছে। অফিসের ঠিকানা ২৯০৫ ৩৬ এভিনিউ, এস্টােরিয়া , নিউইয়র্ক ১১১০৬। ফোন নাম্বার ৩৪৭ ৭৬১ ৬১৫৫।
সিপার আহমদ বলেন, সিপার যাত্রী সেবা চালু হওয়ার মধ্য দিয়ে প্রবাসীদের সাথে সিলেটের যোগাযোগ সহজ হবে এবং সেই সাথে বিনিয়োগ ও পর্যটন শিল্পের বিকাশ ঘটবে।
সিপার এয়ার সার্ভিস যাত্রা শুরু করে ১৯৯০ সালে। এর ধারাবাহিকতায় সিপার যাত্রী সেবা শুরু করে।
ছবি: ক্যাপশন: নিউইয়র্কের জ্যাকসন হাইটসে সিপার এয়ার সার্ভিসের সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখছেন প্রতিষ্ঠানের সিইও খন্দকার সিপার আহমদ।


যুক্তরাষ্ট্রে প্রেস মিনিস্টার শামীম আহমদের চুক্তির মেয়াদ দু’বছর বাড়ল

সোমবার, ২০ মার্চ ২০১৭

Picture

হাকিকুল ইসলাম খোকন,বাপসনিঊজ:নিউইয়র্ক : যুক্তরাষ্ট্রের ওয়াশিংটন ডিসিতে বাংলাদেশ দূতাবাসের প্রেস মিনিস্টার শামীম আহমদের চুক্তিভিত্তিক নিয়োগর মেয়াদ দুই বছর বৃদ্ধি করেছে সরকার। রবিবার জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের এক আদেশে এ তথ্য জানানো হয়। মন্ত্রণালয়ের আদেশে বলা হয়, পূর্বের চুক্তির ধারাবাহিকতায় এবং অনুরূপ শর্তে ৮ মার্চ বা যোগদানের তারিখ থেকে শামীম আহমদের চুক্তির মেয়াদ একই শর্তে পরবর্তী দুই বছর বৃদ্ধি করা হলো।


৩য় রাজনৈতিক শক্তি গড়ে তোলার লক্ষে জেএসডির সমাবেশ ৩১ মার্চ

রবিবার, ১৯ মার্চ ২০১৭

হাকিকুল ইসলাম খোকন, বাপসনিউজ : চল চল ঢাকা চল জেএসডি’র উদ্যোগে ৩য় রাজনৈতিক শক্তি গড়ে তোলার লক্ষে ৩১ মার্চ শুক্রবার বিকাল ৩টায় ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যান ঢাকা বিশাল জন সমাবেশ অনুষ্ঠিত হবে । খবর বাপসনিউজ।

alt
উক্ত সমাবেশে সভাপতিত্ব করবেন জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জেএসডি সভাপতি, স্বাধীনতার প্রথম পতাকা উত্তোলক, বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের সাবেক বিরোধীদলের নেতা ও সাবেক মন্ত্রী আ স ম আব্দুর রব।উক্ত জন সমাবেশে যোগদানের জন্য দেশ ও প্রবাসী বাঙ্গালীদের স¦াদর আহবান জানিয়েছেন জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল কেন্দ্রিয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মালেক রতন ও যুক্তরাষ্ট্র শাখার সভাপতি আনোয়ার হোসেন লিটন।


পেনসিলভেনিয়া ষ্টেট আওয়ামী লীগের স্বাধীনতা দিবস উদযাপন ২৫ মার্চ

রবিবার, ১৯ মার্চ ২০১৭

হাকিকুল ইসলাম খোকন ,বাপসনিউজ : পেনসিলভেনিয়া ষ্টেট আওয়ামী লীগের উদ্যোগে ৪৬তম স্বাধীনতা দিবস উদযাপন উপলক্ষে এক আলোচনা সভা ২৫ মার্চ শনিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় ফিলাডেলফিয়ার ৭৫ ইষ্ট লিংক এভিনিউর হার্টফিল্ড ফায়ার হলে অনুষ্ঠিত হবে। খবর বাপসনিউজ।

এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সভাপতি ড. সিদ্দিকুর রহমান এবং প্রধান যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সামাদ আজাদ। উক্ত অনুষ্ঠানে সবাইকে স্বাদর আমন্ত্রণ জানিয়েছেন সভাপতি আব্দুল হাই মিয়া ও সাধারন সম্পাদক হারুন নূর রশীদ।


মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষে এলমহাষ্ট হাসপাতালে স্বেচ্ছায় রক্তদান কর্মসূচি ২৬ মার্চ

রবিবার, ১৯ মার্চ ২০১৭

হাকিকুল ইসলাম খোকন বাপসনিউজ ঃ যথাযোগ্য সম্মান ও মর্যাদায় মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষে জাতিসংঘে বাংলাদেশ স্থায়ী মিশন ও নিউইয়র্কস্থ বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেনারেল এবং কংগ্রেস অব বাংলাদেশী আমেরিকান-এর যৌথ উদ্যোগে ২৬ মার্চ রবিবার সকাল ১০টায় এলমহাষ্ট হাসপাতালে (৭৯০১ ব্রডওয়ে, রুম নং# এ১-১৫, এলমহাষ্ট, নিউইয়র্ক, এনওয়াই-১১৩৭৩) স্বেচ্ছায় রক্তদান কর্মসূচির আয়োজন করেছে।

alt
স্বেচ্ছায় রক্তদান কর্মসূচিতে অংশ গ্রহণের জন্য সবাইকে স্বাদর আমন্ত্রণ জানিয়েছেন জাতিসংঘে নিযুক্ত বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি মাসুদ বিন মোমেন ।


বাংলাদেশ অ্যাথলেটিকস ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট আবদুর রকিব মন্টু নির্বাচিত

রবিবার, ১৯ মার্চ ২০১৭
alt

বাপ্ নিউজ : বাংলাদেশ অ্যাথলেটিকস ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন বাংলাদেশের সহকারি অ্যাটর্নি জেনারেল অ্যাডভোকেট আবদুর রকিব মন্টু। এক সময়ের যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী কৃতি খেলোয়ার ও সংগঠক অ্যাডভোকেট আবদুর রকিব মন্টু বাংলাদেশ অ্যাথলেটিকস ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হওয়ায় যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী সাবেক জাতীয় ও আন্তর্জাতিক খেলোয়ারবৃন্দ, বাংলাদেশ স্পোর্টস ফাউন্ডেশন অব নর্থ আমেরিকাসহ বিভিন্ন ব্যক্তি ও সংগঠন তাকে আন্তরিক অভিনন্দন জানিয়েছেন।

উল্লেখ্য যে, এএসএম আলী কবিরকে সভাপতি রেখে এবং অ্যাডভোকেট আবদুর রকিব মন্টুকে সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত করে বাংলাদেশ অ্যাথলেটিকস ফেডারেশনে ৩১ সদস্যের অ্যাডহক কমিটি গঠন করেছে জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ। বাংলাদেশ সময় গত মঙ্গলবার এক গেজেট প্রকাশের মধ্যদিয়ে তা জানানো হয়।
জানা যায়, বাংলাদেশ অ্যাথলেটিকস ফেডারেশনের নব নির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রকিব মন্টু সাবেক জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ের একজন কৃতি খেলোয়ার। তিনি অ্যাথলেটিকস, ফুটবল, ভলিবলে জেলা, বিভাগ এবং জাতীয় চ্যাম্পিয়ন। অসংখ্য বার স্বর্ণ পদক বিজয়ী মন্টু ১৯৮৬ সালে পোল ভল্টে জাতীয় রেকর্ড গড়েন (১১ফুট ৯ইঞ্চি), ১৯৯৩ সালে বুয়েট মাঠে অনুষ্ঠিত জাতীয় অ্যাথলেটিকস প্রতিযোগিতায় পোল ভল্ট ও বর্শা নিক্ষেপে স্বর্ণ পদক বিজয়ী হন। সিলেটের কৃতি সন্তান আব্দুর রকিব মন্টু বিজেএমসির হয়ে ১৯৯২, ১৯৯৬ ও ২০০০ সালে বাংলাদেশ গেমসসে অংশগ্রহণ করে কৃতিত্বের স্বাক্ষর রাখেন। তিনি ফুটবলে প্রতিভা অন্বেষন কর্মসূচিতে সিলেটের একমাত্র খেলোয়াড় হিসাবে নির্বাচিত হন। কৃতি ফুটবলার মন্টু পরবর্তীতে দেশে বিদেশে নানা টুর্নামেন্টে অংশগ্রহণ করেন। ঢাকা প্রথম বিভাগ ফুটবল লীগে রহমতগঞ্জ মুসলিম ফ্রেন্ডস সোসাইটি ও সাধারণ বীমা ক্লাবের পক্ষে খেলেন।
বাংলাদেশের সহকারি অ্যাটর্নি জেনারেল আব্দুর রকিব মন্টু সিলেটের ফেঞ্চুগঞ্জের মাইজগাঁও ইউনিয়নের নিজামপুরের বাসিন্দা। সিলেটে আব্দুর রকিব মন্টুদের পরিবার অ্যাথলেট পরিবার হিসেবে পরিচিত। বাংলাদেশের ক্রীড়াঙ্গনে এ পরিবারের সাত সদস্যের সবাই জাতীয় পর্যায়ের কৃতী অ্যাথলেট। সকলেই ক্রীড়া ক্ষেত্রে স্বর্ণ পদক বিজয়ী হয়ে সাফল্যের অনন্য নজির স্থাপন করেন।
আব্দুর রকিব মন্টুর বাবা তদানীন্তন পূর্ব-পাকিস্তান জাতীয় অ্যাথলেট দলের অধিনায়ক মোঃ বশির আলী  ১৯৬৫ ও ৬৬ সালে পাকিস্তান অলিম্পিক দলের নেতৃত্ব দেন। ইষ্ট বেঙ্গল রেজিমেন্টের হাবিলদার বশির আলী পাকিস্তান অলিম্পিকে পূর্ব পাকিস্তান সেনাবাহিনী ও পরবর্তীতে পূর্ব পাকিস্তান শিল্প উন্নয়ন সংস্থার প্রতিনিধিত্ব করেন। তিনি গোলক, চাকতি, বর্শা এবং হেমার থ্রোতে কৃতিত্বের স্বাক্ষর রাখেন। বর্শা নিক্ষেপে জাতীয় রেকর্ড করে তিনি স্বর্ণপদক লাভ করেন। অ্যাথলেট আলহাজ্ব বশির আলী ২০০৬ সালের ১৪ মার্চ ফেঞ্চুগঞ্জের নিজামপুর গ্রামে ইন্তেকাল করেন।
অ্যাথলেট আলহাজ্ব বশির আলীর পদাংক অনুসরণ করে তার ৩ ছেলে ও ৩ মেয়ে সবাই বাংলাদেশের ক্রীড়াঙ্গণে জাতীয় পর্যায়ে স্বর্ণ পদক ছিনিয়ে আনেন। বর্তমানে আব্দুর রউফ পাশা ও আব্দুর রকিব মন্টু ছাড়া সবাই যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী।
আলহাজ্ব বশির আলীর বড় ছেলে আব্দুর রহিম বাদশা বাংলাদেশ স্পোর্টস ফাউন্ডেশন অব নর্থ আমেরিকা’র সভাপতি,  বাংলাদেশ স্পোর্টস কাউন্সিল অব আমেরিকার প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক, যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও জাতীয় শ্রমিক লীগের আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক। তিনি হাইজাম্প, লংজাম্পে বিভিন্ন সময় স্বর্ণপদক অর্জন করেন। ফুটবল, ভলিবল, সাঁতারেও স্বর্ণ পদকে ভূষিত হন তিনি। আব্দুর রহিম বাদশা বিজেএমসি, ল্যান্ডকাস্টমস এবং বাংলাদেশ রেলওয়ের হয়ে বিভিন্ন গেমসসে অংশগ্রহণ করেন। বাংলাদেশ গেমস ১৯৮৪তে চট্টগ্রাম বিভাগের অধিনায়কত্ব করেন। ১৯৮৬ সালে বাংলাদেশ ক্রীড়া লেখক সমিতি কর্তৃক সেরা অ্যাথলেট নির্বাচিত হন তিনি।
আলহাজ্ব বশির আলীর ২য় ছেলে বাংলাদেশ কাস্টমস কর্মকর্তা আব্দুর রউফ পাশাও জাতীয় পর্যায়ের অ্যাথলেট ছিলেন। তিনি ১৯৮৪ সালে জাতীয় জুনিয়র অ্যাথলেটিকে বর্শা নিক্ষেপে স্বর্ণ পদক লাভ করেন। ১৯৮৯ সালে জাতীয় অ্যাথলেটিকে বর্শা নিক্ষেপ ও হাইজাম্পে স্বর্ণ বিজয়ী হন। এ ছাড়া ১৯৯০ সালে বর্শা নিক্ষেপ এবং ১৯৯৩ সালে হাই জাম্প ও বর্শা নিক্ষেপে স্বর্ণ পদক বিজয়ী হন। আব্দুর রউফ পাশা বাংলাদেশ কাস্টমস সী দলের হয়ে নেপাল ও ভারতে বিভিন্ন টুর্নামেন্টে অংশ গ্রহণ করেন। ১৯৮৮ সালেক্রীড়া লেখক সমিতির বিচারে সেরা অ্যাথলেটের পুরস্কার পান তিনি।
আলহাজ্ব বশির আলীর ৩য় ছেলে কৃতি অ্যাথলেট পরিবারের সদস্য অ্যাডভোকেট আব্দুর রকিব মন্টু বর্তমানে সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেলের দায়িত্ব পালন করছেন।
বশির আলীর বড় মেয়ে ডা: শাহানারা আলী গোলক, চাকতি নিক্ষেপ ও ১০০ মিটার দৌড়ে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজে চ্যাম্পিয়ন ছিলেন। জাতীয় পর্যায়েও তিনি বিভিন্ন ইভেন্টে স্বর্ণ পদক ছিনিয়ে আনেন।
২য় মেয়ে জাহানারা বেগম লক্ষী ১৯৮৬ সালে ঢাকায় অনুষ্ঠিত জাতীয় পর্যায়ের অ্যাথলেটিকস প্রতিযোগিতায় জুনিয়র গ্রুপে স্বর্ণ পদক বিজয়ী হন।
ছোট মেয়ে মনোয়ারা বেগম মনি জেলা ও বিভাগীয় পর্যায়ে অ্যাথলেটিকস প্রতিযোগিতায় গোলক, চাকতি ও বর্শা নিক্ষেপে স্বর্ণ পদক লাভ করেন।
বাংলাদেশ ক্রীড়াঙ্গনের বর্তমান অবস্থা সম্পর্কে জানতে চাইলে অ্যাডভোকেট আব্দুর রকিব মন্টু বলেন, ক্রিকেট অনেক এগিয়ে গেলেও অ্যাথলেটিকসের অবস্থা খুবই নাজুক। কৃতি খেলোয়াড় তৈরি হচ্ছে না। তাই তেমন সফলতা নেই। তিনি বলেন, ইতোপূর্বে বিভিন্ন সংস্থা ক্রীড়াবিদদের সুযোগ সুবিধা দিতো, পৃষ্ঠপোষকতা করতো, ভালো খেলোয়াড়দের চাকুরী দিয়ে তাদের হয়ে খেলায় প্রতিনিধিত্ব করার সুযোগ করে দিতো এখন তেমনটি লক্ষ করা যায় না। খেলাধুলায় উন্নতির জন্য শুধু সরকার নয় বেসরকারী সংস্থা ও প্রতিষ্ঠানকেও এগিয়ে আসতে হবে। সবার সম্মিলিত প্রচেষ্টায় অ্যাথলেটিকসকে সাফল্যের চূড়ায় নিয়ে যাওয়া সম্ভব।
জানা গেছে, আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সিলেট-৩ আসন থেকে আওয়ামী পরিবারের সন্তান বহুমুখি প্রতিভার অধিকারী অ্যাডভোকেট আব্দুর রকিব মন্টু আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী বলে জানা গেছে।
এদিকে, বাংলাদেশ স্পোর্টস ফাউন্ডেশন অব নর্থ আমেরিকা’র সভাপতি, বাংলাদেশ স্পোর্টস কাউন্সিল অব আমেরিকার প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রহিম বাদশা ও সাধারণ সম্পাদক এস এম ফেরদৌস, মোশাররফ হোসেন খান, সাইদুর রহমান ডন, মোস্তফা হোসেন মুকুল, সাঈদ উর রব, আরিফুল হক, শাহজালাল মবিন, বিমল চন্দ্র তরফদার, ওমর ফারুক, কারার মিজান, ইলিয়াস হোসেন, রানা ফেরদৌস চৌধুরী, বক্সার সেলিম, জাহাঙ্গীর হোসেন, সফিকুল ইসলাম জন, আকতার হোসেন ফজলু, আয়াজ খান, ছোট ইউসুফ, গোলাম মোস্তফা, আবদুল্লা সাইফ, আবদুর রউফ পাশা, মহিউদ্দিন দেওয়ান, নাজমুল ইসলাম, সৈয়দ এনায়েত আলী, শাহান উদ্দিন চৌধুরী, তৈয়বুর রহমান টনি, পিনাকি সেন, জাবেদ খসরু, লাকী চৌধুরী আখীসহ অন্যান্যরা অ্যাডভোকেট আবদুর রকিব মন্টু বাংলাদেশ অ্যাথলেটিকস ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হওয়ায় তাকে আন্তরিক অভিনন্দন জানিয়েছেন।


ব্রাহ্মনবাড়িয়া সোসাইটির শোক সভা অনুষ্টিত

শনিবার, ১৮ মার্চ ২০১৭

হাকিকুল ইসলাম খোকন,বাপসনিঊজ:ব্রাহ্মনবাড়িয়ার নবীনগরের চার বারের সাবেক সংসদ সদস্য, নবীনগরের মাটি ও মানুষের নেতা বীর মুক্তিযোদ্ধা কাজী আনোয়ার হোসেন এর স্বরণে ব্রাহ্মনবাড়িয়া সোসাইটি অব ইউএসএ এর আয়োজনে জ্যামাইকার পানসী রেস্টুরেন্টে শোক সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। শোক সভায় সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের সভাপতি সৈয়দ এম কে জামান এবং সঞ্চালনা করেন সাধারন সম্পাদক হাকিম খান এবং সাবেক সাধারন সম্পাদক এইচ এম ইকবাল।

alt

উক্ত শোক সভায় প্রধান অথিতি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অবসর প্রাপ্ত কাস্টম কমিশনার বীর মুক্তিযোদ্ধা আবদুল হক। প্রধান অথিতির বক্তব্যে আবদুল হক বলেন মরহুম কাজী আনোয়ার হোসেন ছিলেন নবীনগরের আপামর জনসাধারণের প্রিয় নেতা যিনি নবিনগরের গরীব দু:খী সকল শ্রেনী পেশার মানুষেকে ভাল বেসেছিলেন এবং সকলের ভালবাসা পেয়েছিলেন, তিনি ছিলেন একজন বড় মনের মানুষ যার অভাব কখনও পুরণ হবার নয়।শোক সভায় বিশেষ অথিতি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের প্রধান উপদেষ্টা বীর মুক্তিযোদ্ধা হাসেম মাহমুদ খান , উপদেষ্টা বীর মুক্তিযোদ্ধা কাজী জাহাঙ্গীর আলম , বীর মুক্তিযোদ্ধা সফিউদ্দিন ( সাবেক সভাপতি ), রিয়েলটর সরাফ সরকার, বীর মুক্তিযোদ্ধা শহিদুল হক, নাছির উদ্দিন সরকার , বীর মুক্তিযোদ্ধা প্রফেসর আব্দুল বাছির , গোলাম মোস্তফা , অশ্রাফুল বাসার , বৃৃহত্তর কুমিল্লা সমিতির সাবেক সভাপতি এবং ব্রাহ্মনবাড়িয়া সোসাইটির সাবেক সাধারন সম্পাদক আজাদ বাকির, সংগঠনের সাবেক সভাপতি সিরাজ উদ্দিন মোর্শেদ, বাহার উদ্দিন খান, দবির হসাইন শামীম , সিনিয়র সহসভাপতি রানা মো: আয়াজ। শোক সভায় কোরান তেলাওয়াত করেন ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক আবদুল আজিজ এবং দোয়া পরিচালনা করেন মাওলানা এহতেশামুল হক।

উপস্থিত ছিলেন সহ সভাপতি মিল্লাদুল ইসলাম, আশিকুজ্জামান তপু , যুগ্ম সম্পাদক রফিকুল ইসলাম হেলাল, রাশেদ আল হাসান, সাংগঠনিক সম্পাদক মীর্জা মো: দস্তগীর, প্রচার সম্পাদক আল মামুন সরকার , ফকরুল ইসলাম মজনু , আলমগীর সরকার, শাহ মোয়াল্লেম , খলিলুর রহমান কাজল, আকতার হোসেন সহ আরো অনেকে। শোক সভায় মরহুমের আত্মার মাগফেরাত কামনা করে দোয়া করা হয় এবং সভাপতি  সৈয়দ এম কে জামান সংগঠনের পক্ষ থেকে গভীর শোক প্রকাশ করেন এবং শোকাহত পরিবারের সাথে সমবেদনা জানান।


ফ্লোরিডায় বঙ্গবন্ধুর জন্মবার্ষিকী পালিত

শনিবার, ১৮ মার্চ ২০১৭

হাকিকুল ইসলাম খোকন,বাপসনিঊজ: ফ্লোরিডা প্রতিনিধি : যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডায় যথাযথ মর্যাদায় পালিত হলো জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৮তম জন্মবার্ষিকী।১৭ মার্চ শুক্রবার সন্ধ্যায় ফ্লোরিডার ওয়েস্ট পাম বিচের একটি হোটেল অডিটোরিয়ামে ফ্লোরিডা আওয়ামী লীগ, ফ্লোরিডা যুবলীগ, ফ্লোরিডা স্বেচ্ছাসেবক লীগ এবং ফ্লোরিডা মহিলা লীগের যৌথ আয়োজনে অনুষ্ঠিত জন্মদিনের এ অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ফ্লোরিডা আওয়ামী লীগ সভাপতি আতিকুর রহমান। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন সাধারণ সম্পাদক এম রহমান জহির।

Picture
 
অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন মেট্রো ওয়াশিংটন আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি শিব্বীর আহমেদ ও নিউইয়র্ক মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি জাকারিয়া চৌধুরী। অনুষ্ঠানের শুরুতেই জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফুল অর্পণ করা হয়।অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন ফ্লোরিডা স্টেট আওয়ামী যুবলীগের সভাপতি দয়াল চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক রমিজ উদ্দীন, ফ্লোরিডা আওয়ামী মহিলা লীগ সভাপতি মুনসারি খানম সীমা, সাধারণ সম্পাদক শামছুন নাহার , সুলতানা আক্তার, ফ্লোরিডা আওয়ামী লীগ উপদেষ্টা আমির আলী চৌধুরী, ফ্লোরিডা স্টেট আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক আইয়ুব আলী, যুবলীগ সহ-সভাপতি আলি আক্কাস, রফিকুল ইসলাম, উত্তম দে, হাফিজুর রহমান, মো. খোরশেদ, অসীম রায়, বীর মুক্তিযোদ্ধা গোলাম মোস্তফা, জনি, রুবাইয়া, রুনু, মোহাম্মদ এমরান প্রমুখ।


নিউইয়র্কে বর্ণিল আয়োজনে ব্রঙ্কস বাংলাদেশ উইমেন’স এসোসিয়েশনের আন্তর্জাতিক নারী দিবস উদযাপন

শনিবার, ১৮ মার্চ ২০১৭

হাকিকুল ইসলাম খোকন,বাপসনিঊজ:নিউইয়র্কে নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে আন্তর্জাতিক নারী দিবস উদযাপিত হয়েছে। দিবসটি উদযাপন উপলক্ষে ব্রঙ্কস বাংলাদেশ উইমেন’স এসোসিয়েশন বাঙালী অধ্যুষিত স্টারলিং-বাংলাবাজার এভিনিউর গোল্ডেন প্যালেসে ১২ মার্চ রোববার সন্ধ্যায় আলোচনা সভা, সম্মাননা প্রদান ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে যথাযোগ্য মর্যাদায় দিবসটি উদযাপন করে। বি বোল্ড ফর চেইঞ্জ শ্লোগানকে ধারন করা এ অনুষ্ঠানের প্রারম্ভে আন্তর্জাতিক নারী দিবস নিয়ে প্রেজেন্টেশান করেন নতুন প্রজন্মের অর্পিতা ও অনিকা। ব্রঙ্কস বাংলাদেশ উইমেন’স এসোসিয়েশন ও বাফার প্রেসিডেন্ট ফরিদা ইয়াসমিন বর্ণিল এ অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন। altঅনুষ্ঠান আয়োজনের প্রেক্ষাপট ও অতিথিদের স্বাগত জানিয়ে বক্তব্য রাখেন অনুষ্ঠানের উদ্যোক্তা ফরিদা ইয়াসমিন। এসময় ব্রঙ্কস বাংলাদেশ উইমেন’স এসোসিয়েশনের কর্মকর্তাদের পরিচয় করিয়ে দেন তিনি।
নিউইয়র্কে নারীদের অগ্রযাত্রায় বিশেষ ভূমিকা রাখার জন্য ব্রঙ্কস বাংলাদেশ উইমেন’স এসোসিয়েশনকে ব্রঙ্কস বরো প্রেসিডেন্টের পক্ষ থেকে এওয়ার্ড প্রদান করা হয়। ব্রঙ্কস বরো প্রেসিডেন্টের প্রতিনিধি ভারতি খেমরাজের হাত থেকে প্রক্লামেশন গ্রহণ করেন সভাপতি ফরিদা ইয়াসমিনের নের্তৃত্বে সংগঠনটির কর্মকর্তরা।
সংগঠনের পক্ষ থেকে শিল্প ও সংস্কৃতিতে বিশেষ অবদানের জন্য নতুন প্রজন্মের দু’জন নারীকে বিশেষ সম্মাননা প্রদান করা হয় অনুষ্ঠানে।alt
ব্রঙ্কস বাংলাদেশ উইমেন’স এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক শামিম আরা বেগম ও নতুন প্রজন্মের শারমিন কাজীর যৌথ পরিচালনায় বাঙালী নারীদের এই আয়োজনে গেস্ট স্পিকার ছিলেন প্রবীণ সাংবাদিক জাকিয়া খান, ব্যারিস্টার ইসরাত সামী, সংস্কৃতি কর্মী নীরা কাদরী, ইরিস কারাস্কুয়িলো, সাংবাদিক-লেখক মনিজা রহমান, সমাজ কর্মী রুবাইয়া চৌধুরী, ডা. শাহানারা আলী ও মানবাধিকার কর্মী ফৌজিয়া খান।alt
বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ব্রঙ্কস থেকে নির্বাচিত স্টেট এসেম্বলিম্যান লুইস সিপুলভেদা, জাতিসংঘে বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি মাসুদ বিন মোমেন,alt নিউইয়র্কে বাংলাদেশের কনসাল জেনারেল শামীম আহসান, কনসলার অ্যান্ড হেড অব চেঞ্চারী চৌধুরী সুলতানা পারভিন, সাপ্তাহিক বাঙালী সম্পাদক কৌশিক আহমেদ, টিভি উপস্থাপক ও ইউএসএনিউজঅনলাইন.কম সম্পাদক সাখাওয়াত হোসেন সেলিম সহ কমিউনিটি’র বিশিষ্ট ব্যক্তি বর্গ। alt

অনুষ্ঠানে সংগঠনের উপদেষ্টা এডভোকেট হেমায়েত উদ্দিন তালুকদার, কৃষিবিদ আবদুস সবুর, মুক্তিযোদ্ধা মিজানুর রহমান, কমিউনিটি এক্টিভিস্ট আবদুস শহিদ, সিরাজ উদ্দিন আহমেদ সোহাগ, এহসানুল হক সানী, মো. নাসির উল্লাহ এবং এ ইসলাম মামুনকে পরিচয় করিয়ে দেয়া হয়।alt
অনুষ্ঠানে শিল্প ও সংস্কৃতিতে বিশেষ অবদানের জন্য নতুন প্রজন্মের নৃত্য শিল্পী অন্তরা সাহার হাতে সম্মাননা তুলে দেন কনসাল জেনারেল শামীম আহসান।

বিশিষ্ট শিল্পী বাফার শিক্ষক অনুপ কুমার দাশকে এপ্রিসিয়েশন এওয়ার্ড প্রদান করেন জাতিসংঘে বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি মাসুদ বিন মোমেন। অনুপ কুমার দাশকে এওয়ার্ড প্রদানকালে ব্রঙ্কস বাংলাদেশ উইমেন’স এসোসিয়েশন ও বাফার প্রেসিডেন্ট ফরিদা ইয়াসমিন বলেন, প্রবাসে জন্ম নেয়া ও বেড়ে ওঠা নতুন

altপ্রজন্মকে বাংলা শিল্প-সংস্কৃতিমনা করে গড়ে তুলতে ব্রঙ্কস বাংলাদেশ উইমেন’স এসোসিয়েশনের স্বপ্ন বাস্তবায়নে অসামান্য অবদান রেখে চলেছেন বহুমুখি প্রতিভার অধিকারী শিল্পী অনুপ কুমার দাশ। ফরিদা ইয়াসমিন বলেন, দীর্ঘ দিন ধরে তিনি আমাদের সাথে নতুন প্রজন্মকে নিয়ে কাজ করলেও তার অসামান্য কাজের স্বীকৃতি দেয়ার সুযোগ হয়ে ওঠেনি। আজ তাকে সামান্য ধন্যবাদ জ্ঞাপনের সুযোগ পেয়ে আমরা কৃতজ্ঞ। এসময় অনুপ কুমার দাশের ভক্ত ও  ব্রঙ্কস বাংলাদেশ উইমেন’স এসোসিয়েশনের শুভাকাঙ্খী সংস্কৃতি কর্মী মোশাররফ হোসেন তার নানা মুখি প্রতিভার কথা তুলে ধরেন।altনতুন প্রজন্মের সঙ্গীত শিল্পী শ্রুতি কনা দাসের হাতে সম্মাননা তুলে দেন সাপ্তাহিক বাঙালী সম্পাদক কৌশিক আহমেদ, সোমা জাবিন, পেন্ডোরা চৌধুরী, কনসলার অ্যান্ড হেড অব চেঞ্চারী চৌধুরী সুলতানা পারভিন। শ্রুতি কনা দাসের মা বিশিষ্ট সঙ্গীত শিল্পী কাবেরী দাসও এসময় উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে বক্তারা নারী অধিকারের প্রশ্নে আরো সচেনতার জন্য এধরণের অনুষ্ঠানের গুরুত্ব অপরিসীম বলে মন্তব্য করেন। তারা বলেন, প্রবাসে নতুন প্রজন্মের কাছে বাঙালী শিল্প-সংস্কৃতিকে তুলে ধরা না হলে বাঙালী সংস্কৃতি একদিন হারিয়ে যাবে।

altalt
পরে সঙ্গীত, নৃত্য, আবৃত্তি সহ মনোমুগ্ধকর সাংস্কৃতিক পরিবেশনায় অংশ নেন প্রবাসের জনপ্রিয় শিল্পী স্বপ্না কায়সার, শ্রুতি কনা দাস, অন্তরা সাহা এবং বিশিষ্ট আবৃত্তিকার মুমু আনসারী। যন্ত্র সঙ্গীতে ছিলেন তপন মোদক ও কায়সার আহমেদ। সাউন্ড সিস্টেমে ছিলেন অনুপ দাশ।alt

অনুষ্ঠান আয়োজনে ছিলেন ব্রঙ্কস বাংলাদেশ উইমেন’স এসোসিয়েশনের ফারজানা ইয়াসমিন, শিউলি হক, মুন্নুজান নীলা, শারমিন শিলা, আমেনা ইলু, নুসরাত লীমা, আফরিনা জেমী, নায়ার সুলতানা, মনোয়ারা বেগম প্রমুখ। সহযোগিতায় ছিলেন সুমন শামসুদ্দিন, তৌকির আজাদ, সানী হক এবং মাসুম আহমেদ।

alt
বিপুল সংখ্যক নারী, নতুন প্রজন্মসহ নানা শ্রেণী পেশার মানুষ গভীর রাত পর্যন্ত বর্ণাঢ্য এ আয়োজন উপভোগ করেন। বর্ণীল এ অনুষ্ঠান উপভোগ করতে দুর দুরান্ত থেকে ছুটে আসেন প্রবাসী নতুন প্রজন্মসহ বিপুল সংখ্যক নারী। অনুষ্ঠানস্থলে বসেছিল যেন নতুন প্রজন্মসহ প্রবাসী নারীদের মিলন মেলা। বাঙালীত্বের আমেজে মন প্রাণ ভরে দেয়া এ ধরনের নির্মল আয়োজন মনে রাখার মত বলে মন্তব্য করেছেন অনেকে। প্রবাসে এবারের নারী দিবসে এটি সেরা আয়োজন বলেও মন্তব্য করেন আগত দর্শকের অনেকে।


‘আমেরিকা-বাংলাদেশ প্রেসক্লাবের নাম ব্যবহার অবৈধ’ : প্রেসক্লাব নেতৃবৃন্দের বিবৃতি

শনিবার, ১৮ মার্চ ২০১৭

বাপ্ নিউজ : আমেরিকা-বাংলাদেশ প্রেসক্লাবের নাম ব্যবহার করে ‘লাবলু-শহীদুল’ কমিটি গঠনের সংবাদে বিস্ময় প্রকাশ করেছেন ক্লাবের সভাপতি নাজমুল আহসান এবং সাধারণ সম্পাদক দর্পণ কবীর। তারা গত ১৬ মার্চ-১৭ তারিখে দেয়া এক বিবৃতিতে বলেন-সংগঠনের গঠনতন্ত্রকে সম্পূর্ণ উপক্ষো করে এবং ক্লাব থেকে বহিস্কৃত তিন সদস্যের সঙ্গে অপতৎপরতায় ‘লাবলু-শহীদুল’ কমিটি গঠন করা আমেরিকা-বাংলাদেশ প্রেসক্লাবের আদর্শ-উদ্দেশ্য ও লক্ষ্যের পরিপন্থী। একইসঙ্গে প্রেসক্লাবে বিভক্তি-ভাঙন সৃষ্টির সুস্পষ্ট প্রমাণও। নিয়ম বহির্ভূতভাবে কতিপয় সদস্য নিজেদের মনগড়া কমিটি করলেই তা বৈধতা লাভ করে না। যারা এই অপচেষ্টায় লিপ্ত হয়েছেন তাদের বিরুদ্ধে প্রেসক্লাবের পরবর্তী সাধারণ সভায় সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে বিবৃতিতে তারা উল্লেখ করেন। তারা বলেন-বিগত বছর ২৮ ডিসেম্বর জরুরী সাধারণ সভায় ৩ সদস্য বিশিষ্ট নির্বাচন কমিশন গঠন করা হয়েছিল। কমিশনাররা ক্লাবের স্বার্থ বিরোধী ও স্বৈরাচারী কর্মকান্ডে লিপ্ত হওয়ায় গত ১২ ফেব্রুয়ারি ক্লাব সভাপতি গঠনতন্ত্রের বিধি অনুযায়ী নির্বাচন কমিশনারদের তাদের পদ থেকে অব্যাহতি দেন এবং এরপর ২৬ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিত অপর এক জরুরী সাধারণ সভায় সাধারণ সসদ্যরা ঐ সিদ্ধান্তকে অনুমোদন করেন। এই সভায় তাদের প্রাথমিক সদস্য পদ থেকেও অব্যাহতি দেয়া হয়। বহিস্কৃত সদস্যদের সঙ্গে যোগ সাজশ করে ক্লাবের কতিপয় সদস্য সম্প্রতি একটি কমিটি গঠন করেছেন বলে দু’একটি মিডিয়ায় প্রেসবিজ্ঞপ্তি প্রকাশিত হয়। এই ঘটনা আমেরিকা-বাংলাদেশ প্রেসক্লাবের ভাবমূর্তিকে ক্ষুন্ন করেছে। অবৈধ কর্মকান্ডে লিপ্তরা ক্লাবের নাম ও লগো ব্যবহার করে নিজেদের হীন মানসিকতার পরিচয় দিচ্ছে। প্রয়োজনে এই কর্মকান্ডের বিরুদ্ধে আইনী ব্যবস্থা নেয়া হবে বলেও ক্লাবের দুই কর্মকর্তা বিবৃতিতে জানান।