Slideshows

ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার

পরিচালনা পরিষদ 

সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি

ওসমান গনি
 

প্রধান সম্পাদক

হাকিকুল ইসলাম খোকন
 

সম্পাদক

সুহাস বড়ুয়া হাসু
 

সহযোগী সম্পাদক

আয়েশা আকতার রুবী

যুক্তরাষ্ট্রের খবর

নিউইয়র্কে সড়ক দুর্ঘটনায় ৩ বাংলাদেশি নিহত

রবিবার, ১৪ মে ২০১৭

Picture

এছাড়াও, গুরুতর অবস্থায় হাসপাতালে লাইফ সাপোর্টে রয়েছেন ভৈরবের আলামিন মোল্লা। দুর্ঘটনার কারণ সম্পর্কে বিস্তারিত জানা না গেলেও, ঘটনাস্থলে তদন্ত করছে পুলিশ। বেপরোয়া গতিতে গাড়ি চালানোর কারণেই দুর্ঘটনাটি ঘটে থাকতে পারে বলে ধারনা করা হচ্ছে।


সুনামগঞ্জ জেলা বাসীর প্রতি আকুল আবেদন

রবিবার, ১৪ মে ২০১৭

বাপ্ নিউজ : সুনামগঞ্জ জেলা সমিতি ইউ এস এ ইন্ক্ এর সভাপতি মো জোসেফ চৌধুরী ,সাধারণ সম্পাদক তৌফিকুল আম্বিয়া টিপু,কার্যকরী পরিষদ এবং উপদেষ্টা পরিষদের পক্ষ থেকে সুনামগঞ্জ জেলা  বাসির প্রতি আকুল আবেদন, আমরা প্রবাসে যারা আছি সবাই যেন দেশে আমাদের আত্মীয় স্বজন,বন্দু-বান্দব,পাড়া প্রতিবেশী সবাইকে যেন বেশি বেশি সাহায্য সহযোগিতা করি।সুনামগঞ্জ জেলায় এই দুর্যুগ মোকাবেলায় সরকারের পাশাপাশি আমাদের প্রবাসীদের ও এগিয়ে আসা উচিত।সামনে রমজান মাস,এই রমজান মাস রহমত,বরকত ও নাজাতের মাস।আমরা প্রবাসীরা যে যে ভাবে পারি সবাই যেন এই দুর্যুগে তাদের পাশে দাঁড়াই।বিশেষ করে রমজানের মাসে যাতে আমাদের আত্মীয় স্বজন,পারা প্রতিবেশী কষ্ট না পায়।আল্লাহ যেন আমাদের সবাইকে এই দুর্যুগ মোকাবেলার তৌফিক দান করেন।


মুন্সীগঞ্জ-বিক্রমপুর এসোসিয়েশন ইউএসএ নতুন কমিটি গঠিত

শনিবার, ১৩ মে ২০১৭

হাকিকুল ইসলাম খোকন,বাপসনিঊজ:গত ৯ই মে মংগলবার জ্যাকসন হাইটসে তারেক হাসানের গ্লোবাল মাল্টি সার্ভিস অফিসে মুন্সীগঞ্জ-বিক্রমপুর এসোসিয়েশন ইউএসএ-এর সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

Picture

উক্ত সভায় ইকতেকারুজ্জামান রতনের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম খানের পরিচালনায় পুরাতন কমিটি ২০১৫-২০১৬ বিলুপ্ত করে উপদেষ্টাদের কাছে হস্তান্তর করেন এবং সভায় উপদেষ্টাগন সভার মতামতের ভিত্তিতে একটি নতুন শক্তিশালী কমিটির রূপরেখা ঘোষনা করেন। কমিটির সভাপতি শাহাদাৎ হোসেন , সিনিয়র সহ সভাপতি মির্জা মনিরুজ্জামান শামীম ও সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মতিন হাওলাদারকে মনোনিত করা হয়।খবর বাপসনিঊজ ।

alt
আগামী দুই সপ্তাহের মধ্যে উপদেষ্টাদের সাথে আলাপ আলোচনার মাধ্যমে পূর্ণঙ্গ কমিটি ঘোষনা করে আগামী রমজানের ইফতার পার্টি ও ৯ই জুলাই বার্ষিক বনভোজন উপহার দিবেন এই আশা ব্যক্ত করে সভার সমাপ্তি ঘোষনা করা হয়।


সম্মিলিত বরিশাল বিভাগবাসীর সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত

শনিবার, ১৩ মে ২০১৭

হাকিকুল ইসলাম খোকন: বাপ্ নিউজ : নিউইয়র্ক (যুক্তরাষ্ট্র) থেকে : গত ৮ই মে সোমবার সন্ধ্যা ৭:৩০টায় সম্মিলিত বরিশাল বিভাগবাসী ইউএসএ-এর এক সাধারণ সভা জ্যাকসন হাইটস্থ ইত্যাদি গার্ডেন রেষ্টুরেন্টে সংগঠনের সভাপতি আলতাফ হোসেন এর সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক রুহুল আমিন নাসিরের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় সংগঠনের প্রধান উপদেষ্টা জাহাঙ্গীর এম আলম, মঞ্জুর মোর্শেদ, সংগঠনের সহ সভাপতি বেলায়েত হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ নুরুজ্জামান, সহ সাধারণ সম্পাদক আরিফুল ইসলাম তুহিন, মোঃ মহসিন, আশিক মাহমুদ, আলমগীর, আক্তরুজ্জামান, আমিরুল ইসলাম ও জহিরুল ইসলাম প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।
সভায় সংগঠনের সিনিয়র সহ সভাপতি মশিউর রহমানের উপর দৃবৃত্তদের আকষ্মিক হামলার তীব্র নিন্দা জ্ঞাপন করে দুবৃত্তদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী জানানো হয় ও তার আশু চিকিৎসাসহ পরিবারের জন্য আর্থিক ক্ষতিপূরণের দাবী জানানো হয়।

Picture


মশিউরকে এ যাবত যে সমস্ত প্রতিষ্ঠান, সাংবাদিক, মিডিয়াসহ ব্যক্তিবর্গ সাক্ষাত করে সমবেদনা জ্ঞাপন করেন সকলকে সংগঠনের পক্ষ থেকে ধন্যবাদ জানানো হয়।
সভায় আগামী ১১ই জুন রবিবার জ্যাকসন হাইটস্থ খাবার বাড়ীর পালকি পার্টি সেন্টারে বাৎসরিক ইফতার পার্টির আয়োজন করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়। সভায় এক প্রস্তাবে সংগঠনের সদস্য সংগ্রহ অভিযান আগামী ৩১ জুলাই পর্যন্ত বলবৎ রাখার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। ইফতার পার্টি আয়োজনের জন্য সংগঠনের সহ সভাপতি বেলায়েত হোসেনকে আহ্বায়ক ও আরিফুল ইসলাম তুহিনকে সদস্য সচিব করে ৫ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি ও আগামী জুলাই মাসের শেষ সপ্তাহে বাৎসারিক বনভোজন আয়োজন করার জন্য সংগঠনের প্রধান উপদেষ্টা  এম জাহাঙ্গীর আলমকে আহ্বায়ক ও সিনিয়র সহ সভাপতি  মশিউর রহমানকে সদস্য সচিব করে ৭ সদস্য বিশিষ্ট বাৎসরিক বনভোজন আহ্বায়ক কমিটি ঘোষনা করা হয়। পরবর্তীতে  বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে জানানোর সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। অন্য এক প্রস্তাবে সংগঠনের সহ সভাপতি  খালেদ হোসেন অনেক দিন ধরে অসুস্থ, তাঁহার আশু রোগ মুক্তি কামনা করে সকলের নিকট দোয়ার অনুরোধ জানানো হয়।
শেষে সংগঠনের সভাপতি  আলতাফ হোসেন সকলকে রাতের খাবারের আপ্যায়ন করে সকলকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করে সাধারণ সভার সমাপ্তি ঘোষনা করেন।


নিউইর্য়কে হূমায়ুন মেলা ১৪ মে রবিবার

শনিবার, ১৩ মে ২০১৭

হাকিকুল ইসলাম খোকন,বাপসনিঊজ:নিউইয়র্ক : উপমহাদেশের জনপ্রিয় ঔপন্যাসিক হুমায়ূন আহমেদ আজ আমাদের মাঝে জীবিত না থাকলেও ‘ তার জনপ্রিয়তা এখনো অটুটু। তাই হুমায়ূন আহেমেদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে ১৪ মে রবিবার নিউইয়র্কের জ্যাকসন হাইটসের বেলোজিনো পার্টি হলে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে হুমায়ূন মেলা, হুমায়ূন আহমেদের সাহিত্যে মধ্যবিত্তের জীবন নিয়ে সেমিনার, হুমায়ূন আহমেদের শেষ চলচিত্র ঘেটুপুত্র কমলার প্রদর্শনী, বই মেলা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। হুমায়ুন মেলায় প্রধান অতিথি থাকছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের শিক্ষক অধ্যাপক সৈয়দ মনজুরুল ইসলাম। বিশেষ অতিথি থাকছেন বাংলাদেশের বিখ্যাত যাদু শিল্পী জুয়েল আইচ । মেলার উদ্বোধন করবেন হুমায়ূন আহমেদের স্ত্রী মেহের আফরোজ শাওন। খবর বাপসনিঊজ:
মেলার সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে সঙ্গীত পরিবেশন করবেন বাংলাদেশের জনপ্রিয় সংগীত শিল্পী দিলরুবা খান, সেলিম চৌধুরী, চন্দনা মজুমদার, সৈয়দ জাহাঙ্গীর, প্রবাসের শিল্পীদের মধ্যে রয়েছেন শাহ মাহবুব, কৃষ্ণা তিথি, রুকসানা মির্জা, জাকারিয়া মহিউদ্দিন, কামরুজ্জামান বকুল, মিরা সিনহা। উপস্থাপনা করবেন শামসুন নাহার নিম্মি।


শো টাইম মিউজিক এর কর্ণধার আলমগীর খান আলম বাপসনিঊজকে জানিয়েছেন ইতোমধ্যে প্রধান অতিথি সৈয়দ মনজুরুল ইসলাম নিউইয়র্ক পৌঁছেছেন, সেলিম চৌধুরী নিউইয়র্কে রয়েছেন। আগামী ১২ মে মেহের আফরোজ শাওন, দিলরুবা খান, জুয়েল আইচ, চন্দনা মজুমদার ও সৈয়দ জাহাঙ্গীর আসছেন।
তিনি আরো জানান, মেলায় কোন প্রবেশমূল্য নেই। সবাই মেলায় অংশ গ্রহণ করতে পারবেন। মেলা শুরু হবে দুপুর ১২ টায়। কিšু‘ আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করা হবে বিকেল ৪ টায়। জ্যাকসন হাইটসের বেলোজিনোর পার্কিং (সাবেক নান্দুস) পাক লটে চলবে মেলা এবং অডিটোরিয়ামে চলবে বই মেলা, সেমিনার, চলচ্চিত্র প্রদর্শনী ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। মেলায় থাকবে বিভিন্ন রকমারি শাড়ী কাপড় জুয়েলারী বইসহ খাবার দাবারের স্টল। স্টলের জন্য যোগাযোগ করতে হবে ৬৪৬-৫৪৬-৬০৩৮।
মেলায় স্পন্সর হিসেবে থাকছে উৎসব ডটকম, খামার বাড়ী রেস্তোঁরা, সাইমন ইন্ডিয়ান প্যালেস, এনওআইসি ইন্স্যুরেন্স, বিসমিল্লাহ হালাল পল্ট্রি, প্রিমিয়াম রে¯েতুাঁরা, ডেরা, মিরস রেস্তোঁরা, নূহাশ রিয়েলিটি ও ডিজিটাল ওয়ান ট্রাভেলস।


গজারিয়ায় কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ প্রকল্প বাতিলের দাবীতে নিউইয়র্কে প্রবাসী গজারিয়াবাসীর বিক্ষোভ ও প্রতিবাদ সমাবেশ

শনিবার, ১৩ মে ২০১৭

হাকিকুল ইসলাম খোকন,বাপসনিঊজ:গজারিয়া উপজেলার ইমামপুর ইউনিয়নের আশেপাশের প্রায় ৪শত একর আবাদী জমি অধিগ্রহন  প্রস্তাব করে মেঘনা নদীর অববাহিকায় কয়লা ভিত্তিক বিদ্যুৎ উৎপাদনের যে প্রস্তাব করা হয়েছে এর তীব্র বিরোধীতা করে জনস্বার্থে এই প্রকল্প বাতিলের দাবী জানিয়ে গতকাল এক বিক্ষোভ ও প্রতিবাদ সমাবেশ করেছে নিউইয়র্কে প্রবাসী গজারিয়াবাসী। এই প্রকল্প বাস্তবায়িত হলে এই এলাকার  হাজার হাজার মানুষ তাদের উর্বর আবাদী জমি হারিয়ে নিঃস্ব হয়ে যাবে। এই প্রকল্পের রাসায়নিক প্রতিক্রিয়া দেখা দিবে মেঘনার অববাহিকা জুড়ে মৎস্য শিকারে যা কিনা হাজার হাজার মৎস্য শিকারীর জীবন নির্বাহ করা কঠিন হয়ে পড়বে। ষোলআনী ও দৌলতপুর এলাকার প্রায় পাঁচ হাজার পরিবার যারা কৃষি নির্ভর ও মৎস্য চাষে নির্ভর তাদের জীবনে নেমে আসবে অর্থনৈতিক দুরবস্থা। বসতভিটাহীন হয়ে যাবে হাজার হাজার মানুষ। পুরো অঞ্চল জুড়ে দেখা দিবে হাহাকার। নিউইয়ক প্রবাসী গজারিয়াবাসী সরকারের এহন অদূরদর্শী সিদ্ধান্ত বাতিল করে গজারিয়ার কৃষি ও মৎস্য সম্পদ রক্ষায় এবং বিশাল এক জনগোষ্ঠির জীবন রক্ষায় কার্যকরী পদক্ষেপ প্রত্যাশা করি।
নিউইয়র্কে প্রবাসী গজারিয়াবাসী মূলত বিদ্যুৎ প্রকল্পের বিরোধী নয়। কিন্তু এই প্রকল্পটি কয়লা ভিত্তিক হওয়াতে যেহেতু পরিবেশ বান্ধব না, তাই এর বিরোধীতা করে এই প্রকল্পটি অন্য কোথাও জনমানব শূণ্য এলাকায় সরিয়ে নেওয়ার আহ্বান জানান।খবর বাপসনিঊজ
প্রতিবাদ সভায় উপস্থিত ছিলেন, ইকবাল হোসেন, শরীফা হোসেন, সোরহাব হোসেন, মইনুল ইসলাম কাজল, পেয়ার আহমেদ খান, দোলন, খোরশেদ আলম, আল মামুন, ইউসাবিন নুন তপন, জাকির হোসেন, আহসান উল্লাহ, বিলকিস আক্তার, রেজাউল করিম, মনির হোসেন, মোঃ কবির, হাওয়া বেগম, সামসুন নাহার, মর্জিনা বেগম, মোঃ মিজানুর রহমান, মোঃ ইব্রাহিম, মিরাজ, আলমগীর হোসেন, লাবলী আক্তার, বাবুল মোল্লা, মোঃ শফিকুল ইসলাম, মোঃ শাকিল, আমিরুল ইসলাম, মোঃ ইখন, মোঃ সলিমুল্লাহ, হাসান কবির, মোঃ আজিম প্রমুখ।


নিউইয়র্কে ড. এম এ ওয়াজেদ মিয়ার মৃত্যুবার্ষিকী পালিত

শনিবার, ১৩ মে ২০১৭

হাকিকুল ইসলাম খোকন: বাপ্ নিউজ :নিউইয়র্ক (যুক্তরাষ্ট্র) থেকে : বিশিষ্ট পরমাণু বিজ্ঞানী ড. এম এ ওয়াজেদ মিয়ার অষ্টম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে স্থানীয় সময় মঙ্গলবার সন্ধ্যায় নিউইয়র্কের জ্যাকসন হাইটসে মিলাদ মাহফিল ও আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ অনুষ্ঠানটি আয়োজন করে।

Picture

যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সভাপতি ড. সিদ্দিকুর রহমানের সভাপতিত্বে এবং ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সামাদ আজাদের সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় বক্তব্য দেন সংগঠনের উপদেষ্টা ডা. মাসুদুল হাসান, সিনিয়র যুগ্ম সম্পাদক নিজাম চৌধুরী, যুগ্ম সম্পাদক খাইরিন পারভিন, সাংগঠনিক সম্পাদক ফারুক আহমেদ, মহিউদ্দিন দেওয়ান, আব্দুল হাছিব মামুন, কোষাধ্যক্ষ আবুল মনসুর খান, প্রবাসীকল্যাণ সম্পাদক সোলায়মান আলী, উপ-প্রচার সম্পাদক তৈয়বুর রহমান টনি, কার্যকরী সদস্য খোরশেদ খন্দকার, নিউইয়র্ক স্টেট আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহীন আজমল, সহ-সভাপতি একেএম আলমগীর প্রমুখ।
 alt
আলোচনা সভায় ড. সিদ্দিকুর রহমান বলেন, ২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে উন্নত দেশ দেশ হিসাবে গড়তে হলে আমাদের প্রত্যেককে ড. এম এ ওয়াজেদ মিয়ার মত সৎ মানুষ হতে হবে। দেশের জন্য বঙ্গবন্ধু পরিবারের যে আত্মত্যাগ, তা অনুসরণ করে আমাদের প্রত্যেকের উচিত সৎ জীবনযাপনের শপথ নেওয়া।
 alt
সভায় অন্যান্য বক্তারা বলেন, ড. এম এ ওয়াজেদ মিয়াকে একজন সৎ ও নির্মোহ ব্যক্তি ছিলেন। ক্ষমতার কেন্দ্রবিন্দুতে থাকার পরও তিনি কখনো ক্ষমতার অপব্যবহার করেননি। বরং তিনি দেশ ও মানুষের জন্য নিবেদিন প্রাণ হিসাবে কাজ করে গেছেন।আলোচনা সভার শুরুতে ড. এম এ ওয়াজেদ মিয়ার রুহের মাগফিরাত কামনায় দোয়া ও মোনাজাত করা হয়। দোয়া ও মোনাজাত পরিচালনা করেন ইমাম কাজী কাইয়্যুম।


মুক্তিযোদ্ধা আবুল বাশারের ৮তম মৃত্যুবার্ষিকী পালিত হবে ২০ শনিবার

শনিবার, ১৩ মে ২০১৭

হাকিকুল ইসলাম খোকন ,বাপসনিউজ : বৃহত্তর কুমিল্লার ব্রাক্ষণবাড়িয়া জেলার কৃতি সন্তান, ১৯৭১-এর মুক্তিযোদ্ধের কমান্ডার , রাজনীতিবিদ, ব্যবসায়ী, সমাজসেবক, ব্রাক্ষণবাড়িয়া জেলা ছাত্র লীগের সাবেক সভাপতি জননেতা কমান্ডার আবুল বাশারের ৮তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে বিজয় নগর উপজেলা সোসাইটি যুক্তরাষ্ট্র-এর উদ্যোগে ২০ মে শনিবার সন্ধ্যা ৭টায় নিউইয়র্কের বাঙ্গালী অধ্যুষিত ১৬৮ হিলসাইডস্থ এভিনিউ জ্যামাইকার কিং কাবাব রেষ্টুরেন্টে এক আলোচনা সভা ও বিশেষ দোয়ার আয়োজন করা হয়েছে। খবর বাপসনিঊজ।


উক্ত অনুষ্ঠানে বিজয় নগর উপজেলা, ব্রাক্ষণ বাড়িয়া প্রবাসীসহ সকল প্রবাসীদের স্বাদর আমন্ত্রণ জানিয়েছেন সভাপতি শাহ মোয়াজেম আহমেদ ও সাধারন সম্পাদক খাদেমুল ইসলাম।


নিউইয়র্কের ব্রঙ্কসে হেলাল শেখকের নির্বাচনি বিশাল ফান্ডরেজিং ডিনার

শনিবার, ১৩ মে ২০১৭

বাপ্ নিউজ :নিউইয়র্ক (যুক্তরাষ্ট্র) থেকে : নিউইয়র্ক সিটি কাউন্সিলে বাংলাদেশী প্রতিনিধি প্রেরণের প্রত্যয়ের মধ্য দিয়ে সিটির কুইন্স ডিস্ট্রিক্ট ৩২ এর কাউন্সিলম্যান পদপ্রার্থী হেলাল আবু শেখের বিশাল ফান্ডরেজিং ডিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে ব্রঙ্কসে। গত ৬ মে শনিবার রাতে ব্রঙ্কস বাংলাদেশী কমিউনিটি এ ফান্ডরেজিং অনুষ্ঠানের আয়োজন করে বাঙালী অধ্যুষিত ব্রঙ্কসের মামুন’স টিউটোরিয়ালে।alt

ফান্ডরেজিং ডিনারে আগামী ১২ সেপ্টেম্বর অনুষ্ঠেয় ডেমোক্র্যাটিক দলীয় প্রাইমারী নির্বাচনে কাউন্সিলম্যান পদপ্রার্থী হেলাল আবু শেখকে নিউইয়র্ক সিটির প্রথম বাংলাদেশী-আমেরিকান কাউন্সিলম্যান হিসেবে নির্বাচিত করার আহ্বান জানানো হয়।

alt

উল্লেখ্য, নিউ ভিশান, নিউ ডিরেকশান – এ স্লোগানকে সামনে নিয়ে নিউইয়র্ক সিটির কুইন্স ডিস্ট্রিক্ট ৩২ (বেলী হারবার, ব্রিজি পয়েন্ট, বোর্ড চ্যানেল, হেমিলটন বীচ, হাওয়ার্ড বীচ, লিন্ডেন উড, নেপনসিট, ওজন পার্ক, রকওয়ে বীচ, রকওয়ে পার্ক, সাউথ ওজনপার্ক, সাউথ রিচমন্ড হিল এবং উড হ্যাভেন) থেকে কাউন্সিলম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন হেলাল আবু শেখ। ডেমোক্র্যাটিক দলীয় প্রাইমারী নির্বাচন আগামী ১২ সেপ্টেম্বর অনুষ্ঠিত হবে।

alt

মামুন’স টিউটোরিয়ালের প্রিন্সিপাল বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ শেখ আল মামুনের সভাপতিত্বে এবং ডা. নাহিদ খানের পরিচালনায় এ অনুষ্ঠানে কাউন্সিলম্যান প্রার্থী হেলাল আবু শেখ ছাড়াও অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ আমেরিকান কমিউনিটি কাউন্সিলের প্রেসিডেন্ট আইনজীবী মো. এন মজুমদার, ব্যান্ডস’র প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি আব্দুস শহিদ, যুক্তরাষ্ট্র বিএনপির সাবেক সহ সভাপতি আলহাজ্ব সোলায়মান ভূইয়া, ব্রঙ্কস থেকে নির্বাচিত সাবেক স্টেট এসেম্বলীম্যান এরিক এ স্টেভেনসন, বাংলাদেশ সোসাইটির বোর্ড অব ট্রাষ্টি আব্দুল হাসিম হাসনু, ইউএসএনিউজঅনলাইন.কম সম্পাদক ও টিভি উপস্থাপক সাখাওয়াত হোসেন সেলিম, ভোরের কাগজের নিউইয়র্ক প্রতিনিধি শামিম আহমেদ, উলামা সোসাইটি ইউএসএ’র সাধারণ সম্পাদক ও বাংলাবাজার জামে মসজিদের খতীব মাওলানা আবুল কাশেম ইয়াহইয়া, বাংলাদেশ সোসাইটি অব ব্রঙ্কসের সাবেক সভাপতি মাহবুব আলম, সাধারণ সম্পাদক সেবুল খান মাহবুব, ব্রঙ্কস বাংলাদেশ alt

এসোসিয়েশনের সভাপতি এ ইসলাম মামুন, বাংলাদেশী কমিউনিটি অব নর্থ ব্রঙ্কসের সাধারণ সম্পাদক মঞ্জুর চৌধুরী জগলুল, ব্যান্ডস’র সাধারণ সম্পাদক শামিম মিয়া, যুগ্ম সম্পাদক জামাল হোসেন, ফেঞ্চুগঞ্জ অর্গেনাইজেশনের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আহবাব চৌধুরী খোকন ও সাবেক আহবায়ক জুনেদ আহমদ চৌধুরী, বাংলাদেশী আমেরিকান alt

উইম্যান এসোসিয়েশনের প্রেসিডেন্ট রেক্সোনা মজুমদার, বৃহত্তর কুমিল্লা সমিতির সহ সভাপতি খবির উদ্দিন ভূইয়া, ফ্রেন্ডস অব হেলাল এ শেখ ফান্ডরেজিং কমিটির মেম্বার সেক্রেটারী আতাউল গনি আসাদ ও মাওলানা রশিদ আহমেদ প্রমুখ।

alt

অনুষ্ঠানে জালালাবাদ এসোসিয়েশনের সাবেক সহ সভাপতি বাছির খান, কমিউনিটি এক্টিভিস্ট মোহতাসিম বিল্লাহ তুষার, রাশেদুল ইসলাম শিশু, বুরহান উদ্দিন, চৌধুরী মোমিত তানিম, কবি জুলি রহমান, পলি শাহিনা, অনুপ কুমার, মনিকাসহ বিপুল সংখ্যক প্রবাসী বাংলাদেশী উপস্থিত ছিলেন।alt

হেলাল আবু শেখ এর তার সমর্থনে আয়োজিত ব্যতিক্রমী এ ফান্ড রেইজিং ডিনারে বাংলাদেশী কমিউনিটিসহ সকলের সার্বিক সহযোগিতা কামনা করেন। তাকে সমর্থনের জন্য তিনি বাংলাদেশী কমিউনিটির প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান। তিনি বলেন, পাবলিক স্কুলে মুসলমান ছাত্রদের জন্য হালাল খাবার সরবরাহসহ বাংলাদেশী কমিউনিটিসহ ইমিগ্রেন্টদের বিভিন্ন দাবি দাওয়া আদায়ে তিনি সদা সোচ্চার থাকবেন।alt

অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন, সকল ভেদাভেদ ভুলে ঐক্যবদ্ধভাবে এ গুরুত্বপূর্ণ নির্বাচনে হেলাল শেখের পাশে দাঁড়াতে হবে। নিশ্চিত করতে হবে তার বিজয়। নির্বাচিত হলে তিনি সিটি কাউন্সিলে বাংলাদেশী প্রতিনিধি হিসেবে কমিউনিটির অধিকার আদায়ে জোরালো ভূমিকা রাখবেন। সে অধিকার ভোগের জন্যে প্রয়োজন সকলের সচেতনতা।alt

অনুষ্ঠানে কতিা আবৃত্তি করেন কবি জুলি রহমান ও পলি শাহিনা। সঙ্গীত পরিবেশন করেন শিল্পী অনুপ কুমার।


বাংলাদেশি পান-সুপারি-ঝাল-মুড়িওয়ালা সানোয়ারের জন্য নিউইয়র্কে আন্দোলন

শনিবার, ১৩ মে ২০১৭

হাকিকুল ইসলাম খোকন: বাপ্ নিউজ : নিউইয়র্ক : ৮৬ বছর বয়সী সানোয়ার আহমেদ যুক্তরাষ্ট্রের সবচেয়ে প্রবীণ ভ্রাম্যমাণ দোকানিদের একজন। সুন্দর ও নিরাপদ জীবনের প্রত্যাশায় ২৭ বছর আগে যুক্তরাষ্ট্রে এসেছেন মৌলভীবাজারের সন্তান সানোয়ার। শত চেষ্টা করেও এখন পর্যন্ত গ্রিনকার্ড পাননি। তাই বাধ্য হয়েই অবৈধ অভিবাসী হিসেবে দিনাতিপাত করছেন। প্রতি মুহূর্তেই তাড়া করে ফিরছে গ্রেফতার আর আমেরিকা থেকে বহিস্কার হওয়ার আতঙ্ক।পেটের দায়ে নিউইয়র্কের রাস্তায় অনেকের দান-দক্ষিণায় সাজিয়েছিলেন পান-সুপারি আর ঝাল-মুড়ির দোকান। উত্তর আমেরিকায় বাংলাদেশিদের রাজধানী খ্যাত নিউইয়র্ক সিটির জ্যাকসন হাইটসে ৭৩ স্ট্রিটে পড়ন্ত বয়সী সানোয়ারের এ দোকান সকলেরই দৃষ্টি কাড়ে। সহানুভূতিতে অনেকে ঝাল-মুড়ি ক্রয়ও করেন। ওয়ার্ক পারমিট না থাকায় মধ্য বয়সেও যেমন প্রত্যাশিত চাকরি পাননি, এই পড়ন্ত বয়সে সে সুযোগ আর নেই। তবুও হাল ছাড়েননি সানোয়ার।

alt

দেশে রেখে আসা স্ত্রী-সন্তানের কথা ভেবে খরতাপ আর হাড় কাঁপানো শীতেও রাস্তায় দাঁড়িয়ে ঝাল-মুড়ি-পান-সুপারি বিক্রি করেন। কিন্তু এটিও কারও কারও সহ্য হচ্ছে না। ওই রাস্তার পার্শ্ববর্তী বাংলাদেশ প্লাজার কোনো ব্যবসায়ী ফোন করেন পুলিশকে। সিটির স্বাস্থ্য দফতরের কর্মকর্তাসহ পুলিশ এসে কয়েক দফা জরিমানার টিকিট দেয়। তিন দফায় জরিমানা টিকেট আসায় সানোয়ার স্থানীয় আদালতকে জানান। আদালত তাতে বিস্ময় প্রকাশ করেছেন। কিন্তু তাতে নিউইয়র্কের পুলিশ থেমে থাকেনি। কয়েক মাস আগে সানোয়ারের সেই ‘স্বপ্নের ঝাল-মুড়ি’র দোকান জব্দ করে নিয়ে যায়।

Picture

সানোয়ারের এমন অসহায় অবস্থায় মাঠে নামে স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা দেশিজ রাইজিং আপ মুভিং (ড্রাম)। তারা সিটি স্বাস্থ্য দফতরে গেলে জানানো হয় যে, নিকটস্থ প্রেসিঙ্কটে নেয়া হয়েছে দোকানটি। প্রেসিঙ্কটে গেলে পুলিশ জানায় যে, সেটি গার্বেজ করা হয়েছে। অথচ ওই দোকানটিই ছিল সানোয়ারের জীবিকার একমাত্র অবলম্বন। অবশেষে ড্রামের সহায়তায় সানোয়ার মামলা করেছেন নিউইয়র্ক সিটির বিরুদ্ধে। তার সাথে নির্দয় ও নিষ্ঠুর আচরণের এ মামলায় সামিল হবেন আরও অনেক ভ্রাম্যমাণ দোকানিরা। কারণ, নিউইয়র্কের স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মীরা পুলিশের সহায়তায় তাদের সঙ্গে যে আচরণ করেছেন, তা সভ্যতার পরিপন্থি এবং নাগরিক অধিকারের লংঘন।

সোমবার জ্যাকসন হাইটসে দেশিজ রাইজিং আপ মুভিংয়ের কার্যালয়ে সানোয়ার বলেন, এর আগে আরও তিনবার আমাকে হাজার ডলারের টিকিট দেয়। প্রথমবারের টিকিটের জরিমানা কয়েক কিস্তিতে পরিশোধের পরই আরেকটি দেয়। সেটিও কিস্তিতে পরিশোধ করছিলাম। তেমনি অবস্থায় আরেকটি টিকিট দেয় স্বাস্থ্য বিভাগ। এ দুটি টিকিট হাতে দেখে আদালত বিস্ময় প্রকাশ করেছেন। আমি এমন নিষ্ঠুর আচরণের বিচার চাই।

 alt

আরবান জাস্টিস সেন্টার নামক একটি প্রতিষ্ঠানের অ্যাটর্নি ম্যাথিউ সারপো বলেন, জীবিকার জন্যে ভ্রাম্যমাণ রাস্তায় অস্থায়ী দোকান সাজিয়েছেন। এটি তাদের মানবিক অধিকার। এজন্যে স্বাস্থ্য বিভাগ এমন বর্বর আচরণ করতে পারে না, যা পেটে লাথি দেয়ার মতো হয়। আমরা এমন আচরণ বন্ধের পাশাপাশি ক্ষতিপূরণ দাবিতে মামলা করতে বাধ্য হয়েছি।  

উল্লেখ্য, নিউইয়র্ক সিটির জ্যাকসন হাইটসে ৭৩ স্ট্রিট বাংলাদেশিদের দখলে। এই স্ট্রিটেরই বাংলাদেশ প্লাজার সামনে ‘ঝাল-মুড়ি-পান-সুপারি’র দোকান বসিয়েছেন সানোয়ার। কে বা কারা তাকে সেখান থেকে সরিয়ে দেয়ার মতলবে মাঝে মধ্যেই পুলিশ ডেকে থাকেন। সম্প্রতি দেশিজ রাইজিং আপ মুভিংয়ের সহায়তায় সানোয়ার আবার দোকান সাজিয়েছেন।

সানোয়ার বলেন, দেশে স্ত্রী-সন্তানদের টাকা পাঠাতে পারছি না কয়েক মাস যাবৎ। অর্থাভাবে ছেলেটি লেখাপড়া ঠিক রাখতে পারছে না। তাদের জন্য ‘ঝাল-মুড়ি-পান-সুপারি’র এই দোকান চালিয়ে যেতে আমি সকলের সহায়তা চাই।


জর্জিয়ার প্রবাসি বাংলাদেশের আফনান আমেরিকার ‘মাস্টারশেফ জুনিয়র’

শনিবার, ১৩ মে ২০১৭

বাপ্ নিউজ :জর্জিয়া থেকে : হেঁশেলে রান্না করছেন মা, তাঁর আঁচল ধরে পাশেই দাঁড়িয়ে সন্তান। এমন ছবি তো চিরায়ত। কিন্তু এমন হেঁশেল কি খুব একটা দেখা যায়, যেখানে মায়ের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে রাঁধবে ১২ বছরের ছোট্ট ছেলেটিও। আফনানের বাসার দৃশ্যপট এমনই। আফনান নয়, আফনানের মা তাঁর ছেলের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে রাঁধেন প্রায় দিনই। তাও সব সময় টেক্কা দিতে পারেন না খুদে সেই রন্ধনশিল্পীকে। পারবেনই বা কী করে, ছেলে যে ‘মাস্টারশেফ’।ভিনদেশি চ্যানেল স্টার ওয়ার্ল্ডে আফনান নামের ১২ বছরের এক ছেলে হেঁশেল কাঁপিয়ে রান্না করছে! তার চোখ-মুখ, অভিব্যক্তি, বাচনভঙ্গিতে বাঙালিপনা। কে এই আফনান? সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ঘেঁটে দেখা গেল, ছেলেটি আসলে বাংলাদেশেরই। ‘মাস্টারশেফ জুনিয়র ইউএস’-এর পঞ্চম মৌসুমের সেরা ১০-এ উঠে এসেছে সে। লড়াই করছে যুক্তরাষ্ট্রের পাকা পাকা খুদে রাঁধুনির সঙ্গে। পুরো নাম আফনান আহমেদ।

alt

আফনানের পরিবার থাকে যুক্তরাষ্ট্রের জর্জিয়ার আটলান্টায়। আফনানের ব্যাপারে জানতে যোগাযোগ করা হয় তার বাবা সৈয়দ আহমেদ সোহেলের সঙ্গে। জানা যায়, আফনানদের বাড়ি চট্টগ্রামের নাসিরাবাদে। মা-বাবার একমাত্র ছেলে সে। আফনান এখন সেরা–১০ ‘জুনিয়র মাস্টারশেফ’-এর একজন। এগিয়ে আছে অনেক শ্বেতাঙ্গ ‘জুনিয়র’ রাঁধুনির চেয়ে। তাকে নিয়ে আটলান্টায় এখন দারুণ উচ্ছ্বাস। আফনান অংশ নিচ্ছে বড় বড় টিভি টক শো, রান্নার অনুষ্ঠানে। সেখানে সে রাঁধছে, বলছে তার অনুপ্রেরণার কথা। আফনান বলে, মা শামীমার কাছ থেকে তার রান্না শেখা শুরু। মা-ই তার অনুপ্রেরণা।

alt

বাংলাদেশের দর্শকেরা এই অনুষ্ঠানের অষ্টম পর্ব দেখবেন কাল রোববার। আর যুক্তরাষ্ট্রের দর্শকেরা এরই মধ্যে চূড়ান্ত পর্বের কাছাকাছি দেখে ফেলেছেন। পর্ব প্রচারের দিক থেকে এগিয়ে আছে যুক্তরাষ্ট্র। তবে আমরা আজ আফনানের মাস্টারশেফ প্রতিযোগিতার ফলাফলে যাব না, আমরা কথা বলব নিজ দেশ থেকে অনেক দূরে বড় হওয়া বাংলাদেশের এই ছেলেকে নিয়ে। সেই আফনান, যে ভিনদেশি এক রিয়েলিটি শোতে নানাভাবে বাংলাদেশ এবং দেশি খাবারকে তুলে ধরার চেষ্টা করছে। আফনান আহমেদ এখন পড়ছে যুক্তরাষ্ট্রের জর্জিয়ার ইউনিয়ন গ্রুভ মিডেল স্কুলে, সপ্তম শ্রেণিতে। সামনেই বার্ষিক পরীক্ষা তার। পড়ালেখা, প্রতিযোগিতার চাপ সব সামলে আফনান প্রথম আলোর সঙ্গে কথা বলল। জানাল তার ‘মাস্টারশেফ জুনিয়র’-এর সফরের কথা।

পরিপাটি ছেলেটি টিভিতে ইংরেজিতে কথা বললেও ফোনে কথা বলার শুরুতেই শুদ্ধ বাংলা বলে, ‘কেমন আছেন?’ এরপর বলতে থাকল মাস্টারশেফের অভিজ্ঞতা। মাস্টারশেফ জুনিয়র ইউএস-এর প্রথম ধাপে আফনান ৫ হাজার শিশুর মধ্য থেকে সেরা ৫০ খুদে শেফের তালিকায় উঠে আসে। সেখান থেকে সেরা ৪০, এরপর ২৪ এবং সবশেষ সেরা ১০-এ। আফনান এ পর্যন্ত অনেকের চেয়ে এগিয়ে আছে। কয়েকবার সে জিতেছে ইমিউনিটি চ্যালেঞ্জ, চলে গেছে সেফ জোনে। তার রান্না করা রেসিপি হয়েছে প্রতিযোগিতায় সেরা। বিখ্যাত শেফ গর্ডন র্যামসে ও ক্রিস্টিনা টোসিও আফনানের রান্নায় মুগ্ধ।

alt

আফনানের মা শামীমা এবং বাবা সৈয়দ সোহেল আহমেদ প্রায় বছর ২০ আগে যুক্তরাষ্ট্রে পাড়ি জমিয়েছেন। আফনানের জন্মও সে দেশেই। তবে দেশে আছে আফনানের দাদা-দাদিসহ পুরো পরিবার। চট্টগ্রামের নাসিরাবাদে আফনানের দাদাবাড়ি, আর আলকরনে নানাবাড়ি। বেশ কয়েকবার বাবা-মায়ের সঙ্গে এসেছে বাংলাদেশে। শেষবার আফনান দেশে এসেছিল চার বছর আগে। সে সময় ঢাকায় ও চট্টগ্রামে থাকা পরিবারের সঙ্গে লম্বা সময় কাটিয়েছে আফনান। দেশের কথা জিজ্ঞেস করতেই আফনান বলল, ‘স্কুলে ভ্যাকেশন (ছুটি) শুরু হলে দেশে আসতে চাই। সবার সঙ্গে দেখা করতে চাই। দেশে এসে যারা আমার রান্না পছন্দ করেছে, তাদের সঙ্গে রান্না নিয়ে কথা বলতে চাই।’

মা শামীমার কাছ থেকে আফনানের রান্নার হাতেখড়ি। মায়ের কাছ থেকে দেশি কায়দায় মসলা দিয়ে গরুর মাংস রান্না করতে শিখেছে আফনান। তবে মায়ের হাতে কালাভুনার সঙ্গে টক্কর দেওয়ার মতো ডিশ রান্না করার সাহস নাকি আফনান এখনো করতে পারে না। আফনান বলে, ‘দেশি খাবার আমার খুব পছন্দের। বিশেষ করে আমাদের চিটাগংয়ের খাবার। মায়ের হাতের মেজবানি গোশত খুব মজা হয়। আমি এখনো ওটা রাঁধতে পারি না। মা টমেটো-আলু দিয়ে তেলাপিয়া মাছ রান্না করে, সেটাও আমার খুব প্রিয়।’

রান্না নিয়ে আফনানের ভাবনাগুলো খুব আধুনিক। দেশি খাবারকে তুলে ধরতে চায় ভিনদেশি উপস্থাপনার মধ্য দিয়ে। আফনান তার এই ভাবনাকে বলছে ‘গ্লোবাল’ ফিউশন। প্রতিযোগিতায় বেশ কয়েকবার সে এভাবেই দেশি খাবারের সঙ্গে পাশ্চাত্যের ধারা মিলিয়েছে। খিচুড়ি রান্না করেছে, রুটি বানিয়েছে, তবে সবকিছুতেই যোগ করেছে পশ্চিমা উপস্থাপনার কায়দা।

আফনান বড় হয়ে হতে চায় নিউরোসার্জন। আর রান্না নিয়ে স্বপ্ন হলো, বাংলায় একটা টিভি শো করার ইচ্ছা তার। সেখানে দেশি খাবারগুলো নিয়ে আফনানের যত আধুনিক ভাবনা, সবই তুলে ধরতে চায়।